Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

মানুষ চেনা খুব কঠিন: অন্বেষা হাজরা 

মেয়েটির ভূত দেখার খুব ইচ্ছে। তাই সে ভূত দেখার জন্য যখন তখন হানাবাড়িতে হানা দেয়। কিন্তু ভূতের বদলে সেখানে দেখা মেলে শুধুমাত্র চোরের। মেয়ের ভূত দেখার তাড়নায় অতিষ্ঠ হয়ে বাড়ির লোক মেয়েটিকে বলে যে, তাকে ভূতের বাড়িতেই বিয়ে দেবে। যেখানে শাশুড়ি হবে শাকচুন্নি আর ননদ হবে পেতনি। এহেন মেয়েটির বিয়ে হয় যে বাড়িতে, সেই বাড়িতে সত্যিই সে পেয়ে যায় আসল ভূত। স্টার জলসায় শুরু হতে চলেছে মজাদার ভূতের গল্প নিয়ে তৈরি ধারাবাহিক চুনিপান্নার প্রোমো। আজ আমরা চুনি তথা অন্বেষা হাজরার মুখোমুখি।
 আপনি কি সত্যিই ভূতে বিশ্বাস করেন? আর চুনির মতো ভূত দেখতে চান?
 ভূতে বিশ্বাস আছে। তবে তাই বলে যে খুব ভয় করে তা নয়। একটু গা ছমছমে ব্যাপার তো আছেই। তবে আমি চটপটে ডানপিটে হলেও চুনির মতো অত সাহসী নই যে রাত্রিবেলা টর্চ হাতে হানাবাড়িতে ভূত খুঁজতে যাব।
 অভিনয়ে এলেন কী করে?
 ছোটবেলায় স্কুলে অ্যাঙ্কারিং, নাটক এসব করেছি। কলেজে পড়ার সময় ঠিক করি যে, অভিনয়টাকে আমি পেশা হিসেবে বেছে নেব। তখন একটা অ্যাকটিং স্কুলে অ্যাকটিং শেখার জন্য ভর্তি হই। সেটা করার পর সেই স্কুল থেকেই পোর্টফোলিও বানানো হয়, যেটা বিভিন্ন হাউজে চলে গিয়েছিল। এরপর আমি সরাসরি একটা ধারাবাহিকে অডিশনের সুযোগ পাই। আর এভাবেই আমার অভিনয়ে আসা।
 আপনার প্রথম অভিনয় কী?
 ‘কাজললতা’। তবে বড় কাজ আকাশ আট চ্যানেলে ‘বৃদ্ধাশ্রম’ ধারাবাহিক।
 প্রথম শ্যুটিংয়ের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?
 আমার একটুও ভয় লাগেনি। শ্যুটিং ফ্লোরে গিয়ে মনে হচ্ছিল হাতে স্বর্গ পেয়েছি। কোনও সমস্যা হয়নি।
 এখন কোন সিরিয়ালে অভিনয় করছেন?
 স্টার জলসায় নতুন ধারাবাহিক চুনিপান্না শুরু হবে। ওখানে আমি চুনির অভিনয় করছি।
 যখন অভিনয়কে পেশা করবেন ঠিক করলেন, বাড়িতে কোনও সমস্যা হয়নি?
 একদমই না। বাবা বলেছিলেন যাই করো না কেন, সেটা মন দিয়ে করবে। আর সে জন্যই আমি ভালো করে অভিনয় শেখার জন্য অ্যাকটিং স্কুলে ভর্তি হয়েছিলাম।
 আপনারা কয় ভাই বোন?
 আমি একা।
 পড়াশোনা কোথায় করেছেন?
 আমার বাড়ি বর্ধমানের মেমারিতে। আমি ক্লাস ফোর অব্দি ওখানে জ্ঞানভারতীতে পড়াশোনা করেছি। এরপর ক্লাস ফাইভ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত কৃষ্ণভামিনী নারী শিক্ষা মন্দিরে পড়াশোনা করেছি। এরপর যোগমায়া দেবী কলেজ থেকে সাইকোলজিতে অনার্স নিয়ে পাশ করেছি।
 ছোটবেলায় দুষ্টু ছিলেন?
 দুষ্টু বলতে আমি প্রচণ্ড ছটফটে, আর দুরন্ত ছিলাম। আমি সবাইকে খুব প্রশ্ন করতাম। তবে সেগুলো কাউকে পাজল করে দেয় না। সেই প্রশ্ন করার স্বভাবটা এখনও আমার আছে।
 আপনার বাড়িতে কে কে আছেন?
 আমাদের যৌথ পরিবার। বাড়িতে বাবা, মা, ঠাকুমা, জেঠু, জেঠিমা, ভাই, দিদি আর আমি থাকি। এখন আমি আর দিদি কলকাতাতে থাকি আর ভাই ব্যাঙ্গালোরে থাকে।
 প্রেম করেন?
 একদমই নয়। আমার কোনও দিনই কোনও প্রেমের সম্পর্ক ছিল না। আমার মনে হয় যখন যেটা করব, সেটাকে একশো শতাংশ দিয়ে করা উচিত। এখন আমি আমার কাজটা নিয়েই ভীষণ ব্যস্ত। তবে আমার জীবনে কেউ এলে সে অবশ্যই আদর্শবান হবে আর তার মেরুদণ্ড থাকতে হবে। যাকে আমি পুরোপুরি ভরসা করব।
 রান্না করতে পারেন?
 আমাকে দেখিয়ে দিলে বা বলে বলে দিলে করতে পারব। একটা ঘটনা ঘটেছিল কাজললতাতে। সেখানে দেখানো হয়েছিল কাজল লুচি ভাজছে। তো আমি লুচিটা এতটাই উপর থেকে ছেড়েছিলাম যে তেলটা ছিটকে এসে ডান হাতের বুড়ো আঙুলসহ হাতে অনেকটা লেগেছিল। মনে আছে সেটা মজার দৃশ্য ছিল। আমি হাত পোড়া নিয়ে হা হা করে হাসছি আর কাট বলার পর আমি যন্ত্রণাতে মাথা ঘুরে বসে পড়েছিলাম।
