Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

 অগ্নিযোদ্ধা তানিয়া

হাতে সময় মাত্র ২ মিনিট ১৮ সেকেন্ড, আর সেটাই হচ্ছে সারভাইভাল টাইম। বিমান দুর্ঘটনা ঘটলে, এটুকু সময়ের মধ্যেই যা করার করতে হবে। উদ্ধার কাজ শেষ করার জন্য বরাদ্দ এই সময়টাকে কাজে লাগাতে না পারলে প্রাণ বাঁচানো যাবে না বিমানযাত্রী এবং কর্মীদের। তাই গোটা প্রক্রিয়াটাই খুব চ্যালেঞ্জিং। সেখানে আবার পুরুষের আধিপত্যই বেশি। নারীর উপস্থিতি সেখানে দূরবিন দিয়ে দেখতে হয়।
দমদম মেট্রো রেল স্টেশনের কাছে সেন্টার সিঁথি রোড নিবাসী তানিয়া সান্যালকে এই চ্যালেঞ্জটাই খুব নাড়া দিয়েছিল। জীবনকে বাজি রেখে জীবন রক্ষার এই যুদ্ধে তাই শামিল হতে চেয়েছিলেন তিনি। বলছিলেন বছর ২৭-এর তানিয়া।
উদ্ভিদবিদ্যা নিয়ে ২০১৫ সালে স্নাতকোত্তর সম্পূর্ণ করার পর তৈরি হচ্ছিলেন সরকারি চাকরির পরীক্ষার জন্য। তখনই নজরে আসে বিজ্ঞাপনটি। ২০১৭ সালে ‘জুনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ইন ফায়ার সার্ভিস’ পদে লোক চেয়েছিল বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। চাকরিটা বেশ অন্যরকম ভেবে চোখ বন্ধ করে অ্যাপ্লাই করেছিলেন তানিয়া। তারপর? পিছনে ফিরে আর তাকাতে হয়নি। একের পর এক হার্ডল পেরিয়ে এখন তিনি বিমানবন্দরের কাছে নারায়ণপুরের ‘কলকাতা এয়ারপোর্ট ফায়ার ট্রেনিং সেন্টার’-এর একজন প্রশিক্ষক। এবং শুধু কলকাতা বা পশ্চিমবঙ্গের নয়, গোটা দেশের প্রথম মহিলা বৈমানিক অগ্নি নির্বাপণকারী। একটু অন্যধরনের পেশার প্রতি তাঁর আকর্ষণ বরাবরই ছিল।
আগামী দিনের হবু অগ্নি যোদ্ধাদের প্রস্তুত করার দায়িত্ব এখন এই বঙ্গকন্যার উপরেই ন্যস্ত।
ভুবনেশ্বরের আর্মি ব্যারাকে ট্রেনিং নেওয়ার সময় ল্যাডার ক্লাইম্বিং, রোপ ক্লাইম্বিং করতে হতো। পিঠে ৪০ কেজি ওজন চাপিয়ে দৌড়তে হতো ৫০ মিটার। আবার ১০০ মিটার অতিক্রম করতে হতো ২০ সেকেন্ডে। ড্রাইভিং প্রশিক্ষণে চালাতে হয়েছে বাসের মতো হেভি ভেহিকেলস। প্রতিদিন সাড়ে তিন ঘণ্টার গ্রাউন্ড অ্যাকটিভিটির ট্রেনিংয়ের নানা শারীরিক কসরত ছাড়াও ছিল থিওরিটিকাল ক্লাস। যেখানে শিখতে হতো টেকনিকের নানা খুঁটিনাটি। হোসপাইপের নজল দিয়ে জেটগতিতে বেরিয়ে আসা জলের গতি ঠিক রাখা বা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ফোম ছড়ানোর কৌশল আয়ত্ত করা ছিল ওই টেকনিক শিক্ষার অন্তর্গত।
