Bartaman Patrika
অমৃতকথা
 

 আত্মভোলা বাঙালী জাতি

বাংলার বিশেষ সম্পৎ শক্তির উপাসনা। গৌড়ীয়া-বিদ্যা তন্ত্রের আর এক নাম। বর্ত্তমানে তন্ত্রবিষয়ে গবেষণা বা আলোচনা নাই বলিলেই হয়। আত্মভোলা বাঙালী জাতি নিজ সম্পদ্‌ সম্বন্ধে যদিও একেবারে উদাসীন, তাহা সত্ত্বেও তন্ত্রের সাধনার ধারা একেবারে মৃত নহে। আমাদের স্মরণকালের মধ্যেই রামপ্রসাদ, বামাক্ষেপা ও ঠাকুর রামকৃষ্ণ পরমহংসদেব তন্ত্রধারায় সিদ্ধিলাভ করিয়া এই সাধনাকে উজ্জ্বল করিয়াছেন। শক্তিবাদ তন্ত্রবিজ্ঞানের বিরাট দান। দার্শনিক দ্বৈতবাদ বা অদ্বৈতবাদের মত শক্তিবাদ একটা মতবাদ নহে। কারণ, ইহা বৈজ্ঞানিক ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত। দার্শনিক মতবাদের ভিত্তি তর্ক, বিচার ও শাস্ত্রীয় প্রমাণ। বৈজ্ঞানিক মতবাদের ভিত্তি পরীক্ষিত সত্য। ব্যক্তিগত অনুভূতি ও সর্ব্বজনীন অনুভূতি। কোন বিশেষ ব্যক্তির নিজস্ব অনুভূতির সত্যতা প্রতিষ্ঠিত করিতে বিচার, তর্ক ও যুক্তির প্রয়োজন হয়। যাহা সর্ব্বজনীন তাহা ব্যক্তিনিরপেক্ষ, অন্য প্রমাণের অপেক্ষা স্বতঃপ্রমাণ বলিয়া উহা অখণ্ডনীয়। শক্তিবাদ অনুরূপ একটি অখণ্ডনীয় সিদ্ধান্ত।
শক্তিবাদের প্রথম সিদ্ধান্ত শক্তি আছে। ইহা সকলের অনুভববেদ্য। ব্রহ্ম, আত্মা বা ঈশ্বর আছেন ইহা সাধারণের অনুভবের অতীত, যুক্তিতর্কের দ্বারা স্থাপন করিতে হয়—তীক্ষ্ণতর যুক্তির দ্বারা আবার উহা খণ্ডিতও হইতে পারে। শক্তিবাদ সেরূপ নহে, ইহা অখণ্ডনীয়। শক্তি নাই বলিবার সামর্থ্য কাহারও নাই। শক্তি অস্বীকার করিতেও শক্তির প্রয়োজন। শক্তিবাদ খণ্ডন করিতে বুদ্ধিশক্তি, বিচারশক্তি, বাক্‌শ঩ক্তির দ্বারস্থ হইতে হইবে। ভগবান্‌ আ঩ছেন আপত্তি হইতে পারে, শক্তি আছে ইহাতে আপত্তি করা যায় না। সুতরাং দেখা যাইতেছে যে, শক্তিবাদ খণ্ডন করিতে গিয়া যে-বস্তুর আশ্রয় লইতে হইতেছে তাহাও শক্তি। অতএব উহার অস্তিত্ব অনস্বীকার্য্য।
শক্তি আছে, ইহা শক্তিবাদের চরম কথা নহে। শক্তিবাদের অন্তরের কথা, একমাত্র শক্তিই আছে, নিখিল বিশ্বে শক্তি ছাড়া আর কিছুই নাই। জগতের প্রত্যেক বস্তুই শক্তির সমবায় (Conglomeration of energy) বস্তুমাত্রই শক্তি ভিন্ন আর কিছু নহে। এক একটি বস্তু, শক্তির এক এক ধরণের প্রকাশ। ‘যা দেবী সর্ব্বভূতেষু শক্তিরূপেণ সংস্থিতা’—দেবী মহাশক্তি সর্ব্বভূতে শক্তিরূপেই বিরাজিতা— ইহাই তন্ত্রের মহতী ঘোষণা। পাশ্চাত্ত্য বিজ্ঞানের সহিত তন্ত্রের এই সিদ্ধান্তের সাদৃশ্য বিস্ময়কর বলিলেও অত্যুক্তি হয় না। নিউটন সাহেবের সময় হইতে তিনশত বর্ষের জয়যাত্রার মধ্য দিয়া আজ বৈজ্ঞানিকেরা যে সিদ্ধান্তে পৌঁছিয়াছেন, উহা একান্তভাবে তন্ত্রের এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে। পারমাণবিক আবিষ্ক্রিয়ার ফলে একটি সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম পরমাণুর মধ্যে যে প্রচণ্ড শক্তির খেলা প্রত্যক্ষ করা যায় তাহাতে বস্তু (matter) সম্বন্ধে আমাদের ধারণার আমূল পরিবর্ত্তন সাধিত হইয়াছে। বস্তুমাত্রই যে শক্তির সমবায় উহাতে এখন আর কাহারও সংশয় নাই।
শক্তিবাদের তৃতীয় কথা, সর্ব্বভূতে অর্থাৎ এই নিখিল বিশ্বচরাচরে একটিমাত্র শক্তিই আছে। বহু যে দেখি—তাপ (heat), আলো (light), বৈদ্যুতিক শক্তি (electricity)—উহা দৃষ্টির ভ্রমবশতঃই। বৈজ্ঞানিক দৃষ্টি লইয়া দেখিলে সবই একই শক্তির অভিব্যক্তি বলিয়া জ্ঞান হয়। কিছুদিন পূর্ব্বেও পরমাণু (atom) জগতের মূল কারণ— বিজ্ঞানের এইরূপ সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু আজ এই মতের পরিবর্ত্তন হইয়াছে। সকল বস্তুই যে এক শক্তির পরিণতি, ইহা এখন সর্ব্ববাদিসম্মত বৈজ্ঞানিক সিদ্ধান্ত। আলো, তাপ, বিদ্যুৎ প্রভৃতির মূলে যে একটি মাত্র শক্তি বিদ্যমান, ইহা আজ বিশেষভাবে প্রমাণিত হইয়াছে। বহুকালের গবেষণার পর পাশ্চাত্ত্য-বিজ্ঞান আজ যে সিদ্ধান্তে পৌঁছিয়াছে—বিশ্বের মূলে একই শক্তি কাজ করিতেছে, ইহা ভারতীয় তন্ত্রশাস্ত্রী বহু পূর্ব্বেই দ্বিধাহীনকণ্ঠে ঘোষণা করিয়াছে।
মহানামব্রত ব্রহ্মচারীর ‘চণ্ডী চিন্তা’ থেকে
31st  August, 2019
ধর্ম 

