Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

একনায়কতন্ত্রের নজরদারি
শান্তনু দত্তগুপ্ত

ঠিক দু’বছর আগের কথা। মার্চ মাস। মুখোশ পরা একটা দল আচমকা হানা দিল রিনশাদ রিরার বাড়িতে। হাতে তাদের লোহার রড, আর লাঠি। কোনওরকমে পালালেন রিনশাদ। এক পড়শির বাড়িতে ঢুকে আশ্রয় নিলেন। রাস্তায় দাঁড়িয়ে সেই মুখোশধারীরা হুমকি দিয়ে গেল, খুব সাবধান। মুখ বন্ধ না করলে নাজিব আহমেদের মতো অবস্থা হবে...। কে এই নাজিব? দিল্লির জওহরলাল নেহরু ইউনিভার্সিটির প্রথম বর্ষের ছাত্র। ২০১৬ সালের ১৫ অক্টোবর থেকে তিনি নিরুদ্দেশ। ঠিক আগের রাতে তাঁর হস্টেলের ঘরে চড়াও হয়েছিল এবিভিপির ধ্বজাধারী কয়েকজন দুষ্কৃতী। সেটাই শেষ। মা ফতিমা নাফিজ কেঁদেছেন... পুলিস থেকে আদালত, সব দরজায় ঘুরেছেন। কিন্তু ছেলেকে ফিরে পাওয়া যায়নি। কখনও প্রমাণ করার চেষ্টা হয়েছে, নাজিব আইসিস জঙ্গি গোষ্ঠীতে যোগ দিয়েছেন। কখনও মেডিক্যাল রিপোর্ট খাড়া করে বলা হয়েছে, ও তো মানসিক ভারসাম্যহীন! নিজেই কোথাও একটা চলে গিয়েছে। কিন্তু কোথায়? জানা যায়নি। প্রমাণও হয়নি। তাহলে রিনশাদকে যারা বাড়ি বয়ে এসে হুমকি দিয়ে গেল, তারাই কি জানত উত্তরটা? কী অপরাধ ছিল রিনশাদের? কাশ্মীর, মণিপুরের সার্বভৌমত্বের দাবিতে সরকারের ভূমিকার প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন তিনি। ফলস্বরূপ রিনশাদের বিরুদ্ধে ১২৪(ক) ধারায় মামলা হয়েছিল। রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা। সময়টা ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাস। ঘোরতর মোদি জমানা।
দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হ্যানি বাবু। বছর তিনেক আগে আচমকাই জানতে পারলেন, তাঁকে এনআইএ’র সঙ্গে যেতে হবে। সামান্য জিজ্ঞাসাবাদ আর কী! অফিসাররা জেরা করলেন। বারবার একটাই প্রশ্ন, ২০১৭ সালে কেরলে গিয়েছিলেন তো... সেই ব্যাপারে বলুন। আপনার স্ত্রী জেনি রোয়েনা ছাড়া আর কে ছিল সেই সফরে? রোনা উইলসন? কী কী কথা হয়েছিল আপনাদের মধ্যে? হ্যানি বাবু আবিষ্কার করেছিলেন, তাঁদের তিনজনের কথপোকথনের প্রায় হুবহু তিনি উল্টোদিক থেকে শুনছেন। অথচ, এর কিছুই তাঁদের জানার কথা নয়! রোনা উইলসনকে আগেই গ্রেপ্তার করেছিল এনআইএ। আর তার কিছুদিন পর হ্যানি বাবুকে। পেগাসাস স্পাইওয়্যারের তথ্যভাণ্ডারে এই দু’জনেরই ফোন নম্বরের