Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

লকডাউনের বিকল্প ভাবনা জরুরি

কয়েকটি পকেট বাদ দিলে গত জুনে ভারতজুড়ে ভালো বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিপাতের পরিমাণ স্বাভাবিকের চেয়ে ১৫ শতাংশ বেশি। বর্ষার কৃপা সারা দেশই মোটামুটি একইরকম পেয়েছে। আবহাওয়া বিশারদরা মনে করছেন, ২০১৩ সালের পর এই প্রথম একটি পছন্দের জুন মাস পেয়েছি আমরা। করোনা যখন সারা পৃথিবীকে হতাশাগ্রস্ত করে তুলেছে, ঠিক তখনই ভারতের জন্য আশীর্বাদ বয়ে এনেছে বর্ষাকাল। ভারতের চাষিরা এই সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে ভুল করেননি। তাঁরা মন দিয়ে চাষ করেছেন। ঘুরে দাঁড়িয়েছে গ্রামীণ অর্থনীতি। তবে এটাকে শুধু মৌসুমি বায়ুর অবদান মানতে রাজি নন অর্থনীতির বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের মতে, এর কারণ একাধিক। লকডাউনের ফলে সবচেয়ে বেশি মার খেয়েছিল ম্যানুফ্যাকচারিং এবং কনস্ট্রাকশন সেক্টর। পরিণামে নুয়ে পড়েছিল জিডিপি সূচক। কৃষিক্ষেত্র তাতে ভেঙে পড়েনি। যথেষ্ট সাহসের সঙ্গে চাষ এবং সময়মতো ফসল ঘরে তোলার ব্যাপারে যত্নবান হয়েছিল। লক্ষ লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিক এবং বন্ধ কারখানাসহ আরও কিছু পরিচিত ক্ষেত্রে যুক্ত শ্রমশক্তি আশ্রয় খুঁজেছিলেন কৃষিক্ষেত্রের কাছে। ফলে, এবার এমন কিছু জমিতে চাষ হয়েছে যেদিকে মানুষ বহুকাল তাকাননি। অর্থাৎ হঠাৎ করে চাষের এলাকা বেড়ে গিয়েছে। বহু মানুষ আক্ষরিক অর্থেই ‘মানের গোড়ায় ছাই দিয়ে’ পেটের জোগাড়কেই ব্রত করেছেন। সব মিলিয়ে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে গ্রামীণ অর্থনীতি।
কৃষিক্ষেত্র আগামীতে আরও কিছু বৃষ্টি চায়। সেটা যদি পাওয়া যায় তবে এবার বাম্পার খরিফ শস্য ঘরে তোলা শুধু সময়ের অপেক্ষা। মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের আশা, গ্রামীণ ভারত সচ্ছল হয়ে ওঠার আশীর্বাদ চুঁইয়ে পড়তে চলেছে অন্যান্য আর্থিক ক্ষেত্রগুলিতেও। ট্রাক্টর এবং কৃষিক্ষেত্রে ব্যবহার্য আরও অনেক যন্ত্রপাতির চাহিদা বাড়ছে। বিদ্যুতেরও চাহিদা বাড়ছে কৃষিতে। কৃষিজ পণ্য পরিবহণের একাধিক মডেলের