Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

ইংরেজির আগলমুক্ত
মাতৃভাষায় বৃত্তিমূলক শিক্ষা
এম বেঙ্কাইয়া নাইডু 

প্রতিটি বড় পরিবর্তন বৈপ্লবিক পদক্ষেপের মাধ্যমেই শুরু হয়। নতুন শিক্ষাবর্ষে ৮টি রাজ্যে ১৪টি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের কয়েকটি শাখায় আঞ্চলিক ভাষায় পঠনপাঠনের উদ্যোগ শুরু হয়েছে। দেশের শিক্ষার মানচিত্রে এ এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত। ভবিষ্যতে  ছাত্রছাত্রীদের সাফল্য এর উপর অনেকাংশে নির্ভর করবে।  
জাতীয় শিক্ষানীতির সঙ্গে সাযুজ্য রেখে এআইসিটিই ১১টি ভাষায় বি-টেক পাঠ্যক্রম শুরু করার অনুমতি দিয়েছে। ফলে ছাত্রছাত্রীরা বাংলা, হিন্দি, মারাঠি, তামিল, তেলুগু, কন্নড়, গুজরাতি, মালয়ালম, অসমিয়া, পাঞ্জাবি এবং ওড়িয়া ভাষায় বি-টেক পড়তে পারবে। 
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জাতীয় শিক্ষানীতির প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় মাতৃভাষার মাধ্যমে শিক্ষাদানের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান। ফলে দরিদ্র, গ্রামাঞ্চলে বসবাসরত এবং আদিবাসী সম্প্রদায়ের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে নতুন আস্থা গড়ে উঠবে। তাৎপর্যপূর্ণভাবে প্রাথমিক স্তর থেকে প্রধানমন্ত্রী মাতৃভাষার মাধ্যমে শিক্ষাদানের উপর গুরুত্ব দিয়েছেন। এই অনুষ্ঠানে তিনি বিদ্যাপ্রবেশ কর্মসূচিরও সূচনা করেন। গুরুত্বপূর্ণ এই সিদ্ধান্তগুলিকে স্বাগত জানানো উচিত। কারণ মাতৃভাষায় শিক্ষালাভের স্বপ্ন দেখা অসংখ্য ছাত্রছাত্রীর স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। এআইসিটিই ফেব্রুয়ারিতে ৮৩ হাজার ছাত্রছাত্রীর উপর একটি সমীক্ষা করে। তাতে দেখা যায়, প্রায় ৪৪ শতাংশ ছাত্রছাত্রী মাতৃভাষায় ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে আগ্রহী। এর মধ্য দিয়ে কারিগরি শিক্ষার চাহিদার গুরুত্ব বোঝা যায়।  
২০২০ জাতীয় শিক্ষানীতির প্রগতিশীল ও সুদূরপ্রসারী উদ্যোগের মাধ্যমে প্রাথমিক স্তরে ছাত্রছাত্রীদের মাতৃভাষায় শিক্ষালাভের অধিকার নিশ্চিত হয়েছে। ফলে শিশুদের শিক্ষালাভে সুবিধা হবে এবং তাদের মানসিক বিকাশ ঘটবে।    
বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, যারা শৈশবে মাতৃভাষায় পড়াশোনা করেছে, অন্য ভাষায় শিক্ষাপ্রাপ্তদের থেকে তারা পরে এগিয়ে থাকে। ইউনেস্কোসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান মাতৃভাষায় শিক্ষালাভের উপর গুরুত্ব দেয়। কারণ এর মাধ্যমে আত্মসম্মানবোধ, আত্মপরিচয় গড়ে ওঠে এবং শিশুর সার্বিক বিকাশ ঘটে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে কিছু শিক্ষাবিদ এবং অভিভাবক এখনও ইংরেজি ভাষায় শিক্ষাদানের পক্ষে মতপ্রকাশ করেন। ফলে তাঁদের শিশুরা স্কুলে মাতৃভাষাকে দ্বিতীয় বা তৃতীয় ভাষা হিসেবে শেখা শুরু করে।     
