Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

করোনা: মানুষই জিতবে 

গত ৮ মার্চ সকালের খবর, সারা বিশ্বের ৯৫টি দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঘটে গিয়েছে। বেসরকারি মতে, সংখ্যাটি আরও বেশি—১০৬। নর-নারী-শিশু মিলিয়ে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা লক্ষাধিক। সংক্রমণ থামার লক্ষণ নেই। মৃত্যুও অব্যাহত। ইরানসহ মধ্যপ্রাচ্য নাজেহাল। ইতালি, ফ্রান্সসহ ইউরোপ এবং আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রও রীতিমতো আতঙ্কিত। লাতিন আমেরিকা এবং সিঙ্গাপুরসহ দূর প্রাচ্যের দেশগুলিও প্রমাদ গুনছে। আমরা জানি, করোনা সংক্রমণ এবং তাতে মৃত্যুর খবর প্রথম চীন দেশ থেকে পাওয়া গিয়েছে। তারপর তা ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বময়। ব্যাপারটি বিশ্বত্রাসের রূপ নিয়েছে। শুধুমাত্র চীন দেশেই আক্রান্ত হাজারে হাজারে এবং মৃতের সংখ্যা হাজার তিনেকের বেশি। সে-দেশের নাগরিকদের উপর কমিউনিস্ট প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণ অত্যন্ত কঠোর। ইচ্ছে করলেই তাদের যে-কোনও সিদ্ধান্ত, তা আপাত অপ্রিয় হলেও, তারা কার্যকর করতে দ্বিধা করে না। বিজ্ঞান, প্রযুক্তি এবং অর্থবলের প্রশ্নেও এশীয় দেশগুলির মধ্যে চীন অগ্রণী। তবু সেখানেই এমন বিপর্যয়! আমাদের হতাশ করে।
অভিযোগ উঠেছে, গোড়ার দিকে বিপদটিকে যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে মোকাবিলার কথা ভাবেনি চীন। তাই বিপর্যয়টি দ্রুত তাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছিল। সংবিৎ ফিরতেই তারা সাঁড়াশি আক্রমণের কায়দায় করোনা মোকাবিলায় নেমেছে। এখনও তেমনই তৎপর তারা। তার ফলে সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে। চীনে করোনা সংক্রমণে গত সপ্তাহেও যেখানে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় গড়ে মৃতের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়ে গিয়েছিল, সংখ্যাটি গত রবিবার থেকে ৩০-এর নীচে নেমে এসেছে। এটি একটি সুখবর। শুধু চীনের জন্য নয়, সারা পৃথিবীর জন্যও। কারণ যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারত প্রভৃতি দেশ নিজেকে যতই শক্তিশালী মনে করুক না কেন, পাণ্ডববর্জিত হয়ে চলা কারও পক্ষেই সম্ভব নয়। বিস্ময়কর উন্নত এই যোগাযোগ ব্যবস্থার যুগে আমরা সকলেই এক ভুবনগ্রাম এবং বিশ্ব বাণিজ্য ও বিশ্ব অর্থনীতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। প্রত্যেকের সীমাবদ্ধতা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। ছোট বড় প্রতিটি দেশ আজ পরস্পরের উপর বিশেষভাবে নির্ভরশীল। চীন ও ভারতের মধ্যে নানাভাবে ক্ষমতার দ্বন্দ্ব রয়েছে বলে চীনের কোনও বিপর্যয়ে ভারতের খুশি হওয়ার বিন্দুমাত্র সুযোগ নেই। তেমনি ভারতের আর্থিক মন্দার খবরে ম্রিয়মাণ হতে হয় চীনের বাজারকেও। ভারতের আর্থিক মন্দা বৃদ্ধির আশঙ্কায় বিশ্ব অর্থনীতির বৃদ্ধির অনুমিত হার কমিয়ে দেখাতে হয়েছে বিশ্বব্যাঙ্ককে। অতএব করোনার বিপদটিকে এক বা একাধিক দেশ বিশেষের বলে এড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই। পৃথিবীর সব দেশকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই বিপদের মোকাবিলা করতে হবে। ভারতের মতো বিরাট দেশকেও অনুরূপ নীতি নিয়ে লড়াই করতে হবে। কোন রাজ্যে বা শহরে কতটা সংক্রমণ ঘটল, তার বিচার করার প্রয়োজন নেই। বরং চেষ্টা করতে হবে, সংক্রমণ যতটা ঘটে গিয়েছে সেখানেই পূর্ণচ্ছেদ টেনে দিতে। এই বিপদে মৃত্যুর মুখ যেন দেখতে না-হয় ভারতকে। তবেই সার্থক হবে ভারতের লড়াই। আর এই সাফল্যের জন্য সব রাজ্যের এবং সব মানুষের সমান সহযোগিতা প্রয়োজন।
আতঙ্ক নয়, দেশকে ঠিকমতো সচেতন করাই হল প্রথম পদক্ষেপ। তারপর দরকার আধুনিক চিকিৎসা পরিষেবার পর্যাপ্ত পরিকাঠামো গড়ে তোলা। মনে রাখতে হবে, এই পর্যন্ত ভারতে করোনা সংক্রমণের ফলে অসুস্থ মানুষের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক সন্দেহভাজন রোগীদের রক্তের নমুনা পরীক্ষার জন্য শতাধিক কেন্দ্র চিহ্নিত করে যথার্থ পদক্ষেপই করেছে। তার ভিতরে বাংলার বেলেঘাটায় কেন্দ্রীয় গবেষণাগার নাইসেড এবং বিভিন্ন প্রান্তের ছ’টি মেডিকেল কলেজকে রাখা হয়েছে। সরকারের সহযোগী হয়েছে কয়েকটি বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানও। এই লড়াইতে বিদেশি দূতাবাসগুলিকেও যুক্ত করা হয়েছে। যেমন রবিবার কলকাতায় অবস্থিত ব্রিটিশ কাউন্সিল ভবনে কয়েকটি দূতাবাসের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের অফিসাররা। সব মিলিয়ে করোনার বিরুদ্ধে ভারতের লড়াই এখনও পর্যন্ত আশাপ্রদ। তার ভিতরে ভরসা জোগাচ্ছে বিশেষ করে বাংলার নেতৃত্ব। আসুন, এই বিরাট লড়াইতে আমরা সবাই কাঁধে কাঁধ মেলাই এবং ভরসা রাখি যে জিতবই। বিস্মৃত হব না যে একের পর এক জয়ের ভিতর দিয়েই মানুষের ইতিহাস সমৃদ্ধ হয়েছে। সবার বাসযোগ্য সুন্দর এক পৃথিবী নির্মাণই মানুষের অঙ্গীকার। 
11th  March, 2020
লকডাউনের বিকল্প ভাবনা জরুরি

