Bartaman Patrika
চারুপমা
 

বিক্রিতে টান,ছক ভাঙা
সাজে মন ডিজাইনারদের

পোশাক-গয়না নকশার দুনিয়ায় এসেছে বদল। ডিজাইনার থেকে মডেল, কোভিড-সঙ্কট সকলকেই বাধ্য করেছে নতুন পন্থা খুঁজতে। সেইমতোই এগোচ্ছেন কয়েকজন নকশার কারবারি। তারই সুলুকসন্ধানে মনীষা মুখোপাধ্যায়।


শুরুতেই একটু পিছিয়ে যাই বরং। তখনও করোনা ত্রাস আসেনি। বাংলার বুকে যখনই নতুন কোনও ঋতু উঁকি দিয়েছে, তখনই নকশার কারবারিরা নানা ফ্যাশন উইক কিংবা প্রদর্শনীতে সাজিয়ে বসেছেন ঋতু অনুযায়ী নিজস্ব পসরা। কখনও সুতি বা রেশম, কখনও আবার বিয়েবাড়ির জমকালো নকশা। কখনও বা পশমের নানা কেতার সাজগোজ ঠাঁই পেয়েছে তাঁদের বানানো পোশাকে-গয়নায়। নতুন, আরও নতুন কিছু নকশায় ভরে উঠেছে গ্ল্যামার দুনিয়ার গ্রিনরুম।
চিরকেলে চেনা ছবিটা বদলে যাচ্ছিল মার্চের মাঝ বরাবর। ২৪ তারিখের পর থেকেই ফ্যাশন দুনিয়া দেখল এক অন্য পৃথিবী। সেই পৃথিবীতে মুলতুবি রইল পোশাক-গয়না নিয়ে বাড়তি কোনও আভিজাত্য। অসুখ এড়ানো, অর্থনীতির সঙ্গে লড়াই, সামাজিক দূরত্ববিধি, ঘরবন্দি জীবন। এই চার আবহেই জীবনের মানচিত্রে কোথায় যেন হারিয়ে গেল সাজগোজের চেনা অঙ্ক। মাস্ক, স্যানিটাইজার, ফেস শিল্ডে মুখ ঢাকা জীবন ঝড়ের মতো এসে দাঁড়াল বেঁচে থাকার রুটিনে। রোজনামচার সব স্তরেই সমীকরণ বদলাতে একপ্রকার বাধ্য হল মানুষ। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র, ওষুধ, মাস্ক, স্যানিটাইজার, আর সাবধানতার বাইরে শুধু পড়ে রইল অসুস্থ না হওয়ার ভয় ও শঙ্কা। বাকি সবই যেন বিলাসিতা। সামাজিক দূরত্বের ঘেরাটোপে ততদিনে বাদ পড়েছে লোক-লৌকিকতা, জমায়েতও। এ সবের সঙ্গেই ফ্যাশন নিমেষে হয়ে গেল জীবনের ‘সেকেন্ডারি’ চাহিদা। ক’মাস আগেও যে মঞ্চ আলো, মেক আপ, পোশাক, গয়না, দর্শকে গমগম করে উঠত, সে মঞ্চ হয়ে পড়ল শূন্য। বন্ধ ফ্যাশন শো। বাতিল ফ্যাশন উইক।
তাহলে কি পোশাক-গয়নার নকশার দুনিয়া আগামী কয়েক বছর থেমে গেল এখানেই? নাকি অনলাইনে আর পাঁচটা পেশার মতোই ফ্যাশনও খুঁজতে পারে কোভিড পরবর্তী মঞ্চ?
শিল্পী ও পোশাকের আঁকাআঁকিতে অভ্যস্ত ইলিনা বণিক কিন্তু মনে করেন কোভিড যুগে অনলাইনেও বিকল্প ভাবনা ভাবতে হবে ফ্যাশন দুনিয়াকে। জনসমারোহে হওয়া ফ্যাশন শো, ফ্যাশন উইকগুলোকে কোনও ভাবে অনলাইনে আনলে, এই সময়েও ফ্যাশন দুনিয়ার সঙ্গে যুক্ত শিল্পী, মডেল, ফোটোগ্রাফার, প্রসাধনশিল্পী কেউই কর্মহীন হয়ে পড়েন না। ইলিনার মতে, ‘এই পরিস্থিতিতে পেটের খাবার জোগান ও অসুখের সঙ্গে লড়াই করাই মুখ্য হয়ে উঠেছে। তবে ফ্যাশনও তো আরও অনেকের পেশা, পেটের খাবার। তাই এই ক্ষেত্র যদি অনলাইনে আসে মন্দ কী? ফ্যাশন উইকের মতো সমারোহ হয়তো সেখানে সম্ভব নয়। কিন্তু খুব সাবধানে, সব নিয়ম মেনে, ন্যূনতম লোকজন নিয়ে যদি কোথাও কোনও ফ্যাশন উইক বা ফ্যাশন শো উপস্থাপন করার কথা ভাবেন ফ্যাশন ডিজাইন কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া (এফডিসিআই) তাহলে অবশ্যই এই পেশার সঙ্গে যুক্ত অনেকেরই অনেকটা উপকার হবে।’
