Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

প্রতিবেশীর আতঙ্ক বাড়াতে আইএস
জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে পাকিস্তানই
মৃণালকান্তি দাস

আমেরিকা কি সিরিয়ায় আইএস-এর বিরুদ্ধে অভিযানে বড় কোনও সাফল্য পেয়েছে?  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি ট্যুইট সেই জল্পনা ছড়িয়ে পড়েছে। মার্কিন সময় শনিবার রাতে ট্রাম্প ট্যুইটারে লেখেন, ‘এইমাত্র খুব বড় একটা ঘটনা ঘটল।’  তার মধ্যেই হোয়াইট হাউসের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি হোগান গিডলে সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘‘মার্কিন সময় রবিবার সকাল নটায় বিরাট ঘোষণা করতে চলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।’’  মার্কিন সাপ্তাহিক  ‘নিউজউইক’  পদস্থ এক সেনা আধিকারিককে উদ্ধৃত করে দাবি করেছে, অভিযানে নিহত হয়েছে বাগদাদি। যদিও কোথায়, কীভাবে সেই সাফল্য এসেছে, সেই বিষয়ে ওই সেনা আধিকারিক কিছু বলতে চাননি। এ ক্ষেত্রেও অবশ্য নাম প্রকাশ করতে চাননি ওই সেনাকর্তা। তাহলে কি সত্যিই আইএস শীর্ষ নেতা আবু বকর আল বাগদাদি নিহত? যদিও গত পাঁচ বছরে একাধিকবার তার মৃত্যুর খবর এসেছে। কিন্তু সব জল্পনা উড়িয়ে বারবার আবির্ভাব ঘটেছে কুখ্যাত জঙ্গি আবু বকর আল বাগদাদির।
ডোনাল্ড ট্রাম্প গত বছরও জঙ্গি সংগঠন আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চূড়ান্ত বিজয় ঘোষণা করে একটি ট্যুইটে লিখেছিলেন, ‘‘আইএস পরাজিত হয়েছে। তুরস্কসহ অন্যসব দেশ এখন নিজেরাই অবশিষ্ট জঙ্গিদের সামলাতে পারবে। আমরা এখন (সিরিয়া থেকে) দেশে ফিরছি!’’  ওই বছরে তিন মাসের মধ্যে অন্তত ১৬টি ট্যুইট বার্তায় ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, আইএস পরাজিত হয়েছে অথবা পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছে। কিন্তু মার্কিন প্রতিরক্ষা এবং বিদেশ দপ্তরের দুই শীর্ষকর্তা এবং ইউএস এজেন্সি ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টের কর্তা ট্রাম্পের সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছিলেন। তাঁরা মার্কিন কংগ্রেসে একটি প্রতিবেদন দাখিল করে বলেছিলেন,  জমি হারালেও আইএস জঙ্গিরা এখনও সিরিয়া ও ইরাকে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে এবং আবার তারা তাদের খিলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মার্কিন গবেষণাপ্রতিষ্ঠান নিউ আমেরিকার সিইও অ্যান মারি স্লটার এবং জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক আসা সি ক্যাসলবেরি জানাচ্ছেন, ‘‘সিরিয়া থেকে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে সব মার্কিন সেনা এবং আফগানিস্তান থেকে অর্ধেক সেনা সরিয়ে নেওয়ার যে সিদ্ধান্ত ট্রাম্প নিয়েছিলেন, সেই সিদ্ধান্তই আইএসের তৎপরতা বৃদ্ধির আংশিক কারণ। ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত হতে না-পারার কারণে প্রতিরক্ষা দপ্তরের দায়িত্ব থেকে জেমস ম্যাটিসকে সরে যেতে হয়েছিল। এই সিদ্ধান্তের কারণে আমেরিকার আঞ্চলিক পার্টনারদের সন্ত্রাস মোকাবিলায় জোর ধাক্কা খেতে হচ্ছে। শুধু তাই-ই নয়, ইরাকের বাগদাদ,  নিনেওয়া ও আল আনবার প্রদেশ ছাড়াও মধ্য ইউফ্রেটিস রিভার ভ্যালি এলাকায় আইএস জঙ্গিরা আবার ধীরে ধীরে সংগঠিত হচ্ছে। সিরিয়ায় আল রাক্কা এবং হোমস প্রদেশে আইএস আবার শক্তিশালী ঘাঁটি গড়ে তোলার চেষ্টা করছে। আইএসের যুদ্ধক্ষেত্র এখন যতটা না ‘ফিজিক্যাল’,  তার চেয়ে অনেক বেশি ‘ডিজিটাল’। এই দিকে নজর রেখে আমেরিকাকে অবশ্যই সজাগ হতে হবে। বিশেষত, তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে আইএস যাতে শক্তি সঞ্চয় না করতে পারে, সে বিষয়ে সচেষ্ট থাকতে হবে।’’