হদিশ মিলেছে। থিওরি বলছে, তথ্যভাণ্ডারে কোনও ফোন নম্বর থাকা মানেই তার উপর নজরদারি চলছে... এমনটা নয়। তাহলে সরকারি এজেন্সি কীভাবে তাঁদের ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলি জানতে পেরে গিয়েছিল? ম্যাজিক নাকি? আজ আমরা জানি, পেগাসাস ফোনে ঢুকিয়ে দিতে পারলে এই ম্যাজিক সম্ভব। হোয়াটসঅ্যাপে একটা ভয়েস কল, বা মিসড কল হলেও চলবে। পেগাসাস ঢুকে পড়বে মোবাইলে। তারপর সেই মিসড কল মুছেও দেওয়া যায়। আপনি-আমি জানতেও পারব না। তাহলে নজরদারির অঙ্কটা একেবারে ফেলে দেওয়া যায়?
না যায় না। পেগাসাস প্রস্তুতকারক সংস্থাটি ইজরায়েলের। সেই এনএসও দাবি করে, সরকার ছাড়া আর কাউকে এই প্রযুক্তি তারা বিক্রি করে না। ২০১৯ সালে রাজ্যসভায় তৎকালীন তথ্য-প্রযুক্তিমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ সাফাই দিয়েছিলেন। 
তিনি কিন্তু একবারও বলেননি যে, ভারত সরকার এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে না। তাঁর বক্তব্য ছিল, বেআইনিভাবে আড়ি পাতা হয়নি। অর্থাৎ, যদি আড়ি পাতা হয়েও থাকে, তাহলে তার নেপথ্যে সরকারি আদেশ ছিল। তাই কি আজ অধিকারে হস্তক্ষেপের হাইপ্রোফাইল তালিকায় নাম আসছে তিন বিরোধী নেতা-নেত্রী, দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বা ৪০ জনেরও বেশি সাংবাদিকের?
সমালোচনা চলবে না... পোস্টার মারা যাবে না... বেসুরো হওয়া যাবে না। তাহলেই বন্ধ হয়ে যাবে মুখ। সরকার বিরোধিতা আবার কী! সে তো রাষ্ট্রদ্রোহ! রাজনৈতিক দলগুলির বিরুদ্ধে না হয় তেমন কিছু বলা যায় না। তারা সব সময় প্রচারে থাকে। সাধারণ মানুষ জেনে যাবে। ওঁদের সমর্থকরা বুঝে যাবে সরকারের অভিপ্রায়। কিন্তু একজন শিক্ষক কী করবে? বা কোনও সমাজকর্মী, কার্টুনিস্ট, ছাত্র বা সাংবাদিক...! কিস্সু না। সেই ক্ষমতা তাদের নেই। বরং রয়েছে প্রচুর সীমাবদ্ধতা। সামাজিক জীব হয়ে থাকার... ক্ষমতার তালুর নীচে বন্দি থাকার। তাই রিনশাদের মতো ছাত্রদের বলার অধিকার নেই। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয় রাষ্ট্রদ্রোহিতার। প্রয়োগ হয় ১২৪(ক) ধারা। তাই হস্তক্ষেপ হয় বাক স্বাধীনতায়, মত প্রকাশের ইচ্ছায়,  মৌলিক অধিকারে। কোন আস্পর্ধায় একজন নাগরিকের উপর নজরদারি চালানোর ছাড়পত্র পায় একনায়কতন্ত্রীরা! আপনারাই নাকি আবার ব্রিটিশ ঔপনিবেশবাদের