Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

 একাদশ অবতার
সন্দীপন বিশ্বাস

কতদিন হয়ে গেল ওইসব দামি দামি স্যুট পরা হয়নি, কতদিন বিদেশ যাওয়া হয়নি, কত বিদেশি রাজার সঙ্গে জড়াজড়ি করে হাগ করা হয়নি। সেসব নিয়ে খুবই মন খারাপ হবু রাজার। ওড়াউড়ি, ঘোরাঘুরি বন্ধ হলে মনমেজাজ মোটেই ভালো থাকে না তাঁর। মাঝেমাঝেই প্রজাগণের প্রতি টিভিতে ‘হবু কি অমৃৎবাণী’ সম্প্রচার করা ছাড়া তেমন আর কাজ নেই এখন। সময় কাটাতে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে বক্তৃতা করেন। হাততালি দেন। দেশের সেরা ফ্যাশন ডিজাইনারদের তৈরি করা না পরা পোশাকগুলো বের করে পরেন। স্ট্রেস কাটানোর চেষ্টা করেন। ভাবেন, নানা রঙের দিনগুলি একটু একটু করে কেন যে এভাবে ধূসর হয়ে যাচ্ছে!
সেদিন সকালে তিনি তাঁর সব স্যুট ওয়ার্ড্রোব থেকে বের করে একটা একটা করে পরে দেখছিলেন। আবার খুলে রেখে দিচ্ছিলেন। সেই সব স্যুট পরে ঘরের মধ্যে বুক চিতিয়ে এদিক থেকে ওদিকে হাঁটছিলেন আর আড়চোখে আয়নার দিকে তাকিয়ে ব্যক্তিত্ব মাপছিলেন। মনে মনে বলছিলেন, ‘ওঠো, জাগো, নিজের প্রাপ্য ভাবমূর্তি আবার গড়ে তোল। যে ভাবমূর্তি তোমার ছিল, অথচ আইসক্রিমের মতো গলে গিয়েছে, আসলে তা তোমার ছিল না। তুমি যা হারিয়েছো, তাও তোমার ছিল না। তুমি যা পেয়েছো, তাও তোমার ছিল না। তুমি যেসব অমৃৎবাণী দিয়েছ, তা কখনো মেনে চলার চেষ্টা করনি। আসলে সবই তোমার দানপ্রাপ্ত! দেশের মানুষই তোমাকে এসব দান করেছে। তুমি একটা খড়ের কাঠামো মাত্র। তার উপরে মাটি, রং দিয়ে তোমাকে সুন্দর করে গড়ে তুলেছে তোমার দেশের মানুষ। তোমার ভাবমূর্তির উপর গর্জন তেল মেরে তাকে চকচকে করে তুলেছে মানুষই। তোমার ব্যর্থতার উপরেই আবার গড়ে তোল নিজের সাফল্য, ওঠো, জাগো।’
চমকে উঠলেন হবু রাজা। এসব কী ভাবছেন তিনি? এটা কি তিনি, নাকি তাঁর ভিতরের বিবেকবাণী? একটু হেসে তিনি আবার আয়নার দিকে তাকিয়ে বললেন, ‘বিবেকবোধ সব সময় দুষ্টুই হয়। ভুলভাল ভাবনা মনের মধ্যে নিয়ে আসে। সাদাকালোর দ্বন্দ্ব তৈরি হয়। বুঝতেই পারি না, কোন আমিটা ভালো, আর কোন আমিটা মন্দ!’
ওদিকে ততক্ষণে মোবাইল বেজে উঠেছে। দেখলেন গবু মন্ত্রীর ফোন। ফোনটা ধরতেই গবু বললেন, ‘মহারাজ, একটু দেখা করতে চাই। জরুরি ব্যাপার।’
হবু বললেন, ‘তোমার জরুরি সেন্স সম্পর্কে আমার ভালোই আইডিয়া আছে। কোনটা যে প্রকৃত জরুরি, তা এখনও ভালো করে বুঝতে পারলে না। ঠিক আছে, পাঁচ মিনিটের মধ্যে চলে এসো। তারপরে আমি যোগাসনে বসব।’
ফোনটা রেখে ‘হবুকোট’ গায়ে চড়াতে চড়াতে রাজা গুনগুন করে গান ধরলেন, ‘সীমান্তে ওই অ-চিন পাখি ক্যামনে ঢুকে যায়, দ্যাশের মানুষ তাই নিয়ে গো আমার মাথা খায়, ক্যামনে ঢুকে যায়...!’
