Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

আলো 

মানুষের সূক্ষ্মদেহের হৃদয়ে সার্চ্চ লাইটের মত আলো আছে। ওই আলোতে সাধারণতঃ নীচের তিনটি পদ্ম আলোকিত থাকে। মূলাধার হতে যখন ওই আলো সংহরণ করা যায়, তখন তন্দ্রাবস্থা আসে; যখন স্বাধিষ্ঠানে আনা যায়, তখন স্বপ্নাবস্থা হয়; যখন মণিপুরে আসে সুষুপ্তি অবস্থা। এখানে এলেই আলোটা ঘুরে পড়ে এবং ক্রমে বিশুদ্ধ, আজ্ঞা এবং সহস্রারপদ্ম আলোকিত করে। তবে সাধনায় উন্নত না হলে, জ্ঞান না হলে ওখানকার আনন্দ জীব স্মরণে রাখ্‌তে পারে না। সাধক যখন দ্বিদলে ওই আলো ধারণা কর্‌তে পারে, তখন আলোটা দুই দিকে বিকশিত হয়; একদিকে দিয়ে সহস্রদলপদ্ম স্বাভাবিক আলোকিত হয়, আর একদিক দিয়ে সেই আলোতে সমস্তটা জগৎ দেখা যায়। তখন সাধকের যা কিছু দেখবার ইচ্ছা হয়, তা ওই আলোতে ফুটে ওঠে। অমুক কি করছে—এই জান্‌বার ইচ্ছা হওয়া মাত্র তার কার্যকলাপ ওই আলোতে ফুটে উঠবে। অবশ্য এ অবস্থা সাধনাপেক্ষ।
সূক্ষ্ম জগতে উন্নীত হয়ে স্থূলের দিকে দৃষ্টি ফিরালে আমার দেহের কথা আদৌ মনে পড়বে না, কারণ বিশ্বাস স্থূল জগতের তুলনায় আমার দেহটা এতই ক্ষুদ্র, এত অল্প অংশই সে অধিকার করে রয়েছে যে সেদিকে দৃষ্টিই যায় না। বিশেষতঃ যুগপৎ অসংখ্য দৃশ্য যেখানে দৃষ্টির সামনে ফুটে উঠছে, সেখানে এমন সঙ্কীর্ণ দৃষ্টি হওয়াটাই অস্বাভাবিক। যেমন স্থূল দ্বারা স্থূলকে জান্‌তে হয় তেমনি সূক্ষ্ম এবং কারণ দ্বারা কারণকে জানতে হয়। তবে সমষ্টি স্থূল জান্‌তে হলে সূক্ষ্মে না গেলে সম্যক্‌ জ্ঞান হবে না। তেমনি সমষ্টিকারণে গেলে সমষ্টি সূক্ষ্মের জ্ঞান হবে এবং মহাকরণে লীন হলে সমষ্টি কারণ জগতের জ্ঞান হবে।
দেহতত্ত্ব জানা থাক্‌লে আধ্যাত্মিক তত্ত্ব অর্থাৎ সূক্ষ্ম ও কারণ-জগতের তত্ত্ব সহজে বোধগম্য হয়। কেন না স্থূলেই তো সূক্ষ্ম ও কারণের চরম বিকাশ হয়েছে। তাই স্থূল বিকাশ ধ’রে সূক্ষ্মে ও কারণে গিয়ে আবার সেই কারণ ও সূক্ষ্ম কি ক’রে স্থূলে প্রকাশ হয়েছে, তা দর্শন করলে তবে জ্ঞানের পূর্ণত্ব হয়।
বালকের স্বভাব, যুবকের কর্ম্মশক্তি, আর বৃদ্ধের জ্ঞান—এই তিনটী এক ঠাঁই হলে জীবন পূর্ণ।
পূর্ণব্রহ্ম পরাবর। পর নির্গুণ ব্রহ্ম, অবর সগুণ ব্রহ্ম। শুধু নির্গুণ ব্রহ্ম বা সগুণ ব্রহ্ম বুঝলে হবে না। দু’টী ভাব বুঝলে তবে পূর্ণত্ব। তাকেই ঠিক ব্রহ্মদর্শন বলা যেতে পারে।
মা আছেন, আর তাঁকে ডাক্‌লে পাওয়া যায়, এই দুটী কথা বিশ্বাস কর্‌তে পার্‌লেই হয়। তিনি অনন্তশক্তিস্বরূপিণী—নিরাকার হলেও ভক্তের মনোময়ী মূর্ত্তিতে আসেন। সবাইকে তিনি সমান কৃপা করেন, তবে আধারভেদে সেই কৃপা বিভিন্ন পরিলক্ষিত হয়। যেমন শুক্‌নো কাঠে আগুন দিবা মাত্র জ্বলে ওঠে, তেমনি সত্ত্বশুদ্ধ ভক্তের ভিতরে মা সহজেই জাগ্রৎ হন। ভিজা কাঠে আগুন দিলে ক্রমে তার রস মরে গেলে তবে আগুন ধরে। বিশ্বাস করতে পারলে একদিন অবশ্য মায়ের কৃপা উপলব্ধ হবে। মায়ের কৃপা হলেই মাকে পাওয়া যায়। নইলে সাধন-ভজনরূপ ক্ষুদ্র শক্তি দ্বারা কি অনন্ত শক্তিকে বশ করা যায়? জোনাকী কখনও সূর্য্যকে প্রকাশ করতে পারে?

