Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

 আত্মভোলা বাঙালী জাতি

বাংলার বিশেষ সম্পৎ শক্তির উপাসনা। গৌড়ীয়া-বিদ্যা তন্ত্রের আর এক নাম। বর্ত্তমানে তন্ত্রবিষয়ে গবেষণা বা আলোচনা নাই বলিলেই হয়। আত্মভোলা বাঙালী জাতি নিজ সম্পদ্‌ সম্বন্ধে যদিও একেবারে উদাসীন, তাহা সত্ত্বেও তন্ত্রের সাধনার ধারা একেবারে মৃত নহে। আমাদের স্মরণকালের মধ্যেই রামপ্রসাদ, বামাক্ষেপা ও ঠাকুর রামকৃষ্ণ পরমহংসদেব তন্ত্রধারায় সিদ্ধিলাভ করিয়া এই সাধনাকে উজ্জ্বল করিয়াছেন। শক্তিবাদ তন্ত্রবিজ্ঞানের বিরাট দান। দার্শনিক দ্বৈতবাদ বা অদ্বৈতবাদের মত শক্তিবাদ একটা মতবাদ নহে। কারণ, ইহা বৈজ্ঞানিক ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত। দার্শনিক মতবাদের ভিত্তি তর্ক, বিচার ও শাস্ত্রীয় প্রমাণ। বৈজ্ঞানিক মতবাদের ভিত্তি পরীক্ষিত সত্য। ব্যক্তিগত অনুভূতি ও সর্ব্বজনীন অনুভূতি। কোন বিশেষ ব্যক্তির নিজস্ব অনুভূতির সত্যতা প্রতিষ্ঠিত করিতে বিচার, তর্ক ও যুক্তির প্রয়োজন হয়। যাহা সর্ব্বজনীন তাহা ব্যক্তিনিরপেক্ষ, অন্য প্রমাণের অপেক্ষা স্বতঃপ্রমাণ বলিয়া উহা অখণ্ডনীয়। শক্তিবাদ অনুরূপ একটি অখণ্ডনীয় সিদ্ধান্ত।
শক্তিবাদের প্রথম সিদ্ধান্ত শক্তি আছে। ইহা সকলের অনুভববেদ্য। ব্রহ্ম, আত্মা বা ঈশ্বর আছেন ইহা সাধারণের অনুভবের অতীত, যুক্তিতর্কের দ্বারা স্থাপন করিতে হয়—তীক্ষ্ণতর যুক্তির দ্বারা আবার উহা খণ্ডিতও হইতে পারে। শক্তিবাদ সেরূপ নহে, ইহা অখণ্ডনীয়। শক্তি নাই বলিবার সামর্থ্য কাহারও নাই। শক্তি অস্বীকার করিতেও শক্তির প্রয়োজন। শক্তিবাদ খণ্ডন করিতে বুদ্ধিশক্তি, বিচারশক্তি, বাক্‌শ঩ক্তির দ্বারস্থ হইতে হইবে। ভগবান্‌ আ঩ছেন আপত্তি হইতে পারে, শক্তি আছে ইহাতে আপত্তি করা যায় না। সুতরাং দেখা যাইতেছে যে, শক্তিবাদ খণ্ডন করিতে গিয়া যে-বস্তুর আশ্রয় লইতে হইতেছে তাহাও শক্তি। অতএব উহার অস্তিত্ব অনস্বীকার্য্য।