তানিয়া বলছিলেন, ২০১৮ সালের জুলাই মাসে দিল্লি থেকে সাড়ে চার মাসের ফাইনাল ট্রেনিং শেষ করার পর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ আমাকে জানান যে, আমিই একমাত্র এবং প্রথম মহিলা এই পেশাতে। প্রথমে রোমাঞ্চিত হই। কারণ আমার আইডল যিনি সেই কিরণ বেদীও ছিলেন তাঁর পেশায় প্রথম মহিলা। তাঁর মতোই কর্মজীবনে ঝুঁকি নেব বলেই আমারও আসা এই পেশাতে। প্রায় দেড় বছর যাবৎ আমি কলকাতার ট্রেনিং সেন্টারে জুনিয়র অ্যাসিস্টেন্ট হিসাবে এখন কর্মরত।
এখন অবধি কলকাতা বিমানবন্দরে বড় কোনও বিপর্যয় না হওয়ায় সরাসরি দুর্ঘটনা সামলানোর অভিজ্ঞতা তানিয়ার হয়নি। তবে সব সময় আপৎকালীন পরিস্থিতির মোকাবিলা করার জন্য নিজেকে তৈরি রাখতে হয়, বলছিলেন তানিয়া। তাই মাঝে মাঝে মক ফায়ার ড্রিলে অংশ নিতে হয়। নকল মহড়ার সেই যুদ্ধে ব্রিদিং অ্যাপারেটার্স, এক্সিমিটি স্যুট পরে লড়াই করতে হয় আগুনের সঙ্গে।
আর এয়ারপোর্ট বা বিমানবন্দরের রানওয়ের ধারে আগুন নেভানোর যাবতীয় আধুনিক সরঞ্জামে সুসজ্জিত যে গাড়িটা এই কাজে বিমানবন্দরের দমকল কর্মীদের সবচেয়ে বড় হাতিয়ার, অস্ট্রিয়ার রোজেনবার্গ কোম্পানির সেই সি.এফ.টি বা ক্র্যাশ ফায়ার টেন্ডার নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার কৌশলে নিয়মিত শান দেওয়া রপ্ত করতে হয় দুর্ঘটনা না ঘটার দিনগুলিতেও।
কিশোরকুমার সান্যাল ও রুমা সান্যালের ছোট মেয়ে শান্তশিষ্ট চেহারার তানিয়াকে দেখলে বোঝাই যায় না যে, সে এখন অনুপ্রেরণা জোগায় বাংলার অন্য মেয়েদের। চায়, পুরুষশাসিত এই সমাজে আড়ালে না থেকে সাহস করে এগিয়ে আসুক অন্য মেয়েরাও।
সম্প্রতি সেফটি অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার সেফটি অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী, সিঁথি রামকৃষ্ণ সংঘ সারদা বিদ্যামন্দিরের এই প্রাক্তন ছাত্রীটি স্কুলজীবনে লেখাপড়াতে কৃতিত্বের পাশাপাশি, স্কুল স্পোর্টসেও নজর কাড়তেন নিয়মিত। দিদি তনিমার মতো ভালোবাসতেন শাস্ত্রীয় নৃত্য।
ভুবনেশ্বরে ট্রেনিং নিতে যাওয়ার আগে দিদির তত্ত্বাবধানে পাইকপাড়ার টালা পার্কে রোজ সকালে তাঁকে দেখা যেত দৌড়-ঝাঁপ করতে। তাই অগ্নিযোদ্ধা হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় শারীরিক সক্ষমতা ছিলই। সঙ্গে ছিল লক্ষ্যে পৌঁছানোর অদম্য ইচ্ছা। যা আজ তানিয়াকে পৌঁছে দিয়েছে ‘প্রথম’ হওয়ার শিখরে।
কৌশিক বসু
09th  November, 2019
অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় রাকুল 

