Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

ভারতের প্রথম মহিলা বিচারপতি 

সেকালের পুরুষতান্ত্রিক সমাজে পুরুষদের দিকে লক্ষ্য রেখেই সব ব্যবস্থাপনা হত। কিন্তু পুরুষতান্ত্রিকতার সম্পূর্ণ অবসান না হলেও দিন যত এগিয়েছে ততই মহিলারাও অগ্রগণ্য হয়েছে। বিভিন্নরকম ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে নারীকেন্দ্রিকতাও সমাজে স্থান পেয়েছে। নারীর এহেন ক্ষমতায়নের পিছনে রয়েছে নতুন নতুন আইন ব্যবস্থা ও নারীর অদম্য পরিশ্রম ও অধ্যবসায়। পুরুষরা নানানরকম বাধার সৃষ্টি করলেও, নারীদের উদ্যমের কাছে হার মানতে বাধ্য হচ্ছেন।
পূর্বে বিচারালয়গুলি পুরুষদের একচেটিয়া ছিল। কিন্তু ক্রমশ নারীরাও বিচারালয়গুলিতে প্রবেশ করছেন ও যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছেন। এমনকী বিচারপতির পদও অলঙ্কৃত করছেন।
ভারতের বিচার ব্যবস্থার শীর্ষস্থানে রয়েছে সুপ্রিম কোর্ট ও রাজ্যগুলিতে রয়েছে হাই কোর্ট। কোর্টগুলি বিভিন্ন আঞ্চলিক কোর্টের সাহায্যে বিচার ব্যবস্থা পরিচালনা করেন।
আগেই বলেছি পূর্বে পুরুষরাই কোর্টের কাজকর্ম করতেন। কিন্তু ক্রমশ মহিলারাও ওই সকল কাজকর্ম করছেন ও যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছেন।
এবার বলি সুপ্রিম কোর্ট ও হাই কোর্টের প্রথম দুই মহিলা বিচারপতি কথা। ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রথম মহিলা বিচারপতি হয়েছিলেন ফতিমা বিবি।
তিনি কেরালার ভারতীয় রাজ্য এভালকাড়ের পাঠানমখিতায় ১৯২৭ সালের ৩০ এপ্রিল জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম আনাভিত্তিল মিয়া সাহেব ও মা খাদেজ বিবি।
ফতিমা বিবি পাঠানমখিতার ক্যাথলিক স্কুলে প্রথম পড়াশোনা করেন, পরে তিরুবনন্তপুরম ইউনিভার্সিটি থেকে গ্র্যাজুয়েশন করেন এবং তিরুবনন্তপুরম সরকারি আইন কলেজ থেকে আইন পাশ করেন।
১৯৫০ সালের ১৪ নভেম্বর ফতিমা বিবিকে অ্যাডভোকেট হিসাবে নথিভুক্ত করা হয়। তিনি কেরালার নিম্নবিচার বিভাগে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৫৮ সালের মে মাসে তিনি উপ সমন্বয়কারী জুডিসিয়াল পরিষেবাতে নিযুক্ত হন। ১৯৬৮ সালে তিনি উপসমন্বয়কারী বিচারক এবং ১৯৭২ সালে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবং ১৯৭৪ সালে জেলা ও দায়রা জজ হিসাবে পদোন্নতি লাভ করেন।
পরে তিনি আয়কর আপিল ট্রাইবুনালের বিচারক সদস্য হন ও পরে তাঁকে হাই কোর্টের বিচারক হিসেবে নিযুক্ত করা হয়। পরবর্তীকালে হাই কোর্টের বিচারপতি পদ থেকে অবসর গ্রহণের পর সুপ্রিম কোর্টের বিচারকের পদে উন্নীত হন।