আমরা একটা পরিবৃত্তিকালের মধ্য দিয়ে চলেছি। মানব সভ্যতা ও প্রগতি একটা অধ্যায় শেষ করে নতুন এক অধ্যায়ে পদার্পণ করতে চলেছে। বিগত দুই শতাব্দী বিজ্ঞানের সঙ্গে তার প্রধান শত্রু ধর্মের মারাত্মক সংঘাতের সাক্ষী হয়ে আছে।  
বিশদ

রামকৃষ্ণগতপ্রাণা 

যখন ঠাকুর চলে গেলেন, আমারও ইচ্ছা হল, আমিও চলে যাই। তিনি দেখা দিয়ে বললেন, ‘না, তুমি থাক। অনেক কাজ বাকী আছে।’ শেষে দেখলুম, তাইতো, অনেক কাজ বাকী। ঠাকুরের শরীরত্যাগের পর বৃন্দাবনে আছি। সকলেই তাঁর শোকে কাতর।  
বিশদ

03rd  March, 2021
মনুষ্য-সমাজে ধর্ম
অপরিহার্য অঙ্গ কি না? 

আমরা মানুষ হইয়া জন্মাই এবং সুখে শান্তিতে নীরোগ স্বাস্থ্যসম্পন্ন হইয়া দীর্ঘদিন বাঁচিয়া থাকিতে চাই। দৈনন্দিন বাঁচিয়া থাকিবার উপকরণও বহু, যেমন খাদ্য, নিদ্রা, শয্যা, লেখাপড়া, মনের মতন কথা বলিবার বা মিশিবার যোগ্য নর-নারী, সেবা করিবার মতন আপনজন, খেলা-ধূলা, আমোদ-প্রমোদের জন্য সিনেমা, থিয়েটার, জামা-কাপড়, সর্বোপরি অর্থ এবং আরও কত কী। 
বিশদ

02nd  March, 2021
মন 

হে বীর, সর্ব্বব্যাপক আমাকে তুমি তোমার সমস্ত অন্তর্বাহ্য ব্যাপারের বিষয় কর; বায়ু যেমন আকাশের সমস্ত অঙ্গে মিশিয়া আছে, তেমনি তুমি সর্ব্ব কর্ম্মে আমারি মধ্যে অবস্থান কর; বেশী কি বলা যায়? 
বিশদ

01st  March, 2021
গীতার উপাস্য কি? 

