Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

মানুষ চেনা খুব কঠিন: অন্বেষা হাজরা 

মেয়েটির ভূত দেখার খুব ইচ্ছে। তাই সে ভূত দেখার জন্য যখন তখন হানাবাড়িতে হানা দেয়। কিন্তু ভূতের বদলে সেখানে দেখা মেলে শুধুমাত্র চোরের। মেয়ের ভূত দেখার তাড়নায় অতিষ্ঠ হয়ে বাড়ির লোক মেয়েটিকে বলে যে, তাকে ভূতের বাড়িতেই বিয়ে দেবে। যেখানে শাশুড়ি হবে শাকচুন্নি আর ননদ হবে পেতনি। এহেন মেয়েটির বিয়ে হয় যে বাড়িতে, সেই বাড়িতে সত্যিই সে পেয়ে যায় আসল ভূত। স্টার জলসায় শুরু হতে চলেছে মজাদার ভূতের গল্প নিয়ে তৈরি ধারাবাহিক চুনিপান্নার প্রোমো। আজ আমরা চুনি তথা অন্বেষা হাজরার মুখোমুখি।
 আপনি কি সত্যিই ভূতে বিশ্বাস করেন? আর চুনির মতো ভূত দেখতে চান?
 ভূতে বিশ্বাস আছে। তবে তাই বলে যে খুব ভয় করে তা নয়। একটু গা ছমছমে ব্যাপার তো আছেই। তবে আমি চটপটে ডানপিটে হলেও চুনির মতো অত সাহসী নই যে রাত্রিবেলা টর্চ হাতে হানাবাড়িতে ভূত খুঁজতে যাব।
 অভিনয়ে এলেন কী করে?
 ছোটবেলায় স্কুলে অ্যাঙ্কারিং, নাটক এসব করেছি। কলেজে পড়ার সময় ঠিক করি যে, অভিনয়টাকে আমি পেশা হিসেবে বেছে নেব। তখন একটা অ্যাকটিং স্কুলে অ্যাকটিং শেখার জন্য ভর্তি হই। সেটা করার পর সেই স্কুল থেকেই পোর্টফোলিও বানানো হয়, যেটা বিভিন্ন হাউজে চলে গিয়েছিল। এরপর আমি সরাসরি একটা ধারাবাহিকে অডিশনের সুযোগ পাই। আর এভাবেই আমার অভিনয়ে আসা।
 আপনার প্রথম অভিনয় কী?
 ‘কাজললতা’। তবে বড় কাজ আকাশ আট চ্যানেলে ‘বৃদ্ধাশ্রম’ ধারাবাহিক।
 প্রথম শ্যুটিংয়ের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?
 আমার একটুও ভয় লাগেনি। শ্যুটিং ফ্লোরে গিয়ে মনে হচ্ছিল হাতে স্বর্গ পেয়েছি। কোনও সমস্যা হয়নি।
 এখন কোন সিরিয়ালে অভিনয় করছেন?
 স্টার জলসায় নতুন ধারাবাহিক চুনিপান্না শুরু হবে। ওখানে আমি চুনির অভিনয় করছি।
 যখন অভিনয়কে পেশা করবেন ঠিক করলেন, বাড়িতে কোনও সমস্যা হয়নি?
 একদমই না। বাবা বলেছিলেন যাই করো না কেন, সেটা মন দিয়ে করবে। আর সে জন্যই আমি ভালো করে অভিনয় শেখার জন্য অ্যাকটিং স্কুলে ভর্তি হয়েছিলাম।
 আপনারা কয় ভাই বোন?
 আমি একা।
 পড়াশোনা কোথায় করেছেন?
 আমার বাড়ি বর্ধমানের মেমারিতে। আমি ক্লাস ফোর অব্দি ওখানে জ্ঞানভারতীতে পড়াশোনা করেছি। এরপর ক্লাস ফাইভ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত কৃষ্ণভামিনী নারী শিক্ষা মন্দিরে পড়াশোনা করেছি। এরপর যোগমায়া দেবী কলেজ থেকে সাইকোলজিতে অনার্স নিয়ে পাশ করেছি।
