Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

অগ্রগতির আসল চাবিকাঠি

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকার প্রকাশ করেছে স্বাস্থ্যবিষয়ক জাতীয় সমীক্ষা রিপোর্ট। ‘ন্যাশনাল হেলথ প্রোফাইল, ২০১৯’ নামের এই বিশাল রিপোর্টে দেশের শিশুদের যে স্বাস্থ্যচিত্র ধরা পড়েছে তাকে কোনোভাবেই আশাব্যঞ্জক বলা যাবে না। স্বাধীনতার সাত দশক পরের এই ছবিটা বেশ উদ্বেগজনক এবং যথেষ্ট লজ্জারও বটে। শিশুদের খাওয়ানোর ধরন নিয়ে বিশেষ সমীক্ষা হয়েছে তা থেকে জানা যাচ্ছে, দেশের ৯০ শতাংশেরও বেশি কম বয়সি শিশু পর্যাপ্ত খাবার পাচ্ছে না। ছ’মাস পর্যন্ত বয়স অবধি শিশুকে শুধুমাত্র মায়ের দুধ খাওয়ানোর নির্দেশ রয়েছে। তার পরবর্তী দেড় বছরে বা ২৪ মাস বয়স পর্যন্ত শিশুদের এমনভাবে খাওয়ানো দরকার যাতে তারা পর্যাপ্ত পুষ্টি নিয়ে বেড়ে উঠতে পারে। সমীক্ষা রিপোর্ট বলছে, ৬-২৪ মাস বয়সিদের মধ্যে স্বাস্থ্যসম্মত পুষ্টিকর খাদ্য পাচ্ছে মাত্র ৯.৬ শতাংশ শিশু। অর্থাৎ ৯০.৪ শতাংশ শিশু পর্যাপ্ত পুষ্টিকর খাদ্য থেকে বঞ্চিত রয়ে যাচ্ছে। রিপোর্ট থেকে আরও জানা যাচ্ছে, ৬-২৩ মাসের যেসব শিশু মায়ের দুধ পেয়েছে তাদের মধ্যে মাত্র ৮.৭ শতাংশ পর্যাপ্ত খাবার পেয়েছে। পৃথক সমীক্ষা হয়েছে ওই বয়সের যেসব শিশু মায়ের দুধ পায়নি তাদের খাওয়ানোর ধরনের উপরেও। তাদের মধ্যে ৮৫ শতাংশের বেশি পর্যাপ্ত খাবার পায়নি। এই হতাশাজনক ছবির মধ্যে তামিলনাড়ু এবং পশ্চিমবঙ্গের মতো একাধিক রাজ্যকে মন্দের ভালো বলা যায়। সার্বিকভাবে সেরা রাজ্যটির নাম তামিলনাড়ু। সারা দেশে যেখানে ৬-২৩ মাসের ৯.৬ শতাংশ শিশু পর্যাপ্ত পুষ্টিকর খাদ্য পায় সংখ্যাটি সেখানে তামিলনাড়ুর ক্ষেত্রে প্রায় ৩১ শতাংশ এবং পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে প্রায় ২০ শতাংশ। তামিলনাড়ুর ৬-৮ মাসের শিশুদের ভিতরে ৬৭.৫ শতাংশ শিশু মায়ের দুধ এবং প্রয়োজনীয় শক্ত ও গলা খাবার পাচ্ছে। সংখ্যাটি পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে ৫২ শতাংশ। বাকি ভারতের চিত্রটা বেশ হতাশাজনক।
একটি জাতি কতটা এগবে তা নির্ভর করে শিশুদের বিকাশের উপর। এই কারণে শিশুদেরকেই জাতির ভবিষৎ বলা হয়। জাতির অগ্রগতি বা ভবিষ্যৎ সমৃদ্ধির প্রশ্নটি শিশুদের বিকাশের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত। একটি মানুষ পরিণত বয়সে শারীরিক ও মানসিকভাবে কতটা সুস্থ ও স্বাভাবিক থাকবে তা শৈশবেই নির্দিষ্ট হয়ে যায়। বয়সোচিত পুষ্টি নিয়ে বেড়ে উঠলেই একজন মানুষ রোগপ্রতিরোধে বিশেষভাবে সক্ষম হয় এবং তার স্বাভাবিক বুদ্ধির বিকাশটাও ঘটে। স্বাভাবিকভাবে বেড়ে ওঠা শিশু জীবনের যে-কোনও দিকে যাওয়ার উপযুক্ত হতে পারে। খেলাধুলো গানবাজনা শিল্পকলায় পারদর্শী যেমন হতে পারে তেমনি পছন্দের যে-কোনও বিষয়ে লেখাপড়াও শিখতে পারে। তাই বয়স অনু্যায়ী শিশুকে পুষ্টিকর খাবার দেওয়াটা আবশ্যক। পাঁচ বছরের ভিতরে শিশুর বুদ্ধির মূল বিকাশটাও ঘটে যায়। এই বয়সের যাবতীয় সঞ্চয় একজন মানুষকে সারাজীবন ডিভিডেন্ড দেয়। অবহেলিত শৈশব যে-কোনও মানুষের জন্যই অভিশাপ। অবহেলিত শৈশব যার তাকে অন্যের সমকক্ষ হতে অনেক বেশি কষ্ট করতে হয়। তাকে কষ্ট করতে হয় শারীরিক এবং মানসিকভাবে। অনেকে সারাজীবন কষ্ট করেও শারীরিক এবং মানসিকভাবে সমবয়সিদের সমকক্ষ হয়ে উঠতে পারে না। তার পিছনে মানুষটির শৈশবের বঞ্চনা নিঃসন্দেহে অনেকাংশে দায়ী থাকে।
শিশুদের অপুষ্টির যে চিত্রকে সামনে রেখে এই আলোচনা তার সবটার জন্য পরিবারের অসামর্থ্যকে দায়ী করা চলে না। এমনকী দোষের সবটা সরকারকেও দেওয়া যায় না। কারণ, শিশুর অপুষ্টি এবং দুর্বল স্বাস্থ্যের পিছনে মা-বাবা এবং পরিবারের অজ্ঞতা অনেকখানি দায়ী। সংশ্লিষ্ট ডাক্তারদের অভিজ্ঞতা বলে, অনেক মা সুযোগ থাকা সত্ত্বেও ছ’মাস অবধি বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়ায় না। সুযোগ পেলেই গালভরা নামের কৌটোর দুধ কিংবা বেবিফুড খাওয়ায়। এছাড়া ধর্মীয় এবং সামাজিক সংস্কারের দোহাই দিয়ে অনেক বাচ্চাকে দেড় বছর পর্যন্ত আমিষ খাওয়ানো হয় না। কোনও কোনও বাচ্চাকে প্রয়োজনীয় ফলমূল সব্জিও দেওয়া হয় না। তার ফলে দেখা যায় পাঁচ বছর নীচের ৭০ শতাংশ শিশুই অপুষ্টির শিকার। শিশু ও মায়েদের পুষ্টির জন্য সরকারের কর্তব্য যেমন চলছে চলুক। সুযোগমতো তা আরও বাড়ানো হোক। পাশাপাশি মানুষকে, বিশেষত শিশুর মা-বাবাকে আরও সচেতন করে তোলার উদ্যোগ নিক সরকার। দেশের অগ্রগতির আসল চাবিকাঠির নাম শিশুর সার্বিক বিকাশ।
07th  November, 2019
জলাশয় ধ্বংসে শাস্তিটাও কাম্য

