Bartaman Patrika
দক্ষিণবঙ্গ
 

 পুরুলিয়া সদর হাসপাতালের মহিলা বিভাগের সামনে জল থইথই অবস্থা

 সংবাদদাতা, পুরুলিয়া: পুরুলিয়া দেবেন মাহাত সদর হাসপাতালের মহিলা শল্য বিভাগের সামনে প্রায় চারদিন ধরে জল থইথই করায় সমস্যায় পড়েছেন রোগী ও তাঁদের আত্মীয়রা। ওয়ার্ডের গেটের মুখেই ছাদ চুঁইয়ে অনবরত জল পড়ে যাচ্ছে। হাসপাতাল পরিষ্কারের সময় জল সরানোর পর সামান্য সময় ঠিক থাকলেও বিকেল গড়াতেই ওই এলাকায় আবার জল থইথই অবস্থা। যদিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, কোথাও ছাদ চুঁইয়ে কোনও জল পড়েনি এবং কোনও সমস্যাও নেই।
পুরুলিয়া সদর হাসপাতালের তিনতলায় রয়েছে মহিলা শল্য বিভাগ। লিফ্ট থেকে উঠেই বাঁদিকে থাকা ওই ওয়ার্ডে ঢোকার মুখে গেটের প্রায় পাঁচ ফুট এবং ওয়ার্ডের ভিত঩রেই পাঁচফুটের বেশি এলাকা জল থইথই অবস্থা। জমা জলের দুর্গন্ধে সমস্যায় পড়ছেন রোগী ও তাঁদের আত্মীয় থেকে স্বাস্থ্যকর্মীরা। দুমদুমি গ্রামের বাসিন্দা নিয়তি বাউরি বলেন, বেশ কয়েকদিন রোগীর সঙ্গে হাসপাতালে রয়েছি। চারদিনেরও বেশি সময় ধরে ওয়ার্ডে ঢোকার মুখেই ছাদ থেকে অনবরত জল পড়ে যাচ্ছে। ওয়ার্ডে ঢোকার ওই জায়গায় জল কাদায় ভর্তি। একাধিক রোগী ও রোগীর আত্মীয়ও ওই জলে পড়ে গিয়েছেন। কিন্তু, আমরা এসব কথা কাকে বলব বলুন। ওয়ার্ডের ভিতরে থাকা শৌচালয়ের অবস্থাও শোচনীয়। পুরুলিয়া শহরের নডিহা এলাকার বাসিন্দা গীতা কুণ্ডু বলেন, রোগীর সঙ্গে দু’দিন রয়েছি। আগে কেমন ছিল জানি না। তবে এসে থেকে দেখছি, জলে থইথই করছে। কোথা থেকে কীভাবে জল আসছে কিছুই জানি না।
ওই ওয়ার্ডেই ভর্তি বৈশাখী কুমারের স্বামী রাখহরি কুমার বলেন, সকাল থেকেই অনবরত জল ছাদ থেকে চুঁইয়ে পড়ছে। কখনও কম আবার কখনও বেশি। সকালে পরিষ্কার করার পর কিছুক্ষণ একটু ভালো থাকলেও পরে সেই একই অবস্থা। সাবধানে হাঁটাচলা করেও পড়ে যাচ্ছেন কেউ কেউ। ওয়ার্ডে ঢোকার মুখে একরম হওয়ায় রোগীকে নিয়ে যেতে গিয়েও সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। সেই সঙ্গে ওই জলের দুর্গন্ধে টেকা দায় হয়ে উঠছে।
ওই ওয়ার্ডের ভিতরে গেটের একবারে সামনের দিকে ভর্তি থাকা কল্যাণী কুমার বলেন, ওয়ার্ডে জল তো রয়েছেই। বেড থেকে নামলেই জলে নামতে হচ্ছে। একবারে চূড়ান্ত অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ।
আর এক রোগীর আত্মীয় ধনঞ্জয় মাহাত বলেন, এক আত্মীয় ভর্তি রয়েছেন। বৃষ্টি ছাড়া একরম জল জমে থাকতে দেখে চারতলায় গিয়েও বোঝার চেষ্টা করেছিলাম কোথা থেকে জল পড়ছে। স্পষ্টভাবে বুঝতে পারিনি। যেটুকু বুঝতে পারলাম চারতলার শৌচালয় থেকেই কোনওভাবে জল ছাদ চুঁইয়ে চুঁইয়ে পড়ছে তিনতলার ওয়ার্ডে। শল্য বিভাগে এভাবে রোগীদের একাংশকে থাকতে হচ্ছে। এতে তো আরও অসুস্থ হয়ে পড়বেন রোগীরা।
এবিষয়ে সদর হাসপাতালে কর্মরত নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক নার্স বলেন, শুধু ওয়ার্ডে নয়, ড্রেসিং রুমেও ছাদ চুঁইয়ে জল পড়ছে গত কয়েকদিন ধরে। কীভাবে ওয়ার্ডে ঢুকতে হয় তা কেউ না দেখলে বিশ্বাস করবেন না। তাছাড়া শৌচালয়ের নোংরা জলের উপর দিয়ে গিয়েই কাজ করতে হচ্ছে।
রোগীর আত্মীয়রা আরও জানান, ওই ওয়ার্ডের শৌচালয়ের অবস্থাও শোচনীয়। রোগীর আত্মীয়দের একাংশ শৌচালয়ে নোংরা আবর্জনা থেকে শুরু করে বাড়তি খাবার ফেলে দিয়ে আরও অস্বাস্থ্যকর করে ফেলেছে। সদর হাসপাতালের শৌচালয়গুলি দিনে একাধিকবার পরিষ্কার করা না হলে সমস্যা মেটানো সম্ভব নয়।
ওয়ার্ডের সামনে ছাদ চুঁইয়ে জল পড়ার বিষয়ে সদর হাসপাতালের কোয়ালিটি ম্যানেজার দেবদীপ মুখোপাধ্যায় বলেন, ওয়ার্ডের সামনে জল জমে থাকার বিষয়টি ঠিক নয়। কোনও ছাদ থেকে জল পড়ছে না। কয়েকদিন আগে একটা জায়গায় সমস্যা থাকলেও বর্তমানে কোথাও এরকম সমস্যা নেই।

