Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

মঠ মন্দির

জনসাধারণের ঐহিক ও পারত্রিক কল্যাণ কামনায় পূর্ব্বাপর মঠ মন্দির সকল প্রতিষ্ঠিত হইত। ঐ সকল মঠই পূর্ব্বে আমাদের দেশের ধর্ম্ম কর্ম্ম ও শিক্ষা দীক্ষার প্রধান কেন্দ্রস্থল ছিল এবং প্রয়োজনানুরূপ সাধারণের সেবায় মঠের সিংহদ্বার সর্ব্বদাই উন্মুক্ত থাকিত। বিদ্যাদানে তখনকার এক একটী মঠ-ই ভুবন বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হইয়াছিল। আবার বিপন্ন জনের উদ্ধার কামনায় মঠের যথাসর্ব্বস্ব নিয়োজিত হইত। এখন সেই সকল মঠের অতি ক্ষীণ নিদর্শন স্বরূপ যে কয়েকটী স্থায়ী প্রতিষ্ঠিত সম্পত্তিশালী মঠ বা দেবোত্তর সম্পত্তি আছে তাহা দ্বারা দেশের ও দশের কি উপকার সাধিত হয়? এখনও সেই সকল মঠের অর্থানুগমের উপায়—সুগমই আছে এবং দেবোত্তর সম্পত্তিও যথেষ্টই আছে। কিন্তু সমাজ বন্ধনের শিথিলতার ফলে ক্রমশঃ উক্ত মঠ ও দেবোত্তর সম্পত্তি সমুদয়— রাজা, প্রজা উভয়েরই সমানাধিকার চ্যুত হইয়াছে।
মঠাধীশ মোহান্তগণের উহা (সম্পত্তি), স্ব-সাম্প্রদায়িক সন্ন্যাসী প্রধানগণেরও কোন আধিপত্য নাই। তাঁহাদের কার্য্যের উপর কাহারও কথাটী পর্য্যন্ত কহিবার অধিকার নাই। সদাশয় সরকার বাহাদুর প্রজার অর্থে হস্তক্ষেপ করিবেন না বলিয়া চুপ করিয়া বসিয়া আছেন। গত ২০ বৎসরের মধ্যে দুইবার দেব-সম্পত্তি ব্যবস্থা বিষয়ক আইনের “বিল” ভারতীয় ব্যবস্থাপক সভায় পেশ হইয়া তাহা পরিত্যক্ত হয়। দেশের এক শ্রেণীর লোক দুইবারই আপত্তিতে ঘোর “হা, হা, রব” তুলিয়া গগন মণ্ডল বিদীর্ণ করিয়াছিলেন। সরকার ভারতীয় ব্যবস্থাপক সভা হইতে উক্ত বিল আইনে পরিণত হইলে “ধর্ম্ম যায় যায়” রব তুলিয়া ঘোরতর আন্দোলন করিয়া সরকারকে উহা রদ করিতে বাধ্য করেন। ভারতীয় ব্যবস্থাপক সভায় উহা পরিত্যক্ত হইয়া প্রায় ২০ বৎসর হইয়া গিয়াছে। কৈ ইহার মধ্যে আর সেই আপত্তিকারীগণের কোন সাড়া শব্দ পাওয়া যায় নাই। তাঁহাদের যত ধর্ম্ম, উদ্যম ও অধ্যাবসায় তখন যেন সংবাদপত্র মুখে কেবল একটা জাতীয় সমস্যা সমাধানের সৎসঙ্কল্প—বাধা দিতেই উচ্ছ্বসিত হইয়াছিল। তাঁহাদের ইচ্ছা যে, সরকার তো কিছু করিতে পারিবেনই না— আর তাঁরাও কিছু করিবেন না— উহা যেমন আছে তেমনই থাক।
প্রজার ধর্ম্মে হস্তক্ষেপ করা হয় ভাবিয়া সদাশয়(সরকার)— কিছু না করিয়া দুইবারই খুব সুবিবেচনার পরিচয় দিয়াছেন, কিন্তু যাঁহারা আপত্তি করিয়া উহাতে বাধা দিয়াছিলেন, কি দুঃখের বিষয় যে ঐ সম্বন্ধে তাঁহাদের সুবিবেচনার পরিচয় আমরা এই সুদীর্ঘকালের মধ্যে কিছু পাইলাম না। তাঁহাদের সকল উদ্যম উহাতে একটা বিষয় বাধা ঘটাইয়াই নিরস্ত হইল। কিন্তু এখন আর কাহারও এই সম্বন্ধে নীরব হইয়া উদাসীন থাকা উচিত হইবে না। সকল দিক্‌ বজায় রাখিয়া কিসে এই মহা গুরুতর সমস্যার সুসমাধান হয়— তাহার একটী উপায় করিতেই হইবে। দুইবারই সরকার [...] যখন দেবোত্তর সম্পত্তির ব্যবস্থা বিধায়ক আইন হইবার প্রস্তাব হয় ২ বারই “দুর্বোধ্য বিবাদ” হইয়াছিল। বিভিন্ন প্রদেশীয় সুবিজ্ঞ সম্ভ্রান্ত বিচক্ষণ দেশনায়ক প্রতিনিধি মণ্ডলে অধিষ্ঠিত আমাদের প্রতিনিধির চেষ্টায় দেশের খাস্‌ নিজস্ব দেবোত্তর সম্পত্তির একটা সুব্যবস্থা হইবে আশায় আমি হর্ষিত হইতাম।
স্বামী অখণ্ডানন্দের ‘রচনা সংকলন’ থেকে
চরিত্রের বহিরঙ্গ রূপ

