Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

ঘরে ঘরে হানাদার 
শান্তনু দত্তগুপ্ত

উওটার স্লটবুম আমস্টারডামের একটি কাফেতে ঢুকলেন। সঙ্গে একজন ডাচ সাংবাদিক। কাফেতে ওয়াই-ফাই চলছে। স্লটবুম একটি চেয়ার টেনে বসে তাঁর ল্যাপটপটা খুললেন। পাশে ছোট কালো রঙের একটা ডিভাইস। সবকিছু সেট করে নিয়ে কাফের ওয়াই-ফাইয়ের সঙ্গে নিজের ল্যাপটপটাকে কানেক্ট করলেন। কিছুক্ষণ পর দেখা গেল, ল্যাপটপে অন্য বহু ডিভাইসের আলাদা আলাদা উইন্ডো খুলে ফেলেছেন তিনি। কোন ডিভাইস? ওই কাফের ওয়াই-ফাই ব্যবহার করে যাঁরা কাজ করছিলেন, তাঁদেরই মোবাইল ফোন বা ল্যাপটপ... কেউ হয়তো গুগলে ঢুকে কিছু সার্চ করছেন, কেউ আবার ই-মেল করছেন... সবটাই দেখা যাচ্ছে স্লটবুমের ল্যাপটপে। আপনার ফোনে কোন কোন অ্যাপ ইনস্টল করা রয়েছে, আপনার ই-মেলের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড, গুগলে কী কী সার্চ করা হয়েছে এবং আরও অনেক কিছু। স্লটবুম একজন এথিক্যাল হ্যাকার। শুনতে ভালো না লাগলে গালভরা অন্য নামও আছে—তথ্য প্রযুক্তির নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ। পাবলিক ওয়াই-ফাইয়ের নিরাপত্তার অভাব নিয়ে তাঁর কাজ। স্লটবুমের দাবি, ৮০-৯০ ডলার খরচ করে একটা সফ্‌টওয়্যার লাগিয়ে নিলেই হবে। কয়েক মিনিটের মধ্যে ডজন ডজন ব্যক্তিগত তথ্য হাতের নাগালে। এমনকী, ই-মেলের সঙ্গে যে যে অ্যাকাউন্টের সংযোগ রয়েছে, সেই সবও হাতিয়ে নেওয়া সম্ভব। ওই একটি কালো ডিভাইস দিয়ে। অনায়াসে তথ্যপাচার।
হ্যাকিং বিষয়টা এখন এমনই জলভাত। কিছু বিদ্যাবুদ্ধি যদি থাকে, তার সঙ্গে ঠিকঠাক সফ্‌টওয়্যার লাগিয়ে নিলেই হল। সাধারণ মানুষও অন্যের মোবাইল ফোন বা ল্যাপটপের আইপি হ্যাক করে নিতে পারে। সামান্য সামর্থ্য নিয়েই। আর যদি এটাই কোনও রাষ্ট্র করতে চায়? তার কিন্তু ক্ষমতা, প্রযুক্তি এবং দক্ষ কর্মী... সবই বেশি। ইচ্ছেমতো।
সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে নিরাপদ মাধ্যম ধরা হয় হোয়াটসঅ্যাপকে। কারণ, এই মিডিয়াম দিয়ে কোনও মেসেজ বা কল করলে সেটা ‘এন্ড টু এন্ড এনক্রিপটেড’ হয়। অর্থাৎ যে মেসেজ পাঠাচ্ছে, আর যার কাছে পৌঁছচ্ছে, এই দু’জন ছাড়া আর কেউ তা দেখতে বা বুঝতে পারবে না। শুধু একটি উপায়ে সেই লোহার সিন্দুকে ফুটো করা সম্ভব। যদি ডিভাইসে বিশেষ একটা ম্যালওয়্যার ঢুকিয়ে দেওয়া যায়। তার নাম পেগাসাস। কী হয় এতে? পেগাসাসের অপারেটর আপনাকে একটা লিঙ্ক পাঠাবে, যাকে বলা হয় ‘এক্সপ্লয়েট লিঙ্ক’। তাতে ক্লিক করা মাত্রই চিচিং ফাঁকের মতো আপনার ফোন বা কম্পিউটারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা সেই হ্যাকারের কাছে উন্মুক্ত হয়ে যাবে। কারণ ততক্ষণে আপনার অজান্তেই ওই ডিভাইসে পেগাসাস ইনস্টল হয়ে গিয়েছে। অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে ঢুকে পড়েছে ‘ক্রাইসাওর’ ম্যালওয়্যার। কোনও অ্যাপ ইনস্টল করার সময় ডিভাইস ব্যবহারকারীর থেকে যে অনুমতি চাওয়া হয়, সেটাও কিন্তু এই পেগাসাস চাইবে না। আপনার ফোন বা ল্যাপটপটি সরাসরি চলে যাবে সেই অপারেটরের নিয়ন্ত্রণে। আর তার নির্দেশ মতো আপনার ডিভাইসের কনট্যাক্ট, ই-মেল, পাসওয়ার্ড, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট সহ যাবতীয় তথ্য চুরি করে নেবে পেগাসাস। শুধু তাই নয়, আপনার মেসেজ দেখা এবং ভয়েস কল শোনার