Bartaman Patrika
চারুপমা
 

গ্রেসফুলি বয়স
বাড়লে ক্ষতি কী?

 জন্মদিনের রাতে সিঙ্গাপুর থেকে সাক্ষাৎকার দিলেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। কথা বলেছেন সোমা লাহিড়ী।

ঋতুপর্ণা, তুমি এখনও জানো না আজ তোমার সবথেকে কাছের মানুষটি সিঙ্গাপুরের ঝলমলে পাঁচতারা হোটেলে তোমার জন্মদিন সেলিব্রেট করার জন্য একটা পার্টির আয়োজন করেছেন গোপনে। তোমাকে সারপ্রাইজ দেবে বলে কেউ কিচ্ছুটি জানায়নি। এমনকী তোমার পুচকে মেয়েটাও মাকে চমকে দেবে বলে চুপিচুপি বাবা আর দাদার সঙ্গে অনেকরকম প্ল্যান করেছে। ৭ নভেম্বর তোমাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাব আর একটা ইন্টারভিউ নেব বলে যখন হোয়াটস অ্যাপ কল করেছিলাম তখন তোমার কন্যাই ফোনটা ধরেছিল। তার থেকেই এই গোপন তথ্য পেয়েছি। তাকে কথা দিয়েছিলাম ন’তারিখের আগে কাউকে জানাব না। দ্যাখো কথা রেখেছি রিশোনা। আজ জমজমাট পার্টি হোক। প্রিয়জনদের নিয়ে খুব আনন্দ করো এই শুভ কামনা রইল।