বিরুদ্ধে সুর চড়ান? আপনারাই ইন্দিরা গান্ধীর জরুরি অবস্থার নামে গাল পাড়েন? ইমার্জেন্সি মানে কী? এক কথায় মৌলিক অধিকারে হস্তক্ষেপ। আপনারা যা করছেন, তা কি অন্য কিছু? অমুকের ফোনে আড়ি পাতা, তমুকের ল্যাপটপে বিতর্কিত নথি পুরে দেওয়া... আর তারপর রাষ্ট্রদ্রোহের দায়। সুপ্রিম কোর্টই কিন্তু বিতর্কিত এই আইন নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছে। তারপরও কি হুঁশ ফিরেছে? না ফেরেনি। শুধুমাত্র গাড়ির কাচ ভাঙার জন্য কৃষকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে ১২৪(ক) আইনে। প্রতিবাদ আর রাষ্ট্রদ্রোহ কি এক পঙক্তিতে বসে? তাহলে নাৎসিদের সঙ্গে আপনাদের কী ফারাক? ব্রিটিশ শাসকদের থেকে আপনারা কোথায় আলাদা? ‘দ্য কান্ট্রিস মিসফরচুন’ (দেশের দুর্ভাগ্য) এবং ‘দিস রেমেডিস আর নট লাস্টিং’ (এই ওষুধে কাজ হবে না)—ব্রিটিশ সরকারের বিরুদ্ধে এমন প্রবন্ধ লেখার জন্য জেল হয়েছিল লোকমান্য তিলকের। দু’বার এই বিতর্কিত ঔপনিবেশিক আইনের শিকার হয়েছিলেন তিনি। সশ্রম কারাদণ্ডে তাঁকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল তৎকালীন বার্মাতেও। আর মোদিজি, আপনার জমানায় অশীতিপর, প্রায় অন্ধ এক বৃদ্ধকে কাতরে কাতরে মৃত্যুবরণ করতে হয়। ফাদার স্ট্যান স্বামী সন্ত্রাসবাদী ছিলেন কি না, তা আইন ঠিক করবে (ন্যায়বিচার পেলে)। কিন্তু একজন ভারতীয়ের এমন পরিণতি কি কাঙ্ক্ষিত? একটা ছোট্ট পরিসংখ্যান... নরেন্দ্র মোদি সরকারের প্রথম পাঁচ বছরে বিতর্কিত রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে ৩২৬টি মামলা দায়ের হয়েছে। আর দোষী সাব্যস্ত? মাত্র ছয়। ১২৪(ক) ধারায় সবচেয়ে বেশি মামলা মোদি সরকার চাপিয়েছে অসমে—৫৪টি। তার মধ্যে ২৬টি মামলায় চার্জশিট দাখিল হয়েছে এবং ২৫টির ফয়সালা। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, একজনও কিন্তু এই মামলাগুলিতে দোষী সাব্যস্ত হননি। তাহলে কেন এই বদমায়েশি? অস্ত্র হাতে ধরলেই হয় না... তার ব্যবহারের উপর নির্ভর করে সেই হাতিয়ারের সাফল্য। নাগরিক সুরক্ষায় অস্ত্র ব্যবহার হলে তা স্বস্তি আনে। আর যদি তা নাগরিকের কণ্ঠস্বর দাবিয়ে দেওয়ার জন্য হয়? গণতন্ত্রে সেটাই সবচেয়ে বড় হুঁশিয়ারি। আতঙ্ক। 