সবচেয়ে আতঙ্ক এখন আফগানিস্তানকে নিয়ে। আফগানিস্তানের ইসলামিক স্টেট (আইএস) স্থানীয়ভাবে ইসলামিক স্টেট ইন খোরসান (আইএসআইকে) নামে পরিচিত। ২০১৪ সালে প্রথম আইএসের উপস্থিতি টের পাওয়া গিয়েছিল আফগানিস্তানে। যদিও পেন্টাগন সেই জঙ্গিগোষ্ঠীটিকে পাকিস্তানি তালিবানের একটি বিচ্ছিন্ন গোষ্ঠী বলে পাত্তা দিতে চায়নি। হালফিল এর সদস্যসংখ্যা তিন হাজারের বেশি। আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে প্রধানত,  কুনার,  নানগারহার,  নুরিস্তান ও লাঘমান প্রদেশে তাদের শক্ত ঘাঁটি রয়েছে। সাম্প্রতিককালে উত্তরের কুন্দুজ ও পশ্চিমের হেরাতে আইএসআইকে তাদের ঘাঁটির বিস্তার ঘটিয়েছে। কাবুলে তাদের ইউনিটটি সবচেয়ে মারাত্মক। কারণ, ২০১৮ সালে গোষ্ঠীটি কাবুলে এককভাবে ২৪টি হামলা চালায়। এই সংখ্যা হাক্কানি নেটওয়ার্কের চালানো হামলার সংখ্যাকেও ছাপিয়ে গিয়েছিল। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল রাখমত আকিলভ নামে এক উজবেক সুইডেনের স্টকহোমে জঙ্গি হামলা চালায়,  যাতে পাঁচজন মারা যায়। সেই আকিলভের মগজধোলাই হয়েছিল নানগারহারের একজন আইএস নেতার হাতেই। সম্প্রতি প্রকাশিত রাষ্ট্রসঙ্ঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের প্রথম ছয় মাসে আফগানিস্তানে ৩ হাজার ৮৮১ জন অসামরিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৪২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে আইএসআইকে জঙ্গিদের হাতে।
আইএস বরাবরই রাজনৈতিক শূন্যতা ও অরক্ষিত পরিবেশের সুযোগ নিয়ে এক একটি এলাকায় অনুপ্রবেশ করে। সেই দিক দিয়ে আফগানিস্তান তাদের কাছে সবচেয়ে আকর্ষণীয় জায়গা। দু’বছর আগে ইরাকের মসুল পতনের পর সেখান থেকে পালিয়ে চলে আসা কয়েকজন তরুণ আইএস সদস্যের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন পাকিস্তানের ‘ডন’ পত্রিকার সাংবাদিক আরসালা জাওয়াইদ। তাঁর কথায়, ‘‘ওই আইএস জঙ্গিদের প্রায় সবার কথায় একটি অভিন্ন ভাষা ছিল। বয়সে তরুণ জঙ্গিরা যখন শাসনক্ষমতার খুব কাছে যাওয়ার সুযোগ পায়, তাদের সিদ্ধান্ত যখন গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হয়, তখন তারা আইএসে যোগ দেওয়ার বিষয়ে আগ্রহী হয়ে ওঠে। একেকটি শহর পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয় অল্পসংখ্যক তরুণকে। এই শাসনক্ষমতার লোভ দেখিয়ে আফগানিস্তানেও তরুণদের আইএস দলে ভেড়াচ্ছে। আইএস মনে করছে, তালিবানের তরুণ জঙ্গিদের যত দ্রুত দলে ভেড়ানো যাবে, তত তাড়াতাড়ি আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া সম্ভব হবে।’’
ভয় একটাই! দেশে দেশে ছড়িয়ে পড়ছে আইএস জঙ্গিরা। বছর দুই আগে, ফ্রান্স জানিয়েছিল, তাদের দেশ থেকে ১ হাজার ৭০০ জন আইএসের হয়ে লড়াই করতে দেশ ছেড়েছিল। এদের মধ্যে ৪০০ থেকে ৪৫০ জন মারা পড়েছে। দেশে ফিরেছে ২৫০ জন। ফরাসি বিদেশমন্ত্রী জ্যঁ-ইভ লুদরিও জানিয়েছিলেন, ইরাক ও সিরিয়ায় এখনও ৫০০ ফরাসি আইএসের হয়ে লড়ছে। তাদের জন্য এখন ফ্রান্সে ফিরে আসাটা বেশ কঠিন। এর বাইরেও ৫০০ জনের কোনও হদিসই নেই। তারা যুদ্ধের কৌশল রপ্ত করেছে, বোমা বানাতে পারে। আমেরিকার জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবাদ বিশেষজ্ঞ ব্রুস হফম্যান জানিয়েছেন, হাজার হাজার আইএস জঙ্গি ইরাক-সিরিয়ার যুদ্ধক্ষেত্র থেকে পালিয়েছে। তাদের অনেকে এখন বলকান অঞ্চলে গা ঢাকা দিয়েছে। সুযোগ খুঁজছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ঢোকার জন্য। সন্ত্রাসবাদ-বিষয়ক আরেক বিশেষজ্ঞ থমাস স্যান্ডার্সের মতে,  অন্তত ৮০ জন আইএস জঙ্গি ফিলিপিন্সের দক্ষিণাঞ্চলে আবু সায়েফ বিদ্রোহীদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে। তারা মরক্কো,  সৌদি আরব,  রাশিয়া ও ইয়েমেন থেকে পালিয়ে আইএসে যোগ দিয়েছিল। আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ফরাসি ভাষায় কথা বলে, এমন আইএস জঙ্গিরা তাদের এলাকায় ঢুকে পড়েছে। অনেকে সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে গিয়েছে।
সম্প্রতি ভারতে নয়া  ‘প্রদেশ’  প্রতিষ্ঠার ঘোষণা করেছে জঙ্গি সংগঠন আইএস। গত মে মাসে কাশ্মীরের সোপিয়ানে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে মৃত্যু হয় ইশফাক আহমেদ সোফি ওরফে আবদুল্লা ভাই নামে এক জঙ্গির। ওই দিনই নিজেদের মুখপত্র  ‘আমাক’-এ  ‘উইলায়া অব হিন্দ’  অর্থাৎ ভারতীয় প্রদেশ প্রতিষ্ঠার ঘোষণা করছে ওই জঙ্গি সংগঠন। তবে সোফিকে আবু নাদের আল কাশ্মীরি বলে চিহ্নিত করে তারা। তার আগে, গত ফেব্রুয়ারি মাসে ‘আল রিসাল্লাহ্’  পত্রিকায় সোফির একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়। এই পত্রিকার সত্যতা যদিও যাচাই করা যায়নি, তবে বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইেট সেই সাক্ষাৎকার কিছু অংশ ছড়িয়ে পড়ে। তাতে কালো কাপড়ে মুখ ঢেকে, হাতে বন্দুক নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় সোফিকে। নিজেকে উত্তর কাশ্মীরের বারামুল্লার বাসিন্দা বলে জানায় সে। তবে ওই পত্রিকার সঙ্গে আইএস-এর যোগ নাও থাকতে পারে বলে পুলিস সূত্রে বলা হয়েছে। তাদের যুক্তি,  আইএস-এর পত্রিকাগুলি দেখলে বোঝা যায়,  পেশাদার লোক নিয়োগ করে সেগুলি তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু ‘আল রিসাল্লাহ্’ পত্রিকায় তার কোনও বৈশিষ্ট্যই চোখে পড়েনি। গোয়েন্দারা বার বার সতর্ক করছে, ভারতে হামলা চালাতে পারে আইএস,  নজরে কাশ্মীর এবং দক্ষিণের রাজ্যগুলি। কেরল পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, গত কয়েক বছরে রাজ্য থেকে প্রায় ১০০ জন আইএসে যোগ দিয়েছে। তাদের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েছিল আরও কয়েক হাজার মানুষ। রাজ্যের ২১টি কাউন্সেলিং সেন্টারে তাদের মধ্যে তিন হাজার জনকে মূলস্রোতে ফেরানো গিয়েছে। তবে, নজরদারির মধ্যে রয়েছে তারা। গোয়েন্দাদের সতর্কবার্তা পেয়ে রাজ্যের নিরাপত্তা আটোসাঁটো করা হয়েছে। নজরদারি চলছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও।
খোঁজ নিয়ে জানা গিয়েছে, প্রথমে পাকিস্তানি তালিবানদের একটি দুর্বল জোট হিসেবে যে গোষ্ঠীটিকে বিবেচনা করা হয়েছিল,  সেই আইএসআইকেতে এখন কাজাখস্তান,  তাজিকিস্তান,  ইরাক ও সিরিয়ার জঙ্গিরাও যুক্ত হয়েছে। বহু আফগান যুবক ও তালিবান ছেড়ে আসা জঙ্গিরাও তাদের যোদ্ধা। ওই জঙ্গিদের নাকি আফগান মানদণ্ডে বেশ ভালো অর্থ দেওয়া হয়। কোনও কোনও এলাকায় এই অর্থের পরিমাণ মাসে কয়েকশো ডলার। সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী,  কাঠ,  মাদক ও খনি থেকে পাওয়া মূল্যবান পাথর পাচার