Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

 তিন তালাক আইন ও অভিমত

  বহুদিনের লড়াইয়ের পর মহিলাদের জয় হয়েছে। রদ হয়েছে তাৎক্ষণিক তিন তালাক। মুসলিম মহিলাদের একটা সামাজিক স্বীকৃতি লাভ বলা চলে একে। তিন তালাকে বিবাহ-বিচ্ছেদ এখন আইনত অপরাধ। বিষয়টি নিয়ে সরব লেডি ব্রাবোর্ন কলেজের ছাত্রীরা। তাঁদের মুখোমুখি শাকিলা খাতুন।

প্রিয়দর্শিনী রায় (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তিন তালাক রদ আইন পাশ হওয়াটা খুবই ভালো পদক্ষেপ। এইভাবে যেসব পুরুষ তালাক দেয় তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিই প্রাপ্য। জনগণের সম্মতি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা যে নেওয়া হয়েছে সেটাই আশার কথা। তবে সার্ভে করে দেখা গিয়েছে কখনও কখনও পুরুষরাও নির্যাতিত হয়। তাই আমি চাই নারী পুরুষের সমানাধিকার থাকুক যে কোনও আইনে। তিন তালাক রদ আইন নারীশক্তি প্রতিষ্ঠায় এক শুভ পদক্ষেপ। এখন মূল লক্ষ্য হোক আইনের যথাযথ প্রয়োগ। তাছাড়া মহিলাদের শিক্ষিত করাও জরুরি। শিক্ষিত হলেই সচেতনতা আসবে। আকৃতি তামাং (সমাজবিদ্যা)— আইনের অনেক সময় অপপ্রয়োগ হয় আমাদের দেশে। যে কোনও নীতি দুর্নীতিতে পরিবর্তিত হয়ে যায় অনায়াসেই। এই ধরনের অপব্যাখ্যা অবিলম্বে বন্ধ হোক। তা না হলে এই আইন মুসলিম মহিলাদের পক্ষে বিপজ্জনকও হয়ে দাঁড়াতে পারে। মুসলিম মহিলা সমাজের উন্নতি চাইলে আমার মতে প্রথমেই এই কমিউনিটির অশিক্ষা দূর করতে হবে। তিন তালাক রদ যে আইন হিসেবে অবশেষে পাশ হয়েছে এটা ভালো। তবে তার সঠিক প্রয়োগ হয় কি না সেটাই এখন দেখার।
মৃত্তিকা চৌধুরী (বাংলা)— তাৎক্ষণিক তিনবার তালাক উচ্চারণের ফলে মুসলিম মহিলাদের যে অসহায় অবস্থা হয়, তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ অনেকদিন আগেই নেওয়া উচিত ছিল। এইভাবে বিচ্ছেদ হলে একজন মহিলা আকস্মিকভাবেই অথৈ জলে পড়ে। আমি মনে করি, দু’জনের সম্মতি ছাড়া যেমন বিয়ে হয় না, তেমনই দু’জনে চাইলেই তবেই বিবাহ বিচ্ছেদও হওয়া উচিত। তবে যাদের জন্য এই আইন তারা যেন সুফল পায় সেটা দেখাও সামাজিক কর্তব্য। আর তার জন্য নারীশিক্ষা চাই।
ঋতুপ্রিয়া মণ্ডল (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তালাকপ্রাপ্ত একজন মহিলাকে নানাভাবে এক্সপ্লয়েট করা হয়। তাৎক্ষণিক ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর পরিণতি আরও করুণ হয়। শুধুমাত্র বিল পাশ করে সেই স্বামী বা পুরুষটির শাস্তি হলেই সমস্ত সমাধান হবে না। সেই পরিত্যক্ত মহিলার খাওয়া-পরার সংস্থানও হওয়া দরকার। অর্থাৎ তার পুনর্বাসন তথা ভবিষ্যতের কথাও সরকারের চিন্তার বিষয় হোক। মহিলাদের সুরক্ষিত করার কথা আইন প্রবর্তনের সময় বিশেষভাবে ভাবা উচিত।
