Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

সুদিনের আশায়
গ্রামীণ পর্যটন
দেবাশিস ভট্টাচার্য

ক’দিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমাদের গ্লোবাল হওয়ার কথা বললেন। বললেন দেশীয় উৎপাদন ও সম্পদকে আন্তর্জাতিক রূপ দিতে হবে। মেড ইন ইন্ডিয়া, মেড ফর ওয়ার্ল্ড। ব্যাপারটাকে আমরা লোকাল টু গ্লোবাল হিসেবে দেখতে পারি। সহজ কথায়, আত্মমর্যাদায় ভর করে আত্মনির্ভর হবার স্বপ্ন দেখালেন। এ যেন সদ্য প্রয়াত পি কে ব্যানার্জির ভোকাল টনিক। যে টনিক সেবন করে মোহন-ইস্টের খেলোয়াড়রা নিজেদের উজাড় করে দিতেন। আর হাসি ফুটত অজস্র সমর্থকের মুখে। তেমন হাসি কি ফুটবে সমগ্র ভারতবাসীর মুখে? এখন সেটাই দেখার। স্থানীয় জনগোষ্ঠীর ক্ষমতায়নের সবচেয়ে বড় ক্ষেত্রটি হল গ্রামীণ পর্যটন। বহু মানুষের কর্মসংস্থান এখানে সম্ভব। ওয়ার্ল্ড ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম কাউন্সিলের হিসাব অনুযায়ী, সারা বিশ্বে পর্যটন শিল্পে এ বছর তিরিশ কোটি তিরিশ লক্ষ মানুষ কাজ পাবেন। আরও সহজ করে বললে প্রতি ১০.৯টি চাকরির মধ্যে একটির সঙ্গে যুক্ত হবেন পর্যটন কর্মী।
গ্রামীণ পর্যটন
‘ভারতের গ্রামই হল ভারতের প্রাণ। এই গ্রামই ভারতাত্মা বাস করেন’—গ্রামীণ ভারত সম্পর্কে মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধীর এই কথাটি মাইলস্টোন হয়ে আছে। বর্তমানে আমাদের জনসংখ্যার বাহাত্তর ভাগ মানুষই গ্রামে বাস করেন। স্বভাবতই গ্রামীণ পর্যটন এমনই এক সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র যা রুটি-রজির সংস্থানের পাশাপাশি গ্রাম-শহর বৈষম্য দূর করার ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে। আন্তর্জাতিক স্তরে গ্রামীণ পর্যটন বহুদিন ধরেই স্বীকৃত। আমাদের দেশে এর পথ চলা শুরু বেশি দিনের নয়। নব্বই দশকের মাঝামাঝি সময়ে এর যাত্রা শুরু। গত ২০১০ সালে আমাদের দেশের একশো ছেষট্টি গ্রামে গ্রামীণ পর্যটন শুরু হয়েছে। ইউরোপের দেশগুলোতে পঞ্চাশের দশকের শুরুতেই গ্রামীণ পর্যটনের সূচনা হয়। মূলত বৃহৎ কৃষিনির্ভর দেশ যেমন নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, জার্মানি, সুইজারল্যান্ড, ফ্রান্স, স্পেন, হল্যান্ড, ইংল্যান্ড, আমেরিকা, কানাডা, আর্জেন্টিনা, এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় গ্রামীণ পর্যটন বিপুল জনপ্রিয়তা পায়। ফ্রান্সে চালু হয় কৃষি পর্যটন। বর্তমানে ফ্রান্সের কৃষকদের মধ্যে ২.৮ শতাংশ কৃষক গ্রামীণ পর্যটকদের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দিচ্ছেন। আর আমাদের দেশের সর্বত্র কৃষকরা আত্মহননের পথ বেছে নিচ্ছেন। স্পেনে আশির দশকে কৃষি পর্যটন শুরু হয়। এখন সে দেশে গ্রামাঞ্চলে পর্যটকদের জন্য সাত হাজার গ্রামীণ রিসর্টে পঞ্চাশ হাজার পর্যটকের থাকার ব্যবস্থা হয়েছে। সমগ্র ইউরোপে দুই থেকে পাঁচ শতাংশ কৃষক প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে গ্রামীণ পর্যটনের সঙ্গে যুক্ত। লোকালের জয়গান গাওয়া নরেন্দ্র মোদি সত্যিই কি চান গ্রামীণ পর্যটনের হাত ধরে গ্রামীণ জীবনে উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের জোয়ার আসুক এবং গ্রামীণ সংস্কৃতির উত্তরণ ঘটুক।