এই আতঙ্ক আজ দানা বেঁধেছে ঘরে ঘরে... মোবাইল ফোনে, ল্যাপটপে। পেগাসাসের হানাদারির আওতায় কারা আছেন? বিরোধী নেতানেত্রীদের মধ্যে শোনা যাচ্ছে রাহুল গান্ধী, প্রশান্ত কিশোর, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম। পিকে সদ্য সমাপ্ত বাংলার বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের জয়ের কারিগর। আর অভিষেক নিজেই দলের কার্যত সেকেন্ড ইন কমান্ড। এই দু’জনের ফোন ট্যাপ করলেই মাথা পর্যন্ত পৌঁছে যাওয়া যায়—অর্থাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কারা? মজার ব্যাপার, একজন অশ্বিনী বৈষ্ণব। নিজেই এখন তথ্য-প্রযুক্তিমন্ত্রী। তিনিই আড়ি পাতার ঘটনায় সাফাই গাইছেন সরকারের হয়ে। রয়েছেন প্রাক্তন নির্বাচন কমিশনার অশোক লাভাসাও। কারণ তাঁর কাছে যুক্তি আগে, নিয়ম আগে... মোদি নন। খবর প্রকাশের আগেই অবশ্য নরেন্দ্র মোদি সরকার এক দিস্তা সাফাই গেয়ে রেখেছে। সারমর্ম একটাই, নির্দিষ্ট ব্যক্তির উপর নজরদারির অভিযোগ ভিত্তিহীন। তবে এবারও তারা জানিয়েছে, যে কোনও ফোনে আড়ি পাতা বা হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজে নজরদারিতে সরকারি অনুমতি এমনিতেই থাকে। যদি তা সন্দেহজনক হয়। এবং এই নজরদারি অবৈধ নয়। বেআইনি নয়। 
খুব শিগগিরই বোধহয় দেশের সংবিধানের আরও একবার সংশোধনের প্রয়োজন আছে। ১২ নম্বর থেকে ৩৫ নম্বর ধারা... যেখানে রয়েছে ভারতীয়দের মৌলিক অধিকারের ছাড়পত্র। আইন সবার জন্য সমান... ধর্ম বা জাতপাতের ভিত্তিতে বিভাজন চলবে না... মত প্রকাশ ও বাক স্বাধীনতা সবার অধিকার... এই সবই কেমন যেন আজ অপ্রাসঙ্গিক হয়ে যাচ্ছে। আমাদের নাগরিকত্বের এখন একটাই মাপকাঠি—জো হুজুর। মেরুদণ্ড থাকা আজ অপরাধ। মেনে নিতে হবে... সরকার যা বলবে, যা করবে... সবকিছু। না হলেই রাষ্ট্রদ্রোহের খাঁড়া ঝুলবে ঘাড়ের ঠিক উপরে। 
গণতন্ত্রে সরকার নির্বাচিত হয়। বন্দুকের নল এখানে ক্ষমতার উৎস নয়। আমরা আপনাদের বসিয়েছি সরকারে। আপনাদের ভুল হলে আমরাই সমালোচনা করব। এটাই গণতন্ত্র। এটাই আমাদের সাংবিধানিক অধিকার। তা আর হচ্ছে কই? নাজিব আহমেদরা যে আজও নিরুদ্দেশ! জয় শাহের বিরুদ্ধে তদন্তমূলক খবর করার জন্য রোহিণী সিংয়ের উপর চলে নজরদারি। ছড়ি ঘুরছে মাথার উপর... আছড়ে পড়বে যে কোনও সময়... বাড়বে রাষ্ট্রদ্রোহীর সংখ্যা। ভারত বদলেছে। এ সত্যিই নতুন ভারত। স্লোগান একটাই—একনায়কতন্ত্রের ডিজিটালাইজেশন।
20th  July, 2021
বিদ্বেষপূর্ণ এবং মিথ্যে ধর্মযুদ্ধ

