Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

রাজ্য মেধাতালিকা ও প্রান্তিক সুন্দরবন
সুব্রত চট্টোপাধ্যায়

অনেকেই বলাবলি করেন: রাজ্যের মেধাতালিকায় কোথায় আর সুন্দরবন। কথাটা ঠিক নয়। ক্ষেত্রসমীক্ষা বলছে—মেধাতালিকায় সে-মাথায় দার্জিলিং তো এ-মাথায় সুন্দরবন। সদ্য বের হল জয়েন্টের মেধাতালিকা। পঞ্চম স্থানে অর্ক দাস। অর্কের শিকড় আসলে সুন্দরবন সন্নিহিত অঞ্চলে। খোদ সুন্দরবনের জ্ঞানপীঠ বিদ্যায়তনে ওর প্রাথমিক শিক্ষাগ্রহণ। মা সুন্দরবনের মেয়ে, বাবার মাস্টারিও এখানে। মে-তে প্রকাশিত উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ ও মাদ্রাসা বোর্ডের মেধাতালিকায় এবার বাঁকুড়া-বীরভূমদের ভিড়েও সুন্দরবন। এমনকী কলকাতা যেখানে পেল একটি, সেখানে সুন্দরবন পেল দুটি জায়গা—দ্বিতীয় ও অষ্টম। কাকদ্বীপ সুন্দরবন আদর্শ বিদ্যামন্দিরের মাসুম আখতার দ্বিতীয় (৪৯৬), কাউতলা আর কে এ হাইয়ের আদিত্য বসু অষ্টম (৪৮৮)। মাসুম মাধ্যমিকে ছিল ৪র্থ স্থানে। ২০১৬-তেও ওর স্কুলের সৌরজ্যোতি-রাতুল পঞ্চম ও নবম স্থানে। ওদিকে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের ফাজিলে ক্যানিং ২-এর বনমালীপুর এ জে এস সিনিয়র মাদ্রাসার হাসানুর রহমান মেধাতালিকায় দ্বিতীয়। গতবারে ইনজামুল লস্কর পঞ্চম। অবাক হবেন—এই স্কুলের আবুল কালাম ২০০৭-এ আলিম পরীক্ষায় ছিল মেধাতালিকার শীর্ষে। সুন্দরবন শীর্ষেও তাহলে?
আসলে কি জানেন, অঞ্চলটি এখনও কিছুটা হলেও পিছিয়ে। এখানে রেজাল্ট করা মুখের কথা নয়। এক মেহনতি প্রক্রিয়া। শহরের ছেলেমেয়েরা যেখানে থাকে রাজপ্রাসাদে, সেখানে এখানকার পড়ুয়ারা থাকে রায়মঙ্গল হাতানিয়া-দোয়ানিয়াদের মতো ভয়ঙ্করদের পাশে। পড়তে পড়তে ওদের একটা মন পড়ে থাকে নদীর দিকে—কখন যে বাঁধটা ভেঙে যাবে। আর ভাঙলেই ওদের বইখাতা ভেসে যায়, উড়ে যায় পড়ার ঘরের চালাটাও। ঘোড়ামারা, জি-প্লট, মৌসুনির পড়ুয়াদের সর্বক্ষণ কাটে টেনশনে। শহর ও বাঁকুড়া-বীরভূমদের এসব হ্যাপা নেই। ওদের সাফল্যের রসায়নটাই আলাদা। পড়ো আর মার্কস তোলো। স্কুলে ল্যাব, লাইব্রেরি, সযত্ন ক্লাস, ইউনিট টেস্ট, মকটেস্ট। সাবজেক্ট পিছু অঢেল টিউশনি, হাতের কাছে ‘পাথ ফাইন্ডার’-ও। ওদের সঙ্গে পাল্লা দেবে সুন্দরবন? তাও দিচ্ছে। কখনও খালি পেটে, কখনও পান্তা খেয়ে। এদের বাবা মা’রা কেউ দিনমজুর, কেউ সেলসম্যান, কেউ ভ্যান চালায়, কারুর মুদির দোকান, তেলে