 রোজগারের টাকা কীভাবে খরচ করেন?
 আমার টাকাটা পুরোটাই ব্যাঙ্কে জমা থাকে। আমার হাতখরচ পুরোটাই আমার বাবা দেয়। শুধুমাত্র কলকাতায় যে বাড়িটাতে আমি ভাড়া থাকি, সেই ভাড়ার টাকাটা আমি দিই।
 নিজের গাড়ি বা বাড়ি কেনার ইচ্ছে নেই?
 অবশ্যই আমি নিজের টাকায় একটা মার্সেডিজ কিনব। আর একটা বাড়িও বানাব। তবে অবশ্যই আগে বাড়ি এবং তারপর গাড়ি কিনব।
 আজ যে আপনি অভিনেত্রী হয়েছেন এর পেছনে কার অবদান বেশি?
 অবশ্যই আমার পরিবারের। আমার বাবা, জেঠু, ঠাকুমা সমর্থন না করলে আমি অভিনেত্রী হতে পারতাম না। এখনও ওরা আমাকে অনেক সাপোর্ট করেন।
 লোকে যখন আপনাকে চিনতে পারে, কেমন লাগে? লাইফ স্টাইল কতটা বদলেছে?
 লাইফ স্টাইল একদমই বদলায়নি। আগেও যেমন ঘরে থাকতে ভালোবাসতাম, এখনও ঘরে থাকি। বাইরে বেরতে, বন্ধুবান্ধব নিয়ে ঘুরতে খুব একটা ভালো লাগে না। আর এখনও আমাকে সেভাবে কেউ চেনে না। তবে একবার কোয়েস্ট মলে সায়ন মুন্সির মা আমাকে চিনতে পেরে কথা বলেছিল আর মেট্রো স্টেশনে কয়েকজন চিনতে পেরে কথা বলতে এসেছিল। তখন বেশ ভালো লেগেছিল। মন ভরে গিয়েছিল।
 পশুপাখি ভালোবাসেন?
 ভীষণ ভালোবাসি। কুকুর আমার খুব প্রিয়। আমাদের বাড়িতে একটা কুকুর ছিল। মারা গিয়েছে। আমার কুকুর দেখলেই চটকাতে ইচ্ছে করে। কুকুরকে জড়িয়ে ধরলে একটা অদ্ভুত শান্তি পাওয়া যায়।
 বর্তমান সমাজে মেয়েদের অবস্থান কেমন বলে মনে হয়?
 মেয়েদের একটা নিজস্ব বক্তব্য থাকা দরকার। মেয়েরা এখনও যেন একটু ভয়ে ভয়ে থাকে। না হলে কেন রাত্রিবেলা ফেরার সময় মা-বাবারা বলেন, সঙ্গে কেউ আছে তো? বা অত রাত কোরো না, তাড়াতাড়ি ফিরে এসো। নিশ্চয় কোথাও না কোথাও মেয়েদের একটা ভয় তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে। যে কোনও মুহূর্তে কোনও বিপদ ঘটে যাওয়ার। এগুলো কিন্তু আমাদের দাদা বা ভাইরা পায় না। সুতরাং মেয়েদের আরও শক্ত হতে হবে। নিজের দায়িত্ব নিজেকে নিতে হবে।
 বর্তমানে ধারাবাহিকগুলোতে অনেক মহিলা ভিলেন দেখানো হচ্ছে। সত্যিই কি আমাদের সমাজে মহিলারা এত জটিল হয়?
 দর্শকদের চাহিদা অনুযায়ী সিরিয়ালগুলো বানানো হয়। আর সেখানে একটি মেয়ে ভিলেন হিরোকে নিয়ে টানাটানি করে আর হিরোইন গিয়ে সমস্তটা ঠিক করে দেয়, এটা দেখতে দর্শক ভালোবাসে বলেই সিরিয়ালে মহিলা ভিলেন দেখানো হয়। আর সমাজে কে কেমন, সেটা জানা খুব মুশকিল। আর আমি কতটাই বা সমাজ দেখেছি। তবে আমি যেখানে থাকি, তার চারপাশে দেখেছি, এখনও সেরকম কিছুর সামনাসামনি হইনি। তবে এটুকু বলতে পারি মানুষ চেনা খুব মুশকিল। কারণ আমরা ক্যামেরার পেছনে সব থেকে ভালো অভিনয় করি।
 ভগবানে বিশ্বাস আছে?
 ভগবানে আমার একশোভাগ বিশ্বাস আছে। একটা শক্তি তো আছেই। আর সে আমাদেরকে চালনা করছে। আর আমার মনে হয় ভগবানের মর্জির উপর কোনও লজিক কাজ করে না। তখন শুধু ম্যাজিক কাজ করে।
 সিনেমায় অভিনয় করতে চান? স্বপ্নের চরিত্র কী?
 আমি অলরেডি একটা সিনেমা করেছি। নাম ‘তুমি ও তুমি’। ওটা হয়তো পুজোর পর রিলিজ হবে। আর আমার স্বপ্নের চরিত্র মর্দানির শিবানী, মণিকর্ণিকা আর ডিডিএলজে-র সিমরণ।
 পরজন্মে বিশ্বাস করেন?
 না। যা হওয়ার এ জন্মেই হবে।
 অবসর সময়ে কী করেন?
 মায়ের সঙ্গে গল্প করি। মায়ের পেছনে লাগি। বাবাকে ফোন করি। এক্সারসাইজ করি, বই পড়ি।
সাক্ষাৎকার: কাকলি পালবিশ্বাস 
02nd  November, 2019
শুধু লোকাচারে বিয়েকে
বেঁধে ফেললেই বিপদ

