Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

আমেরিকান কর্পোরেট ও ভারত
সমৃদ্ধ দত্ত

বলা হয়ে থাকে অফিসিয়াল পেজ অথবা অফিসিয়াল অ্যাকাউন্ট। ভারতের প্রধানমন্ত্রী অথবা মুখ্যমন্ত্রীরা জনগণের সঙ্গে সরাসরি আজকাল সংযোগ স্থাপন করেন ফেসবুক অথবা ট্যুইটার অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে। কোনও বার্তা প্রদান, অভিমত প্রকাশ, সিদ্ধান্ত ঘোষণা, সরকারি প্রকল্প সম্পর্কে অবগত করা, জন্মদিনের শুভেচ্ছা, মৃত্যুদিবসের শোকবার্তা সবই এইসব অফিসিয়াল পেজ বা অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে হয়ে থাকে। শুধু প্রধানমন্ত্রী কিংবা মুখ্যমন্ত্রী নয়, দেশের তাবৎ সরকারি প্রশাসনই এই ব্যবস্থায় চলে। নামে অফিসিয়াল অ্যাকাউন্ট। কিন্তু আসলে এইসব প্ল্যাটফর্ম তো একটি করে প্রাইভেট কোম্পানির প্রোডাক্ট। শুধু ভারত নয়, গোটা বিশ্বেই এই রীতি। আগে মাধ্যম ছিল সরকারি রেডিও ও টিভি।  মজার বিষয় হল এখন সরকার ও জনগণের সংযোগরক্ষার সেতু অথবা প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছে বিদেশি প্রাইভেট কর্পোরেটের প্রফিটেবল বিজনেস প্ল্যাটফর্মগুলি। দেখা যাচ্ছে, সবথেকে বেশি এই ব্যবস্থা ব্যবহার করা হয় যে কোম্পানিগুলির প্ল্যাটফর্মে, তার সবকটিই আমেরিকান সংস্থা। 
ভারত তো বটেই, বিশ্বের ইতিহাসে ২০০৭ সাল একটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বছর। নিউ ইয়র্ক টাইমসের সাংবাদিক টমাস ফ্রিডম্যান বিশ্লেষণ করেছিলেন কীভাবে ২০০৭ সাল আধুনিক পৃথিবীকে সম্পূর্ণ বদলে দিয়েছে। ২০০৭ সালে মার্ক জুকেরবার্গ তাঁর একটি স্থানীয় অনলাইন প্রোডাক্ট প্ল্যাটফর্মকে প্রথমবার গ্লোবালি লঞ্চ করেছিলেন অর্থাৎ গোটা বিশ্বের জন্য খুলে দিয়েছিলেন। প্রোডাক্টের নাম ফেসবুক। ২০০৭ সালে মাত্র এক বছর পুরনো একটি মাইক্রোব্লগিং সংস্থার মালিক জ্যাক ডরসি স্থির করেছিলেন, এই ব্লগটির ভোলবদল করে এক অন্যরকম অনলাইন মিডিয়ার জন্ম দেবেন। সেই প্রোডাক্টের নাম ট্যুইটার। ২০০৭ সালে গুগল সংস্থা একটি ছোট ভিডিও কোম্পানিকে কিনে নেয় তাদের ব্যবসা বাড়াতে। সেই ভিডিও সংস্থার নাম ইউটিউব। পাবলিক ক্লাউড নামক একটি প্রযুক্তি অনেক বেশি করে জনপ্রিয় হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেওয়ার পর ১৯৯৪ সালে তৈরি হওয়া একটি অনলাইন ব্যবসার সংস্থা নিজেকে বদলে বিশ্বের জন্য ২০০৭ সালে দরজা খুলে দিল। সেই সংস্থার নাম অ্যামাজন। ২০০৭ সালে আইবিএম একটি বিশেষ প্রোজেক্ট শুরু করেছিল। তার নাম ওয়াটসন। যা