ভাজার দোকান। কোথায় পাবে এরা টিউশনির টাকা! তবু সব কিছু ওভারকাম করে এরা তুলছে স্টার মার্কস, এমনকী ১০০-য় ১০০। ১৯ ব্লকের (মোট ১৯ ব্লক নিয়ে সুন্দরবন) সেরা ১৯ স্কুলসহ আরও ২১টি (মোট দাঁড়াচ্ছে ৪০টি) স্কুল নিয়ে তৈরি একটি সমীক্ষায় দেখা যায় এরা কতখানি উচ্চফলনশীল। ৯০ ছাপিয়েও মার্কস তুলছে অনিমেষ-সুমন (দেবনগর এম ডি হাই), পূর্ণিমা-রাখী (ট্যাংরাখালি পিজেপি হাই /ক্যানিং-১), কুণাল (শ্রীফলতলা সি কে হাই, মথুরাপুর-২), নীলেন্দু (খানসাহেব আবাদ হাই, সাগর) এবং আরও আরও অনেকেই। এখানে ১০০ তে ১০০ মার্কস তোলার প্রথম রেকর্ড করেছে সাহেবখালি নিত্যানন্দ হাইয়ের (হিঙ্গলগঞ্জ ব্লক) সেদিনের (১৯৬১) পুঁচকে শুকদেব গায়েনের অঙ্কে ১০০। আমৃত্যু তার অঙ্ক চর্চা। লোকে বলত, সুন্দরবনের কে সি নাগ। পরে পরে ১০০ তুলল ভূদীপ্ত (ছোট সেহারা হাই), অমর (ছোট মোল্লাখালি এম সি বিদ্যাপীঠ), হালে পেয়েছে সাগির (ঈশ্বরীপুর মর্জিনা বিদ্যাপীঠ), তৌসিক (টাকি আর কে মিশন), সুচেতা (হাড়োয়া পিজি হাই), সৌরভ (হিঙ্গলগঞ্জ হাই) যথাক্রমে অঙ্কে জীবনবিজ্ঞানে। সেরা দশদের মতোই এদের কাজ। তাছাড়া একেই বলে দারিদ্র্যকে তুড়ি মারা। মেধাতালিকার বাইরে থেকেও এদের এটা মেধারই পরিচয়। দুলদুলি মঠবাড়ি ডিএন হাইয়ের সুকান্ত রাজ্যে তুলল সেবার (১৯৯৫) ইতিহাসে সর্বোচ্চ মার্ক ৯২। এই স্কুলেরই আরেক উল্লেখ্য ক্যারেক্টর রবীন্দ্রনাথ গায়েন। সে দিনের (২০০১) এই কিশোর আজকের রবীন্দ্রনাথ গায়েন, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটির পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ সামলাচ্ছেন। দিনমজুর বাবার পয়সায় মানুষ। গাঙ পেরিয়ে স্কুলে যেতেন। পেলেন বিজ্ঞানী মণিলাল ভৌমিক মেধা অনুসন্ধান বৃত্তি। রেজাল্টের জোরে।
সুন্দরবনের কপাল খুলেছিল ১৯৫৮ সালে। স্কুল ফাইনালে টাকি রাষ্ট্রীয় হাই স্কুলের (হাসনাবাদ ব্লক) অজিত কুমার মণ্ডল সেবার রাজ্যে একাদশ স্থানে। এই প্রথম মেধাতালিকায় সুন্দরবন। ১৯৬২-তে এই স্কুলের রামপ্রসাদ সেনগুপ্ত একাদশ শ্রেণীতে রাজ্যে ৭ম স্থানে। পরের বছর জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত মনোতোষ মিত্র। এছাড়া ললিত ঘোষ, চন্দন দাশগুপ্ত, তাপস চন্দ এখানকার কৃতী ছাত্র। ১৯৬৯ হিঙ্গল ব্লকের দুই কিশোর শ্যামল সরকার (যোগেশগঞ্জ হাই, ৪র্থ স্থান, ৭৫১), ও তপন ঘোষ (কনকনগর এসডি হাই, ৭ম স্থান, ৭০৭) কাদা জল ঘেঁটে স্কুলে