১৯৯৭ সালে তিনি তামিলনাড়ুর গভর্নর হন। গভর্নর হিসেবে তিনি মাদ্রাসা বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলরের দায়িত্বও পালন করেছিলেন। তাঁর দীর্ঘ কর্মজীবনের দায়িত্বগুলি যথেষ্ট নিষ্ঠার সঙ্গেই তিনি পালন করেছেন। ফলে তাঁকে বহু বিতর্কের সম্মুখীন হতে হয়েছে। নারী হওয়ার জন্য যথেষ্ট প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে হয়েছে। কিন্তু তিনি নিজ দক্ষতায় সব বিতর্কের অবসান ঘটিয়েছিলেন ও সব প্রতিকূলতাকে অতিক্রম করে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছিলেন।
বাংলার মেয়ে জ্যোতির্ময়ী নাগও পুরুষতান্ত্রিক সমাজের বেড়া ডিঙিয়ে নিজ উদ্যম ও অধ্যাবসায়ের জোরে কলকাতা হাই কোর্টের প্রথম মহিলা বিচারপতি হয়েছিলেন।
জ্যোতিমর্য়ী নাগ অবিভক্ত বাংলার ঢাকা জেলায় ১৯২১ সালের ২১ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। পিতার নাম ব্রজেন্দ্রলাল মিত্র ও মাতার নাম শান্তিলতা মিত্র। স্বামী হীরেন্দ্রচন্দ্র নাগ।
লোরেটো হাউসে তাঁর শিক্ষা জীবন শুরু হয়। পরে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা আশুতোষ কলেজ ও আইন কলেজে পড়াশোনা করেন। ইংরাজি সাহিত্য ও আইন দুটো বিষয়ই তাঁর প্রিয় ছিল।
বহরমপুর কলেজে তিনি কিছুদিন অধ্যাপনা করেছিলেন। কিন্তু দেশের আইনকে সাধারণ মানুষের প্রয়োজনে কাজে লাগানোর প্রয়োজনে তিনি আইনব্যবসার পথকেই বেছে নিয়েছিলেন।
দেশের আইনকে সাধারণ মানুষের প্রয়োজনে কাজে লাগানোর জন্য যেসব বিচারপতি সারা জীবন সংগ্রাম করে গেছেন তাঁদের মধ্যে অগ্রগণ্য জ্যোতিমর্য়ী নাগ। তিনি কলকাতা হাই কোর্টের প্রথম মহিলা বিচারপতি ছিলেন। জ্যোতির্ময়ী স্বীকৃতি অর্জন করেছিলেন ঠিকই, কিন্তু অনেক বাধার পাহাড় ডিঙিয়ে, অনেক কাঁটা বিছানো পথ পেরিয়ে তবেই তিনি যোগ্যতার বলে এই যশ পেয়েছেন।
শুধুমাত্র মহিলা হওয়ার অপরাধেই তাঁকে সিনিয়র আইনজীবীদের দরজায় দরজায় ঘুরতে হয়েছে, তাঁদের অধীনে প্র্যাকটিস করবার জন্য। তিনি হার মানেননি। ফলে শেষপর্যন্ত শুধু মহিলা বিচারপতিই নন, তিনিই প্রথম মহিলা অ্যাডভোকেট হিসেবে এই পেশা গ্রহণ করেছিলেন। তাঁর আগে অন্য কোনও মহিলা আইনজীবীই প্র্যাকটিস করার জন্য কলকাতা হাই কোর্টে নাম নথিভুক্ত করেননি।
জ্যোতির্ময়ী কলকাতা হাই কোর্টে যুক্ত হওয়ার কিছুদিনের মধ্যেই প্রখ্যাত আইনজীবী অজিত দত্তের কাছে তাঁর জুনিয়র হিসেবে একটি বিখ্যাত মামলার সত্তয়াল করেন। প্রসিদ্ধ দমদম-বসিরহাট মামলার অভিযুক্ত চারজন বিপ্লবীর পক্ষে তিনি দাঁড়ান। সেই মামলায় তাঁর তীক্ষ্ণ ইংরাজি ভাষার যুক্তিজাল তাঁকে বিশেষভাবে প্রচারের আলোয় নিয়ে আসে। ফৌজদারি আদালতে এরপরও যে তিনি খুব সহজভাবে প্রতিষ্ঠিত হতে পেরেছিলেন, তা নয়। দীর্ঘ শ্রম, অধ্যাবসায়, নিষ্ঠা এবং কাজের প্রতি সততার মাধ্যমে তিনি নিজেকে দক্ষ ও যোগ্য আইনজীবী হিসেবে তুলে ধরেছেন। তিনি প্রমাণ করেছেন, একজন মহিলা আইনজীবীও একজন পুরুষ আইনজীবীর সমকক্ষ হতে পারেন।