 চরিত্রের বহিরঙ্গ রূপটি চর্চা-ভিত্তিক এবং সেগুলি দৈনন্দিন জীবনে পালনীয়। চরিত্রের বহিরঙ্গের সুস্পষ্ট কয়েকটি লক্ষণ আছে। যেমনঃ
১। উদ্যোগী হওয়া: ভালো হওয়ার জন্য উদ্যোগ প্রয়োজন, রোখ চাই। বিশদ

29th  June, 2020
 ভক্তিযোগ

জ্ঞান-বিচার পুরুষ মানুষ, বাড়ির বারবাড়ি পর্যন্ত যায়। ভক্তি মেয়ে মানুষ, তাই অন্তঃপুর পর্যন্ত যেতে পারে। কলিযুগে ভক্তিযোগই ভাল। ভক্তি দ্বারাও তাঁকে পাওয়া যায়, বেশি বিচার করা ভাল নয়। বেশি বিচার করতে গেলে সব গুলিয়ে যায়। মার পাদপদ্মে ভক্তি থাকলেই হলো।
বিশদ

28th  June, 2020
অদ্বৈতভাব

  অদ্বৈত-বুদ্ধি এলে আর সাম্প্রদায়িক ভাব থাকে না। আমার গুরু বড়, তোমার গুরু ছোট বলে ঝগড়া-বিবাদ থাকে না। যত গোলমাল অদ্বৈতভাব না হওয়া পর্যন্ত। অদ্বৈতভাব এলে দেখা যায় যে, তোমার গুরু আমার এক। ভিন্ন রূপমাত্র।... শুকদেবকে জনক বলেছিলেন, শেষে আর গুরু-শিষ্যভাব থাকবে না। তাই দীক্ষা-উপদেশের পূর্বেই দক্ষিণা দাও।
বিশদ

27th  June, 2020
 শুদ্ধসত্ত্ব

 —হে বিদ্বান! ভয় পেও না, তোমার বিনাশ নেই, সংসার-সাগর পার হবার উপায় আছে। যে পথ অবলম্বন করে শুদ্ধসত্ত্ব যোগী এই সংসার-সাগর পার হয়েছেন সেই পথের নির্দেশ তোমায় আমি দিচ্ছি। বিশদ