রাকুল প্রীত সিংয়ের কেরিয়ার শুরু মডেলিং দিয়ে। এখন তিনি দক্ষিণের এবং বলিউডের ব্যস্ততম নায়িকা। নিজের লাইফস্টাইেলর কথা জানালেন রাকুল। 
বিশদ

16th  November, 2019
অ্যাথলেটিক্সে নয়া নজির
দুই মায়ের বিশ্বরেকর্ড 

অ্যাথলেটিক্সের ইতিহাসে দাপট এখন মেয়েদের, বলা চলে দুই মায়ের। যারা অসম্ভবকে সম্ভব করলেন। সম্প্রতি দোহায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে জামাইকার ‘স্প্রিন্ট কুইন’ শেলি অ্যান ফ্রেজার প্রাইস ১০০ মিটার দৌড়ে চার নম্বর সোনা জিতলেন দুর্দান্তভাবে।  বিশদ

16th  November, 2019
দুয়ের বেশি সন্তান মায়েদের
জন্য অশনিসংকেত 

দুয়ের বেশি সন্তান যে সব মায়েদের, তাঁদের জন্য আশঙ্কার খবর শুনিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। যাঁদের সন্তান সংখ্যা দুই বা তার বেশি তাঁরা স্বাস্থ্যগত ঝুঁকিতে রয়েছেন। সাম্প্রতিক এক গবেষণার শেষে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, নারীরা দুয়ের বেশি কয়টি সন্তানের জননী, তার ওপর নির্ভর করে তিনি কতটা স্বাস্থ্যগত ঝুঁকিতে রয়েছেন।   বিশদ

16th  November, 2019
পুরুষের তুলনায় ঘুমের
বেশি প্রয়োজন নারীদের 

নারী ও পুরুষের শারীরিক চাহিদা যে আলাদা সে কথা প্রায় সবারই জানা। যেমন পুরুষের তুলনায় নারীর ঠান্ডা লাগে বেশি। তেমনই ঘুম ব্যাপারটি পুরুষের তুলনায় নারীরই বেশি প্রয়োজন। সমীক্ষায় এমনই তথ্য সামনে এসেছে। সেখানে বলা হয়েছে নারীদের ঘুমের প্রয়োজন বেশি হওয়ার মূল কারণ দুটি। বিশদ

16th  November, 2019
নারীবাদ ও নারীমুক্তি  

মহিষাসুরের কবল থেকে স্বর্গরাজ্য উদ্ধারের জন্য দেবতাগণ দেবী দুর্গার আবাহন করেছিলেন। তিনি দশভুজা, অসুরদলনী এবং সর্বোপরি তিনি মা। নারীকে তুলনা করা হয় দেবী দুর্গার সঙ্গে। ঋগ্‌বেদের যুগে সমাজ ছিল মাতৃতান্ত্রিক। সেই সমাজে নারীই ছিল প্রধান।  বিশদ

16th  November, 2019
 শিশুর সামাজিক বিকাশে নারীর ভূমিকা

বর্তমান জীবনের প্রেক্ষাপটে বিশ্লেষণ করলে শিশু কতটা সফল তা অনেকটাই নির্ভর করে শিশুর সামাজিক বিকাশের উপর। সুন্দর সামাজিক বিকাশ শিশুকে পরবর্তী জীবনে করে তোলে সফল, সক্ষম ও সুনাগরিক। বিশদ

09th  November, 2019
 ৭৫ বছর ধরে মেয়েদের স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে
নারী সেবা সংঘ

  ১৯৪৩ সাল। সবে শেষ হয়েছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। দেশ তথা বাংলা তখন ভয়াবহ দুর্ভিক্ষের কবলে পড়ে প্রায় বিধ্বস্ত। আর সে সময়ই বাংলার কিছু সমাজ সচেতন ব্যক্তি এগিয়ে আসেন, দুর্ভিক্ষের কবলে পড়ে করুণ অবস্থার শিকার হওয়া মহিলা আর শিশুদের উপকার করার জন্য। বিশদ

09th  November, 2019
মানুষ চেনা খুব কঠিন: অন্বেষা হাজরা 

মেয়েটির ভূত দেখার খুব ইচ্ছে। তাই সে ভূত দেখার জন্য যখন তখন হানাবাড়িতে হানা দেয়। কিন্তু ভূতের বদলে সেখানে দেখা মেলে শুধুমাত্র চোরের। মেয়ের ভূত দেখার তাড়নায় অতিষ্ঠ হয়ে বাড়ির লোক মেয়েটিকে বলে যে, তাকে ভূতের বাড়িতেই বিয়ে দেবে। যেখানে শাশুড়ি হবে শাকচুন্নি আর ননদ হবে পেতনি। 
বিশদ

02nd  November, 2019
বিদ্যাসাগরের বিধবারা 

বঙ্গবিধবাদের জগন্নাথধাম ‘পালানো’ সম্পর্কে এই বর্ণনা পাওয়া যায় ১৮৪৯ সালের ‘সম্বাদ রসরাজ’ পত্রিকায়— ‘নগরেতে হইয়াছে গেল গেল রব।/ পলাইয়া ক্ষেত্রে যায় নরনারী সব।।/ কাহারো পলায়ে গেল বিধবা বহুড়ী।/ এর বাড়ি তার বাড়ি খুঁজিছে শাশুড়ী।।’  
বিশদ