আয়নার দিকে তাকিয়ে হবু রাজা ধমক দিলেন, ‘যা পালা, একদম আমাদের সীমানা পেরিয়ে ঢুকবি না, খুব মার মারব। খুব বেড়ে গেছিস না! তোদের জন্য আমাকে কথা শুনতে হচ্ছে, জানিস।’ তারপরেই আবার গেয়ে উঠলেন, ‘ওরে হাল্লা রাজার সেনা, তোরা যুদ্ধ করে করবি কি তা বল?’
কিছুক্ষণ পরেই গবু হাজির। খুব খুশি খুশি দেখাচ্ছিল তাঁকে। রক্ষীদের দ্বারা শরীর পরিশোধনের পর পিপিই পরে এলেন হবুর কাছে। প্রণাম করতে যেতেই হবু হাঁই হাঁই করে উঠলেন। ‘একদম কাছে এগবে না। আর ঘটা করে প্রণাম করার আছেটা কী? যা বলতে এসেছ, তা বলে তাড়াতাড়ি বিদায় নাও।’
গবু দূর থেকে প্রণত হয়ে হবুর পায়ের কাছে একটি পদ্ম নিবেদন করে বললেন, ‘আজ্ঞে, গুরুপূর্ণিমা। তাই প্রণাম নিবেদন করতে এলাম মহারাজ। আপনিই তো আমার গুরু।’
হবু বললেন, ‘এইটা তোমার জরুরি ব্যাপার? আমি তখনই জানতাম...।’ হাত তুলে হবু রাজাকে থামিয়ে একটু দূরত্ব রেখে গবু বসলেন। তারপর বললেন, ‘দু’টি ব্যাপার মহারাজ। একটি ভালো, অপরটি মন্দ। কোনটি আগে বলব?’
হবু বললেন, ‘আগে আনন্দের সংবাদটাই বল। মনটা আগে একটু ভালো হয়ে যাক।’
গবু বললেন, ‘আমরা বিশ্ব মহামারী চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ কাপ জয় নিশ্চিত করেছি মহারাজ। তৃতীয় স্থান দখল করে এখন এগিয়ে চলেছি।’
হবু ঠোঁট উল্টে বললেন, ‘এটা তোমার একটা জরুরি খবর হল? তুমি জানো না আমার কী টার্গেট?’ তারপর টেবিলের উপর জোরে জোরে চাপড় মেরে হবু বললেন, ‘আই উইল গো টু দি টপ, দি টপ, দি টপ। ওই বিশ্ব মহামারী চ্যাম্পিয়নশিপে সোনার কাপ জিতবে আমার দেশ। আমি ব্যক্তিগত প্রাইজ হিসাবে পাব গোল্ডেন ভাইরাস মেডেল।’
গবু হাততালি দিয়ে বললেন, ‘সাধু, সাধু, এই স্পিরিটটাই আপনার কাছ থেকে শেখার মতো। আপনি ভবিষ্যতের অনেক কিছু দেখতে পান। আমি জানি, আপনি সব বিভাগেই এই দেশকে এক নম্বরে নিয়ে যাবেন।’
হবু বললেন, ‘এবার মন্দ খবরটি বল।’
গবু বললেন, ‘মহারাজ, সীমান্ত শত্রুরা বড্ড বেশি ঘোঁট পাকাচ্ছে। সীমান্তের দেশগুলো হাত মিলিয়ে আমাদের ক্ষতি করতে চাইছে।’
হবু ঠোঁট উল্টে বললেন, ‘ওরা আমাদের কিছুই করতে পারবে না।’
গবু বললেন, ‘সীমান্তের খবর হল, ওরা রোজ একটু একটু করে ঢুকে পড়ছে। কয়েকটা দেশ নদীর জল বন্ধ করে দিচ্ছে শুনছি।’
হবু বললেন, ‘ওসব ছাড়ো, আমি আন্তর্জাতিক ব্যাপারটা ম্যানেজ করে নেব। সীমান্তের থেকে এখন আমার কাছে বড় যুদ্ধ অঙ্গরাজ্য জয়। যেসব অঙ্গরাজ্যে আমাদের অধিকার কায়েম হয়নি, সেখানে আমাদের বিজয় পতাকা ওড়াতেই হবে। সেটাই বেশি গুরুত্ব দিয়ে ভাবো। সীমান্তে আমি সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করতে পারি। সেটা অনেক সহজ। কিন্তু আমার কাছে এখন বড় পরীক্ষা অভ্যন্তরীণ পলিটিক্যাল স্ট্রাইক। তার জন্য স্ট্র্যাটেজি ঠিক করতে হবে। আসন্ন এই অপারেশনের নাম দিয়েছি, অপারেশন হাইজ্যাক।’