 এবার জন্মদিনটা সিঙ্গাপুরে কাটল। কেমন হল সেলিব্রেশন?
 গত দু’তিন বছর ধরেই জন্মদিনটায় সিঙ্গাপুরে থাকছি। এখন এখানেই তো আমার আসল সংসার। সঞ্জয় তো কাজের সুবাদে অনেকদিনই সিঙ্গাপুরবাসী। কিন্তু এখন আমার ছেলে মেয়েও এখানে থাকে। ওদের বাবার ইচ্ছে এখানেই ওরা পড়াশোনা করুক। কলকাতায় থাকলে আমি তো সেভাবে ওদের সময় দিতে পারি না। বরং এখানে এলে ওদের সঙ্গে অনেকটা সময় মজা করে কাটাতে পারি। এইসময় ওদের স্কুলে তো ছুটি থাকে না। সঞ্জয়ও ব্যস্ত। তাই নিজের জন্মদিন তো বটেই সঞ্জয়ের জন্মদিন, বাচ্চাদের জন্মদিন, ম্যারেজ অ্যানিভার্সারি প্রত্যেকটা অকেশনে চলে আসি সিঙ্গাপুরে। সেইভাবেই পুরো বছরের প্ল্যান করে সিঙ্গাপুরের টিকিট বুক করে রাখে সঞ্জয়।
 কেক কাটা হল?
 ছ’তারিখে আমার এখানকার বন্ধুরা আমাদেরকে সপরিবারে নেমন্তন্ন করেছিল। ওখানেই কেক কাটা হয়েছে রাত বারোটায়। খুব হই-হুল্লোড় হয়েছে। বাচ্চারাও মজা করেছে। সঞ্জয় আমাকে কেক খাইয়েছে। ছবি তুলেছে ছেলে।
 আর সাত তারিখে জন্মদিনের দিন কী করলে?
 সিঙ্গাপুরে আমার অনেক শুভানুধ্যায়ী বন্ধু আছে, জানো তো। ওরা দুপুরে আমাকে নেমন্তন্ন করেছিল। প্রচুর খাওয়া দাওয়া আর গল্পগুজব হল। সন্ধেবেলা এখানকার শ্রীরামকৃষ্ণ মিশনে গিয়েছিলাম। ঠাকুরের সামনে বসে থাকলে মনটা যেন শান্ত নিস্তরঙ্গ হয়ে যায়। বাড়ি ফিরতেই ছেলে নিজের হাতে তৈরি খুব সুন্দর একটা বার্থ ডে কার্ড দিল। মেয়ে একটা টেডি বিয়ার এনে বলল তোমার জন্য কিনে এনেছি বাবার সঙ্গে গিয়ে। মনটা ভরে গেল। চোখে জল এসে গিয়েছিল আনন্দে।
 আর সঞ্জয় কী দিলেন?
 সঞ্জয় তো সবসময় সারপ্রাইজ দিতে ভালোবাসে। এখনও কিছু দেয়নি। তবে বাবা আর ছেলেমেয়ে মিলে যা গুজুর গুজুর করছে আমি সিওর কোনও বিশেষ প্ল্যান আছে। (হাসি) মনে হচ্ছে স্পেশাল সেলিব্রেশন উইথ স্পেশাল গিফট।
 শুনলাম মাঝে মাত্র একটা দিনের জন্য কলকাতায় এসেছিলে। ছবির প্রমোশন আর জরুরি মিটিং সেরে রাত একটায় বাড়ি ফিরে ভোর চারটের ফ্লাইট ধরেছ সিঙ্গাপুরের। এতো ছোটাছুটি-ক্লান্তি আসে না?
 (খুব হাসতে হাসতে) নাহ্। বলতে পারো ক্লান্তিটা অ্যাজেন্ডার মধ্যে রাখি না। ব্যস্ত থাকতে খুব ভালোবাসি। মনে হয় এটা আমার স্বভাব হয়ে গিয়েছে। আর তাড়াতাড়ি কাজ শেষ করে নিজের ছেলেমেয়ে স্বামীর কাছে ফেরার আনন্দই অন্যরকম। আমি তো মানুষ। অভিনেত্রী হয়েছি বলে আমার অনুভব আমার এক্সপ্রেশন আমার ভালো লাগা মন্দ লাগা তো অতিমানবীয় হয়ে যেতে পারে না। অন্তত আমার ক্ষেত্রে তা হয়নি। স্টারডাম আমার অন্তরের অনুভূতিকে কখনও দাবিয়ে রাখতে পারেনি।
 এই যে স্টারডম বললে, বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ‘টলি-কুইন’ ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত— এটা তোমার কাছের মানুষরা কীভাবে নিয়েছেন?
 সঞ্জয় সবসময় আমাকে বুস্টআপ করার চেষ্টা করেছে। ও এবং আমার শ্বাশুড়ি মায়ের সাপোর্ট না পেলে আমি এতদূর পৌঁছতে পারতাম না। তবে আমারও কিছু দোষ আছে। আমি কাজের নেশায় এতটাই বুঁদ হয়ে যাই যে অনেক সময় পরিবারের কথা, প্রিয়জনদের দেখভালের কথা, তাদের আদর আবদারের কথা ভুলে যাই। তাই মান অভিমান চলতেই থাকে আমাদের। কখনও ছেলে অভিমান করে, কখনও সঞ্জয় ভুল বোঝে, কখনও মেয়ে আমাকে কাছে না পেয়ে কান্নাকাটি করে। দেখে মায়ের (শাশুড়ি) মনেও কষ্ট হয়। সম্বিত ফিরলে আমিও কষ্ট পাই। তবে শেষমেশ আমি আমার পরিবারের কাছেই ফিরে যাই। বুঝতে পারি ওরা আমাকে ভালোবাসে বলেই তো কাছে পেতে চায়।
