Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

 তিন তালাক আইন ও অভিমত

  বহুদিনের লড়াইয়ের পর মহিলাদের জয় হয়েছে। রদ হয়েছে তাৎক্ষণিক তিন তালাক। মুসলিম মহিলাদের একটা সামাজিক স্বীকৃতি লাভ বলা চলে একে। তিন তালাকে বিবাহ-বিচ্ছেদ এখন আইনত অপরাধ। বিষয়টি নিয়ে সরব লেডি ব্রাবোর্ন কলেজের ছাত্রীরা। তাঁদের মুখোমুখি শাকিলা খাতুন।

প্রিয়দর্শিনী রায় (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তিন তালাক রদ আইন পাশ হওয়াটা খুবই ভালো পদক্ষেপ। এইভাবে যেসব পুরুষ তালাক দেয় তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিই প্রাপ্য। জনগণের সম্মতি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা যে নেওয়া হয়েছে সেটাই আশার কথা। তবে সার্ভে করে দেখা গিয়েছে কখনও কখনও পুরুষরাও নির্যাতিত হয়। তাই আমি চাই নারী পুরুষের সমানাধিকার থাকুক যে কোনও আইনে। তিন তালাক রদ আইন নারীশক্তি প্রতিষ্ঠায় এক শুভ পদক্ষেপ। এখন মূল লক্ষ্য হোক আইনের যথাযথ প্রয়োগ। তাছাড়া মহিলাদের শিক্ষিত করাও জরুরি। শিক্ষিত হলেই সচেতনতা আসবে। আকৃতি তামাং (সমাজবিদ্যা)— আইনের অনেক সময় অপপ্রয়োগ হয় আমাদের দেশে। যে কোনও নীতি দুর্নীতিতে পরিবর্তিত হয়ে যায় অনায়াসেই। এই ধরনের অপব্যাখ্যা অবিলম্বে বন্ধ হোক। তা না হলে এই আইন মুসলিম মহিলাদের পক্ষে বিপজ্জনকও হয়ে দাঁড়াতে পারে। মুসলিম মহিলা সমাজের উন্নতি চাইলে আমার মতে প্রথমেই এই কমিউনিটির অশিক্ষা দূর করতে হবে। তিন তালাক রদ যে আইন হিসেবে অবশেষে পাশ হয়েছে এটা ভালো। তবে তার সঠিক প্রয়োগ হয় কি না সেটাই এখন দেখার।
মৃত্তিকা চৌধুরী (বাংলা)— তাৎক্ষণিক তিনবার তালাক উচ্চারণের ফলে মুসলিম মহিলাদের যে অসহায় অবস্থা হয়, তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ অনেকদিন আগেই নেওয়া উচিত ছিল। এইভাবে বিচ্ছেদ হলে একজন মহিলা আকস্মিকভাবেই অথৈ জলে পড়ে। আমি মনে করি, দু’জনের সম্মতি ছাড়া যেমন বিয়ে হয় না, তেমনই দু’জনে চাইলেই তবেই বিবাহ বিচ্ছেদও হওয়া উচিত। তবে যাদের জন্য এই আইন তারা যেন সুফল পায় সেটা দেখাও সামাজিক কর্তব্য। আর তার জন্য নারীশিক্ষা চাই।
ঋতুপ্রিয়া মণ্ডল (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তালাকপ্রাপ্ত একজন মহিলাকে নানাভাবে এক্সপ্লয়েট করা হয়। তাৎক্ষণিক ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর পরিণতি আরও করুণ হয়। শুধুমাত্র বিল পাশ করে সেই স্বামী বা পুরুষটির শাস্তি হলেই সমস্ত সমাধান হবে না। সেই পরিত্যক্ত মহিলার খাওয়া-পরার সংস্থানও হওয়া দরকার। অর্থাৎ তার পুনর্বাসন তথা ভবিষ্যতের কথাও সরকারের চিন্তার বিষয় হোক। মহিলাদের সুরক্ষিত করার কথা আইন প্রবর্তনের সময় বিশেষভাবে ভাবা উচিত।
নাজিফা মেহফুজ (ইতিহাস)— এই ‘তিন তালাক’ বিল কোনওভাবে পাশ হওয়া উচিত নয়। যদি কেউ তার স্ত্রীকে না ভালোবাসে, তাহলে জোর করে তাকে সংসার করতে বাধ্য করলে পরিণতি ভালো হয় না। স্বামীকে বেঁধে রাখা যায় না। অন্যান্য সমাজেও মহিলারা অনেক সময় লাঞ্ছিত, অত্যাচারিত হয়, বধূহত্যা, পণপ্রথার বলি তো আছেই। সরকার মহিলাদের উন্নতির তথা আর্থিক সহায়তার জন্য প্রকল্প নিক। তাৎক্ষণিক তিন তালাক-এ কিন্তু শাস্ত্রমতে বিচ্ছেদ হয় না। এই বিষয়ে মুসলিম সমাজে ভুল ব্যাখ্যাও আছে। প্রথার শাস্ত্রসম্মত যথার্থ প্রয়োগ হয় না। ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর মতে মহিলারাও চাইলে তালাক দিতে পারে। তাকে ‘খুল্লা’ বলে যা শরিয়ত আইনসম্মত। তিন তালাক আইন পাশের থেকেও জরুরি এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষাগ্রহণ আবশ্যক করা। তাহলেই মহিলারা স্বনির্ভর এবং সুরক্ষিত হবে। আমার মতে এই আইনের মাধ্যমে মহিলাদের বিশেষ কিছু প্রাপ্তি হয়নি। কিছু প্রথা তো নিষিদ্ধ হয়েও অবাধে চলেছে। শিক্ষা না থাকলে এক্ষেত্রেও তেমনটাই হবে।
