Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

ফজলুর রহমানের উত্থান, ইমরানের মাথাব্যথা
মৃণালকান্তি দাস

ক্ষমতা টলমল পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের! সরকারের অপদার্থতা, ভোটে রিগিং এবং আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের খানের পদত্যাগের দাবি তুলেছেন জমিয়াত উলেমা-এ-ইসলামের প্রধান মৌলানা ফজলুর রহমান। একই দাবিতে পাকিস্তানের বিরোধী দলনেতাদের নিয়ে গত ২৭ অক্টোবর দক্ষিণ সিন্ধ প্রদেশে ‘আজাদি মার্চ’ নামে একটি বিক্ষোভ র‌্যালি করেন। সেই শুরু। মিছিল যত রাজধানীর দিকে পৌঁছেছে, ততই তার দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ বেড়েছে।
এরপর পাকিস্তান দেখেছে, দাড়িওয়ালা বিক্ষোভকারীদের গাড়ির বিশাল বিশাল কনভয়। হাতে উঁচু করে ধরা কালো ও সাদা পতাকা। সুক্কুর, মুলতান, লাহোর এবং গুজরানওয়ালা হয়ে সর্ষে হলুদ রঙের পোশাক পরা প্রতিবাদকারীরা শুক্রবার পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে জড়ো হয়েছে। তাদের দাবি, ‘অদক্ষ প্রশাসক’ প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে পদত্যাগ করতে হবে। বিক্ষোভকারীদের গাড়ির বহর যতই চোখ ধাঁধানো হোক না কেন সেখানে আরও একটি বিষয় নজর কাড়ছে সকলের, এই বিক্ষোভে নেই কোনও মহিলার অংশগ্রহণ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, আজাদি মার্চ শুরু হওয়ার আগে যে লিফলেট প্রকাশ করা হয়েছে তাতে মহিলাদের ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়ে বলা হয়েছে, ‘রোজা ও নামাজ পড়তে’।
পাকিস্তানের বিরোধী দল জমিয়াত উলেমা-এ-ইসলামের প্রধান মৌলানা ফজলুর রহমানের দাবি, ‘আমরা যাতে সফল হই, সে জন্য তাঁরা রোজা রেখে আল্লার কাছে দোয়া করছেন।’ একইসঙ্গে তাঁর ঘোষণা, ‘এখন দেশ আমাদের নিয়ন্ত্রণে। আমরা ভেঙে পড়া অর্থনীতিকে মাথা তুলে দাঁড় করাব। অর্থনীতিকে একটি স্থিতিশীল অবস্থায় নিয়ে আসাই আমাদের লক্ষ্য।’ সেই সঙ্গে দেশের ‘শক্তিশালী’ প্রতিষ্ঠানগুলিকে নিরপেক্ষ থাকতে অনুরোধ করেন ফজলুর। ‘শক্তিশালী’ প্রতিষ্ঠান বলতে তিনি যে সেনাকে বুঝিয়েছেন, তা নিয়ে পাক রাজনীতিকদের সন্দেহ ছিল না। বিক্ষোভ সমাবেশে বারবার বলেছেন, ইমরান খান সেনাদের পুতুল।
ইমরান খানকে পদত্যাগের জন্য রবিবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। ফজলুর রহমান ইঙ্গিত দিয়েছেন, রবিবারের মধ্যে ইমরান পদত্যাগ না করলে বিক্ষোভকারীদের নিয়ে তিনি রেড জোনে প্রবেশ করবেন। কোনও চাপেই তিনি নতি স্বীকার করবেন না। পাল্টা জবাবে ইমরান খানও জানিয়ে দিয়েছেন, কোনও অগণতান্ত্রিক দাবি মানা হবে না। বিক্ষোভকারীরা যেন সরকারকে ব্ল্যাকমেল করতে না পারে সে বিষয়েও সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। পরিস্থিতি যে একটা ভয়াবহ আকার ধারণ করতে চলেছে, তা আঁচ করেই পাক পুলিস-প্রশাসন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। ইসলামাবাদের গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।