12th  July, 2019
সিল করা হচ্ছে একের পর এক এলাকা
দুই বর্ধমানে করোনা সংক্রামিত আরও ১৬ 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান ও আসানসোল: দুই বর্ধমানে নতুন করে ১৬ জন করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন। এর মধ্যে বর্ধমান শহর সহ পূর্ব বর্ধমান জেলাতেই ১০ জন। তাঁদের মধ্যে ৯ জনই ভিন রাজ্য থেকে ফেরা পরিযায়ী শ্রমিক। প্রতিটি জায়গা সিল করে কন্টেইনমেন্ট জোন করা হয়েছে।  
বিশদ

জামুড়িয়ায় ছেলের হাতে খুন মা
 

নিজস্ব প্রতিনিধি, আসানসোল: জামুড়িয়া থানার পরাসিয়া মাঝিপাড়ায় মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতে খুন হল মা। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতার নাম সোনামণি টুডু(৪৫)।  
বিশদ

বরাকরে ফেসবুক লাইভে আত্মহত্যার চেষ্টা শিক্ষিকার

নিজস্ব প্রতিনিধি, আসানসোল: সোমবার বরাকরে ফেসবুকে লাইভ করে এক স্কুল শিক্ষিকার আত্মহত্যার চেষ্টা ঘিরে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আসানসোল পুরসভার বরাকরের দিশেরগড় রোড কলোনি এলাকার বিসিসিএল কোয়ার্টারে থাকা স্কুল শিক্ষিকা এদিন হঠাৎ ফেসবুক লাইভে আসেন এবং নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।  
বিশদ

সিল করা হচ্ছে একের পর এক এলাকা
দুই বর্ধমানে করোনা সংক্রামিত আরও ১৫ 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান ও আসানসোল: দুই বর্ধমানে নতুন করে ১৫ জন করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন। এর মধ্যে বর্ধমান শহর সহ পূর্ব বর্ধমান জেলাতেই ১০ জন। তাঁদের মধ্যে ৯ জনই ভিন রাজ্য থেকে ফেরা পরিযায়ী শ্রমিক। প্রতিটি জায়গা সিল করে কন্টেইনমেন্ট জোন করা হয়েছে। 
বিশদ

দুই মেদিনীপুরে চার পরিযায়ী
শ্রমিক সহ করোনা আক্রান্ত আরও ৫

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, তমলুক ও সংবাদদাতা, খড়্গপুর: দুই মেদিনীপুর জেলায় আরও পাঁচজন করোনা আক্রান্ত হলেন। এরমধ্যে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার চার পরিযায়ী শ্রমিক আছেন। বাকি একজন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাঁতন-২ ব্লকের জাহালদা গ্রামের বাসিন্দা। 
বিশদ

মেদিনীপুর সদরে দাপিয়ে বেড়াল হাতির পাল

নিজস্ব প্রতিনিধি, মেদিনীপুর: সোমবার মেদিনীপুর সদর ব্লকের মণিদহ, বেড়াপাল, এনায়েতপুর সহ একাধিক গ্রামে হাতির দল দাপিয়ে বেড়ায়। যদিও চাষিরা ধান কেটে নেওয়ার কারণে ফসলের খুব বেশি ক্ষতি হয়নি।  
বিশদ

দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে পালিত হল ঈদ 

নিজস্ব প্রতিনিধি, মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম: সোমবার দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম জেলাজুড়ে পালিত হল খুশির ঈদ। মেদিনীপুর শহরে অধিকাংশ মসজিদের ইমামদের এদিন মিষ্টির প্যাকেট আর ফুল দিয়ে পুলিস প্রশাসনের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানানো হয়।  
বিশদ

ফুলিয়ায় ভাগীরথীতে ডুবল নৌকা,
সাঁতরে প্রাণে বাঁচলেন দম্পতি সহ ৪জন 

সংবাদদাতা, রানাঘাট: রবিবার সন্ধ্যায় ফুলিয়ায় ধান সহ মাঝ নদীতে ডুবল ডিঙি নৌকা। সাঁতরে পাড়ে উঠে প্রাণে রক্ষা পেলেন দম্পতি সহ চারজন। উম-পুন ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত জমির ধান নিয়ে নৌকায় নদী পেরিয়ে নিয়ে আসার সময় মাঝ নদীতে দমকা হাওয়ায় ডুবে যায় নৌকা। 
বিশদ

তাজপুরে হোটেল খোলা নিয়ে উত্তেজনা, বিক্ষোভ 

সংবাদদাতা, কাঁথি: তাজপুরের সমুদ্রসৈকতে লকডাউনের বিধি অমান্য করে সোমবার একটি বেসরকারি হোটেল খোলাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায়। এদিন ওই হোটেলে পর্যটকরাও আসেন বলে অভিযোগ। বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় বাসিন্দারা এবং হোটেল মালিকদের একাংশ ওই হোটেলে গিয়ে বিক্ষোভ দেখান।  
বিশদ

ঝাড়গ্রামে মা-চিতাই শাবককে খেয়েছে,
জানাল চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ 

সংবাদদাতা, ঝাড়গ্রাম: মা-চিতাই তার শাবককে খেয়ে নিয়েছে। ঝাড়গ্রাম চিড়িয়াখানায় জন্মের ৪২ দিনের মাথাতেও চিতা শাবকের খোঁজ না মেলায় চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ এই দাবি করল।  
বিশদ

প্রশাসকের দায়িত্ব নিলেন না তাহেরপুর পুরসভার চেয়ারম্যান 

সংবাদদাতা, রানাঘাট: কমিটিতে তৃণমূলের দুই কাউন্সিলারকে রাখার প্রতিবাদে সোমবার সিপিএম পরিচালিত তাহেরপুর পুরসভার প্রশাসকের দায়িত্ব নিলেন না বিদায়ী চেয়ারম্যান। বিষয়টি নিয়ে নগরোন্নয়ন দপ্তরে চিঠি পাঠানোর কথা জানিয়েছেন বিদায়ী চেয়ারম্যান রতনরঞ্জন রায়।  
বিশদ

আউশগ্রামে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় আতঙ্ক 

সংবাদদাতা, গুসকরা: আউশগ্রামে একের পর এক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। আক্রান্তদের প্রায় সবার ক্ষেত্রেই ভিন রাজ্যেীর যোগ রয়েছে।  
বিশদ

উম-পুনের পাঁচদিন পরেও
হলদিয়ায় ব্যাঙ্ক ও এটিএমগুলিতে
লিঙ্ক নেই, টাকা তোলা যাচ্ছে না 

সংবাদদাতা, হলদিয়া: উম-পুনের পাঁচদিন পরেও হলদিয়া শিল্পশহরের ব্যাঙ্ক ও এটিএমগুলিতে লিঙ্ক না থাকায় টাকা তুলতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। ঝড়ে বিধ্বস্ত ঘরবাড়ি সারানোর সামগ্রী থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনাকাটার সময় মানুষজন সমস্যায় পড়ছেন। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি বিপাকে পড়েছেন ব্যবসায়ীরাও।
বিশদ

দেখতে যেন প্রাচীন সভ্যতার ধ্বংসাবশেষ
উম-পুনে ছাড়খার নন্দীগ্রাম, খেজুরি 

শ্রীকান্ত পড়্যা, তমলুক, সুপার সাইক্লোন উম-পুন আছড়ে পড়ার পর নন্দীগ্রাম ও খেজুরির চেহারাটাই বদলে গিয়েছে। ভেঙে পড়া সারি সারি গাছপালা, চতুর্দিকে বাড়ির ভাঙাচোরা কাঠামো, মাকড়শার জালের মতো ঝুলতে থাকা বিদ্যুতের তার, সবমিলিয়ে যেন প্রাচীন কোনও সভ্যতার ধ্বংসাবশেষ। 
বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাকপুর: সুপার সাইক্লোনের পাঁচ দিন পরেও বরানগর, কামারহাটি, পানিহাটির একাধিক ওয়ার্ড জলমগ্ন। পুরসভার কর্তারা জানাচ্ছেন, বাগজোলা খাল পরিপূর্ণ থাকায় বরানগর ও কামারহাটির ওয়ার্ডগুলি থেকে জল নামতে সময় লাগছে।  ...