ইতিহাস বলছে, ক্রুসেডস হল কিছু ধর্মযুদ্ধ, যা একাদশ শতকের শেষাশেষি শুরু হয়েছিল। লড়াইগুলো হয়েছিল ১০৯৫ এবং ১২৯১ খ্রিস্টাব্দের ভিতরে। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় যে এসব সংঘটিত হয়েছিল ইউরোপীয় খ্রিস্টানদের দ্বারা। বিশদ

ভবানীপুর থেকেই শুরু হোক নয়া ইতিহাস
হিমাংশু সিংহ

রাজ্য রাজনীতির এই সন্ধিক্ষণে ভবানীপুর থেকেই অশুভ শক্তির বিনাশের শপথ নিতে হবে। বাংলার পবিত্র মাটিতে ভিনদেশি ষড়যন্ত্রকে হারাতে হবে। ৩০ সেপ্টেম্বর ঝড় বৃষ্টি দুর্যোগ যাই হোক ভোট দেওয়া প্রত্যেক ভবানীপুরবাসীর অবশ্য কর্তব্য। বিশদ

26th  September, 2021
‘উপেক্ষিত নায়ক’ হয়েই
থেকে গেলেন দিলীপ
তন্ময় মল্লিক

মুখ বদলে ‘মুখরক্ষা’ মোদি-অমিত শাহ জমানার নয়া কৌশল। গুজরাত থেকে বাংলা, সর্বত্র একই ট্রেন্ড। কেন্দ্রের ব্যর্থতার দায় অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে মানুষকে বোকা বানানোর এই টেকনিক তাঁদেরই আমদানি। দিলীপ ঘোষকে সরিয়ে দিয়ে সুকান্ত মজুমদারকে বসানো তারই অঙ্গ। বিশদ

25th  September, 2021
ম্যানগ্রোভকে ঘিরেই
সুন্দরবনবাসীর হাসি-কান্না
শ্যামল মণ্ডল

লক্ষ্য সুন্দরবনের মধ্যে আরও একটি ‘সুন্দর’বন গড়ে তোলা। আর এই উদ্দেশ্য সফল করতে নদীবাঁধের ধার বরাবর বিভিন্ন প্রজাতির ম্যানগ্রোভ গাছের প্রাচীর গড়ে তোলা হচ্ছে। গত তিন বছর ধরে চলছে এই কৃত্রিম ‘ম্যানগ্রোভ বন’ তৈরির কাজ। বিশদ

25th  September, 2021
প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চেষ্টায়
অন্যায়ের কী আছে?
সমৃদ্ধ দত্ত

উত্তমকুমার বাংলা সিনেমা জগতে সুপারস্টার হয়ে যাওয়ার পর স্থির করেছিলেন, এবার একবার হিন্দি চলচ্চিত্র সাম্রাজ্যে ভাগ্যান্বেষণের চেষ্টা করলে কেমন হয়? সেই প্রয়াস তিনি করেছিলেন। কিন্তু ভুল গাইডেন্স, সঠিক পরিকল্পনার অভাব এবং কিছু পারিষদবর্গের স্বার্থান্বেষী দিশানির্দেশের সম্মিলিত ফলাফল হিসেবে তাঁর সেই উদ্যোগটি সফল হতে পারেনি।
বিশদ

24th  September, 2021
বিমা দুর্নীতির ইতিহাস
ভুলে গিয়েছেন মোদি
মৃণালকান্তি দাস

সরকারি জীবন বিমা সংস্থায় আমজনতা টাকা রাখেন নিরাপদ মনে করে। একের পর এক দুরবস্থা সামাল দিতে তাকেই এগিয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষের কষ্টার্জিত পুঁজিকে ঝুঁকির মুখে ফেলা হচ্ছে কেন? যে রুগ্ন সংস্থাগুলিকে এলআইসি টাকা ধার দিয়েছে, তা শোধ না হলে কী হবে?
বিশদ

23rd  September, 2021
আফগান মেয়েদের কথা
ভাবলই না চীন, রাশিয়া
হারাধন চৌধুরী

চীন-রাশিয়ারই অস্ত্রে বলীয়ান হয়ে তালিবান এই যে মানবাধিকারকে লাগাতার বলাৎকার করে যাচ্ছে, তাতে সিলমোহর দিচ্ছে কোন নীতিতে এই দুই ‘মহান’ রাষ্ট্র? শুধু চীন, রাশিয়ার ‘অর্ধেক আকাশ’ মুক্ত থাকলেই হল, তাই তো! বিশদ

22nd  September, 2021
লগ্ন মেনেই টিকা!
মোদির ভারতের ভবিতব্য
শান্তনু দত্তগুপ্ত

আপনার জন্মদিনের প্রোপাগান্ডায় আড়াই কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ আমাদের মনে কিছু প্রশ্নের ঝড় তুলে দেয়। সেখানেও হিসেবে গরমিলের অভিযোগ ওঠে। আমরা ভাবতে বাধ্য হই, আপনি শুধুই নিজের তূণীর সমৃদ্ধ করতে বেশি আগ্রহী। একদিন ২৫ লক্ষ ভ্যাকসিন, আর একদিন আড়াই কোটি ডোজের অঙ্কে সাধারণ মানুষের জীবনের পথ মসৃণ হয় না। তাতে কাঁটার সংখ্যা বাড়তেই থাকে। 
বিশদ