গাড়ি এবং টু-হুইলারের চাহিদা বৃদ্ধিরও বিরাট প্রত্যাশা তৈরি হয়েছে। ফলে, এই সমস্ত যন্ত্র ও পণ্য তৈরির কারখানাগুলি ফের চাঙ্গা হয়ে উঠবে বলে মনে করা হচ্ছে। ভোগ্যপণ্যের তালিকায় এবার নতুন সংযোজন হয়েছে মাস্ক, গ্লাভস, ফেস শিল্ড, হ্যান্ডওয়াশ, হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রভৃতি। এই ধরনের পণ্য তৈরির জন্য দেশজুড়ে নতুন শিল্প বিকশিত হচ্ছে। স্বভাবতই জিএসটি বাবদ সরকারের রাজস্ব সংগ্রহও দ্রুত বাড়তে চলেছে। প্রত্যক্ষ প্রভাব পড়েছে রেলে পণ্য পরিবহণে। হাতে বাড়তি পয়সা এলে মানুষ বাড়ি, ফ্ল্যাট প্রভৃতি কিনতে ফের আগ্রহী হবেনই। আবার ঘুরে দাঁড়াচ্ছে গৃহনির্মাণ শিল্প। তার লক্ষণ ইতিমধ্যেই স্পষ্ট। উল্লেখ করেছে কেন্দ্রীয় সরকারের ইকনমিক অ্যাফেয়ার্স ডিপার্টমেন্টের ম্যাক্রো ইকনমিক রিপোর্ট।
সরকারি রিপোর্টের দাবি, এটা আনলক পর্বের অবদান। তাই টানা লকডাউনের বিকল্প নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছে। অর্থনীতির চাকায় পূর্ণগতি আনার জন্য স্বাভাবিক জনজীবনে ফিরে যাওয়াটাই আমাদের চূড়ান্ত লক্ষ্য। কিন্তু পুরনো স্বাভাবিকতা চাইলেই পাওয়া যাবে না। অন্তত এখনই নয়। আনলকের এক্সপেরিমেন্ট সেই কারণেই। কিন্তু, দেশের নানা স্থানে হঠাৎ কিছু বিপত্তি আনলকের সিদ্ধান্তকেও চ্যালেঞ্জ জানিয়েছে। বেশিরভাগ জায়গায় সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুও। একটাই সুখবর, ভারতীয়দের মধ্যে সুস্থ হয়ে ওঠার হার অনেক দেশের তুলনায় বেশি। তবুও পশ্চিমবঙ্গসহ কিছু রাজ্য আংশিক লকডাউনের পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়েছে। কিন্তু জীবনের সঙ্গে জীবিকার এই ভয়ানক সংঘাতে জিততে লকডাউনের উচিত বিকল্পের সন্ধানই আমাদের এই মুহূর্তের ভাবনা। পথ নিশ্চয় পাওয়া যাবে, যা দেশকে স্বাভাবিক জনজীবনে এবং গতিশীল অর্থনীতিতে ফেরাতে সাহায্য করবে। মনে রাখতে হবে, এই কঠিন কাজটা সরকার একা পারবে না। দেশের প্রতিটি মানুষকেও সমান সহযোগিতা করতে হবে। এই সময়ের আদর্শ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে সেটাই হবে সবচেয়ে বড় সহযোগিতা।
06th  August, 2020
যোগ্যতা: নিয়োগের মাপকাঠি