গবু বললেন, ‘অসাধারণ। আপনার প্রতিটি কর্মের পিছনেই থাকে একটি করে মহৎ উদ্দেশ্য। আপনার এমন ভূয়োদর্শন দেখে অবাক হয়ে যাই। আপনার ইনটিউশনের জোরেই আপনি নিজেই আজ একটা ইনস্টিটিউশন।’
হবু বললেন, ‘কর্মণ্যেবাধিকারস্তে সতত ফলেষু আশান্বিতম্‌! এই মহৎ বাণীকে সামনে রেখেই আমার সম্মুখপানে অগ্রগতি।’
গবু বললেন, ‘মহারাজ এই শ্লোক কার লেখা? গীতায় শ্রীকৃষ্ণের শ্লোকটা তো অন্যরকম।’
হবু বললেন, ‘ঠিক ধরেছো গবু। ওখানে বলা আ঩ছে, মা ফলেষু কদাচন। অর্থাৎ কাজ কর, ফলের আশা কোরো না। ওই শ্লোক অচল। তাই আমি নিজে এই শ্লোক তৈরি করেছি। কেন ফলের আশা করব না? ছাত্র পড়াশোনা করে ভালো ফলের আশায়, ডাক্তার রোগীর চিকিৎসা করেন, তাকে সারিয়ে তোলার আশায়, মানুষ কাজ করে বেতনের আশায়, রাজনীতিকরা দেশসেবা করেন ক্ষমতার আশায়। এমনকী মা-ও সন্তানকে দুগ্ধপান করিয়ে বড় করে তোলে, যাতে সে বড় হয়ে তাদের দেখে, সেই আশায়। আশায় বাঁচে চাষা। যদিও জানি, আশা হল কুহকিনী, কিন্তু আশা ছাড়া জীবন সর্বনাশা। তাহলে কেন আমি ফলের আশা করব না? এই যে আমি দেশশাসন করছি, জনসেবা করছি, সেটা তো পরের নির্বাচনে ফের জিতে ক্ষমতায় আসার জন্যই। এই যে তুমি আমাকে এত তৈলমর্দন কর, সেও তো যাতে তোমার মন্ত্রিপদটা থাকে, সেই আশায়। নাহলে দেশসেবা কিংবা জনসেবার অত নির্মোহ বাতিক রাজনীতিকদের থাকে না। এটা দেশের মানুষ বোঝে না।’
গবু বললেন, ‘আপনার রাজনৈতিক দর্শন দেখে আমি হতবাক মহারাজ। শ্রীকৃষ্ণ যেটা বুঝতে পারেননি, সেটা আপনি বুঝেছেন। একমাত্র আপনিই এই শ্লোক রচনা করতে পারেন। কারণ আপনি নিজেই একজন অবতার। গরুড় পুরাণ থেকে আমরা জানতে পারি, ভগবান বিষ্ণুর দশ অবতার ছিল। রাম, কুর্ম, বামন, বরাহ, কল্কি ইত্যাদি। আপনি হলে কলিযুগের একাদশতম অবতার। এতদিন বিষ্ণুর টিমে প্লেয়ার কম ছিল। এবার এই এগারোজনকে নিয়ে বিষ্ণুদেব ফুটবল বা ক্রিকেট টিম গড়তে পারে। খুব স্ট্রং টিম হবে। ত্রিলোক কাঁপিয়ে দেবে এই টিম।’
হবু বললেন, ‘আগে মর্ত্যলোক কাঁপাই। এখানে অনেক কাজ জমে আছে। তোমার প্রশংসার ভাবসাগরে ভাসার আগে এখন ভাবমূর্তি সাফাই করতে হবে। তুমি এখন যাও। আমার কাজ আছে।’
গবু বললেন, ‘যাই মহারাজ। গুরুপূর্ণিমায় আপনার একটু বন্দনা করে যাই। যদা যদা হি ধর্মস্য গ্লানির্ভবতি দেশাঃ/অভ্যুত্থানম দুরাত্মাস্য, অধর্ম সৃজম্যহম / পরিত্রাণায় অনুগামী, বিনাশায় চ বিপক্ষম / মূর্তিসংস্থাপনার্থায় সম্ভবামি যুগে যুগে।’
ছবি: সুব্রত মাজী
08th  July, 2020
নিত্য নতুন ইভেন্টের
আড়ালে যত খেলা
সমৃদ্ধ দত্ত

