Bartaman Patrika
বিদেশ
 

আর্জেন্টিনায় সরকার বদল

মৃণালকান্তি দাস : তীব্র অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্য দিয়ে চলা মেসি–মারাদোনার দেশ আর্জেন্টিনা পেল নতুন প্রেসিডেন্ট। বর্তমান বিরোধীদলীয় মধ্য-বামপন্থী নেতা আলবার্তো ফার্নান্দেজ প্রয়োজনের চেয়ে ৪৫ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হন। হেরে গিয়েছেন ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল প্রেসিডেন্ট মাউরিসিও মাক্রি। আর্জেন্টিনার আইন অনুযায়ী, কোনও প্রার্থী যদি ৪৫ শতাংশ ভোট পান কিংবা ৪০ শতাংশ ভোট ও তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ১০ শতাংশ ভোটে এগিয়ে থাকেন তবেই তিনি সরাসরি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবেন। নাহলে নিকটতম দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্য থেকে একজনকে বেছে নিতে ফের ভোটাভুটি হবে। রবিবার রাতে ৯০ শতাংশ ভোট গণনার পর দেখা যায়, ফার্নান্দেজ ৪৭.৭৯ শতাংশ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন আর মাক্রি পেয়েছেন ৪০.৭১ শতাংশ ভোট।
এবারের নির্বাচনের মূল লড়াইটি হয়েছে অর্থনৈতিক সংস্কারের জন্য প্রস্তাবিত দু’টি নীতির মধ্যে। একটি দরিদ্রবান্ধব পেরোনিস্ট নীতি, প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিনা ফার্নান্দেজ ডি কির্চনারকে রানিং-মেট হিসেবে নিয়ে যার নেতৃত্বে আলবার্তো ফার্নান্দেজ। আর অন্য পক্ষে ব্যবসায়ীবান্ধব মুক্তবাজার নীতি নিয়ে ছিলেন ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট মরিসিও মাক্রি। বিশ্বখ্যাত নাচ ‘ট্যাঙ্গো’র জন্মভূমি এই সেই আর্জেন্টিনা। গত শতকের একই সময়ে যে দেশ ছিল বিশ্বের প্রথম দশ অর্থনৈতিক শক্তির একটি, সে দেশের অর্থনীতিই এখন তলানিতে। গত দুই দশক ধরে এই ফুটবল ও ট্যাঙ্গোর দেশেই অর্থনীতিতে চরম অস্থিরতা বিরাজ করছে, যা ২০০১ সালে মাত্র ১০ দিনে পাঁচজন প্রেসিডেন্ট উপহার দিয়েছিল আর্জেন্টিনাকে।
শুরু থেকেই এবারের নির্বাচনে এগিয়ে ছিল পেরোনিস্টরাই। এই পেরোনিস্ট আবার কী? এও এক রাজনৈতিক তত্ত্ব, যা একান্তই আর্জেন্টাইন। হুয়ান ডোমিঙ্গো পেরোনকে মনে আছে? প্রাক্তন এই জেনারেল ১৯৪৬ সালে আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। তিনি ও তাঁর স্ত্রী ইভা পেরোন ভীষণ জনপ্রিয় ছিলেন মানুষের মধ্যে। পরপর দুই মেয়াদে নির্বাচিত হন পেরোন। ১৯৫৫ সালে অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে ক্ষমতা হারানোর আগে পর্যন্ত টানা ন’বছর প্রেসিডেন্ট ছিলেন। পরে ১৯৭৩ সালে আবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। তিনবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত এই হুয়ান ডোমিঙ্গো পেরোনের নির্দেশিত রাজনৈতিক পথই মূলত পেরোনিজম নামে পরিচিত। যা পুঁজিতন্ত্র ও সমাজতন্ত্র থেকে সমান দূরত্ব রেখে চলার নীতি অনুসরণ করে। বুঝতে সমস্যা হয় না যে, স্নায়ুযুদ্ধের সময় ধীরে ধীরে আকার পাওয়া এই পথ মূলত সবদিকে ভারসাম্য রেখে চলার নীতি অনুসরণ করেছিল।