আজকের আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের বিজনেস মডেলের পথিকৃৎ। ২০০৬ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার কুপেরটিনোয় নিজের ছেলের সঙ্গে টিভিতে খেলা দেখার ফাঁকে বাড়িতে আসা বন্ধুকে এক ভদ্রলোক জিনসের আপার পকেট থেকে একটি মোবাইল ফোন বের করে বলেছিলেন, এটা হবে আগামীদিনের সবথেকে বড় বিপ্লব। ঠিক কয়েকমাস পর ২০০৭ সালে সেই ফোন অফিসিয়ালি প্রকাশ করা হয়েছিল। ভদ্রলোকের নাম ছিল স্টিভ জোবস। প্রোডাক্টের নাম আই ফোন। ২০০৭ সালে গুগল একটি বিশেষ অপারেটিং সিস্টেম শুরু করেছিল। তার নাম অ্যান্ড্রয়েড। সান ফ্র্যান্সিসকোয় থাকা খাওয়ার ব্যয় অনেক বেশি।  বাড়তি ইনকাম দরকার। তাই দুই বন্ধু ব্রায়ান চেস্কি এবং এবং জো গেবিয়া নিজেদের অ্যাপার্টমেন্টের লিভিং রুমে একটি এয়ারম্যাট্রেস বিছিয়ে ভাড়া দেওয়া শুরু করেছিল। থাকা এবং ব্রেকফাস্ট। যাকে বলা হয়, ব্রেড অ্যান্ড ব্রেকফাস্ট। ছাত্রছাত্রীদের জন্য। ২০০৭ সালে সেই লিভিং রুম থেকে একটি হোটেল বুকিং ব্যবসা শুরু করেছিল। কোম্পানির নাম এয়ার বিএনবি। যা আজ গোটা বিশ্বের এক নম্বর অনলাইন হোটেল বুকিং সংস্থায় পরিণত। 
এই কথাগুলি বলার অর্থ হল, আজ আমরা ভারতীয়রা সম্পূর্ণভাবে সারাদিন সারারাত এই প্রতিটি প্রোডাক্টের উপর নির্ভরশীল। সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, এই প্রতিটি কোম্পানিই আমেরিকান। গোটা বিশ্বের মধ্যে এই প্রতিটি কোম্পানির সবথেকে বেশি ইউজার ও কাস্টমারের সংখ্যা ভারতে। আজকাল আমাদের আলোচনায় উঠে আসে শেষ কোন ওয়েব সিরিজ দেখলাম। কোনটা দুর্দান্ত? কোনটা খারাপ? কিন্তু কোথায় দেখলাম? হয় অ্যামাজন প্রাইম অথবা নেটফ্লিক্স। দুটিই আমেরিকান। 
আমাদের ভোকাবুলারি অর্থাৎ শব্দভাণ্ডার, আমাদের সংস্কৃতি, আমাদের শিক্ষাগ্রহণ পদ্ধতি, আমাদের জ্ঞান অর্জনের প্রক্রিয়া, আমাদের মাইন্ডসেট, থট প্রসেস সম্পূর্ণ বদলে দিয়েছে ১৯৯৮ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির দুই পিএইচডি ছাত্র ল্যারি পেজ এবং স্যার্জি ব্রিইন। তাঁরা তৈরি করেছিলেন একটি সার্চ ইঞ্জিন। তার নাম গুগল। অ্যালফাবেট আইএনসি এখন গোটা গুগল সাম্রাজ্যকে কন্ট্রোল করে। মোবাইল আছে, তাই আমাদের কারও আজকাল কোনও ফোন নম্বর মনে নেই। মোবাইল হারিয়ে গেলে কী হবে? গুগল ক্লাউডে রাখা আছে। আমাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের ডিটেইলস কে জানে? গুগল পে। আমাদের গোপন ইমেলের আদানপ্রদান, চাকরি থেকে বিজনেস, প্রতিটি ব্যক্তিগত বার্তা কার কাছে গচ্ছিত থাকে?  জি-মেলের কাছে। 
