Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

আবাসনের পুজোয় মেয়েরাই সর্বেসর্বা 

পার্ল অ্যাপার্টমেন্টের পুজোয় মহালয়ায় দেবীর চক্ষুদান
‘জাগো দুর্গা জাগো দশপ্রহরণধারিণী অভয়া শক্তি
বলপ্রদায়িনী জাগো, জাগো মা...’
ভোরের আকাশে তখনও আলো ফোটেনি। বেতারের সুর তরঙ্গে ছড়িয়ে পড়ছে মায়ের আগমনবার্তা। বুকের মধ্যে আনন্দের বাদ্যি বাজতে শুরু করেছে। ‘ঠিক এই সময়টাতেই আমাদের মায়ের চক্ষুদান হয়। মহালয়ার পুণ্য প্রভাতে মায়ের চক্ষুদানের প্রথা ছিল আমাদের ব্যান্ডেলের বড়াল বাড়ির পুজোতে। বনেদি বাড়ির বউ হওয়ার সুবাদে মাতৃপুজোর খুঁটিনাটি অনেক কিছুই আমার জানা। মহালয়ার দিন মায়ের চক্ষুদানের পর একটা পুজো হয়। এরপর মায়ের সাজগোজ চলতে থাকে। আমাদের আবাসনের দুর্গাপুজোতেও এই রীতিই মানা হয়’, বলছিলেন সুমিত্রা বড়াল। উত্তর কলকাতার সুকিয়া স্ট্রিটের পার্ল অ্যাপার্টমেন্ট কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সুমিত্রা। তিনি আরও জানালেন, তাঁদের এই আবাসনের পরিচালন সমিতিতে আছেন শুধুই মেয়েরা। পুজোর জয়েন্ট সেক্রেটারি বৈশাখী মুখোপাধ্যায় ও উত্তরা বর্মন। ট্রেজারার দিশারী গুঁইন। পুজোর বাজেট, কোন খাতে কী খরচ করা হবে তার ফর্দ, পুজোর প্যান্ডেল, ব্যবস্থাপনা, খাওয়া-দাওয়ার তদারকি সবই করেন আবাসনের মহিলারা। ছেলেরা শুধু মাঝেমধ্যে সহযোগিতা করেন। পুজোর সেক্রেটারি বৈশাখী মুখোপাধ্যায় জানালেন, এবার তাঁদের পুজো চোদ্দো বছরে পড়ল। এই আবাসনের নীচেই কমন স্পেসে প্রতিমা তৈরি হয়। প্রতিমা কিনে আনা হয় না। বাড়ির পুজোর মতোই ভক্তি সহকারে প্রতিটি ধর্মীয় রীতি মেনে পুজো হয়। বিশেষ করে সন্ধিপুজোর সময় মাথায় ও দুই হাতে মাটির মালসা নিয়ে ধুনো পোড়ানো একটি ঐতিহ্যপূর্ণ প্রথা। এইটিও পালন করেন মেয়েরা। কলাবউ স্নান করাতে গঙ্গায় যাওয়া, লরিতে করে প্রতিমা বিসর্জনে যাওয়া প্রতিটিতেই মেয়েরা মুখ্য ভূমিকা নেন। পঞ্চমীর দিন আগমনি গানের মাধ্যমে পুজোর উদ্বোধন হয়। সুমিত্রা দেবী আরও জানালেন, পুজোর প্রতিদিনই সন্ধেবেলা নানারকম অনুষ্ঠান থাকে। প্রদীপ জ্বালানো, শাঁখ বাজানো প্রতিযোগিতা, গানের লড়াই। তবে আমার ছেলে (কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়) এলে জমে ওঠে ঢাকের বাদ্যির সঙ্গে ধুনুচি নাচ। আবাসনের সবাই মিলে খুব আনন্দ করি পুজোর ক’টা দিন।
৩৬ বছরে বিধান নিবাসের পুজো