পেরোনিজমের কথা আসছে, কারণ এবারের নির্বাচনে এই পেরোনিজমের পুনরুত্থানের ঘটনাই ঘটেছে। বুয়েন্স আইরেসের ত্রেস ডি ফেব্রেরো এলাকায় গেলে অন্তত তেমনটাই মনে হবে। যে এলাকার নামের সঙ্গে জড়িয়ে আছে একটি যুদ্ধ। ১৮৫২ সালের দিকে এই জায়গাতেই হয়েছিল এক যুদ্ধ, যার বিজয়ী জেনারেল জাস্তো হোসে উরকুইজা পরে আর্জেন্টিনার ফেডারেল সংবিধান অনুমোদন করেন। আর্জেন্টিনার ভাগ্য নির্ধারণে এই অঞ্চলের গুরুত্ব এখনও অনেক। কারণ, বলা হয় কোনও নির্বাচনে এই অঞ্চল থেকে যিনি বিজয়ী হন, তিনি জাতীয় নির্বাচনেও বিজয়ী হন। আর এবার এই অঞ্চলের ভোটারদের অধিকাংশের মধ্যে বর্তমান প্রেসিডেন্ট মরিসিও মাক্রির প্রতি ক্ষোভ দেখা গিয়েছিল। প্রতিশ্রুতি মতো অর্থনৈতিক সংস্কারে ব্যর্থতাই এই বিরাগের কারণ। আর এই ব্যর্থতাকেই নিজের প্রচারের মুখ্য অস্ত্র করেছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী আলবার্তো ফার্নান্দেজ, যিনি একজন পেরোনিস্ট।
২০১৫ সালে ত্রেস ডি ফেব্রেরোর ভোটাররা মাক্রিকে ভোট দিয়েছিলেন, যার মাধ্যমে তিনি আর্জেন্টিনাকে ১৪ বছরের পেরোনিস্ট শাসন থেকে বের করে নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু তিনি তাঁর দেশকে অর্থনৈতিক সঙ্কট থেকে বের করতে পারেননি। যে পুনর্গঠনের প্রতিশ্রুতি তিনি দিয়েছিলেন, তা ব্যর্থ হয়েছে পুরোপুরি। ব্রিটিশ সাময়িকী দ্য ইকোনমিস্ট জানাচ্ছে, আর্জেন্টিনার অর্থনীতি এক অনিঃশেষ মন্দার মধ্য দিয়ে চলছে। দেশটিতে মুদ্রাস্ফীতির হার ৫০ শতাংশের বেশি। অবস্থা এতটাই সঙ্গীন যে, আইএমএফ-এর কাছ থেকে আর্জেন্টিনাকে ৫ হাজার ৭০০ কোটি ডলারের অনুদান নিতে হয়েছে। দেশে বর্তমানে দারিদ্র্যের হার ৩৫.৪ শতাংশ, যা গত এক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ।
এই অবস্থায় আর্জেন্টিনার ভোটাররা আবারও পেরোনিজমের দিকেই ঝুঁকতে বাধ্য হয়েছে। শুধু ত্রেস ডি ফেব্রেরো নয়, পুরো আর্জেন্টিনাতেই পেরোনিস্টরাই এগিয়ে।
পেরোনিস্টদের উত্থানে মূলত শঙ্কায় পড়েছে আর্জেন্টিনার আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও মধ্যবিত্তরা। তাদের ভয় আলবার্তোকে নিয়ে নয়, বরং তাঁর রানিংমেট ক্রিস্টিনা ডি কির্চনারকে নিয়ে। যিনি মাক্রির আগে আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট ছিলেন। ক্রিস্টিনাকেই মূলত আর্জেন্টিনার বর্তমান অর্থনৈতিক দৈন্যের কারণ হিসেবে দেখা হয়। আট বছর প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন তিনি দেশের কল্যাণ মূলক কাজের পরিসর ভীষণভাবে বাড়িয়েছিলেন। বাড়িয়েছিলেন ভর্তুকি ও সরকারি চাকরির পরিসর। সরকারি ব্যয় বৃদ্ধির বিপরীতে তিনি আয়ের