Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

 তিন তালাক আইন ও অভিমত

  বহুদিনের লড়াইয়ের পর মহিলাদের জয় হয়েছে। রদ হয়েছে তাৎক্ষণিক তিন তালাক। মুসলিম মহিলাদের একটা সামাজিক স্বীকৃতি লাভ বলা চলে একে। তিন তালাকে বিবাহ-বিচ্ছেদ এখন আইনত অপরাধ। বিষয়টি নিয়ে সরব লেডি ব্রাবোর্ন কলেজের ছাত্রীরা। তাঁদের মুখোমুখি শাকিলা খাতুন।

প্রিয়দর্শিনী রায় (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তিন তালাক রদ আইন পাশ হওয়াটা খুবই ভালো পদক্ষেপ। এইভাবে যেসব পুরুষ তালাক দেয় তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিই প্রাপ্য। জনগণের সম্মতি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা যে নেওয়া হয়েছে সেটাই আশার কথা। তবে সার্ভে করে দেখা গিয়েছে কখনও কখনও পুরুষরাও নির্যাতিত হয়। তাই আমি চাই নারী পুরুষের সমানাধিকার থাকুক যে কোনও আইনে। তিন তালাক রদ আইন নারীশক্তি প্রতিষ্ঠায় এক শুভ পদক্ষেপ। এখন মূল লক্ষ্য হোক আইনের যথাযথ প্রয়োগ। তাছাড়া মহিলাদের শিক্ষিত করাও জরুরি। শিক্ষিত হলেই সচেতনতা আসবে। আকৃতি তামাং (সমাজবিদ্যা)— আইনের অনেক সময় অপপ্রয়োগ হয় আমাদের দেশে। যে কোনও নীতি দুর্নীতিতে পরিবর্তিত হয়ে যায় অনায়াসেই। এই ধরনের অপব্যাখ্যা অবিলম্বে বন্ধ হোক। তা না হলে এই আইন মুসলিম মহিলাদের পক্ষে বিপজ্জনকও হয়ে দাঁড়াতে পারে। মুসলিম মহিলা সমাজের উন্নতি চাইলে আমার মতে প্রথমেই এই কমিউনিটির অশিক্ষা দূর করতে হবে। তিন তালাক রদ যে আইন হিসেবে অবশেষে পাশ হয়েছে এটা ভালো। তবে তার সঠিক প্রয়োগ হয় কি না সেটাই এখন দেখার।
মৃত্তিকা চৌধুরী (বাংলা)— তাৎক্ষণিক তিনবার তালাক উচ্চারণের ফলে মুসলিম মহিলাদের যে অসহায় অবস্থা হয়, তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ অনেকদিন আগেই নেওয়া উচিত ছিল। এইভাবে বিচ্ছেদ হলে একজন মহিলা আকস্মিকভাবেই অথৈ জলে পড়ে। আমি মনে করি, দু’জনের সম্মতি ছাড়া যেমন বিয়ে হয় না, তেমনই দু’জনে চাইলেই তবেই বিবাহ বিচ্ছেদও হওয়া উচিত। তবে যাদের জন্য এই আইন তারা যেন সুফল পায় সেটা দেখাও সামাজিক কর্তব্য। আর তার জন্য নারীশিক্ষা চাই।
ঋতুপ্রিয়া মণ্ডল (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— তালাকপ্রাপ্ত একজন মহিলাকে নানাভাবে এক্সপ্লয়েট করা হয়। তাৎক্ষণিক ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর পরিণতি আরও করুণ হয়। শুধুমাত্র বিল পাশ করে সেই স্বামী বা পুরুষটির শাস্তি হলেই সমস্ত সমাধান হবে না। সেই পরিত্যক্ত মহিলার খাওয়া-পরার সংস্থানও হওয়া দরকার। অর্থাৎ তার পুনর্বাসন তথা ভবিষ্যতের কথাও সরকারের চিন্তার বিষয় হোক। মহিলাদের সুরক্ষিত করার কথা আইন প্রবর্তনের সময় বিশেষভাবে ভাবা উচিত।