সল্টলেকের পুরনো আবাসনগুলোর মধ্যে বিধান নিবাসের দুর্গাপুজোর বেশ নামডাক। ছত্রিশ বছর ধরে প্রায় একই নিয়ম মেনে এখানে পুজো হচ্ছে। নির্দিষ্ট মাপের প্রতিমা আনা হয় কুমোরটুলি থেকে। পঞ্চমীর দিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মায়ের পুজো শুরু হয়। প্রত্যেক দিন সন্ধেবেলা অনুষ্ঠান হয় বিধান নিবাসে। ১১৮টি ফ্ল্যাটের আবাসিকরা সানন্দে অংশ নেন অনুষ্ঠানে। মাসখানেক আগে থেকেই চলতে থাকে রিহার্সাল। নাচ, গান, আবৃত্তি, নাটক নিয়ে জমজমাট পুজো সন্ধ্যা। কথা হচ্ছিল পুজোর অন্যতম কর্ণধার মঞ্জরী ঘোষের সঙ্গে। মঞ্জরী বললেন, আজকের দিনে আমাদের আবাসনের সবথেকে বিস্ময়কর ঘটনা হল, এ প্রজন্মের ছেলেমেয়েরাও পুজোয় এবং অনুষ্ঠানে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে থাকে। কলকাতা ঘুরে ঠাকুর দেখে বেড়ানোর থেকে আবাসনের পুজো মণ্ডপে বসে গল্প করা তাদের কাছে অনেক পছন্দের। এমনকী যে সব ছেলেমেয়ে পড়াশোনা বা চাকরির জন্য দূরদেশে থাকে তারাও সারা বছর ছুটি জমিয়ে রাখে পুজোর সময় বাড়ি আসবে বলে। পঞ্চমী থেকে দশমী তারা পুজো প্রাঙ্গণ ছেড়ে কোথাও যেতে চায় না।
বিধান নিবাসের পুজোর আরও কয়েকটি বিশেষত্ব আছে। যেমন এখানে শুধু মা দুর্গারই নয়, প্রত্যেক দেবদেবীরই সোনার গয়না, রুপোর গয়না, রুপোর অস্ত্রশস্ত্র আছে। এত বছর ধরে বিভিন্ন সময়ে আবাসিকরাই এগুলো দিয়েছেন। সারা বছর এগুলো তুলে রাখা হয়। পঞ্চমীর দিন দেবদেবীকে সাজানো হয় রত্ন অলংকারে। আর একটি বিশেষত্ব হল, পুজোর পর ভোগ খাওয়ার বন্দোবস্ত তো থাকেই, তাছাড়াও এই ১১৮টি ফ্ল্যাটে ভোগ পাঠানো হয়। এই সব দায়িত্বই পালন করেন আবাসনের মেয়ে-বউরা। সকাল সন্ধে পুজোর যাবতীয় কাজকর্মের ভার নেন আবাসনের বয়স্ক মহিলারা। আর বিসর্জন? সেখানেও মেয়েরাই থাকেন অগ্রণী ভূমিকায়।
তিরুপতি গার্ডেন্সের পুজো দশ বছরে
দক্ষিণ কলকাতার নিউ বালিগঞ্জ অঞ্চলে তিরুপতি গার্ডেন্স রেডিডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের পুজোটি হয় একেবারে বাড়ির পুজোর মতো নিয়ম-নিষ্ঠা মেনে। এই আবাসনে শুধু বাঙালিই নয়, বহু অবাঙালি পরিবারও থাকেন। প্রত্যেকেই পুজোয় সাগ্রহে অংশ নেন। কুমোরটুলি বা কালীঘাটের পোটোপাড়া থেকে প্রতিমা আসে। আবাসনের ছোটরাই মণ্ডপসজ্জা, আলপনা সহ পুজোর বিভিন্ন কাজকর্ম করে। তিন্নি, কুহু, রাই, রাজ, সুনেহা, সোমদত্তা, ইস্মিত, সরসীজ, স্বপ্ননীল, হারমান, গুরমানদের হইহই শব্দে পুজো মণ্ডপ ভরে ওঠে চতুর্থীর রাত থেকেই। পুজোর পর আবাসনের বাচ্চারাই আয়োজন করে বিজয়া সম্মেলনীর। নাচ, গান, আবৃত্তি, ছোট নাটক ইত্যাদি নানারকম সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। এবার দশ বছর পূর্তি উপলক্ষে ফ্ল্যাটে বিশেষ আলোকসজ্জার ব্যবস্থা হচ্ছে। ঠাকুরও এবার এক চালার নয়, একটু বড় মাপের প্রতিমা আসবে এবছর। ঠাকুরের ভোগ, খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন সব কিছুই করেন আবাসনের মহিলা সদস্যরা। দুর্গাপুজোর পর লক্ষ্মীপুজোতেও আবাসনের মহিলাদের অংশগ্রহণ লক্ষণীয়।