02nd  November, 2019
মা দুর্গার আর এক অন্য রূপ জ গ দ্ধা ত্রী

মা জগদ্ধাত্রী মহাশক্তির প্রতীক, তিনি সর্বস্থানে বিচরিত, তিনি চির শাশ্বত। তাঁর ধ্যান মন্ত্রে পাওয়া যায়,
সিংহ স্কন্ধ সমারূঢ়াং নানালঙ্কার ভূষিতাং।
চতুর্ভুজাং মহাদেবীং নাগ যজ্ঞোপবীতিধারিণীং...
নারদাদ্যৈ মুনিগণৈঃ সেবিতাং ভবসুন্দরীয়।।  বিশদ

02nd  November, 2019
যুগে যুগে ভা ই ফোঁ টা 

‘ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমদুয়ারে পড়ল কাঁটা’— বোনেরা এই মন্ত্র উচ্চারণে কপালে চন্দনের ফোঁটা দিয়ে তাদের ভাইদের দীর্ঘায়ু কামনা করে। এই নিয়ম যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। কিন্তু এখন তো প্রায় সবাই একা একা বড় হচ্ছে। তাই আগেকার মতো ভাইফোঁটা সবাই কি পালন করতে পারে? নাকি ভাইফোঁটা হারিয়ে যাচ্ছে? 
বিশদ

26th  October, 2019
ডুব দে রে মন কালী বলে 

জব চার্নকের শহরে উত্তর থেকে দক্ষিণ অজস্র কালীবাড়ি রয়েছে। কোনও কালীবাড়ি সম্ভ্রান্ত পরিবারের রানির হাত ধরে, কোনওটা বা ফিরিঙ্গি সাহেবের প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। সারাবছর যে নিয়মই থাকুক না কেন দীপান্বিতা অমাবস্যায় অর্থাৎ কালীপুজোর বিশেষ দিনে কীভাবে পূজিত হন কলকাতার বিখ্যাত সব মন্দিরের মাতৃমূর্তি?
বিশদ

26th  October, 2019
মা কালী ও তন্ত্রসাধনা 

তন্ত্র সাধনার দেশ ভারতবর্ষ। সেই সুপ্রাচীন কাল থেকে ভক্ত তার সিদ্ধিলাভের জন্য তন্ত্র সাধনা করে আসছেন। যে সব দেব-দেবীর উদ্দেশ্যে তন্ত্র সাধনা হয়ে থাকে তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় দেবী হলেন কালী। বিভিন্ন উদ্দেশ্যে সাধক-সাধিকারা মা কালীর নানা রূপের সাধনা করেন। তন্ত্র সাধনা খুবই গুপ্ত ও কঠিন সাধনা। 
বিশদ

26th  October, 2019
দেবী কালিকার দেশমাতৃকা রূপ 

জাতীয়তাবাদের প্রথম ও সর্বশ্রেষ্ঠ পরিচয় ‘মা’ শব্দটি। মাতৃশক্তি এমনই বৈশিষ্ট্য সমন্বিত যে মাতৃজাতির সৃষ্টি না হলে দেশকে বা ভগবানকে মাতৃজ্ঞানে অর্চনা করার অধিকারী আমরা হতাম না। বিশ্বাত্মবোধ, জাতীয়তাবাদ ও স্বদেশপ্রেম চিরন্তনী এই ত্রিধারা শাশ্বত ভারতে মাতৃবন্দনার বিশ্বরূপ। দেশমাতারূপে মহাশক্তি মহামায়া মহাকালিকাকে প্রত্যক্ষ করা সেই প্রেরণারই জীবন্ত প্রতিমা। 
বিশদ

26th  October, 2019
একনজরে
 ফিরদৌস হাসান, শ্রীনগর,২০ নভেম্বর: বুধবার শ্রীনগরের বিধায়ক হোস্টেলে ‘বন্দি’ নেতাদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দিল কেন্দ্র। এই মুহূর্তে বিধায়ক হোস্টেলে ৩০ জন বিভিন্ন দলের নেতা বন্দি। তাঁদের সঙ্গে দেখা করে হোস্টেল থেকে বেরিয়েই ক্ষোভে ফেটে পড়লেন আত্মীয়-পরিজনেরা। ...