আসতে আসতে কখনও কি ভেবেছিল যে, একজন হয়ে যাবে আই এ এস অফিসার, আরেকজন যাবে বেলুড় আর কে মিশনে ইকনমিক্স পড়াতে? রাজাবাজার সায়েন্স কলেজে এখন ক্লাস নিচ্ছেন অতিথি অধ্যাপক হিমাংশু রাউত। কিশোর হিমাংশু পাথরপ্রতিমা কেদারনাথ রামানন্দ হাই-এ ক্লাস এইটেই ড্রপ আউট। সংসারে টানাটানি। অবশেষে সেরা দশে নবম (মার্কস ৬৮০)। ১৯৭২-এ। মশারি নেই, বিছানা নেই, গোটা তিনেক টাকা আর একজোড়া চপ্পল ধার করে পড়তে গেল বেলঘরিয়া আর কে মিশনে। দেখেছেন কি এমন জীবন? ক্ষেত্র সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, সুন্দরবনে ‘সেরা দশে’ দাঁড়িয়ে মোট ১৯টি ব্লকের ৯টি—হাসনাবাদ, হিঙ্গলগঞ্জ, ক্যানিং-২, পাথরপ্রতিমা, সাগর (মনসাদ্বীপ আর কে মিশন হাই, প্রবীর গোল দিগন্ত দাস), কাকদ্বীপ, জয়নগর-১ (দঃ বারাসাত আচার্য শিবদাস হাই, বিশ্বজিৎ দাস), জয়নগর ২ (নিমপীঠ আর কে হাই, তারাশঙ্কর-রামশঙ্কর), মথুরাপুর ২। অবশিষ্ট ব্লকের স্কুলগুলোতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে অজস্র মেধা। যেমন, ক্যানিং ডেভিড সেগুন, বাসন্তী হাই, রাঙ্গাবেলিয়া হাই, গোসাবা আর আর আই, মথুরাপুরের কৃষ্ণচন্দ্র হাই, সন্দেশখালির কালীনগর হাই, কুলতলির জামতলা ভগবানচন্দ্র হাই, নামখানা এম ডি হাই, জয়গ্রাম হাই, বামনপুকুরিয়া হাই। জয়গ্রাম হাইয়ের এক মেধাবী (১৯৪২-এ উত্তীর্ণ) আজকের বিখ্যাত ডাক্তার অনুপম দাশগুপ্ত। নামখানা এম ডি হাই-এ হস্টেলে মেধাবীদের রেখে সকাল-বিকেল-রাতে কোচের ব্যবস্থা। মাসুম আদিত্যদের প্রধান শিক্ষক শক্ত হাতে হাল ধরে আছেন যদিও শিক্ষক-ছাত্রের অনুপাতটা ১:৪০ নয়। টাকি আর কে মিশনে পড়াশোনা যথেষ্ট ভালো। সেরা দশে এখানে এ পর্যন্ত তিনজন। সায়ন্তন-অনীশ (২০১৪), রমিত (২০১৫) এখানে যথাক্রমে পঞ্চম, ষষ্ঠ, দশম হয়েছে। স্কুলের নজর মেধা তৈরির দিকেই। আবুল কালাম (ক্যানিং-২, মেধাতালিকার শীর্ষে) নিজের স্কুলে শিক্ষকতা করছেন। অর্থাৎ ১ম হওয়া এক মেধাবীর কাছে পড়ুয়ারা পাঠ নিতে পারছে।
অনেকটাই অতএব স্পষ্ট যে, মেধাতালিকায় অনেকখানি জুড়েই সুন্দরবন। সব শেষে বলি, এখানকার মেধাবীদের মেধা এবং ক্ষমতাকে কি সুন্দরবন উন্নয়নের কাজে লাগানো যায় না? এখানে তাঁরা একটা জুতসই প্রজেক্ট করতে পারেন। বিশেষ করে নদী-বাঁধের ওপর। সুন্দরবন উন্নয়ন পর্ষদেও এঁদের রাখা যেতে পারে। তবেই এঁদের মেধার সার্থকতা।
01st  July, 2019
পশ্চাতে টানিছে সে
রঞ্জন সেন 

