Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

চণ্ডীর ত্রিমূর্ত্তি

বেদান্ত-দর্শনের প্রথম অধ্যায়ে একটি সূত্র আছে ‘‘কম্পনাৎ’’। পরব্রহ্ম শ্রীহরিপুরুষের ভয়ে বিশ্বজগৎ প্রকম্পিত। কণ্ঠ শ্রুতিতে আছে, ‘‘মহদ্ভয়ং বজ্রমুদ্যতম্‌’’, উদ্যত বজ্রের মত তিনি মহাভয়ঙ্কর। তাঁহার ভয়ে সূর্য্য উঠে, অগ্নি জ্বলে, বাতাস বহে, যম পর্য্যন্ত কাঁপে।
ব্রহ্মের এই ভয়ঙ্করী শক্তিই চণ্ডী। চড়ি ধাতুর অর্থে কোপ করা। চণ্ডী অর্থ কোপময়ী। শরণাগত ভক্তকে আসুরিক আঘাত হইতে রক্ষার জন্য ব্রহ্মশক্তি যখন ভয়ঙ্করী মূর্ত্তি ধরেন তখন তিনি চণ্ডিকা।
চণ্ডীর গুপ্তবতী টীকা অন্যরূপ বলিয়াছেন। ‘‘চণ্ডী নাম পরব্রহ্মণঃ পট্টমহিষী দেবতা।’’ চণ্ডী পরব্রহ্মের পট্টমহিষী দেবী। দেবী বলিতে পরমদেবের প্রধানা শক্তি উদ্দিষ্ট। ব্রহ্ম শক্তিমান্‌, চণ্ডী শক্তি। সৃষ্টির প্রারম্ভে এক অদ্বিতীয় ব্রহ্ম দুই রূপ হইয়াছে—ব্রহ্মধর্ম্মী ও চণ্ডীধর্ম্মী।
ব্রহ্মের শক্তি তিনটি। শ্বেতাশ্বতর শ্রুতি বলেন, ‘স্বাভাবিকী-জ্ঞান-বল-ক্রিয়া চ’’, জ্ঞানশক্তি, ইচ্ছাশক্তি ও ক্রিয়াশক্তি—এই প্রকাশ একই অখণ্ড শক্তির। সেই অখণ্ড শক্তির নাম চণ্ডী। আর ঐ ত্রিবিধ প্রকারময়ী মূর্ত্তির নাম মহাকালিকা, মহালক্ষ্মী ও মহাসরস্বতী। তন্ত্রশাস্ত্রজ্ঞ সাধকেরা বলেন, মহাসরস্বতী চিদ্‌রূপা, মহালক্ষ্মী সদ্‌রূপা ও মহাকালী আনন্দরূপা। এই ত্রিতয়ের সমষ্টি শক্তিভূতা সচ্চিদানন্দময়ী চণ্ডিকা।
চণ্ডী গ্রন্থের তিনটি ভাগ—প্রথম চরিত, মধ্যম চরিত ও উত্তর চরিত। প্রথম চরিতে অধিষ্ঠাত্রী দেবী মহাকালিকা, মধ্যম চরিতে মহালক্ষ্মী, আর মহাসরস্বতী হইলেন উত্তর চরিতের প্রতিপাদ্য দেবতা। শ্রীনারায়ণের নাভিপদ্মস্থিত ব্রহ্মা মধুকৈটভ-বধার্থ যাঁহার স্তব করিয়াছেন, তিনি হইলেন মহাকালী। তিনিই সৃষ্টির আদিতত্ত্ব। সংহিতা গ্রন্থে মনু বলিয়াছেন, সৃষ্টির আদিতে কিছু ছিল না, ছিল কেবল অন্ধকার ‘‘আসীদিদম্‌ তমোভূতম্‌’’। ঋগ্বেদের নাসদীয় সূক্ত প্রশ্ন তুলিয়াছেন—যখন কিছু ছিল না, তখন কি ছিল? যখন পৃথিবী ছিল না, আকাশ ছিল না, রাত্রি দিনের প্রভেদ ছিল না, যাহা আছে তাহাও ছিল না ‘‘নাসদাসীন্নো সদাসীৎ’’, তখন কি ছিল?