বয়কটের আগে বুঝতে হবে যে, এখন এসব বয়কট করার অর্থ আমাদের দেশেরই ব্যবসায়ী, দোকানিদের চরম আর্থিক ক্ষতি। বিগত তিনমাসের লকডাউনে এমনিতেই জীবিকা সঙ্কটে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা। আমাদের এলাকার চাইনিজ প্রোডাক্ট এখন আমরা না কিনলে চীনের ক্ষতি নেই।
বিশদ

করোনা যুদ্ধে জাপানকে জেতাচ্ছে সুস্থ সংস্কৃতি 
হারাধন চৌধুরী

সারা পৃথিবীর হিসেব বলছে, করোনা ভাইরাসে বা কোভিড-১৯ রোগে মৃতদের মধ্যে বয়স্কদের সংখ্যাই বেশি। সেই প্রশ্নে জাপানিদের প্রচণ্ড ভয় পাওয়ার কথা। কারণ, প্রতি একশো জনের মধ্যে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা জাপানেই সর্বাধিক।   বিশদ

09th  July, 2020
সীমান্ত বিতর্ক অছিলা, বাণিজ্য যুদ্ধ
জিততেই চীনের গলওয়ান কাণ্ড
সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়

সীমান্ত উত্তেজনা কমাতে ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে চীনের বিদেশ মন্ত্রীর বৈঠক আপাতত স্বস্তি দিয়েছে। কিন্তু, স্থায়ী সমাধান সূত্র মেলেনি। বরং বৈঠকের পর চীনের সরকারের বক্তব্য, দুই দেশের সম্পর্ক এক জটিল পরিস্থিতির মুখোমুখি। কী সেই পরিস্থিতি?
বিশদ

08th  July, 2020
সীমান্তেও মোদির
চমকদার রাজনীতি
শান্তনু দত্তগুপ্ত

তারিখটা ৭ নভেম্বর, ১৯৫৯। কংকা পাসের ঘটনার পর প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুকে চিঠি দিয়েছেন চৌ-এন-লাই। লিখেছেন, দু’দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে যা হয়েছে, তা দুর্ভাগ্যজনক এবং মোটেও কাঙ্ক্ষিত নয়।
বিশদ

07th  July, 2020
আইনের হাত থেকে
স্বাধীনতাকে উদ্ধার করো
পি চিদম্বরম

যদি কোনও ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়, তবে সে অবশ্যই কোনও ভুল করেছে। যদি কারও জামিন নামঞ্জুর হয়ে যায়, তবে সে নিশ্চয় অপরাধী। যদি কোনও ব্যক্তিকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়, তবে জেলসহ শাস্তিই তার প্রাপ্য।  বিশদ