নাজিফা মেহফুজ (ইতিহাস)— এই ‘তিন তালাক’ বিল কোনওভাবে পাশ হওয়া উচিত নয়। যদি কেউ তার স্ত্রীকে না ভালোবাসে, তাহলে জোর করে তাকে সংসার করতে বাধ্য করলে পরিণতি ভালো হয় না। স্বামীকে বেঁধে রাখা যায় না। অন্যান্য সমাজেও মহিলারা অনেক সময় লাঞ্ছিত, অত্যাচারিত হয়, বধূহত্যা, পণপ্রথার বলি তো আছেই। সরকার মহিলাদের উন্নতির তথা আর্থিক সহায়তার জন্য প্রকল্প নিক। তাৎক্ষণিক তিন তালাক-এ কিন্তু শাস্ত্রমতে বিচ্ছেদ হয় না। এই বিষয়ে মুসলিম সমাজে ভুল ব্যাখ্যাও আছে। প্রথার শাস্ত্রসম্মত যথার্থ প্রয়োগ হয় না। ‘তালাক-এ বিদ্দাত’-এর মতে মহিলারাও চাইলে তালাক দিতে পারে। তাকে ‘খুল্লা’ বলে যা শরিয়ত আইনসম্মত। তিন তালাক আইন পাশের থেকেও জরুরি এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষাগ্রহণ আবশ্যক করা। তাহলেই মহিলারা স্বনির্ভর এবং সুরক্ষিত হবে। আমার মতে এই আইনের মাধ্যমে মহিলাদের বিশেষ কিছু প্রাপ্তি হয়নি। কিছু প্রথা তো নিষিদ্ধ হয়েও অবাধে চলেছে। শিক্ষা না থাকলে এক্ষেত্রেও তেমনটাই হবে।
অলিভিয়া সাহা — একজন পুরুষ তিনবার একটা শব্দ বলেই সম্পর্ক শেষ করে দেবে এবং সন্তান থাকলে তাদের দায়মুক্ত হয়ে যাবে, এটা হওয়া একেবারেই উচিত নয়। এই পরিস্থিতি হলে পুরুষটিকে শাস্তি পেতেই হবে। ফলে সেই আইন পাশ হওয়ায় আমি খুশি। তবে দেখতে হবে এর ফলে যেন কোনও পক্ষই ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। অন্যদিকে আইনের অপপ্রয়োগ বন্ধ না হলে এই বিল পাশ হলেও তার ফল শুভ হবে না।
অস্মিতা চক্রবর্তী (বাংলা)— এই তাৎক্ষণিক তিন তালাক ব্যাপারটা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যাচ্ছিল না। একজন পুরুষ তার স্ত্রীকে কোনও সুযোগ না দিয়ে তিনবার তালাক বলেই সমস্ত দায় থেকে মুক্ত হয়ে যাবে এটা একেবারেই অনুচিত। অমানবিকও। ফলে আমার মতে তিন তালাক রদ আইন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রত্যেক আত্মমর্যাদাসম্পন্ন নারীর মতোই আমিও খুশি হয়েছি। তবে এই আইনের প্রচারে মিডিয়ার ভূমিকাও যথাযথ হওয়া দরকার। মিডিয়ার সক্রিয় ভূমিকা থাকলেই এই আইন সঠিকভাবে ব্যবহৃত হবে।
