Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

 তিন তালাক আইন ও অভিমত

  বহুদিনের লড়াইয়ের পর মহিলাদের জয় হয়েছে। রদ হয়েছে তাৎক্ষণিক তিন তালাক। মুসলিম মহিলাদের একটা সামাজিক স্বীকৃতি লাভ বলা চলে একে। তিন তালাকে বিবাহ-বিচ্ছেদ এখন আইনত অপরাধ। বিষয়টি নিয়ে সরব লেডি ব্রাবোর্ন কলেজের ছাত্রীরা। তাঁদের মুখোমুখি শাকিলা খাতুন।

প্রিয়দর্শিনী রায় (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তিন তালাক রদ আইন পাশ হওয়াটা খুবই ভালো পদক্ষেপ। এইভাবে যেসব পুরুষ তালাক দেয় তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিই প্রাপ্য। জনগণের সম্মতি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা যে নেওয়া হয়েছে সেটাই আশার কথা। তবে সার্ভে করে দেখা গিয়েছে কখনও কখনও পুরুষরাও নির্যাতিত হয়। তাই আমি চাই নারী পুরুষের সমানাধিকার থাকুক যে কোনও আইনে। তিন তালাক রদ আইন নারীশক্তি প্রতিষ্ঠায় এক শুভ পদক্ষেপ। এখন মূল লক্ষ্য হোক আইনের যথাযথ প্রয়োগ। তাছাড়া মহিলাদের শিক্ষিত করাও জরুরি। শিক্ষিত হলেই সচেতনতা আসবে। আকৃতি তামাং (সমাজবিদ্যা)— আইনের অনেক সময় অপপ্রয়োগ হয় আমাদের দেশে। যে কোনও নীতি দুর্নীতিতে পরিবর্তিত হয়ে যায় অনায়াসেই। এই ধরনের অপব্যাখ্যা অবিলম্বে বন্ধ হোক। তা না হলে এই আইন মুসলিম মহিলাদের পক্ষে বিপজ্জনকও হয়ে দাঁড়াতে পারে। মুসলিম মহিলা সমাজের উন্নতি চাইলে আমার মতে প্রথমেই এই কমিউনিটির অশিক্ষা দূর করতে হবে। তিন তালাক রদ যে আইন হিসেবে অবশেষে পাশ হয়েছে এটা ভালো। তবে তার সঠিক প্রয়োগ হয় কি না সেটাই এখন দেখার।
মৃত্তিকা চৌধুরী (বাংলা)— তাৎক্ষণিক তিনবার তালাক উচ্চারণের ফলে মুসলিম মহিলাদের যে অসহায় অবস্থা হয়, তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ অনেকদিন আগেই নেওয়া উচিত ছিল। এইভাবে বিচ্ছেদ হলে একজন মহিলা আকস্মিকভাবেই অথৈ জলে পড়ে। আমি মনে করি, দু’জনের সম্মতি ছাড়া যেমন বিয়ে হয় না, তেমনই দু’জনে চাইলেই তবেই বিবাহ বিচ্ছেদও হওয়া উচিত। তবে যাদের জন্য এই আইন তারা যেন সুফল পায় সেটা দেখাও সামাজিক কর্তব্য। আর তার জন্য নারীশিক্ষা চাই।
ঋতুপ্রিয়া মণ্ডল (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তালাকপ্রাপ্ত একজন মহিলাকে নানাভাবে এক্সপ্লয়েট করা হয়। তাৎক্ষণিক ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর পরিণতি আরও করুণ হয়। শুধুমাত্র বিল পাশ করে সেই স্বামী বা পুরুষটির শাস্তি হলেই সমস্ত সমাধান হবে না। সেই পরিত্যক্ত মহিলার খাওয়া-পরার সংস্থানও হওয়া দরকার। অর্থাৎ তার পুনর্বাসন তথা ভবিষ্যতের কথাও সরকারের চিন্তার বিষয় হোক। মহিলাদের সুরক্ষিত করার কথা আইন প্রবর্তনের সময় বিশেষভাবে ভাবা উচিত।
নাজিফা মেহফুজ (ইতিহাস)— এই ‘তিন তালাক’ বিল কোনওভাবে পাশ হওয়া উচিত নয়। যদি কেউ তার স্ত্রীকে না ভালোবাসে, তাহলে জোর করে তাকে সংসার করতে বাধ্য করলে পরিণতি ভালো হয় না। স্বামীকে বেঁধে রাখা যায় না। অন্যান্য সমাজেও মহিলারা অনেক সময় লাঞ্ছিত, অত্যাচারিত হয়, বধূহত্যা, পণপ্রথার বলি তো আছেই। সরকার মহিলাদের উন্নতির তথা আর্থিক সহায়তার জন্য প্রকল্প নিক। তাৎক্ষণিক তিন তালাক-এ কিন্তু শাস্ত্রমতে বিচ্ছেদ হয় না। এই বিষয়ে মুসলিম সমাজে ভুল ব্যাখ্যাও আছে। প্রথার শাস্ত্রসম্মত যথার্থ প্রয়োগ হয় না। ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর মতে মহিলারাও চাইলে তালাক দিতে পারে। তাকে ‘খুল্লা’ বলে যা শরিয়ত আইনসম্মত। তিন তালাক আইন পাশের থেকেও জরুরি এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষাগ্রহণ আবশ্যক করা। তাহলেই মহিলারা স্বনির্ভর এবং সুরক্ষিত হবে। আমার মতে এই আইনের মাধ্যমে মহিলাদের বিশেষ কিছু প্রাপ্তি হয়নি। কিছু প্রথা তো নিষিদ্ধ হয়েও অবাধে চলেছে। শিক্ষা না থাকলে এক্ষেত্রেও তেমনটাই হবে।