21st  September, 2021
বৈষম্য ও অবিচার
বড্ড চোখে লাগছে
পি চিদম্বরম

রাজ্য সরকারগুলি রাজ্যের করদাতাদের টাকায় কেন সরকারি মেডিক্যাল কলেজ প্রতিষ্ঠা করবে? কেন ছেলেমেয়েরা মাতৃভাষার মাধ্যমে পড়বে? কেন রাজ্য বোর্ডের পরীক্ষায় বসবে? রাজ্য শিক্ষা বোর্ড রেখে দেওয়ার আদৌ যুক্তি আছে কি আর? শহুরে ছাত্ররা কি পিএইচসি এবং মফস্‌সলের হাসপাতালগুলিতে রোগীর সেবা করবে? ‘মেরিট’ সম্পর্কে এক সন্দেহজনক তত্ত্ব খাড়া করে নিট মারাত্মক বৈষম্য ও অবিচারের এক নতুন যুগের সূচনা করছে।
বিশদ

20th  September, 2021
মোদির গৌরব, অগৌরব
ও বিপন্ন সাংবাদিকতা
হিমাংশু সিংহ

আমেদাবাদের সাংবাদিক ধবল প্যাটেল গত প্রায় এক বছর দেশছাড়া। তাঁর অপরাধ কী? সওয়া এক বছর আগে তিনি লিখেছিলেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানিকে সরতে হচ্ছে। আজ ১৬ মাস বাদে তাঁর পূর্বাভাস মিলেও গিয়েছে হুবহু। গত ১১ সেপ্টেম্বর নিজেই ইস্তফা দিয়েছেন কিংবা বাধ্য হয়ে সরে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী রুপানি। বিশদ

19th  September, 2021
মোদিকে টক্কর দিচ্ছেন মমতা
তন্ময় মল্লিক

ক্ষমতায়, পদমর্যাদায়, দাপটে, প্রভাবে যে কোনও মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ে প্রধানমন্ত্রী অনেক অনেক এগিয়ে। কিন্তু টাইমের সমীক্ষায় ফারাকটা তেমন কিছু নয়, বরং খুব কাছাকাছি। পৃথিবীর বিখ্যাত ম্যাগাজিন ‘টাইম’ জানিয়ে দিল, এই মুহূর্তে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে টক্কর দেওয়ার ক্ষমতা ভারতবর্ষের একজনেরই আছে। নাম তাঁর মমতা।
বিশদ

18th  September, 2021
আফগান যুদ্ধ: কার লাভ
কার ক্ষতি? এরপর কী?
সমৃদ্ধ দত্ত

চীন অথবা আমেরিকা?  অলক্ষ্যে চলছে এক মরণপণ প্রতিযোগিতা! কে হবে আগামী সুপার পাওয়ার? এই চীন ও আমেরিকার সুপার পাওয়ার হওয়ার যুদ্ধে কোন দেশটির ভূমিকাই হতে পারে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। ভারত!
বিশদ

17th  September, 2021
একনজরে
লেসলি ক্লিভলিকে গোলরক্ষক কোচ নিযুক্ত করল এসসি ইস্ট বেঙ্গল। তিনি এর আগে চেলসিতে কাজ করেছেন। ক্লিভলির উয়েফা ‘এ’ লাইসেন্স রয়েছে। ...

শান্তিস্বরূপ ভাটনাগর পুরস্কার ঘোষণা হবে, আর তাতে বাঙালি বিজ্ঞানীদের রমরমা থাকবে না, এমন ছবি বহু বছর দেখা যায়নি। এবারের ১১ জন পুরস্কার প্রাপকদের তালিকাতেও রয়েছেন চারজন বাঙালি। ...

ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে মৃত্যু হল তিন জনের। ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার মন্টানায়। শিকাগো থেকে সিয়াটেলের মধ্যে রেল পরিষেবা প্রদানকারী আমট্রাক কর্পোরেশনের ট্রেনটিতে মোট ১৪১ জন যাত্রী ও ১৬ জন ক্রু ছিলেন। ...