১৯৭৭ সালে তিনি কলকাতা হাই কোর্টের প্রথম মহিলা বিচারপতি মনোনীত হন। ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত তিনি এই গুরুদায়িত্ব সুসম্পন্ন করেছেন। তাঁর বর্ণময় কর্মজীবনে সততা ও কর্মদক্ষতার ছাপ ফেলতে পেরেছেন। স্বকীয়তায় উজ্জ্বল ছিল তাঁর কর্মজীবন তথা কর্মজগৎ। খুব সহজভাবেই তিনি পুরষ সহকর্মীদের সঙ্গে কাজ করেছেন ও তাঁদের সমকক্ষ হয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছিলেন।
হাই কোর্টে যখন তিনি যুক্ত হন তখন এলাকার মহিলা ফেডারেশনের কর্মীদের সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ স্থাপিত হয়। সেই সূত্র ধরে তিনি নানা ধরনের সেবামূলক কাজে এই সংগঠনকে সক্রিয়ভাবে সাহায্য করেছেন।
খরা, বন্যা প্রভৃতি নানান প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে মহিলা ফেডারেশন যখন ত্রাণের কাজ সংগঠিত করেছে, তখন তিনি উদার হাতে সাহায্য করেছেন। মহিলা সমিতির সভাসমিতির কাজেও তাঁর উৎসাহ ছিল। মেয়েদের আইন সম্পর্কে সচেতন করবার জন্য তাঁদের সমস্যার কথা শুনতেন এবং সেগুলির প্রতিকারের জন্য কী আইনি সাহায্য পাওয়া যায় সেগুলিরও বিশদ ব্যাখ্যা করে বলে দিতেন।
১৯৭৫ সালে তিনি মহিলা ফেডারেশনের পশ্চিমবঙ্গ শাখার সহ সভানেত্রী হন, তারপরই তিনি হাই কোর্টের বিচারক হন। কিন্তু সেই কারণে সাধারণ মেয়েদের সঙ্গে তাঁর আচরণের কোনও পরিবর্তন ঘটেনি। ১৯৭৮ সালে তিনি ভারতীয় মহিলা ফেডারেশনের সভানেত্রী হয়ে মস্কোয় বিশ্ব নারী সম্মেলনে যান।
বিচারক পদ থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি দক্ষিণ কলকাতা আইন কলেজের অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেন। একদিন তিনি মন্তব্য করেছিলেন, দেশে যে আইন আছে তা দিয়েও সাধারণ মানুষের জন্য, নারী ও শিশুদের জন্য অনেক কিছু করা যায়। তাই ভালো আইনজ্ঞ তৈরি করাও দেশের অন্যতম কর্তব্য।
আইন কলেজের দায়িত্বভার গ্রহণ করে এটিই তার প্রধান লক্ষ্য ছিল। কলেজের অধ্যক্ষের পদ ছেড়ে দেওয়ার পর তিনি আরও একটি বৃহৎ কাজের সঙ্গে যুক্ত হন, ক্রেতা সুরক্ষা ফোরামের তিনি সভানেত্রী হন।
১৯৮২ সালে তিনি মহিলা ফেডারেশন পশ্চিমবঙ্গ শাখার সভানেত্রী হন। আমৃত্যু তিনি ওই পদেই ছিলেন।
১৯৯৭ সালের ১৬ মে কলকাতাতেই তাঁর মৃত্যু হয়। শুধু বিচারক হিসেবে নয়, মানবিকতার আধার হিসেবেও তিনি মানুষের হৃদয়ে থাকার যোগ্য।
প্রীতি বসু 
13th  July, 2019
সবার অনুপ্রেরণা হয়ে উঠব,
সেটাই ছিল আমার স্বপ্ন: শিবাঙ্গী  

লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী হিসেবেই তিনি পরিচিত। পদবি ব্যবহারে বড্ড আপত্তি। নামই বরং হয়ে উঠুক পরিচয়, ক্ষতি কী? তবে গত ডিসেম্বর মাস থেকে তাঁর পরিচয়ের পরিধি আর একটু প্রসারিত। তিনি এখন লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী, ভারতীয় নৌসেনার প্রথম মহিলা পাইলট।  বিশদ

04th  July, 2020
পেশার দুনিয়ায় প্রথা ভেঙে প্রথমা
বাঁধা গতে নয়, এগিয়ে যেতে চাই নিজের পছন্দে: হর্ষিণী কনহেকর  

মেয়েদের সম্পর্কে পুরনো ধারণাগুলো একে একে পাল্টে দিতে আমরা মেয়েরাই পারি। ভিন্নধর্মী দু’টি পেশায় নিযুক্ত দু’জন মহিলার তেমনই পদক্ষেপ সম্পর্কে জানালেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

04th  July, 2020
এখন মেয়েরা 

এখন সময় মানবিকতার। করোনা সঙ্কটে কাউকে কাছে টানা যায় না ঠিকই, কিন্ত পাশে থাকা যায়। যেসব মানুষ লকডাউনের কারণে অনিশ্চিত জীবনের মধ্যে পড়ে গিয়েছেন, তাঁদের পাশে বিত্তবানদের দাঁড়ানো উচিত।  বিশদ

04th  July, 2020
নাচেই মুক্তির দিশা 

শুধু নাচ শেখানো নয়। নাচকে আত্মবিশ্বাস ফেরানোর কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন তিনি। পাচার হয়ে যাওয়া মেয়েদের বেঁচে থাকাকে সম্মান জানাতে চেয়েছিলেন। তাই নির্যাতনে কুঁকড়ে গিয়ে একদিন যাঁদের জীবন থমকে গিয়েছিল, তাঁরাই আজ অগ্রণী। ৩০ জুলাই, আর্ন্তজাতিক মানব-পাচার বিরোধী দিবস। তার আগে কলকাতা সংবেদের সোহিনী চক্রবর্তীর সঙ্গে কথা বলেছেন অন্বেষা দত্ত। 
বিশদ

04th  July, 2020
বিশ্বের সেরা সুন্দরী ঠাকুমা
ভারতের আরতিদেবী 

সম্প্রতি ইউরোপের দেশ বুলগেরিয়ার রাজধানী সোফিয়ায় শেষ হল ‘গ্র্যান্ডমা আর্থ ২০২০-র আসর। বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী ঠাকুমার মুকুট উঠেছে ভারতীয় মহিলা আরতি চাটলানির মাথায়। এই পুরস্কার এই প্রথম কোনও ভারতীয় মহিলার মাথায় উঠল। চলতি বছর (২০২০) ১৯ থেকে ২৩ জানুয়ারি বুলগেরিয়ায় এই অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়।  
বিশদ

27th  June, 2020
৯০ বছর বয়সে ব্যবসায়
হাতেখড়ি বৃদ্ধার 

৯০ বছরের মায়ের সঙ্গে গল্প জুড়েছিলেন মেয়ে। বৃদ্ধা মা এখন ভালো করে হাঁটতে পারেন না, চোখের দৃষ্টিও আগের চেয়ে অনেক ঝাপসা। মায়ের কী করতে ভালো লাগে? ৯০ বছর কাটানোর পর জীবনটাকে কীভাবে দেখেন তিনি? এইসব নিয়ে কথা এগোচ্ছিল। কথা প্রসঙ্গেই মাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন মেয়ে, তাঁর জীবনে কোনও আক্ষেপ রয়েছে কি না।  
বিশদ

27th  June, 2020
মহিলাদের মধ্যে বেকারত্ব বাড়ছে লকডাউনের জন্য 

দীর্ঘ লকডাউনের ফলে অনেকেই চাকরি হারিয়েছেন। রোজগার বন্ধ হয়েছে বহুজনের। তার মধ্যে মহিলারা যতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, পুরুষরা ততটা হননি। অন্তত পরিসংখ্যান তাই বলছে। এই বিষয়ে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্প্রতি একটি গবেষণা করেছেন র‌্যাশেল লেভেনসন ও লায়লা ও’কেন।  বিশদ

27th  June, 2020
সঙ্কটে দাম্পত্য, বাড়ছে নারী নির্যাতন
বন্দি ঘরের মধ্যে বেড়েছে হিংসা, আমরা চেষ্টা করেছি পাশে থাকার 

লকডাউনের অনেক অসুবিধার মধ্যে শিরোনামে এসেছে বাড়িতে দাম্পত্য অশান্তি, মনোমালিন্য থেকে শুরু করে পুরোদস্তুর নির্যাতন বেড়ে যাওয়ার ঘটনা। মহিলা এবং শিশুরাই যার প্রাথমিক শিকার। ২০-৩১মার্চের মধ্যে (লকডাউনের প্রথম সপ্তাহ) চাইল্ডলাইন ১০৯৮এ সারা দেশ থেকে ৯২ হাজার এসওএস কল গিয়েছে। জাতীয় মহিলা কমিশন শুধু এপ্রিলেই ৩১৫টি পারিবারিক হিংসার অভিযোগ পেয়েছে। পরিসংখ্যানগুলোর গ্রাফ কিন্তু এখনও উর্ধ্বমুখী। এ ব্যাপারে সমাজকর্মী অনুরাধা কাপুরের সঙ্গে আলোচনায় কমলিনী চক্রবর্তী এবং অন্বেষা দত্ত।  
বিশদ