সোশ্যাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্মে সবথেকে বেশি যে টপিক অথবা কনটেন্ট বেশিবার আলোচিত হয়, কমেন্ট পড়ে এবং ইউটিউব হিট হয়, সেটি হল রাজনীতি, জাতপাত, ধর্মীয় বিভাজন এবং বর্ণবিদ্বেষের কনটেন্ট। অর্থাৎ ঘৃণামূলক বিষয় যদি পোস্ট করা  হয়, তাহলে সেগুলিতে অনেক বেশি লাইক, কমেন্ট, প্রতিবাদ, ঝগড়া হয়। একটি পোস্টে যত বেশি এরকম লাইক কমেন্ট শেয়ার হয় সেটির ভিউয়ারশিপ বেড়ে যায়। যত ভিউয়ারশিপ বাড়ে তত বেশি অ্যাডভার্টাইজমেন্ট জেনারেট হয়। অর্থাৎ সোশ্যাল মিডিয়ার সবথেকে বেশি প্রফিট হল হেট বিজনেস। যে কোনও প্রকার হেট অথবা বিদ্বেষমূলক আলোচনায় ওইসব কোম্পানির লাভ। কারা ঝগড়া করে? আমরা। সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মের লক্ষ্যই হল মানুষের প্যাশন, আবেগ, রাগ, প্রতিবাদ, ক্ষোভ, ভালোবাসার প্রকাশগুলি নিয়ে বিজনেস করা। আমরা সাধারণত আমাদের যত কিছু মনের কথা চারটি প্ল্যাটফর্মে বলে থাকি। ফেসবুক, ট্যুইটার, হোয়াটস অ্যাপ আর ইনস্টাগ্রাম। এই চারটি কোম্পানিই গোটা দুনিয়ার সিংহভাগ দেশের মানুষের মন পরিচালনা করছে। সকলের মনোভাবও জেনে যাচ্ছে। চারটি কোম্পানির মালিক দুজন। জ্যাক ডরসি এবং মার্ক জুকেরবার্গ। অর্থাৎ দুটি মানুষ সিংহভাগ বিশ্ববাসীর আবেগের বিস্ফোরণ নিয়ে বিজনেস করছেন। সম্প্রতি ফেসবুক জিওর শেয়ার ক্রয় করেছে।  জিও এবং ফেসবুক একটি গ্রসারি বিজনেস মডেল করছে। মুদিখানার দ্রব্যের হোম ডেলিভারি। সঙ্গে সঙ্গে তৎপর হয়ে উঠেছে অ্যামাজন। তারা এখন চেষ্টা করছে এয়ারটেলের ৫ শতাংশ শেয়ার কিনে ভারতের টেলি বিজনেস ফর্মুলায় হোম ডেলিভারিতে প্রবেশ করতে। ইতিমধ্যেই ওয়ালমার্ট ভারতীয় সংস্থা ফ্লিপকার্টে ইনভেস্ট করেছে। সুতরাং আগামীদিনে ভারতের ই কমার্স বাজার চালাবে তিনটি আমেরিকান সংস্থা। ফেসবুক, অ্যামাজন, ওয়ালমার্ট। 
দু’ হাজারের বেশি আমেরিকান কোম্পানি ভারতে ব্যবসা করে। ভারতের প্রযুক্তি, কয়লা, কৃষি, অটোমোবাইল, যন্ত্রাংশ, ফিনান্স আর ব্যাঙ্কিং—এই সেক্টরগুলি আমেরিকান সংস্থাই একপ্রকার শাসন করে। এটা স্বাভাবিক। এবং গ্লোবালাইজেশনের যুগে কাম্য। পক্ষান্তরে ভারত আর একটি দিকে পিছিয়ে নেই। আউটসোর্সিং এবং সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টে ভারত আমেরিকার একমাত্র ভরসা। প্রতিদিন ভারতীয় নারী আমেরিকার বিভিন্ন শহরে ফোন করে তুখোড় আমেরিকান অ্যাকসেন্টে জানতে চায়, মাই নেম ইজ ফ্লিচ...