Bartaman Patrika
বিদেশ
 

র‌্যাচেল কার্সনের ‘নীরব বসন্ত’ 
মৃণালকান্তি দাস

কৃষিপণ্য, রাসায়নিক সার এবং কীটনাশক প্রস্তুতকারী সংস্থা মনসান্টোর বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরেই ‘বিষ’ ছড়ানোর অভিযোগ উঠছিল। গত বছর এই আগস্টেই এক মামলায় মার্কিন বহুজাতিক সংস্থাটিকে ৩০ কোটি ডলারের ক্ষতিপূরণ দিতে বলেছিল সান ফ্রান্সিসকোর আদালত। শুনলে অবাক হবেন, ওই বিরাট সংস্থাটির বিরুদ্ধে মামলাটি করেছিলেন ডেয়ন জনসন নামে ক্যালিফোর্নিয়ার এক বাগানের মালি। অতি সাধারণ এক মার্কিন নাগরিক। ২০১৪ সালে ক্যান্সার ধরা পড়ে জনসনের। নন-হজকিন্স লিম্ফোমা। মামলার নথিতে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে, বেনিসিয়া স্কুলে আগাছানাশক হিসেবে মনসান্টোর তৈরি ‘রাউন্ডআপ’ ব্যবহার করতেন জনসন। এতে গ্লাইফোসেট নামে যে উপাদানটি রয়েছে তা থেকেই ক্যান্সার ছড়িয়েছে বলে অভিযোগ জনসনের আইনজীবীর। গ্লাইফোসেট নিয়ে মার্কিন মুলুকে এটাই প্রথম মামলা বলেও জানান তিনি। হ্যাঁ, এটাই আমেরিকা। যে দেশে নাগরিকরা জানেন, পরিবেশের ক্ষতি কোনওভাবেই রেয়াত করে না রাষ্ট্র। আর তাই মনসান্টোর মতো বহুজাতিক সংস্থাও মার্কিন আইন ব্যবস্থার হাত থেকে ছাড় পায় না।
এই কীটনাশক নিয়ে মার্কিন মুলুকে রয়েছে অন্য এক গল্প। মার্কিন নাগরিকদের পরিবেশ চেতনা জাগরণের গল্প। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর আমেরিকায় কীটনাশক শিল্পের ব্যাপক প্রসার ঘটে। কৃষিজমির ক্ষতিকর কীটপতঙ্গ বিনাশে এবং মানুষের জীবনযাপনে স্বাচ্ছন্দ্য দেওয়ার জন্য মশা-মাছির উপদ্রব কমাতে গোটা আমেরিকা জুড়ে রাসায়নিক কীটনাশকের ব্যবহার বৃদ্ধি পায়। কিন্তু, তখনও এই কীটনাশকের ক্ষতিকারক প্রভাব সম্পর্কে কারও কোনও ধারণা ছিল না। এমনই এক সময়ে ম্যাসাচুসেটসের ডাকসবেরি অঞ্চলের পোকামাকড় ও মশা নিধন করতে কর্তৃপক্ষ ডিডিটি নামে একধরনের কীটনাশক ছোট বিমানের সাহায্যে শহর জুড়ে স্প্রে করতে শুরু করে। শহরবাসীদের এ নিয়ে তেমন কোনও মাথাব্যথা ছিল না। কিন্তু, এই ঘটনার কয়েকদিন পর ওই অঞ্চলেরই ওলগা ওয়েন্স হাকিন্সের পক্ষীশালার বেশ কিছু পাখিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। এই হঠাৎ মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানের দায়িত্ব নিলেন ওলগার বান্ধবী র‌্যাচেল কার্সন। মৃত পাখিদের উপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে তিনি জানতে পারলেন, এর জন্য ডিডিটিই দায়ী। র‌্যাচেল ডিডিটি নিয়ে আরও পরীক্ষা চালান। ডিডিটির ক্ষতিকর প্রভাব দেখে অবাক হয়ে যান তিনি। র‌্যাচেল সবাইকে জানাতে লাগলেন ডিডিটির ভয়ঙ্কর পরিণতির কথা। যার প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় মানুষ সহ সমগ্র জীবজগৎ। ডিডিটির কারণে মানুষের স্নায়ুঘটিত রোগ, ক্যান্সারেরও আশঙ্কা থাকে। ডিডিটির এই অন্ধকার দিকটি র‌্যাচেল সকলের সামনে তুলে ধরলেন তাঁর বই ‘সাইলেন্ট স্প্রিং’-এ। ১৯৬২ সালে বইটি প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই ব্যাপক আলোড়ন তোলে গোটা বিশ্বজুড়ে।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়ার স্প্রিংডেল। বাদামি চুলের মিষ্টি মেয়েটি তার ছোট্ট পোষা কুকুর ‘ক্যান্ডি’র সঙ্গে তাদের ছোট্ট ফ্যামিলি ফার্ম জুড়ে দৌড়ে বেড়াত। মাঠের পর মাঠ দাপিয়ে, বুনোফুলের ঝাড় পেরিয়ে, বুনোপাখি, পোকামাকড় আর জীবজন্তুদের সঙ্গে লুকোচুরি খেলার মধ্যেই সে খুঁজে বেড়াত জীবনের সবচেয়ে আনন্দঘন মুহূর্তগুলি। মায়ের কাছে থেকে সে শিখেছে, কীভাবে ঝর্ণার মাছেদের সঙ্গে, জঙ্গলের পাখিদের সঙ্গে গল্প করতে হয়। কীভাবে আবিষ্কার করতে হয় প্রকৃতির অনন্য বিস্ময়কে। এক অসাধারণ মেরিন বায়োলজিস্ট হিসেবে ১৯৩৫ সালে র‌্যাচেল যোগ দিয়েছিলেন ইউএস ব্যুরো অব ফিশারিজ-এ (পরে যা ‘ইউএস ফিশ অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ সার্ভিস’ নামে পরিচিত হয়েছিল)। এটি একটি সরকারি সংস্থা, যার উদ্দেশ্য ছিল বন্যপ্রাণীর সংরক্ষণ। সেখানে কাজ করতে করতেই ১৯৪১ সালে প্রকাশিত হয়েছিল র‌্যাচেলের প্রথম বই ‘আন্ডার দ্য সি উইন্ড’। যা তাঁর সাগর, মহাসাগরের প্রাণী নিয়ে গভীর গবেষণার ফল। তাঁর দ্বিতীয় বই ‘দ্য সি আরাউন্ড আস’ ছিল এক বিশাল জনপ্রিয় বই। এই বইটির সাফল্য তাঁকে আর দমিয়ে রাখতে পারেনি। চাকরি ছেড়ে দিয়ে প্রিয় বিষয় প্রকৃতির ওপরেই লেখালিখিতে মন দিলেন তিনি। বছরের পর বছর ধরে তাঁর বইয়ের জন্য তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে মেয়েটি পরিবেশ দূষণের ক্ষতিকারক প্রভাব সম্পর্কে ক্রমশই সচেতন হয়ে উঠছিলেন। তাঁর নজর এড়ায়নি, শহরের কারখানাগুলি নদী আর সমুদ্রে বর্জ্যপদার্থ ফেলে কীভাবে রাসায়নিক কীটনাশকের যথেচ্ছ ব্যবহারে প্রতিদিন মানুষ এবং পরিবেশের ক্ষতি করেই চলেছে। এক নীরব বসন্ত দেখেছিলেন র‌্যাচেল!