নাজিফা মেহফুজ (ইতিহাস)— এই ‘তিন তালাক’ বিল কোনওভাবে পাশ হওয়া উচিত নয়। যদি কেউ তার স্ত্রীকে না ভালোবাসে, তাহলে জোর করে তাকে সংসার করতে বাধ্য করলে পরিণতি ভালো হয় না। স্বামীকে বেঁধে রাখা যায় না। অন্যান্য সমাজেও মহিলারা অনেক সময় লাঞ্ছিত, অত্যাচারিত হয়, বধূহত্যা, পণপ্রথার বলি তো আছেই। সরকার মহিলাদের উন্নতির তথা আর্থিক সহায়তার জন্য প্রকল্প নিক। তাৎক্ষণিক তিন তালাক-এ কিন্তু শাস্ত্রমতে বিচ্ছেদ হয় না। এই বিষয়ে মুসলিম সমাজে ভুল ব্যাখ্যাও আছে। প্রথার শাস্ত্রসম্মত যথার্থ প্রয়োগ হয় না। ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর মতে মহিলারাও চাইলে তালাক দিতে পারে। তাকে ‘খুল্লা’ বলে যা শরিয়ত আইনসম্মত। তিন তালাক আইন পাশের থেকেও জরুরি এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষাগ্রহণ আবশ্যক করা। তাহলেই মহিলারা স্বনির্ভর এবং সুরক্ষিত হবে। আমার মতে এই আইনের মাধ্যমে মহিলাদের বিশেষ কিছু প্রাপ্তি হয়নি। কিছু প্রথা তো নিষিদ্ধ হয়েও অবাধে চলেছে। শিক্ষা না থাকলে এক্ষেত্রেও তেমনটাই হবে।
অলিভিয়া সাহা — একজন পুরুষ তিনবার একটা শব্দ বলেই সম্পর্ক শেষ করে দেবে এবং সন্তান থাকলে তাদের দায়মুক্ত হয়ে যাবে, এটা হওয়া একেবারেই উচিত নয়। এই পরিস্থিতি হলে পুরুষটিকে শাস্তি পেতেই হবে। ফলে সেই আইন পাশ হওয়ায় আমি খুশি। তবে দেখতে হবে এর ফলে যেন কোনও পক্ষই ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। অন্যদিকে আইনের অপপ্রয়োগ বন্ধ না হলে এই বিল পাশ হলেও তার ফল শুভ হবে না।
অস্মিতা চক্রবর্তী (বাংলা)— এই তাৎক্ষণিক তিন তালাক ব্যাপারটা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যাচ্ছিল না। একজন পুরুষ তার স্ত্রীকে কোনও সুযোগ না দিয়ে তিনবার তালাক বলেই সমস্ত দায় থেকে মুক্ত হয়ে যাবে এটা একেবারেই অনুচিত। অমানবিকও। ফলে আমার মতে তিন তালাক রদ আইন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রত্যেক আত্মমর্যাদাসম্পন্ন নারীর মতোই আমিও খুশি হয়েছি। তবে এই আইনের প্রচারে মিডিয়ার ভূমিকাও যথাযথ হওয়া দরকার। মিডিয়ার সক্রিয় ভূমিকা থাকলেই এই আইন সঠিকভাবে ব্যবহৃত হবে।