হিংসা রুখতে রাজধানীর সর্বত্র সেনা এবং আধাসামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে প্রশাসনকে সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী ইজাজ শাহ। পার্লামেন্টের সামনে সাঁজোয়া যান মোতায়েন করা হয়েছে। স্পর্শকাতর জায়গাগুলোতে নিরাপত্তা বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্যও আনা হয়েছে। জমিয়াত উলেমা-এ ইসলামের প্রধানের হুমকির পর প্রধানমন্ত্রীর বানি গালা বাসভবনের দিকের সড়কগুলোতে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।
প্রশ্ন হল, ইমরান খানকে উৎখাতের ডাক দেওয়া কে এই ফজলুর রহমান? বাবা মুফতি মাহমুদের হাত ধরেই ফজলুর রহমানের রাজনীতিতে আসা। ১৯৭৯ সালের ৯ নভেম্বর করাচির খালিকে দুনিয়া হলে মৌলানা প্রথম রাজনৈতিক বক্তব্য রাখেন। এই বক্তব্যে তিনি তৎকালীন সেনাশাসক জেনারেল জিয়াউল হকের রাষ্ট্রপ্রধান পদে বসার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করেন। এরপর থেকে তাঁর জেলে যাওয়া আসা শুরু। ১৯৮১ সালে তিনি যখন জেনারেল জিয়াউল হকের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে কারাবন্দি হন। তখন তাঁকে জমিয়াতে উলেমা-এ ইসলামের জেনারেল সেক্রেটারি নির্বাচন করা হয়। ১৯৯৫ সালের ২৮ মার্চ জামেয়া মাদানিয়া করিমপার্কে ৩২৫ সদস্যের অধিকাংশের মতামতের ভিত্তিতে ফজলুর রহমান সভাপতি নির্বাচিত হন। ফজলুর রহমান রাজনৈতিক মামলায় মোট ১০ বার কারাবরণ করেছেন।
১৯৯৩ সনে বেনজির ভুট্টো দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হলে ফজলুর রহমান জাতীয় সংসদের বিদেশ বিষয়ক কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে যখন বেনজির ক্ষমতাচ্যুত হন, তখন নওয়াজ শরিফের তদন্ত ব্যুরো সর্বশক্তি নিয়োগ করেও ফজলুর রহমানের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ আনতে পারেনি। আগেও পাকিস্তানে ইসলামি অনেক দল ছিল, কিন্তু তা কোনও জাতীয় শক্তির রূপ ধারণ করতে পারেনি। ফজলুর রহমান ২০০২ সালে সব ইসলামি দল নিয়ে ‘মুত্তাহিদা মজলিসে আমল’ (এমএমএ) নামে একটি জোট গঠন করেন। যার সভাপতি ছিলেন বেরেলভিপন্থি মৌলানা শাহ আহমদ নুরানি এবং মুখপাত্র ছিলেন তিনি নিজে। এতে জামাত, শিয়াসহ সব মত ও পথের লোকেরা তাঁর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয় এবং এমএমএ কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক পরিষদে ৭২টি আসনে জয়লাভ করে।
পাকিস্তানের সাংবাদিক হামিদ মীর একবার তাঁর এক সম্পাদকীয় কলামে লেখেন, ‘অনেক যুবক আমাকে জিজ্ঞেস করেন যে, পাকিস্তানে সবচেয়ে উঠতি রাজনীতিবিদ কে? আমি সাধারণত এমন প্রশ্ন এড়িয়ে চলি। কিন্তু কিছু নাছোড়বান্দা যখন আমাকে চেপে ধরে, তখন অনায়াসে তাদের জবাবে মুখ থেকে বেরিয়ে আসে, মৌলানা ফজলুর রহমান। মজার কথা হল, কেউ কেউ এই জবাব শুনে খুশিতে আত্মহারা হয়ে যান, আবার কেউ কেউ অগ্নির্শমা হয়ে বলেন যে, তাহলে তাঁকে ‘ডিজেল মৌলানা’ বলা হয় কেন? আমি সাধারণত এ কথার জবাব এভাবে দিই যে, তাঁকে ডিজেল মৌলানা খেতাবদাতা জনাব আতাউল হক কাসেমিও একথা অকপটে স্বীকার করতে বাধ্য যে, ফজলুর রহমান পাকিস্তানের উঠতি রাজনীতিবিদের প্রথম সারির একজন।’