কাজটাও সেই অপারেটর বিনা বাধায় করতে পারবে। ধরুন আপনি কোনও গুরুত্বপূর্ণ মিটিংয়ে আছেন, সেই অপারেটর তখন আপনার ফোনের ক্যামেরা এবং মাইক্রোফোন অন করে সব কিছু রেকর্ড করে নিতে পারে। আপনি জানতেও পারবেন না। আর এর নবতম সংযোজন? ‘এক্সপ্লয়েট লিঙ্ক’-এও দরকার নেই। হোয়াটসঅ্যাপে একটা মিসড ভিডিও কলই এখন যথেষ্ট। ২০১৬ সালের জুলাই-আগস্ট মাসে মেক্সিকোর এক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের উপর পেগাসাস ‘হামলা’ হয়। একের পর এক মেসেজ... কোথাও লেখা, আপনার মেয়ের ভয়াবহ অ্যাক্সিডেন্ট হয়েছে। নীচের লিঙ্কে ক্লিক করুন, তাহলে বিস্তারিত জানতে পারবেন। কয়েকদিন পরই আরও একটা মেসেজ... আপনার স্ত্রী অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়েছে। লিঙ্কে ক্লিক করলেই ছবি দেখতে পাবেন। মেক্সিকোর সেই ব্যক্তি অবশ্য একটি ফাঁদেও পা দেননি। বুঝেছিলেন, সবই এক্সপ্লয়েট লিঙ্ক। যদি একটিতেও তিনি ক্লিক করতেন, সঙ্গে সঙ্গে তাঁর মোবাইলে পেগাসাস ইনস্টল হয়ে যেত। আর তাহলেই... খেল খতম।
এই ‘পেগাসাস’-এর প্রস্তুতকারক ইজরায়েলের এনএসও গ্রুপ। হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যেই সান ফ্রান্সিসকোর মার্কিন ফেডেরাল আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছে। তারা জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে ১ হাজার ৪০০ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীকে টার্গেট করেছে এনএসও। যার মধ্যে বেশ কিছু নম্বর ভারতেরও। সঠিক সংখ্যা? জানায়নি হোয়াটসঅ্যাপ। তবে নেহাৎ কম নয়! শোনা যাচ্ছে ১২১ জন। আক্রান্তদের নাম কিন্তু সংস্থা জানাতে চায়নি। তবে হ্যাঁ, হোয়াটসঅ্যাপ স্বীকার করেছে, ভারতে যাদের নিশানা করা হয়েছে তাঁদের মধ্যে রয়েছেন, আইনজীবী, সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মী। হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষের দাবি, সেই প্রত্যেক ব্যক্তির সঙ্গে তারা যোগাযোগ করেছে এবং পেগাসাস থেকে বাঁচতে কী করতে হবে, সেটাও জানিয়েছে। এনএসও গ্রুপের একটি চুক্তি হয়েছিল সৌদি আরবের সঙ্গে... সাংবাদিক জামাল খাসোগি খুনের আগে। খাসোগি কোথায় আছেন, কী করছেন সব জানার জন্য ‘এক্সপ্লয়েট লিঙ্ক’-এর মাধ্যমে একটি স্পাইওয়্যার ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাঁর ডিভাইসে। ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক ছিলেন জামাল খাসোগি। সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ... তারপর সেই রাজতন্ত্রেরই সমালোচক। ইস্তানবুলে সৌদির দূতাবাসে খুন হতে হয় তাঁকে। বাকিটা ইতিহাস এবং বর্তমানও বটে। কারণ, খাসোগি খুনের ঝাপটা এখনও খেতে হচ্ছে সৌদি আরবকে। যুবরাজ মহম্মদ বিন সলমনও স্বীকার করে নিয়েছেন, দায় তিনি এড়িয়ে যেতে পারেন না।
এ পর্যন্ত ৪৫টি দেশে পেগাসাস আঘাত হেনেছে বলে খবর। যার মধ্যে ভারতও আছে। পাঁচটি অপারেটর কাজ করছে এশিয়ায়। বিভিন্ন সূত্র মারফত পাওয়া খবর, একটি রাজনৈতিক ডোমেনের নামে পর্যন্ত এদেশে পেগাসাস অপারেটর কাজ চালাচ্ছে। তাহলে কি এর নেপথ্যে কোনও সরকার বা রাজনৈতিক দল আছে? বিরোধীরা ইতিমধ্যেই এই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে। সরব হয়েছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কংগ্রেস আবার দাবি করেছে, স্বয়ং