 ভারতে সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ রাজ্যগুলির মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। জনবসতির ঘনত্ব এখানে ক্রমবর্ধমান, নানা কারণে। স্বভাবত বসতি কেন্দ্রীভূত হওয়ার প্রবণতা কলকাতাকে ঘিরেই। কারণটি সোজা। পূর্ব ভারতের ভিতরে আধুনিক জীবনযাপনের সবচেয়ে বেশি সুযোগ কলকাতাতেই মেলে।
বিশদ

বছরভর নজরদারি প্রয়োজন 

সাধারণ মানুষ বিশেষত গরিব মধ্যবিত্ত শ্রেণী এই মুহূর্তে যে সমস্যাটিতে জেরবার হচ্ছে তা হল সাম্প্রতিক বাজার দর। দেশের বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতিতে এমনিতেই মানুষের ক্রয়ক্ষমতা কমেছে। হাতে নগদ টাকার অভাব।   বিশদ

20th  November, 2019
শ্রীলঙ্কায় ‘চীনবন্ধু’র জয় ভারতের পক্ষে অনুকূল হবে না 

ভোটে জিতে শ্রীলঙ্কায় প্রেসিডেন্ট পদে আসীন হলেন গোতাবায়া রাজাপাকসে। আমরা শ্রীলঙ্কার মহিন্দা রাজাপাকসেকে জানি। ইনি হলেন তাঁর দাদা। ভালো মার্জিনে জিতে গোতাবায়া ক্ষমতায় এলেও একমাত্র সিংহলী আর বৌদ্ধরা ছাড়া সেই দ্বীপভূমি রাজ্যে আর কেউ তেমন আনন্দে নেই। কেননা গোতাবায়ার অতীত ইতিহাস তেমন উজ্জ্বল নয়।  
বিশদ