একটি বিবাহবিচ্ছেদের মামলাকে কেন্দ্র করে গৌহাটি হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি অজয় লাম্বা ও বিচারপতি সৌমিত্র শইকিয়া রায় দিয়েছেন, হিন্দু এয়োস্ত্রীর শাঁখা-সিঁদুরে ভূষিত না থাকার অর্থ নিজেকে ‘অবিবাহিত’ মনে করা। এই রায় কি আদৌ সমর্থনযোগ্য? বিশ্লেষণ করলেন সমাজতত্ত্ববিদ বুলা ভদ্র। বিশদ

11th  July, 2020
নাম বদলালে কালোর
কদর হবে নাকি ?

এত উন্নতি। তবু আজও নারীর রূপের বিচার হয়, গুণের কদর হয় না। তাই তো কালো মেয়ের বাবা- মায়ের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ে। কোনও প্রসাধনী সামগ্রীর নাম পাল্টে গেলে সেই মেয়েদের ভাগ্য বদলাবে কি? প্রশ্ন তুললেন অন্বেষা দত্ত।
বিশদ

11th  July, 2020
এমসিসির প্রথম
মহিলা-প্রেসিডেন্ট 

ঐতিহ্যবাহী মেরিলেবন ক্রিকেট ক্লাবে (এমসিসি) ২৩৩ বছরের ইতিহাসে প্রথম মহিলা-প্রেসিডেন্ট হতে চলেছেন ক্লেয়ার কনর। ইংল্যান্ড মহিলা ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক ২০২১ সালের ১ অক্টোবর মর্যাদাপূর্ণ এই পদে বসতে চলেছেন।
বিশদ