অলিভিয়া সাহা — একজন পুরুষ তিনবার একটা শব্দ বলেই সম্পর্ক শেষ করে দেবে এবং সন্তান থাকলে তাদের দায়মুক্ত হয়ে যাবে, এটা হওয়া একেবারেই উচিত নয়। এই পরিস্থিতি হলে পুরুষটিকে শাস্তি পেতেই হবে। ফলে সেই আইন পাশ হওয়ায় আমি খুশি। তবে দেখতে হবে এর ফলে যেন কোনও পক্ষই ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। অন্যদিকে আইনের অপপ্রয়োগ বন্ধ না হলে এই বিল পাশ হলেও তার ফল শুভ হবে না।
অস্মিতা চক্রবর্তী (বাংলা)— এই তাৎক্ষণিক তিন তালাক ব্যাপারটা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যাচ্ছিল না। একজন পুরুষ তার স্ত্রীকে কোনও সুযোগ না দিয়ে তিনবার তালাক বলেই সমস্ত দায় থেকে মুক্ত হয়ে যাবে এটা একেবারেই অনুচিত। অমানবিকও। ফলে আমার মতে তিন তালাক রদ আইন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রত্যেক আত্মমর্যাদাসম্পন্ন নারীর মতোই আমিও খুশি হয়েছি। তবে এই আইনের প্রচারে মিডিয়ার ভূমিকাও যথাযথ হওয়া দরকার। মিডিয়ার সক্রিয় ভূমিকা থাকলেই এই আইন সঠিকভাবে ব্যবহৃত হবে।
নিকিতা বিশ্বকর্মা (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— সমস্ত মহিলার সুরক্ষার জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা নিশ্চয়ই থাকা উচিত। তিন তালাক আইন মহিলাদের দুরবস্থা থেকে বাঁচাবে ও উন্নত জীবন দেবে বলে আমার বিশ্বাস। ‘তালাক’ বিষয়ে আমি বিশেষ কিছু জানি না। কিন্তু আমার মনে হয় এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষার বিষয়ে সরকারের চিন্তা করা উচিত। প্রত্যেক মহিলার শিক্ষা বাদ্ধতামূলক করা উচিত। মেয়েরা শিক্ষা পেলে তারা নিজেরা‌ই নিজেদের সামাজিক অধিকার চেয়ে নিতে পারবে। কারণ আমাদের দেশে বিচারব্যবস্থাও সবসময় স্বাধীনভাবে চলে না। কোনও আইনই অমান্য করা কঠিন ব্যাপার নয়। তবে আশার কথা এই যে, এখন আমরা মেয়েরা ক্রমশ উন্নতি করছি। অনেক দেশের তুলনায় আমাদের দেশের মহিলারা ভালো আছে। অন্যায়ের প্রতিবাদে তারা সরব হচ্ছে। আশা করা যায় তিন তালাক আইন মেয়েদের সামাজিক অবস্থান আরও উন্নত করবে।
সুপ্রিয়া দাস (ভূগোল)— আমি আইনের পক্ষে। আমাদের দেশের জনগণ ধর্মীয় ব্যাপার বা সাংবিধানিক নিয়ম কোনওটাই যথাযথভাবে জানে না। তিন তালাক সম্পর্কে মুসলিমরাও অনেকে ভালোভাবে জানে না। অধিকাংশ মানুষ সিনেমা-সিরিয়াল দেখে অন্য ধর্ম বা সংস্কৃতি সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করে এবং মিডিয়া যা দেখায় সেটাকেই ধ্রুব সত্য বলে ভাবে। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই ভুল তথ্য প্রচারিত হয়। সেই বিষয়ে সচেতন হওয়া দরকার। আবার পুঁথিগতভাবে শিক্ষিত হয়েও অনেকেই অজ্ঞ থেকে যায়। তবে তিন তালাক মহিলাদের আত্মমর্যাদায় আঘাত হানে। ফলে তা বন্ধ হওয়ায় আমি খুশি। খুব ভালো লাগছে জেনে যে তিন তালাক এখন অপরাধ হিসেবে গণ্য।
আঞ্জুম — আমার মতে এই বিল পাশ হয়ে গেলেও, সেই তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর অবস্থার বিশেষ পরিবর্তন হবে না। অন্যদিকে ‘তালাক’ শব্দ তিনবার একসঙ্গে উচ্চারণ করলেই বিবাহ-বিচ্ছেদ হয় না, একথা অনেকেই জানে না। তালাক একবার বলার পর মাঝে সময় দিতে হয়। এক মাস অন্তর তিনবার ‘তালাক’ উচ্চারণ করলে তবেই বিচ্ছেদ ঘটে স্বামী-স্ত্রীর। এই ধরনের নিয়ম অনেকেরই অজানা। আমাদের সমাজ পিতৃতান্ত্রিক। এখানে মহিলাদের প্রতি অনেকসময় দুর্ব্যবহার হয়। তবে মেয়েরাও যে সবসময় সঠিক পথে চলে তাও তো নয়। তাই যদি কোনও স্ত্রীর ব্যবহার বা চরিত্র অসহনীয় হয়ে ওঠে স্বামীর কাছে, তখন তিন তালাক জরুরি হতেও পারে। আইন অনুসারে তালাক দিলে স্বামীর তিন বছরের জেলও হতে পারে। ওই ভয়ে একসময় আমাদের বাড়ির মেয়েদের এবং আশপাশের অনেক মহিলার স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছিল এবং সেই লিখিত পিটিশন জমা দেওয়া হয়েছিল। ভয় দেখিয়ে মহিলা সমাজের উন্নতি বা অগ্রগতি হবে না। কোনও প্রথাকে আইন করে বন্ধ করা ছাড়াও আরও অনেক কিছুই করা যায় মুসলিম মহিলা উন্নতির জন্য। সেই ধরনের উন্নতির কথাই ভাবা উচিত।
17th  August, 2019
কঠোর মায়েদের সন্তানের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল হয় 

