Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

ভগিনী নিবেদিতা ও ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রাম

ভগিনী নিবেদিতা ভারতের মাটিতে বিপ্লববাদের ভিত গড়ে তুলেছিলেন। নিবেদিতার পূর্ব নাম মার্গারেট এলিজাবেথ নোব্‌ল। তৎকালীন সমাজের বিদগ্ধ, স্বনামধন্য লেখক, বৈজ্ঞানিক, শিক্ষাবিদ, রাজনীতিবিদদের সঙ্গে মার্গারেটের স্বতঃস্ফূর্ত মেলামেশা, নিত্য ওঠাবসা ছিল। কিছুদিনের মধ্যেই তিনি লন্ডনের বুদ্ধিজীবী মহলে এক স্থান দখল করে নেন। চার্চের অধীনে প্রথাগত ধর্মজীবনকে তিনি মন থেকে মেনে নিতে পারেননি। ধর্ম সম্বন্ধে বিভিন্ন বইপত্র পড়ে প্রকৃত ধর্মজীবনের পথ খুঁজতে চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু কিছুতেই শান্তি না পেয়ে ক্রমশ হতাশ হয়ে পড়ছিলেন। তাঁর এই হতাশা দূর হল স্বামী বিবেকানন্দের আবির্ভাবে। স্বামীজির ধর্ম ব্যাখ্যা ও ব্যক্তিত্বে মার্গারেট মুগ্ধ হলেন। মার্গারেট স্বামীজিকে গুরু বলে বরণ করে নিলেন। দুঃখ-দারিদ্রপূর্ণ, কুসংস্কারাচ্ছন্ন, পরাধীন যে ভারতবর্ষ চোখের সামনে রয়েছে তার আড়ালে আছে আধ্যাত্মিকতার ঐশ্বর্যে পূর্ণ ত্যাগ ও তপস্যাময় এক মহান ভারতবর্ষ। চিরন্তন ভারতবর্ষের সেই অতুলনীয় রূপ স্বামীজি মার্গারেটের সামনে তুলে ধরলেন। ভারতবর্ষকে ভালোবাসতে শুরু করলেন মার্গারেট, ভারতীয় জীবন গ্রহণের দুর্নিবার আগ্রহ তাঁর মধ্যে জেগে উঠল।
স্বামীজি ভরতবর্ষে ফিরে আসার পর নিবেদিতাকে অনেকগুলি চিঠি দিয়েছিলেন— উদ্দেশ্য পত্র বিনিময়ের মধ্য দিয়ে নিবেদিতাকে প্রস্তুত করা।
১৮৯৮ সালের ২৮ জানুয়ারি মার্গারেট ভারতের মাটিতে পা রাখলেন। ওই বছরের ২৫ মার্চ স্বামীজি মার্গারেটকে ব্রহ্মচর্য ব্রতে দীক্ষা দিলেন। তাঁর নাম দিলেন ‘নিবেদিতা’। ওই দিন স্বামীজি নিবেদিতাকে বলেছিলেন, ‘ভবিষ্যৎ ভারতসন্তানদের কাছে তুমি একাধারে জননী, সেবিকা ও বন্ধু হয়ে ওঠ।’ তাই নিবেদিতার একমাত্র উদ্দেশ্য হল ভারতবর্ষের সেবা করা। ভারতের আধ্যাত্মিকতার আদর্শ জগৎকে চিরকাল কল্যাণের পথ দেখাবে। তাই তাঁর ভারতসেবা আসলে ছিল সমগ্র মানবজাতির সেবা।
রামকৃষ্ণ সঙ্ঘের সঙ্গে যুক্ত হয়ে নানাবিধ মানবসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করলেন। কিন্তু পরবর্তীকালে তিনি উপলব্ধি করলেন যে, ভারতবর্ষে নারীশিক্ষার প্রচলন অত্যন্ত প্রয়োজন। পরাধীন ভারতবর্ষের সামাজিক কুসংস্কারগুলিকে মুক্ত করতে হলে ঘরে ঘরে নারীশিক্ষার উদ্যোগ নেওয়া উচিত। সেই সঙ্গে ভারতবর্ষকে স্বাধীন করতে হবে। সে সময় বহু বিপ্লবী যেমন অরবিন্দ ঘোষ, বারীন ঘোষ, বিপিন পাল, ভূপেন্দ্রনাথ দত্ত (বিবেকানন্দের ছোট ভাই) নিবেদিতার কাছে আসতেন স্বাধীনতা সংগ্রামের ব্যাপারে নানা আলোচনা করতে। তিনি বিভিন্নভাবে তাঁদের সাহায্য করতেন। ১৯০২ সালের অক্টোবর