পথ সন্ধান দিতে পারেননি। ফলে দীর্ঘ মেয়াদে দেশটি এক ভয়াবহ সঙ্কটের আবর্তে পড়ে। ক্রিস্টিনা যখন মাক্রির কাছে ক্ষমতা ছাড়েন, তখন আর্জেন্টিনার উচ্চ মুদ্রাস্ফীতি ও মোট জিডিপি প্রায় ৬ শতাংশ ঘাটতি নিয়ে ধুঁকে ধুঁকে চলছে। এই দুর্গতি থেকে উদ্ধার করতে না পারাতেই এখন আবার মাক্রির উপর ক্ষুব্ধ হয়ে পেরোনিস্ট ধারার দিকে ঝুঁকেছে দেশটি। তাছাড়া ক্রিস্টিনা ফার্নান্দেজের বিরুদ্ধে ছ’টি দুর্নীতি মামলা চলছে। কিন্তু সিনেটর হওয়ার কারণে তাঁকে জেলে থাকতে হয়নি। ফলে মানুষের মধ্যে এই ধারণা স্বাভাবিক যে, ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে তিনি রেহাই পেয়ে যাবেন।
ক্রিস্টিনা ফার্নান্দেজ নিজে একজন পেরোনিস্ট হলেও তাঁর মূল ঝোঁক অতি বামপন্থার দিকে। আর এটিকেই তাঁর ব্যর্থতার মূল কারণ হিসেবে দেখেন তাঁর সমালোচকেরা। আর্থিক ক্ষেত্রের উপর তাঁর নিয়ন্ত্রণ আরোপের প্রবণতাকে সবচেয়ে বেশি সমালোচনার দৃষ্টিতে দেখা হয়। ক্রিস্টিনার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে লা ক্যাম্পোরার, যা আর্জেন্টিনার সবচেয়ে শক্তিশালী বামপন্থী সংগঠন। এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা আবার তাঁরই ছেলে ম্যাক্সিমো কির্চনার। আলবার্তোর সমর্থকদের মধ্যে যতটা সংশয় ছিল, তা এই ক্রিস্টিনার কারণেই। অনেকেই মনে করছেন, আলবার্তোকে সামনে রেখে ক্রিস্টিনাই আসলে শাসকের চেয়ারটিতে বসলেন। আলবার্তো ফার্নান্দেজের সামনে এখন নিজের পরিচয়টি তুলে ধরাই এক বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি একদিকে মাক্রির ‘নয়া–উদারবাদি’ পথের সমালোচনা করছেন, অন্যদিকে ‘নিজে ক্রিস্টিনার মতো নন’—এ কথাও তাঁকে বলতে হয়েছে। তিনি মূলত ঐক্যের ডাক দিচ্ছেন। নিজেদের জোটের নামও দিয়েছেন ফ্রেন্টে ডি টোডোস (ফ্রন্ট ফর অল)। এ ক্ষেত্রে অবশ্য তাঁর ‘লড়াই নয়, আলোচনায় বিশ্বাসী’ ভাবমূর্তিটি কিছুটা সহায় হয়েছে।
আলবার্তো ফার্নান্দেজ প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আর্জেন্টিনার অর্থনীতিকে তিনি সবল করবেন। বলেছেন, তিনি ব্যর্থ হবেন না। কিন্তু তারপরও সংশয় কাটছে না। কারণ, এই ভোটের দিনই দেখা মিলেছে মার্টিনের মতো ব্যক্তিদের, যারা নগদ অর্থ নিয়ে ছুটছেন ডলারে বদলে নেবেন বলে। ৫০ বছর বয়সি চলচ্চিত্র নির্মাতা মার্টিনের সোজা কথা, তিনি ফার্নান্দেজকে বিশ্বাস করেন না। শুধু মার্টিন নন, এএফপি জানাচ্ছে, প্রাথমিক নির্বাচনে আলবার্তো ফার্নান্দেজ বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে প্রার্থী হওয়ার পরপরই আর্জেন্টাইনরা নিজেদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে অন্তত ১ হাজার ২০০ কোটি ডলার তুলে নিয়েছেন। ফলে নিঃসন্দেহে নয়া প্রেসিডেন্টের সামনে এক কঠিন সময় অপেক্ষা করছে। মেসি–মারাদোনার দেশের ভবিষ্যৎ কোন পথে, কেউ জানে না। 