গ্রামীণ পর্যটনের উদ্দেশ্য
ভারতের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বহু প্রাচীন হস্তশিল্পসহ নানান প্রথাগত শিল্পশৈলী ক্রমশ হারিয়ে যাচ্ছে। উপযুক্ত পরিকল্পনার মাধ্যমে সেগুলির পুনরুদ্ধার ও পুনরুজ্জীবন সম্ভব। এজন্য স্থানীয় শিল্পীদের দক্ষতা বৃদ্ধির এক নিরন্তর প্রবহমান ধারা চালু রাখতে হবে। হস্তশিল্পীদের উৎপাদিত পণ্যের চাহিদা ও বাজার তৈরির ব্যবস্থা করতে হবে। এইভাবে লক্ষ লক্ষ শিল্পীর আর্থিক সমৃদ্ধির দিশা দেখানো যাবে। নয়ের দশকে কয়েকটি এনজিও-র সদস্যরা স্থানীয় কিছু উদ্যমী মানুষকে সঙ্গে নিয়ে এর সূচনা করেন। প্রকৃত অর্থেই জনগোষ্ঠীভিত্তিক সংগঠনই (কমিউনিটি বেসড অর্গানাইজেশন) ছিল এর প্রধান চালিকাশক্তি। স্বাধীনোত্তর কাল থেকে আজ পর্যন্ত আমাদের দেশে সর্বত্র চালু থাকা ‘টপ ডাউন অ্যাপ্রোচ’-এর একেবারে বিপরীতধর্মী ‘ডাউন টু টপ’ ধারাকে ভিত্তি করেই এগতে থাকে। এম আর মুরারকা রুরাল রিসার্চ ফাউন্ডেশন রাজস্থানের শেখাবতই অঞ্চলের গ্রামের মানুষদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জৈবচাষে উৎসাহিত করে। একই সঙ্গে আতিথেয়তা শিল্পের প্রাথমিক পাঠও শেখাতে থাকে। এরপর ওই অঞ্চলের শিল্প-সংঙ্কৃতির নানান পসরা বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণের জন্য বিদেশে পাঠানো হয়। ধীরে ধীরে ভারতে গ্রামীণ পর্যটনের বিকাশের ক্ষেত্রে শেখাবতই একটা মডেল হয়ে ওঠে।
গ্রামীণ পর্যটনে প্রধানত পাঁচটি বিষয়ের উপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়। সেগুলি হল কৃষি পর্যটন, ধর্মীয় পর্যটন, হেরিটেজ পর্যটন, প্রকৃতি পর্যটন এবং অ্যাডভেঞ্চার পর্যটন। বর্তমানে ভারতের বত্রিশটি বিখ্যাত গ্রামীণ পর্যটন ক্ষেত্রগুলির কয়েকটি হল রাজস্থানের জয়পুর জেলার সামোদ ও আলোয়ার জেলার নিমরানা, মেঘালয়ের মৌসিনরাম, তামিলনাডুর শিবগঙ্গা জেলার কারাইকুডি ও থুকুডি জেলার কাজঘুমালাই এবং ত্রিপুরার কমলানগর। আমাদের রাজ্যে সাতটি জায়গায় আমরা গ্রামীণ পর্যটন দেখতে পাই। বীরভূম জেলার শান্তিনিকেতন ও বল্লভপুরডাঙা এবং বাঁকুড়া জেলার মুকুটমণিপুর, সোনামুখী, পাঁচমুড়া, ছান্দার ও বিষ্ণুপুরের পোড়ামাটির হাট। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে বাকি একুশটি জেলায় গ্রামীণ পর্যটনের তেমন প্রচার ও প্রসার ঘটেনি। মহারাষ্ট্র, কেরল ও মেঘালয় যেখানে গ্রামীণ পর্যটনে সফলকাম হয়ে সরকারি কোষাগারকে স্ফীত করছে তেমনটা কিন্তু আমাদের রাজ্যের ক্ষেত্রে চোখে পড়েনি।