দশ বছরের পুজোর উদ্বোধন করবেন নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের সহ সম্পাদক মহারাজ। আগামী ২ অক্টোবর তিরুপতি গার্ডেন্সের প্রতিমা উদ্বোধন হবে সন্ধেবেলা। দশ বছরে পুজোর আয়োজনটা একটু অন্য তারে বাঁধার চেষ্টা করছেন পুজো কমিটির সদস্যারা। অষ্টমীর ভোগ বা অন্যান্য দিনের খাওয়াদাওয়ার অয়োজন তো থাকছেই, তাছাড়াও এবছর প্যান্ডেলসজ্জাতেও অভিনব ভাব আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আবাসনের বাসিন্দারা। এই আবাসনের পুজোর এক পরিচালিকা জানালেন, বারোয়ারিপুজোর ভিড়ে গা ভাসাতে সব সময় মন চায় না। ভিড় এড়িয়ে ঘরোয়াভাবে মাতৃ আরাধনার আনন্দ পেতেই তাঁদের এই পুজোর আয়োজন।
পাওয়ার টাওয়ারের পুজোর উদ্বোধনে স্বামী বিমলাত্মানন্দ
নিউটাউনে সিইএসসি কর্পোরেশন হাউজিং সোসাইটি লিমিটেডের আবাসন ‘পাওয়ার টাওয়ার’-এর পুজো এবার চার বছরে। দুর্গাপুজো কালচারাল কমিটির জয়েন্ট প্রোগ্রাম কনভেনার ঋতা সরকার জানালেন, একমাস আগে থেকেই শুরু হয়ে যায় আমাদের তোড়জোড়। পঞ্চমী থেকে নবমী প্রতিদিন সন্ধেবেলা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। নাচ, গান, আবৃত্তি, গীতিনাট্য ইত্যাদিতে অংশ নেন আবাসনের ছোট থেকে বড় সবাই। আমাদের জনা চল্লিশের মহিলা বিগ্রেডই সামলায় পুরো পুজোটা।
পঞ্চমীর দিন পাওয়ার টাওয়ারের পুজোর উদ্বোধন করেন রামকৃষ্ণ মিশনের কোনও একজন স্বামীজি। এবার উদ্বোধন করবেন কাঁকুড়গাছি যোগোদ্যান মঠের স্বামী বিমলাত্মানন্দ। সমস্ত ধর্মীয় প্রথা মেনেই পুজোর আয়োজন করেন মেয়েরা। ঠাকুর আসবে বেলেঘাটার পটুয়াটোলা থেকে। পুজোর চাঁদা তো আছেই, সেই সঙ্গে আবাসিকদের স্পনসরশিপও থাকে। এইভাবেই মায়ের আরাধনায় মগ্ন থাকেন আবাসনের প্রত্যেকে। ছোটরাও পুজোর কাজে হাত লাগায়।
যেয়ো না নবমী নিশি
প্রতিটি আবাসনের পুজোই যেন মিলনমেলা। বছরে একবারই তো আসে এই পুজোর ক’টা দিন। এমন আনন্দ ফুরিয়ে এলে সকলেরই চোখটা ছলছল করে। মন বলে, যেয়ো না রজনী আজি লয়ে এই তারাদলে...। তাই মাকে বিসর্জন দিয়ে আসার পরেও নিজেদের ফ্ল্যাটে পা রাখতে মন চায় না। মিষ্টিমুখ, সৌহার্দ্য বিনিময় আর আলতায় বেলকাঠি ডুবিয়ে ‘শ্রীশ্রী দুর্গা সহায়’ লিখে শেষ হয় প্রতিবারের পুজো। মনে মনে সবাই বলেন, আসছে বছর আবার হবে। 
28th  September, 2019
ভয়টা নিয়ে তো বাঁচা যায় না