কয়েকটি পকেট বাদ দিলে গত জুনে ভারতজুড়ে ভালো বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিপাতের পরিমাণ স্বাভাবিকের চেয়ে ১৫ শতাংশ বেশি। বর্ষার কৃপা সারা দেশই মোটামুটি একইরকম পেয়েছে। আবহাওয়া বিশারদরা মনে করছেন, ২০১৩ সালের পর এই প্রথম একটি পছন্দের জুন মাস পেয়েছি আমরা।
বিশদ

রাস্তা যখন সঙ্কটমুক্তির হাতিয়ার

 সারা দেশে বেকারত্বের হার বাড়তে বাড়তে গত মার্চে ৮.৭৫ শতাংশে পৌঁছেছিল। তাতেই প্রমাদ গুনতে শুরু করেছিল শ্রমের বাজার এবং অর্থনৈতিক মহল। উঠতে শুরু করেছিল সমালোচনার ঝড়। সরকার সংবেদনশীল হলে সাধারণত নড়েচড়ে বসে। বিশদ

05th  August, 2020
বেচারাম সরকার

 কোমরের জোর কমে গেলে সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারে না মানুষ। সামনের দিকে ঝুঁকে পড়ে। কেন্দ্রীয় সরকারের অবস্থা অনেকটা সেরকম। এক চরম নিয়মহীনতা দেশটাকে ক্রমশ সঙ্কটের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। দল ও সরকারের নীতি মেনে আগেই নামী-দামি কিছু রাষ্ট্রয়ত্ত সংস্থা বেচে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল মোদি সরকার।
বিশদ