এহেন ফজলুর রহমান ডাক দিয়েছেন, ‘পাকিস্তানের গর্বাচেভকে পদত্যাগ করতে হবে।’ বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে দেওয়া বক্তৃতায় বলেন, ‘২৫ জুলাইয়ের নির্বাচন ছিল জালিয়াতিতে ভরা। ওই নির্বাচনের পর ক্ষমতায় আসা সরকার কিংবা সরকারকে স্বীকৃতি দিচ্ছি না আমরা। সরকারকে আমরা এক বছর সময় দিয়েছি। কিন্তু এখন আর বেশি সময় দেওয়া যাবে না। ইসলাম ও পাকিস্তান কখনও আলাদা হতে পারে না। ইসলামি সাংবিধানিক ধারাগুলো বাস্তবায়নের দাবিগুলো থেকে দূরে রাখতে পিটিআই সরকারের কোনও কর্তৃত্ব নেই।’ পিটিআই সরকারের চাপিয়ে দেওয়া দাসত্বের অর্থনীতি বিরোধী দল মেনে নেবে না বলে দাবি করেন এই রাজনীতিবিদ। আর এই দাবিতেই জমিয়াত উলেমা-এ ইসলামের আজাদি মার্চ জনসমুদ্রের রূপ নিয়েছে।
পাকিস্তানি ও দলীয় পতাকা উড়িয়ে কয়েক হাজার গাড়ি নিয়ে এই পদযাত্রায় অংশ নিয়েছে আন্দোলনকারীরা। ইমরানবিরোধী ‘গো নিয়াজি গো’ স্লোগানসহ সরকারবিরোধী প্রচারে গোটা দেশ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। ইমরান বিরোধী হাওয়াকে আরও উস্কে দিতে সরকারবিরোধী এই পদযাত্রায় পাকিস্তান পিপল’স পার্টি, পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ, আওয়ামি ন্যাশনাল পার্টিসহ বিভিন্ন দলের প্রতিনিধিরাও সমর্থন দিয়ে অংশ নিয়েছেন। ইসলামাবাদে ফজলুরের বাড়িতে তাঁর সঙ্গে আলোচনায় বসেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির বিলাবল ভুট্টো জারদারি, পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের আহসান ইকবাল, খাজা আসিফ, পাখতুনখোয়া মিল্লি আওয়ামি পার্টির মেহমুদ খান আছাকজাইয়ের মতো বিরোধী নেতারা।
বিশাল এই জনরোষ সত্ত্বেও নির্বাচিত সরকারের প্রধান ইমরান খানের উপরই আস্থা প্রকাশ করেছে পাক সেনাবাহিনী। সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর জানিয়ে দিয়েছেন, আমরা আইন ও সংবিধানে বিশ্বাসী। আমাদের সমর্থন নির্বাচিত সরকারের উপরই থাকবে, কোনও নির্দিষ্ট দলের পক্ষে নয়। সেনাবাহিনীর দিকে ইঙ্গিত করে ফজলুর রহমান জানিয়ে দিয়েছেন, যদি ইমরান খান পদত্যাগ না করেন এবং তাঁর ‘প্রতিষ্ঠানটি’-র সুরক্ষা দেওয়ার চেষ্টা করেন, তাহলে ওই ‘প্রতিষ্ঠানের’ বিরুদ্ধেও জনমত গঠন করা হবে। বিরোধীরা অবাধে এই জনমত গঠন করবে। সেনাবাহিনী যাই বলুক না কেন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পদত্যাগ এবং পুনরায় নির্বাচনের দাবিতে অনড় বিরোধীরা। কী হতে চলেছে পাকিস্তানে? কেউ জানে না।