লন্ডন, ২৫ মে: উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ইতিহাসে সর্বকালের সেরা কামব্যাক ম্যাচ কোনটি? ফুটবলপ্রেমীরা নির্দ্বিধায় ২০০৫ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের কথাই বলবেন। ২০০৫’এর ২৫ মে, ইস্তানবুলের ওলিম্পিক ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: হ্যাকারদের কাজে লাগিয়ে করোনা-ভ্যাকসিনের ফর্মুলা হাতাতে মরিয়া চীন। খোদ ইন্টারপোল এই তথ্য জানিয়েছে এদেশের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইকে। এটা জানার পরই সিবিআই সতর্ক করেছে এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরিতে নিয়োজিত গবেষণাগারগুলিকে।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪৯ জন আক্রান্ত হলেন নোভেল করোনায়। মারা গেলেন আরও ৬ জন। এর মধ্যে কলকাতার ৪ জন রয়েছেন এবং বাকিরা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

শরীর নিয়ে চিন্তায় থাকতে হবে। মাথা ও কোমরে সমস্যা হতে পারে। উপার্জন ভাগ্য শুভ নয়। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১২৯৩: জাপানে বিধ্বংসী ভূমিকম্পে মৃত্যু হয় ৩০ হাজার মানুষের
১৮৯৭: ব্রাম স্টোকারের উপন্যাস ড্রাকুলা প্রকাশিত হয়
১৯৪৫: মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিলাসরাও দেশমুখের জন্ম
১৯৪৯: মার্কিন কম্পিউটার প্রোগামিং বিশেষজ্ঞ ওয়ার্ড কানিংহামের জন্ম। তিনিই উইকিপিডিয়ার প্রথম সংস্করণ বের করেছিলেন
১৯৭৭: ইতালির ফুটবলার লুকা তোনির জন্ম



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৮৯ টাকা ৭৪.৮৯ টাকা
পাউন্ড ৯০.৮৮ টাকা ৯০.৮৮ টাকা
ইউরো ৯০.৮৮ টাকা ৮৪.৩৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
23rd  May, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৫ মে ২০২০, সোমবার, তৃতীয়া ৫০/৫৪ রাত্রি ১/১৯। মৃগশিরানক্ষত্র ৩/২ প্রাতঃ ৬/১০। সূর্যোদয় ৪/৫৬/৫৮, সূর্যাস্ত ৬/১০/৮। অমৃতযোগ দিবা ৮/২৮ গতে ১০/১৪ মধ্যে। রাত্রি ৯/২ গতে ১১/৫৫ মধ্যে পুনঃ ১/২১ গতে ২/৪৭ মধ্যে। বারবেলা ৬/৩৬ গতে ৮/১৫ মধ্যে পুনঃ ২/৫২ গতে ৪/৩২ মধ্যে । কালরাত্রি ১০/১২ গতে ১১/৩৩ মধ্যে।  
১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৫ মে ২০২০, সোমবার, তৃতীয়া রাত্রি ১২/০। মৃগশিরানক্ষত্র প্রাতঃ৫/৩৩। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১২। অমৃতযোগ দিবা ৮/৩০গতে ১০/১৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৮ গতে ১১/৫৮ মধ্যে ও ১/২২ গতে ২/৫০ মধ্যে। কালবেলা ৬/৩৬ গতে ৮/১৫ মধ্যে ও ২/৫৩ গতে ৪/৩৩ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/১৪ গতে ১১/৩৪ মধ্যে।  
১ শওয়াল 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কাস্টমার সার্ভিসে আমাদের সুনাম রয়েছে: সিইএসসি 

04:46:27 PM

যে কোনও দুর্যোগেই সমন্বয় রেখে কাজ করতে হয়: সিইএসসি 

04:44:16 PM

আজ মালদহ, মুর্শিদাবাদ, বীরভূমে বৃষ্টির সম্ভাবনা 

04:44:00 PM

পুরসভার সঙ্গে সমন্বয়ের সমস্যা নেই: সিইএসসি 

04:43:40 PM

প্রায় ১৫০টি টিম কাজ করছে: সিইএসসি 

04:41:27 PM

বেহালা, সার্ভে পার্কে কাজ চলছে: সিইএসসি 

04:38:08 PM