স্বামী সিদ্ধানন্দের ‘নিগম প্রসাদ’ থেকে 
23rd  March, 2020
ঈশ্বরই সত্য এবং সত্যই ঈশ্বর 

সকল ধর্মই সর্বসম্মতিক্রমে ঘোষণা করে যে, ঈশ্বরই সত্য এবং সত্যই ঈশ্বর। অতএব আমরা বলতে পারি যে, যখন কেউ কোন নামরূপের সাহায্যে ঈশ্বরের উপাসনা করে, তখন সে বিশ্বাস করে যে, তার উপাস্য বস্তুই সত্য। 
বিশদ

বিশ্বাস

বিরাট অট্টালিকার প্রধান ভিত্তিপ্রস্তরের মতো ভগবদ্‌ বিশ্বাসই সব ধর্মের সার ও মূলভিত্তি। এটিই প্রাচীন ও আধুনিক সমস্ত জাতির ধর্মশাস্ত্রের মূল সুর এবং সব মতবাদ ও ধর্মসম্প্রদায়ের আধার বা ভিত্তিস্বরূপ।
বিশদ

14th  July, 2020
 সত্য উপলব্ধি

প্রায় দু’হাজার বৎসর আগে ন্যাজারেথবাসী যীশু জগৎ-সমক্ষে ঘোষণা করেছিলেনঃ ‘সত্য উপলব্ধি কর, সত্যই তোমাকে মুক্তি দান করবে।’ সত্যের উপলব্ধিই মানবাত্মাকে বন্ধনমুক্ত করে; সমস্ত খ্রীষ্টান-সম্প্রদায়ের মানুষ যাঁকে ঈশ্বরের একমাত্র প্রিয়পুত্ররূপে পূজা করেন সেই মহান ব্যক্তিই ধর্মের এই সারমর্মটি প্রচার করেছিলেন।
বিশদ

13th  July, 2020
 রামকৃষ্ণ মিশন

১৯২৬ খ্রিস্টাব্দের সেপ্টেম্বর মাসে রোলাঁ নবপ্রতিষ্ঠিত রামকৃষ্ণ মিশন সম্বন্ধে জানতে পারেন। শ্রীরামকৃষ্ণের জীবন সম্বন্ধে আরো জানার জন্য উদ্‌গ্রীব হয়ে পড়েন। সন্ধান পেলেন ‘The Face of Silence’ গ্রন্থটির। গ্রন্থটি রোলাঁকে মুগ্ধ করে এবং তাঁর শিল্পিসুলভ চিন্তাধারার ওপর গভীর প্রভাব বিস্তার করে, যা তাঁর প্রতিবেদনশীল মনে এক সুগভীর, চিরস্থায়ী আকর্ষণের রেখাপাত করে।
বিশদ

12th  July, 2020
 সাধনা

একটি লক্ষ্যে তীরের মত তন্ময় থাকাই শ্রেষ্ঠ সাধনা—এতেই মন হয় অন্তর্মুখী, আত্মার হয় দিব্য প্রকাশ। ঈশ্বর স্বয়ম্ভূ ও সর্বময়—এই সীমার জগতে তাঁর রূপের লীলাময় বিচিত্র বিকাশ। একটি কীটকেও যদি সুখী করতে পার, এতে তাঁকেই সন্তুষ্ট করা হয়।
বিশদ