পাকিস্তানে অনেকে ঠাট্টা করে বলছেন, ফজলুর রহমানের উত্থানে ইমরানের ফের পিঙ্কি পীরনির দ্বারস্থ হওয়া ছাড়া উপায় নেই! পিঙ্কি পীরনি কে জানেন? পাকিস্তানের ফার্স্ট লেডি। তিনি একজন মহিলা পীর। স্বপ্ন আর ভবিষ্যৎ নিয়েই বুশরা মানেকার কারবার। ভক্তরা তাঁকে পিঙ্কি পীরনি বলেই চেনেন। নিজের শহর লাহোরের বাইরেও তাঁর অনেক অনুসারী। সেই পিঙ্কি পীরনি এক রাতে স্বপ্ন দেখলেন। ২০১৫ সালে মানেকা যাঁকে স্বপ্নে দেখেছিলেন তিনিও একসময় তাঁর ভক্তদের দলে শামিল হলেন।
সেই ভক্তের নাম ইমরান খান। ইমরান খান তাঁর আত্মজীবনীতে লিখেছেন, ‘পাকিস্তানে বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে লাখ লাখ মানুষ তাঁদের অনুসরণ করে, ধর্মীয় থেকে নিত্যদিনের জীবনের সমস্যা নিয়ে তাঁদের কাছে পরামর্শ চায়।’ ১৯৯০–এর মাঝামাঝি ইমরানের সৌভাগ্যে মেঘের চিহ্ন ছিল না। বিশ্বকাপ জিতেছেন। ধনী সুন্দরীকে বিয়ে করেছেন। মায়ের স্মরণে ক্যান্সার হাসপাতাল গড়েছেন। এত সব অর্জনের মধ্যে পাকিস্তানের এক ছোট শহরের এক মহিলা পীরের ভবিষ্যদ্বাণী তাঁকে আর কী দিয়েছে জানেন? রাজনীতি।
অনেক প্রতিষ্ঠিত রাজনীতিবিদ, সামরিক বাহিনীর বড় কর্তারা ইমরানকে নিজের কাছে টানার চেষ্টা করছিলেন। শেষ পর্যন্ত ইমরান খান ১৯৯৬ সালে নিজের দল বানালেন। নাম দিলেন তেহরিক ই ইনসাফ। মানে ন্যায়ের জন্য আন্দোলন, যা পিটিআই নামে পরিচিত। প্রথম নির্বাচনে পার্টি কোনও আসন পেল না। পরের নির্বাচনে জিতলেন শুধু নিজের আসনে। ২০১৩ সালে তাঁর ব্যক্তিগত জনপ্রিয়তা যখন তুঙ্গে, তখনও পিটিআই জিতল মাত্র ৩৫ আসন। ২০ বছর ধরে তিনি বিদেশে থাকা বন্ধুদের বলতেন, ‘পরের বার দেশে এলে দেখবে আমি প্রধানমন্ত্রী।’ চারটা নির্বাচন গেল, দুটো বিয়ে ভাঙল কিন্তু প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আশা অধরাই রয়ে গেল। ঠিক এই সময়ই বুশরা মানেকা তাঁর স্বপ্ন দেখলেন।
এর পরের অংশ এক আরব্য রজনীর গল্প হয়ে পাকিস্তানিদের মুখে মুখে ফেরে। মানেকার স্বপ্নে নাকি এক কণ্ঠস্বর বলেছিল, ইমরান খান যদি প্রধানমন্ত্রী হতে চান তাহলে তাঁকে সঠিক মহিলাকে বিয়ে করতে হবে। সঠিক মহিলা মানে মানেকার পরিবারের কেউ। এই গল্পের অন্য সংস্করণ বলছে যে বিয়ের জন্য মানেকা প্রথমে তাঁর ছোট বোনের কথা বলেন। আরেক গল্প বলছে, তাঁর আপন মেয়ের কথা। ইমরান দুই প্রস্তাবই নাকচ করেন। মানেকা আবার স্বপ্ন দেখলেন।
এবার আর কোনও ইশারা নয়। স্বপ্নে জানতে পারলেন ইমরানের যে স্ত্রী দরকার, সেটা তিনি নিজেই। পাঁচ সন্তানের মা মানেকা প্রস্তুত হলেন। তাঁর কাস্টমস অফিসার স্বামী আপসে বিবাহ বিচ্ছেদে রাজিও হয়ে গেলেন। ২০১৮–এর ফেব্রুয়ারিতে ক্রিকেটার আর ভবিষ্যৎ–দ্রষ্টার বিয়ে হল ঘনিষ্ঠজনদের নিয়ে ছোট পারিবারিক অনুষ্ঠানে। এর ছয় মাস পর ইমরান খান হলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। পিঙ্কি পীরনি হলেন পাকিস্তানের ফার্স্ট লেডি। পিঙ্কি পীরনি কি পারবেন, এ যাত্রায় ইমরানকে বাঁচাতে? 
08th  November, 2019
লকডাউনেই থামবে করোনার অশ্বমেধের ঘোড়া
সন্দীপন বিশ্বাস