শক্তি আছে, ইহা শক্তিবাদের চরম কথা নহে। শক্তিবাদের অন্তরের কথা, একমাত্র শক্তিই আছে, নিখিল বিশ্বে শক্তি ছাড়া আর কিছুই নাই। জগতের প্রত্যেক বস্তুই শক্তির সমবায় (Conglomeration of energy) বস্তুমাত্রই শক্তি ভিন্ন আর কিছু নহে। এক একটি বস্তু, শক্তির এক এক ধরণের প্রকাশ। ‘যা দেবী সর্ব্বভূতেষু শক্তিরূপেণ সংস্থিতা’—দেবী মহাশক্তি সর্ব্বভূতে শক্তিরূপেই বিরাজিতা— ইহাই তন্ত্রের মহতী ঘোষণা। পাশ্চাত্ত্য বিজ্ঞানের সহিত তন্ত্রের এই সিদ্ধান্তের সাদৃশ্য বিস্ময়কর বলিলেও অত্যুক্তি হয় না। নিউটন সাহেবের সময় হইতে তিনশত বর্ষের জয়যাত্রার মধ্য দিয়া আজ বৈজ্ঞানিকেরা যে সিদ্ধান্তে পৌঁছিয়াছেন, উহা একান্তভাবে তন্ত্রের এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে। পারমাণবিক আবিষ্ক্রিয়ার ফলে একটি সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম পরমাণুর মধ্যে যে প্রচণ্ড শক্তির খেলা প্রত্যক্ষ করা যায় তাহাতে বস্তু (matter) সম্বন্ধে আমাদের ধারণার আমূল পরিবর্ত্তন সাধিত হইয়াছে। বস্তুমাত্রই যে শক্তির সমবায় উহাতে এখন আর কাহারও সংশয় নাই।
শক্তিবাদের তৃতীয় কথা, সর্ব্বভূতে অর্থাৎ এই নিখিল বিশ্বচরাচরে একটিমাত্র শক্তিই আছে। বহু যে দেখি—তাপ (heat), আলো (light), বৈদ্যুতিক শক্তি (electricity)—উহা দৃষ্টির ভ্রমবশতঃই। বৈজ্ঞানিক দৃষ্টি লইয়া দেখিলে সবই একই শক্তির অভিব্যক্তি বলিয়া জ্ঞান হয়। কিছুদিন পূর্ব্বেও পরমাণু (atom) জগতের মূল কারণ— বিজ্ঞানের এইরূপ সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু আজ এই মতের পরিবর্ত্তন হইয়াছে। সকল বস্তুই যে এক শক্তির পরিণতি, ইহা এখন সর্ব্ববাদিসম্মত বৈজ্ঞানিক সিদ্ধান্ত। আলো, তাপ, বিদ্যুৎ প্রভৃতির মূলে যে একটি মাত্র শক্তি বিদ্যমান, ইহা আজ বিশেষভাবে প্রমাণিত হইয়াছে। বহুকালের গবেষণার পর পাশ্চাত্ত্য-বিজ্ঞান আজ যে সিদ্ধান্তে পৌঁছিয়াছে—বিশ্বের মূলে একই শক্তি কাজ করিতেছে, ইহা ভারতীয় তন্ত্রশাস্ত্রী বহু পূর্ব্বেই দ্বিধাহীনকণ্ঠে ঘোষণা করিয়াছে।
মহানামব্রত ব্রহ্মচারীর ‘চণ্ডী চিন্তা’ থেকে
31st  August, 2019
জীবন্মুক্তি

