Bartaman Patrika
বিদেশ
 

হোয়াইট হাউস সামলানো
চাট্টিখানি কথা নয়!

মৃণালকান্তি দাস, ওয়াশিংটন, ১৩ আগস্ট: ওয়াশিংটন ডিসি। পোটোম্যাক নদীর কোল ঘেঁষে এই শহরের জনসংখ্যা মাত্র ৬ লাখ। আর আমাদের বৃহত্তর কলকাতার জনসংখ্যা ১ কোটি ৪১ লাখ ছাড়িয়ে গিয়েছে কবেই। নিঃস্তব্ধ গোটা শহর বিশালাকার রাস্তা আর বড় বড় দালান-কোঠা দিয়ে সুসজ্জিত। তবে কোনটিই খুব উঁচু নয়। প্রতিটি ভবনের সঙ্গে মিশে রয়েছে মার্কিনিদের ইতিহাস ও ঐতিহ্য। আমেরিকার অন্য সব বড় বড় শহরে ভবনগুলো বেড়ে উঠেছে উপরের দিকে। কিন্তু এই ওয়াশিংটন ডিসির ভবনগুলো বেড়েছে প্রস্থে। অত্যন্ত রুচিশীল আর আধুনিক নির্মাণশৈলীর দৃষ্টিনন্দন এই স্থাপনাগুলোই বলে দেয়, এই শহর বিশেষ একটা কিছু। রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে আমেরিকার প্রতিটি অঙ্গরাজ্যের নামে একটি করে অ্যাভিনিউ বা বড় রাস্তা রয়েছে। পেনসিলভেনিয়া অ্যাভিনিউ তেমনই একটি। এই রাস্তার পাশে ১৬০০ নম্বর হোল্ডিংয়ের ছ’তলা বাড়িটিই হোয়াইট হাউস বা প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ।
ইতিহাস বলে, ১৮১২ সালে শুরু হয়েছিল ইংল্যান্ড-আমেরিকা যুদ্ধ। এই যুদ্ধ চলাকালীন ১৮১৪’র ২৪ আগস্ট ব্রিটিশ সেনাবাহিনী হোয়াইট হাউস দখল করে নেয়। সেই সময় তারা গোটা ভবন আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। যুদ্ধ থামলে নকশাকার জেমস হোবানের পরামর্শ নিয়ে আমেরিকানরা ফের সেই আগুনে পোড়া ভবনের সংস্কার কাজ শুরু করে। ভবনটির বিভিন্ন জায়গায় আগুন ও ধোঁয়ার দাগ ঢাকতে এর দেওয়ালে সাদা রং করা হয়। সেই থেকে মূলত এটি ‘হোয়াইট হাউস’ হিসেবে পরিচিতি পেতে থাকে। যদিও এই নামের স্বীকৃতি পেতে সময় লাগে আরও ৮৫ বছর। ১৯০২ সালে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট থিয়েডোর রুজভেল্ট এই নামের স্বীকৃতি দেন। তখন থেকে সরকারিভাবে এর নামকরণ করা হয় ‘হোয়াইট হাউস’। অনেকেই বলেন ‘মিউজিয়াম অব আমেরিকান হিস্ট্রি’। এটি এমন একটি জায়গা, যেখান থেকে নিয়মিতই বিশ্ব ইতিহাসের নিত্য-নতুন দ্বার উন্মোচিত হয়। ইতিহাসকে টিকিয়ে রাখারও অদ্ভুত মানসিকতা জড়িয়ে রয়েছে গোটা ভবনকে ঘিরেই।
খোঁজ নিলেই জানতে পারবেন, আমেরিকার প্রেসিডেন্টের সরকারি বাসভবনের অন্দরের বহু কথা। এই সেই হোয়াইট হাউস, যেখানে রয়েছে মোট ১৩২টি আবাসিক কক্ষ এবং ৩৫টি বাথরুম। হোয়াইট হাউসে ১৬টি পরিবারের থাকার আয়োজন রয়েছে। রান্নাঘরেরও রয়েছে নানা ভাগ। একটি মূল রান্নাঘর, একটি ডায়েট কিচেন ও অন্যটি পারিবারিক রান্নাঘর। এ ছাড়া আছে ৪১২টি দরজা এবং ১৪৭টি জানালা। বিভিন্ন তলায় ওঠানামার জন্য আছে ৮টি সিঁড়ি এবং ৩টি লিফট। রয়েছে ২৮টি ফায়ারপ্লেস। এখানে কাজ করেন ১৭ হাজার কর্মী। সম্পূর্ণ সাদা রঙের ভবনটি নিয়মিতভাবেই রং করা হয়। প্রতিবার রং করতে প্রয়োজন হয় ৫৭০ গ্যালন পেন্ট। হোয়াইট হাউসের রান্নাঘর থেকে প্রতিদিন ১৪০ জন থেকে শুরু করে প্রয়োজনে ১ হাজার মানুষের খাবার সরবরাহ করা সম্ভব। প্রতি সপ্তাহে হোয়াইট হাউসে ৩০ হাজারের বেশি দর্শনার্থী আসেন। এই ভবনের ঠিকানায় আসে প্রতি সপ্তাহে গড়ে ৬৫ হাজার চিঠি, প্রায় সাড়ে ৩ হাজার ফোনকল, ১ লাখ ই-মেল এবং ১ হাজার ফ্যাক্স।