মাসে নিবেদিতা বক্তৃতা দিতে বরোদা গিয়েছিলেন। তাঁকে স্টেশনে অভ্যর্থনা জানাতে এসেছিলেন শ্রীঅরবিন্দ। শ্রীঅরবিন্দ ইতিমধ্যে নিবেদিতার লেখা ‘কালী দি মাদার’ বইটি পড়ে মুগ্ধ হয়েছিলেন। শ্রীঅরবিন্দ তখন সবেমাত্র বিপ্লবীদের নিয়ে গুপ্ত সমিতি গঠন করেছেন। শ্রীঅরবিন্দের কাছ থেকে গুপ্ত সমিতির সম্পর্কে সব কিছু জেনে নিবেদিতা বরোদার মহারাজার সঙ্গে দেখা করে গুপ্ত সমিতিকে সাহায্য করার জন্য অনুরোধ করলেন। পরবর্তীকালে দেখা যায় যে, শ্রীঅরবিন্দের হাতে গুপ্ত সমিতির যে দলটি ছিল, নিবেদিতা হাতে-কলমে সে দলটিকে পরিচালনা করেছিলেন।
১৯০৫ সালে বাংলাদেশে বঙ্গভঙ্গের বিরুদ্ধে যে আন্দোলনের সূচনা হয় তা পরে ব্যাপকভাবে স্বদেশিয়ানা এবং বিদেশি বয়কট আন্দোলনে পরিণত হয়। নিবেদিতা এই আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে যোগ দেন। ওই বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে লর্ড কার্জন তাঁর বক্তৃতাকালে প্রাচ্য দেশবাসীর সত্যতা সম্বন্ধে কটাক্ষ করে বলেন, ‘প্রাচ্য অপেক্ষা প্রতীচ্যের লোকদের নিকটে সত্য বিশেষ আদৃত।’ সভায় উপস্থিত বহু বিশিষ্ট ব্যক্তি লর্ড কার্জনের এই উক্তিতে অপমানবোধ করলেন, কিন্তু কেউই তার প্রতিবাদ করলেন না। নিবেদিতা এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। নিবেদিতা ক্রোধে, অপমানে উত্তেজিত হয়ে পড়লেন।
অমৃতবাজার পত্রিকার কার্যালয় ছিল বাগবাজারে, সেখানে নিবেদিতা থাকতেন। লর্ড কার্জনের বক্তৃতার আপত্তিকর অংশ ও তাঁর লেখা বইয়ের মিথ্যা বিবৃতির অংশ পাশাপাশি রেখে একটি প্রতিবাদপত্র ছাপার জন্য দিলেন। পরের দিন অমৃতবাজার পত্রিকায় প্রতিবাদপত্রটি ছাপা হয়। ১৪ ফেব্রুয়ারি পুনরায় প্রতিবাদপত্রটি স্টেটসম্যান পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। লর্ড কার্জনের বিরুদ্ধে দেশবাসীর মনে যে গভীর ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল তার কিছুটা প্রশমিত হল।
১৯০৭ সালে যুগান্তরের মামলায় বিপ্লবী প্রবন্ধ লেখার জন্য ভূপেন্দ্রনাথ দত্তকে গ্রেপ্তার করে। ভূপেন্দ্রনাথের পক্ষে নিবেদিতা জামিনদার হয়েছিলেন। ইতিমধ্যে ব্রিটিশ গোয়েন্দা বাহিনী নিবেদিতাকে সন্দেহের চোখে দেখতে লাগল। এই সময়ে জাতীয় নেতাদের পরামর্শে নিবেদিতা গ্রেপ্তার এড়াতে ভারতবর্ষ থেকে লন্ডনে পাড়ি দেন। আয়ারল্যান্ড ও আমেরিকা ঘুরে তিনি ১৯০৯ সালে ‘মিসেস মার্গট’ ছদ্মনামে জগদীশচন্দ্র বসুর সঙ্গে পুনরায় ভারতে ফিরে আসেন। নিবেদিতার অনুপস্থিতিতে বিপ্লবী আন্দোলন কিছুটা স্থিমিত হয়েছিল।
মাত্র এক দশকের মধ্যে তিনি যে জীবন দর্শন দেখিয়ে গিয়েছেন তা দেশবাসী শ্রদ্ধাবনত চিত্তে স্মরণ করে।
ড. অচিন্ত্যকুমার মাইতি
10th  August, 2019
মেয়েরা সেনার উল্লেখযোগ্য অঙ্গ: তাপসী পান্নু 

