Bartaman Patrika
সম্পাদকীয়
 

অর্থনীতি বড় চ্যালেঞ্জের মুখে

গাড়ি শিল্পে ‘রক্তক্ষরণ’ অব্যাহত। নাগাড়ে গাড়ি বিক্রি কমছে। কোপ পড়ছে কাজে। গাড়ি শিল্পে ইতিমধ্যে ৩.৫ লক্ষ কাজ খুইয়েছে। এই অবস্থায় শিল্প মহলের হুঁশিয়ারি, অবস্থার উন্নতি না-হলে আরও কর্মী চাকরি হারাবেন। দেশে গাড়ি শিল্পের বৃদ্ধির ছবিটা প্রায় মুছে যাওয়ার মুখে। বাধ্য হয়ে উত্তর ভারতে মানেসর ও গুরুগ্রামের কারখানা দুটি দু’দিন বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছে মারুতি-সুজুকি। দেশের যাত্রিবাহী গাড়ি বাজারের অর্ধেকই যাদের দখলে। বিক্রি কমায় সাত মাস ধরে তারা উৎপাদন ছাঁটাই করে চলেছে। আগস্টে তাদের উৎপাদন কমেছে প্রায় ৩৪ শতাংশ। টাটা মোটরস জামশেদপুরের বাণিজ্যিক গাড়ির কারখানাটি আগস্টে কিছু দিন বন্ধ রাখে। হন্ডা, মহিন্দ্রা অ্যান্ড মহিন্দ্রা, টয়োটা কির্লোস্কার মোটরস, হুন্ডাই, হিরো মোটো কর্প, টিভিএসের মতো অনেক সংস্থাই কয়েক দিন হয় সম্পূর্ণ, না-হয় আংশিক উৎপাদন বন্ধ রেখেছে। গাড়ি শিল্পে এই মন্দার বিরূপ প্রভাব স্বাভাবিকভাবেই পড়ছে যন্ত্রাংশ শিল্পেও। মনে রাখবেন, উৎপাদনমুখী শিল্পে গাড়ি শিল্পের অংশীদারি ৪৯ শতাংশ। মোট কর্মসংস্থানের ৮ শতাংশের উৎস এই শিল্প। শিল্পোৎপাদন ক্ষেত্রে গত ১৫ মাসের হিসেব অনুযায়ী ধীরতম বৃদ্ধি ঘটেছে গত আগস্ট মাসেই। গত ত্রৈমাসিকে বার্ষিক বৃদ্ধির হার দাঁড়িয়েছে মাত্র ৫ শতাংশ, যা গত গত ৬ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে ধীরতম। এসবের জেরে টান পড়েছে ইস্পাতের চাহিদাতেও। টাটা স্টিলের শীর্ষ কর্তা সম্প্রতি তাঁদের বিভিন্ন প্রকল্পে লগ্নি ছাঁটাই ও বিদেশে কিছু শাখা সংস্থা বন্ধের কথা বলেছেন। একইসঙ্গে মার খাচ্ছে ফ্ল্যাট-বাড়ির বিক্রিবাটাও। আর এই ঝিমিয়ে থাকা চাহিদার ধাক্কা এসে পড়েছে রং শিল্পের গায়ে। হিসেব বলছে, গাড়ি শিল্পে রঙের চাহিদা কমেছে প্রায় ১৫ শতাংশ। বিক্রি ফিকে হয়েছে আবাসনের প্রয়োজন মেটানোর ক্ষেত্রেও। রং সংস্থাগুলির আশঙ্কা, অর্থনীতির শ্লথ গতি বহাল থাকলে সার্বিকভাবে চাহিদা আরও কমতে পারে। ফলে, এই মুহূর্তে ব্যবসা হারানোর ভয়ে কার্যত কাঁটা তারা। চাহিদায় ভাটার টান তো চলছিলই, সেইসঙ্গে সঞ্চয়েও মন্দা প্রকট হচ্ছে। সার্বিকভাবে অর্থনীতির ঝিমিয়ে পড়ার কারণ খুঁজতে অর্থ মন্ত্রকে আলোচনা চলছে। সরকারি সূত্রের খবর, সেখানেও ঝিমুনির অন্যতম কারণ হিসেবে সঞ্চয়ের হার কমে যাওয়ার বিষয়টি উঠে আসছে। নতুন লগ্নি ও রপ্তানি—দু’দিকেই ভাটার টান। সরকারি খরচ বিশেষ বাড়ছে না। বাজারে কেনাকাটাই ছিল ভরসা। এবার তাও কমে গিয়েছে। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, একটা সময় লোকে টাকা জমিয়ে তবে দামি জিনিসপত্র কিনত। তারপর সহজে ঋণ মিলতে শুরু করল। ফলে, বাড়ল ধার করে জিনিস কেনার প্রবণতা। টাকা শোধ হত ইএমআই-তে। ইদানীং আয় তেমন বাড়ছে না। ভবিষ্যতে বাড়বে কি না তাও অনিশ্চিত। ফলে ধারে কেনার প্রবণতা কমেছে। ও-দিকে পুরনো ধার মেটাতে আয়ের অনেকখানি খরচ হয়ে যাচ্ছে বলে সঞ্চয়ও কমছে। সব মিলিয়ে দেশের অর্থনীতির স্বাস্থ্য যে খারাপ হচ্ছে, তা তুলে ধরছে বিভিন্ন পরিসংখ্যান। আর যত তা স্পষ্ট হচ্ছে, ততই যেন ভোঁতা হচ্ছে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে কেন্দ্র ঘোষিত পদক্ষেপগুলির ধার।
এদিকে সর্বকালীন রেকর্ড গড়ল সোনার দাম। জিএসটি যোগ করে রাজ্যে প্রতি ১০ গ্রাম ২৪ ক্যারাট পাকা সোনা ছাড়িয়েছে ৪০ হাজার টাকা। বিশেষজ্ঞদের দাবি, এর কারণ একদিকে, বিশ্ব বাজারে সোনার দাম বাড়ায় আমদানির খরচ বৃদ্ধি। অন্যদিকে, দেশে আমদানি শুল্ক ও জিএসটির চড়া হার। অর্থনীতিবিদদের আশঙ্কা, আগামী দিনে আমদানি আরও কমলে হলুদ ধাতু আরও দামি হতে পারে। সোনার দাম এতটা বাড়ায় মাথায় হাত গয়নার কারিগরদেরও। গয়নার চাহিদা কমেছে। এতটাই যে, তাঁদের বরাত প্রায় তলানিতে। কারিগরদের বাঁধা মাইনে নেই। প্রতিটি গয়না তৈরির জন্য মজুরি পান তাঁরা। ফলে কোপ পড়ছে অনেকের রুটি-রুজিতে। কোথায় যাবে দেশের আম জনতা? উত্তর নেই। অর্থনীতির আকাশে মন্দা ঘনাচ্ছে বলে তোপ দাগছেন বিরোধীরা। তবু সঙ্কটের কথা কবুল করেনি সরকার। তবে দফায় দফায় গাড়ি, ব্যাঙ্ক-সহ বিভিন্ন শিল্পকে চাঙ্গার পদক্ষেপ করে অর্থমন্ত্রী বুঝিয়ে দিচ্ছেন অবস্থা বেগতিক। আশ্বাস দিচ্ছেন সব সমস্যা সমাধানেরও। বিশেষজ্ঞদের দাবি, শুধু ভারত নয়, পুরো বিশ্বই ভুগছে আর্থিক অনটনে। ঘরে চাহিদার অভাব, বাইরে চীন-মার্কিন শুল্ক যুদ্ধ। ভারত ছাড়া, অন্যান্য দেশেও উৎপাদন শিল্পের গতি শ্লথ হওয়ার ইঙ্গিত মিলেছে বিভিন্ন সমীক্ষায়। ব্রেক্সিট নিয়ে অনিশ্চয়তা ও বিশ্ব অর্থনীতির গতি শ্লথ হওয়ায় গত সাত বছরে উৎপাদন শিল্প সবচেয়ে দ্রুত হারে সঙ্কোচনের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে ব্রিটেনে। উৎপাদন সরাসরি কমার ইঙ্গিত জার্মানিতে। বাণিজ্য-যুদ্ধের ধাক্কা লেগেছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের উৎপাদন শিল্পেও। অন্য একটি সমীক্ষা বলেছে, চীনে কারখানায় উৎপাদন কমার কথাও। তাহলে কি ফের বিশ্বমন্দার থাবায় গোটা দুনিয়া? আশঙ্কা বাড়ছেই।
09th  September, 2019
দূর থেকে দুর্গা দর্শন 