 অতীত সতত সুখের, একথা হলফ করে বলা যায় না। বহু মানুষ এখনও ভুলতে পারেননি বাম-জমানার সেই দিনগুলির কথা। চোখের সামনে দেখেছেন পাড়ায় পাড়ায় সিপিএমের ছোট মাঝারি বা স্বঘোষিত বড় নেতার ফুলে-ফেঁপে ওঠা।
বিশদ

ভ্যাকসিন: তৈরি থাকুক সরকার

 লকডাউন। আনলক। তার ভিতরে কিছুদিন অন্তর কোনও কোনও রাজ্যের সব অঞ্চলে এক-দু’দিনের লকডাউন। এছাড়া পৃথক পাঁচটি জোনে এলাকা ভাগ করেও মানুষের গতিবিধি নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে। নিয়ন্ত্রণ এখনও সব জায়গা থেকে তুলে নেওয়া হয়নি। বিশদ

28th  September, 2020
স্বচ্ছতার অভাব

 প্রতারক আর প্রতারিত শব্দ দুটির সঙ্গে আমরা অনেকেই পরিচিত। যদি কোনও সরকারের বিরুদ্ধে সেই প্রতারণার অভিযোগ ওঠে তবে তা লজ্জাজনক। বাস্তব সত্য হল মোদি জমানায় কথার জাদুতে দেশের মানুষ নানাভাবে প্রতারিত হচ্ছেন। বিশদ

27th  September, 2020
আধার-ভোগান্তি দূর হবে কি

 ভারতে করোনার আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গত মার্চে। তখনই সারা দেশে আধার কার্ড সংক্রান্ত সমস্ত পরিষেবা বন্ধ হয়ে যায়। এর মধ্যে ছিল নতুন আধার কার্ড তৈরির জন্য আবেদনপত্র গ্রহণ। পুরনো কার্ডের ত্রুটি সংশোধন অথবা এক বা একাধিক তথ্য পরিবর্তনের জন্য আবেদনপত্র গ্রহণ।
বিশদ

26th  September, 2020
জরুরি আরও সুরক্ষিত সীমান্ত

 সীমান্ত। চোরাচালান। ভারত-বাংলাদেশের জন্য শব্দ দু’টি অজান্তে যেন সমার্থবোধক হয়ে উঠেছে। এর কারণ অনেক। প্রথম কারণ দু’টি দেশের অতীত এক। একটিই দেশ ছিল ১৯৪৭ সাল পর্যন্ত। মূলত ব্রিটিশ ভারতের বঙ্গ নামক প্রদেশটি দু’ভাগ হওয়ার পরিণামেই এই দু’টি প্রতিবেশী দেশের সৃষ্টি হয়। বিশদ

25th  September, 2020
আচ্ছে দিন না দুর্দিন 

অভাবের কারণে রুটি খেতে না পারলে কেক খেলেই তো হয়। এমন কথা তারাই বলতে পারে যাদের সঙ্গে বাস্তবের কোনও যোগ নেই। আমাদের দেশের শাসকের অবস্থাও অনেকটা সেরকম। দু’বেলা ডাল ভাত জোগাড় করতেই যখন দেশের কোটি কোটি মানুষ হিমশিম খাচ্ছে তখন এই শাসক মনেই করছে না ধান, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, তৈলবীজ অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের মধ্যে পড়ে।
বিশদ

24th  September, 2020
টিকাকরণ: কিছু জরুরি কথা 

এই মুহূর্তে (২১ সেপ্টেম্বর) সারা ভারতে করোনা অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৯ লক্ষ ৭৬ হাজার ৪২০। সংখ্যাটি ২ মার্চ ছিল মাত্র ৩। এরপর বাড়তে বাড়তে একদিন ১০০ হয়েছিল। ৩১ মার্চ হয়েছিল ১২৩৯। পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে সংখ্যাটি ১০ হাজারের গণ্ডি পেরিয়েছিল। ১ লক্ষ পেরয় জুনের গোড়ায়।  
বিশদ

23rd  September, 2020
বিপজ্জনক প্রবণতা 

বিতর্ক তাঁর পিছু ছাড়ে না। গণতন্ত্র রক্ষার অঙ্গীকার করেই তিনি প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসেছিলেন। মনে পড়ে বছর ছয়েক আগের সেই দিনটির কথা। গণতন্ত্রকে সম্মান জানিয়ে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে যেদিন তিনি সাষ্টাঙ্গে প্রণামও করেছিলেন সংসদ ভবনের প্রবেশ পথে।  
বিশদ

22nd  September, 2020
জঙ্গি: মহামারীটাই যেন সুযোগ! 