“জীবন্মুক্তি” শব্দটির সহজ অর্থ জীবদ্দশায় মুক্ত হওয়া বা বাঁচিয়া থাকিতে থাকিতে মোহমুক্ত হওয়া। কিন্তু এই প্রসঙ্গে ইহা অতিশয়োক্তি হইবে না যে উপরোক্ত “জীবন্মুক্তি” শব্দটির অর্থ বা তাৎপর্য্য গ্রহণে অসমর্থ মানবমন সর্বাগ্রেই প্রশ্ন করিয়া বসিবে, “ইহা আদৌ সম্ভব কি না?” 
বিশদ

ধর্ম অপরিহার্য অঙ্গ 

মনুষ্য-সমাজে ধর্ম অপরিহার্য অঙ্গ কি না?
আমরা মানুষ হইয়া জন্মাই এবং সুখে শান্তিতে নীরোগ স্বাস্থ্যসম্পন্ন হইয়া দীর্ঘদিন বাঁচিয়া থাকিতে চাই। দৈনন্দিন বাঁচিয়া থাকিবার উপকরণও বহু। 
বিশদ

16th  February, 2020
 জগৎবৃত্তি

উপনিষদ্‌ বলেন—“যতো বাচো নিবর্তন্তে অপ্রাপ্য মনসা সহ।” এখানেও দেখি, ভগবান ও জগতের সঙ্গে সহাবস্থান হচ্ছে না। জগৎকে জানতে হলে মনে জগৎবৃত্তি থাকা চাই। কিন্তু যে মুহূর্তে জগৎবৃত্তির উদয় হবে, ভগবদ্‌বৃত্তির লয় হবে।
বিশদ

15th  February, 2020
আচার্যের পরিবর্তে বিশ্বাচার্য কেন স্বামী বিবেকানন্দকে বলা হয়? 

শ্রুতি শাস্ত্রের আদেশ—“আচার্যবান্‌ পুরুষো বেদ” শিরোধার্য করিয়া মনুষ্যকুল যদি দৈনন্দিন জীবন-যাত্রাপথে ন্যায় ও অন্যায়ের বিবেকসম্পন্ন হইয়া ভোগ-সর্বস্বতা হইতে ত্যাগের রাস্তা অবলম্বন করিতে পারে তাহা হইলে তাহা ধর্মের প্রারম্ভ বলিতেই হইবে। 
বিশদ

14th  February, 2020
সাধন-ভজন

ঠাকুর বলিলেন—“দেখ, সাধন-ভজনের যে কার কতদূর দৌড়, তা আমার জানা আছে। আমি যে সামান্য জপ-ধ্যানটুকু দিয়েছি, তা-ই অনেকে করে না, অথচ মুখে সাধন-ভজনের বড় বড় বুলি। এই ধর না কেন, আমি নিয়ম ক’রে দিয়েছি আশ্রম মঠে প্রত্যেককেই সকাল-সন্ধ্যা স্তোত্র-কীর্ত্তনে যোগদান করতে হবে, কেন না আমি জানি বর্ত্তমান যুগে দুর্বল অধিকারীর পক্ষে প্রার্থনার মত এত বড় সহজ সাধনপন্থা আর কিছুই নেই। বিশদ

13th  February, 2020
অমৃতকথা 

আমরা এ পর্যন্ত যা বলে এসেছি তাতে অনেকে মনে করতে পারেন যে, ধর্মজীবন-প্রস্তুতির সহায়করূপে জ্ঞানচর্চা, কলাবিদ্যা, কার্যকলাপ প্রভৃতির অনুশীলন বুঝি আধ্যাত্মিকতার অপরিহার্য অঙ্গ।  বিশদ

12th  February, 2020
 কর্মযোগ

বর্ধমান হইতে পদব্রজে রওনা হইয়া, দীর্ঘকাল পথ চলার পর গুরু ভগবান শিষ্যদ্বয়কে লইয়া ভারতের উত্তর-পশ্চিম গিরিপথে হিমালয়ে প্রবেশ করিলেন। যুগ-যুগান্তকাল হইতে হিমালয় দেবতাদের বাসভূমি। মুনি ঋষির তপস্যাস্থল, প্রকৃতির নানাবিধ মনোহর সৌন্দর্যের অফুরন্ত ভাণ্ডার হিমালয় তীর্থরাজ।
বিশদ

11th  February, 2020
শিক্ষা 

ভারতবাসী হিসাবে আমরা তাঁর কাছে জাতীয় শিক্ষাদর্শের ঋণে জড়িয়ে আছি। জাতীয় শিক্ষার সংগ্রামে ও পরিকল্পনা রচনায় যাঁরা সে যুগে অগ্রদূত ছিলেন তাঁদের অন্যতম ছিলেন নিবেদিতা। প্রকৃত শিক্ষা ব্যতিরেকে যে প্রকৃত ভারতীয় হওয়া সম্ভব নয়, তা তিনি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করতেন।  
বিশদ