 যে কোনও পরিস্থিতিতে দেখেছি তোমার মুখের হাসি অটুট থাকে। মাথা এত ঠান্ডা রাখো কী করে? ধ্যান, প্রাণায়াম করো?
 (হাসতে হাসতে) ধ্যান প্রাণায়াম করার সময় কই? তবে রোজ সকালে (যখনই উঠি না কেন) উঠে ভগবানের কাছে দশমিনিট প্রার্থনা করি। এই দশটা মিনিট আর কিছু ভাবি না। আমি সম্পূর্ণভাবে পজেটিভ মনের মানুষ। কোনও কিছু হবে না বা করা যাবে নাতে বিশ্বাস করি না। একটা উইল পাওয়ার যেন সবসময় আমাকে টেনে নিয়ে যায়। আর হাসিমুখে তো থাকতেই হবে। আমার কাজই যে সকলকে আনন্দ দেওয়া।
 রূপচর্চার সময় পাও?
 নাহ্, তাও পাই না। ওই বেসিক যেটুকু না করলে নয়, ততটুকুই। যেমন রাতে মেকআপ তুলে মুখ ধুয়ে নাইট ক্রিম লাগাই। মাঝে মধ্যে বেসন, মধু আর দুধ মিশিয়ে মুখে কুড়ি মিনিট লাগিয়ে রাখি। চুলে মাঝে মাঝে অয়েল মাসাজ করি। ব্যাস ওইটুকুই। কোনওরকম আর্টিফিশিয়াল থেরাপিতে বিশ্বাসী নয়। গ্রেসফুলি বয়স বাড়লে ক্ষতি কী?
 কিন্তু বয়স তো তোমার বাড়ছে না। ধরে রেখেছো কী করে?
 (হো হো করে হেসে) আমি খুব নিয়ম মেনে কোনও কিছু করি না বটে, তবে আমার কয়েকটা প্লাস পয়েন্ট আছে। আমি মদ সিগারেট খাই না। চা কফিও পরিমিত খাই। কড়া ডায়েট চার্ট ফলো না করলেও পরিমাণে কম খাই। প্রচুর ফল আর জল খাই। কখনও মেজাজ হারাই না। যে কোনও ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জ নিতে ভালো লাগে। আর পেসেন্স, পেসেন্স, অ্যান্ড পেসেন্স— এটাই আমার ভালো থাকার মূলমন্ত্র।
 দূরত্ব প্রিয়জনের সঙ্গে সম্পর্কে দূরত্ব আনে — এই মিথ তুমি ভাঙলে কী করে?
 পুরোপুরি ভাঙতে পেরেছি কি? তা আমার প্রিয়মানুষরাই বলতে পারবেন। তবে এর জন্য আমাকে সবসময় লড়াই করে যেতে হচ্ছে। ইন্ডাস্ট্রির অনেক মানুষ, আমার বেশ কিছু আত্মীয়-স্বজন, আমি যাদের বিশ্বাস করতাম এমন অনেক বন্ধু এই দূরত্বের সুযোগ নিয়ে আমাদের সম্পর্কে ভাঙন ধরানোর চেষ্টা করেছে। সম্পর্কে ভাঙন ধরেছে— এ কথাও সর্বসমক্ষে প্রচার করেছে। আজও করে চলেছে। তাদের বিরুদ্ধেই আমার সংগ্রাম চলছে, চলবে।
 মেয়ে তো বেশ বড় হয়ে গিয়েছে। আমার ফোনটা রিসিভ করেছিল, খুব গল্প করল...
 (আবার খুশির মেজাজে ফিরে) গজু আমার খুব বুঝদার মেয়ে। ক্লাস টু’তে ভর্তি হয়েছে সিঙ্গাপুরের স্কুলে। ওদের স্কুলের একটা অনুষ্ঠানের জন্য নাচের রিহার্সাল চলছে। ওদের প্রিন্সিপাল ম্যাম আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন সকলকে নাচ শেখানোর। রোজ স্কুলে যাচ্ছি মেয়ের সঙ্গে। খুব মজা হচ্ছে।
 সিঙ্গাপুরেও তো তোমার অনেক বন্ধু হয়ে গিয়েছে?
 হ্যাঁ। আমি বুঝেছি এরাই আমার আসল বন্ধু। আমাদের ফ্যামিলি বন্ডিংকে দৃঢ় করেছে এরাই। আমি যখন এখানে থাকি না তখন ওরাই আমার ছেলেমেয়ের মনিটরিং করে। আমাকে প্রতিদিন ফোন করে বলে চিন্তা না করতে।
 আজ সঞ্জয় কোনও স্পেশাল বার্থ ডে পার্টি থ্রো করছে নাকি?
 (খুব খুশি মাখানো গলায়) গজু বলেছে বুঝি? হতেও পারে। হলে সব জানাব। এখন রাখি তাহলে।
09th  November, 2019
মুখ ঢেকে যায় মাস্কে 