বিএনএ, কোচবিহার: এই প্রথম কলকাতার সল্টলেকে পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের উদ্যোগে প্রাথমিক শিক্ষকদের খেলাধুলোর বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। কোচবিহার জেলার পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি সূত্রে জানা গিয়েছে, কোচবিহার থেকে পাঁচজন প্রাথমিক শিক্ষক এই প্রশিক্ষণ নিতে গিয়েছেন।  ...

সংবাদদাতা, ইটাহার: ব্লক কৃষি দপ্তরের ‘সুধা’ (সুনিশ্চিত ধান) পদ্ধতিতে চাষ করে বিশেষ সফলতা পেলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ ব্লকের বিষ্ণুপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কলুয়া গ্রামের চাষি আবু শাহেদ। এঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই এলাকার অন্যান্য চাষিদের মধ্যে সুধা পদ্ধতিতে ধান চাষের ব্যাপারে উৎসাহ দেখা ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উপার্জন বেশ ভালো হলেও ব্যয়বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে সঞ্চয় তেমন একটা হবে না। শরীর খুব একটা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব টেলিভিশন দিবস
১৬৯৪: ফরাসি দার্শনিক ভলতেয়ারের জন্ম
১৮৭৭: ফোনোগ্রাফ আবিষ্কারের কথা জানালেন থমাস এডিসন
১৯৭০: নোবেলজয়ী পদার্থবিদ চন্দ্রশেখর বেঙ্কটরামনের মৃত্যু
১৯৭৪ - শিশু সাহিত্যিক পুণ্যলতা চক্রবর্তীর মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.১৭ টাকা ৭৩.৩৩ টাকা
পাউন্ড ৯০.৪৯ টাকা ৯৪.৮৫ টাকা
ইউরো ৭৭.৬২ টাকা ৮১.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৯৭৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৯৮০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৫৩৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, নবমী ১৩/৫০ দিবা ১১/২৯। পূর্বফাল্গুনী ৩১/২২ রাত্রি ৬/২৯। সূ উ ৫/৫৬/৪২, অ ৪/৪৮/০০, অমৃতযোগ দিবা ৭/২৩ মধ্যে পুনঃ ১/১১ গতে ২/৩৮ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪১ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৯ গতে ৩/১৯ মধ্যে পুনঃ ৪/১২ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ২/৫ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/২২ গতে ১/০ মধ্যে।
৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, নবমী ৮/১৫/৩৯ দিবা ৯/১৭/৩। পূর্বফাল্গুনী ২৮/৯/৬ সন্ধ্যা ৫/১৪/২৫, সূ উ ৫/৫৮/৪৭, অ ৪/৪৭/৪৮, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৪ মধ্যে ও ১/১৫ গতে ২/৪০ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৯/১৫ মধ্যে ও ১১/৫৫ গতে ৩/২৯ মধ্যে ও ৪/২২ গতে ৬/০ মধ্যে, বারবেলা ৩/২৬/৪১ গতে ৪/৪৭/৪৮ মধ্যে, কালবেলা ২/৫/৩৩ গতে ৩/২৬/৪১ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/২৩/১৭ গতে ১/২/১২ মধ্যে।
২৩ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
গোটা দেশে এনআরসি হবে: অমিত শাহ 
গোটা দেশে এনআরসি হবে বলে রাজ্যসভায় জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত ...বিশদ

20-11-2019 - 04:31:00 PM

পর্ণশ্রীতে গ্যাস সিলিন্ডার চুরি, ধৃত ২ 

20-11-2019 - 03:18:00 PM

নরেন্দ্রপুরে দম্পতির রহস্যমৃত্যু 
নরেন্দ্রপুরে এক দম্পতির দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য। আজ সকালে নরেন্দ্রপুরের ...বিশদ

20-11-2019 - 02:34:00 PM

মায়ের বকুনি, অভিমানে আত্মঘাতী সপ্তম শ্রেণীর পড়ুয়া 
পড়াশোনা নিয়ে মায়ের বকুনির জেরে অভিমানে আত্মঘাতী হল সপ্তম শ্রেণীর ...বিশদ

20-11-2019 - 01:38:34 PM

আসানসোলে ৫ কুখ্যাত দুষ্কৃতী গ্রেপ্তার 
ডাকাতির উদ্দেশ্যে জরো হওয়া পাঁচ কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করল আরপিএফের ...বিশদ

20-11-2019 - 01:32:39 PM

মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিতে সভামঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

20-11-2019 - 01:26:09 PM