প্রিয়াঙ্কার ফোনও নাকি হ্যাক হয়েছে। তিনি হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষের থেকে মেসেজ পাচ্ছেন। হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ বলছে, আগেই কেন্দ্রীয় সরকারকে তারা সতর্ক করেছিল। একবার মে মাসে, আর একবার সেপ্টেম্বরে। আর কেন্দ্র বলছে, সে সময় এমন একটা আপাদমস্তক টেকনিক্যাল আর তালগোল পাকানো বার্তা তারা পাঠিয়েছিল, যার কিছুই বোঝা যায়নি। খুব স্বাভাবিক। এমনটা হতেই পারে। বুঝতে না পারার পর নতুন করে তার বিস্তারিত কি হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল? তাহলে এখন বিষয়টার ব্যাখ্যা চেয়ে হম্বিতম্বি করে কী লাভ?
এনএসও গ্রুপের দাবি আরও মারাত্মক... পেগাসাস শুধু সরকার এবং সরকারি গোয়েন্দা সংস্থাগুলিকে বিক্রির জন্য। ব্যক্তিবিশেষকে নয়! সেটাও সন্ত্রাসবাদ এবং ভয়াবহ অপরাধ ঠেকানোর জন্য। এই দাবি সত্যিই নড়েচড়ে বসার মতো। জানা যাচ্ছে, পেগাসাসের জন্য ২০১৫ সালে ঘানার ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সির সঙ্গে এনএসও এবং স্থানীয় এক মধ্যস্থতাকারীর চুক্তি হয়েছিল ৮০ লক্ষ মার্কিন ডলারের। একইভাবে মেক্সিকোর ফেডেরাল এজেন্সিগুলি ২০১১ থেকে ২০১৭ সালের জন্য এনএসও থেকে এই স্পাইওয়্যার কিনেছিল ৮ কোটি মার্কিন ডলারে। কোনও সাধারণ মানুষের কি এত দাম দিয়ে পেগাসাস কেনার ক্ষমতা আছে? তাহলে কি সরকারের এখনই বিষয়টা নিয়ে একটু সিরিয়াস হওয়া উচিত নয়? ভারতে এমন কে আছে, যে এত টাকা দিয়ে পেগাসাস কিনতে পারে? অবশ্যই এর তদন্ত দরকার? সরকার এই নজরদারি না চালিয়ে থাকলে এটা পরিষ্কার, যেই একাজ করে থাকুক না কেন, মুখ পুড়ছে রাষ্ট্রের। কেন্দ্রীয় সরকারের। এই প্রবণতা ভয়ঙ্কর। রাজনৈতিক দিক থেকে সরকার বিরোধিতা এক, আর সেটাই যদি জাতীয় নিরাপত্তার উপর আঘাত হানে, তার থেকে খারাপ কিছু হতে পারে না। সরকার যদি এর যথাযথ তদন্ত না করে, মানুষের মনেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করবে... রাষ্ট্রই এর নেপথ্যে নেই তো? তাই সত্যিটা সামনে আসা খুব জরুরি। এক সময় বাজারে গুজব ছড়িয়েছিল, একজন আইপিএস অফিসারের হাতে নাকি ইজরায়েলে তৈরি এমনই একটা সফ্‌টওয়্যার আছে। যার মাধ্যমে ফোনে আড়ি পাতা যায়। রাষ্ট্র যদি শুধু সন্ত্রাসবাদ বা অন্যান্য বড় অপরাধ দমনে এর ব্যবহার করে, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলাটা অর্বাচীনের কাজ। কিন্তু সাধারণ মানুষকে অসহায় করে তাঁর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়াটা গণতান্ত্রিক দেশের শাসকের কাজ হতে পারে না। কারণ এ শুধু আড়ি পাতা নয়, পেগাসাস ব্যবহার মানে ঘরের ভিতর ঢুকে পড়া। হানা দেওয়া গোপনীয়তার অধিকার রক্ষায়। রাষ্ট্র ছাড়া এই পরিমাণ অর্থ জোগাতে পারে জঙ্গি সংগঠন। তাও শত্রু কোনও দেশের সাহায্যে। সেটা হলে সাধারণ হ্যাকারদের কাছেও খুব তাড়াতাড়ি পৌঁছে যাবে পেগাসাস। ডিজিটাল ইন্ডিয়ার সাইবার সিস্টেম ধ্বংস হতে তখন কিন্তু বেশি সময় লাগবে না! এ হবে আর এক ধরনের সন্ত্রাসবাদী হামলা।
সাধারণ মানুষ কী করতে পারেন? খুব বেশি হলে তাঁর ফোনের সিস্টেম এবং যাবতীয় অ্যাপ সবসময় আপডেট রাখা। ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ হলে অপারেটিং সিস্টেম। ব্যাস।
বাকিটা রাম ভরোসে।  
05th  November, 2019
শীর্ষ সম্মেলন কূটনীতির পরাজয়