নিকিতা বিশ্বকর্মা (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— সমস্ত মহিলার সুরক্ষার জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা নিশ্চয়ই থাকা উচিত। তিন তালাক আইন মহিলাদের দুরবস্থা থেকে বাঁচাবে ও উন্নত জীবন দেবে বলে আমার বিশ্বাস। ‘তালাক’ বিষয়ে আমি বিশেষ কিছু জানি না। কিন্তু আমার মনে হয় এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষার বিষয়ে সরকারের চিন্তা করা উচিত। প্রত্যেক মহিলার শিক্ষা বাদ্ধতামূলক করা উচিত। মেয়েরা শিক্ষা পেলে তারা নিজেরা‌ই নিজেদের সামাজিক অধিকার চেয়ে নিতে পারবে। কারণ আমাদের দেশে বিচারব্যবস্থাও সবসময় স্বাধীনভাবে চলে না। কোনও আইনই অমান্য করা কঠিন ব্যাপার নয়। তবে আশার কথা এই যে, এখন আমরা মেয়েরা ক্রমশ উন্নতি করছি। অনেক দেশের তুলনায় আমাদের দেশের মহিলারা ভালো আছে। অন্যায়ের প্রতিবাদে তারা সরব হচ্ছে। আশা করা যায় তিন তালাক আইন মেয়েদের সামাজিক অবস্থান আরও উন্নত করবে।
সুপ্রিয়া দাস (ভূগোল)— আমি আইনের পক্ষে। আমাদের দেশের জনগণ ধর্মীয় ব্যাপার বা সাংবিধানিক নিয়ম কোনওটাই যথাযথভাবে জানে না। তিন তালাক সম্পর্কে মুসলিমরাও অনেকে ভালোভাবে জানে না। অধিকাংশ মানুষ সিনেমা-সিরিয়াল দেখে অন্য ধর্ম বা সংস্কৃতি সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করে এবং মিডিয়া যা দেখায় সেটাকেই ধ্রুব সত্য বলে ভাবে। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই ভুল তথ্য প্রচারিত হয়। সেই বিষয়ে সচেতন হওয়া দরকার। আবার পুঁথিগতভাবে শিক্ষিত হয়েও অনেকেই অজ্ঞ থেকে যায়। তবে তিন তালাক মহিলাদের আত্মমর্যাদায় আঘাত হানে। ফলে তা বন্ধ হওয়ায় আমি খুশি। খুব ভালো লাগছে জেনে যে তিন তালাক এখন অপরাধ হিসেবে গণ্য।
আঞ্জুম — আমার মতে এই বিল পাশ হয়ে গেলেও, সেই তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর অবস্থার বিশেষ পরিবর্তন হবে না। অন্যদিকে ‘তালাক’ শব্দ তিনবার একসঙ্গে উচ্চারণ করলেই বিবাহ-বিচ্ছেদ হয় না, একথা অনেকেই জানে না। তালাক একবার বলার পর মাঝে সময় দিতে হয়। এক মাস অন্তর তিনবার ‘তালাক’ উচ্চারণ করলে তবেই বিচ্ছেদ ঘটে স্বামী-স্ত্রীর। এই ধরনের নিয়ম অনেকেরই অজানা। আমাদের সমাজ পিতৃতান্ত্রিক। এখানে মহিলাদের প্রতি অনেকসময় দুর্ব্যবহার হয়। তবে মেয়েরাও যে সবসময় সঠিক পথে চলে তাও তো নয়। তাই যদি কোনও স্ত্রীর ব্যবহার বা চরিত্র অসহনীয় হয়ে ওঠে স্বামীর কাছে, তখন তিন তালাক জরুরি হতেও পারে। আইন অনুসারে তালাক দিলে স্বামীর তিন বছরের জেলও হতে পারে। ওই ভয়ে একসময় আমাদের বাড়ির মেয়েদের এবং আশপাশের অনেক মহিলার স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছিল এবং সেই লিখিত পিটিশন জমা দেওয়া হয়েছিল। ভয় দেখিয়ে মহিলা সমাজের উন্নতি বা অগ্রগতি হবে না। কোনও প্রথাকে আইন করে বন্ধ করা ছাড়াও আরও অনেক কিছুই করা যায় মুসলিম মহিলা উন্নতির জন্য। সেই ধরনের উন্নতির কথাই ভাবা উচিত।
17th  August, 2019
 শিশুর সামাজিক বিকাশে নারীর ভূমিকা