গ্রামীণ পর্যটনের সমস্যা
গ্রামীণ পর্যটন শিল্পের সফল রূপদানের ক্ষেত্রে বেশ কিছু প্রতিবন্ধকতাও আমরা দেখতে পাই। মূলত গ্রামীণ পরিকাঠামোর অপ্রতুলতা এবং গ্রামীণ পর্যটনের সুষ্ঠু বিপণন। তবে, এক্ষেত্রে আমাদের রাজ্যের প্রশংসা করতেই হয়। সারা দেশের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনার বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে প্রথম স্থানে রয়েছে মুর্শিদাবাদ এবং দ্বিতীয় স্থানে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা। এই পরিকাঠামোকে হাতিয়ার করে গ্রামীণ ভারতের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, শিল্পকলা ও হস্তশিল্পগুলির উৎসস্থলগুলিকে অতি সহজেই পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত করা যেতে পারে। হরিয়ানা ও কেরল, গ্রামীণ পর্যটন শিল্পকে দেশের মধ্যে ও আন্তর্জাতিক বাজারে বিপণনের একটি সুপরিকল্পিত রূপরেখা তৈরির চেষ্টা করে যাচ্ছে।
গ্রামীণ পর্যটনের সম্ভাবনা
বণিকসভা ফিকি-র একটি সমীক্ষা থেকে জানা যাচ্ছে যে, ভারতে গ্রামীণ পর্যটনেই সর্বাধিক কর্মসংস্থান ও বিনিয়োগের সম্ভাবনা রয়েছে। গ্রামীণ পর্যটন শিল্পে যদি দশ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হয় তাহলে একেবারে শুরুর দিকে আটচল্লিশ জনের কর্মসংস্থান হবে। পরবর্তী পর্যায়ে আরও অতিরিক্ত সাতাত্তর জন মানুষ নিযুক্ত হবেন। এইভাবে সংখ্যাটা ক্রমশ বাড়বে। এছাড়াও অপ্রত্যক্ষভাবে যারা চিরায়ত হস্তশিল্প, কারুশিল্প ও মৃত্তিকা শিল্পের সঙ্গে যুক্ত তারাও রুটিরুজির সংস্থান করতে পারবেন। ভারত সরকারের পর্যটন মন্ত্রকের হিসাব অনুযায়ী, গ্রামীণ পর্যটনে কাজের অনুপাত ১:৩৬। ইউপিএ সরকারের ‘পর্যটন রোজগার যোজনা’-র লক্ষ্য ছিল, স্থানীয় পঞ্চায়েতকে সঙ্গে নিয়ে গ্রামীণ পর্যটনের বিকাশ সাধন। বর্তমানে এনডিএ-টু সরকারের ছাপান্ন ইঞ্চি ছাতিধারী একনায়কের যদি সদিচ্ছা থাকে তাহলে এই প্রকল্পটিকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। যেখান থেকে করোনার উৎপত্তি সেই চীনের দক্ষিণ পশ্চিম গুইঝোউ প্রদেশের ‘এথনিক ট্যুরিজম’ আশির দশকেই জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছয়। ভারত কি পারবে গ্রামীণ পর্যটনের ক্ষেত্রে অভিনব কোনও মডেলের জন্ম দিতে? স্বজন হারানো পরিবার কিংবা কাজ খুইয়ে কর্মহীন, ভাগ্যহীন নাগরিকদের জীবনে আবার সুখ-শান্তি-আনন্দ ফিরে আসবে কি? গ্রামীণ অর্থনীতির পুনুরুজ্জীবনের পাশাপাশি গ্রামীণ সংস্কৃতি নব নব রূপে পল্লবিত হবে। প্রায় সত্তর বছর ধরে অবহেলিত গ্রাম্য মানুষগুলো মাথা উঁচু করে প্রকৃত মানুষের মতো বাঁচার স্বাদ পাবেন। মানবেতর প্রাণীর মতো ধুঁকে ধুঁকে নিজেকে আর নিঃশেষ করা নয়, আমরা সবাই সেই সুদিনের আশায় রইলাম।
 লেখক  পেশায়  কেরিয়ার কাউন্সেলর
01st  July, 2020
দলভাঙানো রাজনীতি:
এ রাজ্যে নবতর সংযোজন