পরিবেশের উপর লেখা র‌্যাচেলের ‘সাইলেন্ট স্প্রিং’ বইটি তুলে ধরল আমেরিকা সহ পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশে রাসায়নিক কীটনাশক ব্যবহারের সুদূরপ্রসারী প্রভাবের কথা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ব্যাপক হারে ব্যবহৃত এই কীটনাশকের গ্রাস থেকে রক্ষা পায়নি মানুষের বাড়ির অন্দরমহলও। মশা-মাছি, পোকামাকড় মারার জন্য ডিডিটির মতো কীটনাশক স্কুল-রুম থেকে পার্ক, ফার্ম — প্রায় সর্বত্র নির্বিচারে ছড়ানো হচ্ছিল। অথচ এই কীটনাশক শুধুমাত্র পোকামাকড়ই ধ্বংস করছিল না, পাখি, মাছ, বিভিন্ন ধরনের জীবজন্তু এমনকী মানুষের শরীরেরও নানা ক্ষতি করছিল। বইয়ের অষ্টম অধ্যায়ে র‌্যাচেল লিখেছেন কীভাবে ডিডিটি, হেপ্টাক্লোর, এনড্রিন, ডাইয়েলড্রিন — এসব কীটনাশক ছড়ানোর ফলে গাছপালা, উপকারী কীটপতঙ্গ, এমনকী মাটি ও কেঁচো বিষাক্ত হয়ে যাচ্ছে। আর কেঁচোর উপর নির্ভরশীল শত শত পাখি হারিয়ে গিয়েছে কোন কোন এলাকা থেকে। বিষের প্রভাবে হয় তারা মারা পড়েছে দলে দলে, নয়তো তাদের ডিম দেওয়ার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে, অথবা ডিম দিয়েছে, কিন্তু বিষের ক্রিয়ায় ডিম ফুটে বাচ্চা বের হয়নি। এভাবে পাখির কলকাকলীতে মুখর আমেরিকার অনেক অঞ্চল পাখিহীন মৃত্যুপুরীর মতো হয়ে গিয়েছিল। এই অধ্যায়টিরই প্রথমে র‌্যাচেল নাম দিয়েছিলেন ‘সাইলেন্ট স্প্রিং’। পরে গোটা বইটিরই নাম ‘সাইলেন্ট স্প্রিং’ দিয়ে অধ্যায়টিকে নাম দেন ‘অ্যান্ড নো বার্ডস সিং’। প্রকাশের পরেই বইটি অনেক সেরা বইয়ের তালিকায় স্থান পেয়ে গেল। কেউ কেউ বইটিকে ‘সর্বকালের সেরা পঁচিশ বিজ্ঞানের বই’-এর তালিকায় স্থান দিয়েছেন। যে তালিকায় রয়েছে মহাবিজ্ঞানী অ্যালবার্ট আইনস্টাইন, বিজ্ঞানী আইজাক নিউটন, জোতির্বিদ কোপার্নিকাস, বিবর্তন তত্ত্বের জনক ডারউইনের মতো মনীষীদের লেখা বইগুলো।
এই বইটি পড়ার পরই আমেরিকার মানুষের মধ্যে বড় ধরনের একটি জাগরণ তৈরি হল। মানুষ সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে এসব বিষাক্ত পদার্থ নির্বিচারে ব্যবহারের বিরুদ্ধে এবং সব ধরণের পরিবেশ দূষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও আন্দোলন শুরু করল। ১৯৬৩ সালে ওয়াশিংটন ডিসি-তে প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডির উপস্থিতিতে এক স্পেশাল কমিটির সামনে র‌্যাচেল পেশ করলেন তাঁর