এই প্রসঙ্গে নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী সি ভি রমনের বক্তব্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি মনে করতেন ‘আমাদের মাতৃভাষার মাধ্যমে বিজ্ঞান পড়ানো উচিত। নয়তো বিজ্ঞান উচ্চশিক্ষার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। সর্বসাধারণের জন্য বিজ্ঞানশিক্ষার সুযোগ তৈরি হবে না।’ আমাদের শিক্ষাব্যবস্থার যথেষ্ট প্রসার ঘটেছে। বর্তমানে ভারতে ইঞ্জিনিয়ারিং, ডাক্তারি, আইন এবং কলা বিভাগের বিভিন্ন বিষয়ে আন্তর্জাতিক মানের পঠনপাঠন হয়। অথচ আমরা আমাদের নিজেদের লোকেদের শিক্ষাব্যবস্থা থেকে দূরে সরিয়ে রাখছি। বছরের পর বছর ধরে শিক্ষাব্যবস্থার উন্নতির সুযোগ থেকে বেশিরভাগ ছাত্রছাত্রী বঞ্চিত হচ্ছে। গুটিকয়েক ইংরেজি মাধ্যমের বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজের ছাত্রছাত্রীরা সেই সুযোগ পাচ্ছে। বিশেষ করে কারিগরি বা বৃত্তিমূলক পাঠ্যক্রমে আমাদের নিজেদের ভাষাগুলি বঞ্চিত হচ্ছে। সারা বিশ্বের উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থার দিকে তাকালে স্পষ্ট হয় যে আমরা ভুল জায়গায় দাঁড়িয়েছিলাম। জি-২০ গোষ্ঠীভুক্ত বেশিরভাগ দেশের বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে সংশ্লিষ্ট দেশের ভাষায় পড়ানো হয়। 
এশীয় দেশগুলির মধ্যে কোরিয়ার প্রায় ৭০ শতাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানো হয় কোরিয়ান ভাষায়। অথচ কোরিয়ার জনসাধারণ আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কোরীয় অভিভাবকদের মধ্যে সন্তানদের ইংরেজি মাধ্যমে পড়ানোর ঝোঁক বৃদ্ধিতে ছাত্রছাত্রীদের কোরিয়ান ভাষায় দক্ষতা হ্রাস পায়। তাই সরকার ২০১৮ সালে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত ইংরেজি পঠনপাঠন নিষিদ্ধ করে।     
একইভাবে জাপানের বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ে জাপানি ভাষায় পঠনপাঠন চলে। চীনেও বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ম্যান্ডারিন ভাষায়। ইউরোপে ফ্রান্স এবং জার্মানি দেখিয়েছে কীভাবে মাতৃভাষাকে রক্ষা করতে হয়। ফ্রান্স বিদ্যালয়ে পঠনপাঠনের ক্ষেত্রে ‘শুধুমাত্র ফরাসি’ নীতি কঠোরভাবে মেনে চলে। জার্মানিতেও জার্মান ভাষায়। এমনকী উচ্চশিক্ষাতেও ৮০ শতাংশ স্নাতকোত্তর পাঠ্যক্রমে পড়াশোনার মাধ্যম জার্মান।  
কানাডা শিক্ষাক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ দিশা দেখিয়েছে। সে-দেশে ভাষাগত বৈচিত্রের কারণে ইংরেজি বেশিরভাগ রাজ্যের লেখাপড়ার প্রধান মাধ্যম। তবে ফরাসিভাষী সংখ্যাগরিষ্ঠ কিউবেক রাজ্যে স্কুল এবং বিশ্ববিদ্যালয় স্তরে ফরাসি ভাষায় পড়া যায়। এই আন্তর্জাতিক প্রেক্ষিতে ভারতের বেশিরভাগ বৃত্তিমূলক পাঠ্যক্রম ইংরেজিতে পড়ানোর বিষয়টি খুব হাস্যকর। বিজ্ঞান, ইঞ্জিনিয়ারিং, ডাক্তারি এবং আইন শিক্ষার ক্ষেত্রে তা যেন বাধ্যতামূলক ছিল। সৌভাগ্যবশত আমরা এখন আমাদের নিজেদের ভাষায় এই পাঠ্যক্রমগুলি শুরু করতে চলেছি। কীভাবে বেরিয়ে আসব আমরা? আমাদের শিক্ষার গুণমান বৃদ্ধি এবং আরও বেশি সংখ্যক ছাত্রছাত্রী যাতে শিক্ষাব্যবস্থায় শামিল হতে পারে তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি আমাদের ভাষাগুলিকে রক্ষা করার নির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে জাতীয় শিক্ষানীতিতে। পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত মাতৃভাষায় শিক্ষাদান প্রথমে নিশ্চিত করতে হবে। মাতৃভাষায় শিক্ষার সুযোগটা তার পরেও প্রসারিত করতে হবে। পেশাদার পাঠ্যক্রমে ১৪টি কলেজে মাতৃভাষায় পঠনপাঠনের উদ্যোগ তাই প্রশংসনীয়। দেশজুড়ে অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও যাতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয় তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকেও শামিল করতে হবে। এর জন্য প্রথমে তাদের দুটি ভাষায় পড়ার সুযোগ দিতে হবে। এক্ষেত্রে উচ্চশিক্ষায় মাতৃভাষায় শিক্ষালাভের ক্ষেত্রে একটি বড় বাধা হল উন্নতমানের পাঠ্যপুস্তকের অভাব। বৃত্তিমূলক শিক্ষায় এই সমস্যা আরও বেশি। তাই দ্রুত সমাধানের উদ্যোগ চাই। ডিজিটাল যুগে প্রত্যন্ত অঞ্চলের পড়ুয়ারা যাতে মাতৃভাষায় পড়ার সুযোগ বেশি পায় তার ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। ব্যবস্থাটি নতুন। এক্ষেত্রেও ইংরেজি এগিয়ে। তাই বেশিরভাগ পড়ুয়া এর সুফল পাচ্ছে না। তাই  প্রয়োজনীয় পরিবর্তনটা জরুরি।     
এই প্রসঙ্গে এআইসিটিই এবং মাদ্রাজ আইআইটির একটি উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। স্বয়ম প্রকল্পের পাঠ্যক্রমভুক্ত বিষয়বস্তু বাংলা, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, কন্নড়, মারাঠি, মালয়ালম এবং গুজরাতি ভাষায় অনুবাদ করা হচ্ছে। এতে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়াদের সুবিধা হবে। সহজ হবে ভবিষ্যতে ইংরেজির প্রাধান্য থেকে বেরিয়ে আসা। আমাদের উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থাকে আরও উন্মুক্ত করার জন্য এই ধরনের প্রযুক্তিভিত্তিক উদ্যোগগুলির সাহায্য নিতে হবে।    
মাতৃভাষার মাধ্যমে শিক্ষাদানের অর্থ অন্য ভাষাকে বর্জন নয়। আমি বরং বলি, বেশি সংখ্যক ভাষা শিখতে হবে। কিন্তু মাতৃভাষার ভিত মজবুত থাকা প্রয়োজন। ‘মাতৃভাষা বনাম ইংরেজি’-র লড়াইয়ের পক্ষে আমি নই। চাই মাতৃভাষার সঙ্গে ইংরেজি শিক্ষা। এ-যুগে বিভিন্ন ভাষার উপর দক্ষতা থাকলে অনেক বেশি সুযোগ পাওয়া সম্ভব। নিজের ভাষায় কথার বলার সময় অনেকে হীনমন্যতায় ভোগেন। এই মানসিকতা দূর হওয়া জরুরি। পরিশেষে বলব, একটি ভাষাকে অবহেলা করার অর্থ অমূল্য জ্ঞানভাণ্ডার থেকে নিজেদের বঞ্চিত করা। পাশাপাশি ভবিষ্যৎ প্রজন্মও তাদের সংস্কৃতির শিকড়, মূল্যবান সামাজিক ও ভাষাগত ঐতিহ্যের স্বাদ হারাবে। আশা করব, ভবিষ্যতে বিভিন্ন পাঠ্যক্রমে আঞ্চলিক ভাষায় শিক্ষার সুযোগ বাড়বে। ভারতের অপরিমেয় প্রতিভা রয়েছে। সেসব কাজে লাগাতে হবে। যুব সম্প্রদায় বিদেশি ভাষায় কথা বলতে পারে না বলে তাদের সম্ভাবনাকে কাজে লাগানো যাবে না, এই দৈন্য থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। তবেই তাদের উন্নতি হবে। এই প্রেক্ষাপটে ৮টি রাজ্যের ১৪টি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ আঞ্চলিক ভাষায় বিভিন্ন পাঠ্যক্রমে পঠনপাঠনের যে সুযোগ এনে দিয়েছে তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার যোগ্য।  
 লেখক ভারতের উপরাষ্ট্রপতি। মতামত ব্যক্তিগত
05th  August, 2021
আত্মবিশ্বাস ও আবেগের মিশেল...মমতা
শান্তনু দত্তগুপ্ত