আপনার সোশ্যাল সিকিউরিটি নম্বরের লাস্ট চার ডিজিট বলুন। অথবা কাস্টমার কেয়ার হিসেবে বলে, আমাদের ব্রাঞ্চ আছে লেক্সিংটনে সেকেন্ড অ্যাভিনিউর সেভেনথ ফ্লোরে। সাধারণ আমেরিকানদের কতজন জানে এই গোটা অ্যাসিস্ট্যান্স তিনি আসলে পাচ্ছেন সাত সমুদ্র তেরো নদী দূরের বেঙ্গালুরু অথবা নয়ডার মিডল ক্লাস একটি মেয়ের থেকে? আমেরিকার প্রথম সারির কোম্পানিগুলির গ্লোবাল চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কারা? ভারতীয়রা। গুগলের কর্তা সুন্দর পিচাই, মাইক্রোসফটের সত্যা নাডেলা, নোকিয়ার রাজীব সুরি, উইওয়ার্কের সন্দীপ মাথরানি, মোটোরোলার সঞ্জয় কুমার ঝা, অ্যাডোবের শান্তনু নারায়ণ, কগনিজেন্টের ফ্র্যান্সিকো ডি সূজা।
 এসবই ভালো খবর। কিন্তু খারাপ প্রবণতা কী? আমেরিকান কোম্পানির প্ল্যাটফর্ম মানুষের আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করছে আর তার জেরে ছড়াচ্ছে দাঙ্গা, আইনশৃঙ্খলার অবনতি, বেআইনি কার্যকলাপ। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু অথবা হাতরাসের ধর্ষণ, বিজেপি ভালো নাকি কংগ্রেস? হিন্দু বনাম মুসলিম। এসব নিয়ে আমেরিকান সংস্থার যাবতীয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলি জনমত তৈরি করে দিচ্ছে ভারতে। হেট-বিজনেস করছে। প্রফিট করছে। আমরা বুঝতেই পারছি না। বোকার মতো ফাঁদে পা দিচ্ছি!  
আগামী ৩ নভেম্বর আমেরিকায় ভোট। আমরা তর্কবিতর্ক করছি কে জিতবে? ডোনাল্ড ট্রাম্প নাকি জো বিডেন? রিপাবলিকান অথবা ডেমোক্র্যাট, প্রত্যেকেরই প্রাথমিক লক্ষ্য, তাদের দেশের কর্পোরেটকে বিশ্ববাজারে সুবিধা পাইয়ে দেওয়া।  ভারতকে বুঝতে হবে নিজেদের শক্তি। সেইমতো নতুন প্রেসিডেন্টের চোখে চোখ রেখে আদায় করতে হবে ভারতের স্বার্থ। এবার সিস্টেমটা বদলে যাক। আমরা আর মার্কিন কর্পোরেটের হাতে পুতুল হয়ে ব্যবহৃত হব না। বরং আমরাই ব্যবহার করব আমেরিকাকে নিজেদের মতো করে। কারণ, ভারতকে আমেরিকার প্রয়োজন অনেক বেশি? প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ সেটা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন। ২০০১ সালে টেক্সাসের গেস্টহাউসে তৎকালীন আমেরিকান প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ ভারতে নিযুক্ত আমেরিকান রাষ্ট্রদূত রবার্ট ব্ল্যাকউইলকে বলেছিলেন, বব, কল্পনা করো ইন্ডিয়াকে! ১০০ কোটির বেশি জনসংখ্যা, কমপ্লিট ডেমোক্রেসি, ইংলিশ স্পিকিং সিটিজেন, অ্যান্ড নো আল কায়েদা...! ওয়াও! হোয়াট আ স্পট! 
30th  October, 2020
প্রতিষ্ঠানের থেকে বড় কেউ নয়
শান্তনু দত্তগুপ্ত