অলিভিয়া সাহা — একজন পুরুষ তিনবার একটা শব্দ বলেই সম্পর্ক শেষ করে দেবে এবং সন্তান থাকলে তাদের দায়মুক্ত হয়ে যাবে, এটা হওয়া একেবারেই উচিত নয়। এই পরিস্থিতি হলে পুরুষটিকে শাস্তি পেতেই হবে। ফলে সেই আইন পাশ হওয়ায় আমি খুশি। তবে দেখতে হবে এর ফলে যেন কোনও পক্ষই ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। অন্যদিকে আইনের অপপ্রয়োগ বন্ধ না হলে এই বিল পাশ হলেও তার ফল শুভ হবে না।
অস্মিতা চক্রবর্তী (বাংলা)— এই তাৎক্ষণিক তিন তালাক ব্যাপারটা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যাচ্ছিল না। একজন পুরুষ তার স্ত্রীকে কোনও সুযোগ না দিয়ে তিনবার তালাক বলেই সমস্ত দায় থেকে মুক্ত হয়ে যাবে এটা একেবারেই অনুচিত। অমানবিকও। ফলে আমার মতে তিন তালাক রদ আইন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রত্যেক আত্মমর্যাদাসম্পন্ন নারীর মতোই আমিও খুশি হয়েছি। তবে এই আইনের প্রচারে মিডিয়ার ভূমিকাও যথাযথ হওয়া দরকার। মিডিয়ার সক্রিয় ভূমিকা থাকলেই এই আইন সঠিকভাবে ব্যবহৃত হবে।
নিকিতা বিশ্বকর্মা (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— সমস্ত মহিলার সুরক্ষার জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা নিশ্চয়ই থাকা উচিত। তিন তালাক আইন মহিলাদের দুরবস্থা থেকে বাঁচাবে ও উন্নত জীবন দেবে বলে আমার বিশ্বাস। ‘তালাক’ বিষয়ে আমি বিশেষ কিছু জানি না। কিন্তু আমার মনে হয় এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষার বিষয়ে সরকারের চিন্তা করা উচিত। প্রত্যেক মহিলার শিক্ষা বাদ্ধতামূলক করা উচিত। মেয়েরা শিক্ষা পেলে তারা নিজেরা‌ই নিজেদের সামাজিক অধিকার চেয়ে নিতে পারবে। কারণ আমাদের দেশে বিচারব্যবস্থাও সবসময় স্বাধীনভাবে চলে না। কোনও আইনই অমান্য করা কঠিন ব্যাপার নয়। তবে আশার কথা এই যে, এখন আমরা মেয়েরা ক্রমশ উন্নতি করছি। অনেক দেশের তুলনায় আমাদের দেশের মহিলারা ভালো আছে। অন্যায়ের প্রতিবাদে তারা সরব হচ্ছে। আশা করা যায় তিন তালাক আইন মেয়েদের সামাজিক অবস্থান আরও উন্নত করবে।
সুপ্রিয়া দাস (ভূগোল)— আমি আইনের পক্ষে। আমাদের দেশের জনগণ ধর্মীয় ব্যাপার বা সাংবিধানিক নিয়ম কোনওটাই যথাযথভাবে জানে না। তিন তালাক সম্পর্কে মুসলিমরাও অনেকে ভালোভাবে জানে না। অধিকাংশ মানুষ সিনেমা-সিরিয়াল দেখে অন্য ধর্ম বা সংস্কৃতি সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করে এবং মিডিয়া যা দেখায় সেটাকেই ধ্রুব সত্য বলে ভাবে। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই ভুল তথ্য প্রচারিত হয়। সেই বিষয়ে সচেতন হওয়া দরকার। আবার পুঁথিগতভাবে শিক্ষিত হয়েও অনেকেই অজ্ঞ থেকে যায়। তবে তিন তালাক মহিলাদের আত্মমর্যাদায় আঘাত হানে। ফলে তা বন্ধ হওয়ায় আমি খুশি। খুব ভালো লাগছে জেনে যে তিন তালাক এখন অপরাধ হিসেবে গণ্য।
আঞ্জুম — আমার মতে এই বিল পাশ হয়ে গেলেও, সেই তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর অবস্থার বিশেষ পরিবর্তন হবে না। অন্যদিকে ‘তালাক’ শব্দ তিনবার একসঙ্গে উচ্চারণ করলেই বিবাহ-বিচ্ছেদ হয় না, একথা অনেকেই জানে না। তালাক একবার বলার পর মাঝে সময় দিতে হয়। এক মাস অন্তর তিনবার ‘তালাক’ উচ্চারণ করলে তবেই বিচ্ছেদ ঘটে স্বামী-স্ত্রীর। এই ধরনের নিয়ম অনেকেরই অজানা। আমাদের সমাজ পিতৃতান্ত্রিক। এখানে মহিলাদের প্রতি অনেকসময় দুর্ব্যবহার হয়। তবে মেয়েরাও যে সবসময় সঠিক পথে চলে তাও তো নয়। তাই যদি কোনও স্ত্রীর ব্যবহার বা চরিত্র অসহনীয় হয়ে ওঠে স্বামীর কাছে, তখন তিন তালাক জরুরি হতেও পারে। আইন অনুসারে তালাক দিলে স্বামীর তিন বছরের জেলও হতে পারে। ওই ভয়ে একসময় আমাদের বাড়ির মেয়েদের এবং আশপাশের অনেক মহিলার স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছিল এবং সেই লিখিত পিটিশন জমা দেওয়া হয়েছিল। ভয় দেখিয়ে মহিলা সমাজের উন্নতি বা অগ্রগতি হবে না। কোনও প্রথাকে আইন করে বন্ধ করা ছাড়াও আরও অনেক কিছুই করা যায় মুসলিম মহিলা উন্নতির জন্য। সেই ধরনের উন্নতির কথাই ভাবা উচিত।
17th  August, 2019
ম হা কা ব্যে প রি ণ য় 