বৈদিকঋষির এই অনন্তজিজ্ঞাসার উত্তর দিয়াছেন বেদ নিজেই পুরুষসূক্তে। যখন কিছু ছিল না, তখন ‘‘পুরুষ’’ ছিলেন। ‘‘পুরুষ এবেদং সর্ব্বং। যাহা কিছু ছিল বা থাকিবে, সকলই সে পুরুষ হইতে—‘‘যদ্ভূতং যচ্চ ভাব্যং’’। তন্ত্রশাস্ত্র এই উত্তরে তৃপ্ত নয়। তান্ত্রিক আচার্য্য জিজ্ঞাসা করেন, যখন পুরুষ ছিল না, তখন কে ছিল? নিগমশাস্ত্র বেদ বলেন, পুরুষ ছিল না, এখন কখনও হয় না। আগমশাস্ত্র তন্ত্র তাহা মানিয়াও মানিতেছে না। বলেন, পুরুষ যখন থাকিয়াও নাই, তখন কে আছেন?
থাকিয়া নাই কথাটির তাৎপর্য বুঝিতে হইবে। বাড়ীর দরজায় ‘‘In’’ দেখিয়া, আপনি আছেন জানিয়া, প্রবেশ করিলাম। পরে নিদ্রিত আছেন দেখিয়া, আলাপ না করিয়া ফিরিয়া আসিলাম। আপনি বাড়ীতে থাকিয়াও নাই। পুরুষ যখন নিদ্রিত আছেন, তখন কে আছেন; আগম তাহা জানিতে চায়। নিগম উত্তর দিতে পারে না। আগমশাস্ত্রের নির্য্যাস চণ্ডী উত্তর দিতেছেন। কল্পান্তে অনন্ত ব্রহ্মাণ্ডও কারণসমুদ্রে পরিণত হইয়াছে, ‘‘জগত্যেকার্ণবীকৃতে।’’ অনন্তশয়নে ব্রহ্মপুরুষ মহাবিষ্ণু নিদ্রিত। পুরুষের সহিত অনন্ত জগৎ সুপ্ত। তখন জাগিয়া আছেন একমাত্র যোগনিদ্রা। ইনি মহানিদ্রা, মোহনিদ্রা, মহারাত্রি, মহাদেবী, মহাকালিকা। ইনিই শ্রীহরির নেত্রে অধিষ্ঠান করিয়া আছেন, ‘‘হরিনেত্রকৃতালয়াম্‌’’। নেত্র শব্দ সকল ইন্দ্রিয়ের উপলক্ষণ। হরির সর্ব্ব ইন্দ্রিয় অভিভূত করিয়া রাখিয়াছেন এই মহাতামসী মহাশক্তি দেবী।
তন্ত্রমতে ইনিই সৃষ্টির আদি। সৃষ্টিকর্ত্তা ব্রহ্মা ইঁহার দর্শন লাভ করিয়াছেন। দর্শনের কাহিনী বলিতেছি। নিদ্রিত পুরুষের নাভিকমলে, ব্রহ্মা সৃষ্টি-শক্তি, নূতন সৃষ্টির ধ্যানে মগ্ন। সৃষ্টি ক্রিয়াটি স্পন্দনময়ী। স্পন্দনের মূলে গতিবেগ। বাধা ছাড়া গতি নাই, frictionless motion হয় না। সৃষ্টির শক্তির বাধা উপস্থিত হইল। বিষ্ণুর কর্ণমলোদ্ভূত মধু ও কৈটভ দুই অসুর—বেদান্ত-দর্শনের আবরণ ও বিক্ষেপ, সাংখ্যের রজঃ ও তমঃ গুণ। তাহারাই তন্ত্রশাস্ত্রের মধু ও কৈটভ। তাহারা ব্রহ্মাকে বধ করিতে উদ্যত হইল, ‘‘হন্তুং ব্রহ্মাণমুদ্যতৌ।’’ ভীত ব্রহ্মা নিদ্রামগ্ন হরির জাগরণের নিমিত্ত তাঁহার নয়নাশ্রিতা মহানিদ্রাস্বরূপিণী মহাকালিকার স্তব করিলেন। ব্রহ্মা বলিলেন, ‘‘মাতঃ! তোমার শক্তিতে ভগবান্‌ হ঩রিও যখন নিশেষ্টভাবে শয়ান, তখন ব্রহ্মাণ্ডে আর কে আছে তোমার স্তুতি করিতে সমর্থ?
মহানামব্রত ব্রহ্মচারী ‘চণ্ডী চিন্তা’ থেকে
28th  September, 2019
মূর্তি 