বেড়ে ওঠার বয়সে আপনার মা কি খুব কঠোর ছিলেন? তিনি কি আপনাকে ঘর পরিষ্কার করতে, বাড়ির কাজ করতে এবং প্রতিনিয়ত ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবতে বলতেন? আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ সন্তানই এমন পরিবারে বড় হয়েছি যেখানে মায়েরা ছিলেন আমাদের চিরশত্রু! 
বিশদ

12th  October, 2019
এসো মা লক্ষ্মী বসো ঘরে 

ননীবালার কথা: আশ্বিনে মা আসেন। তার রেশ মিটতে না মিটতেই দু-দিন পরেই তো মেয়ে আসবে। তাঁকে আবাহনেরও কম আয়োজন নাকি! বর্ষা শেষ হয়ে ভাদ্র পড়তেই ভাঁড়ার ঘরের ঝাড়া-বাছা রোদে দেওয়ার ধুম।  
বিশদ

12th  October, 2019
লক্ষ্মীর পাঁচালি গৃহিণীদের
সুখী সংসারের উপদেশ দেয় 

আমাদের বাড়ির হোম মিনিস্টার বলা যায় বাড়ির গৃহবধূ বা গৃহিণীদের। প্রতি বৃহস্পতিবার আমাদের বাংলার ঘরে ঘরে গৃহলক্ষ্মীর পুজো ও পাঁচালি পাঠ সেই পুরানো দিন থেকে আজ পর্যন্ত চলে আসছে। বলা যায় আমাদের সমাজের অন্দরমহলের সবচেয়ে জনপ্রিয় দেবী হলেন লক্ষ্মী। 
বিশদ