এই রাজ্যে দল ভাঙানোর অনৈতিক রাজনীতির যাঁরা প্রবর্তক, তাঁরা এখন হঠাৎ চিৎকার শুরু করলেন কেন? পাঁচিল ভেঙে পথ করেছে তৃণমূল। সেই পথ ধরেই বিজেপি আজ তৃণমূলের ঘর ভাঙছে।
বিশদ

নবান্ন দখলের ভোট
ও প্রেশার পলিটিক্স
হারাধন চৌধুরী

বিজেপি নেতৃত্ব ভাবছে, নাটক আর প্রেশার পলিটিক্স দিয়েই হাঁড়ির হাল মেরামত করে ফেলবে। কিন্তু মাস্টার স্ট্রোকের পলিটিক্সে আজও যিনি অদ্বিতীয় সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বুঝিয়ে দিয়েছেন, নন্দীগ্রাম ভাঙিয়ে একটি পরিবারের রাজনীতিকে আর একপাও এগতে দেবেন না তিনি। বিশদ

20th  January, 2021
তৃণমূল বনাম তৃণমূল (বি)
শান্তনু দত্তগুপ্ত

হতে পারে বাংলার ভোট প্রধানমন্ত্রীর কর্তৃত্ব কায়েমের অ্যাসিড টেস্ট। কিন্তু একুশ যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও প্রেস্টিজ ফাইট! দাঁড়িপাল্লার একদিকে কেন্দ্র, আর অন্যদিকে মমতার সরকারকে রাখলে উন্নয়ন এবং বেনিফিশিয়ারির নিরিখেই বিজেপি অনেক নীচে নেমে যাবে। বিশদ

19th  January, 2021
বাজেটের আগে অর্থমন্ত্রী
আরও বিভ্রান্ত করলেন
পি চিদম্বরম

যে-দেশে আমরা আজ বাস করছি সেটা দিনে দিনে অচেনা এবং বিস্ময়কর হয়ে যাচ্ছে। এটা খুব অবাক ব্যাপার নয় কি গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচিত একটা সরকার তার পুরনো গোঁ ধরেই বসে থাকবে, বিশেষ করে দিল্লির ভয়ানক শীতের মধ্যেও কৃষকদের প্রতিবাদ আন্দোলন যখন ৫৬ দিনে পা দিয়েছে? বিশদ

18th  January, 2021
ভোটকে কলুষিত করলে
উচিত শিক্ষা দিতে হবে
হিমাংশু সিংহ

তৃণমূল ভাঙতে দশ মণ তেল পুড়িয়ে বিজেপি এখন বুঝতে পারছে শুধু অবিশ্বাসের উপর দাঁড়িয়ে বাংলা দখল প্রায় অসম্ভব! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দুর্বল করা যাচ্ছে না। বিশদ

17th  January, 2021
ভোটের আগে ‘গাজর’ ঝোলানো
বিজেপির ট্র্যাডিশন
তন্ময় মল্লিক

ভোটের মুখে ‘গাজর’ ঝোলানোটা বিজেপির ট্র্যাডিশন। ২০১৪ সালে লোকসভা ভোটের আগে সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয়দের জমা ‘বেআইনি অর্থ’ ফিরিয়ে এনে প্রত্যেককে ১৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা বলেছিল বিজেপি। ‘গাজর’ ঝোলানোর সেই শুরু। এবার সোনার বাংলা ও কৃষি সম্মান নিধির ‘গাজর’। বিশদ

16th  January, 2021
ক’দিনের জন্য বাঙালি হওয়া যায় না
মৃণালকান্তি দাস

মাস কয়েকের জন্য রবীন্দ্রনাথ, রামমোহন, শ্রীচৈতন্য... বাংলার মনীষীরাই হয়ে উঠছেন গেরুয়া বাহিনীর প্রচারের অনুঘটক। এটা স্পষ্ট, ‘বহিরাগত’ তকমা ঘোচাতে বিজেপিকে নিরুপায় হয়েই বাংলার মনীষীদের আশ্রয় খুঁজতে হচ্ছে। বাংলার মনীষীরা কোন দলে, ভোট-হাওয়ায় সেই ধন্দ উস্কে দিতে চাইছে বিজেপি। বিশদ