08th  February, 2020
অমৃতকথা 

যোগীরাজ শ্যামাচরণ লাহিড়ী ভারতের অধ্যাত্ম জগতের ধ্রুবতারা। তাঁর কথা বাদ দিয়ে যোগসাধনার আলোচনা প্রায় অসম্ভব। তিনি এমনই এক অধ্যাত্মচেতনার ধারক, বাহক ও সঞ্চারক যাতে প্রচারের কোন অবকাশ নেই; বাক্যচাতুর্য্য, পাণ্ডিত্য ও কচাকচির কোন স্থান নেই; অন্ধ বিশ্বাস, ভাবালুতা ও কল্পনার কোন সুযোগ নেই; যা দিনের আলোর মতোই স্পষ্ট, প্রত্যক্ষ ও নিজবোধগম্য।  বিশদ

07th  February, 2020
 গোপাল সোনা

 গোপালের নূপুর চিরন্তন প্রণবের ছন্দে বেজে চলেছে অনাদিকাল থেকে। নূপুর বাজছে আজও। ঐ শোন! ধ্যানতন্ময় একটী মুহূর্তের শান্ত শ্রবণে শোন! ইথারের প্রতিটী কম্পনে শোন। মধুর চেয়ে মিষ্টি কচি দুটী ঠোঁটের তোতলী বোলী শোন। মনবৃন্দাবনের গোঠে দেখ নীলকান্ত মণির চপল খেলা।
বিশদ

06th  February, 2020
তখনকার সমাজব্যবস্থা 

একশো বছর আগের কথা। ভারতবর্ষ শাশ্বত সনাতন ধর্মের জননী হলেও তখনকার সমাজব্যবস্থা ছিল এক দৃঢ় বদ্ধমূল ধর্মধারণায় গণ্ডিবদ্ধ। তাদের দৃষ্টিতে বিদেশিনী উচ্চ-শিক্ষিত হ’লে কী হবে—তারা ‘স্লেচ্ছ’। তাছাড়া ভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষদেরও এই গোঁড়া রক্ষণশীল হিন্দুসমাজ ঘৃণা করতো। ধর্মান্তরকরণ সম্বন্ধে তারা খুব সচেতন ছিল।  
বিশদ

05th  February, 2020
পুরুষোত্তম ও বহুবাদ

অনন্তকোটি ব্রহ্মাণ্ড সমাচ্ছন্ন করত যে পরম মহান্‌ পুরুষোত্তম বিরাজ করিতেছেন, তাঁহাকে সকলে কখনও একভাবে গ্রহণে সমর্থ হইতে পারেন না, তজ্জন্য অদ্বৈতবাদ, বিশিষ্টাদ্বৈতবাদ, ভেদবাদ, ভেদাভেদবাদ, অচিন্ত্যভেদাভেদবাদ ইত্যাদি বহুবাদের প্রবর্ত্তন হইয়াছে। যিনি যেমন অধিকারী আচার্য্যগণ তাঁহাকে সেই পথ প্রদর্শন করত পরমলক্ষ্যে চালিত করেন।  
বিশদ

04th  February, 2020
ভক্ত ও ভগবান

ভক্ত বলরাম বসুর গৃহে অবস্থানকালে একদিন দামোদরের অভিষেকের সময় গৌরিমা আপন মনে গুণগুণ স্বরে শ্রীনিবাস দাসের একখানি পদ গাহিতেছিলেন,—
বদন-চাঁদ কোন কুঁদায়ে কুঁদিলে গো বিশদ