নিকিতা বিশ্বকর্মা (রাষ্ট্রবিজ্ঞান)— সমস্ত মহিলার সুরক্ষার জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা নিশ্চয়ই থাকা উচিত। তিন তালাক আইন মহিলাদের দুরবস্থা থেকে বাঁচাবে ও উন্নত জীবন দেবে বলে আমার বিশ্বাস। ‘তালাক’ বিষয়ে আমি বিশেষ কিছু জানি না। কিন্তু আমার মনে হয় এই সমাজের মহিলাদের শিক্ষার বিষয়ে সরকারের চিন্তা করা উচিত। প্রত্যেক মহিলার শিক্ষা বাদ্ধতামূলক করা উচিত। মেয়েরা শিক্ষা পেলে তারা নিজেরা‌ই নিজেদের সামাজিক অধিকার চেয়ে নিতে পারবে। কারণ আমাদের দেশে বিচারব্যবস্থাও সবসময় স্বাধীনভাবে চলে না। কোনও আইনই অমান্য করা কঠিন ব্যাপার নয়। তবে আশার কথা এই যে, এখন আমরা মেয়েরা ক্রমশ উন্নতি করছি। অনেক দেশের তুলনায় আমাদের দেশের মহিলারা ভালো আছে। অন্যায়ের প্রতিবাদে তারা সরব হচ্ছে। আশা করা যায় তিন তালাক আইন মেয়েদের সামাজিক অবস্থান আরও উন্নত করবে।
সুপ্রিয়া দাস (ভূগোল)— আমি আইনের পক্ষে। আমাদের দেশের জনগণ ধর্মীয় ব্যাপার বা সাংবিধানিক নিয়ম কোনওটাই যথাযথভাবে জানে না। তিন তালাক সম্পর্কে মুসলিমরাও অনেকে ভালোভাবে জানে না। অধিকাংশ মানুষ সিনেমা-সিরিয়াল দেখে অন্য ধর্ম বা সংস্কৃতি সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করে এবং মিডিয়া যা দেখায় সেটাকেই ধ্রুব সত্য বলে ভাবে। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই ভুল তথ্য প্রচারিত হয়। সেই বিষয়ে সচেতন হওয়া দরকার। আবার পুঁথিগতভাবে শিক্ষিত হয়েও অনেকেই অজ্ঞ থেকে যায়। তবে তিন তালাক মহিলাদের আত্মমর্যাদায় আঘাত হানে। ফলে তা বন্ধ হওয়ায় আমি খুশি। খুব ভালো লাগছে জেনে যে তিন তালাক এখন অপরাধ হিসেবে গণ্য।
আঞ্জুম — আমার মতে এই বিল পাশ হয়ে গেলেও, সেই তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর অবস্থার বিশেষ পরিবর্তন হবে না। অন্যদিকে ‘তালাক’ শব্দ তিনবার একসঙ্গে উচ্চারণ করলেই বিবাহ-বিচ্ছেদ হয় না, একথা অনেকেই জানে না। তালাক একবার বলার পর মাঝে সময় দিতে হয়। এক মাস অন্তর তিনবার ‘তালাক’ উচ্চারণ করলে তবেই বিচ্ছেদ ঘটে স্বামী-স্ত্রীর। এই ধরনের নিয়ম অনেকেরই অজানা। আমাদের সমাজ পিতৃতান্ত্রিক। এখানে মহিলাদের প্রতি অনেকসময় দুর্ব্যবহার হয়। তবে মেয়েরাও যে সবসময় সঠিক পথে চলে তাও তো নয়। তাই যদি কোনও স্ত্রীর ব্যবহার বা চরিত্র অসহনীয় হয়ে ওঠে স্বামীর কাছে, তখন তিন তালাক জরুরি হতেও পারে। আইন অনুসারে তালাক দিলে স্বামীর তিন বছরের জেলও হতে পারে। ওই ভয়ে একসময় আমাদের বাড়ির মেয়েদের এবং আশপাশের অনেক মহিলার স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছিল এবং সেই লিখিত পিটিশন জমা দেওয়া হয়েছিল। ভয় দেখিয়ে মহিলা সমাজের উন্নতি বা অগ্রগতি হবে না। কোনও প্রথাকে আইন করে বন্ধ করা ছাড়াও আরও অনেক কিছুই করা যায় মুসলিম মহিলা উন্নতির জন্য। সেই ধরনের উন্নতির কথাই ভাবা উচিত।
17th  August, 2019
বাড়িতে বসেই মিলছে অর্থোপেডিক অ্যাপ্লায়েন্স 