দুই নেতার সিদ্ধান্ত ছিল যে ‘২০২০ সালটাকে ভারত-চীন সংস্কৃতি এবং মানুষে মানুষে ভাব বিনিময়ের বর্ষ হিসেবে চিহ্নিত করা হবে’। আইডিয়াটা স্মরণীয় হবে ভেবে মোদিজি নিশ্চয় আহ্লাদিতই হয়েছিলেন!
বিশদ

ভ্যাকসিন বের করা আর
সার্জিকাল স্ট্রাইক এক নয়
হিমাংশু সিংহ

ধামাকা দিয়ে সব যুদ্ধ জয় করা যায় না। বিশেষ করে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের যুদ্ধ, আর সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করা মোটেই এক নয়। বিজ্ঞানের কোনও কালজয়ী আবিষ্কারই ১৫ আগস্ট, ২৬ জানুয়ারি কিম্বা পূর্ণিমা-অমাবস্যার তিথি নক্ষত্র দেখে আসে না।
বিশদ

12th  July, 2020
প্রতিপক্ষ যখন পঞ্চায়েত
তন্ময় মল্লিক

উদ্দেশ্য এবং উপায় সৎ হলে তার ফল ভালো হয়। এমন কথাই যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। কিন্তু সব ক্ষেত্রে সেটা খাটে না। জ্বলন্ত উদাহরণ পঞ্চায়েত ব্যবস্থা। লক্ষ্য ছিল ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ। তৈরি হয়েছিল জেলা পরিষদ। জেলার রাইটার্স বিল্ডিং।
বিশদ

11th  July, 2020
নিত্য নতুন ইভেন্টের
আড়ালে যত খেলা
সমৃদ্ধ দত্ত

বয়কটের আগে বুঝতে হবে যে, এখন এসব বয়কট করার অর্থ আমাদের দেশেরই ব্যবসায়ী, দোকানিদের চরম আর্থিক ক্ষতি। বিগত তিনমাসের লকডাউনে এমনিতেই জীবিকা সঙ্কটে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা। আমাদের এলাকার চাইনিজ প্রোডাক্ট এখন আমরা না কিনলে চীনের ক্ষতি নেই।
বিশদ

10th  July, 2020
করোনা যুদ্ধে জাপানকে জেতাচ্ছে সুস্থ সংস্কৃতি 
হারাধন চৌধুরী

সারা পৃথিবীর হিসেব বলছে, করোনা ভাইরাসে বা কোভিড-১৯ রোগে মৃতদের মধ্যে বয়স্কদের সংখ্যাই বেশি। সেই প্রশ্নে জাপানিদের প্রচণ্ড ভয় পাওয়ার কথা। কারণ, প্রতি একশো জনের মধ্যে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা জাপানেই সর্বাধিক।   বিশদ

09th  July, 2020
 একাদশ অবতার
সন্দীপন বিশ্বাস

কতদিন হয়ে গেল ওইসব দামি দামি স্যুট পরা হয়নি, কতদিন বিদেশ যাওয়া হয়নি, কত বিদেশি রাজার সঙ্গে জড়াজড়ি করে হাগ করা হয়নি। সেসব নিয়ে খুবই মন খারাপ হবু রাজার।
বিশদ