অপুষ্টি, অস্বাস্থ্য আর দারিদ্র্যে ব্যাহত হচ্ছে শিশুদের বৃদ্ধি। পাঁচ বছরের নীচে বয়স, দেশের প্রতি তিনজন শিশুর একজনের শরীর স্বাস্থ্যের এমনই হাল। বাড়ের বয়সেই আটকে গেছে এদের বৃদ্ধি। এমন শিশুরা জীবনের রাস্তায় কতটা এগতে পারবে বা আদৌ পারবে কিনা তা বলা সত্যিই খুব কঠিন।  বিশদ

তিন নোবেলজয়ী বাঙালির প্রেসিডেন্সি
শুভময় মৈত্র

রবীন্দ্রনাথ খুব তাড়াতাড়ি স্কুল থেকে পালিয়েছিলেন। বাকিদের ক্ষেত্রে তেমনটা নয়। অমর্ত্য সেন ঢাকায় সেন্ট গ্রেগরি স্কুলে পড়া শুরু করেছিলেন। তারপর ১৯৪১-এ ভর্তি হন শান্তিনিকেতনের পাঠভবনে।   বিশদ

পুলিস ও আমরা
তন্ময় মল্লিক

 বহু বছর আগের কথা। এক আত্মীয়ের মালবাহী গাড়ির কেবিনে বসে কলকাতার দিকে যাচ্ছিলাম। গাড়িতে কাপড় ছিল। ড্রাইভার বড় রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে থাকা পুলিসের হাতে টাকা দিচ্ছিলেন। টাকা দেওয়ার কারণ জানতে চাইলে ড্রাইভার বললেন, ‘টাকা না দিলে ঝামেলা করবে।
বিশদ

19th  October, 2019
পশ্চাতে টানিছে সে
রঞ্জন সেন

 অপুষ্টি, অস্বাস্থ্য আর দারিদ্র্যে ব্যাহত হচ্ছে শিশুদের বৃদ্ধি। পাঁচ বছরের নীচে বয়স, দেশের প্রতি তিনজন শিশুর একজনের শরীর স্বাস্থ্যের এমনই হাল। বাড়ের বয়সেই আটকে গেছে এদের বৃদ্ধি। এমন শিশুরা জীবনের রাস্তায় কতটা এগতে পারবে বা আদৌ পারবে কিনা তা বলা সত্যিই খুব কঠিন। বিশদ

19th  October, 2019
রাজনৈতিক জুটি, অন্য সমীকরণ
সমৃদ্ধ দত্ত

গান্ধীজিকে রক্ষা করতে না পারা সরকারের ব্যর্থতা। আর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সেই দায় এড়াতে পারে না। পুলিস এবং আর্মিও ব্যর্থ। অসংখ্য চিঠি আছড়ে পড়ছে গভর্নর জেনারেল মাউন্টব্যাটেনের অফিসে। প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর দপ্তরে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অফিসে।
বিশদ

18th  October, 2019
মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানার ভোট: বিধ্বস্ত বিরোধী
বনাম দোর্দণ্ডপ্রতাপ মোদি-অমিত শাহ জুটি
বিশ্বনাথ চক্রবতী

 ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির বিপুল জয়ের পর চার মাসের মধ্যে মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানার বিধানসভা নির্বাচনের সম্মুখীন মোদি-অমিত শাহ জুটি। এই দুই রাজ্যে পাঁচ বছর শাসন করবার পরও মোদিই বিজেপির প্রধান ভরসার স্থল। বিশদ

17th  October, 2019
আফ্রিকায় ‘আবিম্যানিয়া’
মৃণালকান্তি দাস

 ইথিওপিয়ার মানুষ আজ মনে করেন, আবি আহমেদ আলি আর কেউ নন, স্বয়ং ভগবানের দূত! তাদের রক্ষাকর্তা! বিশদ

17th  October, 2019
সোনিয়ার দলে অন্ধকার যুগ, মহারাষ্ট্র-হরিয়ানায় অ্যাডভান্টেজ মোদি বাহিনীই
শান্তনু দত্তগুপ্ত

যতদূর মনে পড়ে সময়টা ১৯৯৬। সর্বভারতীয় একটি ইংরেজি দৈনিকে মোহিত সেনের নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। বিষয়বস্তু তোলপাড় ফেলে দেওয়ার মতো। তাঁর বিশ্লেষণ, সোনিয়া গান্ধীর সক্রিয় রাজনীতিতে এসে কংগ্রেসের হাল ধরা উচিত। এই প্রসঙ্গে তিনি কংগ্রেসের প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্টের কথা উল্লেখ করেছেন। অ্যানি বেসান্ত। বিশদ

15th  October, 2019
শেখ হাসিনার দিল্লি সফর: ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সোনালি অধ্যায়
গৌরীশংকর নাগ 

দুঁদে কূটনীতিক মুচকুন্দ দুবের মতে, সামঞ্জস্যের প্রত্যাশা না করেও যদি এক্ষেত্রে ভারতকে তার স্বার্থ সামান্য বিসর্জন দিতেও হয় তাও ভেবে দেখা যেতে পারে। কারণ বাংলাদেশের সমৃদ্ধি ও অভ্যন্তরীণ স্থিরতা ভারতের সুরক্ষা তথা শক্তিকেই সুনিশ্চিত করবে। সুতরাং ভারতের উচিত অর্থনৈতিক বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে যথাসম্ভব তালমিল রেখে কাজ করা।
বিশদ