 ছোটবেলায় দুষ্টু ছিলেন?
 দুষ্টু বলতে আমি প্রচণ্ড ছটফটে, আর দুরন্ত ছিলাম। আমি সবাইকে খুব প্রশ্ন করতাম। তবে সেগুলো কাউকে পাজল করে দেয় না। সেই প্রশ্ন করার স্বভাবটা এখনও আমার আছে।
 আপনার বাড়িতে কে কে আছেন?
 আমাদের যৌথ পরিবার। বাড়িতে বাবা, মা, ঠাকুমা, জেঠু, জেঠিমা, ভাই, দিদি আর আমি থাকি। এখন আমি আর দিদি কলকাতাতে থাকি আর ভাই ব্যাঙ্গালোরে থাকে।
 প্রেম করেন?
 একদমই নয়। আমার কোনও দিনই কোনও প্রেমের সম্পর্ক ছিল না। আমার মনে হয় যখন যেটা করব, সেটাকে একশো শতাংশ দিয়ে করা উচিত। এখন আমি আমার কাজটা নিয়েই ভীষণ ব্যস্ত। তবে আমার জীবনে কেউ এলে সে অবশ্যই আদর্শবান হবে আর তার মেরুদণ্ড থাকতে হবে। যাকে আমি পুরোপুরি ভরসা করব।
 রান্না করতে পারেন?
 আমাকে দেখিয়ে দিলে বা বলে বলে দিলে করতে পারব। একটা ঘটনা ঘটেছিল কাজললতাতে। সেখানে দেখানো হয়েছিল কাজল লুচি ভাজছে। তো আমি লুচিটা এতটাই উপর থেকে ছেড়েছিলাম যে তেলটা ছিটকে এসে ডান হাতের বুড়ো আঙুলসহ হাতে অনেকটা লেগেছিল। মনে আছে সেটা মজার দৃশ্য ছিল। আমি হাত পোড়া নিয়ে হা হা করে হাসছি আর কাট বলার পর আমি যন্ত্রণাতে মাথা ঘুরে বসে পড়েছিলাম।
 রোজগারের টাকা কীভাবে খরচ করেন?
 আমার টাকাটা পুরোটাই ব্যাঙ্কে জমা থাকে। আমার হাতখরচ পুরোটাই আমার বাবা দেয়। শুধুমাত্র কলকাতায় যে বাড়িটাতে আমি ভাড়া থাকি, সেই ভাড়ার টাকাটা আমি দিই।
 নিজের গাড়ি বা বাড়ি কেনার ইচ্ছে নেই?
 অবশ্যই আমি নিজের টাকায় একটা মার্সেডিজ কিনব। আর একটা বাড়িও বানাব। তবে অবশ্যই আগে বাড়ি এবং তারপর গাড়ি কিনব।
 আজ যে আপনি অভিনেত্রী হয়েছেন এর পেছনে কার অবদান বেশি?
 অবশ্যই আমার পরিবারের। আমার বাবা, জেঠু, ঠাকুমা সমর্থন না করলে আমি অভিনেত্রী হতে পারতাম না। এখনও ওরা আমাকে অনেক সাপোর্ট করেন।
 লোকে যখন আপনাকে চিনতে পারে, কেমন লাগে? লাইফ স্টাইল কতটা বদলেছে?
 লাইফ স্টাইল একদমই বদলায়নি। আগেও যেমন ঘরে থাকতে ভালোবাসতাম, এখনও ঘরে থাকি। বাইরে বেরতে, বন্ধুবান্ধব নিয়ে ঘুরতে খুব একটা ভালো লাগে না। আর এখনও আমাকে সেভাবে কেউ চেনে না। তবে একবার কোয়েস্ট মলে সায়ন মুন্সির মা আমাকে চিনতে পেরে কথা বলেছিল আর মেট্রো স্টেশনে কয়েকজন চিনতে পেরে কথা বলতে এসেছিল। তখন বেশ ভালো লেগেছিল। মন ভরে গিয়েছিল।