15th  January, 2021
বাঙালির অস্তিত্ব রক্ষা দেশের
জন্যও ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ
জিষ্ণু বসু

বাঙালি ভারতের নবজাগরণের কাণ্ডারীর ভূমিকা পালন করেছে। জীবন্ত জাগ্রত ভারতাত্মার পূজাবেদি ছিল বাংলা। ১৮৮২ সালে ঋষি বঙ্কিমচন্দ্র লিখলেন আনন্দমঠ উপন্যাস। বাঁধা হল ‘বন্দেমাতরম’ গান। দেশমাতৃকাকে দশপ্রহরণধারিণী দেবী দুর্গার সঙ্গে তুলনা করলেন সাহিত্যসম্রাট। বিশদ

14th  January, 2021
এই রাজ্যে মেয়েদের
ভোট ভাগ করা যাবে না
সন্দীপন বিশ্বাস

বিজেপি জানে, পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতা দখল করতে না পারলে তাদের সিএএ-এনআরসি সব ব্যর্থ হয়ে যাবে। সারা দেশে একজন ব্যক্তিত্বই তাঁদের সব ভুলভাল কাজকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে লড়াই জারি রাখতে পারেন। তাঁর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপির কাছে মমতা নামটাই জুজুর মতো। বিশদ

13th  January, 2021
বিজেপির প্রচারে স্বামীজি
আছেন, কিন্তু অনুসরণে...?
শান্তনু দত্তগুপ্ত

স্বামীজি বলতেন, ‘এমন ধর্ম চাই, যার মূল মন্ত্র হবে মানবপ্রেম। এমন ধর্ম চাই, যা মানুষকে, বিশেষ করে অবহেলিত, পদদলিত মানুষকে প্রত্যক্ষ মানুষ বলে প্রচার করবে। খালি পেটে ধর্ম হয় না। ক্ষুধার্ত মানুষের কাছে ধর্ম বা ঈশ্বর অর্থহীন।’ নাঃ... যে পরিব্রাজক এমন কথা বলতে পারেন, তাঁকে বিজেপি অন্তত অনুসরণ করে না। বিশদ

12th  January, 2021
বিবেকানন্দের স্বপ্নের
বাংলা আবার গঠিত হবে
জগৎপ্রকাশ নাড্ডা

এক নতুন ভারতবর্ষের স্বপ্ন দেখেছিলেন স্বামীজি, যেখানে দারিদ্র্যের মোচন এবং চেতনার উন্মেষ ঘটবে। এই কাজে প্রয়োজন বিপুল পরিমাণ যুবশক্তি। বিশদ

12th  January, 2021
মহামারী, ভ্যাকসিন
এবং বিতর্ক
পি চিদম্বরম

মহামারী বিদায় নিচ্ছে বলে মনে হয়, তবে এখনও বিদায় হয়নি। ভ্যাকসিন আসছে বলে মনে হয়, তবে বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছয়নি। কিন্তু একটা জিনিস বরাবর একজায়গায় রয়ে গিয়েছে, সেটা হল বিতর্ক! বিশদ

11th  January, 2021
একনজরে
নিজেদের দাবি আদায়ে আরও বড় আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিক্ষোভরত কৃষকরা। আগামী ২৬ জানুয়ারি, সাধারণতন্ত্র দিবসের আগেই একপ্রকার নজিরবিহীনভাবে দিল্লি-হরিয়ানা সীমানায় আয়োজন করা হতে পারে ‘কিষান সংসদ’। ...