করোনা বদলে দিয়েছে জীবনের অনেক কিছুই। বদলে দিয়েছে বহু মানুষের পেশা। করমর্দন আলিঙ্গনের দিনও শেষ। বদলে হাতজোড় করে নমস্কার। জীবনমরণের সমস্যা যেখানে, সেখানে ইচ্ছায় হোক বা অনিচ্ছায় সতর্কীকরণের বিধিনিষেধ মানতেই হবে সকলকে। দেবীপক্ষের শুরুও হয়ে গেছে। মণ্ডপে মণ্ডপে দেবী আরাধনার জন্য প্রস্তুতিপর্ব তুঙ্গে। বিশদ

এবার কি রাষ্ট্রপতি শাসনের জুজু! 

 শাসক এবং বিরোধীদল, সকলেরই এখন পাখির চোখ বাংলার ভোট। তাই উৎসবের আবহে ভোটের জন্য জমি তৈরির কাজও শুরু করে দিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। শাসকদল তৃণমূল চাইছে ভোট ব্যাঙ্ক অক্ষত রেখে ফের ক্ষমতায় ফিরতে। আর বিরোধীরা, বিশেষত বিজেপি স্বপ্ন দেখছে বাংলা জয়ের। বিশদ

20th  October, 2020
‘সবকা’ নয়, ধনীদের বিকাশ 

ব্যক্তিগত অর্থ সম্পদে তাঁর নাকি বিন্দুমাত্র আসক্তি নেই। তিনি দেশবাসীর ‘সেবক’ হিসেবে নিজেকে প্রচারের আলোয় আনতে ভালোবাসেন। সেই তাঁর সরকারের ‘কল্যাণেই’ বিশ্ব ক্ষুধা সূচকের নিরিখে বাংলাদেশের চেয়েও নীচে নেমে গেল ভারত। ‘সবকা বিকাশ’ এমনই হল যে ধনী আরও ধনী হল। গরিব হল আরও গরিব। ‘আচ্ছে দিনের’ স্বপ্ন দেখানো প্রধানমন্ত্রী মোদির জমানায় ক্ষুধা সূচকে ১০৭টি দেশের মধ্যে ৯৪তম স্থানে ভারত।   বিশদ

19th  October, 2020
কোভিড নিয়ে রাজনীতি নয় 

তৃণমূল সরকারকে বেকায়দায় ফেলার মতো কোনও জুতসই ইস্যু বোধহয় এখন খুঁজে পাচ্ছে না বিরোধীরা। বিশেষত বিজেপি। সেভাবে তুলতে পারছে না অনুন্নয়নের অভিযোগ। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলার অবনতির অভিযোগে যে সরব হবে সে উপায়ও প্রায় নেই। কারণ এই অভিযোগ করলেই এসে পড়বে বিজেপি শাসিত রাজ্য উত্তরপ্রদেশের প্রসঙ্গ।  
বিশদ

18th  October, 2020
সুরক্ষাবিধি মেনে পুজো 

পুজোর বাদ্যি বেজে গেল। ভার্চুয়ালি পুজোর উদ্বোধন পর্ব শুরু। করোনা সংক্রমণ বাঁচিয়ে সতর্কতার সঙ্গে পুজো করার পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সব ধর্ম সব মত একাকার হয়ে সম্প্রীতির বাতাবরণ তৈরি হয় বাঙালির এই সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজোয়। 
বিশদ

17th  October, 2020
অপরাধীদের স্বর্গরাজ্য! 

কুর্সি দখলের লড়াইয়ে যে কোনও ভোটারের ভোটই সমান মূল্যবান। সেক্ষেত্রে ধনী-দরিদ্র বা উচ্চবর্ণ-দলিত বিচার করাটা মূর্খামি। দক্ষ রাজনীতিবিদরা ভোটের আগে তাই কাউকেই চটাতে চান না। সে পথেই এখন হাঁটতে চাইছে গেরুয়া শিবির।  
বিশদ