11th  July, 2020
 ভাবের তরঙ্গ

 প্রাচীনকালে—ইতিহাস যাহার কোনো সংবাদ রাখে না, কিংবদন্তিও যে—সুদূর অতীতের ঘনান্ধকারে দৃষ্টিপাত করিতে সাহস করে না—সেই অতি প্রাচীনকাল হইতে বর্তমানকাল পর্যন্ত ভাবের পর ভাবের তরঙ্গ ভারত হইতে প্রসারিত হইয়াছে, কিন্তু উহার প্রত্যেকটি তরঙ্গই সম্মুখে শান্তি ও পশ্চাতে আশীর্বাণী লইয়া অগ্রসর হইয়াছে।
বিশদ

10th  July, 2020
অহং-এর স্বরূপ 

প্র:- অহং এর অর্থ কি?
আমার মনে হয় অহং প্রতিটি মানুষকে সকল সম্ভাব্য উপায়ে এক পৃথক সত্তায় গঠন করে।   বিশদ

09th  July, 2020
 তথাগত-বুদ্ধ

যীশুখ্রীষ্টের জন্মের পাঁচশত বৎসর আগে তথাগত-বুদ্ধ এই সত্য উপলব্ধি করেছিলেন এবং বুঝেছিলেন যে, মতবাদ ও আচার-অনুষ্ঠানে অন্ধবিশ্বাস সত্যানুসন্ধানের পথ সুগম করবে না, সুতরাং শান্তিরও পার্থিব সহায়ক হবে না।
বিশদ

08th  July, 2020
ভাবশান্তি

ক্রমে ভাবশান্তি হইল শ্রীরাধার। চলিয়া গেল প্রণয়কোপ ও মান। উদয় হইল স্বাভাবিক বিরহের। শ্রীমান উদ্ধব এতক্ষণ দাঁড়াইয়াছিলেন এক পার্শ্বে। আস্তে আস্তে সসম্ভ্রমে নিকটস্থ হইলেন। সাগরসঙ্গমে তরঙ্গ উঠিলে নৌকার মাঝি নৌকা লাগাইয়া রাখে এক পার্শ্বে ঢেউয়ের আঘাতে ভাঙ্গিয়া যাইবার ভয়ে। বিশদ

07th  July, 2020
অমৃতকথা 

শ্রীরামঠাকুর যখন কঠিন রোগে আক্রান্ত হইয়া তাঁহার ঘরে শয্যাশায়ী ছিলেন এবং অপরের সাহায্যে বিনা পাশ ফিরিতেও অক্ষম বলিয়া সকলের কাছে বোধ হইত, তখন যুবক ভক্তদের মধ্যে কাহারও কাহারও খুব ইচ্ছা হইল, পূর্বে উল্লেখিত খেজুর গাছের সুমিষ্ট রস পান করেন।  বিশদ

06th  July, 2020
অমৃতকথা 

সাধনা বলতে তাঁর নামগুণগান, পবিত্র জীবন-যাপন করা, সংগ্রহ পাঠ, ভক্তসঙ্গ করা—এসব। এর যে কোন একটি নিষ্ঠার সঙ্গে কেউ পালন করলে তাতেও হবে। এছাড়া জপ-ধ্যান তো আছেই। শাস্ত্রে বলে, স্থিতপ্রজ্ঞের লক্ষণ যা, তাতে উন্নীত হবার একমাত্র পথ সাধনা।  বিশদ

04th  July, 2020
অমৃতকথা 

“গুরুত্ব জিনিসটা ফোটে নিছক ভালবাসায় ও শ্রদ্ধায়। এই জন্যেই শুরু অনেক পণ্ডিত-শিষ্যকে বাদ দিয়েও গুরুগিরির তার অর্পণ করে যান নেহাৎ সরল-সাধু শিষ্যের উপর। অকপট বিশ্বাস উৎপন্ন না হলে গুরুর কাছ থেকে আসল যা প্রাপ্য তা পাওয়া যায় না।  বিশদ

03rd  July, 2020
অমৃতকথা 

মহারাজ—ইন্দ্রিয়ের কর্তা মনকে দমন করতে হবে। আবার মন বুদ্ধি উভয়কেই আত্মাকে লয় করতে হবে। মনকে একদম মেরে না ফেললে চলবে না। সাধুসঙ্গে ইন্দ্রিয়গুলি চুপ মেরে আছে, মনে করো না ও-গুলি আর নেই।   বিশদ