12th  October, 2019
বিজয়া দশমী 

দশমী তিথিতে সকাল বেলায় নির্ঘণ্ট অনুযায়ী পুরোহিত আচমন ভূতাপসারণ প্রভৃতি করে পঞ্চোপচারে দেবীর পুজো করেন। ওই দিন দেবীকে পান্তাভাত, কচুর শাক (নুন ছাড়া) ভোগ দেওয়া হয়। যাঁরা অন্নভোগ দেন না তাঁরা চিঁড়ে, মুড়কি, খই, বাতাসা, দই প্রভৃতি ভোগ দেন।  
বিশদ

05th  October, 2019
চণ্ডীতে দেবী দুর্গার প্রকাশময়ী মূর্তি 

দেবী বন্দনার সামগ্রিক বিকাশটি নিহিত আছে শ্রীশ্রীচণ্ডীতে। প্রথম, মধ্যম ও উত্তর ভেদে আদ্যাশক্তি মহামায়া চণ্ডিকা তিন রূপে প্রকাশিতা। গুণ ও কর্ম ভেদে তিনি কখনও মহাকালী, কখনও মহালক্ষ্মী, কখনও বা মহাসরস্বতী রূপে প্রকাশিতা।
বিশদ

05th  October, 2019
সেকালের পুজো 

সে ছিল এক অন্য কলকাতা— সেখানে কলুপাড়া, ডোমপাড়া, হাঁড়িপাড়া, গয়লাপাড়া, হাতিবাগান, বাদুড়বাগান, চালতাবাগান, হালসীর বাগান— ছিল অঞ্চলের নাম। সেই সাবেক কলকাতাতেও ছিল দুর্গাপুজো। সমাজের ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে প্রতিটি মানুষকে না শামিল করলে সেকালের দুর্গাপুজো পূর্ণতা পেত না। 
বিশদ

05th  October, 2019
মহিলা মৃৎশিল্পী
মনের টানে ঠাকুর গড়েন মালা পাল 

কুমোরটুলির এক জায়গায় বসে সবাই যখন ঠাকুর গড়ত, মুগ্ধ হয়ে দেখত মেয়েটি। আর মনে মনে ভাবত সেও একদিন ঠাকুর গড়বে। সেই মতো মেয়েটির যখন চোদ্দো বছর বয়েস, তখন সে বাবার স্টুডিওতে এসে বাবার সঙ্গে ঠাকুর গড়া শুরু করে।  বিশদ

28th  September, 2019
ম হা ল য়া র মধুর সুর 

মহালয়া মানে পিতৃপক্ষের সমাপ্তি আর দেবীপক্ষের সূচনা। শারদীয়া দুর্গোৎসবের পুণ্যলগ্ন হল মহালয়া। মহালয়ার ভোর মানেই দূরত্ব ছাপিয়ে আসা আলো। প্রত্যেক বাঙালিরই মহালয়া নিয়ে নানা স্মৃতি। আজ এই প্রযুক্তি অধ্যুষিত সময়ে দাঁড়িয়েও এই একটা দিনেই আমবাঙালি রেডিওতে মাতে। আগের রাতে ধুলো ঝেড়ে বের হয় বাবা বা ঠাকুরদার পুরনো রেডিও সেটটি।   বিশদ

28th  September, 2019
পার্লারে পার্লারে পুজোর প্যাকেজ 

পুজোর আগে লাস্ট মিনিটে সাজ-সাজেশনে রয়েছে বিভিন্ন পার্লারের আকর্ষণীয় অফার। পুজোর পাঁচটা দিন তাক লাগিয়ে দিন বন্ধুদের। হয়ে উঠুন পুজোর সেরা সুন্দরী। আর যাঁরা এখনও পার্লারমুখো হননি তাঁরাও করে নিন মেকওভার।  বিশদ

28th  September, 2019
মহাপূজার আঙিনায় হোম 

যজ্ঞানুষ্ঠান বৈদিক কর্মের অঙ্গ। অগ্নিকে প্রতীকরূপে উপাসনার প্রথা আদিকাল থেকে। এর উৎপত্তিস্থল ঋগ্বেদ। দেবতার অভিলাষে হব্যাদি যে কোনও অর্ঘ্যদান করতে গেলে অগ্নিতেই তা উৎসর্গ করতে হয়।   বিশদ