দশ মাস পেরিয়ে গেল, পৃথিবীর প্রায় কেউ ভালো নেই। কোভিড-১৯ নামক একটা মাত্র রোগ সারা পৃথিবীকে ছারখার করে দিয়েছে বললে ভুল হবে না। প্রতি একশো বছরে একবার মহামারী দেখা দিয়ে থাকে।  
বিশদ

21st  September, 2020
বোঝার উপর শাকের আঁটি 

আধুনিক গতিশীল জীবনে রেলের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাকে কেউই অস্বীকার করতে পারে না। ভারতে রোজ যত সংখ্যক যাত্রী ট্রেনে যাতায়াত করেন তা প্রায় অস্ট্রেলিয়ার জনসংখ্যার সমান। 
বিশদ

20th  September, 2020
গণটিকাকরণের পথে বাংলা 

করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ অসুখের কথা ভারতবাসী শুনেছে গত বছরের শেষের দিকে। কিন্তু ভারতে প্রথম করোনা রোগীর খবর মেলে তার কিছুদিন পরে। জানুয়ারির একেবারে শেষদিকে। তিনি চীন থেকে ফিরেছিলেন। কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে প্রথম করোনা রোগীর সন্ধানের ছ’মাস সবে পেরল। 
বিশদ

19th  September, 2020
সঞ্চয়ের সুরক্ষা চিন্তা 

গত জুলাই মাসের শেষ দিকে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ফিনান্সিয়াল স্টেবিলিটি রিপোর্টে (এফএসআর) একাধিক উদ্বেগের কথা বেরিয়ে এসেছিল। আমরা জানি, রিজার্ভ ব্যাঙ্কই হল ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। এই সংস্থাই ব্যাঙ্ক-সহ সমগ্র আর্থিক ক্ষেত্রকে গাইড এবং প্রয়োজনে সতর্ক করে।   বিশদ

18th  September, 2020
এই মন্দা কাটাতেই হবে 

শাক দিয়ে মাছ ঢাকা যায় না। মোদি সরকার বার বার সেই চেষ্টাই করে চলেছে আর ব্যর্থও হচ্ছে। আসল সত্যটি অর্থাৎ ভারতের অর্থনীতির বেহাল দশা ক্রমশ প্রকট হচ্ছে। স্বাধীনতার পর এমন দুর্দিন সম্ভবত দেখতে হয়নি ভারতবাসীকে।  বিশদ

17th  September, 2020
সাধারণ মানুষ কার কাছে যাবেন

বার্ধক্য। শব্দটা কারও কাছে অভিপ্রেত নয়। কিন্তু স্বাভাবিক পরমায়ুতে বার্ধক্য অনিবার্য। ষাটোর্ধ্ব নারী-পুরুষকে ভারতে সরকারিভাবে ‘সিনিয়র সিটিজেন’ বা প্রবীণ নাগরিক হিসেবে গণ্য করা হয়। সেই হিসেবে, ভারতে প্রবীণ মানুষের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান। এখনও মোট জনসংখ্যার ৯ শতাংশ মানুষ প্রবীণ নাগরিক।
বিশদ

16th  September, 2020
শিল্প মানচিত্র বদলের অপেক্ষা

 জিডিপি বৃদ্ধির হার কমেছে। এটাকে করোনা বা লকডাউনের প্রভাব বলা যাবে না। জিডিপি বৃদ্ধির হারে ধাক্কা লেগেছে তারও বেশ আগে। বস্তুত এটা নোট বাতিল এবং ত্রুটিপূর্ণ জিএসটি চালু হওয়ার পরিণাম। বিশদ

15th  September, 2020
কাজের কাজ

 বিশেষজ্ঞরা অনেক দিন ধরেই সতর্ক করে আসছিলেন যে অর্থনীতির হাল ধরার প্রশ্নে গ্রামীণ ভারতেরও কিন্তু একটা সীমাবদ্ধতা রয়েছে। লকডাউনের কয়েকটি মাস ভারতীয় অর্থনীতির মুখ রক্ষা করে গিয়েছে গ্রামীণ ভারত একাই। বিশদ

14th  September, 2020
একনজরে
বরফ দেওয়া থার্মোকলের বাক্সের ভিতরে বোঝাই করে চলে আসছে ‘রুপোলি শস্য’। কোথাও নদীপথ, কোথাও কাঁটাতারের ফাঁক গলে এপারে তারা। চকচক করতে থাকা আটশো থেকে এক ...