বক্তব্য। তাঁর প্রামাণ্য তথ্যের উপর ভর করে কমিটি কীটনাশকের অতিরিক্ত ব্যবহারে কুফল মেনে নিল। দশ বছর আন্দোলনের পর অবশেষে আমেরিকায় ১৯৭২ সালে ডিডিটির ব্যবহার নিষিদ্ধ ঘোষণা করল সরকার। এসব আন্দোলনের ফলেই মার্কিন কংগ্রেস সেদেশে ‘এনভায়রনমেন্ট প্রটেকশন এজেন্সি’ বা পরিবেশ সংরক্ষণ বিভাগ চালু করল। বায়ু, জল, মাটি এসব দূষণ বন্ধ করতে বিভিন্ন আইন জারি করল। যে সব কলকারখানা ও শিল্প প্রতিষ্ঠান এসব বিষাক্ত দ্রব্য উৎপাদন করত, আগে কখনও পরিবেশ আন্দোলনের ফলে তাদের উৎপাদন বন্ধ করে দেওয়ার মতো অবস্থায় পড়তে হয়নি। কিন্তু এবারই প্রথম তাদের ব্যবসা রীতিমতো বন্ধ হবার উপক্রম হল। কিন্তু যাঁরা এসব কারখানার মালিক, তাঁরা আর্থিক ক্ষতি স্বীকার করতে সবসময়ই নারাজ। তাই তাঁরা র‌্যাচেল কার্সনের বিরুদ্ধে পাল্টা অপপ্রচার চালানো শুরু করলেন। অনেক টাকার বিনিময়ে তাঁরা পত্রিকায় কলাম লেখক থেকে শুরু করে কিছু কিছু লোভী বিজ্ঞানীকে পর্যন্ত হাত করে ফেললেন র‌্যাচেলের বিরুদ্ধে বক্তব্য প্রকাশ করার জন্য। তাঁদের জোরালো যুক্তি, ডিডিটি দিয়ে কীটপতঙ্গ মারার ফলে কৃষিক্ষেত্রে তথা খাদ্য উৎপাদনে বিপ্লব সাধিত হয়েছে। সেটি ব্যবহার বন্ধ হলে খাদ্যসঙ্কট সৃষ্টি হবে। আর ফলে অপুষ্টিতে অনাহারে প্রচুর লোক মারা যাবে। তাঁরা যুক্তি দেওয়ার চেষ্টা করেন যে, বৃহত্তর স্বার্থে সামান্য ক্ষতি মেনে নেওয়া উচিত। মানে ডিডিটি ব্যবহার করে পরিবেশের কিছুটা ক্ষতি হলেও লাভ হবে ঢের বেশি। তাছাড়া সেই সময়ে ম্যালেরিয়া রোগের প্রকোপে মৃত্যুর সংখ্যাও ছিল যথেষ্ট। প্রচুর লোক মারা যেত এই ম্যালেরিয়া রোগে। আর সেটি প্রতিরোধের প্রধান হাতিয়ার ছিল এই ডিডিটি। মানুষের মৃত্যুর চেয়ে ক্ষতিকর কিছুই হতে পারে না। তাঁদের দাবি, ডিডিটি উৎপাদনে নিষেধাজ্ঞা মানে ম্যালেরিয়ার প্রকোপ টেনে আনা। কিন্তু, মানুষের আন্দোলন ও বিজ্ঞানের অকাট্য প্রমাণের কাছে তাদের ঠুনকো যুক্তিগুলো খুব বেশিদিন টেকেনি। বলা হয়ে থাকে র‌্যাচেল কার্সনের ‘সাইলেন্ট স্প্রিং’ বইটিই আমেরিকায় এবং পরে বিশ্বের অন্যান্য দেশে পরিবেশ আন্দোলনের সূচনা করেছিল। স্বভাবতই র‌্যাচেলকে আজ গোটা দুনিয়া ‘মাদার অব এনভায়রনমেন্টাল মুভমেন্ট’ হিসেবে স্মরণ করে। ১৯৬৪ সালে সেই র‌্যাচেল কারসনই ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। ১৯৮০ সালে তাঁকে মরণোত্তর ‘প্রেসিডেনশিয়াল মেডল অব ফ্রিডম’-এ ভূষিত করা হয়। 