11th  July, 2020
মধ্যপ্রদেশের সেরা কন্যা 

অত্যন্ত কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে পড়াশোনার জন্য প্রতিনিয়ত লড়াই চালাতে হয়েছে রোশনি ভাদোরিয়াকে। শুধু সরকারি স্কুলে পড়বে বলে ২৪ কিলোমিটার পথ রোজ সাইকেল চালিয়ে যাতায়াত করেছে সে। অবশেষে এই খাটুনির ফলও পেয়েছে সে।
বিশদ

11th  July, 2020
সবার অনুপ্রেরণা হয়ে উঠব,
সেটাই ছিল আমার স্বপ্ন: শিবাঙ্গী  

লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী হিসেবেই তিনি পরিচিত। পদবি ব্যবহারে বড্ড আপত্তি। নামই বরং হয়ে উঠুক পরিচয়, ক্ষতি কী? তবে গত ডিসেম্বর মাস থেকে তাঁর পরিচয়ের পরিধি আর একটু প্রসারিত। তিনি এখন লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী, ভারতীয় নৌসেনার প্রথম মহিলা পাইলট।  বিশদ

04th  July, 2020
পেশার দুনিয়ায় প্রথা ভেঙে প্রথমা
বাঁধা গতে নয়, এগিয়ে যেতে চাই নিজের পছন্দে: হর্ষিণী কনহেকর  

মেয়েদের সম্পর্কে পুরনো ধারণাগুলো একে একে পাল্টে দিতে আমরা মেয়েরাই পারি। ভিন্নধর্মী দু’টি পেশায় নিযুক্ত দু’জন মহিলার তেমনই পদক্ষেপ সম্পর্কে জানালেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

04th  July, 2020
এখন মেয়েরা 

এখন সময় মানবিকতার। করোনা সঙ্কটে কাউকে কাছে টানা যায় না ঠিকই, কিন্ত পাশে থাকা যায়। যেসব মানুষ লকডাউনের কারণে অনিশ্চিত জীবনের মধ্যে পড়ে গিয়েছেন, তাঁদের পাশে বিত্তবানদের দাঁড়ানো উচিত।  বিশদ

04th  July, 2020
নাচেই মুক্তির দিশা 

শুধু নাচ শেখানো নয়। নাচকে আত্মবিশ্বাস ফেরানোর কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন তিনি। পাচার হয়ে যাওয়া মেয়েদের বেঁচে থাকাকে সম্মান জানাতে চেয়েছিলেন। তাই নির্যাতনে কুঁকড়ে গিয়ে একদিন যাঁদের জীবন থমকে গিয়েছিল, তাঁরাই আজ অগ্রণী। ৩০ জুলাই, আর্ন্তজাতিক মানব-পাচার বিরোধী দিবস। তার আগে কলকাতা সংবেদের সোহিনী চক্রবর্তীর সঙ্গে কথা বলেছেন অন্বেষা দত্ত। 
বিশদ

04th  July, 2020
বিশ্বের সেরা সুন্দরী ঠাকুমা
ভারতের আরতিদেবী 

সম্প্রতি ইউরোপের দেশ বুলগেরিয়ার রাজধানী সোফিয়ায় শেষ হল ‘গ্র্যান্ডমা আর্থ ২০২০-র আসর। বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী ঠাকুমার মুকুট উঠেছে ভারতীয় মহিলা আরতি চাটলানির মাথায়। এই পুরস্কার এই প্রথম কোনও ভারতীয় মহিলার মাথায় উঠল। চলতি বছর (২০২০) ১৯ থেকে ২৩ জানুয়ারি বুলগেরিয়ায় এই অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়।  
বিশদ

27th  June, 2020
৯০ বছর বয়সে ব্যবসায়
হাতেখড়ি বৃদ্ধার 

৯০ বছরের মায়ের সঙ্গে গল্প জুড়েছিলেন মেয়ে। বৃদ্ধা মা এখন ভালো করে হাঁটতে পারেন না, চোখের দৃষ্টিও আগের চেয়ে অনেক ঝাপসা। মায়ের কী করতে ভালো লাগে? ৯০ বছর কাটানোর পর জীবনটাকে কীভাবে দেখেন তিনি? এইসব নিয়ে কথা এগোচ্ছিল। কথা প্রসঙ্গেই মাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন মেয়ে, তাঁর জীবনে কোনও আক্ষেপ রয়েছে কি না।  
বিশদ