 প্যাকেট ছাড়া বিড়ি-সিগারেট বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করল মহারাষ্ট্র সরকার। দেশের মধ্যে প্রথম রাজ্য হিসেবে মহারাষ্ট্রের এই পদক্ষেপ। সে রাজ্যের জনস্বাস্থ্য বিভাগের তরফে জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এখন থেকে আর খোলা বিড়ি-সিগারেট বিক্রি করা যাবে না। ...

 অভিষেকেই জয়ের স্বাদ পেলেন বার্সেলোনার কোচ রোনাল্ড কোম্যান। দলের প্রাণভোমরা লিও মেসির গোল তাঁকে স্বস্তি দিয়েছে। গত মরশুমের ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যু’য়ে ...

 আগামী বছরের শেষদিকে বোকারো থেকে কলকাতা পর্যন্ত প্রাকৃতিক গ্যাসের পরিকাঠামো সম্পূর্ণভাবে তৈরি হয়ে যাবে বলেই দাবি করল ইন্ডিয়ান অয়েল। সোমবার পশ্চিমবঙ্গের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর প্রীতীশ ভারত বলেন, বোকারো থেকে কলকাতা পর্যন্ত যে গ্যাস লাইন আসার কথা, তার কাজ আগামী বছরের মাঝামাঝি ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মক্ষেত্রে প্রভাব প্রতিপত্তি বৃদ্ধি। অত্যধিক ব্যয় প্রবণতায় রাশ টানা প্রয়োজন। ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে আজ শুভ। সৎসঙ্গে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: অভিনেতা মেহমুদের জন্ম
১৯৭১: ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গে ঝড় ও সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাসে অন্তত ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৮৭ টাকা ৭৪.৫৮ টাকা
পাউন্ড ৯২.৫৪ টাকা ৯৫.৮৪ টাকা
ইউরো ৮৪.২৪ টাকা ৮৭.৩৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫০, ৩১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭, ৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮, ৪৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫৮, ৪৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫৮, ৫৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১২ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, দ্বাদশী ৩৮/৪১ রাত্রি ৮/৫৯। ধনিষ্ঠানক্ষত্র ৪২/৪৯ রাত্রি ১০/৩৮। সূর্যোদয় ৫/৩০/৪৪, সূর্যাস্ত ৫/২৩/৫৬। অমৃতযোগ দিবা ৭/৫ মধ্যে পুনঃ ৮/৪০ গতে ১১/৪ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৯ গতে ১১/৪ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে ৩/৬ মধ্যে। বারবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/২৭ গতে ৩/৫৬ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৭ গতে ১১/২৭ মধ্যে।
১১ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, দ্বাদশী রাত্রি ৯/৪৮। ধনিষ্ঠানক্ষত্র রাত্রি ১২/২৮। সূর্যোদয় ৫/৩০, সূর্যাস্ত ৫/২৬। অমৃতযোগ দিবা ৭/৯ মধ্যে ও ৮/৪১ গতে ১০/৫৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩৭ গতে ১০/৫৭ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৩/৭ মধ্যে। কালবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ২/২৭ গতে ৩/৫৭ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৮ গতে ১১/২৮ মধ্যে।
১০ শফর।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালস ১০৪/৩ (১৫ ওভার) 

10:58:27 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালস ৫৪/২ (১০ ওভার) 

10:33:05 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালস ২৭/১ (৫ ওভার) 

10:09:48 PM

করোনা আক্রান্ত দেশের উপ-রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু 

10:01:01 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালসকে ১৬৩ রানের টার্গেট দিল হায়দরাবাদ 

09:30:56 PM

আইপিএল: হায়দরাবাদ ১২৮/২ (১৬ ওভার) 

09:09:08 PM