তবে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে পুরো ফ্যাশন উইককে তুলে আনা প্রায় অসম্ভব বলেই মনে করেন বিভিন্ন ফ্যাশন উইকে অভিজ্ঞ মডেল দিতি সাহা। এই বঙ্গললনার কেরিয়ারে যুক্ত দেশ-বিদেশের নানা ফ্যাশন উইক। নানা ব্র্যান্ডের মুখ হয়ে ওঠা দিতি যদিও নিয়ম ও সাবধানতা মেনে কিছু ফ্যাশন শ্যুট শুরু করেছেন। তবে তিনি মনে করেন, ফ্যাশন উইকের মতো জমকালো বিষয়কে অনলাইনে বেঁধে ফেলার কিছু সমস্যাও আছে। তাঁর মতে, ‘একটা ফ্যাশন উইক মানেই অনেক লোকজন, আলো, ক্যামেরা, পার্টি, মেক আপ, কর্পোরেট আলাপচারিতা, মিটিং, দর্শক— এককথায় একেবারে হইহই ব্যাপার। পুরো বিষয়টা থেকে লোক কমিয়ে এনে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তা অনলাইনে নিয়ে যাওয়া প্রায় অসম্ভব। তবু যদি বিকল্প পথ হিেসবে কোনও সংস্থা এমনটা ভাবতে পারেন, তা হলে মন্দ হয় না। তবে এখন চারপাশের যা পরিস্থিতি, তাতে সত্যিই এই ফ্যাশন উইকের মতো বৈভব এতটা অপরিহার্য এখনই নয়।’
অপরিহার্য হোক বা না হোক, যে কোনও মাধ্যমকে বেঁচে থাকতে হলে যুগ ও সময়ের হাত ধরেই টিকে থাকতে হয়। এ কথা বিলক্ষণ বোঝেন ডিজাইনাররাও। তাই সারা পৃথিবীতেই কোভিড পরবর্তী ফ্যাশন ট্রেন্ডে উঠে আসছে নয়া নয়া কনসেপ্ট। যার মধ্যমণি অবশ্যই মাস্ক। করোনা ঠেকাতে এই হাতিয়ার যেহেতু আগামী কয়েক বছর আমাদের সঙ্গী, তাই ফ্যাশন ট্রেন্ডেও উঠে আসছে তা। এমনকি, বিয়ের বেনারসির নকশার সঙ্গেও ভেবে রাখতে হচ্ছে বর-কনের মুখের মাস্কের নকশা!
এই যেমন অগ্নিমিত্রা পল। নিজের স্কেচবুকে ইতিমধ্যেই এঁকে ফেলেছেন নানাবিধ মাস্কের নকশা। ডিজাইন অনুযায়ী তাদের নামও দিয়েছেন তিনি। ফ্রিডা, আন্দ্রে ও মর্জিনা। সাজপোশাকের দুনিয়ায় এই নতুন তিন মাস্ক দিয়েই কোভিড পরবর্তী বাজারে তাক লাগাতে চান অগ্নিমিত্রা। শুধু তাই-ই নয়, মাস্কের সঙ্গে ফেস শিল্ড, হেড গার্ডকেও জুড়ে কিছু নকশা বানাচ্ছেন তিনি। অগ্নিমিত্রা মানেন, যেখানে বেঁচে থাকার প্রশ্ন প্রথম, সেখানে ফ্যাশন চলে যায় পরের সারিতে। তাই এই মুহূর্তে ফ্যাশন দুনিয়ায় কেনাকাটায় ভাটা যে আছে, তা স্বীকার করেন। তাঁর অভিমত, ‘যে কোনও পোশাক কেনার সময় ‘টাচ’ বা স্পর্শ একটা বড় বিষয়। অনলাইনে পোশাক চোখে দেখে কেনায় সেই স্পর্শই অনুপস্থিত থাকে। তাই ফ্যাশনে যতই অনলাইন কেনাকাটার বিকল্প খোলা থাকুক না কেন, ওতে ঠিক মনে ভরে না। পোশাকের নকশা, জরিসুতো, ফ্যাব্রিক সবটাই হাতে ধরে দেখা একটা বড় ফ্যাক্টর। এ ছাড়া যে কোনও অনুষ্ঠানের সময় দলবেঁধে কিনতে আসাতেও একটা আলাদা আনন্দ থাকে। সেটা বাদ দিলে পছন্দের বেলাতেও কিছুটা আপসের পথে হাঁটতে হয় বইকি!’