এতটুকু ফাঁক রাখতে নারাজ তৃণমূল নেত্রী। রাজনীতির প্রোটোকল মেনে, গা বাঁচিয়ে, ঠুনকো সম্মানের চাদর গায়ে দিয়ে ভাষণ নয়, বরং মানুষের সঙ্গে মিশে আর্জিটুকু পৌঁছে দেওয়া... আপনাদের প্রত্যেকটা ভোট আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। বিশদ

বিদ্বেষপূর্ণ এবং মিথ্যে ধর্মযুদ্ধ

ইতিহাস বলছে, ক্রুসেডস হল কিছু ধর্মযুদ্ধ, যা একাদশ শতকের শেষাশেষি শুরু হয়েছিল। লড়াইগুলো হয়েছিল ১০৯৫ এবং ১২৯১ খ্রিস্টাব্দের ভিতরে। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় যে এসব সংঘটিত হয়েছিল ইউরোপীয় খ্রিস্টানদের দ্বারা। বিশদ

27th  September, 2021
ভবানীপুর থেকেই শুরু হোক নয়া ইতিহাস
হিমাংশু সিংহ

রাজ্য রাজনীতির এই সন্ধিক্ষণে ভবানীপুর থেকেই অশুভ শক্তির বিনাশের শপথ নিতে হবে। বাংলার পবিত্র মাটিতে ভিনদেশি ষড়যন্ত্রকে হারাতে হবে। ৩০ সেপ্টেম্বর ঝড় বৃষ্টি দুর্যোগ যাই হোক ভোট দেওয়া প্রত্যেক ভবানীপুরবাসীর অবশ্য কর্তব্য। বিশদ

26th  September, 2021
‘উপেক্ষিত নায়ক’ হয়েই
থেকে গেলেন দিলীপ
তন্ময় মল্লিক

মুখ বদলে ‘মুখরক্ষা’ মোদি-অমিত শাহ জমানার নয়া কৌশল। গুজরাত থেকে বাংলা, সর্বত্র একই ট্রেন্ড। কেন্দ্রের ব্যর্থতার দায় অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে মানুষকে বোকা বানানোর এই টেকনিক তাঁদেরই আমদানি। দিলীপ ঘোষকে সরিয়ে দিয়ে সুকান্ত মজুমদারকে বসানো তারই অঙ্গ। বিশদ

25th  September, 2021
ম্যানগ্রোভকে ঘিরেই
সুন্দরবনবাসীর হাসি-কান্না
শ্যামল মণ্ডল

লক্ষ্য সুন্দরবনের মধ্যে আরও একটি ‘সুন্দর’বন গড়ে তোলা। আর এই উদ্দেশ্য সফল করতে নদীবাঁধের ধার বরাবর বিভিন্ন প্রজাতির ম্যানগ্রোভ গাছের প্রাচীর গড়ে তোলা হচ্ছে। গত তিন বছর ধরে চলছে এই কৃত্রিম ‘ম্যানগ্রোভ বন’ তৈরির কাজ। বিশদ