বর্তমান জীবনের প্রেক্ষাপটে বিশ্লেষণ করলে শিশু কতটা সফল তা অনেকটাই নির্ভর করে শিশুর সামাজিক বিকাশের উপর। সুন্দর সামাজিক বিকাশ শিশুকে পরবর্তী জীবনে করে তোলে সফল, সক্ষম ও সুনাগরিক। বিশদ

09th  November, 2019
 ৭৫ বছর ধরে মেয়েদের স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে
নারী সেবা সংঘ

  ১৯৪৩ সাল। সবে শেষ হয়েছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। দেশ তথা বাংলা তখন ভয়াবহ দুর্ভিক্ষের কবলে পড়ে প্রায় বিধ্বস্ত। আর সে সময়ই বাংলার কিছু সমাজ সচেতন ব্যক্তি এগিয়ে আসেন, দুর্ভিক্ষের কবলে পড়ে করুণ অবস্থার শিকার হওয়া মহিলা আর শিশুদের উপকার করার জন্য। বিশদ

09th  November, 2019
 অগ্নিযোদ্ধা তানিয়া

 হাতে সময় মাত্র ২ মিনিট ১৮ সেকেন্ড, আর সেটাই হচ্ছে সারভাইভাল টাইম। বিমান দুর্ঘটনা ঘটলে, এটুকু সময়ের মধ্যেই যা করার করতে হবে। উদ্ধার কাজ শেষ করার জন্য বরাদ্দ এই সময়টাকে কাজে লাগাতে না পারলে প্রাণ বাঁচানো যাবে না বিমানযাত্রী এবং কর্মীদের। তাই গোটা প্রক্রিয়াটাই খুব চ্যালেঞ্জিং।
বিশদ

09th  November, 2019
মানুষ চেনা খুব কঠিন: অন্বেষা হাজরা 

মেয়েটির ভূত দেখার খুব ইচ্ছে। তাই সে ভূত দেখার জন্য যখন তখন হানাবাড়িতে হানা দেয়। কিন্তু ভূতের বদলে সেখানে দেখা মেলে শুধুমাত্র চোরের। মেয়ের ভূত দেখার তাড়নায় অতিষ্ঠ হয়ে বাড়ির লোক মেয়েটিকে বলে যে, তাকে ভূতের বাড়িতেই বিয়ে দেবে। যেখানে শাশুড়ি হবে শাকচুন্নি আর ননদ হবে পেতনি। 
বিশদ

02nd  November, 2019
বিদ্যাসাগরের বিধবারা 

বঙ্গবিধবাদের জগন্নাথধাম ‘পালানো’ সম্পর্কে এই বর্ণনা পাওয়া যায় ১৮৪৯ সালের ‘সম্বাদ রসরাজ’ পত্রিকায়— ‘নগরেতে হইয়াছে গেল গেল রব।/ পলাইয়া ক্ষেত্রে যায় নরনারী সব।।/ কাহারো পলায়ে গেল বিধবা বহুড়ী।/ এর বাড়ি তার বাড়ি খুঁজিছে শাশুড়ী।।’  
বিশদ

02nd  November, 2019
মা দুর্গার আর এক অন্য রূপ জ গ দ্ধা ত্রী

মা জগদ্ধাত্রী মহাশক্তির প্রতীক, তিনি সর্বস্থানে বিচরিত, তিনি চির শাশ্বত। তাঁর ধ্যান মন্ত্রে পাওয়া যায়,
সিংহ স্কন্ধ সমারূঢ়াং নানালঙ্কার ভূষিতাং।
চতুর্ভুজাং মহাদেবীং নাগ যজ্ঞোপবীতিধারিণীং...
নারদাদ্যৈ মুনিগণৈঃ সেবিতাং ভবসুন্দরীয়।।  বিশদ