06th  July, 2020
গুরু কে, কেনই বা গুরুপূর্ণিমা?
জয়ন্ত কুশারী

কে দেখাবেন আলোর পথ? পথ অন্ধকারাচ্ছন্নই বা কেন? এই অন্ধকার, মনের। মানসিকতারও। চিন্তার। আবার চেতনারও। এই অন্ধকার কুসংস্কারের। আবার অশিক্ষারও। অথচ আমরা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত এক একজন।   বিশদ

05th  July, 2020
জাতির উদ্দেশে ভাষণের চরম অবমূল্যায়ন
হিমাংশু সিংহ

অনেক প্রত্যাশা জাগিয়েও মাত্র ১৬ মিনিট ৯ সেকেন্ডেই শেষ। দেশবাসীর প্রাপ্তি বলতে আরও পাঁচ মাস বিনামূল্যে রেশন। শুধু ওইটুকুই। ছাপ্পান্ন ইঞ্চি বুক ফুলিয়ে চীনকে কোনও রণহুঙ্কার নয়, নিহত বীর জওয়ানদের মৃত্যুর বদলা নয় কিম্বা শূন্যে নেমে যাওয়া অর্থনীতিকে টেনে তোলার সামান্যতম অঙ্গীকারও নয়। ১৬ মিনিটের মধ্যে ১৩ মিনিটই উচ্চকিত আত্মপ্রচার।   বিশদ

05th  July, 2020
মধ্যবিত্তের লড়াই শুরু হল
শুভময় মৈত্র 

কোভিড পরিস্থিতি চীনে শুরু হয়েছে গত বছরের শেষে। মার্চ থেকেই আমাদের দেশে হইচই। শুরুতেই ভীষণ বিপদে পড়েছেন নিম্নবিত্ত মানুষ। পরিযায়ী শ্রমিকদের অবর্ণনীয় দুর্দশার কথা এখন সকলেই জানেন।  বিশদ

04th  July, 2020
রাজধর্ম
তন্ময় মল্লিক 

যেমন কথা তেমন কাজ। উম-পুন সুপার সাইক্লোনে ক্ষতিপূরণ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ উঠতেই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছিলেন, টাঙিয়ে দেওয়া হবে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা। ফেরানো হবে অবাঞ্ছিতদের হাতে যাওয়া ক্ষতিপূরণ।   বিশদ

04th  July, 2020
উন্নয়ন  ও  চীনা  আগ্রাসনের  উত্তর  একসুতোয় গাঁথা
নীলাশিস  ঘোষদস্তিদার 

আমরা ভারতীয়রা চীনা পণ্য বয়কট করব কি না, এই প্রশ্নে অনেকেই বেশ দ্বিধায়। এই কারণে যে এত সস্তায় কেনা সাধের চীনা অ্যান্ড্রয়েড ফোনটি ছেড়ে কি দামি আই-ফোন বা অকাজের দেশি ফোন কিনতে হবে?   বিশদ

03rd  July, 2020
ভার্চুয়াল স্ট্রাইক নাকি ড্যামেজ কন্ট্রোল!
মৃণালকান্তি দাস

ভারতের কোনও রাষ্ট্রনেতা তাঁর মতো বিদেশ সফর করেননি। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগেও বিনিয়োগ টানতে চীনে গিয়েছেন অনেকবার। তখন তিনি গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী। দশ বছরে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং চীনে গিয়েছেন ২ বার।  বিশদ

03rd  July, 2020
চীনের নতুন পুতুলের নাম পাকিস্তান
হারাধন চৌধুরী 

পাকিস্তান ছিল আমেরিকার পুতুল। এবার সেটা হাত বদলে চীনের হয়েছে। চীনের কোনও কিছুর গ্যারান্টি নেই। যেমন তাদের কথা আর বিশ্বাসের মূল্য, তেমনি চীনা প্রোডাক্টের আয়ু। এ নিয়ে চালু রসিকতাও কম নয়।  বিশদ

02nd  July, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ট্রেন বন্ধ। শিয়ালদহ খাঁ খাঁ করছে। স্টেশন সংলগ্ন হোটেল ব্যবসায়ীরা কার্যত মাছি তাড়াচ্ছেন। এশিয়ার ব্যস্ততম স্টেশনের আশপাশের লজ, হোটেল, গেস্ট হাউসগুলির সদর ...