 পশুপাখি ভালোবাসেন?
 ভীষণ ভালোবাসি। কুকুর আমার খুব প্রিয়। আমাদের বাড়িতে একটা কুকুর ছিল। মারা গিয়েছে। আমার কুকুর দেখলেই চটকাতে ইচ্ছে করে। কুকুরকে জড়িয়ে ধরলে একটা অদ্ভুত শান্তি পাওয়া যায়।
 বর্তমান সমাজে মেয়েদের অবস্থান কেমন বলে মনে হয়?
 মেয়েদের একটা নিজস্ব বক্তব্য থাকা দরকার। মেয়েরা এখনও যেন একটু ভয়ে ভয়ে থাকে। না হলে কেন রাত্রিবেলা ফেরার সময় মা-বাবারা বলেন, সঙ্গে কেউ আছে তো? বা অত রাত কোরো না, তাড়াতাড়ি ফিরে এসো। নিশ্চয় কোথাও না কোথাও মেয়েদের একটা ভয় তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে। যে কোনও মুহূর্তে কোনও বিপদ ঘটে যাওয়ার। এগুলো কিন্তু আমাদের দাদা বা ভাইরা পায় না। সুতরাং মেয়েদের আরও শক্ত হতে হবে। নিজের দায়িত্ব নিজেকে নিতে হবে।
 বর্তমানে ধারাবাহিকগুলোতে অনেক মহিলা ভিলেন দেখানো হচ্ছে। সত্যিই কি আমাদের সমাজে মহিলারা এত জটিল হয়?
 দর্শকদের চাহিদা অনুযায়ী সিরিয়ালগুলো বানানো হয়। আর সেখানে একটি মেয়ে ভিলেন হিরোকে নিয়ে টানাটানি করে আর হিরোইন গিয়ে সমস্তটা ঠিক করে দেয়, এটা দেখতে দর্শক ভালোবাসে বলেই সিরিয়ালে মহিলা ভিলেন দেখানো হয়। আর সমাজে কে কেমন, সেটা জানা খুব মুশকিল। আর আমি কতটাই বা সমাজ দেখেছি। তবে আমি যেখানে থাকি, তার চারপাশে দেখেছি, এখনও সেরকম কিছুর সামনাসামনি হইনি। তবে এটুকু বলতে পারি মানুষ চেনা খুব মুশকিল। কারণ আমরা ক্যামেরার পেছনে সব থেকে ভালো অভিনয় করি।
 ভগবানে বিশ্বাস আছে?
 ভগবানে আমার একশোভাগ বিশ্বাস আছে। একটা শক্তি তো আছেই। আর সে আমাদেরকে চালনা করছে। আর আমার মনে হয় ভগবানের মর্জির উপর কোনও লজিক কাজ করে না। তখন শুধু ম্যাজিক কাজ করে।
 সিনেমায় অভিনয় করতে চান? স্বপ্নের চরিত্র কী?
 আমি অলরেডি একটা সিনেমা করেছি। নাম ‘তুমি ও তুমি’। ওটা হয়তো পুজোর পর রিলিজ হবে। আর আমার স্বপ্নের চরিত্র মর্দানির শিবানী, মণিকর্ণিকা আর ডিডিএলজে-র সিমরণ।
 পরজন্মে বিশ্বাস করেন?
 না। যা হওয়ার এ জন্মেই হবে।
 অবসর সময়ে কী করেন?
 মায়ের সঙ্গে গল্প করি। মায়ের পেছনে লাগি। বাবাকে ফোন করি। এক্সারসাইজ করি, বই পড়ি।
সাক্ষাৎকার: কাকলি পালবিশ্বাস 
02nd  November, 2019
অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় রাকুল 