25th  September, 2021
প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চেষ্টায়
অন্যায়ের কী আছে?
সমৃদ্ধ দত্ত

উত্তমকুমার বাংলা সিনেমা জগতে সুপারস্টার হয়ে যাওয়ার পর স্থির করেছিলেন, এবার একবার হিন্দি চলচ্চিত্র সাম্রাজ্যে ভাগ্যান্বেষণের চেষ্টা করলে কেমন হয়? সেই প্রয়াস তিনি করেছিলেন। কিন্তু ভুল গাইডেন্স, সঠিক পরিকল্পনার অভাব এবং কিছু পারিষদবর্গের স্বার্থান্বেষী দিশানির্দেশের সম্মিলিত ফলাফল হিসেবে তাঁর সেই উদ্যোগটি সফল হতে পারেনি।
বিশদ

24th  September, 2021
বিমা দুর্নীতির ইতিহাস
ভুলে গিয়েছেন মোদি
মৃণালকান্তি দাস

সরকারি জীবন বিমা সংস্থায় আমজনতা টাকা রাখেন নিরাপদ মনে করে। একের পর এক দুরবস্থা সামাল দিতে তাকেই এগিয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষের কষ্টার্জিত পুঁজিকে ঝুঁকির মুখে ফেলা হচ্ছে কেন? যে রুগ্ন সংস্থাগুলিকে এলআইসি টাকা ধার দিয়েছে, তা শোধ না হলে কী হবে?
বিশদ

23rd  September, 2021
আফগান মেয়েদের কথা
ভাবলই না চীন, রাশিয়া
হারাধন চৌধুরী

চীন-রাশিয়ারই অস্ত্রে বলীয়ান হয়ে তালিবান এই যে মানবাধিকারকে লাগাতার বলাৎকার করে যাচ্ছে, তাতে সিলমোহর দিচ্ছে কোন নীতিতে এই দুই ‘মহান’ রাষ্ট্র? শুধু চীন, রাশিয়ার ‘অর্ধেক আকাশ’ মুক্ত থাকলেই হল, তাই তো! বিশদ

22nd  September, 2021
লগ্ন মেনেই টিকা!
মোদির ভারতের ভবিতব্য
শান্তনু দত্তগুপ্ত

আপনার জন্মদিনের প্রোপাগান্ডায় আড়াই কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ আমাদের মনে কিছু প্রশ্নের ঝড় তুলে দেয়। সেখানেও হিসেবে গরমিলের অভিযোগ ওঠে। আমরা ভাবতে বাধ্য হই, আপনি শুধুই নিজের তূণীর সমৃদ্ধ করতে বেশি আগ্রহী। একদিন ২৫ লক্ষ ভ্যাকসিন, আর একদিন আড়াই কোটি ডোজের অঙ্কে সাধারণ মানুষের জীবনের পথ মসৃণ হয় না। তাতে কাঁটার সংখ্যা বাড়তেই থাকে। 
বিশদ

21st  September, 2021
বৈষম্য ও অবিচার
বড্ড চোখে লাগছে
পি চিদম্বরম

রাজ্য সরকারগুলি রাজ্যের করদাতাদের টাকায় কেন সরকারি মেডিক্যাল কলেজ প্রতিষ্ঠা করবে? কেন ছেলেমেয়েরা মাতৃভাষার মাধ্যমে পড়বে? কেন রাজ্য বোর্ডের পরীক্ষায় বসবে? রাজ্য শিক্ষা বোর্ড রেখে দেওয়ার আদৌ যুক্তি আছে কি আর? শহুরে ছাত্ররা কি পিএইচসি এবং মফস্‌সলের হাসপাতালগুলিতে রোগীর সেবা করবে? ‘মেরিট’ সম্পর্কে এক সন্দেহজনক তত্ত্ব খাড়া করে নিট মারাত্মক বৈষম্য ও অবিচারের এক নতুন যুগের সূচনা করছে।
বিশদ