করে এবং তোলা তুলে আইএসআইকে অর্থ সংগ্রহ করে থাকে। প্রাথমিকভাবে আরব দুনিয়ার নেতারা আইএসআইকে আর্থিক সহায়তা দিতেন। কিন্তু এখন তারা স্বনির্ভর হিসেবে বিবেচিত। আব্দুল রহিম মুসলিমদোস্তের মতো কিছু দলছুট আইএস নেতার মতে, আইএসআইকে পাকিস্তানের সৃষ্টি। আফগান সাংবাদিক আব্দুল রহিম মুসলিমদোস্ত ইরাকে ও আফগানিস্তানে আইএসের সদস্য ছিল। ২০১৫ সালে সে আইএস-সঙ্গ ত্যাগ করে। বেশ কিছুদিন পাকিস্তানের কারাগারে ও গুয়ানতানামো বের বন্দিশিবিরে বন্দিও ছিল সে।
অনেকের যুক্তি, আফগানিস্তানে আইএসআইকের প্রায় রাতারাতি উত্থান এবং তাদের মোকাবিলা করতে আমেরিকার অনীহায় এই ধারণাই জোরালো হয় যে, তালিবানকে দুর্বল করার একটি গোপন প্রচেষ্টা হিসেবে আমেরিকাই আইএসআইকে নামে সংগঠনটাকে ইন্ধন জুগিয়েছে। বেশিরভাগ মানুষ যে তত্ত্বটি বিশ্বাস করে সেটা হচ্ছে আইএসআইকে সিআইএ-র তৈরি করা একটি জঙ্গি সংগঠন, যা পুনরুজ্জীবিত হওয়া তালিবানের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য মার্কিন সেনাবাহিনী এবং আফগান সরকার গঠন করেছে।
এই তত্ত্বের আরও একটি বিশ্বাসযোগ্য কারণ হল, আফগানিস্তানে অনেক প্যান-ইসলামিক গোষ্ঠীর উপস্থিতি— তালিবান, আল–কায়েদা এবং এখন আইএসআইকে। একই মতাদর্শ ও লক্ষ্য নিয়ে তারা আফগানিস্তানের মাটিতে ঘাঁটি গেড়েছে। আফগানিস্তানকে অস্থিতিশীল রাখাই তাদের মূল লক্ষ্য। আফগানিস্তানে শান্তি ফেরাতে পাকিস্তানের সাহায্যে চেয়েছে মার্কিন সরকার। কিন্তু, পাকআশ্রিত এবং পাকমদতে পুষ্ট জঙ্গিদের জন্য দেশের স্থিতিশীলতাই নষ্ট হচ্ছে বলে ইতিমধ্যেই অভিযোগ তুলেছে আফগান সরকার। সন্ত্রাসে মদত জোগানো নিয়ে এবার পাকিস্তানকে একহাত নিয়েছেন আফগানিস্তানের প্রাক্তন গুপ্তচর প্রধান তথা
প্রাক্তন অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী আমরুল্লা সালেহ।
জয়েশ-ই-মহম্মদ, লস্কর-ই-তইবার পাশাপাশি আইএস জঙ্গিদেরও পাকিস্তান অস্ত্র প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বলে দাবি তাঁর।
সম্প্রতি একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘তালিবানই অন্য জঙ্গি সংগঠনগুলিকে জায়গা করে দিয়েছিল। এই মুহূর্তে তালিবান দমনই প্রধান লক্ষ্য আমাদের। তারপর বাকি সংগঠনগুলির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হবে। তবে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েক জন আইএস জঙ্গিকে বন্দি করেছে আমাদের নিরাপত্তাবাহিনী। পাকিস্তান থেকে আর্থিক সাহায্য এবং অস্ত্র প্রশিক্ষণ পাওয়ার কথা স্বীকার করেছে তারা। আইএস জঙ্গিদের গতিবিধির উপর নজরদারিতেও পাকিস্তানের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ ধরা পড়েছে। খোরাসানে আইএস-এর যে শাখা রয়েছে, সড়কপথে পাকিস্তানে যাতায়াতও আছে তাদের।’’  এর আগে আফগান বিদেশ মন্ত্রকের তরফেও পাকিস্তানের তীব্র সমালোচনা করা হয়েছিল। আফগান সরকার বলেছিল, ‘‘আফগানিস্তান কখনওই পাকিস্তানের পক্ষে বিপজ্জনক নয়। বরং ঠিক উল্টোটাই ঘটছে। পাকআশ্রিত এবং পাকমদতে পুষ্ট জঙ্গিদের জন্য আফগানিস্তানের স্থিতিশীলতাই নষ্ট হচ্ছে।’’
আফগানিস্তানে সম্প্রতি আইএসের উত্থান, অর্থের উৎস, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে যা বলা হচ্ছে, তা নিয়ে অনেক জল্পনা রয়েছে। আফগানিস্তান কি আদৌ আইএসের চ্যালেঞ্জকে রুখতে সক্ষম হবে? নাকি আরব দুনিয়ার মতো ছড়িয়ে পড়বে গোটা এশিয়া ভূখণ্ডে। আর আইএসের সেই উত্থানের দায় নিতে হবে ইসলামাবাদকেই।
 