অভিনেত্রী তাপসী পান্নু ট্যুইট করে বলেছেন, অনেকদিন তো হল। এবার চিন্তাধারায় বদল আনার সময় এসেছে। মহিলারা যে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক উল্লেখযোগ্য অঙ্গ তা বহুবার বিভিন্ন কাজে প্রমাণিত হয়েছে।  
বিশদ

22nd  February, 2020
মহিলাদের স্বপ্নের উড়ানে নতুন ডানা যুক্ত হল: প্রিয়াঙ্কা গান্ধী 

প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেছেন, ভারতীয় সেনায় মহিলাদের স্থায়ী কমিশন দেওয়ার পক্ষে সুপ্রিম কোর্ট যে রায় দিয়েছে তাতে তিনি খুশি। দেশের সব মহিলার উদ্দেশে তিনি শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়ে বলেছেন মেয়েদের স্বপ্নের উড়ানে নতুন ডানা যুক্ত হল। 
বিশদ

22nd  February, 2020
মেয়েদের এই জয় এক অসম্ভব খুশির খবর: বৃন্দা কারাত  

মাননীয় সুপ্রিম কোর্টের রায়কে কুর্নিশ জানিয়েছেন রাজনীতিক বৃন্দা কারাত। তিনি বলেছেন, বহুদিনের লড়াইয়ে অবসান ঘটল। তাও আবার জয়ের মাধ্যমে। এটা যে অসম্ভব খুশির খবর তা তো বলাই বাহুল্য। বৃন্দা আরও বলেছেন মহিলাদের পক্ষে এই রায় আসলে নাগরিকত্বেরই জয়।   বিশদ

22nd  February, 2020
চল্লিশ বছর ধরে ফাঁসির মঞ্চে আসামিদের পৌঁছে দেন জেরার্ড 

১৯৮১ সালে সিঙ্গাপুরে সবচেয়ে নৃশংস এক হত্যাকাণ্ডের মামলায় টান মুই চু’র নামে এক নারীর ফাঁসির আদেশ দেন আদালত। একই মামলায় টান সহ তার স্বামী এড্রিয়ান লিম এবং স্বামীর বান্ধবী হো কাহ্‌ হংকেও মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। দুটি শিশুর নৃশংস হত্যার অভিযোগে তাঁদের ফাঁসির আদেশ হয়। 
বিশদ

22nd  February, 2020
কালো শাড়িতে প্রতিবাদ ভারতীয় নারীদের 

ধর্মীয় অন্ধ অনুশাসন এবং পুরুষশাসিত সমাজ ব্যবস্থার বিরুদ্ধে কালো রঙের শাড়ির মাধ্যমে প্রতিবাদ করছেন ভারতীয় এক শাড়ি ডিজাইনার। এর মাধ্যমে এদেশের নারীদের জীবনে ‘অদৃশ্য বাধা’ ও ধর্মীয় কুসংস্কারের বিষয়টি ফুটিয়ে তুলেছেন তিনি।  বিশদ

22nd  February, 2020
সাইক্লিং ও পাহাড়ের নেশায় মশগুল তারকেশ্বরের মেয়ে সবিতা 

মেয়েরা আজ কোনও অংশে পিছিয়ে নেই। আজ তারা সব ক্ষেত্রেই পুরুষদের সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে তাদের দাবি ছিনিয়ে নিতে তৎপর। বিগতকালের ভ্রান্ত ধারণাকে পিছনে ফেলে মেয়েরা দ্রুততার সঙ্গে এগিয়ে চলেছে অভীষ্ট লক্ষ্যে। যা থেকে তারা পেতে পারে অপরিমেয় তৃপ্তি ও আত্মবিশ্বাস। 
বিশদ

22nd  February, 2020
মহিলাদের মাথায় জয়ের মুকুট 

ভারতীয় সেনায় স্থায়ী কমিশন পেল মেয়েরা। মাননীয় সুপ্রিম কোর্ট মহিলাদের পক্ষে এই রায় দেওয়ার পর সমাজ তথা সেনাবাহিনীর বিভিন্ন মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। প্রতিবেদনে কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