মহাভারত অনুযায়ী, উদ্দালক পুত্র শ্বেতকেতু বিবাহ-প্রথার প্রবর্তক। এই মহাভারতেই আমরা পেয়েছি আট রকমের বিয়ের সন্ধান। ব্রাহ্মী, দৈব, আর্য, প্রাজাপত্য, আসুর, গান্ধর্ব, রাক্ষস ও পৈশাচ। শুধু মহাভারতেই নয় রামায়ণেও বিয়ে নিয়ে নানা আখ্যান উপাখ্যান রয়েছে। 
বিশদ

18th  January, 2020
বিয়েবাড়ি বদলে যায়! 

বিয়েবাড়ির একটা মিঠে সুবাস থাকে। সেই সৌরভে ভেসে আসে একটা রঙিন প্রজাপতি, তার দুই ডানার মতো একটা দুই পাতার কার্ড টুক করে ফেলে দিয়ে যায় আমাদের চারকোনা ডাকবাক্সে। কার্ডের একেবারে শুরুতে জবা রঙে লেখা ‘প্রজাপতয়ে নমঃ’। কোনও খামে বা লেখা ‘শুভ বিবাহ’, তার নীচে কয়েকটা সিঁদুর আর হলুদের টিপ!  
বিশদ

18th  January, 2020
তবু কেন কন্যা সম্প্রদান? 