27th  June, 2020
মহিলাদের মধ্যে বেকারত্ব বাড়ছে লকডাউনের জন্য 

দীর্ঘ লকডাউনের ফলে অনেকেই চাকরি হারিয়েছেন। রোজগার বন্ধ হয়েছে বহুজনের। তার মধ্যে মহিলারা যতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, পুরুষরা ততটা হননি। অন্তত পরিসংখ্যান তাই বলছে। এই বিষয়ে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্প্রতি একটি গবেষণা করেছেন র‌্যাশেল লেভেনসন ও লায়লা ও’কেন।  বিশদ

27th  June, 2020
সঙ্কটে দাম্পত্য, বাড়ছে নারী নির্যাতন
বন্দি ঘরের মধ্যে বেড়েছে হিংসা, আমরা চেষ্টা করেছি পাশে থাকার 

লকডাউনের অনেক অসুবিধার মধ্যে শিরোনামে এসেছে বাড়িতে দাম্পত্য অশান্তি, মনোমালিন্য থেকে শুরু করে পুরোদস্তুর নির্যাতন বেড়ে যাওয়ার ঘটনা। মহিলা এবং শিশুরাই যার প্রাথমিক শিকার। ২০-৩১মার্চের মধ্যে (লকডাউনের প্রথম সপ্তাহ) চাইল্ডলাইন ১০৯৮এ সারা দেশ থেকে ৯২ হাজার এসওএস কল গিয়েছে। জাতীয় মহিলা কমিশন শুধু এপ্রিলেই ৩১৫টি পারিবারিক হিংসার অভিযোগ পেয়েছে। পরিসংখ্যানগুলোর গ্রাফ কিন্তু এখনও উর্ধ্বমুখী। এ ব্যাপারে সমাজকর্মী অনুরাধা কাপুরের সঙ্গে আলোচনায় কমলিনী চক্রবর্তী এবং অন্বেষা দত্ত।  
বিশদ

27th  June, 2020
সঙ্কটে দাম্পত্য, বাড়ছে নারী নির্যাতন
ক্রমশ বাড়ছে অন্তর্দ্বন্দ্ব, নড়বড়ে হচ্ছে বৈবাহিক সম্পর্কের ভিত

লকডাউনের অনেক অসুবিধার মধ্যে শিরোনামে এসেছে বাড়িতে দাম্পত্য অশান্তি, মনোমালিন্য থেকে শুরু করে পুরোদস্তুর নির্যাতন বেড়ে যাওয়ার ঘটনা। মহিলা এবং শিশুরাই যার প্রাথমিক শিকার। ২০-৩১মার্চের মধ্যে (লকডাউনের প্রথম সপ্তাহ) চাইল্ডলাইন ১০৯৮এ সারা দেশ থেকে ৯২ হাজার এসওএস কল গিয়েছে। জাতীয় মহিলা কমিশন শুধু এপ্রিলেই ৩১৫টি পারিবারিক হিংসার অভিযোগ পেয়েছে। পরিসংখ্যানগুলোর গ্রাফ কিন্তু এখনও উর্ধ্বমুখী। এ ব্যাপারে সমাজতত্ত্ববিদ অভিজিৎ মিত্রের সঙ্গে আলোচনায় কমলিনী চক্রবর্তী এবং অন্বেষা দত্ত।  
বিশদ

27th  June, 2020
যোগাসনে সুস্থ মন 

এই অনিশ্চিত সময়ে ভালো থাকুন যোগাসনে। পরামর্শ দিলেন
যোগবিদ রাজশ্রী চৌধুরী। 
বিশদ

20th  June, 2020
একনজরে
সঞ্জয় সরকার, কলকাতা: বাবা পেশায় দিনমজুর। আয় আছে, নেই সঞ্চয়। দিন আনা, দিন খাওয়া পরিবারে জন্ম গ্রহণ করলেও একদিন ভারতীয় দলের জার্সি গায়ে নিজেকে দেখতে ...