02nd  July, 2020
 বীজমন্ত্র

“আমি উপলব্ধিতে যা পেয়েছি, তাতে আমার দৃঢ়বিশ্বাস হয়েছে যে, মানুষকে অতি সহজে, অতি ছোটখাটো কথায় বেশী এগিয়ে দেওয়া যায়। আমি কয়েকটি কথাকেই জীবনের উন্নতির বীজমন্ত্র স্বরূপ ধরে নিয়েছি। তোমরা বিশ্বাস করে চলে দেখ, তাতে কি আশ্চর্য্য ফল!
বিশদ

01st  July, 2020
মঠ মন্দির

 জনসাধারণের ঐহিক ও পারত্রিক কল্যাণ কামনায় পূর্ব্বাপর মঠ মন্দির সকল প্রতিষ্ঠিত হইত। ঐ সকল মঠই পূর্ব্বে আমাদের দেশের ধর্ম্ম কর্ম্ম ও শিক্ষা দীক্ষার প্রধান কেন্দ্রস্থল ছিল এবং প্রয়োজনানুরূপ সাধারণের সেবায় মঠের সিংহদ্বার সর্ব্বদাই উন্মুক্ত থাকিত।
বিশদ

30th  June, 2020
চরিত্রের বহিরঙ্গ রূপ

 চরিত্রের বহিরঙ্গ রূপটি চর্চা-ভিত্তিক এবং সেগুলি দৈনন্দিন জীবনে পালনীয়। চরিত্রের বহিরঙ্গের সুস্পষ্ট কয়েকটি লক্ষণ আছে। যেমনঃ
১। উদ্যোগী হওয়া: ভালো হওয়ার জন্য উদ্যোগ প্রয়োজন, রোখ চাই। বিশদ

29th  June, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, আরামবাগ: সোমবার গভীর রাতে আরামবাগ শহরের কালীপুরে তৃণমূলের পতাকা ও ফ্লেক্স ছিঁড়ে ফেলার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। শাসক দলের অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই ওই কাজ করেছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এফসিআইতে বিভিন্ন পদে চাকরির টোপ দিয়ে এ রাজ্যের পঞ্চান্ন জন বেকার যুবকের কাছ থেকে পৌনে এক কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল। তারাতলা থানা এলাকার ব্রেস ব্রিজের বাসিন্দা প্রতারিত সুবোধকুমার সিংয়ের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সম্প্রতি তদন্তে নেমেছে ...

সংবাদদাতা, মালদহ: মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আধুনিক ট্রমা কেয়ার সেন্টারটি নভেম্বর মাস নাগাদ চালু হতে পারে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার পরেই এই বিশেষ চিকিৎসা কেন্দ্রটি চালু করার কথা ভাবনাচিন্তা করছে মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষ।   ...