27th  June, 2020
সঙ্কটে দাম্পত্য, বাড়ছে নারী নির্যাতন
ক্রমশ বাড়ছে অন্তর্দ্বন্দ্ব, নড়বড়ে হচ্ছে বৈবাহিক সম্পর্কের ভিত

লকডাউনের অনেক অসুবিধার মধ্যে শিরোনামে এসেছে বাড়িতে দাম্পত্য অশান্তি, মনোমালিন্য থেকে শুরু করে পুরোদস্তুর নির্যাতন বেড়ে যাওয়ার ঘটনা। মহিলা এবং শিশুরাই যার প্রাথমিক শিকার। ২০-৩১মার্চের মধ্যে (লকডাউনের প্রথম সপ্তাহ) চাইল্ডলাইন ১০৯৮এ সারা দেশ থেকে ৯২ হাজার এসওএস কল গিয়েছে। জাতীয় মহিলা কমিশন শুধু এপ্রিলেই ৩১৫টি পারিবারিক হিংসার অভিযোগ পেয়েছে। পরিসংখ্যানগুলোর গ্রাফ কিন্তু এখনও উর্ধ্বমুখী। এ ব্যাপারে সমাজতত্ত্ববিদ অভিজিৎ মিত্রের সঙ্গে আলোচনায় কমলিনী চক্রবর্তী এবং অন্বেষা দত্ত।  
বিশদ

27th  June, 2020
যোগাসনে সুস্থ মন 

এই অনিশ্চিত সময়ে ভালো থাকুন যোগাসনে। পরামর্শ দিলেন
যোগবিদ রাজশ্রী চৌধুরী। 
বিশদ

20th  June, 2020
পাশে থেকে 

করোনার মধ্যে কাজ হারিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের মুলুন্ডের তরুণী বিদ্যা শেল্কে। তবু আর পাঁচজনের মতো ভেঙে পড়েননি। ট্যাক্সি চালানোর সংস্থা তাঁকে ছাঁটাই করার পরে মহারাষ্ট্রে আটকে পড়া বিভিন্ন মানুষকে বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়ার কাজে হাত লাগান।   বিশদ

20th  June, 2020
বিদেশে সাফল্য 

বিলেতের মাটিতে ভারতীয় গবেষকের কৃতিত্ব। করোনার দাপটে বন্ধ ঘরে থেকেও গবেষণায় ছেদ পড়েনি অমৃতা গাডগের। সম্প্রতি ঘরে বসেই তিনি তৈরি করেছেন পদার্থের পঞ্চম অবস্থা ‘বোস-আইনস্টাইন কনডেনসেট’।   বিশদ

20th  June, 2020
এয়ার বিএনবি-র ব্যবসায় মেয়েরাই ভরসা 

ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এয়ার বিএনবি। বেড়াতে গিয়ে লোকে আর হোটেল নয়, বরং এই ধরনের অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া করতে চাইছে। আর সেইসব বন্দোবস্ত চালানোর ক্ষেত্রে এয়ার বিএনবি কর্তৃপক্ষ মহিলাদের ওপরেই ভরসা করছে।  বিশদ

20th  June, 2020
নারীর উন্নতির পথে সমাজই প্রধান বাধা 

সাত বছর। নির্ভয়া কাণ্ডের বিচার পেতে সাত-সাতটা বছর লেগে গেল। তবু শেষ পর্যন্ত যে অভিযুক্তদের শাস্তি দেওয়া গিয়েছে, সেটাই আশার দিক। নির্ভয়া কাণ্ডের বিচারের জন্য যিনি অক্লান্ত লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন, সেই আইনজীবী সীমা কুশওয়াহাকে এই বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, আমাদের সমাজ এখনও মেয়েদের পর্দার আড়ালে রাখতে চায়।   বিশদ

20th  June, 2020
একনজরে
 কাঠমাণ্ডু: গদি বাঁচাতে শেষপর্যন্ত করোনাকে হাতিয়ার করতে চাইছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি। তবে খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে তাঁর এই কৌশল কতটা কার্যকর হবে, তা নিয়ে সন্দিগ্ধ রাজনৈতিক মহল। জানা গিয়েছে, করোনার মোকাবিলায় দেশে স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে জরুরি অবস্থা জারির প্রস্তাব ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মিউচুয়াল ফান্ড সংস্থাগুলির সিস্টেমেটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান বা ‘সিপ’ বাবদ আদায় কমল জুন মাসে। গত মাসে গোটা দেশে সিপ-এ বিনিয়োগ হয়েছে ৭ হাজার ৯২৭ কোটি টাকা। অথচ তার আগের মাসে, অর্থাৎ মে মাসে বিনিয়োগ হয়েছিল ৮ হাজার ...