20th  September, 2021
মোদির গৌরব, অগৌরব
ও বিপন্ন সাংবাদিকতা
হিমাংশু সিংহ

আমেদাবাদের সাংবাদিক ধবল প্যাটেল গত প্রায় এক বছর দেশছাড়া। তাঁর অপরাধ কী? সওয়া এক বছর আগে তিনি লিখেছিলেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানিকে সরতে হচ্ছে। আজ ১৬ মাস বাদে তাঁর পূর্বাভাস মিলেও গিয়েছে হুবহু। গত ১১ সেপ্টেম্বর নিজেই ইস্তফা দিয়েছেন কিংবা বাধ্য হয়ে সরে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী রুপানি। বিশদ

19th  September, 2021
মোদিকে টক্কর দিচ্ছেন মমতা
তন্ময় মল্লিক

ক্ষমতায়, পদমর্যাদায়, দাপটে, প্রভাবে যে কোনও মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ে প্রধানমন্ত্রী অনেক অনেক এগিয়ে। কিন্তু টাইমের সমীক্ষায় ফারাকটা তেমন কিছু নয়, বরং খুব কাছাকাছি। পৃথিবীর বিখ্যাত ম্যাগাজিন ‘টাইম’ জানিয়ে দিল, এই মুহূর্তে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে টক্কর দেওয়ার ক্ষমতা ভারতবর্ষের একজনেরই আছে। নাম তাঁর মমতা।
বিশদ

18th  September, 2021
একনজরে
নিউটাউনে স্কুল করার জন্য সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে প্রায় দুই একর জমি দিয়েছিল রাজ্য সরকার তথা হিডকো। বিতর্ক দেখা দেওয়ায় তিনি জমি ফিরিয়ে দেন। রাজ্যও তাঁর জমা দেওয়া জমির দাম ফিরিয়ে দেয়। ...

বাজারে আসছে মাহিন্দ্রা অ্যান্ড মাহিন্দ্রা’র তিন চাকার পণ্যবাহী ইলেকট্রিক গাড়ি ‘ট্রিয়ো জোর’। ইলেকট্রিক গাড়ির উপর সরকার যে ভর্তুকি দেয়, তা বাদ দিয়ে কলকাতার বাজারে এই গাড়িগুলির দাম শুরু (এক্স শোরুম) ৩ লক্ষ ৯ হাজার টাকা থেকে। ...

বন্যা কবলিত পূর্ব মেদিনীপুরের মোট ৭ লক্ষ ৪৬ হাজার ৩১২জন ক্ষতিগ্রস্ত বলে নবান্নে রিপোর্ট পাঠাল জেলা প্রশাসন। কৃষি, মৎস্য বা উদ্যানপালন প্রভৃতি ক্ষেত্রে ক্ষয়ক্ষতির রিপোর্ট ...

: শহরের রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী পড়ে থাকলে তা তুলে নেবে পুর কর্তৃপক্ষ। এবং সেই সামগ্রী পুরসভার প্রয়োজনে ব্যবহার করা হবে। পুজোর আগে শহরের রাস্তাঘাট পরিষ্কার রাখতে সোমবার এমন নির্দেশিকা জারি করেছে পুর প্রশাসন। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মে শুভ অগ্রগতি ও বিত্তলাভের অনুকূলে যোগ। মৃৎ ও চিত্র শিল্পীদের শুভদিন। দাম্পত্যে ও বিদ্যায় ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস
খ্রিঃ পূঃ ৫৫১: মহান চীনা দার্শনিক ও শিক্ষাগুরু কনফুসিয়াসের জন্ম
১৫৭৩: ইতালীয় অনন্য চিত্রশিল্পী মাইকেলাঞ্জেলোর জন্ম
১৭৪৬: প্রাচ্য তত্ত্ববিদ ও এশিয়াটিক সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা উইলিয়াম জোনসের জন্ম
১৭৯৩: রাণী রাসমণির জন্ম
১৮৮৯: সাহিত্যিক, সাংবাদিক, কবি নলিনীকান্ত সরকারের জন্ম
১৮৯৫: ফরাসি রসায়নবিদ ও অণুজীববিজ্ঞানী লুই পাস্তুরের মৃত্যু
১৯০৭: বিপ্লবী ভগৎ সিংয়ের জন্ম
১৯২৮ - স্যার অ্যালেকজান্ডার ফ্লেমিং প্রথমবারের মতো পেনিসিলিন আবিষ্কারের কথা ঘোষণা করেন
১৯২৯: সুরসম্রাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকরের জন্ম
১৯৪৭: বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্ম
১৯৭৫: অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার স্টুয়ার্ট ক্লার্ক জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৮২: শ্যুটার অভিনব ব্রিন্দার জন্ম
১৯৮২: অভিনেতা রণবীর কাপুরের জন্ম