 

প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বে কেউ নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেকে একটি প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছেন। যার নেপথ্যে রয়েছে সংগ্রামী অতীত। তাকে কেউ অস্বীকার করতে পারবে না। বিশদ

ধীর পায়ে পিছনে সরে আসা
পি চিদম্বরম

রাজতন্ত্রের যুগে ভারত মুক্ত বাণিজ্যকে গ্রহণ করেছিল, নতুন নতুন বাজার দখল করেছিল এবং ভারতের ভিতরেই অনেক জাতির সম্পদের বৃদ্ধি ঘটিয়েছিল। আমরা সেই সমৃদ্ধ উত্তরাধিকারের যুগে ফিরে যেতে পারি। কিন্তু ভয় পাচ্ছি এই ভেবে যে, গৃহীত নীতি নিম্ন বৃদ্ধির দিনগুলিতে আমাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাবে।  বিশদ

30th  November, 2020
আবার ঐতিহাসিক
ভুলের পথে বামপন্থীরা
হিমাংশু সিংহ

দীর্ঘ চারদশক সিপিএমের মিছিলে হেঁটে খগেন মুর্মু আজ বিজেপির এমপি। কী বলবেন, বিচ্যুতি না সংশোধন! ২০১৪’র লোকসভা ভোটে মথুরাপুরের বাম প্রার্থী রিঙ্কু নস্কর সম্প্রতি গেরুয়া দলে যোগ দিয়েছেন। নেতৃত্বের উপর আস্থা হারিয়ে নাকি স্রেফ আখের গোছাতে, আমরা জানি না! সম্ভবত আসন্ন নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থীও হবেন। বিশদ

29th  November, 2020
দলবদলেই শুদ্ধিকরণ
তন্ময় মল্লিক

অনেকেই ঠাট্টা করে বলছেন, যার সঙ্গে চটে তার সঙ্গেই পটে, কথাটা বোধহয় বিজেপির জন্যই খাটে। যাঁদের সঙ্গে খটাখটি হয়েছে তাঁদেরই বিজেপি দলে টেনে নিয়েছে। বিশদ

28th  November, 2020
দেশের একমাত্র মহিলা
মুখ্যমন্ত্রী হয়ে থাকার লড়াই
সমৃদ্ধ দত্ত

৩৪টি রাজ্যে মাত্র একটি রাজ্যে ক্ষমতায় আসীন নারী মুখ্যমন্ত্রী, সেটা যথেষ্ট কৌতূহলোদ্দীপক। সুতরাং সমাজতাত্ত্বিক দৃষ্টিভঙ্গিতেও আগ্রহটি তীব্র হয় যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি এই নারী ক্ষমতায়নের একমাত্র কেল্লাটি ধরে রাখতে সমর্থ হবেন?  বিশদ

27th  November, 2020
এই ধর্মঘটের লক্ষ্য
মমতা, মোদি নয়
হারাধন চৌধুরী

আজ বাংলাজুড়ে বিজেপির এই যে শ্রীবৃদ্ধি, এর পিছনে নিজেদের অবদানের কথা বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্ররা অস্বীকার করবেন কী করে? অস্বীকার তাঁরা করতেই পারেন। রাজনীতির কারবারিরা কত কথাই তো বলেন। বিশদ

26th  November, 2020
লাভ জেহাদ: বিজেপির
একটি রাজনৈতিক অস্ত্র
সন্দীপন বিশ্বাস

আসলে এদেশে হিন্দু, মুসলিম, শিখ, খ্রিস্টান কেউই খতরে মে নেই। যখন নেতাদের কুর্সি খতরে মে থাকে, তখনই ধর্মীয় বিভেদকে অস্ত্র করে, সীমান্ত সমস্যা খুঁচিয়ে তার মধ্য থেকে গদি বাঁচানোর অপকৌশল চাগাড় দিয়ে ওঠে। বিশদ

25th  November, 2020
ওবামার ‘প্রতিশ্রুতি’ এবং
বিতর্কের রাজনীতি
শান্তনু দত্তগুপ্ত

২০১৬ সালে ভারত সফরে এসে বারাক ওবামা সরব হয়েছিলেন ধর্মান্তরকরণ, ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে...। মোদির সামনেই। কাজেই এরপরের অধ্যায় নিয়ে তিনি যদি কলম ধরেন, বিজেপিকে স্বস্তিতে রাখার মতো পরিস্থিতি হয়তো তৈরি হবে না। বিশদ

24th  November, 2020
বিকাশ না গরিমা,
সংস্কার কী জন্য?
পি চিদম্বরম

কিছু কারণে ড. পানাগড়িয়া জোড়াতাপ্পির জিএসটি-টাকে প্রাপ্য গুরুত্ব দেননি এবং বিপর্যয় ঘটাল যে ডিমানিটাইজেশন বা নোট বাতিল কাণ্ড সেটাকেও তিনি চেপে গেলেন। বিশদ