14th  October, 2019
বদলে যাচ্ছে পুজো
শুভময় মৈত্র

পুজো এখন এক লক্ষ কোটি টাকা কিংবা তার থেকেও বেশি অঙ্কের ব্যবসা। এমনটা সব ধর্মেই হয়। মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ যে বিভিন্ন সময় উৎসব করেন তারও একটা বাজার আছে। রোজার সময় সন্ধেবেলা জিভে জল আনা খাবারের গন্ধ বিনা পয়সায় শোঁকা যেতেই পারে, কিন্তু কিনে খেতে গেলে পয়সা লাগবেই। ফলে ব্যবসা সেখানে অবধারিত। 
বিশদ

12th  October, 2019
সাচ্চা ক্যাপিটালিস্ট হওয়ার পাঠ শেখাচ্ছে সত্তর বছরের গণচীন
মৃণালকান্তি দাস

এখন সাধারণ পোশাক পরা মাও বা টায়ারের চপ্পল পায়ে হো চি মিনরা আর সমাজতান্ত্রিক নেতৃত্বে নেই। এখন স্যুট টাই পরা বিলাসী সাহেবরা নেতৃত্বে। কমিউনিস্ট নাম ধারণ করে আছে শুধু রাষ্ট্রীয় কাঠামোতে দলীয় একনায়কতন্ত্র অব্যাহত রাখার গরজে। ব্রিটিশরা যেমন বলে থাকেন আওয়ার কিং ইজ ডেড, লং লিভ আওয়ার কিং। ঠিক তেমনই। আগে ধনতন্ত্র পরে সমাজতন্ত্র। তার জন্য জানলা খুললে কিছু মাছি-মশা আসবে। কথাটা বলেছিলেন দেং নিজেই। অবশ্য এই মাছি-মশা নিয়ে তাঁদের কোনও ভ্রুক্ষেপ নেই। কী করে সাচ্চা ক্যাপিটালিস্ট হতে হয় সেটাও শেখাচ্ছে চীন! 
বিশদ

11th  October, 2019
এক কাপ চায়ে 
অতনু বিশ্বাস

এক কাপ চা, কত গল্প বলে সকাল, বিকেল, সন্ধে বেলা...।
এ গানের লিরিকের মতোই চা নিয়ে এবং চায়ের টেবিলে গল্পেরও কোনও শেষ নেই। এক কাপ চায়ে আমেজ আছে নিশ্চয়ই। দার্শনিক কিংবা কবি এক কাপ চায়ে খুঁজে পেতে পারে জীবনের জয়ধ্বনি, অবরুদ্ধ আবেগ, অনাবিল অনুভূতি, মুক্তির আনন্দ কিংবা উল্লাস। এমনকী গণতন্ত্রও।  
বিশদ

10th  October, 2019
একনজরে
বিড, ২০ অক্টোবর (পিটিআই): নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে তুতো বোন তথা মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী পঙ্কজা মুণ্ডের বিরুদ্ধে আপত্তিকর মন্তব্য করে ইতিমধ্যে বিতর্কে জড়িয়েছেন এনসিপি নেতা ধনঞ্জয় মুণ্ডে। এবার ধনঞ্জয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল পুলিস। যদিও এনসিপি নেতা দাবি করেন, তাঁর মন্তব্য ‘বিকৃত’ ...