03rd  February, 2020
প্রজ্ঞাবান পুরুষ শ্রীকৃষ্ণ

শ্রীকৃষ্ণ সম্বন্ধে আমরা যেটুকু দেখতে পাই, তাতে বুঝতে পারি যে তিনি একজন প্রজ্ঞাবান পুরুষ ছিলেন এবং তাঁর আশেপাশের সকলে তাঁর কাছ থেকে পরামর্শ গ্রহণ করে লক্ষ্য স্থির করতেন। তাই অর্জুন যে তাঁকে পথপ্রদর্শন করতে অনুরোধ করবেন তাতে বিস্ময়ের কিছু নেই। 
বিশদ

02nd  February, 2020
 জীবনচরিত

  যে কোন বিশিষ্ট ব্যক্তি বা মনীষীর অন্তর্জীবন, তাঁর ব্যক্তিগত জীবন, ব্যক্তিগত নানা ঘটনা অথবা সেই অবস্থা সম্পর্কে তাঁর প্রতিক্রিয়া এসব সম্পর্কে আছে আমাদের একটা সাধারণ কৌতূহল। মনীষীদের বা বিশিষ্ট ব্যক্তিদের রচিত আত্মজীবনী, দিনপঞ্জিকা বা পত্রাবলীর প্রতি তাই আমাদের উদ্‌গ্রীব আগ্রহ, কেননা আমরা মনে করি যে, এই সব উপাদান থেকে আবিষ্কৃত হবে রোমাঞ্চকর তথ্যাবলী। বিশদ

01st  February, 2020
গীতা

গীতা হলো মহাভারতের একটি অংশ। আনুমানিক চৌদ্দশ খ্রীস্টপূর্বাব্দের ভারতের কাহিনী মহাভারতে রয়েছে। এই সিদ্ধান্ত আধুনিক গবেষকদের। আর মহাভারতের রচনাকাল, তাঁদের মতে, আনুমানিক নয়শ খ্রীস্টপূর্বাব্দ। সঠিক সময় যাই হোক না কেন, এতে কোন সন্দেহ নেই যে এটি একটি অতি প্রাচীন গ্রন্থ। 
বিশদ

31st  January, 2020
একনজরে
নিউ ইয়র্ক, ১৬ ফেব্রুয়ারি (এএফপি): কানেক্টিকাটের একটি নাইটক্লাবে গুলিচালনার ঘটনায় প্রাণ হারালেন একজন। আহতের সংখ্যা চার। রবিবার ভোরে ‘ম্যাজেস্টিক লাউঞ্জ’-এর ক্লাবে এক অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতী এই হামলা চালায় বলে পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে।   ...

হায়দরাবাদ, ১৬ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): ‘ফিসকাল রেসপনসিবিলিটি অ্যান্ড বাজেট ম্যানেজমেন্ট’ (এফআরবিএম) মেনে বাজেট পেশ করা হয়েছে। তাই রাজস্ব ঘাটতির লক্ষ্যমাত্রা স্থির করতে সেই আইন লঙ্ঘন করা হয়নি। যাবতীয় জল্পনা, বিতর্কে জল ঢেলে রবিবার এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।  ...

সংবাদদাতা, লালবাগ: শনিবার রাতে নবগ্রাম থানার পলসণ্ডায় ৩৪নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকে আগুন লাগায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। প্রথমে স্থানীয়রা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। পরে খবর পেয়ে বহরমপুর থেকে দমকলের দু’টি ইঞ্জিন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও ট্রাকে থাকা সমস্ত ...