এখানে সবই চলে ঘড়ির কাঁটা মেপে। হোয়াইট হাউসের ক্ষমতার পালাবদলে প্রেসিডেন্ট ও তাঁর পরিবারের হোয়াইট হাউস ছাড়তে নাকি সময় লাগে মাত্র ৬ ঘণ্টা। ৯৩ জন কর্মী মালপত্র গুটিয়ে নিতে সাহায্য করেন। সবই সময়ের হিসেব কষে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর নতুন প্রেসিডেন্টের জন্য এই ভবনে অপেক্ষা করে নিত্যনতুন চ্যালেঞ্জ। ২০০০ সালে সামান্য ব্যবধানে জিতে রিপাবলিকান পার্টির জর্জ ডব্লু বুশ হোয়াইট হাউসে ঢুকেই নাকি রীতিমতো ভিরমি খেয়ে গিয়েছিলেন। পুরো হোয়াইট হাউসের ভিতরে তখন নানা ধরনের ফাঁদ পাতা রয়েছে। পা বাড়ালেই বোকার মতো ফেঁসে যেতে হবে। অভিযোগের তির ছিল ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের স্টাফদের দিকেই। হোয়াইট হাউস ছেড়ে যাওয়ার আগে এই কাণ্ড করে গিয়েছেন তাঁরা। হোয়াইট হাউসে পুরুষদের বাথরুমে গিয়ে দেখা গিয়েছিল, কারা যেন দেওয়ালে নানা ধরনের কথা লিখে রেখে গিয়েছেন। আক্রমণাত্মক এবং অশ্লীল। অফিসের ডেস্কগুলোরও বেহাল দশা। তৈলাক্ত এবং আঠালো কিছু একটা জিনিস ঢেলে সব নষ্ট করে রেখে গিয়েছে। বাদ যায়নি টেলিফোনের অ্যানসারিং মেশিনও। সেখানেও রেকর্ড করে রাখা হয়েছে অশ্লীল বার্তা। হয়রানির এখানেই শেষ নয়। বেশ কিছু কম্পিউটারের কিবোর্ড থেকে ডব্লু অক্ষরটা খুলে নেওয়া হয়েছে। যেগুলোতে ডব্লু অক্ষরটি ছিল, ওটাকে চেপে উল্টো করে আটকে দেওয়া হয়েছে। শুধু জর্জ ডব্লু বুশই নন, একসময় হোয়াইট হাউসে প্রথম প্রথম সব প্রেসিডেন্টকেই নাকি এই ধরনের হয়রানির মধ্যে পড়তে হতো।
‘হোয়াইট হাউসের ওয়েস্ট উইং এমনই একটা জায়গা যে, এর ভিতর ঢুকলে আপনার গায়ে কাঁটা দেবে। এর ইতিহাস এক অন্যরকম অনুভুতি। আপনি উপলব্ধি করবেন যে, আপনি আমেরিকার ভবিষ্যৎ গতিপথ নির্ধারণ করবে এমন একটা কাজ করছেন।’ এক সাক্ষাৎকারে বিবিসির সাংবাদিক রেবেকা কেসবিকে বলেছিলেন সেনেটর টেড কফম্যান। বলেছিলেন, ‘আমাদের একটা বিশাল আমলাতন্ত্র আছে। কিন্তু এর সর্বোচ্চ স্তরে ফেডারেল সরকারের যে ২ হাজার পদ আছে। একজন নতুন প্রেসিডেন্ট এসেই এতে পরিবর্তন আনেন। এটা অনেকটা একটা বিরাট কর্পোরেশনের মতো। যেমন ধরুন, আপনি জেনারেল মোটর্সের নতুন সিইও হিসেবে যখন অফিসে ঢুকছেন, ঠিক তখনই কিন্তু কাজ ছেড়ে দিয়ে প্রায় দু’হাজার ম্যানেজার পিছনের দরজা দিয়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন। তাই আপনাকে নতুন দু’হাজার ম্যানেজার নিয়োগও করতে হবে। আবার এর মধ্যেই আপনাকে প্রতিষ্ঠানটি চালাতে হবে। নতুন গাড়ি বানাতে হবে। বিক্রি করতে হবে। বিজ্ঞাপন দিতে হবে। সব কাজই করতে হবে। আমার স্পষ্ট মনে আছে যে, প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লু বুশের দৃঢ় অঙ্গীকার ছিল, যেন ক্ষমতার হস্তান্তরের প্রক্রিয়া সুষ্ঠুভাবে হয়। যেন তিনি নিজে যখন হোয়াইট হাউসে ঢুকেছিলেন সেই সময়টার মতো না হয়।’ আসলে এই হোয়াইট হাউস সামলানো চাট্টিখানি কথা নয়। দুনিয়ার সবচেয়ে ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্টের অফিস বলে কথা!