05th  November, 2019
করোনা প্রতিরোধে ব্যর্থতা মানল সুইডেন,
ইউরোপের জন্য সীমান্ত খুলছে জার্মানি

 নয়াদিল্লি, ৩ জুন: মহামারী রুখতে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ যেখানে কঠোর লকডাউনের নীতি মেনে চলেছে, সেখানে সুইডেন প্রথম থেকেই ব্যতিক্রমী ছিল। যদিও সরকারের সেই সিদ্ধান্ত যে ভুল ছিল, তা কার্যত মেনে নিলেন সুইডেনের মুখ্য মহামারী বিশারদ অ্যান্ডার্স টেগনেল।
বিশদ

বিতর্ক উস্কে সস্ত্রীক ট্রাম্পের গির্জা সফর,
প্রতিবাদ মিছিলে জর্জ ফ্লয়েডের পরিবার

ওয়াশিংটন ও ভাটিকান, ৩ মে: বর্ণবৈষম্য একটি পাপ। তবে সহিংস বিক্ষোভও ঠিক নয়। অবশেষে আমেরিকার অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খুললেন পোপ ফ্রান্সিস। বুধবার তিনি বলেছেন,‘ বর্ণবৈষম্য ভুলে আমেরিকা দ্রুত স্বাভাবিক হোক।
বিশদ

বিক্ষোভকারীদের বাড়িতে আশ্রয়
দিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত

নয়াদিল্লি, ৩ জুন: বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ওয়াশিংটনে প্রতিবাদীদের পাশে দাঁড়ালেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত রাহুল দুবে। ৭০ জন বিক্ষোভকারীকে পুলিসের ছোঁড়া কাঁদানে গ্যাসের শেল আর পিপার স্প্রে থেকে বাঁচাতে তিনি বাড়িতে আশ্রয় দেন।
বিশদ

জি-৭ সম্মেলনে ভারত সহ
৪ দেশকে আমন্ত্রণ, ক্ষুব্ধ চীন

 বেজিং ও ওয়াশিংটন, ৩ জুন: চীনের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে জি-৭ বৈঠকে ভারতকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুধু ভারত নয়, রাশিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়াকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ওয়াশিংটন। যা নিয়ে রীতিমতো ক্ষুব্ধ চীন।
বিশদ

 ব্রিটেনে ‘বিএএম‌ই’ সম্প্রদায়ের মধ্যেই
করোনার ঝুঁকি বেশি, বলল পিএইচ‌ই

 রূপঞ্জনা দত্ত, লন্ডন, ৩ জুন: করোনায় মৃত্যু এবং আক্রান্তের নিরিখে ব্রিটেনে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন ব্ল্যাক অ্যান্ড এথনিক মাইনরিটি (বিএএম‌ই) গোষ্ঠীর মানুষ। এ ব্যাপারে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড (পিএইচ‌ই)।
বিশদ

 সেনা নামিয়ে বিক্ষোভ
‘ঠান্ডা’ করার হুমকি ট্রাম্পের
প্রতিবাদ সত্য নাদেলা, ইন্দ্রা নুয়ি, জর্জ ক্লুনির

ওয়াশিংটন, ২ জুন: ‘আমার দম বন্ধ হয়ে আসছে’। ‘কৃষ্ণাঙ্গদের জীবনও মূল্যবান’। জোড়া স্লোগানে বিক্ষোভ অব্যাহত আমেরিকায়। হোয়াইট হাউসের দোরগোড়ায় বিক্ষোভ চলে আসায় বাঙ্কারে আশ্রয় নিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। 
বিশদ

03rd  June, 2020
চীনা আগ্রাসনের বিরুদ্ধে
ভারতের পাশে আমেরিকা
মোদি-ট্রাম্প কথা

সমৃদ্ধ দত্ত, নয়াদিল্লি, ২ জুন: চীনকে সতর্ক করে ভারতের পাশে থাকার স্পষ্ট বার্তা দিল আমেরিকা। মঙ্গলবার রাতেই হটলাইনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর জানিয়েছে, ভারত-চীন সীমান্ত সমস্যা নিয়ে তাঁদের মধ্যে আলোচনা হয়। 
বিশদ

03rd  June, 2020
দক্ষিণ ও মধ্য আমেরিকায় বাড়তে
পারে করোনা, সতর্কবার্তা দিল হু

নয়াদিল্লি, ২ জুন: করোনা ভাইরাসে ফের মৃত্যু চীনে। এবার এই মারণ ভাইরাসের বলি হলেন উহানের চিকিৎসক হু ওয়েফেং। যে চিকিৎসক করোনা নিয়ে সবার আগে গোটা বিশ্বকে সতর্ক করেছিলেন সেই লি ওয়েনলিয়াংয়ের সহকারী ছিলেন উহান সেন্ট্রাল হাসপাতালের ইউরোলজিস্ট ওয়েফেং।
বিশদ