 এ এক অন্য পৃথিবী। এই পৃথিবী দেখার জন্য আমরা কেউই প্রস্তুত ছিলাম না। কিন্তু হঠাৎই বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো অতি দ্রুত আমরা মুখোমুখি হলাম এই অন্য পৃথিবীর। যেখানে গাছের পাতা ঝরার মতোই ঝরে পড়ছে মানুষের প্রাণ। বিশদ

ঘরে থাকতে অক্ষম যে ভারত
শান্তনু দত্তগুপ্ত

 রণবীর সিং। বয়স ৩৮ বছর। ডেলিভারি এজেন্টের কাজ করতেন দিল্লিতে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণার পর হাঁটতে শুরু করেছিলেন তিনি। জাতীয় সড়ক ধরে। যেভাবে হোক গ্রামে পৌঁছতে হবে। গ্রাম মানে মধ্যপ্রদেশের কোথাও একটা... দিল্লি থেকে বহুদূর।
বিশদ

31st  March, 2020
ভীরু এবং আধখেঁচড়া
ব্যবস্থা, তবু স্বাগত
পি চিদম্বরম

গত ১৯ মার্চ, শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করলেন যে ২২ মার্চ, রবিবার দেশজুড়ে ‘জনতা কার্ফু’ পালন করা হবে। আমি ভেবেছিলাম প্রধানমন্ত্রী জল মাপছেন, জনতা কার্ফুর শেষে তিনি নানা ধরনের লকডাউন ঘোষণা করবেন। কিন্তু রবিবার কোনও ঘোষণা শোনা গেল না। বিশদ

30th  March, 2020
 করোনা যুদ্ধের অক্লান্ত সৈনিক ডাক্তারবাবুরা,
দোহাই ওদের গায়ে আর কেউ হাত তুলবেন না
হিমাংশু সিংহ

পৃথিবীব্যাপী এক ভয়ঙ্কর যুদ্ধ চলছে। অদৃশ্য জৈবযুদ্ধ। এলওসিতে দাঁড়িয়ে মেশিনগান হাতে কোনও সেনা নয়, রাফাল নিয়ে শত্রু ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলাও নয়। হাসপাতালের আইসিইউতে নিরস্ত্র ডাক্তারবাবুরা বুক চিতিয়ে এই নির্ণায়ক যুদ্ধ লড়ছেন রাতের পর রাত ক্লান্তিহীন। বিশদ

29th  March, 2020
এ লড়াই বাঁচার লড়াই,
এ লড়াই জিততে হবে
তন্ময় মল্লিক

 এখন দোষারোপের সময় নয়। এখন আঙুল তোলার সময় নয়। এখন সমালোচনার সময় নয়। এখন লড়াইয়ের সময়। এ এক কঠিন লড়াই। এ লড়াই বাঁচার লড়াই। এ লড়াই জিততে হবে।
বিশদ

28th  March, 2020
মিসাইল বানানোর চেয়ে ডাক্তার
তৈরি অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ
মৃণালকান্তি দাস

লিউয়েনহুক যখন সাড়ে তিনশো বছর আগে আতশ কাঁচের নীচে কিলবিল করা প্রাণগুলোকে দেখতে পেয়েছিলেন, তখনও তিনি জানতেন না যে তিনি এক নতুন দুনিয়ার সন্ধান পেয়ে গিয়েছেন। তিনিই প্রথম আণুবীক্ষণিক প্রাণের দুনিয়াকে মানুষের সামনে উন্মোচিত করেন। ওই ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র প্রাণগুলোর নাম দেন ‘অ্যানিম্যালকুলস’। বিশদ

27th  March, 2020
করোনা ছুটছে গণিতের অঙ্ক মেনে,
থামাতে হবে ‘হাতুড়ি’র ঘা দিয়েই
ডাঃ সৌমিত্র ঘোষ

 জানেন কি, গণিতের নিয়ম মেনেই ভারত সহ গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে নোভেল করোনা ভাইরাস? একজন আক্রান্ত থেকে গুণিতক হারে অন্যদের মধ্যে ছড়াচ্ছে এই মারণ ভাইরাস! আর অসতর্কতার কারণে মাত্র এক-দু’সপ্তাহে আক্রান্তের সংখ্যা এক ঝটকায় অনেকটা বাড়ছে। ঠিক যেমন হয়েছে চীন, ইতালি, স্পেনের মতো দেশগুলিতে।
বিশদ