জৈনধর্মে শক্তিবাদ প্রবেশ করিয়াছিল। রাজপুতানার আবু পাহাড়ে যে বিখ্যাত শ্বেতপ্রস্তর নির্মিত সুবৃহৎ জৈন মন্দির বিরাজিত, তাহার চূড়াতে ষোলটি জৈন দেবীর বিভিন্ন মূর্তি খোদিত আছে।  
বিশদ

সুর 

আপন হ’তে বাহির হয়ে বাহিরে দাঁড়া
বুকের মাঝে বিশ্ব-লোকের পাবি সাড়া।
তাই বাউল-কবির গানটি শুধু কণ্ঠে নিয়ে বেরিয়ে পড়লেম। ঝরঝরে হাল্‌কা মনে বাইরের সকল রূপই ঝলকে ওঠে। তার বেঁধে নিলেন মনের বেহালাখানাতে উঁচু নিখাদে—একটু বাতাসেই ঝংকার লেগে সে বেজে ওঠে নানান্‌ সু঩রে।  
বিশদ

19th  September, 2020
অমৃতকথা 

ধর্মের সহিত সংস্কৃতির সম্পর্ক অচ্ছেদ্য। ভারতীয় সংস্কৃতিরও বিস্ময়কর বিকাশ ঘটেছে ধর্মকে ভিত্তি করে। ধর্মচিন্তার অফুরন্ত সঞ্জীবনী সুধা থেকে প্রাণশক্তি সংগ্রহ করে যুগে যুগে নানা বিচিত্র রূপে ভারতীয় সংস্কৃতির প্রোজ্বল আত্মপ্রকাশ ঘটেছে।  বিশদ

18th  September, 2020
 মন

 ভগবানই হচ্ছেন সবচেয়ে আপনজন। তাঁর চেয়ে আপন আর কেউ নেই। যারা ভগবানকে ভালবাসে, তারাই ঠিক ঠিক মানুষকে ভালবাসে। বিশদ

16th  September, 2020
কর্মের রহস্য

 মানুষ শরীর বাক্য ও মন দ্বারা যাহা কিছু করে তাহাই কর্ম। জীবমাত্রই সকল অবস্থায় সর্বদা কোন-না-কোন কর্ম করে। ‘‘কর্মহীন হইলে শরীরযাত্রাও নির্বাহিত হয় না।’’ শারীরিক ও মানসিক ক্রিয়াই জীবনের লক্ষণ। বিশদ

15th  September, 2020
শ্রীরামকৃষ্ণের শক্তি সাধনার নবমাত্রা

 সাধারণের সামর্থ্য সীমার গন্ডি পেরিয়ে যাঁরা অসাধারণ বলয়ে প্রবেশাধিকার লাভ করেন এবং যাঁদের শক্তি সামর্থ্যের নূতন দিক-সীমা স্থাপন করে নিজেদের চিহ্নিত করে স্বমহিমায় সুদীর্ঘকাল মানব সমাজে ভাস্বর হয়ে থাকেন, এমন মহাপুরুষ ভারতীয় আধ্যাত্মিক সাধন সাম্রাজ্যে একাধিক। বিশদ

10th  September, 2020
ভূত-চতুর্দ্দশী

নরকাসুর নামে একজন অসুর রাজধানী দ্বারকার ওপর আক্রমণ করেছিল। কৃষ্ণ দ্বারকায় ছিলেন না, তখন তাঁর স্ত্রী সত্যভামা সেই অসুরের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করেন ও অসুরকে বধ করেন। যেদিন অসুরকে বধ করা হয় সেটা ছিল কৃষ্ণা চতুর্দ্দশী তিথি। বিশদ

09th  September, 2020
বহুত্বের মধ্যে একত্বই প্রকৃতির নিয়ম

বহুত্বের মধ্যে একত্বই প্রকৃতির নিয়ম, হিন্দুগণ ইহা উপলব্ধি করিয়াছেন। অন্যান্য ধর্ম কতগুলি নির্দিষ্ট মতবাদ বিধিবদ্ধ করিয়া সমগ্র সমাজকে বলপূর্বক সেগুলি মানাইবার চেষ্টা করে। সমাজের সম্মুখে তাহারা একমাপের জামা রাখিয়া দেয়; জ্যাক, জন, হেনরি প্রভৃতি সকলেই ঐ একমাপের জামা পরিতে হইবে। বিশদ

08th  September, 2020
‘নারায়ণ’

ভীষ্ম বলেছিলেন—কোন মানব আচারহীন, ভক্তিবিহীন, লোকের কাছে অতি নিন্দনীয় হ’লেও তাতে তার কোন ক্ষতি নাই। ‘নারায়ণ’ এই শব্দমাত্র উচ্চারণ দ্বারা পাপ হ’তে বিশেষ রূপে মুক্তি লাভ ক’রে অমৃত প্রাপ্ত হন। বিশদ

07th  September, 2020
সত্যকাম 

 জবালার পুত্র সত্যকাম হারিদ্রুমত গৌতমের নিকট নিয়ে ব্রহ্মচর্য্যবাস প্রার্থনা কর্‌লে, গৌতম সত্যবাদী সেই সত্যকামকে উপনীত করে ক্ষীণ ও দুর্ব্বল চারিশত গো দিয়ে তাদের অনুগমন করতে বল্‌লেন। বিশদ

05th  September, 2020
“নারায়ণ” শব্দের আর
কোন অর্থ আছে?