02nd  November, 2019
যুগে যুগে ভা ই ফোঁ টা 

‘ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমদুয়ারে পড়ল কাঁটা’— বোনেরা এই মন্ত্র উচ্চারণে কপালে চন্দনের ফোঁটা দিয়ে তাদের ভাইদের দীর্ঘায়ু কামনা করে। এই নিয়ম যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। কিন্তু এখন তো প্রায় সবাই একা একা বড় হচ্ছে। তাই আগেকার মতো ভাইফোঁটা সবাই কি পালন করতে পারে? নাকি ভাইফোঁটা হারিয়ে যাচ্ছে? 
বিশদ

26th  October, 2019
ডুব দে রে মন কালী বলে 

জব চার্নকের শহরে উত্তর থেকে দক্ষিণ অজস্র কালীবাড়ি রয়েছে। কোনও কালীবাড়ি সম্ভ্রান্ত পরিবারের রানির হাত ধরে, কোনওটা বা ফিরিঙ্গি সাহেবের প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। সারাবছর যে নিয়মই থাকুক না কেন দীপান্বিতা অমাবস্যায় অর্থাৎ কালীপুজোর বিশেষ দিনে কীভাবে পূজিত হন কলকাতার বিখ্যাত সব মন্দিরের মাতৃমূর্তি?
বিশদ

26th  October, 2019
মা কালী ও তন্ত্রসাধনা 

তন্ত্র সাধনার দেশ ভারতবর্ষ। সেই সুপ্রাচীন কাল থেকে ভক্ত তার সিদ্ধিলাভের জন্য তন্ত্র সাধনা করে আসছেন। যে সব দেব-দেবীর উদ্দেশ্যে তন্ত্র সাধনা হয়ে থাকে তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় দেবী হলেন কালী। বিভিন্ন উদ্দেশ্যে সাধক-সাধিকারা মা কালীর নানা রূপের সাধনা করেন। তন্ত্র সাধনা খুবই গুপ্ত ও কঠিন সাধনা। 
বিশদ

26th  October, 2019
দেবী কালিকার দেশমাতৃকা রূপ 

জাতীয়তাবাদের প্রথম ও সর্বশ্রেষ্ঠ পরিচয় ‘মা’ শব্দটি। মাতৃশক্তি এমনই বৈশিষ্ট্য সমন্বিত যে মাতৃজাতির সৃষ্টি না হলে দেশকে বা ভগবানকে মাতৃজ্ঞানে অর্চনা করার অধিকারী আমরা হতাম না। বিশ্বাত্মবোধ, জাতীয়তাবাদ ও স্বদেশপ্রেম চিরন্তনী এই ত্রিধারা শাশ্বত ভারতে মাতৃবন্দনার বিশ্বরূপ। দেশমাতারূপে মহাশক্তি মহামায়া মহাকালিকাকে প্রত্যক্ষ করা সেই প্রেরণারই জীবন্ত প্রতিমা। 
বিশদ

26th  October, 2019
টেনিস তারকা অ্যাশলে বার্টি 

ফরাসি ওপেনে এবারকার মেয়েদের সিঙ্গলস চ্যাম্পিয়ন অ্যাশলে বার্টি। ছেচল্লিশ বছরের দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ২৩ বছরের অস্ট্রেলীয় তরুণীর ফরাসি ওপেন জয়! ইতিহাস গড়লেন বার্টি। রোলাঁ গারোজে চেক কন্যা মার্কেতা ভন্ড্রোসোভাকে হারিয়ে দুর্দান্তভাবে জয়ী হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত ক্রিকেটার রিকি পন্টিংয়ের দেশ কুইন্সল্যান্ডের মেয়ে বার্টি।  
বিশদ

19th  October, 2019
নারীর নিরাপত্তায় সমাজ ও রাষ্ট্রের ভূমিকা 

মেয়েটি যাতে শারীরিক নিগ্রহ বা লাঞ্ছনার শিকার হলেও প্রতিবাদের মনোবল অক্ষুণ্ণ রাখতে পারে সেই মানসিকতা তার মধ্যে গড়ে তুলতে হবে পরিবারের লোকজনদের। ভয়ে, লজ্জায় নয়, দৃঢ় মনোভাব নিয়ে পরিস্থিতির মোকাবিলা করার সাহসের শিক্ষা আসবে পরিবার থেকেই।
বিশদ