কন্যা সম্প্রদান আজকের যুগে কতটা যুক্তিযুক্ত? বিশ্লেষণ করলেন মহিলা পুরোহিত নন্দিনী ভৌমিক। তাঁর মুখোমুখি কমলিনী চক্রবর্তী।  বিশদ

18th  January, 2020
স্ত্রীর উন্নতিতে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন স্বামী 

স্ত্রীর আয় বেশি বলে স্বামীকে হীনম্মন্যতা ও নিরাপত্তার অভাবে ভুগতে দেখার দৃশ্য বলিউডের অনেক ছবিতেই রয়েছে। ‘অভিমান’ থেকে শুরু করে ‘ম্যায়, মেরি পত্নী ওউর ওহ’র মতো ছবিতে এমন ঘটনা দেখা যায়। যুক্তরাজ্যের বাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকের গবেষণাতেও এ তথ্য উঠে এসেছে। গবেষণায় ছয় হাজার দম্পতির তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়।  
বিশদ

11th  January, 2020
গ্র্যামির মনোনয়নে নারীরাই জয়ী 

কিছুদিন আগে অবধিও সঙ্গীত বিশ্বে ছিল পুরুষের জয়-জয়কার। দু’বছর আগে তাই গ্র্যামির মঞ্চে বলা হয়েছিল, ‘নারীরা জেগে ওঠো, চিৎকার করে অস্তিত্বের জানান দাও।’ ২০২০ সালের গ্র্যামি মনোনয়নে দেখা গেল, নারীরা জেগে উঠেছে, চিৎকার করেছে। সেই চিৎকারে বর্ণময় হয়ে উঠেছে চারপাশ। 
বিশদ

11th  January, 2020
আশালতা চতুষ্পাঠীতে মেয়েরা সংস্কৃত পড়ছেন 

উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার হাসনাবাদ রেল স্টেশনের পাশে অধ্যক্ষ অনিলকুমার দাশের ‘আশালতা চতুষ্পাঠী’তে মুসলিম, আদিবাসী, হিন্দু, তফসিলি ও খ্রিস্টান মহিলারা খুব আগ্রহ সহকারে সংস্কৃত ভাষা শিক্ষা করছেন। 
বিশদ

11th  January, 2020
শেষ পৌষের বাউলমেলায় 

মাধবের মন্দিরে একসময় আশালতা দাসী, কর্তাল ঠুকে গাইতেন, ‘ওপারে বন্ধু আমার/এপারেতে স্বজন/ মনের ভিতর তুই আমার অতি আপনজন’! সেই ইতিহাসের অজয় নদ! তার তীরে বীরভূমের ইলামবাজারের অদূরে, প্রাচীন কেন্দুলী গ্রাম। এ অঞ্চলের অন্ত‌্যজ শ্রেণীর মেয়েরাও গাইত মাটির গান। 
বিশদ

11th  January, 2020
নবনীতার আলো 

নবনীতা দেবসেনের গল্প, ভ্রমণ বা কবিতায় মন ডুবিয়ে বাস্তবের থেকে বহু বহু দূরে পাড়ি জমান পাঠকরা। তাঁর জন্মদিনের প্রাক্কালে তাঁর প্রতি আমাদের শ্রদ্ধার্ঘ্য
বিশদ

11th  January, 2020
নারী পাইলটকে স্বাগত জানাল ভারতীয় নৌবাহিনী 

প্রথমবারের মতো কোনও নারী পাইলটকে স্বাগত জানাল আমাদের দেশের নৌবাহিনী। সাব-লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী নামের ওই নারী যখন একটি বিমানের নিয়ন্ত্রণ হাতে নেন, তখন তা আমাদের দেশের সশস্ত্র বাহিনীর জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক বলেই ধরে নেওয়া হয়েছে। 
বিশদ

04th  January, 2020
নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত মেয়েরা অবহেলার শিকার

নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত ছেলে ও মেয়ের চিকিৎসায় হাসপাতালে কোনও পার্থক্য হয় না। তবু তীব্র নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত মেয়ের মৃত্যু বেশি হয়। অন্যদিকে ছেলেশিশু ভর্তি হয় বেশি। গবেষকরা বলছেন, হাসপাতালে ভর্তি করাতে পরিবার ছেলেদের অগ্রাধিকার দিয়ে থাকতে পারে।  
বিশদ

04th  January, 2020
সর্বকালের সেরা আফ্রিকান কৃষ্ণাঙ্গ কোটিপতি নারী 

যুক্তরাষ্ট্রের টেলিভিশন জগতের খুব পরিচিত মুখ ওপরাহ্‌ উইনফ্রে। মিসিসিপির নিভৃত পল্লিতে ১৯৫৪ সালের ২৯ জানুয়ারি অবিবাহিত এক মায়ের ঘরে জন্ম তাঁর। কেরিয়ারের শুরুতে টেলিভিশন উপস্থাপিকা হিসেবে আগমন তাঁর। আর তাতেই বাজিমাত করেন। ১৯৮০-র দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে তিনি বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।  
বিশদ

04th  January, 2020
আপসহীন শর্বরী 

বেশ কয়েক বছর আগের ঘটনা, কলকাতা হাইকোর্টে তখনকার প্রধান বিচারপতি জে.এন. প্যাটেল স্বয়ং কথা বলতে চাইলেন সি.আই.ডি-র ইনস্পেক্টর শর্বরী ভট্টাচার্যের সঙ্গে। প্রধান বিচারপতির ডাক পেয়ে শশব্যস্ত হয়ে ছুটলেন শর্বরী। আর্দালি প্রথমে তাঁকে চেম্বারে ঢুকতে দিতে চাননি কিন্তু হাইকোর্টেরই এক আইনজীবীর নজরে পড়ে যান তিনি। 
বিশদ

04th  January, 2020
নারী মনের নানা দিক 

নারী মনের ওপর বয়সের প্রভাব পড়ে বিভিন্ন সময়। একদম অল্প বয়সে যখন সে বালিকা তখন তার মন থাকে চঞ্চল, উচ্ছল। এরপর কৈশোর আসে। মেয়েদের শরীরে তখন বদল ঘটে। হরমোনের প্রভাব পড়ে শরীর ও মনে। এরপর যৌবন। তখন মনের আবেগ ও শরীরের তেজ সবচেয়ে বেশি থাকে। তারপর ক্রমশ বার্ধক্য গ্রাস করে নারী মনকে।  
বিশদ

04th  January, 2020
লিঙ্গবৈষম্য ও সংস্কার 

ঘটনা এক: সান্ধ্যকালীন এক অনুষ্ঠান বাড়িতে উপস্থিত হয়েছে লোপা। মাঝ বয়েস ছুঁই ছুঁই লোপা এক কন্যাসন্তানের জননী। হাসি, মজা, কথাবার্তায় মহিলা মহলে উপস্থিত বেশ কয়েকজন নীল ষষ্ঠীর ব্রত উপবাসের কথা বলছিলেন। পুত্রসন্তানের জননী বলে কোথাও যেন কৌলীণ্য বেশি তাদের। 
বিশদ

28th  December, 2019
একনজরে
  বালিয়া (উত্তরপ্রদেশ), ১৯ জানুয়ারি (পিটিআই): নজিরবিহীনভাবে দাদা মুলায়ম সিং যাদবকে নিশানা করে তোপ দাগলেন ভাই শিবপাল। ইদানীং ছেলে অখিলেশের সঙ্গেই বেশি দেখা যাচ্ছে সপার প্রতিষ্ঠাতাকে। ...

নয়াদিল্লি ও ঢাকা, ১৯ জানুয়ারি: ভারতের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মুখ খুললেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে উল্লেখ করলেও, এই আইনের ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আগামী জুনে পথ চলা শুরু হচ্ছে এটিকে-মোহন বাগানের। মোহন বাগান ফুটবল ক্লাব প্রাইভেট লিমিটেডের ৮০ শতাংশ শেয়ার কিনে নিয়েছে আরপি-সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গ্রুপ। রবিবার সল্টলেক স্টেডিয়ামে মোহন বাগান কর্তাদের আমন্ত্রণে ডার্বি দেখতে হাজির ছিলেন আইএসএলে এটিকে’র দল মালিক।  ...