26th  June, 2020
তিনি ছিলেন। তিনি আছেন। তিনি সত্য অবিনাশী।  

তিনি ছিলেন। তিনি আছেন। তিনি সত্য অবিনাশী। ঠাকুরের সার কথা ছিল, ঈশ্বরের জন্যে ব্যাকুলতা। “এই ব্যাকুলতা। যে পথেই যাও, হিন্দু, মুসলমান, খ্রীষ্টান, শাক্ত, ব্রহ্মজ্ঞানী—যে পথেই যাও, ঐ ব্যাকুলতা নিয়েই কথা। 
বিশদ

24th  June, 2020
ভক্তি 

জ্ঞান-বিচার পুরুষ মানুষ, বাড়ির বারবাড়ি পর্যন্ত যায়। ভক্তি মেয়ে মানুষ, তাই অন্তঃপুর পর্যন্ত যেতে পারে। কলিযুগে ভক্তিযোগই ভাল। ভক্তি দ্বারাও তাঁকে পাওয়া যায়, বেশি বিচার করা ভাল নয়। বেশি বিচার করতে গেলে সব গুলিয়ে যায়। মার পাদপদ্মে ভক্তি থাকলেই হলো। 
বিশদ

22nd  June, 2020
মন 

ধ্যানের যে-কোনো প্রক্রিয়াই মূলত ধারণা। ধারণায় মনকে চেষ্টার দ্বারা ধ্যেয় বস্তুতে স্থির রাখা হয়। এই অভ্যাসের ফলে মন যখন নিজেই বা স্বতঃস্ফূর্তভাবে ঐ বস্তুতে স্থির হয়ে যায় তখন ধারণা ধ্যানে পরিণত হয়। ধারণা মূলত উপাসনা। উপ=(ঈশ্বরের)কাছে; আসন=থাকা বা আসন করে বসা।   বিশদ

21st  June, 2020
অমৃতকথা 

মানুষের চিন্তাধারা কীভাবে নিয়ন্ত্রিত হয়? মাঝে মাঝে মনে এমন সব অবাঞ্ছিত চিন্তার উদয় হয় যাকে মন এড়িয়ে চলতে চায়। কিন্তু তবু মন না চাইলেও চিন্তাগুলো জাগতে থাকে। আবার এমনও কিছু চিন্তা মনের মধ্যে মাথাচাড়া দেয় যা মন চায় আসুক কিন্তু বাস্তবে সেগুলো আসে না।   বিশদ

20th  June, 2020
দর্শন 

ধ্যানের এই পদ্ধতিতে ‘ব্যবহারিক আমি’ (empirical self) থেকে ‘প্রকৃত আমি’-তে সাধক উত্তীর্ণ হন। এই পথে ‘প্রকৃত আমি’-র কোন রকম ধারণা আগে থেকে না করলেই ভালো কারণ উপলব্ধির আগে এটি সম্বন্ধে যে-কোনো রকম চিন্তাই সাধকের কাছে ধারণা (concept) মাত্র।  
বিশদ

19th  June, 2020
অমৃতকথা 

কেবলমাত্র পারিপার্শ্বিকতার মিথ্যা শিক্ষার মাধ্যমেই দেহ ক্রমশঃ এই শিক্ষা পায় যে দুরারোগ্য ব্যাধি আছে, অপ্রতিরোধ্য দুর্ঘটনা আছে বা দেহের বার্ধক্য আছে—এই রকম সমস্ত গল্প যা তার আস্থা ও বিশ্বাসকে নষ্ট করে দেয়।   বিশদ

18th  June, 2020
ধ্যান

ধ্যানের উপলব্ধিকে দু’ভাগে ভাগ করা যায় — আনুভূমিক (horizontal) এবং খাড়া (vertical)। ব্যাপারটি হলো অনেকটা সুপারমার্কেটের মতো। সুপার-মার্কেটে সবকিছুই পাওয়া যায় — একতলায় শাক-সবজী, দো-তলায় কস্‌মেটিকস্‌, তিনতলায় জামা-কাপড়, চারতলায় বইপত্র, ইত্যাদি ইত্যাদি।
বিশদ