28th  October, 2019
ফজলুর রহমানের উত্থান, ইমরানের মাথাব্যথা
মৃণালকান্তি দাস

ক্ষমতা টলমল পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের! সরকারের অপদার্থতা, ভোটে রিগিং এবং আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের খানের পদত্যাগের দাবি তুলেছেন জমিয়াত উলেমা-এ-ইসলামের প্রধান মৌলানা ফজলুর রহমান।  
বিশদ

ঐতিহাসিক নভেম্বর বিপ্লব: ফিরে দেখা
জিষ্ণু বসু

৭ নভেম্বর মধ্যরাত্রে বলশেভিকরা এই ডুমার সদস্যদের হত্যা করে ক্ষমতা দখল করে। ত্রোৎস্কির নেতৃত্বে বলশেভিকদের এই অভিযানে সহায়তা করেছিলেন ‘জার্মান গোল্ড’ দিয়ে কেনা সরকারি আধিকারিক ও সৈনিকদের একাংশ। গণতন্ত্র সমাপ্ত হওয়ার পরে, ৮ নভেম্বর অজ্ঞাতবাস থেকে আত্মপ্রকাশ করেন ভ্লাদিমির ইলিচ উলিওনভ ওরফে লেনিন।
বিশদ

07th  November, 2019
ঘরে ঘরে হানাদার 
শান্তনু দত্তগুপ্ত

উওটার স্লটবুম আমস্টারডামের একটি কাফেতে ঢুকলেন। সঙ্গে একজন ডাচ সাংবাদিক। কাফেতে ওয়াই-ফাই চলছে। স্লটবুম একটি চেয়ার টেনে বসে তাঁর ল্যাপটপটা খুললেন। পাশে ছোট কালো রঙের একটা ডিভাইস।  বিশদ

05th  November, 2019
মর্ত্যলোক থেকে ঘুরে গিয়ে শিবের কাছে রিপোর্ট জমা দিল টিম-দুর্গা
সন্দীপন বিশ্বাস