20th  August, 2019
  কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানকে চাপে
ফেলে ভারতের পাশে ব্রিটেন, ফ্রান্স

 নয়াদিল্লি, ২১ আগস্ট: কাশ্মীর ইস্যুকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে মন্তব্য করলেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। নরেন্দ্র মোদি ও ইমরান খানের সঙ্গে টেলিফোনিক কথোপকথনে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মধ্যে দিয়ে সমস্যা সমাধানের বার্তাও দেন তিনি। উপত্যকায় উত্তেজনা প্রশমনে পাকিস্তানকে সংযত হওয়ার বার্তা দিল ফ্রান্সও।
বিশদ

দিল্লির অভ্যন্তরীণ বিষয়, জানাল ঢাকা
কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ করা
নিয়ে ভারতের পাশে বাংলাদেশ

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২১ আগস্ট: ‘লুক ইস্ট’ নীতিকে সফল করতে প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলির আস্থা ও সমর্থন আদায়ের প্রয়াস অব্যাহত। সেই প্রয়াসের জেরে কিছুটা ফল মিলতে শুরু করেছে বলে মনে করছে ভারত। আজ কাশ্মীর প্রশ্নে ভারত সরকারের পাশেই দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ।
বিশদ

পাকিস্তান যে ভাষা বোঝে, সেই ভাষাতেই
তাদের জবাব দেওয়া হবে, হুঁশিয়ারি ভারতের

নয়াদিল্লি, ২১ আগস্ট: ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তান যে কোনও পদক্ষেপ নিতেই পারে। কিন্তু, তাকে টেক্কা দেওয়া ক্ষমতা আমাদের রয়েছে। বুধবার, সোজাসাপ্টা ভাষায় এই কথাই বুঝিয়ে দিলেন রাষ্ট্রসঙ্ঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি সৈয়দ আকবরউদ্দিন।
বিশদ

আফগানিস্তান থেকে সম্পূর্ণভাবে সেনা
প্রত্যাহার করা হবে না, জানালেন ট্রাম্প

ওয়াশিংটন, ২১ আগস্ট (পিটিআই): আফগানিস্তান থেকে পুরোপুরিভাবে সেনা প্রত্যাহার করবে না আমেরিকা। মঙ্গলবার একথা স্পষ্ট করে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার ওভাল অফিসে তালিবানের সঙ্গে শান্তিপ্রক্রিয়া প্রসঙ্গে ট্রাম্প জানান, ‘আমাদের গোয়েন্দা বিভাগ সবসময় সক্রিয় থাকবে।
বিশদ

মুখ রক্ষা করতে এফএটিএফকে
রিপোর্ট জমা দিল পাকিস্তান

ইসলামাবাদ, ২১ আগস্ট (পিটিআই): আন্তর্জাতিক স্তরে আর্থিক ক্ষেত্রে মুখ রক্ষা করতে সক্রিয় পাকিস্তান ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সকে (এফএটিএফ) ২৭ দফা অ্যাকশন প্ল্যানের ভিত্তিতে অগ্রগতি রিপোর্ট জমা দিল। সন্ত্রাসে আর্থিক মদত এবং আর্থিক তছরুপের কারণে গত জুনে পাকিস্তানকে ‘ধূসর’ তালিকাভুক্ত করেছে এই আন্তর্জাতিক সংগঠন।
বিশদ

প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিরুদ্ধে
রাষ্ট্রসঙ্ঘে নালিশ পাকিস্তানের

 ইসলামাবাদ, ২১ আগস্ট: ভারত-পাক সাম্প্রতিক ইস্যুতে অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মন্তব্যে বেজায় ক্ষুব্ধ ইমরান খানের সরকার। অবিলম্বে রাষ্ট্রসঙ্ঘের ‘শান্তির দূত’ পদ থেকে প্রিয়াঙ্কাকে সরানোর দাবি তুলেছে তারা। বিশদ

 মোদির আমিরশাহি সফর কূটনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ, মত রাষ্ট্রদূতের

 দুবাই, ২১ আগস্ট (পিটিআই): প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সংযুক্ত আরব আমিরশাহির সফর দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক দিক থেকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ট্যুইট করে এমনই দাবি করলেন আমিরশাহিতে নিযুক্ত ভারতীয় দূত নভদীপ সিং সুরি। বিশদ

জি-৭ সম্মেলনে কাশ্মীর নিয়ে মোদির সঙ্গে
আলোচনা, জানালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট

ওয়াশিংটন, ২১ আগস্ট (পিটিআই): আসন্ন জি-৭ বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে আলোচনা করবেন বলে জানালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত ৫ আগস্ট জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে ভারত। এরপরেই বিষয়টি ঘিরে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যেকার উত্তেজনা চরমে ওঠে।
বিশদ