03rd  June, 2020
শ্বাসরোধেই মৃত্যু ফ্লয়েডের,
রিপোর্ট পারিবারিক অটপ্সিতে

মিনিয়াপোলিস, ২ জুন (এপি): জর্জ ফ্লয়েডকে কাবু করতে হাঁটু দিয়ে চেপে ধরেছিলেন মিনিয়াপোলিসের শ্বেতাঙ্গ পুলিস আধিকারিক। তাতেই কৃষ্ণাঙ্গ ওই যুবকের মাথায় রক্ত সঞ্চালন সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়। ওই পুলিসকর্মীর হাঁটুর চাপে তাঁর শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল।
বিশদ

03rd  June, 2020
মাস্ক ও চোখের নিরাপত্তা নিয়ে
সতর্কবাণী কানাডার গবেষকদের

টরেন্টো, ২ জুন (পিটিআই): সংক্রমণ রুখতে মাস্ক ও চোখের নিরাপত্তার উপর জোর দিলেন কানাডার গবেষকরা। ‘দি ল্যানসেট’ মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণাপত্রে গবেষকরা দাবি করেছেন, দু’জনের মধ্যে অন্তত দু’মিটার বা তারও বেশি দূরত্ব বজায় থাকলে সংক্রমণ এড়ানো যেতে পারে।
বিশদ

03rd  June, 2020
রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে নির্বাচন ১৭ই

রাষ্ট্রসঙ্ঘ, ২ জুন (পিটিআই): রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচটি অস্থায়ী সদস্য পদের জন্য আগামী ১৭ জুন ভোট গ্রহণ করা হবে। সোমবার এই ভোটাভুটির দিনক্ষণ ঘোষণা করা হয়েছে।
বিশদ

03rd  June, 2020
আক্রান্ত বাড়লেও রাশিয়ায় শিথিল লকডাউন
অচলাবস্থা কাটিয়ে স্বাভাবিক
হওয়ার পথে একাধিক দেশ

নয়াদিল্লি, ১ জুন: করোনার প্রকোপে ধুঁকছে সাম্বার দেশ ব্রাজিল। প্রথম স্থানাধিকারী আমেরিকার পর আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে লাতিন আমেরিকার দেশটি। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১৬ হাজার ৪০৯ জনের শরীরে সংক্রমণের অস্তিত্ব মেলায় সে দেশের মোট আক্রান্ত বেড়ে হয়েছে ৫ লক্ষ ১৪ হাজার ৮৪৯।
বিশদ

02nd  June, 2020
 সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে তৈরি
হল শিং বিশিষ্ট টুপি, ইয়াবড় জুতো

ট্রান্সেলভেনিয়া (রোমানিয়া) ও প্যারিস, ১ জুন: কোভিডকে ঠান্ডা করতে কতই না চেষ্টা! লকডাউন, সমাজিক দূরত্ববিধি, মুখে মাস্ক, হাতে স্যানিটাইজার‑আরও কতকিছু! অন্তত, টিকা আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত এই রকম কত শত চেষ্টা যে চলবে তার কোনও ইয়ত্তা নেই।
বিশদ

02nd  June, 2020
আমেরিকা জ্বলছেই, স্ত্রী ও পুত্রকে
নিয়ে আন্ডারগ্রাউন্ড বাঙ্কারে ট্রাম্প

ওয়াশিংটন, ১ জুন: শ্বেতাঙ্গ পুলিসের অত্যাচারে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ঘটনায় বিক্ষোভের আগুন অব্যাহত। রণক্ষেত্র গোটা আমেরিকা। প্রতিবাদের ঝড় আছড়ে পড়ল হোয়াইট হাউসের সামনেও। অশান্তির সূত্রপাত হোয়াইট হাউসের পাশের একটি পার্কে।
বিশদ

02nd  June, 2020

Pages: 12345

একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনায় মৃত্যুহারে দেশে শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে গুজরাত। কেন্দ্রীয় সরকারের এই তথ্য সামনে আসার পর ওয়াকিবহাল মহলের বক্তব্য, এটা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচকদের জন্য যোগ্য জবাব। রবিবার রাজ্যে মোট কোভিড পরীক্ষা দু’লক্ষ পার করেছে। ...