04th  August, 2020
এবার করোনা টেস্ট জালিয়াতি  

চিকিৎসা ক্ষেত্রে ভারতের সর্বোচ্চ সংস্থা হল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)। ব্রিটিশ আমল থেকে এই সংস্থা চিকিৎসা সংক্রান্ত গবেষণার ব্যাপারে দেশকে নেতৃত্ব দিয়ে চলেছে। তবে, করোনার বিপর্যয় আসার আগে সংস্থাটি সম্পর্কে সাধারণ মানুষের বিশেষ কিছু জানা ছিল না। 
বিশদ

03rd  August, 2020
যুদ্ধটা শুধু রোগের বিরুদ্ধে 

সবার উপরে মানুষ সত্য। তাঁর এত বড় উপলব্ধির কথা কবি চণ্ডীদাস আমাদের সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছিলেন প্রায় ছ’শো বছর আগে। পৃথিবী তারপর বহু বহু দূর এগিয়ে গিয়েছে।   বিশদ

02nd  August, 2020
বলে কয়ে বঞ্চনা! 

আশঙ্কাই সত্যি হল। কেন্দ্র জানিয়ে দিল, রাজ্যগুলিকে জিএসটি-র বকেয়া মেটানো সম্ভব নয়। সিঁদুরে মেঘ আগেই দেখেছিলেন দূরদর্শী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যের ন্যায্য পাওনা বকেয়া হয়েছে ৫৩ হাজার কোটি টাকা।  বিশদ

01st  August, 2020
কেন্দ্রীকরণের বিপজ্জনক প্রবণতা 

দেশে একটা সংবিধান আছে, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে সংসদ আছে, অথচ ভারতীয় গণতন্ত্রের এই শক্তিশালী দুই স্তম্ভকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে জাতীয় শিক্ষানীতি ঘোষণা করে দিল মোদি সরকার।   বিশদ

31st  July, 2020
ডিজিটাল ইন্ডিয়া: মস্ত মশকরা 

আমাদের মৌলিক অধিকারগুলোর মধ্যে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হল শিক্ষার অধিকার। ২০০২ সালে ভারতীয় সংবিধানের ৮৬তম সংশোধনের মাধ্যমে ‘অনুচ্ছেদ ২১-এ’ যোগ করা হয়। তাতে ৬-১৪ বছর বয়সি সমস্ত ছেলেমেয়ের জন্য নিখরচায় এবং বাধ্যতামূলক স্কুলশিক্ষার অধিকার স্বীকার করা হয়।  বিশদ

30th  July, 2020
অক্সিজেনে কালো হাত 

মঙ্গলবার দুপুরের হিসেব, দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লাখের দিকে এগচ্ছে। শুধু ২৭ জুলাই একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৫০ হাজার মানুষ! মৃতের সংখ্যা ছুটছে সাড়ে ৩৩ হাজারের দিকে।   বিশদ

29th  July, 2020
চীনের নাম নিতে কীসের কুণ্ঠা? 

একটা নয়, একই দিনে দু’টো অনুষ্ঠান। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সাধারণত বলার সুযোগ পেলে তার পূর্ণ সদ্ব্যবহার করেন। রবিবাসরীয় ‘মন কি বাত’ এবং ‘কার্গিল দিবস’ অনুষ্ঠানেও তার ব্যতিক্রম হয়নি।  বিশদ

28th  July, 2020
সব গরিবকে উচ্চশিক্ষার সুযোগ

কল্যাণকামী সরকারকে পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর মানুষের জন্য নানা ধরনের কর্মসূচি ও প্রকল্প নিতে হয়। তার মধ্যে প্রথম কর্মসূচিটা হল খাদ্য সরবরাহ সংক্রান্ত। খাদ্যের নিরাপত্তা কর্মসূচিটা চালু হয়েছে এই ভাবনা মাথায় রেখে।
বিশদ

27th  July, 2020
কেন্দ্র কি রাজ্যের উন্নয়ন চায় না?