এখন সবাইকে নিরাপত্তার জন্য বাড়িতেই থাকতে হবে। খুব প্রয়োজন ছাড়া বেরনো যাবে না। এটা মেনে-বুঝে চলা ছাড়া গতি নেই। আর সবচেয়ে বড় কথা, বাচ্চাদেরও সেটা ভালো করে বোঝানোটা খুব জরুরি। হঠাৎ এসে বললাম, লকডাউন হয়েছে, সবাই বাড়িতে থাকো। 
বিশদ

30th  May, 2020
 রান্নাবান্নাটা শিখিয়ে দিল লকডাউন

সাত ছুঁই-ছুঁই ছেলে উপমন্যুকে নিয়ে অভিনেত্রী অপরাজিতা ঘোষই বা কেমন আছেন?
বিশদ

30th  May, 2020
মুক্তির হাত 

কিছু দিন আগে একই ভাবে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন ক্যাপ্টেন স্বাতী রাভাল, এয়ার ইন্ডিয়া বোয়িং ৭৭৭-এর পাইলট। করোনা-সঙ্কটের মধ্যে ইতালির রাজধানী রোমে আটকে থাকা ২৬৩ জন ভারতীয়কে এয়ারলিফ্ট করে দিল্লি ফিরিয়ে এনেছেন তিনি।  বিশদ

23rd  May, 2020
মানুষের পাশে 

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার চালাননি। নিজে নিজের মতো করে চেয়েছেন এই দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে। নয়ডার ২২-এর তরুণী আরুষি বৈষ্ণব। অর্থনীতির এই ছাত্রীর বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি রয়েছে।   বিশদ

23rd  May, 2020
দেশের জন্য 

তরুণী গবেষক মিনাল দাখাভে ভোঁসলে— দু’মাস আগেই সংবাদপত্রের শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছিলেন পুনে শহরের এই ভাইরোলজিস্ট। শিল্পপতি আনন্দ মাহিন্দ্রা থেকে অভিনেত্রী সোনি রাজদান, মিনালের প্রশংসায় পঞ্চমুখ এখন সবাই।  বিশদ

23rd  May, 2020
নব আনন্দে জাগো  

বিশ্ব জুড়ে এক অন্য পরিবেশ। তবু তারই মধ্যে ভালো থাকবেন কীভাবে? নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা শোনালেন তিন বিশিষ্টনারী। তাঁদের সঙ্গে কথা বললেন কমলিনী চক্রবর্তী।  
বিশদ

11th  April, 2020
শতাধিক পুত্র কন্যার মা
নৃত্যশিল্পী অলকানন্দা 

মাতৃরূপী একজন প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী, যিনি ছয় দশকের বেশি সময় ধরে নৃত্য পরিবেশন করে চলেছেন। যাঁর বহু সন্তান পথভ্রষ্ট হওয়ার পরেও তঁার সাহচর্যে এসে নতুন জীবন পেয়েছে। বিভিন্ন বয়সের এই সন্তানদের ‘মা’ অলকানন্দা রায়ের ক্ষেত্রে সমাজসেবিকা খুবই ছোট একটা খেতাব।   বিশদ

28th  March, 2020
এগারো রেস্তোরাঁর মালিক জয়ন্তী 

বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা জয়ন্তী কাঠালে পেশায় একজন সফট্ওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। ৪০ বছর বয়সি এই মহিলা চাকরি করে নিজের সন্তানকে সময় দিতে পারতেন না। তাই মানসিকভাবে খুবই ভেঙে পড়ছিলেন। তারপরই একদিন সিদ্ধান্ত নেন, খাবার হোম ডেলিভারি শুরু করবেন। 
বিশদ

28th  March, 2020
রাতে নারীদের নিরাপত্তায় বেশি
আলোকিত রাস্তা চেনাবে গুগল ম্যাপ 

এবার গুগল ম্যাপে যুক্ত হতে চলেছে নতুন ফিচার। গুগলের তরফে জানানো হয়েছে, রাতে অন্ধকার রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে অনেক মহিলাই সমস্যায় পড়েন। তাদের সাহায্য করতে নতুন ফিচার আনছে গুগল ম্যাপ। 
বিশদ