সংবাদদাতা, মালদহ: মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আধুনিক ট্রমা কেয়ার সেন্টারটি নভেম্বর মাস নাগাদ চালু হতে পারে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার পরেই এই বিশেষ চিকিৎসা কেন্দ্রটি চালু করার কথা ভাবনাচিন্তা করছে মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষ।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এফসিআইতে বিভিন্ন পদে চাকরির টোপ দিয়ে এ রাজ্যের পঞ্চান্ন জন বেকার যুবকের কাছ থেকে পৌনে এক কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল। তারাতলা থানা এলাকার ব্রেস ব্রিজের বাসিন্দা প্রতারিত সুবোধকুমার সিংয়ের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সম্প্রতি তদন্তে নেমেছে ...

ওয়াশিংটন: চাপের মুখে অবশেষে বিদেশি পড়ুয়াদের দেশে ফেরানোর সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটল ট্রাম্প প্রশাসন। মঙ্গলবার ম্যাসাচুসেটসের ফেডারেল ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে সরকার জানিয়েছে, অনলাইনে ক্লাস করা বিদেশি পড়ুয়াদের ভিসা বাতিল করে দেশে ফেরানোর সিদ্ধান্ত রদ করা হয়েছে। হার্ভার্ড ও এমআইটির দায়ের করা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পড়শির ঈর্ষায় অযথা হয়রানি। সন্তানের বিদ্যা নিয়ে চিন্তা। মামলা-মোকদ্দমা এড়িয়ে চলা প্রয়োজন। প্রেমে বাধা।প্রতিকার: একটি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮২০: সাহিত্যিক অক্ষয়কুমার দত্তের জন্ম
১৯০৩: রাজনীতিক কে কামরাজের জন্ম
১৯০৪: রুশ লেখক আস্তন চেকভের মৃত্যু
১৯৫৪: আর্জেন্তিনার ফুটবলার মারিও কেম্পেসের জন্ম  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৪৬ টাকা ৭৬.১৭ টাকা
পাউন্ড ৯২.৯৩ টাকা ৯৬.২০ টাকা
ইউরো ৮৩.৮৮ টাকা ৮৬.৯৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯, ৭৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭, ২২০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭, ৯৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫১, ৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫২, ০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ জুলাই ২০২০, বুধবার, দশমী ৪৩/৯ রাত্রি ১০/২০। ভরণী ২৯/৭ অপঃ ৪/৪৩। সূর্যোদয় ৫/৪/৪২, সূর্যাস্ত ৬/২০/১৪। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৩ গতে ১১/১৫ মধ্যে পুনঃ ১/৫৫ গতে ৫/২৭ মধ্যে। রাত্রি ৯/৫৫ মধ্যে পুনঃ ১২/৪ গতে ১/৩০ মধ্যে। বারবেলা ৮/২৩ গতে ১০/৩ মধ্যে পুনঃ ১১/৪২ গতে ১/২১ মধ্যে। কালরাত্রি ২/২৩ গতে ৩/৪৪ মধ্যে।  
৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ জুলাই ২০২০, বুধবার, দশমী রাত্রি ৮/৪৩। ভরণী নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/৭। সূযোদয় ৫/৪, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৩ গতে ১১/১৬ মধ্যে ও ১/৫৬ গতে ৫/২৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৫৬ মধ্যে ও ১২/৪ গতে ১/৩০ মধ্যে। কালবেলা ৮/২৪ গতে ১০/৪ মধ্যে ও ১১/৪৩ গতে ১/২৩ মধ্যে। কালরাত্রি ২/২৪ গতে ৩/৪৪ মধ্যে।
২৩ জেল্কদ  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মাধ্যমিকে ষষ্ঠ অশোকনগরের অস্মি চৌধুরি চিকিৎসক হতে চায় 
মাধ্যমিকে রাজ্যে ষষ্ঠ স্থান অধিকার করেছে অশোকনগর বাণীপিঠ ...বিশদ

01:46:07 PM

বিহারে রাজভবনের ২০ জন কর্মী করোনায় আক্রান্ত 

01:36:04 PM

মাধ্যমিকে সপ্তম চন্দননগরের সুহা ঘোষ ভবিষ্যতে বিজ্ঞানের শিক্ষক হতে চায় 

01:35:35 PM

৭০১ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স

01:32:50 PM

মাধ্যমিকে দশম জুনায়েদ হাসান চিকিৎসক হতে চায় 

01:29:42 PM

ময়নাগুড়িতে  ব্যারিকেড করে বিজেপির মিছিল আটকাল পুলিস 

01:27:50 PM