28th  September, 2019
আবাসনের পুজোয় মেয়েরাই সর্বেসর্বা 

শহর আর শহরতলি জুড়ে গড়ে উঠছে অসংখ্য আবাসন। সেখানে পুজোর ব্যবস্থাপনায় অগ্রণী ভূমিকা মেয়েদেরই। কয়েকটি আবাসনের মহিলা মহলের সঙ্গে কথা বলে লিখেছেন সোমা লাহিড়ী।  বিশদ

28th  September, 2019
মহাষ্টমী পুজো

 মহাষ্টমী পুজোর দিন সকালে পুরোহিত আচমন করে মায়ের পুজো শুরু করেন। আসনশুদ্ধি, ভূতশুদ্ধি, মাতৃকান্যাস, প্রাণায়াম, পীঠন্যাস সমাপ্ত করে মাকে দন্তকাষ্ঠ নিবেদন করেন। তারপর শুরু হয় মায়ের মহাস্নান।
বিশদ

21st  September, 2019
মহাপূজার আঙিনায়
বলিদান

 মহাপূজার অন্যতম অঙ্গ বলিদান। বলি শব্দের অর্থ উপহার। দেবীভাগবতের মতে, একমাত্র দেবী পূজাতেই বলিদান সম্মত। অন্যত্র নয়। কারণ ব্রহ্মবিদ্যাস্বরূপিণী দেবী আমাদের স্বরূপনিরোধক এই ঘোর জীববুদ্ধি নাশ করে ব্রহ্মকারা বৃত্তিতে প্রকাশমান হন। তাই মহাদেবী বলিপ্রিয়া।
বিশদ

21st  September, 2019
সেকাল একালের
আগমনী আড্ডা

দুর্গা পুজো মানেই নতুন পোশাক, খাওয়া-দাওয়া, রাত জেগে ঠাকুর দেখা আর নির্ভেজাল আড্ডা। আড্ডা পরিকল্পনাও থাকে নানারকম। আড্ডাবাজ বাঙালির আড্ডার আসর বসে পাড়ার পুজো, বাড়ির পুজো, বা আবাসনের পুজোমণ্ডপে। নব্য প্রজন্মের কেউ বা পছন্দ করে ঘুরে বেড়িয়ে আড্ডা দিতে। বিশদ

21st  September, 2019
একনজরে
 বেরিলি, ১৫ অক্টোবর (পিটিআই): ফের জন্মমাত্র শিশুকন্যা হত্যার চেষ্টার জঘন্যতম নিদর্শন মিলল উত্তরপ্রদেশে। ঘটনাটি বেরিলির। নিজের মৃত সদ্যোজাতকে কবর দিতে গিয়ে মাটি খুঁড়ে আর একটি শিশু উদ্ধার করলেন এক ব্যবসায়ী। হিতেশ কুমার সিরোহি নামের এক ওই ব্যবসায়ী শিশুটিকে উদ্ধার করে ...

সংবাদদাতা, জঙ্গিপুর: মঙ্গলবার দুপুরে সূতি থানার সাজুরমোড়ে একটি বেসরকারি স্কুলের উদ্বোধনে আসেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহম্মদ আজহারউদ্দিন। আজাহার বলেন, ওঁর যথেষ্ট যোগ্যতা রয়েছে। আশা করি সৌরভ ভারতীয় ক্রিকেটকে বহুদূর এগিয়ে নিয়ে যাবেন।  ...

 সৌম্যজিৎ সাহা, কলকাতা: পড়াশোনা চলাকালীন পড়ুয়াদের হাতে-কলমে কাজ শেখার জন্য ইন্টার্নশিপ বাধ্যতামূলক করেছে এআইসিটিই। তবে দেখা যাচ্ছে, নিজেদের উপযোগী করে তোলার ক্ষেত্রে আগ্রহ কম পশ্চিমবঙ্গের ছাত্রছাত্রীদের। অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল অব টেকনিক্যাল এডুকেশনের এক সমীক্ষায় উঠে এসেছে এই তথ্য। ...