সংবাদদাতা, ময়নাগুড়ি: দীপাবলির আলোর উৎসবের মাঝে যাতে কোনও ধরনের অশান্তির সৃষ্টি কিংবা শান্তিশৃঙ্খলা বিঘ্নিত না হয় সেজন্য ময়নাগুড়ি থানার পুলিস বেশ কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধার্থশঙ্কর রায়ের শততম জন্মদিবসে তাঁর স্মরণ অনুষ্ঠানে বিধানসভার অধ্যক্ষ ও কংগ্রেসের প্রতিনিধি ছাড়া সবাই গরহাজির। রবিবার ছুটির দিনে বিধানসভার অলিন্দে ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতাই যে নিষিদ্ধ মাদক কারবারিদের মূল টার্গেট, একের পর এক ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারের ঘটনায় তার আভাস মিলতে শুরু করেছে। শনিবারই ময়দান এলাকা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীরা শুভ ফল লাভ করবে। মাঝে মাঝে হঠকারী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় ক্ষতি হতে পারে। নতুন ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০৫: ত্রাফালগারের যুদ্ধে ভাইস অ্যাডমিরাল লর্ড নেলসনের নেতৃত্বে ব্রিটিশ নৌবাহিনীর কাছে পরাজিত হয় নেপোলিয়ানের বাহিনী
১৮৩৩: ডিনামাইট ও নোবেল পুরস্কারের প্রবর্তক সুইডিশ আলফ্রেড নোবেলের জন্ম
১৮৫৪: ক্রিমিয়ার যুদ্ধে পাঠানো হয় ফ্লোরেন্স নাইটেঙ্গলের নেতৃত্বে ৩৮ জন নার্সের একটি দল
১৯৩১: অভিনেতা শাম্মি কাপুরের জন্ম
১৯৪০: আর্নেস্ট হেমিংওয়ের প্রথম উপন্যাস ফর হুম দ্য বেল টোলস-এর প্রথম সংস্করণ প্রকাশিত হয়
১৯৪৩: সিঙ্গাপুরে আজাদ হিন্দ ফৌজ গঠন করলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু
১৯৬৭: ভিয়েতনামের যুদ্ধের প্রতিবাদে আমেরিকার ওয়াশিংটনে এক লক্ষ মানুষের বিক্ষোভ হয়
২০১২: পরিচালক ও প্রযোজক যশ চোপড়ার মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৩৪ টাকা ৭২.০৪ টাকা
পাউন্ড ৮৯.৮৬ টাকা ৯৩.১৫ টাকা
ইউরো ৭৭.৭৩ টাকা ৮০.৬৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
19th  October, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৯২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৯৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৪৮৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৬৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,৭৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
20th  October, 2019

দিন পঞ্জিকা

২ কার্তিক ১৪২৬, ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ষষ্ঠী ৪/৩৯ দিবা ৭/৩০। আর্দ্রা ৩০/৩৪ সন্ধ্যা ৫/৫২। সূ উ ৫/৩৮/৩৫, অ ৫/৪/৩৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/২৫ গতে ৮/৪২ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৪ গতে ২/৪৫ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩৫ গতে ৯/১৬ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৭ গতে ১/২৮ মধ্যে পুনঃ ২/১৮ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৯/৫৬ গতে ১২/৪৭ মধ্যে, কালরাত্রি ১২/৫৬ গতে ২/৩০ মধ্যে।
২ কার্তিক ১৪২৬, ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, সপ্তমী ৫৩/৪/১৩ রাত্রি ২/৫২/৫২। আর্দ্রা ২৪/৪১/৫৯ দিবা ৩/৩১/৫৯, সূ উ ৫/৩৯/১১, অ ৫/৫/৫১, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩২ গতে ৮/৪৫ মধ্যে ও ১১/৪২ গতে ২/৪০ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২৮ গতে ৯/১১ মধ্যে ও ১১/৪৬ গতে ১/২৯ মধ্যে ও ২/২১ গতে ৫/৪০ মধ্যে, বারবেলা ৯/৫৬/৪১ গতে ১১/২২/৩১ মধ্যে, কালবেলা ১১/২২/৩১ গতে ১২/৪৮/২১ মধ্যে, কালরাত্রি ১২/৫৬/৪১ গতে ২/৩০/৫১ মধ্যে।
২০ শফর

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
নানুরে বিজেপি সমর্থকের মাকে গুলি করে খুন 
বীরভূমের নানুরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে প্রাণ গেল বিজেপি সমর্থকের মায়ের। গুলিবিদ্ধ ...বিশদ

04:55:03 PM

মোবাইল ফোন হারিয়ে ফেলায় বকুনি, নদীয়ার ভীমপুরে আত্মঘাতী কিশোরী 

04:39:00 PM

কোচবিহারে পাতলাখাওয়ায় মৃত তৃণমূল কর্মীর পরিজনদের সঙ্গে দেখা করলেন সুব্রত বক্সি 

04:34:00 PM

শান্তিপুরে বাড়িতে ভূতের অপবাদ দিয়ে মারধর 
বাড়িতে ভূত রয়েছে এমন অপবাদ দিয়ে বেশ কয়েকটি পরিবারের উপর ...বিশদ

04:29:00 PM

সম্পাদক শুভা দত্ত প্রয়াত 
প্রয়াত বর্তমান সংবাদপত্রের সম্পাদক শুভা দত্ত। সোমবার, ২১ অক্টোবর সকাল ...বিশদ

01:39:53 PM

বিধানসভা নির্বাচন: মুম্বইতে স্ত্রী ও পুত্রকে সঙ্গে নিয়ে ভোট দিলেন শচীন তেন্ডুলকর 

12:26:00 PM