৪০টি শ্রম আইনকে একত্রিত করে চারটি লেবার কোডে পরিণত করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ১ এপ্রিলের আগেই সারা দেশে কার্যকর করা হতে পারে সেই চার লেবার কোড। এমনটাই খবর শ্রমমন্ত্রকের শীর্ষ সূত্রে। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মঙ্গলবার রাতে হঠাৎই শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটল প্রাক্তন ফুটবলার প্রশান্ত ডোরার। জেনারেল বেড থেকে তাঁকে আইসিইউ’তে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদহ: দুয়ারে সরকার কর্মসূচিতে জমা পড়া অভিযোগের নিষ্পত্তি বা পাড়ায় সমাধান কর্মসূচিতে রূপায়িত প্রকল্পের ব্যাপারে মানুষকে আরও বেশি করে জানাতে হবে। প্রকল্পস্থলে উদ্বোধনী ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

 বিদ্যার্থীরা পড়াশুনার ক্ষেত্রে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাবে। নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস বাড়বে। অতিরিক্ত চিন্তার জন্য উচ্চ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯০১ - টেলিফোনের উদ্ভাবক ইলিশা গ্রে-র মৃত্যু
১৯৪৫- স্বাধীনতা সংগ্রামী রাসবিহারী বসুর মৃত্যু
১৯৫০- ইংরেজ সাহিত্যিক জর্জ অরওয়েলের মৃত্যু
১৯৬৮- চারটি হাইড্রোজেন বোমা সহ গ্রিনল্যান্ডে ভেঙে পড়ল আমেরিকার বি-৫২ যুদ্ধবিমান
১৯৭২ - মনিপুর, মেঘালয় ও ত্রিপুরা ভারতের পূর্ণ রাজ্যে পরিণত হয়।
১৯৮৬- অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের জন্ম 
২০০৮ - কালো সোমবার হিসেবে বিশ্বব্যাপী শেয়ার বাজারে প্রতিষ্ঠিত। এফটিএসই ১০০-এর সূচক একদিনে সবচেয়ে বড় পতন ঘটে। ইউরোপীয় স্টক এক্সচেঞ্জগুলো ১১ সেপ্টেম্বর, ২০০১ - এর পর সবচেয়ে খারাপ করে শেষ হয়। এশিয়ার শেয়ার মার্কেটগুলোর সূচক ১৪% কমে যায়।



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.২৯ টাকা ৭৪.০০ টাকা
পাউন্ড ৯৮.১৩ টাকা ১০১.৫৭ টাকা
ইউরো ৮৭.২৫ টাকা ৯০.৪৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫০,০০০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,৪৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮,১৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৬,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৬,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ মাঘ ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, অষ্টমী ২৩/২০ দিবা ৩/৫১। অশ্বিনী নক্ষত্র ২৩/৪ দিবা ৩/৩৬। সূর্যোদয় ৬/২২/৪২, সূর্যাস্ত ৫/১৩/১০। অমৃতযোগ রাত্রি ১/৭ গতে ৩/৪৪ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৭/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১০/৪৩ গতে ১২/৫২ মধ্যে। বারবেলা ২/২৯ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৪৮ গতে ১/২৭ মধ্যে। 
৭ মাঘ ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, অষ্টমী দিবা ৩/৪৪। অশ্বিনী নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/২। সূর্যোদয় ৬/২৬, সূর্যাস্ত ৫/১২। অমৃতযোগ রাত্রি ১/৭ গতে ৩/৪২ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৭/৪৬ মধ্যে ও ১০/৪৩ গতে ১২/৫৬ মধ্যে। কালবেলা ২/৩০ গতে ৫/১২ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৪৯ গতে ১/২৮ মধ্যে।
৭ জমাদিয়স সানি।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইএসএল-এ আজ মোহন বাগান ১ : ০ গোলে হারাল চেন্নাইয়ানকে 

09:30:58 PM

আইএসএল: মোহন বাগান ১ চেন্নাইয়ান ০ (৯০ মিনিট) 

09:24:48 PM

আইএসএল: মোহন বাগান ০ চেন্নাইয়ান ০ (প্রথমার্ধ)

08:24:23 PM

পুনের অগ্নিকাণ্ডে পাঁচজনের দেহ উদ্ধার
পুনের সিরাম ইনস্টিটিউটের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পাঁচজনের দেহ উদ্ধার হয়েছে বলে ...বিশদ

06:12:59 PM

বর্ধমান ও আসানসোলে বিজেপি-র গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে
বর্ধমান শহর ও আসানসোলে একসঙ্গে দু’জায়গায় প্রকাশ্যে এল বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। ...বিশদ

05:12:00 PM

পুনের সিরাম ইনস্টিটিউটে আগুন
অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল দেশের বৃহত্তম ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থা  পুনের সিরাম ...বিশদ

03:20:00 PM