হ্যামিলটন, ১৬ ফেব্রুয়ারি: নিউজিল্যান্ডের কাছে একদিনের সিরিজে হোয়াইটওয়াশের ধাক্কা ভারতীয় দল যে ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠছে, তা বিরাট কোহলিদের দেখলেই বোঝা সম্ভব। ২১ ফেব্রুয়ারি শুরু ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

মাঝেমধ্যে মানসিক উদ্বেগের জন্য শিক্ষায় অমনোযোগী হয়ে পড়বে। গবেষণায় আগ্রহ বাড়বে। কর্মপ্রার্থীদের নানা সুযোগ আসবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৯৯: কবি জীবনানন্দ দাশের জন্ম
১৯৬৩: আমেরিকান বাস্কেটবল খেলোয়াড় ও অভিনেতা মাইকেল জর্ডনের জন্ম
১৯৮৭ - ভারতীয় কার্টুনিস্ট অসীম ত্রিবেদীর জন্ম।
২০০৯: সঙ্গীত শিল্পী মালবিকা কাননের মৃত্যু 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৪৯ টাকা ৭২.১৯ টাকা
পাউন্ড ৯১.৪৩ টাকা ৯৪.৭১ টাকা
ইউরো ৭৫.৮৫ টাকা ৭৮.৮০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
15th  February, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৬০৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৪৭৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,০৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
16th  February, 2020

দিন পঞ্জিকা

৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার, (মাঘ কৃষ্ণপক্ষ) নবমী ২১/১ দিবা ২/৩৬। জ্যেষ্ঠা ৫৭/৩৩ শেষরাত্রি ৫/১৪। সূ উ ৬/১১/৩৯, অ ৫/২৯/৩৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪২ মধ্যে পুনঃ ১০/৪৩ গতে ১২/৫৮ মধ্যে। রাত্রি ৬/২০ গতে ৮/৫৮ মধ্যে পুনঃ ১১/২৫ গতে ২/৪৯ মধ্যে। বারবেলা ৭/৩৬ গতে ৯/১ মধ্যে পুনঃ ২/৪০ গতে ৪/৫ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/১৫ গতে ১১/৫১ মধ্যে।
৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার, নবমী ৩১/৪০/৩৫ রাত্রি ৬/৫৪/৫৬। অনুরাধা ৮/১/৪০ দিবা ৯/২৭/২২। সূ উ ৬/১৪/৪২, অ ৫/২৮/৫৮। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩২ মধ্যে ও ১০/৩৮ গতে ১২/৫৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ১১/২৩ গতে ২/৪১ মধ্যে। কালবেলা ৭/৩৮/৫৯ গতে ৯/৩/১৬ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/১৬/৭ গতে ১১/৫১/৫০ মধ্যে।
 ২২ জমাদিয়স সানি

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
স্ত্রীর সাহায্যে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ধৃত দম্পতি 
বাঘাযতীনে স্ত্রীর সাহায্যে বছর ২২-এর এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ। অভিযুক্ত ...বিশদ

07:34:00 PM

পাকিস্তানের কোয়েটায় বিস্ফোরণ, মৃত কমপক্ষে ৭, জখম ২০

06:58:00 PM

মত্ত অবস্থায় পুলকার চালানোর অভিযোগে আটক চালক 
পোলবায় পুলকার দুর্ঘটনার পর নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। রাজ্যজুড়ে পুলকার আটকে ...বিশদ

05:58:22 PM

নির্ভয়াকাণ্ডের দোষীদের ফাঁসি ৩ মার্চ
নতুন করে ফের নির্ভয়াকাণ্ডের দোষীদের ফাঁসির দিনক্ষণ ঘোষণা হল। আগামী ...বিশদ

04:22:33 PM

  বেলেঘাটায় দাউ দাউ করে জ্বলে উঠল চলন্ত গাড়ি
দাউ দাউ করে জ্বলে উঠল চলন্ত গাড়ি। ঘটনাটি কলকাতার বেলেঘাটা ...বিশদ

03:49:00 PM

শাহিনবাগ মামলায় মধ্যস্থকারী নিয়োগ সুপ্রিম কোর্টের
শাহিনবাগ মামলায় মধ্যস্থকারী নিয়োগ করল সুপ্রিম কোর্ট। আজ এই মামলায় ...বিশদ

02:41:45 PM