19th  October, 2019
ভারত-সুন্দরী সুমন রাও একজন সমাজসেবীও 

২০১৯ সালের ‘ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া’ হলেন রাজস্থানের সুমন রাও। এছাড়া, ছত্তিশগড়ের শিবানী যাদব ‘ফেমিনা মিস গ্র্যান্ড ইন্ডিয়া’ আর বিহারের শ্রেয়া শঙ্কর ‘মিস ইন্ডিয়া ইউনাইটেড কনটেস্ট’ খেতাব জিতেছেন। সম্প্রতি মুম্বইয়ের ওয়ার্লির সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল ইন্ডোর স্টেডিয়ামে ‘ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া’র গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।  
বিশদ

19th  October, 2019
ক্যারাটেতে সাফল্য এনেছে তারকেশ্বরের মেয়ে বৃষ্টি 

নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে এসেছে হুগলি জেলার তারকেশ্বরের পার্শ্ববর্তী মুক্তারপুর গ্রামের পঞ্চদশী বৃষ্টি মণ্ডল। এবছর ১৬ আগস্ট ভদ্রেশ্বরের তেলেনিপাড়া এম জি বিদ্যাপীঠে অনুষ্ঠিত ৬৫তম চন্দননগর মহকুমা স্কুল ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ানশিপে মেয়েদের বিভাগে (অনূর্ধ্ব ১৭) দ্বিতীয়স্থান দখল করে মহকুমা ক্রীড়া মহলে সাড়া ফেলে দিয়েছে সে।  
বিশদ

19th  October, 2019
একনজরে
সংবাদদাতা, বর্ধমান: সর্বভারতীয় স্কুল পর্যায়ের যোগাসন প্রতিযোগিতায় অনূর্ধ্ব-১৭ বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়ে জেলার মুখ উজ্জ্বল করল সর্বশ্রী মণ্ডল। রিদমিক যোগায় প্রথম হয়ে সে সোনার মুকুট পায়। এমাসের ৪ নভেম্বর সল্টলেকের বিবেকানন্দ যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গণে প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়। ...

সংবাদদাতা, নবদ্বীপ: রাজ্য সরকারের বাংলা ভাষায় জয়েন্ট পরীক্ষার দাবি অনর্থক। কেন্দ্র অনেক আগেই সব রাজ্যকে জানিয়েছিল। বাংলার সরকার সেই সময় হ্যাঁ বা না কিছুই বলেনি। এখন নাটকবাজি শুরু করেছে। বাংলার মানুষকে বোঝাচ্ছে আমরা কত বাংলা দরদি।   ...

সংবাদদাতা, গঙ্গারামপুর: বোল্লাকালীর অন্যতম ভোগ চিনির বাতাসা তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন মিষ্টি বিক্রেতারা। শুক্রবারই মায়ের পুজো। তাই নাওয়াখাওয়া ভুলে কয়েক কুইন্টাল চিনি জাল দিয়ে তৈরি হচ্ছে কদমা, বাতাসা। দূরদূরান্ত থেকেন বোল্লাকালীর পুজো দিতে আসেন ভক্তেরা।   ...