28th  March, 2020
নারীর স্বভাব 

একটা প্রচলিত ধারণা আছে যে, মেয়েদের মনে নাকি জিলিপির প্যাঁচ। মেয়ে মানেই কূট-কচালিতে সিদ্ধহস্ত। সুযোগ পেলেই কমবয়েসি বিবাহিত মেয়েরা স্বামী-শ্বশুরবাড়ির নিেন্দ করে। আর বয়স্ক শাশুড়িরা সময় পেলেই বাড়ির বউয়ের নিন্দে-মন্দ করে।  
বিশদ

28th  March, 2020
একটি স্কুলে সারা বছরের খাবার পাঠালেন লোপেজ 

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডধারী পপ গায়িকা জেনিফার লোপেজের দরদি মানুষ হিসেবে পরিচিতি রয়েছে। সুযোগ পেলেই মানুষের সেবায় এগিয়ে আসেন তিনি। এবার আমেরিকার টেনেসির একটি স্কুলে এক বছরের খাবার অনুদান দিয়েছেন ৫০ বছর বয়সি এই তারকা। এই উদ্যোগে তাঁকে সহায়তা করেছেন তাঁর বন্ধু অ্যালেক্স রড্রিগেজ।  
বিশদ

21st  March, 2020
‘সুপার মম’-এর প্রেরণায় দিকে দিকে খুলছে মাতৃদুগ্ধের ব্যাঙ্ক 

মাতৃদুগ্ধ প্রয়োজন। অথচ শিশুর আসল মা শরীর অসুস্থ থাকায় শিশুকে দুগ্ধ পান করাতে অপারগ। অথবা অন্য কোনও কারণেই হোক, কোনও শিশুর মাতৃদুগ্ধ প্রয়োজন অথচ তা জোগাড় করা সম্ভব হচ্ছে না। তাহলে উপায়? 
বিশদ

21st  March, 2020
ছয় নারী নভোচারীকে মঙ্গলগ্রহে পাঠাচ্ছে নাসা 

মঙ্গলগ্রহে যাচ্ছে মানুষ। আর সেই যাত্রার জন্য মোট ১৩ নভোচারীকে বাছাই করেছে মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ‘নাসা’। প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রতি টেক্সাসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই নভোচারীদের নাম ঘোষণা করে। ‘নাসা’ জানিয়েছে, ২০৩০ সালে ১৩ নভোচারীকে নিয়ে মঙ্গলগ্রহের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করবে নাসা’র মহাকাশযান। 
বিশদ

21st  March, 2020
নারী জাগরণে আদিবাসী মেয়েদের অংশগ্রহণ 

শান্তিনিকেতনে সুব্রত বসু ও সুনীপা বসুর তত্ত্বাবধানে প্রতিষ্ঠিত প্রকৃতি ভবনের নাম সত্যিই উল্লেখযোগ্য। তবু তাঁদের গড়া প্রকৃতি ভবনের এই জাদুঘরের বর্ণনা ও ব্যাখ্যা এই প্রতিবেদনের মূল উদ্দেশ্য নয়। এই পুণ্যভূমিতে লোকচক্ষুর অন্তরালে যে কাজ প্রায়শই হয় তাই নিয়ে কথা বলাই এই প্রতিবেদনের আলোচ্য বিষয়। 
বিশদ

21st  March, 2020
একনজরে
সংবাদদাতা, দিনহাটা: দিনহাটা মহকুমার বিভিন্ন এলাকায় করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলতেই শহরে লকডাউনকে আঁটোসাঁটো করল দিনহাটা পুর প্রশাসন। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য শহরে বন্ধ করে দেওয়া হল অটো, টোটো ও বাইক চলাচল।  ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনের জন্য ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর সল্টলেক স্টেডিয়াম থেকে ফুলবাগান পর্যন্ত সম্প্রসারিত পথে কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটির ইন্সপেকশন থমকে গিয়েছিল। মেট্রো রেল সূত্রের খবর, জুন মাসের মধ্যে এই ইন্সপেকশন হবে। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ১ জুন: এবার চলবে শতাব্দী এক্সপ্রেসও। শীঘ্রই শুরু হবে টিকিট বুকিং। পাশাপাশি অত্যধিক চাহিদা থাকায় বাছাই করা কিছু রুটে শুরু হতে চলেছে ...