অধ্যাত্ম সাধনায় প্রথম অবলম্বন মন্ত্র। মন্ত্র কি? ‘‘মনঃ ত্রায়তে যেন’’—যদ্দ্বারা মন তাহার চঞ্চলতা হইতে ত্রাণ পায়। আচার্য শিষ্যকে এই মন্ত্র দান করেন, নিরবয়ব মন একটা অবলম্বনশূন্যবস্থায় থাকিতে পারে না। এই মন্ত্রকে অবলম্বন করিয়া মন স্থিতি নিতে নিতে ক্রমশঃই তাঁহার চঞ্চলতা বিনষ্ট হইয়া চিত্তজাল বিস্তৃতি নিরুদ্ধ হয়।  
বিশদ

28th  February, 2021
কর্তব্য

দিবারাত্র কাজ কর। ‘দেখ, আমি জগতের ঈশ্বর, আমার কোন কর্তব্য নাই। প্রত্যেক কর্তব্যই বন্ধন। কিন্তু আমি কর্মের জন্যই কর্ম করি। যদি ক্ষণমাত্রও আমি কর্ম হইতে বিরত হই, (সব কিছু বিশৃঙ্খল হইবে)।’ অতএব কেবল কাজ করিয়া যাও, কিন্তু কর্তব্যবোধে নয়। 
বিশদ

27th  February, 2021
গঙ্গা 

গঙ্গার উৎস হিমালয়, উৎস থেকে বেরিয়ে গঙ্গা যেমন দেশের বিভিন্ন জায়গায় তৃষিত-তাপিতদের মধ্যে জল সিঞ্চন করে তাদের তৃষ্ণা নিবারণ করে, তেমনি সমস্ত ভাবের উৎস শ্রীরামকৃষ্ণের ভাবধারা আজ স্বতঃস্ফূর্তভাবে চারিদিকে ছড়িয়ে গিয়ে লক্ষ লক্ষ তৃষিত-তাপিত মানুষের মধ্যে তৃষ্ণার বারি বিতরণ করছে।  
বিশদ

26th  February, 2021
জপ

জপের প্রাথমিক পুরস্কার হল জপে রসবোধে, নামে রুচি, নামের নেশায় পাওয়া। আর জপের অন্তিম পুরস্কার হ’ল, নাম করতে করতে তন্ময় বা আত্মবিস্মৃত হয়ে যাওয়া, নামের মধ্যে নিজেকে হারিয়ে ফেলা, নাম ছাড়া বিশ্বব্রহ্মাণ্ডে আর কোনকিছু খুঁজে না পাওয়া।  
বিশদ

25th  February, 2021
মৃত্যু 

মৃত্যু না হলে বিশ্বাস নেই। মৃত্যু পর্যন্ত ঠিক থাকতে পারলে তবেই বাঁচোয়া। মানুষ মনে করে, ‘আমি ঠিক থাকব, পবিত্র থাকব’ কিন্তু মহামায়ার এমনি মায়া যে, হয়তো সব গুলিয়ে দিলে। কখন যে বদ-মায়া চেলে দিয়েছে জানতেই পারেনি। তাঁর দয়া ছাড়া এ মায়ার হাত হতে নিস্তার নেই।  
বিশদ

24th  February, 2021
ভক্ত  

‘আর্ত্ত’, ‘জিজ্ঞাসু’ ও ‘অর্থার্থী’ ভক্তগণ যে মার্গে আমাকে ভজনা করেন—সে তিন পন্থাই ইহা হইতে ভিন্ন,—সেইজন্যই ইহাকে ‘চতুর্থা’ ভক্তি বলিতেছি; নচেৎ ইহা তৃতীয়াও নহে, চতুর্থাও নহে, প্রথমাও নহে, অন্তিমও নহে—এই ভক্তি আমারই সহজ স্থিতি; যাহা অজ্ঞানের মধ্যে আমাকে প্রকাশ করে, (অজ্ঞানকে নাশ করিয়া আমার স্বরূপ প্রকট করে), বিপরীত জ্ঞানকে আমার স্বরূপ দেখায়, সর্ব্ব লোককে সর্ব্বত্র (সর্ব্বভূতে আমার স্বরূপ দেখাইয়া) ভজনা করিতে প্রবৃত্ত করে; যে ভক্ত যেখানে যেভাবে (আমাকে) দেখিতে চায়, সে সেখানেই সেইভাবে আমাকে দেখে,—যাহা আমার অখণ্ড প্রকাশকে এমনিভাবে দেখায়, স্বপ্নে দেখা বা না দেখা যেমন নিজের অস্তিত্বের উপর নির্ভর করে, তেমনি, যে ‘প্রকাশ’ দ্বারা বিশ্বের ‘ভাব’ (অস্তিত্ব) বা অভাব ভাসমান হয়।  
বিশদ