সংবাদদাতা, কাটোয়া: দাঁইহাট রাস উৎসব উপলক্ষে মঙ্গল ও বুধবার নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে ৭০০ পুলিস কর্মী মোতায়েন করা হল। গোটা শহরজুড়ে পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরায় মুড়ে ফেলা হয়েছে। শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলিতে মঙ্গলবার থেকেই নো-এন্ট্রি চালু করা হয়েছে।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের কোনও চুক্তিবদ্ধ কাজে যুক্ত হবার যোগ আছে। ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে। বিবাহের যোগাযোগ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৪০: ফরাসি ভাস্কর অগ্যুস্ত রদ্যঁর জন্ম
১৮৯৩: পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সীমান্তরেখা ডুরান্ড লাইন চুক্তি স্বাক্ষরিত
১৮৯৬: পক্ষীবিদ সালিম আলির জন্ম
১৯৪৬: পণ্ডিত মদনমোহন মালব্যের মৃত্যু  

12th  November, 2019




ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৭০ টাকা ৭২.৮৫ টাকা
পাউন্ড ৮৯.০৬ টাকা ৯৩.৩৬ টাকা
ইউরো ৭৬.৭৩ টাকা ৮০.৪৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
12th  November, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৫৩০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৫৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,১০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ কার্তিক ১৪২৬, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, প্রতিপদ ৩৪/৩৬ রাত্রি ৭/৪২। কৃত্তিকা ৪০/২৩ রাত্রি ১০/১। সূ উ ৫/৫১/২৯, অ ৪/৫০/১৫, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৫ মধ্যে পুনঃ ৭/১৯ গতে ৮/৩ মধ্যে পুনঃ ১০/১৫ গতে ১২/২৭ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪২ গতে ৬/৩৪ মধ্যে পুনঃ ৮/১৯ গতে ৩/১৫ মধ্যে, বারবেলা ৮/৩৫ গতে ৯/৫৮ মধ্যে পুনঃ ১১/২১ গতে ১২/৪৩ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩৬ গতে ৪/১৪ মধ্যে।
 ২৬ কার্তিক ১৪২৬, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, প্রতিপদ ৩৪/২৪/৩৯ রাত্রি ৭/৩৮/৩৩। কৃত্তিকা ৪২/২৪/১১ রাত্রি ১০/৫০/২১, সূ উ ৫/৫২/৪১, অ ৪/৫০/৫২, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৭ মধ্যে ও ৭/৩০ গতে ৮/১২ মধ্যে ও ১০/২১ গতে ১২/২৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪০ গতে ৬/৩৩ মধ্যে ও ৮/১৯ গতে ৩/২৪ মধ্যে, বারবেলা ১১/২১/৪৪ গতে ১২/৪৪/০ মধ্যে, কালবেলা ৮/৩৭/১৩ গতে ৯/৫৯/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩৭/১২ গতে ৪/১৪/৫৬ মধ্যে।
১৫ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারিকে নিন্দনীয় আখ্যা কংগ্রেসের
মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করাকে নিন্দনীয় বলে আখ্যা দিল কংগ্রেস। ...বিশদ

12-11-2019 - 07:59:24 PM

মহারাষ্ট্রে জারি হল রাষ্ট্রপতি শাসন 
অবশেষে রাষ্ট্রপতি শাসনই জারি হল মহারাষ্ট্রে। রাজ্যপালের সুপারিশে সই করে ...বিশদ

12-11-2019 - 05:40:00 PM

  টাস্ক ফোর্স নিয়ে বৈঠকে কী সিদ্ধান্ত হল?
বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থ এলকায় গিয়ে কালকের মধ্যে নবান্নে রিপোর্ট জমা দিতে ...বিশদ

12-11-2019 - 05:07:23 PM

 আজব কাণ্ড! পেঁপের পেটেই মিলল পেঁপে
পেঁপের পেটেই পেঁপে মিলল। শুনলে অবাক লাগলেও বাস্তবে এটাই ...বিশদ

12-11-2019 - 04:43:28 PM

মদনমোহন মন্দিরে পুজো দিতে এলেন সংসদ সদস্য নিশীথ প্রামানিক 
চল্লিশটি ঢাক বাজিয়ে রাজ বেশে কোচবিহারের মদনমোহন মন্দিরে এসে পুজো ...বিশদ

12-11-2019 - 04:03:00 PM

জলপাইগুড়িতে আর্থিক জালিয়াতির অভিযোগ, আটক ১ 

12-11-2019 - 04:00:00 PM