মর্ত্য থেকে ফিরে প্রতিবারই শিবের কাছে টিম-দুর্গা একটা করে রিপোর্ট জমা দেয়। ‘পিতৃগৃহং পরিক্রমণং সন্দেশম্‌’ ফাইলে সেই রিপোর্ট জমা পড়ে এবং শিব সেই রিপোর্ট পড়ে মর্ত্যধামের গতিপ্রকৃতি সম্পর্কে অবহিত হন। এবারও যথারীতি প্রত্যেকে তাঁদের রিপোর্ট ‘মহাদেব অ্যাট কৈলাস ডট কমে’ পাঠিয়ে দিয়েছেন। ওটা শিবের ই-মেল অ্যাড্রেস। 
বিশদ

04th  November, 2019
অবরুদ্ধ কাশ্মীরে বিদেশিদের সফর, রহস্যময়ী
ম্যাডি শর্মা ও পাঁচ বাঙালির নৃশংস হত্যা 
হিমাংশু সিংহ

কাকতালীয় ঘটনা হলেও সত্যি! বাংলার পাঁচ শ্রমিককে অপহরণ করে নৃশংসভাবে খুন করার দিনেই নরেন্দ্র মোদি সরকারের সৌজন্যে অবরুদ্ধ কাশ্মীর সফর করেছেন একঝাঁক বিদেশি প্রতিনিধি।
বিশদ

03rd  November, 2019
বন্ধ হোক মৃত্যুকে রাজনীতির পণ্য বানানো
তন্ময় মল্লিক

জন্মিলে মরিতে হবে, অমর কে কোথা কবে। মাইকেল মধুসূদন দত্ত। শৈশবের গণ্ডি ছাড়াতে না ছাড়াতেই অমর কবির এই কবিতা প্রথম শিখিয়েছিল, জন্ম আর মৃত্যু এক সুতোয় বাঁধা। ভাবসম্প্রসারণ লিখতে গিয়ে শিখেছিলাম, জীবনের অবশ্যম্ভাবী পরিণতিই হল মৃত্যু। আধ্যাত্মিক মনোভাবাপন্ন মানুষের মতে, আত্মার সঙ্গে পরমাত্মার মিলন।   বিশদ

02nd  November, 2019
চীনা সাম্রাজ্যবাদ
সমৃদ্ধ দত্ত

 কোনও এক সময় শুরু হয়েছিল অন্ধ্রপ্রদেশে। কিন্তু পরবর্তীকালে প্রধানত বিহারের বিষহরি উৎসবের প্রধান হস্তশিল্প হিসাবে জনপ্রিয় হয়ে যায় মঞ্জুষা। ভাগলপুরে ব্রিটিশ আমলে মঞ্জুষা শিল্প এতটাই খ্যাতি ও বাণিজ্য পেয়েছিল যে, এমনকী ম্যানচেস্টারেও নিয়ম করে যেত ওই সিরিয়াল আর্ট। বিশদ

01st  November, 2019
ভূস্বর্গে বাংলার পাঁচ শ্রমিকের মৃত্যুই
বুঝিয়ে দিল কাশ্মীর ভালো নেই
সন্দীপন বিশ্বাস

 প্রত্যেকেরই একটা নিজস্ব উদ্দেশ্য থাকে। সেই উদ্দেশ্য যাতে সফল হয়, তার একটা পন্থাও থাকে। উদ্দেশ্য অনেক সময় ঠিক থাকলেও দেখা যায় বহু ক্ষেত্রে পদ্ধতির ভুল থাকে। তাতে উদ্দেশ্য সফল হয় না। উল্টে তা আরও অনেক সমস্যা ডেকে আনে। কাশ্মীরে সেই ঘটনাই ঘটেছে। বিশদ

01st  November, 2019
অতঃ কিম্‌
মেরুনীল দাশগুপ্ত

 প্রশ্নটা অনিবার্যভাবেই উঠছে। চারদিকের পরিবেশ পরিস্থিতিই সাধারণ জনমনে প্রশ্নটা তুলে দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, কখনও-সখনও অপ্রত্যাশিত ঘটনার আকস্মিক ধাক্কায় প্রশ্নটা জিজ্ঞাসার সীমা ছাড়িয়ে কার্যত আমাদের বিস্ময়ে বিহ্বল করে দিচ্ছে। বিশদ