23rd  November, 2020
ভোটের আগে দিল্লির
এই খেলাটা বড় চেনা
হিমাংশু সিংহ

 দিলীপবাবুরা জানেন, সোজা পথে এখনও পশ্চিমবঙ্গ দখল কোনওভাবেই সম্ভব নয়। আর তা বুঝেই একদিকে পুরোদমে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার অপব্যবহার শুরু হয়ে গিয়েছে। পাশাপাশি কাজ করছে তৃণমূলকেই ছলে বলে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়িয়ে দেওয়ার কৌশল। বিশদ

22nd  November, 2020
মমতা বিরোধিতাই
যখন রাজনীতির লক্ষ্য
তন্ময় মল্লিক

বামেদের ধারণা, মমতা তৃণমূল না গড়লে তারা আরও অনেকদিন রাজ্যপাট চালিয়ে যেত। তাদের চোখে মমতা ‘জাতশত্রু’। সেই কারণেই বিজেপিকে সাম্প্রদায়িক, ফ্যাসিস্ট সহ নানা চোখা চোখা বিশেষণে ভূষিত করলেও মমতা বিন্দুমাত্র সুবিধা পান, এমন কাজ তাঁরা কিছুতেই করেন না। বিশদ

21st  November, 2020
বাইডেন জমানা, ইমরানের অস্বস্তি
মৃণালকান্তি দাস

পাকিস্তান জন্মের পর তাদের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনকারী দেশটির নাম আমেরিকা। তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের সঙ্গে স্নায়ুযুদ্ধে পাকিস্তানকে পাশে পেতেই ঝাঁপিয়ে পড়েছিল ওয়াশিংটন। ভারতকে বাদ দিয়ে পাকিস্তানকে কেন কাছে টেনেছিল আমেরিকা? 
বিশদ

20th  November, 2020
একনজরে
পোষ্য মেজরের সঙ্গে খেলতে গিয়ে পড়ে গিয়ে পায়ের হাড়ে চিড় ধরল জো বাইডেনের। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ক্ষত সারাতে বেশ কয়েক সপ্তাহ বিশেষ জুতো পরতে হবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট বাইডনেকে। ...

দুর্গাপুর এক্সপ্রেস ওয়ের উপর দিয়ে প্রতিদিন সরকারি, বেসরকারি শয়ে শয়ে বাস যাতায়াত করে। পুরুলিয়া থেকে কলকাতা যাওয়া বা দীঘা থেকে দুর্গাপুর আসা, ওই সড়কে এসবিএসটিসির ...

লক্ষ্মীবিলাস ব্যাঙ্কের (এলভিবি) গ্রাহকরা সম্পূর্ণ ব্যাঙ্কিং পরিষেবাই পাবেন। সোমবার ডিবিএস ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে একথা জানানো হয়েছে। সম্প্রতি ডিবিএস ব্যাঙ্কের সঙ্গে লক্ষ্মীবিলাস ব্যাঙ্কের সংযুক্তিকরণ ঘটানো হয়। এরপরেই আমানত নিয়ে এলভিবির গ্রাহকদের মধ্যে নানা সংশয় দেখা দেয়। ...