থরে থরে সাজানো রয়েছে পুরস্কার। সেই সব পুরস্কারের ভেতরে যেমন আছে রান্নায় পারদর্শিতার একাধিক শিরোপা, তেমনই রয়েছে সম্প্রতি বাংলা টেলিভিশন চ্যানেলের অতি জনপ্রিয় একটি রিয়েলিটি শো-এ প্রথম হওয়ার পুরস্কারটিও। 
বিশদ

দেশে বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়ছেন নন্দিতা দাস 

গায়ের রং ফর্সা হলেই সুন্দর আর কালো সুন্দর নয়! কে বলেছে? সময় এসেছে এসব পুঁজিবাদী, অর্থহীন, স্থূল ধারণাকে পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার। পৃথিবীতে যত মানুষ, তত মানুষের গায়ের রং। আর প্রতিটি রংই সুন্দর। ২০০৩ সাল থেকে ভারতীয় অভিনয় শিল্পী ও চলচ্চিত্র পরিচালক নন্দিতা দাস ‘কালোই সুন্দর’ প্রচারের সঙ্গে যুক্ত। 
বিশদ

ঝুঁকিপূর্ণ কাজকে ভালোবেসেছিলেন জ্যাকুইন ডেভিস 

যুক্তরাজ্যের প্রথম নারী দেহরক্ষী হিসেবে কাজ শুরু করেন জ্যাকুইন ডেভিস। ইনি রাজপরিবারের সদস্যসহ বহু বিখ্যাত মানুষের জন্য কাজ করেছেন। জ্যাকুইন বলেন, ‘আমি যখন এই পেশায় প্রবেশ করি, তখন এটা ছিল পুরোপুরি পুরুষকেন্দ্রিক একটি জায়গা। তারা সবসময় চাইত আমি যেন শুধুই নারী বা শিশুদের বিষয়গুলো দেখভাল করি। 
বিশদ

বহুরূপিণী বিশ্বজননী সারদামণি

মায়ের মূর্তি আমাদের হৃদয় আপ্লুত করে, মায়ের মধুর উপদেশে অমৃত বর্ষিত হয়, সেই মা-ই হলেন শ্রীরামকৃষ্ণের পরম শক্তি বহুরূপিণী বিশ্বজননী সারদামণি। মা একদিকে যেমন অসুরদলনী, অন্যদিকে ত্রাণকারিণী। হরিশের কুবুদ্ধি দমনের জন্য বগলামূর্তি, আবার তেলোভেলোর মাঠে ডাকাত দম্পতির কাছে কালীরূপ ধারণ করেন। 
বিশদ

মায়া প্রকৃতির সঙ্গে বিয়ে হয় মহুল গাছের ছাদনাতলায় 

আজও আদিবাসীদের বিয়েতে গাছ ও জলের সঙ্গে বিয়ে হয় প্রথমে, পরে হয় মানুষে মানুষে বিয়ে। লৌকিক বিশ্বাসের রীতি আজও ধরে রেখেছে আদিবাসী সমাজ। তারা তাদের জীবনে আম ও মহুল গাছকে ঈশ্বর জ্ঞানে বিশ্বাস করে, পূজা করে।   বিশদ

07th  December, 2019
বিয়ের ধর্মাধর্ম! 

ধর্মেও আছি, জিরাফেও আছি। এই প্রবচন বিলকুল খেটে যায় বিয়ের ব্যাপারে। খানিক খোলসা করে বলা যাক। বংশবিস্তার বা রাজ্যবিস্তারের মোক্ষম রাজনৈতিক চাল হিসেবে বিয়ের কথা প্রচলিত।  বিশদ

07th  December, 2019
পুরাণে পরিণয় 

হিন্দু পুরাণ হল ঐতিহ্যবাহী কথামালার এক বৃহৎ রূপ। রামায়ণ, মহাভারত সহ অষ্টাদশ পুরাণে নানা কথামালা গভীর ও সুস্পষ্টভাবে বর্ণিত হয়েছে। নানা রূপে এই সব আখ্যান পুরাণকথাকে সমৃদ্ধ করেছে। আজ আমরা দেখব পুরাণের পরিণয় কথা।  বিশদ

07th  December, 2019
ভলিবলে বিজয়িনী তারকেশ্বরের দুই কন্যা তিথি ও অনন্যা 

গ্রামবাংলার মেয়েরাও ক্রীড়াজগতে আজ পিছিয়ে নেই। বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক খেলার আসরে অংশগ্রহণ করে ক্রীড়াচাতুর্যে বিজয় ডঙ্কা বাজিয়ে বিজয়িনী হয়ে তারা সাফল্যের স্বাক্ষর রেখে চলেছে। এমনই দুই মহিলা ভলিবল খেলোয়াড়ের সাফল্যের ইতিবৃত্ত সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছে। 
বিশদ

30th  November, 2019
নারীদের সূর্যপূজা 

ভারতের মেয়েরা সামাজিক তথা দেশীয় নির্দেশানুসারে ধর্মীয় অধিকার ও সুযোগ-সুবিধা থেকে বহুকালই বঞ্চিত ছিলেন। তাই তাঁরা বিভিন্ন ব্রত পালনের মধ্য দিয়ে তাঁদের আশা-আকাঙ্ক্ষাকে পূরণ করার চেষ্টা করতেন।  
বিশদ