31st  October, 2019
বেসরকারিকরণ: অর্থনীতি এবং রাজনীতি
শান্তনু দত্তগুপ্ত

 মোদি সরকারের সাংসারিক হালচালটা একবার দেখে নেওয়া যাক। দেশের জিডিপি নেমে গিয়েছে ৫ শতাংশে। বেকারত্বের হার গত ৪৫ বছরের মধ্যে সর্বাধিক। ফলে কর্মসংস্থান তৈরি তো হচ্ছেই না, পাশাপাশি বাজারদর হু হু করে বাড়ছে। ২০১৪ সাল থেকে নরেন্দ্র মোদি স্বপ্ন বেচার সওদাগর। বিশদ

29th  October, 2019
উৎসবের সুন্দরবন
সুব্রত চট্টোপাধ্যায়

 সোদপুরে এবার ঠাকুর দেখতে গেছেন? ওখানকার ওয়াটার-সাইড পুজোমণ্ডপে এবারের থিম ছিল বনবিবি দুর্গা। সেখানে দেখানো হয়েছে সুন্দরবনের কাঠুরে-মৎস্যজীবীদের জীবন। থিম দেখে কতটুকুই বা বুঝবেন ওদের। প্র্যাকটিক্যালি মৎস্যজীবীরা ট্রলার-ডুবিতে কত যে মরছে, জঙ্গলে যাওয়ার ছাড়পত্র পাওয়া নিয়ে কত যে ওদের ভোগান্তি-অশান্তি! অবশ্য উৎসবের মুখে (২১.০৯.১৯) জেলা প্রশাসন কাকদ্বীপে গিয়ে এফডি নয়ন ও দশভুজা নামের ট্রলার দুটির নিখোঁজ ২৩টি মাছ-মারা পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে ২ লাখ টাকার চেক দিয়েছেন। এটাই বা মন্দ কী! তবু পরিবারগুলো সেদিন কান্নায় ভেঙে পড়েছে। কিন্তু উৎসবে কিছুটা চাঙ্গা হলেও হয়েছে তারা।
বিশদ

29th  October, 2019
হরিয়ানা-মহারাষ্ট্র ভোটের ফল বাড়তি অক্সিজেন জোগাবে মমতাকে
হিমাংশু সিংহ

মে মাসে লোকসভা ভোটের ফল বেরনোর পর থেকেই গত পাঁচমাস ধরে বিরোধীরা ছত্রভঙ্গ। টুঁ শব্দ করার কেউ নেই। তার উপর গত আগস্টে ৩৭০ ধারার অবলুপ্তির পর থেকে কাশ্মীরের প্রথম সারির নেতা-নেত্রীরা কার্যত অন্তরালে। সেই নিষেধাজ্ঞার বজ্র আঁটুনি পুরোপুরি শিথিল হয়নি এখনও। 
বিশদ

27th  October, 2019
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি,কলকাতা: আগামী ২২ থেকে ২৬ নভেম্বর কলকাতায় হবে টাটা স্টিল র‌্যাপিড - ব্লিৎজ টুর্নামেন্ট। এই প্রতিযোগিতায় বিশ্বের প্রথম ১৫ জন গ্র্যান্ডমাস্টারের মধ্যে দশজন যোগ ...

 ইস্তানবুল, ৭ নভেম্বর (এএফপি): ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিগোষ্ঠীর অনেক ‘হাঁড়ির খবর’ ফাঁস করে দিয়েছে নিহত জঙ্গিনেতা আবু বকর আল বাগদাদির স্ত্রী রানিয়া মাহমুদ। এমনটাই দাবি ...

রাঁচি, ৭ নভেম্বর (পিটিআই): ঝাড়খণ্ডের গিরিডিতে এক মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় তাঁর পরিবারের দাবি, না খেতে পেয়ে তিনি মারা গিয়েছেন। যদিও রাজ্য প্রশাসনের তরফে অনাহারে মৃত্যুর ...