রাকুল প্রীত সিংয়ের কেরিয়ার শুরু মডেলিং দিয়ে। এখন তিনি দক্ষিণের এবং বলিউডের ব্যস্ততম নায়িকা। নিজের লাইফস্টাইেলর কথা জানালেন রাকুল। 
বিশদ

16th  November, 2019
অ্যাথলেটিক্সে নয়া নজির
দুই মায়ের বিশ্বরেকর্ড 

অ্যাথলেটিক্সের ইতিহাসে দাপট এখন মেয়েদের, বলা চলে দুই মায়ের। যারা অসম্ভবকে সম্ভব করলেন। সম্প্রতি দোহায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে জামাইকার ‘স্প্রিন্ট কুইন’ শেলি অ্যান ফ্রেজার প্রাইস ১০০ মিটার দৌড়ে চার নম্বর সোনা জিতলেন দুর্দান্তভাবে।  বিশদ

16th  November, 2019
দুয়ের বেশি সন্তান মায়েদের
জন্য অশনিসংকেত 

দুয়ের বেশি সন্তান যে সব মায়েদের, তাঁদের জন্য আশঙ্কার খবর শুনিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। যাঁদের সন্তান সংখ্যা দুই বা তার বেশি তাঁরা স্বাস্থ্যগত ঝুঁকিতে রয়েছেন। সাম্প্রতিক এক গবেষণার শেষে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, নারীরা দুয়ের বেশি কয়টি সন্তানের জননী, তার ওপর নির্ভর করে তিনি কতটা স্বাস্থ্যগত ঝুঁকিতে রয়েছেন।   বিশদ

16th  November, 2019
পুরুষের তুলনায় ঘুমের
বেশি প্রয়োজন নারীদের 

নারী ও পুরুষের শারীরিক চাহিদা যে আলাদা সে কথা প্রায় সবারই জানা। যেমন পুরুষের তুলনায় নারীর ঠান্ডা লাগে বেশি। তেমনই ঘুম ব্যাপারটি পুরুষের তুলনায় নারীরই বেশি প্রয়োজন। সমীক্ষায় এমনই তথ্য সামনে এসেছে। সেখানে বলা হয়েছে নারীদের ঘুমের প্রয়োজন বেশি হওয়ার মূল কারণ দুটি। বিশদ

16th  November, 2019
নারীবাদ ও নারীমুক্তি  

মহিষাসুরের কবল থেকে স্বর্গরাজ্য উদ্ধারের জন্য দেবতাগণ দেবী দুর্গার আবাহন করেছিলেন। তিনি দশভুজা, অসুরদলনী এবং সর্বোপরি তিনি মা। নারীকে তুলনা করা হয় দেবী দুর্গার সঙ্গে। ঋগ্‌বেদের যুগে সমাজ ছিল মাতৃতান্ত্রিক। সেই সমাজে নারীই ছিল প্রধান।  বিশদ

16th  November, 2019
 শিশুর সামাজিক বিকাশে নারীর ভূমিকা

বর্তমান জীবনের প্রেক্ষাপটে বিশ্লেষণ করলে শিশু কতটা সফল তা অনেকটাই নির্ভর করে শিশুর সামাজিক বিকাশের উপর। সুন্দর সামাজিক বিকাশ শিশুকে পরবর্তী জীবনে করে তোলে সফল, সক্ষম ও সুনাগরিক। বিশদ

09th  November, 2019
 ৭৫ বছর ধরে মেয়েদের স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে
নারী সেবা সংঘ

  ১৯৪৩ সাল। সবে শেষ হয়েছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। দেশ তথা বাংলা তখন ভয়াবহ দুর্ভিক্ষের কবলে পড়ে প্রায় বিধ্বস্ত। আর সে সময়ই বাংলার কিছু সমাজ সচেতন ব্যক্তি এগিয়ে আসেন, দুর্ভিক্ষের কবলে পড়ে করুণ অবস্থার শিকার হওয়া মহিলা আর শিশুদের উপকার করার জন্য। বিশদ

09th  November, 2019
 অগ্নিযোদ্ধা তানিয়া

 হাতে সময় মাত্র ২ মিনিট ১৮ সেকেন্ড, আর সেটাই হচ্ছে সারভাইভাল টাইম। বিমান দুর্ঘটনা ঘটলে, এটুকু সময়ের মধ্যেই যা করার করতে হবে। উদ্ধার কাজ শেষ করার জন্য বরাদ্দ এই সময়টাকে কাজে লাগাতে না পারলে প্রাণ বাঁচানো যাবে না বিমানযাত্রী এবং কর্মীদের। তাই গোটা প্রক্রিয়াটাই খুব চ্যালেঞ্জিং।
বিশদ

09th  November, 2019
বিদ্যাসাগরের বিধবারা 

বঙ্গবিধবাদের জগন্নাথধাম ‘পালানো’ সম্পর্কে এই বর্ণনা পাওয়া যায় ১৮৪৯ সালের ‘সম্বাদ রসরাজ’ পত্রিকায়— ‘নগরেতে হইয়াছে গেল গেল রব।/ পলাইয়া ক্ষেত্রে যায় নরনারী সব।।/ কাহারো পলায়ে গেল বিধবা বহুড়ী।/ এর বাড়ি তার বাড়ি খুঁজিছে শাশুড়ী।।’  
বিশদ