আপাতত করোনাভাইরাসকে সঙ্গে নিয়েই জীবনে চলতে হবে। নানা মহল থেকে এখন উঠে আসছে এই কথাটা। ভাইরাসের সঙ্গে যুঝতে সঙ্গে রাখতে হবে অস্ত্রও। মাস্ক তার মধ্যে অন্যতম। মুখ ঢেকে রাখার এই সংস্কৃতি কীভাবে বদলে দিচ্ছে আমাদের জীবনযাপন, লিখছেন অন্বেষা দত্ত। 
বিশদ

23rd  May, 2020
‘পুরনো জীবনটা
কেউ ফিরিয়ে দিক!’

প্রশ্ন: এই লম্বা সময়টা কাটছে কী করে, মাথা কীভাবে ঠান্ডা রাখছ?
নন্দিনী: মাথা ঠান্ডা রাখাটা সত্যি খুব কঠিন হয়ে যাচ্ছে। চারদিক থেকে এত রকম চাপ! বাড়ি বসে অফিসের কাজ। তার মধ্যে আমাদের যাঁরা সব সময় সাহায্য করেন, সেই পরিচারিকারাও আসতে পারছেন না। তাই বাচ্চাকে দেখা, রান্নাবান্না... সবই তো করতে হচ্ছে মিলিয়ে মিশিয়ে।
বিশদ

16th  May, 2020
‘তিনজনে বেশ আনন্দেই আছি’

প্রশ্ন: লকডাউনে দিন কাটছে কীভাবে? মাথা কীভাবে ঠান্ডা রাখছ?
সৃজা: সকালটা কাজ আর এক্সারসাইজ করে কেটে যাচ্ছে। প্রথমে রান্না, অবন্তিকাকে (কন্যা) খাওয়ানো, স্নান করানো এই সব চলে। তার পরে ৪৫ মিনিট ধরে ওয়েট ট্রেনিং করি। দুপুরে খাওয়ার পরে মেয়েকে ঘুম পাড়িয়ে একটু ওয়েব সিরিজ দেখি। বিকেলে চা খেতে খেতে আমি আর অর্জুন আড্ডা দিই।
বিশদ

16th  May, 2020
রান্নাঘরের রবিঠাকুর 

পার্থজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়: নবনীতা দেবসেন তখন খুব ছোট। বাবা নরেন্দ্র দেব ও মা রাধারানি দেবী দু’জনেই ছিলেন সাহিত্যক্ষেত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত । শরৎচন্দ্র তাঁদের স্নেহ করতেন, পেয়েছিলেন রবীন্দ্রনাথের ভালোবাসা। কবির আমন্ত্রণে শিশুকন্যা নবনীতাকে নিয়ে তাঁরা একবার গিয়েছিলেন শান্তিনিকেতনে।  
বিশদ

09th  May, 2020
সত্যেরে লও সহজে 

রবীন্দ্রনাথ নিজেও জানতেন সত্যকে সহজে মেনে নেওয়া কত কঠিন। যেমন এই মুহূর্তে হচ্ছে আমাদের। কবিগুরুর জন্মদিনে জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি শুনশান, রবীন্দ্রসদনে কোনও সুরের মূর্ছনা নেই, কবিপক্ষ জুড়ে অনুষ্ঠানের আলো নেই - এ সত্য যেন অসহনীয়। তারই মাঝে আশার আলো জ্বালাল সোশ্যাল মিডিয়া। ইউ টিউব,ফেসবুক আর ওয়েব পেজ জুড়ে কীভাবে পালন করা হচ্ছে কবিগুরুর জন্মদিন, শিল্পীরা কে কী ভাবছেন তারই ঝলক রইল সোমা লাহিড়ীর প্রতিবেদনে। 
বিশদ

09th  May, 2020
রান্নায় ঠাকুরবাড়ির স্বাদ  

ঠাকুরবাড়ির হেঁশেলে নানারকম রান্না হতো। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নিজেও রান্না নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে ভালবাসতেন। ঠাকুরবাড়ির রান্নার কয়েকরকম রেসিপি দিলেন সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রপৌত্রবধূ শুভ্রা ঠাকুর। তাঁর সঙ্গে কথা বলেছেন কমলিনী চক্রবর্তী।  
বিশদ

09th  May, 2020
 ফ্রি হ্যান্ডে রোগ দূরে

 জিম বন্ধ। তাতে কী? ইচ্ছে থাকলেই উপায় হয়। বললেন প্রাক্তন মিস্টার ইন্ডিয়া ফাইনালিস্ট মডেল অভিনেতা সম্রাট মুখোপাধ্যায়। রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়ানোর ১০টি পরামর্শ দিয়েছেন আজ আপনাদের। লিখেছেন চৈতালি দত্ত।
বিশদ