রাজ্যের শস্যভাণ্ডার পূর্ব বর্ধমানে চিন্তা বাড়াচ্ছে ‘শস্য গ্যাং’এর দাপট। জেলার বিভিন্ন গোডাউন থেকে শস্য লুটের ঘটনায় ঘুম উবেছে পুলিসের। গত ১০দিনের ব্যবধানে জেলায় দুই জায়গায় ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সন্তানের সাফল্যে গর্ব বোধ। আর্থিক অগ্রগতি হবে। কর্মে বিনিয়োগ বৃদ্ধি। ঘাড়, মাথায় যন্ত্রণা বৃদ্ধিতে বিব্রত ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব পর্যটন দিবস
১৯৫৮ - ভারতীয় হিসাবে প্রথম মিহির সেন ইংলিশ চ্যানেল অতিক্রম করেন।
১৯০৭ - বিপ্লবী শহিদ ভগৎ সিংয়ের জন্ম
১৮৩৩: বিশ্বপথিক রাজা রামমোহন রায়ের মৃত্যু
১৯৩২: ভারতীয় চিত্রপরিচালক যশ চোপড়ার জন্ম
২০০৮: প্রখ্যাত ভারতীয় সঙ্গীতশিল্পী মহেন্দ্র কাপুরের মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার    
পাউন্ড    
ইউরো    
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম)  
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম)  
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম)  
রূপার বাট (প্রতি কেজি)  
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি)  
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

 ১০ আশ্বিন ১৪২৮, সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ষষ্ঠী ২৫/৩৩ দিবা ৩/৪৪। রোহিণী নক্ষত্র ৩০/২৮ সন্ধ্যা ৫/৪২। সূর্যোদয় ৫/৩০/২১, সূর্যাস্ত ৫/২৫/১১। অমৃতযোগ দিবা ৭/৫ মধ্যে পুনঃ ৮/৪০ গতে ১১/৪ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৯ গতে ১১/৪ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে ৩/৬ মধ্যে। বারবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/২৭ গতে ৩/৫৬ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৭ গতে ১১/২৭ মধ্যে। 
১০ আশ্বিন ১৪২৮, সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ষষ্ঠী দিবা ১/৮। রোহিণী নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/২৭। সূর্যোদয় ৫/৩০, সূর্যাস্ত ৫/২৭। অমৃতযোগ দিবা ৭/২৯ মধ্যে ও ৮/৪১ গতে ১০/৫৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩৭ গতে ১০/৫৭ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৩/৭ মধ্যে। কালবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ২/২৮ গতে ৩/৫৮ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৮ গতে ১১/২৯ মধ্যে।
 ১৯ শফর।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইপিএল ২০২১ : রাজস্থানের বিরুদ্ধে ৭ উইকেটে জয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদের

11:06:59 PM

আইপিএল ২০২১ : হায়দরাবাদ : ৯১/১ (১০ ওভার)

10:14:16 PM

আইপিএল ২০২১ : সানরাইজার্স হায়দরাবাদের জয়ের জন্য প্রয়োজন ১৬৫ রান

09:38:30 PM

আইপিএল ২০২১ : রাজস্থান ৮১/৩ (১১ ওভার)

08:27:31 PM

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে অনেকটাই কমল দৈনিক করোনা সংক্রমণ
গতকালের তুলনায় রাজ্যে অনেকটাই কমল করোনার দৈনিক সংক্রমণ। গত ২৪ ...বিশদ

08:25:56 PM

কয়লাপাচার কাণ্ডে গ্রেপ্তার লালা ঘনিষ্ঠ ৪ অভিযুক্ত
আজ, সোমবার কয়লাপাচার কাণ্ডে লালা ওরফে অনুপ মাজি ঘনিষ্ঠ ৪ ...বিশদ

05:31:00 PM