19th  November, 2019
বিমার অর্থের অবিবেচক লগ্নি

চিটফান্ডে টাকা রেখে বিপুল সংখ্যক সাধারণ মানুষ তাদের সঞ্চয় খুইয়েছেন। সেই পথে আর যেতে চান না কেউই। অগত্যা ভারতীয় জীবন বিমা নিগম (এলআইসি) ছিল সঞ্চিত অর্থ লগ্নি করার সহজ পথ। সবাই জানেন, সরকারি বিমা সংস্থায় অন্তত টাকা মার যাওয়ার ভয় নেই। তাই এলআইসিতে আম জনতা টাকা রাখেন নিরাপদ মনে করেই। 
বিশদ

18th  November, 2019
ভারতের নারীশক্তির যুক্তিতে আবার বেআব্রু পাকিস্তান

 মার্গারেট থ্যাচার বলেছিলেন, যদি কোনও কাজ নিয়ে কিছু বলতে হয়, একজন পুরুষকে বলুন। আর যদি কোনও কাজ সম্পূর্ণ করতে হয়, বলে দেখুন একজন মহিলাকে। শুক্রবার ভারতের নারীশক্তির যে দাপট আন্তর্জাতিক মঞ্চ দেখল, তা পৃথিবীর অন্তিম লগ্ন পর্যন্ত মনে রাখবে পাকিস্তান। বিশদ

17th  November, 2019
রেলের খাবারের দাম বাড়ছে সামঞ্জস্য রেখে বাড়ুক মানও

 ভারতের জীবনরেখার অন্যতম একটি নাম হল রেল। প্রতিদিন অহোরাত্র লক্ষ লক্ষ নারী-পুরুষ-বৃদ্ধ-শিশু থেকে ধনী-দরিদ্রদের যাতায়াতের সহজ ও সুলভ মাধ্যম রেল। সব থেকে কম খরচে, আরামে, তাড়াতাড়ি গন্তব্যে পৌঁছনোর জন্য রেলই আমআদমির প্রথম পছন্দ। বিশদ

16th  November, 2019
পণের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্ত রাজস্থানে!

 ভারতে পণপ্রথা নিষিদ্ধ ঘোষণা করে আইন বলবৎ হয়েছে ১৯৬১ সালে, অর্থাৎ ৫৮ বছর হয়ে গেল। তার পরেও পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি নারী পণপ্রথার বলি হয় যে দেশে তার নাম ভারত, আমাদের মহান দেশ! ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর (এনসিআরবি) তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে, ভারতে প্রতি দেড় ঘণ্টায় একজন মহিলাকে পণলোভীদের রোষে পুড়ে মরতে হয়। বিশদ

15th  November, 2019
বেলাগাম গতি: চাই কড়া পদক্ষেপ

গতি। বলা ভালো উদ্দাম গতি। কখনও নেশার ঘোরে, কখনও রেষারেষি, কখনও আবার স্রেফ স্টান্টবাজি। শহরের বুকে ঝরে পড়ছে একের পর এক প্রাণ। বয়সে তরুণ বা সদ্য যৌবনে পা দেওয়া তরতাজা প্রাণ। 
বিশদ

14th  November, 2019
লক্ষ্য কর্মসংস্থান

 পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের সিদ্ধান্তটি সঠিক ছিল বলে কেন্দ্রের সরকার যতই দাবি করুক না কেন তার বড় ধাক্কা যে দেশের কর্মসংস্থানের উপর পড়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কাজের বাজারের ছবিটাই এখন বিবর্ণ, কাজ হারানো মানুষের সংখ্যা বেড়েছে। নোটবন্দির জেরে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প। বিশদ

13th  November, 2019
বুলবুল-পরবর্তী বাংলার প্রত্যাশা  

এক দশক আগের ‘আ‌ইলা’র স্মৃতি উসকে দিয়ে শনিবার দক্ষিণবঙ্গের একাংশে আছড়ে পড়ল ‘বুলবুল’। প্রাণহানির নিরিখে বুলবুলের দাপট আইলার চেয়ে কমই ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু, এখনও পর্যন্ত অন্য ক্ষয়ক্ষতির যে খতিয়ান সরকারের হাতে এসেছে তাতে এই বিপর্যয়কে কোনোভাবেই ন্যূন মনে করার সুযোগ নেই।  
বিশদ