23rd  February, 2021
কর্ম্ম 

হে পাণ্ডব, স্বধর্ম্মের পালন করিবে ও পরধর্ম্মের বর্জন করিবে—এই নিয়ম কেন করা হইবে না? আত্মদর্শন না হওয়া পর্য্যন্ত কি কর্ম্মের আচরণ বন্ধ রাখা যায়? আর কর্ম্মের আচরণ করিতে হইলে, প্রথমে তাহা আয়াসসাধ্যই হয়; এইজন্য সমস্ত কর্ম্মের আরম্ভ যদি আয়াসসাধ্যই হয়, তবে স্বধর্ম্মের আচরণে কি দোষ? 
বিশদ

22nd  February, 2021
মুক্তি 

যদি তোমার মুক্তিলাভের আকাঙ্ক্ষা থাকে, তাহা হইলে বিষয়সমূহকে বিষের ন্যায় দূরে পরিহার কর। আর আদরের সহিত অমৃততুল্য উপকারী ভাবিয়া সন্তোষ, দয়া, ক্ষমা, সরলতা, শম ও দম—এই সকল সদ্‌গু঩ণের সর্বদা অনুশীলন কর। 
বিশদ

21st  February, 2021
একাগ্রতার শক্তি

একাগ্রতাই—যুদ্ধ এবং ব্যবসা বাণিজ্য; সংক্ষেপে মানুষের যে কোন ব্যবহারিক কাজে—সকল শক্তির মূল রহস্য। সুনির্দিষ্ট চিন্তা করার ক্ষমতা তোমার নিজস্ব, তাকে দর্শন করা, আয়ত্তে আনা ও ঈশ্বরের মুখোমুখি হওয়ার ক্ষমতাও তোমার নিজের ‘হাতে’। বিশদ

20th  February, 2021
মন্ত্র

প্রশ্ন: ‘মন্ত্র’ কি ভগবানের নাম? 
উত্তর: ‘মন্ত্র’ শব্দ তো? শব্দ তাঁর প্রতিপাদ্য অর্থাৎ প্রতিপাদনের যোগ্য বা বিষয়ীভূত [প্রতিপাদ্য বিষয়]; তিনিই ভগবান। মন্ত্র মনে মনে জপ করবে, নামও মনে মনে করবে।
প্রশ্ন: তাঁকে পাই না, সর্বদা হারাই কেন? বিশদ

19th  February, 2021
শক্তি

জানতে, অজানতে বা ভ্রান্তে যে কোন ভাবে তাঁর নাম করলেই তার ফল হবেই হবে। যেমন কেউ তেল মেখে নাইতে যায়, তারও যেমন স্নান হয়, আর যাকে ঠেলে জলে ফেলে দেওয়া যায়, তারও স্নান হয়, আর কেউ ঘরে শুয়ে আছে, তার গায়ে জল ফেলে দিলে তারও তেমনি স্নান হয়। বিশদ

18th  February, 2021
শ্রীরামকৃষ্ণের সাধনা

অতীতে যে সকল অবতার-পুরুষ বিশ্বের কল্যাণে আগমন করিয়াছিলেন, গৌতম বুদ্ধ তাঁহাদের অন্যতম। প্রায় পঞ্চবিংশ শতাব্দী পূর্বে যে কঠোর তপস্যা তিনি করিয়াছিলেন, আজিও তাহার জ্বলন্ত দৃষ্টান্ত জগতের বুকে বর্তমান রহিয়াছে। তিনি যে সময় অবতীর্ণ হইয়াছিলেন, তাঁহার প্রদর্শিত মার্গ বাস্তবিকই তদুপযোগী হইয়াছিল। বিশদ

17th  February, 2021
একনজরে
ইন্ডিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (আইএফএ) আয়োজিত উত্তরবঙ্গ কাপের খেলার তৃতীয় দিনে বাগসরাই ইউনাইটেড সাঁওতাল অ্যাসোসিয়েশন ২-০ গোলে পরাজিত করল দার্জিলিংয়ের হিমালয়ান স্পোর্টিং ক্লাবকে। ...

বাংলায় শিল্প নেই। সম্প্রতি রাজ্যে এসে বারবার এমন অভিযোগ করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে শুরু করে অনেক বিজেপি নেতা। ভোটের আগে সম্পূর্ণ মিথ্যে প্রচার করছে ...