বিএনএ, রায়গঞ্জ: ডেঙ্গু আক্রান্ত এক রোগীকে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কোনও চিকিৎসক মঙ্গলবার রেফার করার কথা মৌখিকভাবে পরিবারের লোকদের বলায় উত্তেজনা ছড়ায়। যদিও শেষপর্যন্ত ওই রোগীকে কোথাও রেফার করা হয়নি। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চবিদ্যায় ভালো ফল হবে। কর্মপ্রার্থীদের ক্ষেত্রে সুযোগ আসবে। কোনও প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য আসবে। ব্যবসায় যুক্ত ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব খাদ্য দিবস
১৯০৫: বঙ্গভঙ্গ হয়
১৯২৩: দি ওয়াল্ট ডিজনি সংস্থা প্রতিষ্ঠা হয়
১৯২৭: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী জার্মান সাহিত্যিক, চিত্রকর, ভাস্কর এবং নাট্যকার গুন্টার গ্রাসের জন্ম
১৯৪৮: অভিনেত্রী হেমা মালিনীর জন্ম
১৯৫১: রাওয়ালপিন্ডিতে খুন হন পাকিস্তানের প্রথম প্রধানমন্ত্রী লিয়াকত আলি খান
১৯৬৪: প্রথম পরমাণু বিস্ফোরণ ঘটাল চীন





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৪৬ টাকা ৭২.১৬ টাকা
পাউন্ড ৮৮.৩২ টাকা ৯১.৬১ টাকা
ইউরো ৭৭.১৯ টাকা ৮০.১৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৯,১৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৭,১৬৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৭২০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, দ্বিতীয়া ০/২১ প্রাতঃ ৫/৪৫। ভরণী ২১/৫১ দিবা ২/২১। সূ উ ৫/৩৬/৫৪, অ ৫/৭/৫৮, অমৃতযোগ দিবা ৬/২৩ মধ্যে পুনঃ ৭/৯ গতে ৭/৫৫ মধ্যে পুনঃ ১০/১৩ গতে ১২/৩২ মধ্যে। রাত্রি ৫/৫৯ গতে ৬/৪৯ মধ্যে পুনঃ ৮/২৯ গতে ৩/৭ মধ্যে, বারবেলা ৮/৩০ গতে ৯/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১১/২৩ গতে ১২/৪৯ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩০ গতে ৪/৪ মধ্যে।
২৮ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, তৃতীয়া ৫৯/১০/৩৯ শেষরাত্রি ৫/১৭/৩৫। ভরণী ২১/৩৭/১৬ দিবা ২/১৬/১৩, সূ উ ৫/৩৭/১৯, অ ৫/৯/১৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩০ মধ্যে ও ৭/১৫ গতে ৭/৫৯ মধ্যে ও ১০/১৩ গতে ১২/২৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৭ গতে ৬/৪৮ মধ্যে ও ৮/২১ গতে ৩/১১ মধ্যে, বারবেলা ১১/২৩/১৯ গতে ১২/৪৯/৪৯ মধ্যে, কালবেলা ৮/৩০/১৯ গতে ৯/৫৬/৪৯ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩০/১৯ গতে ৪/৩/৪৯ মধ্যে।
১৬ শফর

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
  বৌদ্ধধর্ম গ্রহণ করা নিয়ে মায়াবতীর কড়া সমালোচনায় সরব বিজেপি
সঠিক সময়ে বৌদ্ধধর্ম গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছিলেন মায়াবতী। মহারাষ্ট্রে নির্বাচনী ...বিশদ

09:57:06 AM

আলিপুরের সৌজন্য ভবনে আজ মন্ত্রিসভার বৈঠক
আজ, বুধবার রাজ্য সরকারের অতিথিশালা আলিপুরের ‘সৌজন্য ভবন’-এ রাজ্য মন্ত্রিসভার ...বিশদ

09:56:13 AM

সংখ্যালঘু মেধাবী পড়ুয়াদের জন্য বিশেষ কোচিং রাজ্যের
প্রতিযোগিতামূলক সরকারি চাকরির প্রস্তুতিতে মেধাবী সংখ্যালঘু পড়ুয়াদের জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণের ...বিশদ

09:43:20 AM

ক্ষতিপূরণ দেওয়া শেষ বউবাজারে
ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো রেলের কাজের জন্য বউবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ...বিশদ

09:31:43 AM

আজ অযোধ্যা মামলার শুনানি শেষ
বুধবার শেষ হচ্ছে অযোধ্যা মামলার শুনানি। এদিন সুপ্রিম কোর্টে শুনানি ...বিশদ

09:24:28 AM

 প্রেসিডেন্সি জেলেও জোরদার তল্লাশি অভিযান
দমদম জেল থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার প্রেসিডেন্সি জেলেও বিভিন্ন সেলে ...বিশদ

09:15:29 AM