 সুখেন্দু পাল, বহরমপুর: গতবারের চেয়ে এবার রাজ্যের পঞ্চায়েতগুলিতে অর্থ কমিশনের টাকা অনেক কম পাঠানো হচ্ছে। কোনও কোনও পঞ্চায়েতে প্রথম কিস্তিতে গত বছরের তুলনায় অর্ধেকেরও কম টাকা পাঠানো হবে। কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ তুলে ইতিমধ্যেই প্রধানরা সরব হয়েছেন। ...

সংবাদদাতা, বালুরঘাট: আগেই করোনাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন বালুরঘাট শহরের বাইকের একটি শোরুমের এক কর্মী। এবার সেই শোরুমের আরও এক কর্মী এবং সেখানে আসা এক ক্রেতার করোনা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পঠন-পাঠনে আগ্রহ বাড়লেও মন চঞ্চল থাকবে। কোনও হিতৈষী দ্বারা উপকৃত হবার সম্ভাবনা। ব্যবসায় যুক্ত হলে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৮৫- ভাষাবিদ মহম্মদ শহীদুল্লাহর জন্ম,
১৮৯৩- গণিতজ্ঞ কে সি নাগের জন্ম,
১৯৪৯- ক্রিকেটার সুনীল গাভাসকরের জন্ম,
১৯৫০- গায়িকা পরভীন সুলতানার জন্ম,
১৯৫১- রাজনীতিক রাজনাথ সিংয়ের জন্ম



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৩.০৪ টাকা ৭৬.৭৪ টাকা
পাউন্ড ৯২.১৪ টাকা ৯৭.১৪ টাকা
ইউরো ৮২.৯৩ টাকা ৮৭.৪০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫০,০৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,৪৯০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮,২০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫১,৭১০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫১,৮১০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, পঞ্চমী ১৬/৩০ দিবা ১১/৩৯। পূর্বভাদ্রপদ অহোরাত্র। সূর্যোদয় ৫/২/৪২, সূর্যাস্ত ৬/২১/২৷ অমৃতযোগ দিবা ১২/৮ গতে ২/৪৮ মধ্যে। রাত্রি ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৮ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/২২ গতে ১১/৪২ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/১ গতে ১০/২১ মধ্যে।
২৫ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, পঞ্চমী দিবা ১১/২৭। পূর্বভাদ্রপদ নক্ষত্র অহোরাত্র। সূযোদয় ৫/২, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ১২/৯ গতে ২/৪৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/৩০ মধ্যে ও ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে ও ৩/৩৭ গতে ৫/৩ মধ্যে। বারবেলা ৮/২৩ গতে ১১/৪৩ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৩ গতে ১০/২৩ মধ্যে।
১৮ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মহারাষ্ট্রের জেলগুলিতে করোনায় আক্রান্ত ৫৯৬ জন বন্দী ও ১৬৭ কর্মী
মহারাষ্ট্রের জেলগুলিতে এ পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯৬ জন ...বিশদ

09:44:11 AM

করোনা:ফের রেকর্ড, দেশে একদিনে আক্রান্ত ২৬,৫০৬
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হলেন আরও ...বিশদ

09:35:40 AM

 শিয়ালদহ-ভুবনেশ্বর স্পেশাল ট্রেন এখন সপ্তাহে ২ দিন
আগামী ১৩ জুলাই থেকে শিয়ালদহ-ভুবনেশ্বর স্পেশাল ট্রেন সপ্তাহে তিনদিনের বদলে ...বিশদ

09:20:11 AM

কন্টেইনমেন্ট জোনে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ 
কন্টেইনমেন্ট জোনে বিভিন্ন আবাসন, বাড়ি কিংবা পাড়ার বাসিন্দাদের নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ ...বিশদ

09:00:19 AM

ফের রেকর্ড আমেরিকায়, একদিনে আক্রান্ত ৬৫ হাজারেরও বেশি
করোনা আক্রান্ত নিয়ে ফের রেকর্ড আমেরিকায়। গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন ...বিশদ

08:55:18 AM

আজ আইসিএসই, আইএসসির ফল
 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আজ, শুক্রবার দুপুর ৩টেয় প্রকাশিত হতে চলেছে ...বিশদ

08:43:37 AM