ভারত একটি যুক্তরাষ্ট্র। একটি শক্তিশালী কেন্দ্রকে ঘিরে রয়েছে রাজ্যগুলি। রয়েছে কয়েকটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলও। এই যে শক্তিশালী কেন্দ্রের কথা বলা হল, তা আসলে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির অর্থ ও সম্পদে পুষ্ট। বিশদ

26th  July, 2020
কামাল করল পুলিস

 ভোরের আলো ফোটার আগে কে জানতো গোটা দিনের জন্য এক অপার বিস্ময় অপেক্ষা করে আছে! কাটোয়া থেকে কোচবিহার, পাহাড় থেকে সাগর, টালা থেকে টালিগঞ্জ—পথে শুধু পুলিস আর পুলিস! কোথাও খাকি, কোথাও সাদা পোশাকের উর্দিধারীদের দৃপ্ত পদচারণায় কার্যত রাজ্যবাসী ঘরে সেঁধিয়ে গিয়েছে।
বিশদ

25th  July, 2020
মনোদর্পণ কর্মসূচি ও বাস্তবতা

এই মহাজগতে কত নক্ষত্র আর গ্রহ-উপগ্রহ, তার সবটা আমরা জানি না। আর এও নিশ্চিত নই, প্রাণের অস্তিত্ব পৃথিবীর বাইরে আর কোথায় আছে। এ নিয়ে যুগ যুগ ধরে মানুষের কৌতূহলের অন্ত নেই। বিশদ

24th  July, 2020
ভোটের বাদ্যি

বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজোর বাকি এখন তিন মাস। দরজায় কড়া নাড়লেও করোনার আবহে এবার শারদোৎসবের জাঁকজমক যে অনেকটাই ম্লান হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু এই সঙ্কট বিষাদের মধ্যেই ২১ এর ভার্চুয়াল সভা থেকে ভোটের বাদ্যি বাজিয়ে দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো।
বিশদ

23rd  July, 2020
প্রতারণায় নতুন সংযোজন

 জালিয়াতি বা প্রতারণা নতুন কিছু নয়। এ চলছে বহুকাল যাবৎ। নামী কোম্পানির লোগো, সিলমোহর ইত্যাদি জাল করে নিম্নমানের পণ্য বিক্রির চক্র সক্রিয় দেশের প্রায় সর্বত্র। বিশদ

22nd  July, 2020
একনজরে
মাসে ১৫ হাজার টাকা ভাতা। সঙ্গে থাকা-খাওয়া ফ্রি। তবে, এই কাজের যোগ্যতার মাপকাঠি একটু অন্যরকম। শুধুমাত্র করোনা জয়ী হলেই মিলবে সুযোগ। দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে কাজ হারানো মানুষের সংখ্যা বিপুল। তাই এমন অফার পেয়ে কাজে যোগ দেওয়ার জন্য লাইন পড়ে যাওয়ার ...

অধিনায়ক হিসেবে দল পরিচালনার ক্ষেত্রে অদ্ভুত এক তত্ত্ব মেনে চলেন রোহিত শর্মা। ‘হিটম্যান’ জানিয়েছেন, নেতৃত্বভার কাঁধে থাকলে ড্রেসিং রুমে নিজেকেই সবচেয়ে কম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বলে ...

তুফানগঞ্জ পুরসভা তহবিলের অভাবে উন্নয়নমূলক কোনও কাজ করতে পারছে না। করোনা পরিস্থিতিতে মার্চ মাসের শেষসপ্তাহে লকডাউন শুরু হতেই এই সমস্যা তৈরি হয়েছে।  ...

ভিসা ও অন্যান্য নথির মেয়াদ ফুরনোয় সৌদি আরবে এখন জেলবন্দি রয়েছেন প্রায় ৪৫০ জন ভারতীয়। তার মধ্যে অনেকেই এই বাংলার আদি বাসিন্দা। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চবিদ্যার ক্ষেত্রে বাধার মধ্য দিয়ে অগ্রসর হতে হবে। কর্মপ্রার্থীদের ক্ষেত্রে শুভ যোগ। ব্যবসায় যুক্ত হলে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