মঙ্গলবার রাতে আগ্নেয়াস্ত্র সমেত তিন দুষ্কৃতীকে মোথাবাড়ি থানার পুলিস গ্রেপ্তার করেছে। পুলিস জানিয়েছে, ধৃতদের নাম শেখ আয়েশ, শেখ এজাবুল এবং আজিজুর রহমান। ...

নির্ঘণ্ট প্রকাশের পরই ভোটে মগ্ন বাংলা। নেতা থেকে কর্মীরা মিছিল, সমাবেশ আয়োজনে ব্যস্ত। নেতার ঝাঁঝালো বক্তব্য‌ উপভোগ করছে জনতাও। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

নিকট বন্ধু দ্বারা বিশ্বাসঘাতকতা। গুরুজনের স্বাস্থ্যহানি। মামলা-মোকদ্দমায় পরিস্থিতি নিজের অনুকূলে থাকবে। দাম্পত্য জীবনে ভুল বোঝাবুঝিতে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৫১: জিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়ার প্রতিষ্ঠা
১৮৫২: রুশ লেখক নিকোলাই গোগোলের মৃত্যু
১৮৫৬: কবি তরু দত্তের জন্ম
১৯১৮: প্রথম ধরা পড়ে স্প্যানিশ ফ্লু, এরপর দুনিয়া জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে এই রোগ
১৯২৫: নাট্যকার ও লেখক জ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুরের মৃত্যু
১৯৮০: টেনিস খেলোয়াড় রোহন বোপান্নার জন্ম
১৯৮০: জিম্বাবোয়ের জাতীয়তাবাদী নেতা রবার্ট মুগাবের নির্বাচনে জয়, মুগাবে দেশের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রধানমন্ত্রী
২০০১: হিন্টেজ রিবেইরোর দুর্যোগ, পর্তুগালের উত্তরপ্রান্তে এক সেতু ভেঙে ৭০ জনের মৃত্যু হয়েছিল
২০০৯: মানবতা ধ্বংসকারী এবং যুদ্ধ উন্মাদ সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর হাসান আল-বাসিরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আন্তর্জাতিক ক্রিমিনাল কোর্ট  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.২৪ টাকা ৭৩.৯৫ টাকা
পাউন্ড ১০০.১৬ টাকা ১০৩.৬৮ টাকা
ইউরো ৮৬.৭২ টাকা ৮৯.৯২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৫, ৮০০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৩, ৪৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৪, ১০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৮, ৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৮, ৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২০ ফাল্গুন ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ৪ মার্চ ২০২১। ষষ্ঠী ৪০/০ রাত্রি ৯/৫৯। বিশাখা নক্ষত্র ৪৪/৫৫ রাত্রি ১১/৫৭। সূর্যোদয় ৫/৫৯/২৫, সূর্যাস্ত ৫/৩৭/১৯। অমৃতযোগ রাত্রি ১/১২ গতে ৩/৩১ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৭/৩৩ মধ্যে পুনঃ ১০/৩৯ গতে ১২/৫৮ মধ্যে বারবেলা ২/৪২ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৪৮ গতে ১/২১ মধ্যে। 
১৯ ফাল্গুন ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ৪ মার্চ ২০২১। ষষ্ঠী রাত্রি ১/৫৯। বিশাখা নক্ষত্র রাত্রি ৩/৫৪। সূর্যোদয় ৬/৩, সূর্যাস্ত ৫/৩৭। অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৫৫ গতে ৩/১৯ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৭/২৯ মধ্যে ও ১০/৩১ গতে ১২/৫৬ মধ্যে। কালবেলা ২/৪৩ গতে ৫/৩৭ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৪৯ গতে ১/২৩ মধ্যে। 
১৯ রজব। 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
নিউজিল্যান্ডে ভূমিকম্প, মাত্রা ৭.১ 

07:33:42 PM

কানাডায় পৌঁছল ভারত থেকে পাঠানো ভ্যাকসিন 

07:29:00 PM

দার্জিলিংয়ে একটি হোটেলে আগুন
দার্জিলিংয়ের একটি হোটেলে আগুন। ঘটনাস্থলে দমকলের ৩টি ইঞ্জিন। এখনও পর্যন্ত ...বিশদ

05:40:31 PM

আগামীকাল কলকাতায় আসছেন বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক এবং বিবেক দুবে 

05:38:00 PM

দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ে সংলগ্ন এলাকা থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ আটক ১ 

05:16:00 PM

চতুর্থ টেস্ট: প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড ২০৫ রানে অলআউট

05:12:00 PM