17th  June, 2020
সহ্যশক্তি

 “সহ্যের চেয়ে কিছুই নাই। পৃথিবীর মত সহ্যগুণ চাই।” বললেন, আমাদের মা সারদা মণি। “পৃথিবীর ওপর কত রকমের অত্যাচার হচ্ছে, অবাধে সব সইছে। মানুষেরও সেই রকম চাই।” মায়ের এ বাণী সামান্য কথার কথা মাত্র নয়, এ উপদেশ তাঁর অসামান্য জীবনবেদের বাণীরূপ।
বিশদ

16th  June, 2020
 শুদ্ধ-আত্মা

 শুদ্ধ-আত্মাই আমাদের স্বরূপ। জ্ঞান কাকে বলে? এই স্ব-স্বরূপকে জানা আর তাতে মন রাখা! এই শুদ্ধ-আত্মাকে জানা। বিশদ

15th  June, 2020
জ্ঞান

 শুদ্ধ-আত্মাই আমাদের স্বরূপ। জ্ঞান কাকে বলে? এই স্ব-স্বরূপকে জানা আর তাতে মন রাখা! এই শুদ্ধ-আত্মাকে জানা। বিশদ

14th  June, 2020
 উদ্ধব

ক্রমে ভাবশান্তি হইল শ্রীরাধার। চলিয়া গেল প্রণয়কোপ ও মান। উদয় হইল স্বাভাবিক বিরহের। শ্রীমান উদ্ধব এতক্ষণ দাঁড়াইয়াছিলেন এক পার্শ্বে। আস্তে আস্তে সসম্ভ্রমে নিকটস্থ হইলেন। সাগরসঙ্গমে তরঙ্গ উঠিলে নৌকার মাঝি নৌকা লাগাইয়া রাখে এক পার্শ্বে ঢেউয়ের আঘাতে ভাঙ্গিয়া যাইবার ভয়ে।
বিশদ

13th  June, 2020
সহনশক্তি

দুঃখকে গ্রহণ করতে হবে তপস্যা বলে। দুঃখ, কষ্ট, অত্যাচার সহ্য করা খুবই দুরূহ তপস্যা। তবে সহনশক্তি বাড়াতে বাড়াতে এমন একটি অবস্থা আসে যখন কষ্টসহিষ্ণুতা অতি সহজ স্বাভাবিক হয়ে যায়।—তপস্যার প্রথম কথাই ইন্দ্রিয়সংযম।  বিশদ

12th  June, 2020
একনজরে
জীবানন্দ বসু, কলকাতা: বিদেশি বিনিয়োগ তথা বেসরকারিকরণ ইস্যুতে কয়লা শিল্পে তিনদিনের লাগাতার ধর্মঘট নিয়ে কেন্দ্রের মোদি সরকারের বিরুদ্ধে কার্যত যুদ্ধংদেহী অবস্থান নিল আরএসএস নিয়ন্ত্রিত শ্রমিক ...

বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: ১৩৫ কোটির দেশে ডাক্তারিতে রয়েছে মাত্র ১৪টি সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞের আসন! চোখ কপালে তুলে দেওয়ার মতো এই তথ্য জানা গেল মেডিক্যাল কাউন্সিল ...