হিরোশিমা দিবস
১৮৬৫ - চার্লি চ্যাপলিনের মা তথা ইংরেজ অভিনেত্রী, গায়িকা ও নৃত্যশিল্পী হান্নাহ চ্যাপলিনের জন্ম
১৮৮১- পেনিসিলিনের আবিষ্কারক ফ্লেমিংয়ের জন্ম
১৯০৫- দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাস প্রকাশ করলেন বন্দে মাতরম পত্রিকা
১৯০৬ - বিপিনচন্দ্র পালের সম্পাদনায় বন্দে মাতরম্ (সংবাদপত্র) প্রথম প্রকাশিত হয়।
১৯১৪ - কলকাতা থেকে দৈনিক বসুমতী প্রথম প্রকাশিত হয়।
১৯২৫ - বিশিষ্ট স্বাধীনতা সংগ্রামী স্যার সুরেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু
১৯৪৫-হিরোশিমায় পরমাণু বোমা ফেলল আমেরিকা



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.১৪ টাকা ৭৫.৮৬ টাকা
পাউন্ড ৯৬.৪৬ টাকা ৯৯.৮৭ টাকা
ইউরো ৮৭.০৪ টাকা ৯০.২০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫৪,৬৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৫১,৮৭০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৫২,৬৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৫,০৮০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৫,১৮০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
05th  August, 2020

দিন পঞ্জিকা

২১ শ্রাবণ ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট ২০২০, তৃতীয়া ৪৭/৩৪ রাত্রি ১২/১৫। শতভিষানক্ষত্র ১৫/১১ দিবা ১১/১৮। সূর্যোদয় ৫/১৩/৪৮, সূর্যাস্ত ৬/১১/৬। অমৃতযোগ দিবা ১২/৪৮ গতে ৩/১ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/৫৭ মধ্যে পুনঃ ১০/২৪ গতে ১২/৫৯ মধ্যে। বারবেলা ২/৫৭ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৪২ গতে ১/৫ মধ্যে।
২১ শ্রাবণ ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট ২০২০, তৃতীয়া রাত্রি ১১/২। শতভিষানক্ষত্র দিবা ১১/২১। সূর্যোদয় ৫/১৩, সূর্যাস্ত ৬/১৪। অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৭ গতে ৩/৩ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৭/০ মধ্যে ও ১০/২৩ গতে ১২/৫৫ মধ্যে। কালবেলা ২/৫৯ গতে ৬/১৪ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৪৩ গতে ১/৬ মধ্যে।
১৫ জেলহজ্জ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মুর্শিদাবাদে রিভলবার দেখিয়ে পেট্রল ভরে গ্রেপ্তার ১
মুর্শিদাবাদে রিভলবার দেখিয়ে বাইকে পেট্রল ভরে গ্রেপ্তার হল এক দুষ্কৃতী। ...বিশদ

01:25:39 PM

করোনা: আপনার জেলার হাল কী, জানুন... 
রাজ্যে নতুন করে আরও ২,৮১৬ জনের শরীরে মিলেছে করোনা ভাইরাস। ...বিশদ

12:26:35 PM

রেপো রেট ও রিভার্স রেপো রেট অপরিবর্তিতই:আরবিআই
রেপো রেট (৪%)ও রিভার্স রেপো রেট (৩.৩%)অপরিবর্তিতই রাখল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ...বিশদ

12:13:21 PM

ট্রাম্পের ভিডিও ডিলিট করল ফেসবুক-ট্যুইটার
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি ভিডিও পোস্ট তাঁর পেজ থেকে ...বিশদ

12:02:14 PM

শঙ্করপুরে সমুদ্রের জলোচ্ছ্বাসে বাঁধ ভেঙে প্লাবিত গ্রাম 
নিম্নচাপ ও প্রবল জলোচ্ছ্বাসে ভেঙে যাচ্ছে শঙ্করপুরের সমুদ্রবাঁধ। জলোচ্ছ্বাসে বাঁধ ...বিশদ

11:49:17 AM

দঃ২৪ পরগনায় কমল কন্টেনমেন্ট জোনের সংখ্যা
দক্ষিণ ২৪ পরগনায় কমল কন্টেনমেন্ট জোনের সংখ্যা। এতদিন ৭৯টি জোন ...বিশদ

10:35:20 AM