ওয়াশিংটন: চাপের মুখে অবশেষে বিদেশি পড়ুয়াদের দেশে ফেরানোর সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটল ট্রাম্প প্রশাসন। মঙ্গলবার ম্যাসাচুসেটসের ফেডারেল ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে সরকার জানিয়েছে, অনলাইনে ক্লাস করা বিদেশি পড়ুয়াদের ভিসা বাতিল করে দেশে ফেরানোর সিদ্ধান্ত রদ করা হয়েছে। হার্ভার্ড ও এমআইটির দায়ের করা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পড়শির ঈর্ষায় অযথা হয়রানি। সন্তানের বিদ্যা নিয়ে চিন্তা। মামলা-মোকদ্দমা এড়িয়ে চলা প্রয়োজন। প্রেমে বাধা।প্রতিকার: একটি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮২০: সাহিত্যিক অক্ষয়কুমার দত্তের জন্ম
১৯০৩: রাজনীতিক কে কামরাজের জন্ম
১৯০৪: রুশ লেখক আস্তন চেকভের মৃত্যু
১৯৫৪: আর্জেন্তিনার ফুটবলার মারিও কেম্পেসের জন্ম  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৪৬ টাকা ৭৬.১৭ টাকা
পাউন্ড ৯২.৯৩ টাকা ৯৬.২০ টাকা
ইউরো ৮৩.৮৮ টাকা ৮৬.৯৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯, ৭৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭, ২২০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭, ৯৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫১, ৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫২, ০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ জুলাই ২০২০, বুধবার, দশমী ৪৩/৯ রাত্রি ১০/২০। ভরণী ২৯/৭ অপঃ ৪/৪৩। সূর্যোদয় ৫/৪/৪২, সূর্যাস্ত ৬/২০/১৪। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৩ গতে ১১/১৫ মধ্যে পুনঃ ১/৫৫ গতে ৫/২৭ মধ্যে। রাত্রি ৯/৫৫ মধ্যে পুনঃ ১২/৪ গতে ১/৩০ মধ্যে। বারবেলা ৮/২৩ গতে ১০/৩ মধ্যে পুনঃ ১১/৪২ গতে ১/২১ মধ্যে। কালরাত্রি ২/২৩ গতে ৩/৪৪ মধ্যে।  
৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ জুলাই ২০২০, বুধবার, দশমী রাত্রি ৮/৪৩। ভরণী নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/৭। সূযোদয় ৫/৪, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৩ গতে ১১/১৬ মধ্যে ও ১/৫৬ গতে ৫/২৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৫৬ মধ্যে ও ১২/৪ গতে ১/৩০ মধ্যে। কালবেলা ৮/২৪ গতে ১০/৪ মধ্যে ও ১১/৪৩ গতে ১/২৩ মধ্যে। কালরাত্রি ২/২৪ গতে ৩/৪৪ মধ্যে।
২৩ জেল্কদ  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মাধ্যমিকে সপ্তম রামপুরহাটের শুভদীপ চন্দ্র চিকিৎসক হতে চান 
মাধ্যমিকে রাজ্যে সপ্তম রামপুরহাট জে এল বিদ্যাভবনের ছাত্র শুভদীপ চন্দ্র। ...বিশদ

11:31:27 AM

মাধ্যমিকে দশম সম্প্রিতী রায়, অয়ন শেঠ, দেবাঞ্জন দে, সায়ন কর্মকার, রুপসা সাহা, জুনায়েদ হাসান, দেবাত্রেয় দাস, শঙ্খশুভ্র চট্টোপাধ্যায়, অঙ্কন পাত্র, অঙ্কন দাস বৈরাগ্য, প্রভাত দত্ত, শেখ পারভেজ জিত, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৩
মাধ্যমিকে দশম সম্প্রিতী রায়, অয়ন শেঠ, দেবাঞ্জন দে, সায়ন কর্মকার, ...বিশদ

11:26:41 AM

মাধ্যমিকে নবম শ্রেয়া সর্দার, অঙ্কিতা মণ্ডল, অয়নদীপ সান্নিগ্রাহী, সাবানা হাতি, অনুশ্রী ঘোষ, উর্জশী মণ্ডল, শুভদীপ ব্যানার্জি, তন্ময় বর, শুভদীপ বৈদ্য, সায়ক বণিক, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৪ 

11:21:11 AM

মাধ্যমিকে প্রথম স্থান অধিকারী অরিত্র পাল গবেষক হতে চান 
মাধ্যমিকে প্রথম স্থান অধিকারী অরিত্র পাল। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ...বিশদ

11:18:29 AM

মাধ্যমিকে অষ্টম বরুণদিত্ত সাহা, নাজিন আজাদ, মহঃ তাহিনুজ্জামান, সুপ্রতীক পণ্ডিত, অঙ্কিতা ঘোষ, শুভঙ্কর মাইতি, সৌমপ্রভ দে, মহাজন দেবনাথ, মঞ্জুস হালদার, অয়ন ঘোষ, সৌম্যদীপ সর্দার, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৫ 

11:18:02 AM

মাধ্যমিকে সপ্তম করণ দত্ত, ঋতম বর্মণ, সোহম তামাং, শুভদীপ চন্দ্র, অরণী চট্ট্যোপাধ্যায়, অরিত্র মাজি, সাগ্নিক মিশ্র, সৌভিক সরকার, শুভা ঘোষ, দিব্যকান্তি ঘড়ুই, সম্পৃতি কুণ্ড, ঋচিত সামন্ত, পিয়াস প্রামানিক, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৬
মাধ্যমিকে সপ্তম করণ দত্ত, ঋতম বর্মণ, সোহম তামাং, শুভদীপ চন্দ্র, ...বিশদ

11:12:32 AM