16th  October, 2020
বাংলা পথ দেখাল 

দেশে অভাবী মানুষের সংখ্যা নেহাত কম নয়। খুব বেশি আগের ঘটনা নয়। দিল্লিতে অনাহারে অপুষ্টিতে মা ও শিশুসন্তানের মৃত্যুর ঘটনায় দেশবাসী চমকে উঠেছিল সেদিন। যা দেশের লজ্জা, শাসকের ব্যর্থতা। প্রতিটি দেশবাসীকে খাদ্যের সংস্থান করে দেওয়ার দায়িত্ব সরকারের।  
বিশদ

15th  October, 2020
প্যাঁচের প্যাকেজ 

দেশের অর্থনীতির হাল বেহাল হলেও ভবি ভোলবার নয়। এবার উৎসব মরশুমে অর্থনীতি চাঙ্গা করার যে দাওয়াই দিল মোদি সরকার তাতে অর্থনীতির পুনরুজ্জীবন আদৌ ঘটবে কি না সন্দেহ। প্যাকেজের নামে শর্তাবলি চাপানো ফেস্টিভ্যাল অফারে দেশের অধিকাংশ মানুষের, বিশেষত গরিব মানুষের কোনও লাভ হল না।  
বিশদ

14th  October, 2020
ড্যামেজ কন্ট্রোলের কৌশল 

একদিকে দলিত মহিলা নির্যাতন, অন্যদিকে কৃষি আইন—এই জোড়া ফলায় বিদ্ধ কেন্দ্রের শাসক শিবির। বিহার ভোটের আগে তাদের একেবারে বেসামাল অবস্থা। তবে ‘হ্যাঁ’ কে ‘না’ এবং ‘না’ কে ‘হ্যাঁ’ করতে পটু দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিলক্ষণ জানেন, দলিত বঞ্চনার ইস্যু এবং দেশজুড়ে কৃষক আন্দোলনের প্রভাব পড়তে পারে আসন্ন বিহার ভোটে।  
বিশদ

13th  October, 2020
ভুল পথে ভারতীয় রেল 

ভারতীয় রেলের আয়ের ৭০ শতাংশই আসে পণ্য পরিবহণ মাশুল থেকে। তাই মালগাড়ি চলাচলের বিষয়টিতেই অগ্রাধিকার কাম্য ছিল। উল্টে এটাই এদেশে সবচেয়ে অবহেলিত। ভারতীয় রেলের যে নেটওয়ার্ক ক্যাপাসিটি তার মাত্র ৩৩ শতাংশ এই ক্ষেত্র ব্যবহার করতে পারে।
বিশদ

12th  October, 2020
মূল্যবৃদ্ধি: দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছে 

দুবেলা দু’মুঠো অন্ন জোগাতে না পেরে মাত্র চার হাজার টাকার বিনিময়ে কন্যাসন্তানকে বিক্রি করে দিতে বাধ্য হলেন বাবা-মা। এই ঘটনাটি কোনও গল্পকথা নয়, বাস্তব সত্য। ঘরে ঘরে এমন ঘটনা না ঘটলেও অপরিকল্পিত লকডাউন আর করোনা ক্লিস্ট অর্থনীতির ধাক্কায় বিপর্যয় নেমে এসেছে বহু পরিবারে।  
বিশদ

11th  October, 2020
পুজো: উৎসব এবং চ্যালেঞ্জ 

ভারতে করোনা কাঁপুনি ধরিয়েছিল গত মার্চেই। দ্বিধাগ্রস্ত সরকার কয়েক ঘণ্টার নোটিসে সারা দেশে লকডাউন ঘোষণা করেছিল ২৫ মার্চ থেকে। আধুনিক ভারতের ইতিহাসে অভূতপূর্ব ওই নিষেধাজ্ঞা মোট চার দফায় ৩১ মে পর্যন্ত বলবৎ ছিল। লকডাউনের সওয়া দু’মাসেই ভারতের অর্থনীতির নাভিশ্বাস উঠে যাওয়ার জোগাড় হয়।  
বিশদ

10th  October, 2020
হল্লা ছাপিয়ে কৃষক স্বার্থ 

নতুন কৃষি আইন নিয়ে দেশজুড়ে বিক্ষোভ চরমে। এই আইনকে সামনে রেখে কৃষক শ্রেণীর বন্ধনমুক্তির ফানুস উড়িয়ে চলেছে মোদি সরকার। অন্যদিকে বিরোধীদের স্পষ্ট অভিযোগ, বাস্তবে কৃষকদের কর্পোরেট গোষ্ঠীর অধীনে নিয়ে যাওয়ার পাকা বন্দোবস্ত করা হচ্ছে। আগামী দিনে কৃষকের নিজের ইচ্ছা বলে কিছু থাকবে না। বিশদ