30th  November, 2019
কন্যাসন্তানকে রুখে দাঁড়াতে শেখান, মানিয়ে নিতে নয় 

ঘরে বাইরে নারীর এত উন্নতি তবু দিনে দিনে বাড়ছে নারী নির্যাতন। আ‌জকের উন্নত সমাজেও মেয়েরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে। কিন্তু কেন? কীভাবেই বা নারীর নিরাপত্তা বাড়িয়ে তোলা সম্ভব? প্রশ্ন তুললেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

30th  November, 2019
লাল রং জোরিকার মনে শক্তি জাগায় 

গোটা জীবনই লালের মধ্যে কেটেছে বসনিয়ার জোরিকা রেবার্নিকের। মৃত্যুর পরও তিনি ঠিক এভাবেই থাকতে চান। গত চার দশক ধরে মাথা থেকে পা পর্যন্ত লাল রঙা পোশাক পরছেন জোরিকা। তাঁর স্বামী জোরানের সঙ্গে বিয়েটাও হয়েছিল লাল রঙের গাউন পরেই।  বিশদ

23rd  November, 2019
চা-বাগানে প্রথম মহিলা ম্যানেজার 

উত্তরপূর্ব ভারতের অসমে চা বাগানের ২০০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম কোনও একজন নারী ম্যানেজারের পদে নিযুক্ত হয়েছেন। ৬৩৩ হেক্টরেরও বেশি এলাকা জুড়ে থাকা বাগানের আনাচে-কানাচে মোটরবাইক বা সাইকেল অথবা জিপে চেপে ঘুরে দেখাশোনার কাজ করবেন ৪৩ বছর বয়সি মঞ্জু বড়ুয়া।  বিশদ

23rd  November, 2019
অল ইন ওয়ান মৈত্রেয়ী 

তারিখটা ছিল ৩ নভেম্বর, ১৯৭৯। বয়স তখন সবে মাত্র ১০ বছর ছাড়িয়েছে। কলকাতার রাশিয়ান কনস্যুলেট জেনারেলের অফিসের সাংস্কৃতিক বিভাগ থেকে তাকে চিঠি দিয়ে ডেকে পাঠানো হল গোর্কি সদনে।  বিশদ

23rd  November, 2019
অবসরের পর অবসাদ নয় 

শিক্ষা আর স্বনির্ভরতা—এই দুটি ডানায় ভর করে এখন মেয়েরা অনেক বেশি বাইরে কাজ করেন। সেই কাজ অত্যন্ত দায়িত্ব নিয়ে যোগ্যতার সঙ্গে তাঁরা পালন করেন। বহু বছর সেই কাজ দায়িত্ব নিয়ে পালন করার পর হঠাৎ সেই কর্মজগৎ থেকে সরে আসায় একটা মানসিক সমস্যায় অনেককেই ভুগতে দেখা যায়।  বিশদ

23rd  November, 2019
একনজরে
 কোচি, ১৩ ডিসেম্বর: শুক্রবার আইএসএলের অ্যাওয়ে ম্যাচে কেরল ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে দু’গোলে এগিয়ে গিয়েও ২-২ গোলে ড্র করল জামশেদপুর এফসি। এদিন কোচির জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে ম্যাচের ৩৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে জামশেদপুরকে এগিয়ে দেন পিটি। ...

পানাজি, ১৩ ডিসেম্বর (পিটিআই): গোয়ায় বসবাসকারী পর্তুগিজ পাসপোর্টধারীদের উপর নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের কোনও প্রভাব পড়বে না। শুক্রবার গোয়ার এনআরআই কমিশনের পক্ষ থেকে এই কথা জানানো হয়েছে।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নভেম্বর মাসে এলআইসি’র পলিসি বিক্রির হার বাড়ল। দেশে ১০০টি পলিসি বিক্রি পিছু ৮৪টিই এলআইসি’র। নভেম্বর মাসে এলআইসি’র মার্কেট শেয়ার বৃদ্ধি বোঝাতে গিয়ে এমনটাই জানালেন সংস্থার পূর্বাঞ্চলীয় জোনাল ম্যানেজার দীনেশ ভগত। ...