08th  July, 2020
সীমান্ত বিতর্ক অছিলা, বাণিজ্য যুদ্ধ
জিততেই চীনের গলওয়ান কাণ্ড
সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়

সীমান্ত উত্তেজনা কমাতে ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে চীনের বিদেশ মন্ত্রীর বৈঠক আপাতত স্বস্তি দিয়েছে। কিন্তু, স্থায়ী সমাধান সূত্র মেলেনি। বরং বৈঠকের পর চীনের সরকারের বক্তব্য, দুই দেশের সম্পর্ক এক জটিল পরিস্থিতির মুখোমুখি। কী সেই পরিস্থিতি?
বিশদ

08th  July, 2020
সীমান্তেও মোদির
চমকদার রাজনীতি
শান্তনু দত্তগুপ্ত

তারিখটা ৭ নভেম্বর, ১৯৫৯। কংকা পাসের ঘটনার পর প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুকে চিঠি দিয়েছেন চৌ-এন-লাই। লিখেছেন, দু’দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে যা হয়েছে, তা দুর্ভাগ্যজনক এবং মোটেও কাঙ্ক্ষিত নয়।
বিশদ

07th  July, 2020
আইনের হাত থেকে
স্বাধীনতাকে উদ্ধার করো
পি চিদম্বরম

যদি কোনও ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়, তবে সে অবশ্যই কোনও ভুল করেছে। যদি কারও জামিন নামঞ্জুর হয়ে যায়, তবে সে নিশ্চয় অপরাধী। যদি কোনও ব্যক্তিকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়, তবে জেলসহ শাস্তিই তার প্রাপ্য।  বিশদ

06th  July, 2020
গুরু কে, কেনই বা গুরুপূর্ণিমা?
জয়ন্ত কুশারী

কে দেখাবেন আলোর পথ? পথ অন্ধকারাচ্ছন্নই বা কেন? এই অন্ধকার, মনের। মানসিকতারও। চিন্তার। আবার চেতনারও। এই অন্ধকার কুসংস্কারের। আবার অশিক্ষারও। অথচ আমরা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত এক একজন।   বিশদ

05th  July, 2020
জাতির উদ্দেশে ভাষণের চরম অবমূল্যায়ন
হিমাংশু সিংহ

অনেক প্রত্যাশা জাগিয়েও মাত্র ১৬ মিনিট ৯ সেকেন্ডেই শেষ। দেশবাসীর প্রাপ্তি বলতে আরও পাঁচ মাস বিনামূল্যে রেশন। শুধু ওইটুকুই। ছাপ্পান্ন ইঞ্চি বুক ফুলিয়ে চীনকে কোনও রণহুঙ্কার নয়, নিহত বীর জওয়ানদের মৃত্যুর বদলা নয় কিম্বা শূন্যে নেমে যাওয়া অর্থনীতিকে টেনে তোলার সামান্যতম অঙ্গীকারও নয়। ১৬ মিনিটের মধ্যে ১৩ মিনিটই উচ্চকিত আত্মপ্রচার।   বিশদ

05th  July, 2020
মধ্যবিত্তের লড়াই শুরু হল
শুভময় মৈত্র 

কোভিড পরিস্থিতি চীনে শুরু হয়েছে গত বছরের শেষে। মার্চ থেকেই আমাদের দেশে হইচই। শুরুতেই ভীষণ বিপদে পড়েছেন নিম্নবিত্ত মানুষ। পরিযায়ী শ্রমিকদের অবর্ণনীয় দুর্দশার কথা এখন সকলেই জানেন।  বিশদ

04th  July, 2020
একনজরে
  ওয়াশিংটন: ভুয়ো লাইসেন্সধারী পাইলটদের উপর বিশ্বাস নেই। ইউরোপের পর এবার আমেরিকাতেও নিষিদ্ধ হল পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স (পিআইএ)। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বদলির পর বাড়ির কাছেই কাজের সুযোগ পেলেন চারশোর বেশি স্বাস্থ্যকর্মী। শুক্রবার ৪১৫ জন মেডিক্যাল টেকনোলজিস্টকে রাজ্যের বিভিন্ন ...

  নয়াদিল্লি: ফের বাড়ল ডিজেলের দাম। দু’সপ্তাহ আগে দিল্লিতে প্রথমবার ডিজেলের মূল্য লিটার প্রতি ৮০ টাকা ছাড়িয়েছিল। রবিবার তা প্রতি লিটারে ১৬ পয়সা বেড়ে ৮১ ...