09th  October, 2020
পাশে থাকার বার্তা 

বাম জমানায় জঙ্গলমহল ছিল মাওবাদীদের মুক্তাঞ্চল। সেখানকার অনুন্নয়ন আর দারিদ্রের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আস্তানা গেড়ে দাপিয়ে বেড়াত মাওবাদীরা। আতঙ্কে দিন কাটত জঙ্গলমহলবাসীর।  বিশদ

08th  October, 2020
জিএসটি: কেন্দ্রই ঋণ নিক 

পণ্য ও পরিষেবা কর। সংক্ষেপে জিএসটি। কখনওই রাজ্যগুলির ‘চয়েস’ ছিল না। ২০১৭ সালে মোদি সরকারই রাজ্যগুলির উপর চাপিয়ে দিয়েছিল। জিএসটি নিয়ে রাজ্যগুলির মূল আপত্তির কারণ ছিল—এই কর ব্যবস্থা চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অনেকগুলি কর আদায়ের অধিকার রাজ্যগুলিকে হারাতে হবে। তাতে আলমেটলি রাজ্যগুলির রাজস্ব আদায়ের হার কমে যাবে।   বিশদ

07th  October, 2020
অসৌজন্যের রাজনীতি 

পাহাড় আর জঙ্গলমহল। বেশ কয়েক বছর এই দু’টি জায়গাই ছিল অশান্ত। তখন পাহাড়ে জ্বলছিল আগুন। জঙ্গলমহলেও নিত্যনৈমিত্তিক খুনের ঘটনায় আতঙ্কে ছিলেন জঙ্গলমহলবাসী। এই দু’টি জায়গাতেই শান্তি ফেরানোর চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাহাড় হেসেছে, শান্তি ফিরেছে জঙ্গলমহলেও। এই কাজটি করা কিন্তু অত সহজ ছিল না। বিশদ

06th  October, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, জলপাইগুড়ি: মণ্ডপে মণ্ডপে গিয়ে নয়, এবার পুজো দেখা যাবে স্মার্ট মোবাইল ফোনেই। দরকার শুধু ইন্টারনেট সংযোগ। ভিড় এড়াতে জলপাইগুড়ি শহরের বেশ কয়েকটি বিগ বাজেটের বারোয়ারি পুজো কমিটি এবার এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।   ...

 দলের স্বার্থে যে কোনও পজিশনে ব্যাটিং করতে রাজি জস বাটলার। সোমবার আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে রাজস্থান রয়্যালসের জয়ের নায়ক বলেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট যেখানে চাইবে, ...

 কথায় আছে জিরে থেকে হীরে সব জিনিসই এক ছাতার তলায় পাওয়া যায় ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে। এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার সেই পথে হেঁটেই এক জানালা পরিষেবা দেবে বাংলা সহায়ক কেন্দ্রের মাধ্যমে। ...

 আজ, মহাপঞ্চমীতে কলকাতা ও শহরতলিতে বিদ্যুতের চাহিদা তুঙ্গে উঠবে বলে মনে করছে সিইএসসি। তাদের অনুমান, আজ বিদ্যুতের চাহিদা ছুঁতে পারে ১ হাজার ৭৮০ মেগাওয়াট। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যায় সাফল্য ও হতাশা দুই-ই বর্তমান, নতুন প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠবে। কর্মপ্রার্থীদের শুভ যোগ আছে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০৫: ত্রাফালগারের যুদ্ধে ভাইস অ্যাডমিরাল লর্ড নেলসনের নেতৃত্বে ব্রিটিশ নৌবাহিনীর কাছে পরাজিত হয় নেপোলিয়ানের বাহিনী
১৮৩৩: ডিনামাইট ও নোবেল পুরস্কারের প্রবর্তক সুইডিশ আলফ্রেড নোবেলের জন্ম
১৮৫৪: ক্রিমিয়ার যুদ্ধে পাঠানো হয় ফ্লোরেন্স নাইটেঙ্গলের নেতৃত্বে ৩৮ জন নার্সের একটি দল
১৯৩১: অভিনেতা শাম্মি কাপুরের জন্ম
১৯৪০: আর্নেস্ট হেমিংওয়ের প্রথম উপন্যাস ফর হুম দ্য বেল টোলস-এর প্রথম সংস্করণ প্রকাশিত হয়
১৯৪৩: সিঙ্গাপুরে আজাদ হিন্দ ফৌজ গঠন করলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু
১৯৬৭: ভিয়েতনামের যুদ্ধের প্রতিবাদে আমেরিকার ওয়াশিংটনে এক লক্ষ মানুষের বিক্ষোভ হয়
২০১২: পরিচালক ও প্রযোজক যশ চোপড়ার মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৫৪ টাকা ৭৪.২৫ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৪০ টাকা ৯৬.৭১ টাকা
ইউরো ৮৪.৮৭ টাকা ৮৮.০২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫১,৭৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৯,১০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৯,৮৪০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬২,৬৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬২,৭৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