সংবাদদাতা, পতিরাম: থানার দাবিতে সরব হয়েছে দক্ষিণ দিনাজপুরের পতিরামের বাসিন্দরা। ওই এলাকায় একটি ফাঁড়ি থাকলেও, তার বদলে একটি স্থায়ী থানা গঠন করার দাবি উঠেছে। এলাকাবাসীর দাবি, দিন দিন পতিরামের জনসংখ্যা বাড়ছে। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নানা অপরাধমূলক কাজকর্মও বেড়েই চলেছে।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

উচ্চতর ও গবেষণামূলক বিদ্যার ক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। ব্যবসায় যুক্ত হলে শুভ যোগাযোগ ঘটবে। ভ্রমণযোগ রয়েছে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮১৭: হিন্দু কলেজের (বর্তমান প্রেসিডেন্সি কলেজ) যাত্রা শুরু
১৯৩৪ - আলোকচিত্র এবং ইলেকট্রনিকস্ কোম্পানী হিসেবে ফুজিফিল্ম কোম্পানীর যাত্রা শুরু
১৯৭২: নতুন রাজ্য হল অরুণাচল প্রদেশ ও মেঘালয়
১৯৯৩: মার্কিন অভিনেত্রী অড্রে হেপবার্নের মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.১৭ টাকা ৭১.৮৭ টাকা
পাউন্ড ৯১.২২ টাকা ৯৪.৫১ টাকা
ইউরো ৭৭.৬১ টাকা ৮০.৫৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
18th  January, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৫৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৫০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,০৮০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
19th  January, 2020

দিন পঞ্জিকা

৫ মাঘ ১৪২৬, ২০ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার, একাদশী ৪৯/১৮ রাত্রি ২/৬। অনুরাধা ৪২/৪৯ রাত্রি ১১/৩০। সূ উ ৬/২২/৫৪, অ ৫/১২/০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১০/৪৩ গতে ১২/৫২ মধ্যে. রাত্রি ৬/৫ গতে ৮/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১১/২১ গতে ২/৫২ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪৪ গতে ৯/৫ মধ্যে পুনঃ ২/২৯ গতে ৩/৫০ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/৯ গতে ১১/৪৮ মধ্যে। 
৫ মাঘ ১৪২৬, ২০ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার, একাদশী ৫৩/২৯/৩৫ রাত্রি ৩/৪৯/৪৭। অনুরাধা ৪৯/৪৭/৫৬ রাত্রি ১/৩৩/৭। সূ উ ৬/২৫/৫৭, অ ৫/১০/৩৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৮ মধ্যে ও ১০/৪৪ গতে ১২/৫২ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/১৪ গতে ৮/৫০ মধ্যে ও ১১/২৪ গতে ২/৫১ মধ্যে। কালবেলা ৭/৪৬/৩২ গতে ৯/৭/৭ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/৮/৫১ গতে ১১/৪৮/১৭ মধ্যে। 
২৪ জমাদিয়ল আউয়ল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি পদে নির্বাচিত হলেন  জগৎপ্রকাশ নাড্ডা

03:37:00 PM

সততার নজির হোমগার্ডের 
সততার নজির ময়নাগুড়ি থানার এক হোম গার্ডের। কুড়িয়ে পাওয়া একটি ...বিশদ

03:28:49 PM

নির্ভয়া কাণ্ড: পবন গুপ্তের নাবালক তত্ব খারিজ শীর্ষ আদালতে

 সোমবার নির্ভয়া গণধর্ষণ মামলায় অন্যতম সাজাপ্রাপ্ত পবন গুপ্তার আবেদন আজ ...বিশদ

03:21:00 PM

রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কোচবিহারে
রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কাণ্ড কোচবিহারের চকচকার একটি হাসপাতালে। ...বিশদ

03:16:24 PM

পরীক্ষার নম্বর সাফল্যের মাপকাঠি নয়: প্রধানমন্ত্রী
সাফল্য পেতে গেলে ব্যর্থ হতে হয়। ব্যর্থতা সফল হওয়ারই একটি ...বিশদ

01:06:00 PM

ঘুমের ঘোরে চালক, বাস উল্টে আহত ২০ যাত্রী
ভোররাতের দিকে গাড়ি চালাতে চালেতে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন চালক। আর তার ...বিশদ

12:09:43 PM