22nd  February, 2020
আমি জীবন সংগ্রামী: স্নেহা দাস

কামিনী আর জ্যোৎস্নার মধ্যে বড়ই বিরোধ। কামিনী জ্যোৎস্নাকে সহ্য করতে পারে না। কিন্তু জ্যোৎস্নার জীবনে বারবার খারাপ সময় এলেও শেষপর্যন্ত সে কামিনীকে হারিয়ে দেয়। এরপর কামিনী ছলে বলে কৌশলে সেই রাজ্যের রাজার ছেলের সঙ্গে নিজের মেয়ের বিয়ে দেয়। এবং চক্রান্ত করে সবাইকে মেরে ফেলে আর জ্যোৎস্নাকে বন্দি করে কারাগারে। 
বিশদ

15th  February, 2020
মাইনের টাকায় শহর পরিষ্কার করেন তেজস্বী 

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের তরুণী ইঞ্জিনিয়ার তেজস্বী পোডাপতি তাঁর বেতনের ৭০ শতাংশ ব্যয় করেন দু’টি শহর পরিচ্ছন্ন রাখার কাজে। শহর দু’টিকে পোস্টার মুক্ত করারও চেষ্টা চালাচ্ছেন তিনি। আর এ কাজ করতে গিয়ে পরিবার থেকে শুরু করে সমাজের নানা স্তর থেকে এসেছে হরেক বাধা। তবুও নিজের বিশ্বাস আর কাজে অটল থেকেছেন তিনি। 
বিশদ

15th  February, 2020
মুসলিম বিয়ের আইনবিধি ও স্ত্রী-আচার

ইসলামে শাস্ত্রানুসারে বিয়েতে তেমন কোনও আইনবিধির উল্লেখ নেই। প্রত্যেক বিয়ের যে খোৎবা বা নিকাহ পড়ানো হয় সেটাও ফরজ বা অবশ্য কর্তব্য নয়। এই নিয়ম সুন্নত অর্থাৎ মহানবী (সঃ) করেছিলেন এবং মুসলিমরা তা অনুসরণ করে। এই বিয়েতে প্রায় আইনের মতোই নির্দিষ্ট কিছু বিধিবিধান অবশ্য আছে।  
বিশদ

15th  February, 2020
বিশ্বচ্যাম্পিয়ন কোনেরু 

এই সময় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়া তাঁর পক্ষে বাড়তি কৃতিত্বের। সেরা হওয়ার পরও বলেছেন, এটা তাঁর কাছে অপ্রত্যাশিত ফল। কারণ মা হওয়ার জন্য ২০১৬ থেকে ২০১৮- এই দুই বছর দাবার জগৎ থেকে সাময়িক বিরতি নিয়েছিলেন তিনি। ফেরার পর, এক বছরের মধ্যে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়ে সবাইকে চমকে দিলেন।  
বিশদ

08th  February, 2020
জানা অজানায় ভ্যালেন্টাইন’স ডে 

সামনেই ভ্যালেন্টাইন’স ডে। দিনটিকে উল্লেখযোগ্য করে তুলতে অনেকেই নিজের মনের মানুষটির জন্য বিশেষ আয়োজনে ব্যস্ত হয়ে উঠবেন। কার্ড, চকোলেট আর লাল টুকটুকে হৃদয়ের ছোঁয়ায় ভরে উঠবে দোকানপাট।  
বিশদ

08th  February, 2020
বিপন্ন নারী ও শিশু 

সমাজ চলছে দ্রুত গতিতে, সঙ্গে সঙ্গে বেড়ে যাচ্ছে তার সংকট। তাই আজ নতুন করে ভাবতে হচ্ছে শিশু আর বিপন্ন নারীদের কীভাবে নিরাপত্তা দেওয়া যায়। সর্বপ্রথম পদক্ষেপ হল চিহ্নিতকরণ ও ক্ষমতায়ন। স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা, নাগরিক সমিতি, পৌরসংস্থা, স্থানীয় বিধায়ক প্রমুখের থেকে তথ্য সংগ্রহ করে চিহ্নিতকরণের কাজটি করতে হবে।  
বিশদ

08th  February, 2020
বিশ্বজুড়ে নারীরা ক্ষমতায় থাকলে পৃথিবীটা আরও রঙিন হতো 

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, ‘বিশ্বের সবগুলি দেশে যদি পুরুষের পরিবর্তে নারীরা ক্ষমতায় থাকতেন, তাহলে সমগ্র পৃথিবীর মানুষের জীবনমান আরও অনেক বেশি উন্নত হতো।’ সিঙ্গাপুরে ওবামা ফাউন্ডেশনের একটি অনুষ্ঠানে সম্প্রতি এসব কথা বলেছেন ওবামা। ক্ষমতায় থাকাকালে এ বিষয়ে অনেক ভেবেছেন ওবামা। 
বিশদ