 ৪ কার্তিক, ১৪২৭, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, পঞ্চমী ৮/৪২ দিবা ৯/৮। মূলানক্ষত্র ৪৮/৫৫ রাত্রি ১/১৩। সূর্যোদয় ৫/৩৯/২১, সূর্যাস্ত ৫/৩/১৭। অমৃতযোগ দিবা ৬/২৫ মধ্যে পুনঃ ৭/১০ গতে ৭/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১০/১৩ গতে ১২/৩০ মধ্যে। রাত্রি ৫/৫৪ গতে ৬/৪৫ মধ্যে পুনঃ ৮/২৫ গতে ৩/৯ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/২৫ গতে ৭/১০ মধ্যে পুনঃ ১/১৫ গতে ৩/৩২ মধ্যে। বারবেলা ৮/৩০ গতে ৯/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১১/২১ গতে ১২/৪৭ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩১ গতে ৪/৬ মধ্যে।
৪ কার্তিক, ১৪২৭, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, পঞ্চমী দিবা ২/৪৫। জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র দিবা ৮/২১। সূর্যোদয় ৫/৪০, সূর্যাস্ত ৫/৪। অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৩ মধ্যে ও ৭/১৮ গতে ৮/২ মধ্যে ও ১০/১৪ গতে ১২/২৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৬/৩৫ মধ্যে ও ৮/১৯ গতে ৩/১৪ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/৩৩ গতে ৭/১৮ মধ্যে ও ১/১১ গতে ৩/২৩ মধ্যে। কালবেলা ৮/৩১ গতে ৯/৫৭ মধ্যে ও ১১/২২ গতে ১২/৪৮ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩১ গতে ৪/৬ মধ্যে।
 ৩ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
দুর্গাপুজো: রায় আংশিক পরিবর্তন করে পুনর্বিবেচনার আর্জি খারিজ 
পুজোর মণ্ডপ দর্শকশূন্য রাখার রায়ই বহাল রাখল কলকাতা হাইকোর্ট। বুধবার ...বিশদ

01:31:50 PM

করোনা: আপনার জেলার হাল কী, জানুন...
রাজ্যে নতুন করে আরও ৪,০২৯ জনের শরীরে মিলেছে করোনা ভাইরাস। ...বিশদ

01:26:13 PM

মালদহে দুটি লরির মুখোমুখি সংঘর্ষ, জখম ২ চালক
মালদহের গাজোল ব্লকের আহড়া মোড়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে দুটি ...বিশদ

01:14:56 PM

জয়নগরে মহিলা খুনের কিনারা, ধৃত ৩ 
জয়নগরে মহিলার দ্বিখণ্ডিত দেহ উদ্ধারের ঘটনার কিনারা করল পুলিস। ঘটনায় ...বিশদ

11:35:36 AM

ওড়িশায় একটি জালনোটের কারখানার হদিশ, গ্রেপ্তার ২
ওড়িশার নয়াগড়ে একটি বাড়িতে জালনোটের কারখানার হদিশ মিলল। বুধবার এই ...বিশদ

11:35:26 AM

 পাকিস্তানে একটি চারতলা বাড়িতে বিস্ফোরণে মৃত ৩, আহত ১৫
পাকিস্তানে একটি চারতলা বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।আহত ...বিশদ

11:18:31 AM