সুজিত ভৌমিক, কলকাতা: নতুন বছরের গোড়াতেই দুটি নতুন থানা পেতে চলেছেন কলকাতাবাসী। এগুলি হল, কালীতলা ও গল্ফগ্রিন। কলকাতা পুলিস ইতিমধ্যেই এব্যাপারে স্বরাষ্ট্র দপ্তরের ছাড়পত্র পেয়ে গিয়েছে। এখন চালু করার জন্য সবুজ সঙ্কেতের অপেক্ষায় লালবাজার। কলকাতা পুলিস সূত্রেই এই খবর জানা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

বিদ্যার্থীদের অধিক পরিশ্রম করতে হবে। অন্যথায় পরীক্ষার ফল ভালো হবে না। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় ভালো ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯২৪: অভিনেতা ও পরিচালক রাজ কাপুরের জন্ম
১৯৩১: কুমিল্লায় বিপ্লবী শান্তি ঘোষ ও সুনীতি চৌধুরি ম্যাজিস্ট্রেট স্টিভেনসকে হত্যা করেন
১৯৩৪: পরিচালক শ্যাম বেনেগালের জন্ম
১৯৫৩: ভারতীয় টেনিস খেলোয়াড় বিজয় অমৃতরাজের জন্ম
১৯৫৭: হাওড়া এবং ব্যান্ডেলের মধ্যে প্রথম চালু হল বৈদ্যুতিক ট্রেন 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৮০ টাকা ৭১.৪৯ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৪৩ টাকা ৯৬.৮০ টাকা
ইউরো ৭৭.৪৪ টাকা ৮০.৪৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,২৮৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৩২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৮৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, দ্বিতীয়া ৬/২৯ দিবা ৮/৪৭। পুনর্বসু ৫৭/৮ শেষরাত্রি ৫/৩। সূ উ ৬/১১/৫৯, অ ৪/৪৯/৫৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৬ গতে ৯/৪৪ মধ্যে পুনঃ ১১/৫২ গতে ২/৪২ মধ্যে পুনঃ ৩/২৫ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ১২/৫১ গতে ২/৩৮ মধ্যে, বারবেলা ৭/৩২ মধ্যে পুনঃ ১২/৫১ গতে ২/৩৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৩০ মধ্যে পুনঃ ৪/৩২ গতে উদয়াবধি। 
২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, দ্বিতীয়া ৮/৪৯/১৯ দিবা ৯/৪৫/২৯। আর্দ্রা ২/৫১/২২ দিবা ৭/২২/১৮, সূ উ ৬/১৩/৪৫, অ ৪/৫০/১০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩ মধ্যে ও ৭/৪৫ গতে ৯/৫২ মধ্যে ও ১২/২ গতে ২/৪৯ মধ্যে ও ৩/৩১ গতে ৪/৫০ মধ্যে এবং রাত্রি ১২/৫৯ গতে ২/৪৬ মধ্যে, কালবেলা ৭/৩৩/১৮ মধ্যে ও ৩/৩০/৩৭ গতে ৪/৫০/১০ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৩০/৩৭ মধ্যে ও ৪/৩৩/১৮ গতে ৬/১৪/২৯ মধ্যে। 
১৬ রবিয়স সানি  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কোনা এক্সপ্রেসওয়েতে বিক্ষোভকারীদের ইটের ঘায়ে জখম হাওড়া সিটি পুলিসের ডিসি সাউথ জোন 

11:38:53 AM

মুরারইতে রেল অবরোধের জেরে বাঁশলৈ স্টেশনে দাঁড়িয়ে পড়েছে ডাউন শতাব্দী এক্সপ্রেস 

11:26:10 AM

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে মুরারইতে রেল ও পথ অবরোধ

10:59:00 AM

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে কোনা এক্সপ্রেসওয়েতে অবরোধ

10:45:00 AM

সকাল থেকে রাজ্যের বিভিন্ন অংশে ট্রেন অবরোধ 
সকাল থেকে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে রাজ্যের বিভিন্ন অংশে চলছে ...বিশদ

10:35:00 AM

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন: উত্তর ২৪ পরগনার নানা জায়গায় অবরোধ
গতকালের পর শনিবার সকাল থেকে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে রাজ্যের ...বিশদ

10:21:00 AM