01st  February, 2020
একনজরে
বিএনএ, আসানসোল: বেসরকারি গ্যাস কোম্পানির নিরাপত্তারক্ষী ছাঁটাই নিয়ে ক্রমশ জটিলতা বাড়ছে আসানসোলে। কোম্পানি থেকে ২৯জনকে ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে মঙ্গলবার থেকে অনশন শুরু করেছেন ছাঁটাই হওয়া নিরাপত্তারক্ষীরা।   ...

সংবাদদাতা, বালুরঘাট: সরকারি আইটিআই প্রতিষ্ঠানে পঠনপাঠন লাটে ওঠার অভিযোগ তুলে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখাল পড়ুয়ারা। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলি থানার জমালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের রামজীবনপুর আইটিআইতে।   ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে, সেগুলির কয়েকটির বাজার বন্ধকালীন দর। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতা কর্পোরেশনের ভোটে ওয়ার্ড ভিত্তিক সমস্যা তুলে ধরতে নাগরিকদের কাছে বিশেষ সমীক্ষক টিম পাঠাচ্ছে বিজেপি। মহানগরের ১৪৪টি ওয়ার্ডের নিত্যদিনের সমস্যার চিত্র তুলে ধরতে চাইছে গেরুয়া শিবির। ভোটের প্রচারে স্থানীয় স্তরে এই ইস্যুগুলিকে সামনে রেখে শাসক তৃণমূলকে বিঁধতে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে আজকের দিনটা শুভ। কর্মক্ষেত্রে আজ শুভ। শরীর-স্বাস্থ্যের ব্যাপারে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। লটারি, শেয়ার ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০২- ফরাসি লেখক ভিক্টর হুগোর জন্ম
১৯০৮- লেখিকা লীলা মজুমদারের জন্ম
১৯৩১- স্বাধীনতা সংগ্রামী চন্দ্রশেখর আজাদের মৃত্যু
১৯৩৬- চিত্র পরিচালক মনমোহন দেশাইয়ের জন্ম
২০১২- কিংবদন্তি ফুটবলার শৈলেন মান্নার মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৮৯ টাকা ৭২.৫৯ টাকা
পাউন্ড ৯১.৫৯ টাকা ৯৪.৮৮ টাকা
ইউরো ৭৬.৪৯ টাকা ৭৯.৪১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৩,১৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪০,৯৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪১,৫৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৭,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৭,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, (ফাল্গুন শুক্লপক্ষ) চতুর্থী অহোরাত্র। রেবতী ৪৭/৪০ রাত্রি ১/৮। সূ উ ৬/৪/১৪, অ ৫/৩৫/২, অমৃতযোগ রাত্রি ১/৫ গতে ৩/৩৫ বারবেলা ২/৪২ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৪৯ গতে ১/৩৫ মধ্যে। 
১৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, চতুর্থী, রেবতী ৪২/২৩/২২ রাত্রি ১১/৪/৩৪। সূ উ ৬/৭/১৩, অ ৫/৩৪/৯। অমৃতযোগ দিবা ১/০ গতে ৩/২৮ মধ্যে। কালবেলা ২/৪২/২৫ গতে ৪/৮/১৭ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৫০/৪১ গতে ১/২৪/৪৯ মধ্যে। 
২ রজব 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
এসএসকেএম থেকে ছাড়া পেল পোলবা দুর্ঘটনায় জখম দিব্যাংশ ভকত 

07:08:00 PM

দিল্লি হিংসার ঘটনায় দুটি সিট গঠন করল ক্রাইম ব্রাঞ্চ 

06:49:02 PM

১৪৩ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

04:08:26 PM

জলপাইগুড়িতে ২১০ কেজি গাঁজা সহ ধৃত ৩ 

03:39:45 PM

পুরভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে হবে, রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে নির্দেশ রাজ্যপাল 
পুরভোটের দিনক্ষণ চূড়ান্ত না হলেও প্রশাসনিক তৎপরতা তুঙ্গে। এরমধ্যেই রাজ্য ...বিশদ

01:25:00 PM

লেকটাউনে নির্মীয়মাণ বিল্ডিং থেকে পড়ে মৃত শ্রমিক 

01:10:00 PM