02nd  November, 2019
মা দুর্গার আর এক অন্য রূপ জ গ দ্ধা ত্রী

মা জগদ্ধাত্রী মহাশক্তির প্রতীক, তিনি সর্বস্থানে বিচরিত, তিনি চির শাশ্বত। তাঁর ধ্যান মন্ত্রে পাওয়া যায়,
সিংহ স্কন্ধ সমারূঢ়াং নানালঙ্কার ভূষিতাং।
চতুর্ভুজাং মহাদেবীং নাগ যজ্ঞোপবীতিধারিণীং...
নারদাদ্যৈ মুনিগণৈঃ সেবিতাং ভবসুন্দরীয়।।  বিশদ

02nd  November, 2019
যুগে যুগে ভা ই ফোঁ টা 

‘ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমদুয়ারে পড়ল কাঁটা’— বোনেরা এই মন্ত্র উচ্চারণে কপালে চন্দনের ফোঁটা দিয়ে তাদের ভাইদের দীর্ঘায়ু কামনা করে। এই নিয়ম যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। কিন্তু এখন তো প্রায় সবাই একা একা বড় হচ্ছে। তাই আগেকার মতো ভাইফোঁটা সবাই কি পালন করতে পারে? নাকি ভাইফোঁটা হারিয়ে যাচ্ছে? 
বিশদ

26th  October, 2019
ডুব দে রে মন কালী বলে 

জব চার্নকের শহরে উত্তর থেকে দক্ষিণ অজস্র কালীবাড়ি রয়েছে। কোনও কালীবাড়ি সম্ভ্রান্ত পরিবারের রানির হাত ধরে, কোনওটা বা ফিরিঙ্গি সাহেবের প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। সারাবছর যে নিয়মই থাকুক না কেন দীপান্বিতা অমাবস্যায় অর্থাৎ কালীপুজোর বিশেষ দিনে কীভাবে পূজিত হন কলকাতার বিখ্যাত সব মন্দিরের মাতৃমূর্তি?
বিশদ

26th  October, 2019
মা কালী ও তন্ত্রসাধনা 

তন্ত্র সাধনার দেশ ভারতবর্ষ। সেই সুপ্রাচীন কাল থেকে ভক্ত তার সিদ্ধিলাভের জন্য তন্ত্র সাধনা করে আসছেন। যে সব দেব-দেবীর উদ্দেশ্যে তন্ত্র সাধনা হয়ে থাকে তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় দেবী হলেন কালী। বিভিন্ন উদ্দেশ্যে সাধক-সাধিকারা মা কালীর নানা রূপের সাধনা করেন। তন্ত্র সাধনা খুবই গুপ্ত ও কঠিন সাধনা। 
বিশদ

26th  October, 2019
দেবী কালিকার দেশমাতৃকা রূপ 

জাতীয়তাবাদের প্রথম ও সর্বশ্রেষ্ঠ পরিচয় ‘মা’ শব্দটি। মাতৃশক্তি এমনই বৈশিষ্ট্য সমন্বিত যে মাতৃজাতির সৃষ্টি না হলে দেশকে বা ভগবানকে মাতৃজ্ঞানে অর্চনা করার অধিকারী আমরা হতাম না। বিশ্বাত্মবোধ, জাতীয়তাবাদ ও স্বদেশপ্রেম চিরন্তনী এই ত্রিধারা শাশ্বত ভারতে মাতৃবন্দনার বিশ্বরূপ। দেশমাতারূপে মহাশক্তি মহামায়া মহাকালিকাকে প্রত্যক্ষ করা সেই প্রেরণারই জীবন্ত প্রতিমা। 
বিশদ

26th  October, 2019
একনজরে
 জেরুজালেম, ২০ নভেম্বর (এএফপি): সিরিয়ায় ইজরায়েলের আক্রমণে বুধবার মৃত্যু হল ১১ জন ইরানি এবং সিরীয় সেনার। মঙ্গলবারই সিরিয়ার দিক থেকে ইজরায়েলে চারটি রকেট হামলা করা হয়। এরপরেই সিরিয়ায় বিমান হামলা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে ইজরায়েল। ...