সুমন তেওয়ারি  আসানসোল: করোনার দাপটের মধ্যেই এবার ডেঙ্গু হানা দিল পশ্চিম বর্ধমান জেলায়। স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, আসানসোল, দুর্গাপুর সহ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে এখনও ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীরা বেশ কিছু সুযোগের সংবাদে আনন্দিত হবেন। বিদ্যার্থীরা পরিশ্রমের সুফল নিশ্চয় পাবে। ভুল সিদ্ধান্ত থেকে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৩০: কলকাতায় দ্য জেনারেল অ্যাসেম্বলিজ ইনস্টিটিউশন, অধুনা স্কটিশ চার্চ কলেজ প্রতিষ্ঠা করলেন আলেকজান্ডার ডাফ এবং রাজা রামমোহন রায়
১৯০০: অভিনেতা ছবি বিশ্বাসের জন্ম
১৯৪২: মার্কিন অভিনেতা হ্যারিসন ফোর্ডের জন্ম
১৯৫৫: সাহিত্যিক আশাপূর্ণা দেবীর মৃত্যু
২০১১: মুম্বইয়ে ধারাবাহিক তিনটি বিস্ফোরণে হত ২৬, জখম ১৩০
২০১৩: বোফর্স কান্ডে অভিযুক্ত ইতালীয় ব্যবসায়ী অত্তাভিও কাত্রোচ্চির মৃত্যু।



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৩১ টাকা ৭৬.০৩ টাকা
পাউন্ড ৯৩.০০ টাকা ৯৬.২৯ টাকা
ইউরো ৮৩.২৩ টাকা ৮৬.২৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
11th  July, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯,৭৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,২২০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭,৯৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫১,২২০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫১,৩৩০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
12th  July, 2020

দিন পঞ্জিকা

২৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জুলাই ২০২০, সোমবার, অষ্টমী ৩২/৪৫ অপঃ ৬/১০। রেবতী ১৫/২৫ দিবা ১১/১৪। সূর্যোদয় ৫/৩/৫২, সূর্যাস্ত ৬/২০/৩৮। অমৃতযোগ দিবা ৮/৩৬ গতে ১০/২২ মধ্যে। রাত্রি ৯/১২ গতে ১২/৪ মধ্যে পুনঃ ১/৩০ গতে ২/৫৫ মধ্যে। বারবেলা ৬/৪৩ গতে ৮/২২ মধ্যে পুনঃ ৩/১ গতে ৪/৪১ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/২১ গতে ১১/৪২ মধ্যে।
২৮ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জুলাই ২০২০, সোমবার, অষ্টমী অপরাহ্ন ৫/০। রেবতী নক্ষত্র দিবা ১১/৮। সূযোদয় ৫/৩, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ৮/৩৬ গতে ১০/২৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/১৩ গতে ১২/৪ মধ্যে ও ১/২৯ গতে ২/৫৫ মধ্যে। কালবেলা ৬/৪৩ গতে ৮/২৩ মধ্যে ও ৩/৩ গতে ৪/৪৩ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/২৩ গতে ১১/৪৩ মধ্যে।
২১ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কর্ণাটকে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ২,৬২৭
কর্ণাটকে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২,৬২৭ জনের শরীরে ...বিশদ

12-07-2020 - 08:57:56 PM

রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৩০ হাজার ছাড়াল
রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৩০ হাজার ছাড়াল। পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় ...বিশদ

12-07-2020 - 07:28:42 PM

কেরালায় একদিনে করোনা আক্রান্ত ৪৩৫ 
কেরালায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ৪ ...বিশদ

12-07-2020 - 06:54:11 PM

২৪ ঘণ্টায় নয়াদিল্লিতে করোনায় আক্রান্ত ১,৫৭৩
২৪ ঘণ্টায় নয়াদিল্লিতে নতুন করে আরও ১,৫৭৩ জনের শরীরে মিলল ...বিশদ

12-07-2020 - 06:47:29 PM

তামিলনাড়ুতে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৪,২৪৪ 
তামিলনাড়ুতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ২৪৪ জন করোনায় আক্রান্ত ...বিশদ

12-07-2020 - 06:41:48 PM

বিহারে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১,২৬৬ 
বিহারে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ২৬৬ জন করোনায় আক্রান্ত ...বিশদ

12-07-2020 - 04:47:18 PM