“নারায়ণ” শব্দের আর কোন অর্থ আছে? আছে বৈকি।
সারূপ্যমুক্তিবচনো নারেতি চ বিদর্বুধাঃ।
যো দেবোহপ্যয়নং তস্য স চ নারায়ণঃ স্মৃতঃ।।  বিশদ

04th  September, 2020
প্রলাপ না সত্য 

একটি গল্প আছে যে, পঞ্চাশ বৎসর পূর্বে ভূকৈলাসের রাজারা আবাদের নিমিত্ত মাটি খনন করিতে-করিতে, মাটির নীচে সমাধিস্থ একজন মহাপুরুষকে পান। মহাপুরুষকে ভূকৈলাসে আনিয়া, সমাধিভঙ্গের নানাবিধ চেষ্টা হয়, কিন্তু কিছুদিন কোনোরূপে সমাধিভঙ্গ হইল না।  বিশদ

03rd  September, 2020
গুরুকৃপা

 “আমি শতাধিক বৎসর পাহাড়-পর্বত পরিভ্রমণ করে বড়ো রকমের একটা ধন কামাই করেছি। তোরা তো ব’সে ব’সে খাবি।” ঈশ্বরতুল্য ব্রহ্মবেত্তা পরম গুরু লোকনাথ বাবার কঠোর কর্ম-যোগলব্ধ ফল ভক্তদের অক্ষয় পৈতৃক সম্পত্তি। ভক্তমাত্রেরই ইহাতে সমান অধিকার বা হিস্যা রহিয়াছে! অটল বিশ্বাস, অচলা ভক্তি ও পূর্ণ নির্ভর যাঁহার সম্বল, তিনিই এ সম্পত্তির (গুরুকৃপার) চির উত্তরাধিকারী।
বিশদ

02nd  September, 2020
প্লাবন

 ভগবানের কথা অনুসারে জলপ্লাবন হইল এবং মনু নিজ পরিবার এবং সর্বপ্রকার জন্তুর এক এক জোড়া এবং সর্বপ্রকার উদ্ভিদের বীজ জলপ্লাবন হইতে রক্ষা করিলেন এবং প্লাবনের অবসানে তিনি ঐ নৌকা হইতে অবতরণ করিয়া জগতে প্রজা উৎপন্ন করিতে লাগিলেন—আর আমরা মনুর বংশধর বলিয়া ‘মানব’ নামে অভিহিত। বিশদ

01st  September, 2020
 শক্তি

শরীরের ভিতর এই যে শক্তির বিকাশ দেখা যাইতেছে, ইহা কি? আমরা সকলেই ইহা সহজে বুঝিতে পারি, ঐ শক্তি যাহা হউক, উহা জড়-পরমাণুগুলি লইয়া তাহা হইতে আকৃতি-বিশেষ—মনুষ্য-দেহ গঠন করিতেছে। অন্য কেহ আসিয়া তোমার আমার জন্য শরীর গঠন করে না।
বিশদ

31st  August, 2020
একনজরে
রোম: ইতালিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিলেন রাফায়েল নাদাল। তবে ফাইনালে উঠেছেন নোভাক জকোভিচ। এর আগে রোমের এই টুর্নামেন্টে ন’বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন স্প্যানিশ তারকা নাদাল।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সিইএসসির অফিসার বলে পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করল জোড়াসাঁকো থানার পুলিস। ধৃতের নাম মোহাম্মদ সুলেমান। বাড়ি তিলজলা এলাকায়। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে সিইএসসির জাল রসিদ।   ...

নয়াদিল্লি: রবিবার ডিজেলের দাম ফের কমল দেশজুড়ে। এই নিয়ে গত চার দিনে ডিজেলের দাম লিটার প্রতি প্রায় ১ টাকা হ্রাস পেল। এদিন দিল্লিতে ডিজেলের দাম ২৪ পয়সা কমে হয়েছে ৭১ টাকা ৫৮ পয়সা।  ...