সংবাদদাতা, ইটাহার: ব্লক কৃষি দপ্তরের ‘সুধা’ (সুনিশ্চিত ধান) পদ্ধতিতে চাষ করে বিশেষ সফলতা পেলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ ব্লকের বিষ্ণুপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কলুয়া গ্রামের চাষি আবু শাহেদ। এঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই এলাকার অন্যান্য চাষিদের মধ্যে সুধা পদ্ধতিতে ধান চাষের ব্যাপারে উৎসাহ দেখা ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: মল্লারপুরের মাঝিপাড়া গ্রামের ঘটনায় অভিযুক্ত সিভিক ভলান্টিয়ারকে গ্রেপ্তার করা হল। মঙ্গলবার রাতে তাঁকে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। বুধবার ধৃতকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৬ সহ একাধিক ধারা যুক্ত করে রামপুরহাট আদালতে তোলা হয়।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উপার্জন বেশ ভালো হলেও ব্যয়বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে সঞ্চয় তেমন একটা হবে না। শরীর খুব একটা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব টেলিভিশন দিবস
১৬৯৪: ফরাসি দার্শনিক ভলতেয়ারের জন্ম
১৮৭৭: ফোনোগ্রাফ আবিষ্কারের কথা জানালেন থমাস এডিসন
১৯৭০: নোবেলজয়ী পদার্থবিদ চন্দ্রশেখর বেঙ্কটরামনের মৃত্যু
১৯৭৪ - শিশু সাহিত্যিক পুণ্যলতা চক্রবর্তীর মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.১৭ টাকা ৭৩.৩৩ টাকা
পাউন্ড ৯০.৪৯ টাকা ৯৪.৮৫ টাকা
ইউরো ৭৭.৬২ টাকা ৮১.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৯৭৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৯৮০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৫৩৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, নবমী ১৩/৫০ দিবা ১১/২৯। পূর্বফাল্গুনী ৩১/২২ রাত্রি ৬/২৯। সূ উ ৫/৫৬/৪২, অ ৪/৪৮/০০, অমৃতযোগ দিবা ৭/২৩ মধ্যে পুনঃ ১/১১ গতে ২/৩৮ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪১ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৯ গতে ৩/১৯ মধ্যে পুনঃ ৪/১২ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ২/৫ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/২২ গতে ১/০ মধ্যে।
৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, নবমী ৮/১৫/৩৯ দিবা ৯/১৭/৩। পূর্বফাল্গুনী ২৮/৯/৬ সন্ধ্যা ৫/১৪/২৫, সূ উ ৫/৫৮/৪৭, অ ৪/৪৭/৪৮, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৪ মধ্যে ও ১/১৫ গতে ২/৪০ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৯/১৫ মধ্যে ও ১১/৫৫ গতে ৩/২৯ মধ্যে ও ৪/২২ গতে ৬/০ মধ্যে, বারবেলা ৩/২৬/৪১ গতে ৪/৪৭/৪৮ মধ্যে, কালবেলা ২/৫/৩৩ গতে ৩/২৬/৪১ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/২৩/১৭ গতে ১/২/১২ মধ্যে।
২৩ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
গোটা দেশে এনআরসি হবে: অমিত শাহ 
গোটা দেশে এনআরসি হবে বলে রাজ্যসভায় জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত ...বিশদ

20-11-2019 - 04:31:00 PM

পর্ণশ্রীতে গ্যাস সিলিন্ডার চুরি, ধৃত ২ 

20-11-2019 - 03:18:00 PM

নরেন্দ্রপুরে দম্পতির রহস্যমৃত্যু 
নরেন্দ্রপুরে এক দম্পতির দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য। আজ সকালে নরেন্দ্রপুরের ...বিশদ

20-11-2019 - 02:34:00 PM

মায়ের বকুনি, অভিমানে আত্মঘাতী সপ্তম শ্রেণীর পড়ুয়া 
পড়াশোনা নিয়ে মায়ের বকুনির জেরে অভিমানে আত্মঘাতী হল সপ্তম শ্রেণীর ...বিশদ

20-11-2019 - 01:38:34 PM

আসানসোলে ৫ কুখ্যাত দুষ্কৃতী গ্রেপ্তার 
ডাকাতির উদ্দেশ্যে জরো হওয়া পাঁচ কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করল আরপিএফের ...বিশদ

20-11-2019 - 01:32:39 PM

মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিতে সভামঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

20-11-2019 - 01:26:09 PM