14th  August, 2019
নাগরিকত্ব আইন মোদি সরকারের ব্যর্থতা, প্রতিবাদের ঝড় ব্রিটেনেও 

লন্ডন, ১৫ ডিসেম্বর (পিটিআই): সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিক্ষোভের আঁচ ছড়িয়ে পড়ল সাগরপারেও। শনিবার ব্রিটেনের রাজধানী লন্ডনে ভারতীয় হাই কমিশনের সামনে এই ইস্যুতে বিক্ষোভ দেখালেন বহু মানুষ। সাফ জানালেন, এটা আসলে মোদি সরকারের ব্যর্থতা। ব্রিটেনে বসবাসকারী অসমিয়ারা বিক্ষোভের সামনের সারিতে ছিলেন। 
বিশদ

ফিলিপিন্সে ৬.৮ মাত্রার ভূমিকম্প, মৃত ১ 

ম্যানিলা, ১৫ ডিসেম্বর (এএফপি): রবিবার জোরালো ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল দক্ষিণ ফিলিপিন্সের মিন্ডানাও দ্বীপ। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৬.৮। অক্টোবর মাসে ওই অঞ্চলেই ভূমিকম্পের জেরে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছিল। এদিনের ভূমিকম্পে বাড়ি ভেঙে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।
বিশদ

নেপালে খাদে বাস, মৃত ১৪ 

কাঠমাণ্ডু, ১৫ ডিসেম্বর (পিটিআই): হাইওয়েতে যাত্রীবোঝাই বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ১০০ মিটার গভীর খাদে পড়ল। মৃত্যু হল ১৪ জনের। মৃতদের মধ্যে তিন শিশু রয়েছে। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে নেপালের সিন্ধুপালচকে। পুলিস জানিয়েছে, দুর্ঘটনার জেরে আরও ১৮ জন জখম হয়েছেন। 
বিশদ

‘বুধবার হবে টু-প্লাস-টু বৈঠক’
চীনকে দমিয়ে রাখতে ভারত সহ তিন দেশের সঙ্গে গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় করতে চায় আমেরিকা

ওয়াশিংটন, ১৪ ডিসেম্বর (পিটিআই): লক্ষ্য ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে চীনের আগ্রাসন মোকাবিলা। আর সেই উদ্দেশেই গোয়েন্দা তথ্য আদানপ্রদানের জন্য ভারতকে পাশে চাইছে আমেরিকা।
বিশদ