12th  November, 2019
বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের দেশ

সময় লাগল অনেকটাই। তবে অবশেষে স্বস্তি এল। দীর্ঘদিনের জটও কাটল। নতুন করে সবকিছু শুরু হওয়ার অপেক্ষায় অযোধ্যা। আর বহু প্রতীক্ষিত এই সুদিন দেশের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। এভাবেই অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণার পর জাতির উদ্দেশে ভাষণে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
বিশদ

11th  November, 2019
নিরাপত্তার নামে 

গোয়েন্দারা বারবার সতর্ক করেছিলেন। শোনেননি ইন্দিরা গান্ধী। অমৃতসরের স্বর্ণমন্দিরে অপারেশন ব্লু স্টারের পর ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো জানিয়েছিল, শিখ সম্প্রদায় আপনার শত্রু হয়ে গিয়েছে। আপনার নিরাপত্তা বলয় থেকে শিখদের সরিয়ে দিন। মানতে চাননি ইন্দিরা। বিয়ন্ত সিং এবং সতবন্ত সিং বহুদিনের সঙ্গী... তাঁদের সরাবেন না প্রধানমন্ত্রী। 
বিশদ

10th  November, 2019
পেঁয়াজের দামে নাভিশ্বাস

 প্রায় শেষ পুজোর মরশুম। গণেশ পুজো দিয়ে শুরু হয়ে জগদ্ধাত্রীতে এসেছে থেমেছে উৎসবের লগ্ন। এই সময় আমবাঙালির হাত প্রায়-শূন্য হয়ে পড়ে ফিবছরই। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। কিন্তু, তার উপর আছড়ে পড়েছে মূল্যবৃদ্ধির ভয়াবহ ‘বুলবুল’। বাজারে বেরলে নিমেষে উড়ে যাচ্ছে নোট। বিশদ

09th  November, 2019
গুজরাতি: বৈষম্যমূলক ও অবাঞ্ছিত 

গোটা এশিয়া মহাদেশে সাহিত্যে প্রথম নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন যিনি তিনি একজন বাঙালি কবি। বলা বাহুল্য তাঁর নাম রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তারপর শতবর্ষ পেরিয়ে গিয়েছে। তবু ভারতের অন্যকোনও ভাষার সাহিত্যিকরা সেই গর্ব স্পর্শ করতে পারেননি। রবীন্দ্রনাথেরই লেখা দুটি গান ভারত এবং বাংলাদেশের জাতীয়সঙ্গীত। এও এক অনন্য নজির।  
বিশদ

08th  November, 2019
নিরাপদ অবস্থান 

দেশের উন্নতি করতে হলে সাধারণ মানুষের, বিশেষত গরিব মানুষের জীবনযাত্রায় উন্নতি ঘটাতেই হবে। তাঁদের জীবনকে সুরক্ষিত রাখতে হবে। ভাবতে হবে তাঁদের স্বার্থরক্ষার কথা। কেন্দ্রের মোদি সরকারের বিরুদ্ধে বারবার অভিযোগ উঠেছে যে তারা ধনীদের স্বার্থরক্ষা করে, সিদ্ধান্ত নেয় বড়লোক শ্রেণীর স্বার্থে। তারা চাষি, খেতমজুর অর্থাৎ গরিব মানুষের কথা বিশেষ ভাবে না। 
বিশদ

06th  November, 2019
পাকিস্তানের স্বভাব যায় না ম’লে 

বাংলায় একটা প্রবাদ আছে, স্বভাব যায় না ম’লে। যার যা স্বভাব সেটা সে পালন করে যাবেই। সে ভালোই হোক আর মন্দই হোক। মন্দ হলে সে কাজের সমালোচনা বা নিন্দা হবেই। কিন্তু অসম্মান আর বেইজ্জতই যাদের ভূষণ তারা এসব অসম্মানকে থোড়াই কেয়ার করে।  বিশদ

05th  November, 2019
একনজরে
সংবাদদাতা, রামপুরহাট: মল্লারপুরের মাঝিপাড়া গ্রামের ঘটনায় অভিযুক্ত সিভিক ভলান্টিয়ারকে গ্রেপ্তার করা হল। মঙ্গলবার রাতে তাঁকে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। বুধবার ধৃতকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৬ সহ একাধিক ধারা যুক্ত করে রামপুরহাট আদালতে তোলা হয়।  ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...