নবম শিখ গুরু তেগবাহাদুরের ৪০০তম জন্মবার্ষিকী ধুমধাম সহকারে পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার। বিভিন্ন কর্মসূচি শুরু হবে ৩১ জানুয়ারি। এগুলির সফল রূপায়ণের জন্য জাতীয় স্তরে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব সমাগমে আনন্দ বৃদ্ধি। চারুকলা শিল্পে উপার্জনের শুভ সূচনা। উচ্চশিক্ষায় সুযোগ। কর্মক্ষেত্রে অযথা হয়রানি। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব এইডস দিবস
১৭৬১: মাদাম তুসো জাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা ম্যারি তুসোর জন্ম
১৯৩২:  ঔপন্যাসিক, কল্পবিজ্ঞান লেখক ও সম্পাদক অদ্রীশ বর্ধনের জন্ম
১৯৪১: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আক্রমণে চূড়ান্ত অনুমোদন দিলেন জাপানের সম্রাট হিরোহিতো
১৯৫৪: সমাজকর্মী মেধা পাটেকরের জন্ম
১৯৬৩: ভারতের ১৬তম রাজ্য হিসাবে ঘোষিত হল নাগাল্যাণ্ড
১৯৬৫: প্রতিষ্ঠিত হল বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ)
১৯৭৪: স্বাধীনতা সংগ্রামী সুচেতা কৃপালিনীর মৃত্যু
১৯৮০: ক্রিকেটার মহম্মদ কাইফের জন্ম
১৯৯৭: বিহারের লক্ষ্মণপুর-বাথে অঞ্চলে ৬৩জন নিম্নবর্গীয়কে খুন করল রণবীর সেনা
১৯৯৯: গায়ক শান্তিদেব ঘোষের মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৩.০০ টাকা ৭৪.৭১ টাকা
পাউন্ড ৯৭.০৯ টাকা ১০০.৪৮ টাকা
ইউরো ৮৬.৫১ টাকা ৮৯.৬৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
28th  November, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৮,৯৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৬,৪৭০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭,১৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫৯,৭০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫৯,৮০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭, মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর ২০২০, প্রতিপদ ২৭/১ অপঃ ৪/৫২। রোহিণী নক্ষত্র ৬/৩১ দিবা ৮/৩১। সূর্যোদয় ৬/৪/২, সূর্যাস্ত ৪/৪৭/২০। অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৫ মধ্যে পুনঃ ৭/২৮ গতে ১১/৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/২৬ গতে ৮/১৯ মধ্যে পুনঃ ৯/১২ গতে ১১/৫১ মধ্যে পুনঃ ১/৩৭ গতে ৩/২৪ মধ্যে পুনঃ ৫/৯ গতে উদয়াবধি। মাহেন্দ্রযোগ রাত্রি ৭/২৬ মধ্যে। বারবেলা ৭/২৪ গতে ৮/৪৪ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৬ গতে ২/৬ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৬ মধ্যে। 
১৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭, মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর ২০২০, প্রতিপদ দিবা ৩/৫৭। রোহিণী নক্ষত্র দিবা ৮/৩৯। সূর্যোদয় ৬/৫, সূর্যাস্ত ৪/৪৮। অমৃতযোগ দিবা ৭/০ মধ্যে ও ৭/৪২ গতে ১১/১৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩২ গতে ৮/২৬ মধ্যে ও ৯/২০ গতে ১২/১ মধ্যে ও ১/৪৯ গতে ৩/৩৬ মধ্যে ও ৫/২৪ গতে ৬/৬ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ রাত্রি ৭/৩২ মধ্যে। বারবেলা ৭/২৬ গতে ৮/৪৬ মধ্যে ও ১২/৪৭ গতে ২/৭ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৭ মধ্যে। 
১৫ রবিয়ল সানি।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
৬৭ বছরের নীচে প্লাজমা প্রয়োগে ইতিবাচক ফল
রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের প্লাজমা থেরাপিতে যথেষ্ট ইতিবাচক ফল মিলেছে। সদ্য ...বিশদ

30-11-2020 - 09:58:34 PM

ডেঙ্গু রোধে নিকাশি নালাগুলি সংস্কারের নির্দেশ মুখ্যসচিবের
ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়া রোধে আজ সোমবার নবান্নে সেচ, পুর নগরোন্নয়ন ...বিশদ

30-11-2020 - 09:57:00 PM

রাজ্যে করোনা জয়ীর সংখ্যা ৪.৫০ লক্ষ ছাড়াল
বাংলায় দৈনিক করোনা সংক্রমণের গ্রাফ নিম্নমূখী।  গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ...বিশদ

30-11-2020 - 09:21:04 PM

 কাশি বিশ্বনাথ মন্দিরে পুজো দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

30-11-2020 - 05:29:50 PM

সুতাহাটায় শিক্ষিকার গলা কাটা দেহ উদ্ধার 
সোমবার বিকেলে সুতাহাটার চৈতন্যপুরে এক অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষিকার গলা কাটা দেহ ...বিশদ

30-11-2020 - 05:26:01 PM

জো বাইডেন সরকারে আরও এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত 
আমেরিকার জো বাইডেন সরকারে অংশ নিতে চলেছেন আরও এক ভারতীয় ...বিশদ

30-11-2020 - 05:20:24 PM