সংবাদদাতা, নবদ্বীপ: রাস উৎসবকে সামনে রেখে নবদ্বীপে ফেরিঘাটগুলিতে নিরাপত্তা বাড়ানো হল। রাসের দিনগুলিতে ফেরিঘাট দিয়ে কয়েক লক্ষ মানুষের আনাগোনা লেগে থাকে। ফলে তাদের পারাপার ও নিরাপত্তা নিয়ে নবদ্বীপের ফেরিঘাট কর্তৃপক্ষ উদ্যোগী হয়েছেন। পাশাপাশি নবদ্বীপ পুরসভা ও ব্লক প্রশাসনও এনিয়ে তৎপর। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসা সূত্রে উপার্জন বৃদ্ধি। বিদ্যায় মানসিক চঞ্চলতা বাধার কারণ হতে পারে। গুরুজনদের শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৬২- সঙ্গীত জগতের কিংবদন্তি পুরুষ ওস্তাদ আলাউদিন খাঁর জন্ম।
১৮৯৫- জার্মান পর্দাথবিদ উইলিয়াম কনরাড রঞ্জন এক্স রে আবিষ্কার করেন।
১৯১০ - ওয়াশিংটনের নির্বাচনে প্রথম কোনও মহিলা ভোট দেন।
১৯২৭- রাজনীতিক লালকৃষ্ণ আদবানির জন্ম
১৯৩৬ - প্রখ্যাত হিন্দী কথাসাহিত্যিক মুনশি প্রেমচাঁদের মৃত্যু
১৯৪৭ – সঙ্গীতশিল্পী ঊষা উত্থুপের জন্ম
১৯৭৬ - ক্রিকেটার ব্রেট লি’র জন্ম
২০১৭ – ভারতে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল হয়



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৪৮ টাকা ৭২.৬৪ টাকা
পাউন্ড ৮৯.১২ টাকা ৯৩.৪৫ টাকা
ইউরো ৭৬.৭৪ টাকা ৮০.৪৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৮২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৮৩৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৩৯০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৭৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,৮৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২১ কার্তিক ১৪২৬, ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, একাদশী ১৬/৩০ দিবা ১২/২৫। পূর্বভাদ্রপদ ১৫/৫৯ দিবা ১২/১২। সূ উ ৫/৪৮/২৭, অ ৪/৫২/২১, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৩ মধ্যে পুনঃ ৭/১৭ গতে ৯/৩০ মধ্যে পুনঃ ১১/৪২ গতে ২/৩৯ মধ্যে পুনঃ ৩/২৩ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৫/৪৪ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৬ গতে ৩/১৩ মধ্যে পুনঃ ৪/৫ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/৩৫ গতে ১১/২১ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৬ গতে ৯/৪৩ মধ্যে। 
২১ কার্তিক ১৪২৬, ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, একাদশী ১৫/৫৮/১৯ দিবা ১২/১২/৪৩। পূর্বভাদ্রপদ ১৭/৫৮/২৫ দিবা ১/০/৪৫, সূ উ ৫/৪৯/২৩, অ ৪/৫৩/১৪, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৪ মধ্যে ও ৭/২৭ গতে ৯/৩৬ মধ্যে ও ১১/৪৫ গতে ২/৩৭ মধ্যে ও ৩/২০ গতে ৪/৫৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৩৯ গতে ৯/১১ মধ্যে ও ১১/৫০ গতে ৩/২২ মধ্যে ও ৪/১৫ গতে ৫/৫০ মধ্যে, বারবেলা ৮/৩৫/২১ গতে ৯/৫৮/২০ মধ্যে, কালবেলা ৯/৫৮/২০ গতে ১১/২১/১৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৭/১৬ গতে ৯/৪৪/১৭ মধ্যে। 
১০ রবিয়ল আউয়ল 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আগামীকাল অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করবে সুপ্রিম কোর্ট

09:17:50 PM

এবার হকি বিশ্বকাপ ভারতে
২০২৩ সালে পুরুষদের এফআইএইচ হকি বিশ্বকাপ আয়োজন করবে ভারত। ...বিশদ

05:08:38 PM

পদত্যাগ করলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী
 মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিলেন দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। সরকার গড়ার ...বিশদ

05:01:39 PM

আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হল এবছরের আন্তর্জাতিক কলকাতা ফিল্ম উৎসবের

05:01:00 PM

বর্ধমান স্টেশনে পদপিষ্ট হয়ে জখম বহু
বর্ধমান স্টেশনে ৪ ও ৫ নম্বর প্লাটফর্মের মাঝে ফুটওভারব্রিজে ওঠানামা ...বিশদ

04:54:00 PM

গান্ধী পরিবারের এসপিজি নিরাপত্তা তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের: সূত্র 

03:53:10 PM