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৯১ টাকা ৭৪.৬২ টাকা
পাউন্ড ৯৯.১৬ টাকা ১০২.৬০ টাকা
ইউরো ৮৪.৯৪ টাকা ৮৮.০৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৬,৮৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৪, ৪৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৫,১৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬০,৬০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬০,৭০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১১ আশ্বিন ১৪২৮, মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। সপ্তমী ৩১/৫৬ সন্ধ্যা ৬/১৭। মৃগশিরা নক্ষত্র ৩৮/৩ রাত্রি ৮/৪৪। সূর্যোদয় ৫/৩০/৪০, সূর্যাস্ত ৫/২৪/১২।  অমৃতযোগ দিবা ৬/১৭ মধ্যে পুনঃ ৭/৫ গতে ১১/৪ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৯ গতে ৮/৩৯ মধ্যে পুনঃ ৯/২৭ গতে ১১/৫২ মধ্যে পুনঃ ১/২৯ গতে ৩/৬ মধ্যে পুনঃ ৪/৪১ গতে উদয়াবধি। মাহেন্দ্রযোগ রাত্রি ৭/৪৯ মধ্যে। বারবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ১২/৫৭ গতে ২/২৭ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/৫৬ গতে ৮/২৬ মধ্যে। 
১১ আশ্বিন ১৪২৮, মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। সপ্তমী দিবা ৩/১০।  মৃগশিরা নক্ষত্র রাত্রি ৭/০। সূর্যোদয় ৫/৩০, সূর্যাস্ত ৫/২৬। অমৃতযোগ দিবা ৬/২১ মধ্যে ও ৭/৮ গতে ১১/০ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪১ গতে ৮/৩০ মধ্যে ও ৯/২০ গতে ১১/৪৮ মধ্যে ও ১/২৭ গতে ৩/৬ মধ্যে ও ৪/৪৫ গতে ৫/৩১ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ রাত্রি ৭/৪১ মধ্যে। বারবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ১২/৫৮ গতে ২/২৭ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/৫৭ গতে ৮/২৭ মধ্যে। 
২০ শফর

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইপিএল ২০২১ : দিল্লির বিরুদ্ধে টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত কেকেআরের

03:04:58 PM

বিশ্বভারতীর এমএডের মেধা তালিকা ঘিরে চূড়ান্ত বিভ্রান্তি
একশোর মধ্যে কেউ পেয়েছে ২০০, কেউবা ১৯৮, আবার কেউ ১৫১। ...বিশদ

01:31:30 PM

মেঘাচ্ছন্ন কলকাতার আকাশ

01:17:45 PM

বারুইপুরে প্রোমোটারের কাছে ৫ লক্ষ টাকা দাবি দুষ্কৃতীর, চলল গুলি
প্রোমোটারের কাছে ৫ লক্ষ টাকা দাবি স্থানীয় দুষ্কৃতীর। প্রোমোটার তা ...বিশদ

01:13:22 PM

উপনির্বাচনের দিন ঘোষণা হতেই দিনহাটাতে ব্যস্ততা শুরু রাজনৈতিক মহলে
দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের দিন ঘোষণা হতেই প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক ...বিশদ

12:59:09 PM

মুচিপাড়ায় শিশুকে অপহরন করে মুক্তিপণের দাবি, গ্রেপ্তার ২

12:56:00 PM