25th  April, 2020
দ্রুত প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ান

প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর ১২টি জরুরি পরামর্শ দিয়েছেন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ আশিস মিত্র। কথা বলেছেন স্নেহাশিস সাউ। বিশদ

25th  April, 2020
বাই বাই অবসাদ 

মনকে শান্ত রাখার পরামর্শে যোগাচার্য প্রেমসুন্দর দাস। লিখেছেন স্নেহাশিস সাউ। 
বিশদ

18th  April, 2020
ডিপ্রেশনের ১০ দাওয়াই 

টানা চল্লিশ দিন ঘরবন্দি থাকলে তো অবসাদ আসতেই পারে। তবে তাকে দূরে সরিয়ে দিতে হবে। উপায় কী? মনোবিদ ডাঃ রিমা মুখোপাধ্যায়ের পরামর্শ নিয়ে বিষয়টিতে আলোকপাত করলেন সোমা লাহিড়ী।  
বিশদ

18th  April, 2020
নববর্ষে স্বাস্থ্যবিধি মানার শপথ নিচ্ছি 

বললেন টলিউডের ব্যস্ততম অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। লক ডাউনের আগেই তিনি পাড়ি দিয়েছেন সিঙ্গাপুরে। স্বামী ছেলে মেয়ের সঙ্গে কাটবে এবার বাংলা নববর্ষের দিনটি। কীভাবে কাটাবেন আর কী কী অঙ্গীকার নেবেন জানলেন পাঠকদের।  জীবনে কখনও ভাবিনি এমন অখণ্ড অবসর পাবো। কল্পনাতেও ছিল না স্বামী ছেলে মেয়ের সঙ্গে নিভৃতে এতগুলো দিন কাটাতে পারব। করোনা ভাইরাস সংক্রমণে সারা বিশ্ব বিপর্যস্ত। 
বিশদ

11th  April, 2020
জড়োয়া গয়না পুরাতন প্রসঙ্গ 

জড়োয়া গয়না ছিল আভিজাত্য, বনেদিয়ানার প্রতীক। পরিবারের অর্থ কৌলীন্য ঠিকরে পড়ত জড়োয়া গয়নার দামি পাথরের দ্যুতিতে। লিখেছেন শ্যামলী বসু।
বিশদ

28th  March, 2020
বসন্ত সাজে 

বসন্ত মানেই ফুরফুরে মেজাজ। তাই রঙিন সাজে সেজে উঠতে মন চায়। এমন দিনে কেমন হবে প্রসাধন পরামর্শ দিচ্ছেন মেকআপ এক্সপার্ট গৌরী বোস।   বিশদ

21st  March, 2020
বসন্ত এসে গেছে 

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের আতঙ্কে যখন বক্ষ দুরু দুরু, তখন কি আর বসন্ত মনে দোলা দেয়? তবু বসন্ত সম্ভারে তো চোখ রাখতেই হয়। লিখেছেন সোমা লাহিড়ী। 
বিশদ

21st  March, 2020
একনজরে
সংবাদদাতা, গাজোল, রতুয়া ও পতিরাম: জামাইষষ্ঠীতে মালদহের বাজারগুলিতে পোল্ট্রির মাংসের দাম বাড়ল প্রায় দ্বিগুণ। দু’এক সপ্তাহ আগেও ইংলিশবাজার ও পুরাতন মালদহ শহরের বাজারগুলিতে পোল্ট্রির মুরগীর ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: গত এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে ভিনরাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিক, তীর্থ যাত্রী বা চিকিৎসার কাজে বাইরে যাওয়া মানুষজনকে নিয়ে একের পর এক ট্রেন আসছে হাওড়া স্টেশনে। প্রায় প্রতিদিনই কমপক্ষে একটি ট্রেন তো ঢুকছেই হাওড়ায়। ...