সংবাদদাতা, ইটাহার: ব্লক কৃষি দপ্তরের ‘সুধা’ (সুনিশ্চিত ধান) পদ্ধতিতে চাষ করে বিশেষ সফলতা পেলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ ব্লকের বিষ্ণুপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কলুয়া গ্রামের চাষি আবু শাহেদ। এঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই এলাকার অন্যান্য চাষিদের মধ্যে সুধা পদ্ধতিতে ধান চাষের ব্যাপারে উৎসাহ দেখা ...

 ফিরদৌস হাসান, শ্রীনগর,২০ নভেম্বর: বুধবার শ্রীনগরের বিধায়ক হোস্টেলে ‘বন্দি’ নেতাদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দিল কেন্দ্র। এই মুহূর্তে বিধায়ক হোস্টেলে ৩০ জন বিভিন্ন দলের নেতা বন্দি। তাঁদের সঙ্গে দেখা করে হোস্টেল থেকে বেরিয়েই ক্ষোভে ফেটে পড়লেন আত্মীয়-পরিজনেরা। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উপার্জন বেশ ভালো হলেও ব্যয়বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে সঞ্চয় তেমন একটা হবে না। শরীর খুব একটা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব টেলিভিশন দিবস
১৬৯৪: ফরাসি দার্শনিক ভলতেয়ারের জন্ম
১৮৭৭: ফোনোগ্রাফ আবিষ্কারের কথা জানালেন থমাস এডিসন
১৯৭০: নোবেলজয়ী পদার্থবিদ চন্দ্রশেখর বেঙ্কটরামনের মৃত্যু
১৯৭৪ - শিশু সাহিত্যিক পুণ্যলতা চক্রবর্তীর মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.১৭ টাকা ৭৩.৩৩ টাকা
পাউন্ড ৯০.৪৯ টাকা ৯৪.৮৫ টাকা
ইউরো ৭৭.৬২ টাকা ৮১.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৯৭৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৯৮০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৫৩৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, নবমী ১৩/৫০ দিবা ১১/২৯। পূর্বফাল্গুনী ৩১/২২ রাত্রি ৬/২৯। সূ উ ৫/৫৬/৪২, অ ৪/৪৮/০০, অমৃতযোগ দিবা ৭/২৩ মধ্যে পুনঃ ১/১১ গতে ২/৩৮ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪১ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৯ গতে ৩/১৯ মধ্যে পুনঃ ৪/১২ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ২/৫ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/২২ গতে ১/০ মধ্যে।
৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, নবমী ৮/১৫/৩৯ দিবা ৯/১৭/৩। পূর্বফাল্গুনী ২৮/৯/৬ সন্ধ্যা ৫/১৪/২৫, সূ উ ৫/৫৮/৪৭, অ ৪/৪৭/৪৮, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৪ মধ্যে ও ১/১৫ গতে ২/৪০ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৯/১৫ মধ্যে ও ১১/৫৫ গতে ৩/২৯ মধ্যে ও ৪/২২ গতে ৬/০ মধ্যে, বারবেলা ৩/২৬/৪১ গতে ৪/৪৭/৪৮ মধ্যে, কালবেলা ২/৫/৩৩ গতে ৩/২৬/৪১ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/২৩/১৭ গতে ১/২/১২ মধ্যে।
২৩ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
গোটা দেশে এনআরসি হবে: অমিত শাহ 
গোটা দেশে এনআরসি হবে বলে রাজ্যসভায় জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত ...বিশদ

20-11-2019 - 04:31:00 PM

পর্ণশ্রীতে গ্যাস সিলিন্ডার চুরি, ধৃত ২ 

20-11-2019 - 03:18:00 PM

নরেন্দ্রপুরে দম্পতির রহস্যমৃত্যু 
নরেন্দ্রপুরে এক দম্পতির দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য। আজ সকালে নরেন্দ্রপুরের ...বিশদ

20-11-2019 - 02:34:00 PM

মায়ের বকুনি, অভিমানে আত্মঘাতী সপ্তম শ্রেণীর পড়ুয়া 
পড়াশোনা নিয়ে মায়ের বকুনির জেরে অভিমানে আত্মঘাতী হল সপ্তম শ্রেণীর ...বিশদ

20-11-2019 - 01:38:34 PM

আসানসোলে ৫ কুখ্যাত দুষ্কৃতী গ্রেপ্তার 
ডাকাতির উদ্দেশ্যে জরো হওয়া পাঁচ কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করল আরপিএফের ...বিশদ

20-11-2019 - 01:32:39 PM

মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিতে সভামঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

20-11-2019 - 01:26:09 PM