অলকাভ নিয়োগী, বর্ধমান: পরিযায়ী শ্রমিকেরা ভিন রাজ্য থেকে ফিরতেই পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা পরীক্ষাও বেড়েছে। মে মাসের প্রথম সপ্তাহেও সারা জেলায় ৫০০-এর কম নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল। কিন্তু, রবিবার পর্যন্ত জেলায় সেই পরীক্ষার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় সাড়ে ২৩ হাজার। যার ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রখ্যাত যাত্রাভিনেতা তথা নির্দেশক ত্রিদিব ঘোষ সোমবার ভোরে তাঁর যাদবপুরের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। বিভিন্ন যাত্রাপালাতে তিনি ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের কোনও বৃত্তিমূলক পরীক্ষায় ভালো ফল করবে। বিবাহ প্রার্থীদের এখন ভালো সময়। ভাই ও বোনদের ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮১৭: ব্রিটিশ উদ্ভিদ্বিজ্ঞানী এবং অভিযাত্রী জোসেফ ডালটন হুকারের জন্ম
১৯১৭-দাদাভাই নওরজির মৃত্যু।
১৯৫৯ - বিশিষ্ট বাঙালি অভিনেতা ও নাট্যাচার্য শিশিরকুমার ভাদুড়ীর মৃত্যু
১৯৬৬- মাইক টাইসনের জন্ম।
১৯৬৯- রাজনীতিবিদ সুপ্রিয়া সুলের জন্ম।
১৯৮৫- মার্কিন সাঁতারু মাইকেল ফেলপসের জন্ম।



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৮১ টাকা ৭৬.৫৩ টাকা
পাউন্ড ৯১.৯০ টাকা ৯৫.২০ টাকা
ইউরো ৮৩.৫৩ টাকা ৮৬.৫৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯,০৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৬,৫৭০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭,২৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৮,৭৯০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৮,৮৯০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৬ আষাঢ় ১৪২৭, ৩০ জুন ২০২০, মঙ্গলবার, দশমী ৩৭/৭ রাত্রি ৭/৫০। চিত্রা ১/৩৯ প্রাতঃ ৫/৩৯ পরে স্বাতী ৫৭/৪২ রাত্রি ৪/৪। সূর্যোদয় ৪/৫৯/৯, সূর্যাস্ত ৬/২১/১০। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৯ মধ্যে পুনঃ ৯/২৬ গতে ১২/৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৪০ গতে ৪/৩৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩ মধ্যে পুনঃ ১২/১ গতে ২/৯ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৯ গতে ৮/১৯ মধ্যে পুনঃ ১/২০ গতে ৩/০ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৪০ গতে ৯/০ মধ্যে।
১৫ আষাঢ় ১৪২৭, ৩০ জুন ২০২০, মঙ্গলবার, দশমী রাত্রি ৭/১৩। চিত্রা নক্ষত্র প্রাতঃ ৫/৪১ পরে স্বাতী নক্ষত্র শেষরাত্রি ৪/৫। সূযোদয় ৪/৫৮, সূর্যাস্ত ৬/২৪। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪২ মধ্যে ও ৯/২৯ গতে ১২/৯ মধ্যে ও ৩/৪২ গতে ৪/৩৫ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৫ মধ্যে ১২/৩ গতে ২/১১ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৯ গতে ৮/২০ মধ্যে ও ১/২২ গতে ৩/২ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৪৩ গতে ৯/২ মধ্যে।
৮ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
দিল্লিতে করোনা পজিটিভ আরও ২,১৯৯ জন, মোট আক্রান্ত ৮৭,৩৬০ 

10:41:52 PM

আগামী ৩ মাসের জন্য স্বল্প সঞ্চয় প্রকল্পগুলিতে সুদের হার অপরিবর্তিত রাখল কেন্দ্র 

10:08:59 PM

কলকাতায় রান্নার গ্যাসের দাম বাড়ছে 
কলকাতায় রান্নার গ্যাসের দাম বাড়ছে সাড়ে চার টাকা। আগামীকাল থেকে ...বিশদ

09:56:15 PM

মহারাষ্ট্রে করোনা পজিটিভ আরও ৪,৮৭৮ জন, মোট আক্রান্ত ১,৭৪,৭৬১ 

08:38:03 PM

গুজরাতে করোনায় পজিটিভ আরও ৬২০ জন, মোট আক্রান্ত ৩২,৪৪৬ 

08:30:54 PM

কর্ণাটকে করোনা পজিটিভ আরও ৯৪৭ জন, মোট আক্রান্ত ১৫,২৪২ 

07:27:52 PM