 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে সরব রাশিয়া, চীন

মস্কো, ২০ আগস্ট (পিটিআই): মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে সুর চড়াল রাশিয়া ও চীন। মার্কিন সরকারের এহেন পদক্ষেপের ফলে সামরিক ক্ষেত্রে নতুন করে উত্তেজনা তৈরি হবে বলেও দুই দেশের তরফে জানানো হয়েছে।
বিশদ

21st  August, 2019
কাশ্মীর নিয়ে সংযত হন,
ইমরানকে ধমক ট্রাম্পের
মোদির সঙ্গে কথার পরই পাকিস্তানকে নির্দেশ

ওয়াশিংটন, ২০ আগস্ট (পিটিআই): কাশ্মীর ইস্যুতে সংযত হন। সুর নরম করে ভারতের সঙ্গে আলোচনায় বসুন। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে কিছুটা ধমকের সুরেই এমনই বললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগেই মোদির সঙ্গে ফোনে কথা বলেছিলেন ট্রাম্প।
বিশদ

21st  August, 2019
স্বাধীনতা দিবসে আফগানিস্তান থেকে আইএস উৎখাতের ডাক দিলেন প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি

কাবুল ও ওয়াশিংটন, ১৯ আগস্ট (পিটিআই ও এপি): দেশের মাটি থেকে আইএস জঙ্গিদের সমূলে উৎখাত করার ডাক দিলেন আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। শনিবার কাবুলে এক বিয়ের অনুষ্ঠানে আইএস জঙ্গিহানায় প্রাণ হারান ৬৩ জন। যাদের মধ্যে রয়েছে বেশ কয়েকজন শিশুও। জখম হয়েছে কমপক্ষে ২০০ জন।
বিশদ

20th  August, 2019
সুইস ব্যাঙ্কগুলিতে বাংলাদেশিদের টাকা বাড়ছে কেন? 

সুইজারল্যান্ডের ব্যাঙ্কগুলিতে বাংলাদেশিদের আমানতের পরিমাণ এখন ৬১৭.৭২ মিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫ হাজার ৩৪৩ কোটি টাকা। এক বছরে সুইস ব্যাঙ্কগুলিতে বাংলাদেশিদের আমানতের পরিমাণ বেড়েছে ১ হাজার ২৭৪ কোটি টাকা। 
বিশদ

20th  August, 2019
বেশি টাকা হারালে ফিরে পাওয়া যায় 

গবেষকেরা দাবি করেছেন, হারানো মানিব্যাগ ফিরে পাওয়ার সঙ্গে টাকার পরিমাণের একটি সম্পর্ক রয়েছে। যত বেশি টাকা থাকবে মানিব্যাগে, তা হারালে ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনাও তত।  
বিশদ

20th  August, 2019
দ্রুত গলছে হিমালয়ের বরফ
 

ব্রিস্টল: জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ২০২১ সাল নাগাদ হিমালয়ের হিমবাহগুলোর অন্তত এক তৃতীয়াংশ গলে যেতে পারে। জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় স্বাক্ষরিত প্যারিস চুক্তি পুরোপুরি বাস্তবায়িত হলেও এই পরিস্থিতি তৈরি হবে। আর সেই চুক্তির বাস্তবায়ন না হলে পরিস্থিতি হবে আরও ভয়াবহ।। 
বিশদ

20th  August, 2019

Pages: 12345

একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ম্যাচের নায়ক গোকুলাম গোলরক্ষক উবেইদকে এবার ছেড়ে দেওয়াটা একেবারেই মানতে পারছেন না ইস্ট বেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রো। বুধবার ডুরান্ড কাপের সেমি-ফাইনালে ইস্ট বেঙ্গলের ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বাড়ি ফিরে গেলেন প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। বুধবার দুপুর পৌনে দু’টো নাগাদ সৌমিত্রবাবু ছুটি পান হাসপাতাল থেকে। মেয়ে পৌলোমীর সঙ্গে বাড়ি ফেরার ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, বেঙ্গালুরু: কাল, শুক্রবার স্যামসাং বাজারে নিয়ে আসছে উন্নতমানের মোবাইল গ্যলাক্সি নোট টেন ও টেন প্লাস। এস পেন নামের একটি কলম দিয়ে এই মোবাইল পরিচালনা করা যাবে। ...