সংবাদদাতা, বালুরঘাট: দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় দলীয় সংগঠনকে শক্তিশালী করতে সঙ্গে নিতে হবে বিপ্লব মিত্রকে। কলকাতায় বৈঠকে রাজ্য নেতৃত্বের তরফ থেকে জেলা নেতৃত্বকে এমন নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সম্পত্তিজনিত মামলা-মোকদ্দমায় জটিলতা বৃদ্ধি। শরীর-স্বাস্থ্য দুর্বল হতে পারে। বিদ্যাশিক্ষায় বাধাবিঘ্ন। হঠাকারী সিদ্ধান্তের জন্য আপশোস বাড়তে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস
১৮৬৬: ব্রিটিশ সাংবাদিক, ঐতিহাসিক ও লেখক এইচ জি ওয়েলসের জন্ম
১৯৩৪: জাপানের হনসুতে টাইফুনের তাণ্ডব, মৃত ৩ হাজার ৩৬ জন
১৯৪৭: মার্কিন লেখক স্টিফেন কিংয়ের জন্ম
১৯৭৯: ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার ক্রিস গেইলের জন্ম
১৯৮০: অভিনেত্রী করিনা কাপুর খানের জন্ম
১৯৮১: অভিনেত্রী রিমি সেনের জন্ম
১৯৯৩: সংবিধানকে অস্বীকার করে রাশিয়ায় সাংবিধানিক সংকট তৈরি করলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন
২০০৭: রিজওয়ানুর রহমানের মৃত্যু
২০১৩: কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে ওয়েস্ট গেট শপিং মলে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ৬৭



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৮৯ টাকা ৭৪.৬০ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৫৫ টাকা ৯৬.৯১ টাকা
ইউরো ৮৫.১০ টাকা ৮৮.২১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
19th  September, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫২,৩৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৯,৭০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৫০,৪৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৬,৭৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৬,৮৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
20th  September, 2020

দিন পঞ্জিকা

৫ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, পঞ্চমী ৪৫/৩৬ রাত্রি ১১/৪৩। বিশাখানক্ষত্র ৩৮/২১ রাত্রি ৮/৪৯। সূর্যোদয় ৫/২৮/৩৬, সূর্যাস্ত ৫/৩০/৫৪। অমৃতযোগ দিবা
৭/৪ মধ্যে পুনঃ ৮/৪১ গতে ১১/৬ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫৫ গতে ১১/৬ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে ৩/৫ মধ্যে। বারবেলা ৬/৫৯ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/৩০ গতে ৪/০ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/০ গতে ১১/৩০ মধ্যে।  
৪ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, চতুর্থী দিবা ৭/৩৭ পরে পঞ্চমী শেষরাত্রি ৫/১৭। বিশাখানক্ষত্র রাত্রি ৩/১। সূর্যোদয় ৫/২৮, সূর্যাস্ত ৫/৩৩। অমৃতযোগ দিবা ৭/৭ মধ্যে ও ৮/৪১ গতে ১১/১ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪২ গতে ১০/৫৯ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৩/৬ মধ্যে। কালবেলা ৬/৫৯ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ২/৩২ গতে ৪/২ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/১ গতে ১১/৩১ মধ্যে।  
মোসলেম: ৩ শফর। 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আজ আইপিএল-এ
 

আইপিএল-এ আজ মুখোমুখি হবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। ...বিশদ

08:45:00 AM

কলেজে ভর্তির সময়সীমা বৃদ্ধি পেয়ে ৩০ অক্টোবর 
কলেজগুলিতে স্নাতকস্তরে ভর্তির সময়সীমা বৃদ্ধি করল রাজ্য সরকার। রবিবার শিক্ষামন্ত্রী ...বিশদ

08:45:00 AM

গর্ভের সন্তান ছেলে কি না জানতে স্ত্রীর পেট কাটল যুবক, গ্রেপ্তার 
পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতার আরও এক ঘৃণ্য নজির সৃষ্টি করল উত্তরপ্রদেশের বুদানের ...বিশদ

08:45:00 AM

ইতিহাসে আজকের দিনে 
আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস১৮৬৬: ব্রিটিশ সাংবাদিক, ঐতিহাসিক ও লেখক এইচ জি ...বিশদ

08:40:45 AM

কলকাতায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস 
ঘনীভূত হয়েছে গভীর নিম্নচাপ। সর্তকতা জারি হয়েছে রাজ্যজুড়ে। কলকাতাতেও মঙ্গলবার ...বিশদ

08:30:00 AM

হাতি সাফারি আপাতত বন্ধ থাকবে 
কোভিড-১৯ আবহে জঙ্গল খোলার ১৫ দিন পর রিভিউ মিটিংয়ে পরিস্থিতি ...বিশদ

08:25:00 AM