  কাঠমাণ্ডু, ১ জুন (পিটিআই): নেপালে মর্মান্তিক বাস দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন ১১ জন যাত্রী। আহতের সংখ্যা ২২। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, ভারতে আটকে পড়া প্রায় ৩০ জন পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে একটি বাস নেপালের উদ্দেশে রওনা হয়। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীরা কোনও বৃত্তিমূলক পরীক্ষার ভালো ফল করবে। বিবাহার্থীদের এখন ভালো সময়। ভাই ও বোনদের কারও ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৪৭: লর্ড মাউন্টব্যাটেনের ভারতকে দ্বিখণ্ড করার পরিকল্পনা মেনে নিল কংগ্রেস ও মুসলিম লিগ
১৯৬৫ - অস্ট্রেলীয় প্রাক্তন ক্রিকেটার মার্ক ওয়ার জন্ম।
১৯৭৫ - বিশিষ্ট পদার্থ বিজ্ঞানী দেবেন্দ্র মোহন বসুর মৃত্যু
১৯৮৭: বলিউড অভিনেত্রী সোনাক্ষি সিনহার জন্ম
১৯৮৮: অভিনেতা ও নির্দেশক রাজ কাপুরের মৃত্যু
২০১১: গায়ক অমৃক সিং আরোরার মৃত্যু
২০১১: বিশিষ্ট সংবাদ পাঠক তথা আবৃত্তিকার তথা বাচিক শিল্পী দেবদুলাল বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৫২ টাকা ৭৬.২৩ টাকা
পাউন্ড ৯১.৭৩ টাকা ৯৫.০২ টাকা
ইউরো ৮২.৩৮ টাকা ৮৫.৪৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২ জুন ২০২০, মঙ্গলবার, একাদশী ১৭/৫৪ দিবা ১২/৫। চিত্রা নক্ষত্র ৪৪/৫৮ রাত্রি ১০/৫৫। সূর্যোদয় ৪/৫৫/২৮, সূর্যাস্ত ৬/১৩/৪৪। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৪ মধ্যে পুনঃ ৯/২১ গতে ১২/০ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৩ গতে ৪/২৬ মধ্যে। রাত্রি ৬/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৫ গতে ২/৪ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৬ গতে ৮/১৫ মধ্যে পুনঃ ১/১৪ গতে ২/৫৪ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৩৪ গতে ৮/৫৪ মধ্যে।
 ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২ জুন ২০২০, মঙ্গলবার, একাদশী দিবা ৯/৪৬। চিত্রা নক্ষত্র রাত্রি ৯/২১। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৫। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৬ মধ্যে ও ৯/২৪ গতে ১২/৪ মধ্যে ও ৩/৩৮ গতে ৪/৩২ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২ মধ্যে ও ১১/৫৮ গতে ২/৬ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৬ গতে ৮/১৬ মধ্যে ও ১/১৫ গতে ২/৫৫ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৩৫ গতে ৮/৫৫ মধ্যে।
৯ শওয়াল।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ইতিহাসে আজকের দিনে
১৯৪৭: লর্ড মাউন্টব্যাটেনের ভারতকে দ্বিখণ্ড করার পরিকল্পনা মেনে নিল কংগ্রেস ...বিশদ

08:12:20 AM

নির্ধারিত সময়েই রাজ্যে বর্ষা ঢুকছে
আন্দামান ও নিকোবরে বর্ষা এসেছিল আগেই। এবার নির্দিষ্ট সময়েই ভারতের ...বিশদ

08:06:27 AM

আজকের রাশিফল 
মেষ: বিদ্যার্থীরা কোনও বৃত্তিমূলক পরীক্ষার ভালো ফল করবে। বৃষ: কর্মক্ষেত্রে স্বীকৃতি লাভ। ...বিশদ

08:06:15 AM

উত্তর প্রদেশে করোনা আক্রান্ত আরও ২৯৬, মৃত ৫ 
উত্তর প্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ২৯৬ জন। ...বিশদ

01-06-2020 - 09:21:40 PM

মুম্বইয়ে করোনা আক্রান্ত আরও ১৪১৩, মৃত ৪০ 
মুম্বইয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ১৪১৩ জন। মৃত ...বিশদ

01-06-2020 - 09:12:55 PM

গুজরাটে করোনা আক্রান্ত আরও ৪২৩, মৃত ২৫ 
গুজরাটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪২৩ জন করোনা আক্রান্ত ...বিশদ

01-06-2020 - 08:55:01 PM