 সঞ্জয় গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: উইপ্রো নিউটাউনে তথ্যপ্রযুক্তির দ্বিতীয় ক্যাম্পাস করতে চায় বলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন। তাদের ৫০ একর জমি দেওয়া হবে বলে নবান্ন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে ইনফোসিস যে ধরনের সুবিধা পেয়েছে, তা দেওয়ার জন্য আবেদন করেছে উইপ্রো। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সঠিক বন্ধু নির্বাচন আবশ্যক। কর্মরতদের ক্ষেত্রে শুভ। বদলির কোনও সম্ভাবনা এই মুহূর্তে নেই। শেয়ার বা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৬৩৯: মাদ্রাজ (বর্তমান চেন্নাই) শহরের প্রতিষ্ঠা করে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি
১৮১৮: ভারতে ব্রিটিশ গভর্নর জেনারেল ওয়ারেন হেস্টিংস-এর মৃত্যু
১৯১১: গায়ক দেবব্রত বিশ্বাসের জন্ম
১৯১৫: অভিনেতা শম্ভু মিত্রের জন্ম
১৯৫৫: রাজনীতিক ও প্রখ্যাত চিত্রতারকা চিরঞ্জীবীর জন্ম
১৯৮৯: নেপচুন গ্রহে প্রথম বলয় দেখা গেল



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৬৯ টাকা ৭২.৩৯ টাকা
পাউন্ড ৮৫.৪৬ টাকা ৮৮.৬১ টাকা
ইউরো ৭৭.৯০ টাকা ৮০.৯০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,১৩৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,১৮০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৭২৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৫ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ষষ্ঠী ৪/২৮ দিবা ৭/৬। ভরণী ৫৩/১১ রাত্রি ২/৩৬। সূ উ ৫/১৯/২১, অ ৬/০/৩, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৭ গতে ৩/৩ মধ্যে, বারবেলা ২/৪৯ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/৩৯ গতে ১/৪ মধ্যে।
৪ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, সপ্তমী ৫৫/২৪/৯ রাত্রি ৩/২৮/৭। ভরণীনক্ষত্র ৪৫/২৬/১৪ রাত্রি ১১/২৮/৫৭, সূ উ ৫/১৮/২৭, অ ৬/২/৫৯, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৪ গতে ৩/৪ মধ্যে, বারবেলা ৪/২৭/২৫ গতে ৬/২/৫৯ মধ্যে, কালবেলা ২/৫১/৫১ গতে ৪/২৭/২৫ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/৪০/৪৩ গতে ১/৫/৯ মধ্যে।
২০ জেলহজ্জ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
চন্দ্রযান ২-এর তোলা চাঁদের প্রথম ছবি 
চন্দ্রযান ২-এর তোলা চাঁদের প্রথম ছবি প্রকাশ করল ইসরো ...বিশদ

08:25:16 PM

২৬ আগস্ট পর্যন্ত চিদম্বরমের সিবিআই হেফাজত 
পি চিদম্বরমের ৫ দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিল আজ সিবিআই঩য়ের ...বিশদ

06:50:00 PM

ফের আক্রান্ত পুলিস, এবার আমতায়
ফের একবার পুলিসকে মারধর করে উদি ছিঁড়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল। ...বিশদ

04:49:07 PM

রায়গঞ্জে বিজেপি সমর্থকের কান কাটার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে 
রায়গঞ্জের পূর্বপাড়া এলাকায় হাঁসুয়া দিয়ে এক মহিলার কান কেটে নেওয়ার ...বিশদ

04:21:05 PM

তারকেশ্বর ডিগ্রি কলেজে গোলমাল, জখম ১ 
তারকেশ্বর ডিগ্রি কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্য এবং অখিল ভারতীয় ...বিশদ

04:03:52 PM

চিদম্বরমকে ৫ দিনের হেফাজতে চাইল সিবিআই
সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে পি চিদম্বরমকে ৫ দিনের হেফাজতে চাইল সিবিআই। ...বিশদ

04:03:00 PM