নয়াদিল্লি, ২৭ মে: বিভিন্ন হোটেলের শ্রেণিবিন্যাস ও অনুমোদনের সময়সীমা ৩০ জুন পর্যন্ত বর্ধিত করল পর্যটন মন্ত্রক। এই অনুমোদনের মেয়াদ থাকে পাঁচ বছর। মন্ত্রক জানিয়েছে, বর্তমানে আতিথেয়তা শিল্প একটি কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে এগচ্ছে। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গে পঙ্গপালের হামলার কোনও সতর্কবার্তা এখনও জারি করেনি কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রক। কিন্তু, রাজ্য কৃষিদপ্তরের আধিকারিকরা বলছেন, উত্তর ও পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলির তুলনায় অনেক ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

অত্যাধিক পরিশ্রমে শারীরিক দুর্বলতা। বাহন বিষয়ে সতর্কতা প্রয়োজন। সন্তানের বিদ্যা শিক্ষায় অগ্রগতি বিষয়ে সংশয় বৃদ্ধি। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৭৪২ - লন্ডনে প্রথম ইনডোর সুইমিংপুল চালু
১৮৮৩- স্বাধীনতা সংগ্রামী বিনায়ক দামোদর সাভারকারের জন্ম
১৯২৩- রাজনীতিক ও তেলুগু দেশম পার্টির প্রতিষ্ঠাতা এনটি রামা রাওয়ের জন্ম
২০১০- পশ্চিমবঙ্গে জ্ঞানশ্বেরী এক্সপ্রেস দুর্ঘটনায় অন্তত ১৪১জনের মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৮৯ টাকা ৭৬.৬১ টাকা
পাউন্ড ৯০.৮৮ টাকা ৯৪.১২ টাকা
ইউরো ৮১.২৯ টাকা ৮৪.৩৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৮ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার, ষষ্ঠী ৪৬/১৯ রাত্রি ১১/২৮। পুষ্যা নক্ষত্র ৬/১৬ দিবা ৭/২৭। সূর্যোদয় ৪/৫৬/১৭, সূর্যাস্ত ৬/১১/২০। অমৃতযোগ দিবা ৩/৩১ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৬/৫৩ গতে ৯/২ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৫ গতে ২/৪ মধ্যে পুনঃ ৩/৩০ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ২/৫২ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৩৪ গতে ১২/৫৪ মধ্যে।
১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৮ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার, ষষ্ঠী রাত্রি ৮/৫৩। পুষ্যানক্ষত্র প্রাতঃ ৫/৩৫ পরে অশ্লেষানক্ষত্র শেষরাত্রি ৪/৪৫। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৩। অমৃতযোগ দিবা ৩/৪০ গতে ৬/১৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২ গতে ৯/১০ মধ্যে ও ১১/৫৮ গতে ২/৬ মধ্যে ও ৩/৩০ গতে ৪/৫৬ মধ্যে। কালবেলা ২/৫৪ গতে ৬/১৩ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৩৫ গতে ১২/৫৫ মধ্যে।
৪ শওয়াল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
১৭ ফুট গভীর কুয়োয় পড়ে মৃত্যু শিশুর
১৪ বছর আগের হরিায়ানার সেই প্রিন্সের স্মৃতি উসকে দিল তেলেঙ্গানা। ...বিশদ

08:52:52 AM

আজ কলকাতা থেকে বিমান পরিষেবা চালু 
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আজ বৃহস্পতিবার কলকাতা থেকে আন্তঃরাজ্য বিমান পরিষেবা ...বিশদ

08:29:19 AM

বিশ্বে একদিনে করোনায় সর্বাধিক মৃত্যু আমেরিকায়
বিশ্বে একদিনে সর্বাধিক করোনায় মৃত্যুর রেকর্ড গড়ল আমেরিকা। গত ...বিশদ

08:22:47 AM

বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ৩,৫৭,৪৩২
বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যুমিছিল অব্যাহতই। এ পর্যন্ত মোট ৩ লক্ষ ...বিশদ

08:15:05 AM

ইতিহাসে আজকের দিনে
১৭৪২ - লন্ডনে প্রথম ইনডোর সুইমিংপুল চালু১৮৮৩- স্বাধীনতা সংগ্রামী বিনায়ক ...বিশদ

08:05:15 AM

মহারাষ্ট্রে করোনা পজিটিভ আরও ২,১৯০ জন, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫৬,৯৪৮ 

27-05-2020 - 09:09:17 PM