ছুঁয়ে দেখা, পরখ করার এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দেন ঋতু কুমারের মতো ডিজাইনারের টিমও। কোভিডের সময় যে এই ছুঁয়ে দেখার বা অনুভব করার উপায় নেই! সম্ভব নয় হাজির থেকে মাপজোক দেওয়াও। নানা প্রতিকূলতার মুখে পড়ে ফ্যাশনের বাজার যে বেশ কিছুটা নিম্নমুখী, তা মানেন তাঁরাও। তবে এঁরাও কোভিড পরবর্তী যুগে মাস্ককে নতুন ভাবে উপস্থাপন করতে চান। কিছু ক্ষেত্রে ফেস শিল্ড, হেড গার্ড নিয়েও কাজ করছেন নানা ডিজাইনার। বিয়ের পোশাকে বর-কনে দু’পক্ষের জন্যই মাস্ক বানানোর কথা ভাবছেন কলকাতার আর এক ফ্যাশন ডিজাইনার অভিষেক নাইয়া।
কোভিড পরবর্তী সময়ে ফ্যাশন ট্রেন্ডে যে রোগ প্রতিরোধের হাতিয়ারগুলোই উঠে আসবে, তা বিশ্বাস করেন ফ্যাশন উইকের এক অত্যন্ত পরিচিত মুখ শুভমিতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। ইদানীং কিছু ফ্যাশন শ্যুট শুরু হলেও যে কোনও ফ্যাশন উইক বা বড় কোনও ফ্যাশন শো এখনই যে সম্ভব নয় তা বোঝেন তিনি। অসম্ভব ফ্যাশন উইকে কোনও ব্র্যান্ডের েপ্রামোশনও। বরং রোগের সঙ্গে লড়তে ফ্যাশন শোয়ের পোশাক ব্যবহারেও মুম্বইয়ে বেশ কিছু কড়া নিয়ম জারি হয়েছে। আগে স্টাইলিস্টরা নানা ধরনের পোশাক এনে হাজির করতেন মডেলদের সামনে। তার মধ্যে মানানসই পোশাকে কাকে কেমন দেখাচ্ছে, তা বুঝে নিয়েই চূড়ান্ত পোশাক নির্বাচন হতো। ফ্যাশনের এই চিরকেলে চেনা অভ্যাসও ছক ভেঙেছে রোগের সামনে। এখন আগে থেকেই ঠিক করে রাখতে হবে কোন পোশাক কে পরবেন। খুব যত্নে, এতটুকু না ছুঁয়ে সেই পোশাক হাজির করতে হবে মডেলের সামনে। যাঁর পোশাক, একমাত্র তিনিই তা ছুঁতে পারবেন। একে তো বন্ধ নানা ইভেন্ট। শো-এর দেখা পাওয়াও দুষ্কর। কমেছে বিকিকিনিও। এই অবস্থায় সচেতনতা বজায় রাখার নিয়ম মানতে গিয়ে আনুষঙ্গিক খরচও বাড়ছে বিস্তর। সে সব সামলে ফ্যাশন দুনিয়া তাই এখনও নিজের চেনা স্রোত পাচ্ছে না। কবে পাবে তা-ও অজানা।
তবে রোগের সঙ্গে দীর্ঘ লড়াইয়ে অভ্যস্ত আমাদের মন ও মানসিকতা দিনের শেষে মানুষকেই জিততে দেখতে চায়। ফ্যাশন-সচেতন মানুষ আজও স্বপ্ন দেখে, কোভিড শেষ হয়ে এক ঝলমলে আলোর রোশনাইতে ভেসে যাচ্ছে মডেলদের প্ল্যাটফর্ম। ভিড় করে থাকা দর্শকদের সামনেই ক্যামেরা, মেক আপ আর পোশাকের চাকচিক্যে র‌্যাম্প মাতাচ্ছেন দিতি, শুভমিতা, স্নেহারা। দুঃসময় কেটে আলোর পথে হাঁটা দেশে এমন স্বপ্ন কিন্তু সুদূরের হলেও লোভনীয়!
আর কার তাতে কী, কেউ যদি এই আকালেও স্বপ্ন দেখেন?
মডেল: দিতি সাহা ও
শুভমিতা বন্দ্যোপাধ্যায়
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে
মর্জিনা মাস্ক: অগ্নিমিত্রা পল
11th  July, 2020
তুলতুলে ত্বকের যত্ন 