  রেকর্ড প্রোডিউসার কোম্পানি সারেগামা ও ফেসবুকের মধ্যে এক অভিনব চুক্তি স্বাক্ষরিত হল। ফলে এবার থেকে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে সারেগামার সমস্ত গান নেটিজেনরা ব্যবহার করতে পারবেন। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ৩ জুন: ট্রেনের সাধারণ কোচকে করোনার কোয়ারেন্টাইনের কাজে ব্যবহার করার বিষয়টিকে ‘গিমিক’ বলেই তোপ দাগল তৃণমূল। শ্রমিক স্পেশালে ৮০ জন পরিযায়ী শ্রমিকের বেঘোরে প্রাণ হারানো নিয়েও মোদি-শাহকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন দলের জাতীয় মুখপাত্র তথা রাজ্যসভায় তৃণমূলের নেতা ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, আরামবাগ: করোনা নিয়ে গুজব ও আতঙ্ক ঠেকাতে আরামবাগের ২৬ জন কোভিড-১৯ জয়ীকে নিয়ে ‘করোনা সচেতনতা টিম’ গড়ল প্রশাসন। টিমে থাকবেন একজন করে করোনা জয়ী, ভিলেজ পুলিস, আশাকর্মী ও পঞ্চায়েত সদস্য। মহকুমার গ্রামেগঞ্জে গিয়ে ওই টিম প্রচার চালাবে।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের উচ্চবিদ্যার ক্ষেত্রে মধ্যম ফল আশা করা যায়, প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার ক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। ব্যবসাতে যুক্ত ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃতের রচনাকার মহেন্দ্রনাথ গুপ্তের (শ্রীম) মৃত্যু
১৯৩৬: অভিনেত্রী নূতনের জন্ম
১৯৫৯: শিল্পপতি অনিল আম্বানির জন্ম
১৯৭৪: অভিনেতা অহীন্দ্র চৌধুরির মৃত্যু
১৯৭৫ - মার্কিন অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির জন্ম
১৯৮৫: জার্মান ফুটবলার লুকাস পোডোলোস্কির জন্ম



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.২৯ টাকা ৭৬.০১ টাকা
পাউন্ড ৯২.৯৪ টাকা ৯৬.২৩ টাকা
ইউরো ৮২.৬৮ টাকা ৮৫.৭৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৪ জুন ২০২০, বৃহস্পতিবার, ত্রয়োদশী ২/৫৮ প্রাতঃ ৬/৭ পরে চর্তুদশী ৫৫/৫২ রাত্রি ৩/১৬। বিশাখা নক্ষত্র ৩৪/১৩ রাত্রি ৬/৩৭। সূর্যোদয় ৪/৫৫/১৬, সূর্যাস্ত ৬/১৪/৯। অমৃতযোগ দিবা ৩/৩৪ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৬/৫৭ গতে ৯/৫ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৬ গতে ২/৪ মধ্যে পুনঃ ৩/২৯ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ২/৫৪ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৩৫ গতে ১২/৫৫ মধ্যে।
২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৪ জুন ২০২০, বৃহস্পতিবার, ত্রয়োদশী প্রাতঃ ৫/১ পরে চর্তুদশী রাত্রি ২/৫৩। বিশাখানক্ষত্র সন্ধ্যা ৬/২২। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৬। অমৃতযোগ দিবা ৩/৪১ গতে ৬/১৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৫ গতে ৯/১১ মধ্যে ও ১২/০ গতে ২/৬ মধ্যে ও ৩/৩০ গতে ৪/৫৬ মধ্যে। কালবেলা ২/৫৬ গতে ৬/১৬ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৩৬ গতে ১২/৫৬ মধ্যে।
১১ শওয়াল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজ্যে করোনায় মৃত্যু ২৮৩
রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৬৮ জনের শরীরে মিলল করোনা ...বিশদ

07:02:37 PM

তামিলনাড়ুতে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১,৩৭৩, মৃত ১২ 
তামিলনাড়ুতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১,৩৭৩ জন। মৃত্যু ...বিশদ

07:01:52 PM

কর্ণাটকে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২৫৭, মৃত ৪ 
কর্ণাটকে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু ...বিশদ

06:51:26 PM

বাংলাদেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২,৪২৩, মৃত ৩৫
গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ২,৪২৩ জন। ফলে ...বিশদ

06:04:57 PM

নেপালে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৩৩৪ 
গত ২৪ ঘণ্টায় নেপালে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩৩৪ জন। এখন ...বিশদ

05:53:17 PM

তবলিগি যোগ: ৩১৬০ জন বিদেশির ভারতে প্রবেশ নিষিদ্ধ
৩১৬০ জন বিদেশি নাগরিককে ভারতে প্রবেশ নিষিদ্ধ করল কেন্দ্র। তবলিগি ...বিশদ

05:29:00 PM