27th  March, 2020
পাহাড়প্রমাণ চ্যালেঞ্জ, অস্ত্র নাগরিক সচেতনতা
শান্তনু দত্তগুপ্ত

ডাঃ সুশীলা কাটারিয়া। জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যাঁদের জন্য পাঁচটা মিনিট সময় বের করার আর্জি জানিয়েছিলেন, ডাঃ কাটারিয়া তাঁদেরই মধ্যে একজন। গুরুগ্রামে একটি হাসপাতালের ইন্টারনাল মেডিসিনের ডিরেক্টর তিনি। বয়স ৪২ বছর। গত ৪ মার্চ যখন তাঁকে বলা হয়েছিল, আপনার দায়িত্বে ১৪ জন ইতালীয় পর্যটককে ভর্তি করা হচ্ছে, তখনও তিনি রোগের নাড়িনক্ষত্র ভালোভাবে জানেন না। 
বিশদ

24th  March, 2020
মন্বন্তরে মরিনি আমরা, মারী নিয়ে ঘর করি
 সন্দীপন বিশ্বাস

পৃথিবীর গভীর গভীরতর অসুখ এখন। আর এই ‘অসুখ’ থেকে বারবার মানুষ লড়াই করে ফিরে এসেছে। প্রতিবার অস্তিত্বের সঙ্কটের মুখে দাঁড়িয়ে একযোগে লড়াই করে মানুষ এগিয়ে গিয়েছে উত্তরণের পথে। প্রকৃতির কোনও মারণ আক্রমণেই সে পিছিয়ে পড়েনি। তাই মানুষ বারবার ঋণী মানুষেরই কাছে।  
বিশদ

23rd  March, 2020
কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াই এবং তারপর
পি চিদম্বরম

আপনি এই লেখা যখন পড়ছেন, ততক্ষণে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) মোকাবিলায় ভারত এগতে পারল না কি পিছনে পড়ে গেল। সরকার ব্যস্ত ভিডিও কনফারেন্সে, আক্রান্ত দেশগুলি থেকে ভারতীয়দের দেশে ফিরিয়ে আনতে এবং করোনা থেকে বাঁচার জন্য নির্দেশিকা (হাত জীবাণুমুক্ত করা, নাক-মুখ ঢেকে রাখা এবং মাস্ক পরা) জারিতে।  
বিশদ

23rd  March, 2020
ভয় পাবেন না, গুজব ছড়াবেন না, জনতা কার্ফুতে ঘরে থাকুন, বিশ্বযুদ্ধে ভাইরাস পরাজিত হবেই
হিমাংশু সিংহ

 এক মারণ ভাইরাসের ভয়ঙ্কর সংক্রমণের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী মহাযুদ্ধ চলছে। এই যুদ্ধের একদিকে করোনা আর অন্যদিকে গোটা মানবজাতির অস্তিত্ব। প্রবীণ মানুষরা বহু স্মৃতি ঘেঁটেও এমন নজির মনে করতে পারছেন না যেখানে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া একটা রোগ ঘিরে এমন ত্রাস, আতঙ্ক দানা বেঁধেছে মানুষের মনে।
বিশদ

22nd  March, 2020
লড়াই
তন্ময় মল্লিক

 করোনা ভাইরাস। এই দু’টি শব্দই গোটা বিশ্বকে কাঁপিয়ে দিচ্ছে। করোনা আতঙ্কে থরহরি কম্প গোটা পৃথিবী। চীন, জার্মানি, ইতালি, আমেরিকা, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স সহ বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলিকে ক্ষতবিক্ষত করে করোনা এবার থাবা বসাতে শুরু করেছে তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলিতে।
বিশদ

21st  March, 2020
একনজরে
বিএনএ, বাঁকুড়া: করোনার প্রকোপ বাড়লেও মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে নিরবচ্ছিন্ন উৎপাদন চালিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে কর্তৃপক্ষ। ঠিকা শ্রমিকদের রাখার জন্য আলাদা পরিকাঠামো তৈরি করছে মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প। ...

মেলবোর্ন, ৩১ মার্চ: গাড়ি থেকে চুরি গেল অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দলের অধিনায়ক টিম পেইনের ওয়ালেট। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার হোবার্টে। করোনার জেরে গোটা অস্ট্রেলিয়া জুড়ে চলছে লকডাউন। ...