কীভাবে ছোট্ট সোনার কোমল ত্বকের যত্ন নেবেন জানাচ্ছেন অভিজ্ঞ বিউটিশিয়ান অঞ্জলি গঙ্গোপাধ্যায়। লিখেছেন সোমা লাহিড়ী। 
বিশদ

লাল নীল সবুজের মেলা 

ওরা যেন একঝাঁক সতেজ বাতাস। ওদের পোশাকেও চাই ওদের মতোই উজ্জ্বলতার ছোঁয়া, যা দেখলে নিমেষে মন খারাপেরা উধাও। তবে শুধু রংচঙে নয়, কচিকাঁচাদের জামাকাপড়ের ফ্যাব্রিক, টেক্সচারও দেখে নিতে হবে। শিশুদের পোশাক নিয়ে রাতদিন ভাবেন এবং কাজ করেন, এমন কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে খুদেদের ফ্যাশন ট্রেন্ড জেনে নিলেন অন্বেষা দত্ত। 
বিশদ

বিবির নতুন পৃথিবী

বিবি রাসেল। বাংলাদেশের ফ্যাশন ডিজাইনার। খ্যাতি তাঁর জগৎজোড়া। এই প্রথম তিনি পা রাখছেন অনলাইন দুনিয়ায়। আনছেন নিউ নর্মাল পৃথিবীর জন্য নতুন সম্ভার। বাংলাদেশ থেকে হোয়াটসঅ্যাপ কলে সাক্ষাত্কার দিলেন সোমা লাহিড়ীকে। বিশদ

25th  July, 2020
 চুলে রং নিন

গায়ের রং অনুযায়ী একটু বদল আনুন চুলের রঙেও। তাই বলে বিদেশি কায়দায় চুল রং করবেন না যেন। কেমন হবে রঙের ধরন? পরামর্শ দিলেন হেয়ার এক্সপার্ট জাভেদ হাবিব। বিশদ

25th  July, 2020
ফ্যাশনে ফিরেছে কাফতান

এত দিন ঘরোয়া পরিধেয় হিসেবেই পরিচিতি ছিল কাফতানের। কালের নিয়মে বদলে গিয়েছে তার রূপ। বেড়েছে কদর। কাফতানের রকমফেরের খবর রইল আপনাদের জন্য। বিশদ

25th  July, 2020
নিজের যত্নে হাল্কা সাজ

মাস্ক আর স্যানিটাইজার মাখা জীবনে কি আর কোনও বৈচিত্র থাকবে না? এখন সাজগোজ করে মন ভালো রাখার কোনও উপায়ই কি তাহলে সুরক্ষিত নয়, জানালেন বিশেষজ্ঞরা। লিখেছেন অন্বেষা দত্ত।  বিশদ

18th  July, 2020
বর্ষার সাজগোজ 

শহরে বর্ষা মানেই কাদা প্যাচপ্যাচে রাস্তা আর আর্দ্র অাবহাওয়া। এমন দিনে নিজেকে কীভাবে সাজিয়ে তুলবেন? বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের মতামত জানালেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

18th  July, 2020
ছিল শাড়ি হয়ে গেল গাউন 

সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের বদলে দিয়েছে। এখন দামি পছন্দের শাড়িটিও বারবার পরতে মন চায় না। পোশাকটি পরে একবার ছবি পোস্ট মানেই সেটির কথা সবাই জেনে গেল। তাহলে জমে থাকা সেই শাড়ির গতি কী হবে? উপায় বাতলেছেন ডিজাইনার দেবযানী গঙ্গোপাধ্যায়। লিখেছেন সোমা লাহিড়ী।
বিশদ