সংবাদদাতা, বালুরঘাট: আগেই করোনাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন বালুরঘাট শহরের বাইকের একটি শোরুমের এক কর্মী। এবার সেই শোরুমের আরও এক কর্মী এবং সেখানে আসা এক ক্রেতার করোনা ...

 জীবানন্দ বসু, কলকাতা: গত এক বছরে দেশের কম আয়ের শ্রমিক-কর্মচারীদের স্বাস্থ্য ও সামাজিক সুরক্ষা দেখভালের দায়িত্বে রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারি সংস্থা ইএসআই কর্পোরেশন। এর আয় ৫ ...

বার্সেলোনা: খেতাবের দৌড়ে পিছিয়ে পড়েও লড়াই জারি বার্সেলোনার। বুধবার ক্যাম্প ন্যু’য়ে লুই সুয়ারেজের করা একমাত্র গোলে কাতালন ডার্বিতে এস্প্যানিয়লকে পরাস্ত করল কিকে সেতিয়েন-ব্রিগেড। এই জয়ের ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পঠন-পাঠনে আগ্রহ বাড়লেও মন চঞ্চল থাকবে। কোনও হিতৈষী দ্বারা উপকৃত হবার সম্ভাবনা। ব্যবসায় যুক্ত হলে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৮৫- ভাষাবিদ মহম্মদ শহীদুল্লাহর জন্ম,
১৮৯৩- গণিতজ্ঞ কে সি নাগের জন্ম,
১৯৪৯- ক্রিকেটার সুনীল গাভাসকরের জন্ম,
১৯৫০- গায়িকা পরভীন সুলতানার জন্ম,
১৯৫১- রাজনীতিক রাজনাথ সিংয়ের জন্ম



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৩.০৪ টাকা ৭৬.৭৪ টাকা
পাউন্ড ৯২.১৪ টাকা ৯৭.১৪ টাকা
ইউরো ৮২.৯৩ টাকা ৮৭.৪০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫০,০৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,৪৯০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮,২০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫১,৭১০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫১,৮১০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, পঞ্চমী ১৬/৩০ দিবা ১১/৩৯। পূর্বভাদ্রপদ অহোরাত্র। সূর্যোদয় ৫/২/৪২, সূর্যাস্ত ৬/২১/২৷ অমৃতযোগ দিবা ১২/৮ গতে ২/৪৮ মধ্যে। রাত্রি ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৮ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/২২ গতে ১১/৪২ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/১ গতে ১০/২১ মধ্যে।
২৫ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, পঞ্চমী দিবা ১১/২৭। পূর্বভাদ্রপদ নক্ষত্র অহোরাত্র। সূযোদয় ৫/২, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ১২/৯ গতে ২/৪৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/৩০ মধ্যে ও ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে ও ৩/৩৭ গতে ৫/৩ মধ্যে। বারবেলা ৮/২৩ গতে ১১/৪৩ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৩ গতে ১০/২৩ মধ্যে।
১৮ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মহারাষ্ট্রে করোনা পজিটিভ আরও ৭,৮৬২ জন, মোট আক্রান্ত ২,৩৮৬১ 

09:42:28 PM

কর্ণাটকে করোনা পজিটিভ আরও ২,৩১৩ জন, মোট আক্রান্ত ৩৩,৪১৮ 

08:09:39 PM

করোনা: রাজ্যে ফের রেকর্ড সংক্রমণ 
গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ফের রেকর্ড সংক্রমণ। একদিনে পশ্চিমবঙ্গে করোনা ...বিশদ

07:40:59 PM

করোনায় আক্রান্ত কোয়েল মল্লিক 
করোনায় আক্রান্ত হলেন অভিনেত্রী কোয়েল মল্লিক, তাঁর স্বামী নিসপাল সিং ...বিশদ

07:29:30 PM

তামিলনাড়ুতে করোনা পজিটিভ আরও ৩,৬৮০, মোট আক্রান্ত ১,৩০,২৬১ 

07:17:58 PM

কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঘিরে উত্তেজনা 
কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে এক মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল ভিলেজ পুলিসের বিরুদ্ধে। ...বিশদ

04:00:41 PM