নারা, ৩১ মার্চ (এপি): জাপানের একটি বিখ্যাত শহর নারা। বসন্ত এলেই চেরি ফুলে সেজে ওঠে এই ঐতিহ্যবাহী শহরটি। কিন্তু বিগত বছরগুলির মতো এবছর সেখানে পর্যটকদের কোলাহল শোনা যাচ্ছে না।   ...

নয়াদিল্লি, ৩১ মার্চ (পিটিআই): করোনার বিস্তার রুখতে জীবাণুনাশক স্প্রে করতে হবে। আর তা করবে স্বয়ংক্রিয় ড্রোন। এই প্রযুক্তি বানিয়ে ফেললেন গুয়াহাটি আইআইটির পড়ুয়ারা।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বাড়তি অর্থ পাওয়ার যোগ রয়েছে। পদোন্নতির পাশাপাশি কর্মস্থান পরিবর্তন হতে পারে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ পক্ষে থাকবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

এপ্রিল ফুলস ডে
১৬২১- শিখ ধর্মের নবম গুরু তেগ বাহাদুরের জন্ম,
১৮৮৯- রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের প্রতিষ্ঠাতা কে বি হেডগেওয়ারের জন্ম,
১৯৩৭- মহম্মদ হামিদ আনসারির জন্ম,
১৯৪১- ক্রিকেটার অজিত ওয়াদেকারের জন্ম,
১৯৮৪- ক্রিকেটার মুরলী বিজয়ের জন্ম 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৬৪ টাকা ৭৬.৩৬ টাকা
পাউন্ড ৭৬.৩৬ টাকা ৯৪.৮৪ টাকা
ইউরো ৮১.৭৩ টাকা ৮৪.৭৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

১৮ চৈত্র ১৪২৬, ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, (চৈত্র শুক্লপক্ষ) অষ্টমী ৫৫/১৯ রাত্রি ৩/৪১। আর্দ্রা ৩৪/৫০ রাত্রি ৭/২৯। সূ উ ৫/৩৩/১, অ ৫/৪৮/১১, অমৃতযোগ দিবা ৭/১২ মধ্যে পুনঃ ৯/৩৮ গতে ১১/১৬ মধ্যে পুনঃ ৩/২১ গতে ৪/২৯ মধ্যে। রাত্রি ৬/৩৫ গতে ৮/৫৬ মধ্যে ১০/৩০ মধ্যে। বারবেলা ৮/৩৬ গতে ১০/৮ মধ্যে পুনঃ ১১/৪১ গতে ১/১৩ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩৬ গতে ৪/৪ মধ্যে।
১৮ চৈত্র ১৪২৬, ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, অষ্টমী ৪১/১৫/৩৫ রাত্রি ১০/৪/৫৮। আর্দ্রা ২২/৩০/৫২ দিবা ২/৩৫/৫। সূ উ ৫/৩৪/৪৪, অ ৫/৪৮/৩১। অমৃতযোগ দিবা ৭/১২ মধ্যে ও ৯/৩২ গতে ১১/১২ মধ্যে ও ৩/২১ গতে ৫/১ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ১/৩২ গতে ৫/৩৪ মধ্যে। কালবেলা ৮/৩৮/১১ গতে ১০/৯/৫৪ মধ্যে।
 ৭ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজ্যে আরও ১ করোনা আক্রান্তের মৃত্যু 
কয়েকদিনের যমে মানুষে টানাটানির ইতি। মৃত্যু হল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ...বিশদ

07:42:22 PM

স্থানীয়দের প্রতিরোধ, ধাপায় হল না করোনায় মৃতের শেষকৃত্য 
স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রতিরোধের জেরে ধাপা শ্মশানে হল না করোনা আক্রান্ত ...বিশদ

07:24:05 PM

করোনা: ব্রিটেনে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫০০-র বেশি মানুষের মৃত্যু হল 

07:22:24 PM

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৮৬২, মৃত ৫৪: পিটিআই 

06:54:52 PM

দিল্লির ধর্মীয় সভায় অংশ নেওয়া তামিলনাড়ুর ১১০ জনের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাস 

06:45:34 PM

করোনা: কেরলে আক্রান্ত আরও ১২ জন 

06:21:30 PM