18th  July, 2020
দোলাচলে পুজো ফ্যাশন

প্রতি বছর রথের সময় থেকেই পুজোর কাউন্টডাউন শুরু হয়ে যায় চারূপমায়। এ বছর পরিস্থিতি একেবারে আলাদা। এখনও পুরোপুরি প্রস্তুত নন ডিজাইনাররা। তবে কাজ শুরু করেছেন অনেকেই। পুজো ফ্যাশনের খোঁজে সোমা লাহিড়ী।
বিশদ

11th  July, 2020
যত্নে রাখুন হাত পা

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা রক্ষার প্রতি এখন আমাদের সজাগ দৃষ্টি। হাত পা সারাক্ষণ সাবানে ধুয়ে তা স্যানিটাইজ করে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই পরিস্থিতিতে হাত ও পায়ের যত্ন নিতে পেডিকিওর ও ম্যানিকিওর কতটা জরুরি? পরামর্শ দিলেন বিউটিশিয়ান শেহনাজ হুসেন।
বিশদ

11th  July, 2020
ছোট্ট ঘরে স্বপ্ন উড়ান 

চার দেওয়ালের মধ্যেই আপনার সোনামণির স্বপ্নপূরণের যাত্রা শুরু। তাই তার ঘরটি যেন পজিটিভ এনার্জিতে ভরপুর হয়। আপনার সন্তানের ঘরের সাজ কেমন হওয়া উচিত, পরামর্শে এক্সটিরিয়র ইন্টিরিয়র অ্যাকাডেমির ডিরেক্টর অপর্ণা রায়। লিখেছেন সোমা লাহিড়ী। 
বিশদ

04th  July, 2020
বাড়ি হবে বাড়ির মতো 

পায়েল সরকার: লকডাউনে প্রত্যেকেই দেখছি কম বেশি ঘরের কাজ করছেন। ঘর বাড়ি সাজাচ্ছেন এবং সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করছেন। ব্যস্ত জীবনে অনেক সময় আমরা নিজের মাথার ছাদের যত্ন নিতে ভুলে যাই।  বিশদ

04th  July, 2020
ঘরে বসেই ঘর সাজান 

নিজের ঘর নিজেই সাজিয়ে তুলতে পারেন। কিন্তু কী ভাবে? এই বিষয়ে বিশিষ্ট ইন্টিরিয়র ডিজাইনার এবং শাহরুখ-পত্নী গৌরী খানের পরামর্শ শোনালেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

04th  July, 2020
চুলে চাই  চেকনাই

একে তো ভ্যাপসা বর্ষা, তার ওপর লকডাউনে পার্লার যাওয়া হয়নি তিন মাস, সঙ্গে বাড়ির কাজের চাপ— তিনে মিলে চুলের দফারফা। কীভাবে যত্ন নিলে চুলের স্বাস্থ্য ফিরবে, জানাচ্ছেন মুম্বইয়ের পিডি হিন্দুজা হসপিটালের কনসালট্যান্ট, কায়া স্কিন ক্লিনিকের হেয়ার অ্যান্ড ওয়েলনেস এক্সপার্ট ডাঃ অপর্ণা সান্থানাম। কথা বলেছেন সোমা লাহিড়ী।
বিশদ

27th  June, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: করোনা পরিস্থিতিতে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা কবে, তা নিয়ে শুক্রবারও সুপ্রিম কোর্টে ফয়সালা হল না। আগামী ১০ আগস্ট ফের শুনানি হবে।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সোমেন মিত্র প্রয়াত হলেও তাঁর দেখানো পথে বামেদের সঙ্গে সখ্য গড়েই আগামী বিধানসভা নির্বাচনে লড়তে চায় প্রদেশ কংগ্রেস।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্যের সংশোধনাগারগুলিতে যা জায়গা রয়েছে, তার তুলনায় বন্দির সংখ্যা ২৩ শতাংশ বেশি। দু’হাজারেরও বেশি বিচারাধীন বন্দিকে আগাম জামিন ও আসামিদের প্যারোলে ছাড়ার পরেও এই অবস্থা।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নতুন পলিসির ক্ষেত্রে প্রথম বছরের প্রিমিয়াম বাবদ প্রায় ১ লক্ষ ৭৭ হাজার ৯৭৭ কোটি টাকার ব্যবসা করল লাইফ ইনসিওরেন্স কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়া।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিতর্ক-বিবাদ এড়িয়ে চলা প্রয়োজন। প্রেম-পরিণয়ে মানসিক স্থিরতা নষ্ট। নানা উপায়ে অর্থোপার্জনের সুযোগ।প্রতিকার: অন্ধ ব্যক্তিকে সাদা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৭৭৪- অক্সিজেনের আবিষ্কার করেন যোশেফ প্রিস্টলি
১৮৪৬ - বাংলার নবজাগরণের উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব দ্বারকানাথ ঠাকুরের মৃত্যু
১৯২০ – স্বাধীনতা সংগ্রামী বালগঙ্গাধর তিলকের মৃত্যু
১৯২০- অসহযোগ আন্দোলন শুরু করলেন মহাত্মা গান্ধী
১৯২৪ -ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটার ফ্রাঙ্ক ওরেলের জন্ম
১৯৩২- অভিনেত্রী মীনাকুমারীর জন্ম
১৯৫৬- ক্রিকেটার অরুণলালের জন্ম।
১৯৯৯- সাহিত্যিক নীরদ সি চৌধুরির মৃত্যু 



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৩.৯৪ টাকা ৭৫.৬৫ টাকা
পাউন্ড ৯৬.৫৩ টাকা ৯৯.৯০ টাকা
ইউরো ৮৭.৪০ টাকা ৯০.৫৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫৪,৬৪০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৫১,৮৪০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৫২,৬২০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৪,৩০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৪,৪০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৬ শ্রাবণ ১৪২৭, শনিবার, ১ আগস্ট ২০২০, ত্রয়োদশী ৪১/৪৮ রাত্রি ৯/৫৫। মূলানক্ষত্র ৪/২ দিবা ৬/৪৮। সূর্যোদয় ৫/১১/৪৮, সূর্যাস্ত ৬/১৩/৫৮। অমৃতযোগ দিবা ৯/৩২ গতে ১/১ মধ্যে। রাত্রি ৮/২৬ গতে ১০/৩৭ মধ্যে পুনঃ ১২/৫ গতে ১/৩২ মধ্যে পুনঃ ২/১৬ গতে ৩/৪৪ মধ্যে। বারবেলা ৬/৫০ মধ্যে পুনঃ ১/২০ গতে ২/৫৮ মধ্যে পুনঃ ৪/৩৬ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৭/৩৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৫০ গতে উদয়াবধি। 
১৬ শ্রাবণ ১৪২৭, শনিবার, ১ আগস্ট ২০২০, ত্রয়োদশী রাত্রি ৯/৪৮। মূলানক্ষত্র দিবা ৭/৫৩। সূর্যোদয় ৫/১১, সূর্যাস্ত ৬/১৭। অমৃতযোগ দিবা ৯/৩০ গতে ১/২ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/২৯ গতে ১০/৩৮ মধ্যে ও ১২/৪ গতে ১/৩০ মধ্যে ও ২/১৩ গতে ৩/৩৯ ম঩ধ্যে। কালবেলা ৬/৪৯ মধ্যে ও ১/২২গতে ৩/০ মধ্যে ও ৪/৩৯ গতে ৬/১৭ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৩৯ মধ্যে ও ৩/৪৯ গতে ৫/১১ মধ্যে।  
১০ জেলহজ্জ 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
করোনা: রাজ্যে আক্রান্ত আরও ২৫৮৯ জন  
রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৫৮৯ জনের শরীরে মিলল করোনা ...বিশদ

08:42:26 PM

মহারাষ্ট্রে করোনা পজিটিভ আরও ৯,৬০১ জন, মৃত ৩২২ 

08:41:24 PM

কর্ণাটকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পজিটিভ ৫,১৭২ জন, মৃত ৯৮ 

07:56:50 PM

করোনা: কেরলে নতুন করে আক্রান্ত আরও ১১২৯, মোট আক্রান্ত ১০৮৬২ 

07:50:00 PM

করোনা: গত ২৪ ঘণ্টায় তামিলনাড়ুতে আক্রান্ত ৫৮৭৯, মৃত্যু ৯৯ জনের 

06:43:13 PM

হায়দরাবাদে ব্যাপক বৃষ্টি জলমগ্ন একাধিক এলাকা 

06:35:00 PM