15th  December, 2019
নিষেধাজ্ঞার মাঝেই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সারল উত্তর কোরিয়া

সিওল, ১৪ ডিসেম্বর (পিটিআই): আমেরিকার সঙ্গে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে উত্তর কোরিয়ার আলোচনার দিনক্ষণ এগিয়ে আসছে। তার আগেই গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সারল উত্তর কোরিয়া। সে দেশের প্রতিরক্ষা দপ্তর (এনএনএডিএস) সূত্রে জানানো হয়েছে, ‘সোহে কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে ১৩ ডিসেম্বর গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।’
বিশদ

15th  December, 2019
‘আমাকে ইমপিচ করাটা অন্যায়’, ট্যুইটারে ট্রাম্প

 ওয়াশিংটন, ১৪ ডিসেম্বর (পিটিআই): ‘আমার কোনও দোষ নেই। তবু আমাকে ইমপিচ করা হচ্ছে। এটা অন্যায়।’ শুক্রবার ট্যুইটারে এভাবেই ইমপিচমেন্ট বিতর্কে ক্ষোভ উগরে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন কংগ্রেসের জুডিশিয়ারি কমিটি ট্রাম্পের ‘অপসারণ’ অনুমোদন করে দেওয়ায় তা এখন হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের হাতে চলে গিয়েছে।
বিশদ

15th  December, 2019
পাকিস্তানে পথ দুর্ঘটনায় মৃত ১৫ 

করাচি, ১৩ ডিসেম্বর (পিটিআই): মুখোমুখি দু’টি গাড়ির সংঘর্ষে মৃত্যু হল অন্তত ১৫ জনের। শুক্রবার মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ-পশ্চিম পাকিস্তানের বালুচিস্তান প্রদেশের কিল্লা সইফুল্লা জেলায়।
বিশদ

14th  December, 2019
প্যারিসে পুলিসের গুলিতে খতম হামলাকারী 

প্যারিস, ১৩ ডিসেম্বর (এপি): প্রথমে হুমকি। তারপরেই ছুরি নিয়ে পুলিসের টহলদারি দলের উপর হামলা চালায় এক ব্যক্তি। তাকে গুলি করে নিকেশ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ফ্রান্সের প্যারিসে।
বিশদ

14th  December, 2019
ব্রিটিশ সংসদে আরও চার ভারতীয় বংশোদ্ভূত, মোট ১৫
৩১ জানুয়ারির মধ্যে ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ
করব, ক্ষমতায় ফিরে ঘোষণা বরিস জনসনের 

রূপাঞ্জনা দত্ত, লন্ডন, ১৩ ডিসেম্বর: ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরে আসলেন বরিস জনসন। তাঁর দল কনজারভেটিভ পার্টি একাই পেয়েছে ৩৬৪টি আসন। ফল ঘোষণার পরেই বরিস ব্রিটেনের রানি এলিজাবেথের সঙ্গে দেখা করে সরকার গঠনের অনুমতি চেয়েছেন।  
বিশদ

14th  December, 2019
সন্ত্রাসবাদের প্রতিটা ঘটনায় পাকিস্তানের হাত রয়েছে, রাষ্ট্রসঙ্ঘে তুলোধোনা ভারতের

রাষ্ট্রসঙ্ঘ, ১৩ ডিসেম্বর (পিটিআই): সন্ত্রাস নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘে পাকিস্তানকে তুলোধোনা করল ভারত। সাফ জানিয়ে দিল, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের প্রতিটা বড় ঘটনায় ছাপ রয়েছে পাকিস্তানের। পাশাপাশি, সে দেশের নিরাপদ আশ্রয়ে প্রশিক্ষিত জঙ্গিদের হাতে নিরীহ মানুষ খুন হচ্ছেন বলেও ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছে নয়াদিল্লি। 
বিশদ

14th  December, 2019
ট্রাম্পের ইমপিচমেন্টের ভোটাভুটি পিছনোয় অসন্তুষ্ট রিপাবলিকানরা 

ওয়াশিংটন, ১৩ ডিসেম্বর (এএফপি): টানা ১৪ ঘণ্টা ম্যারাথন বিতর্ক শেষে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্ট প্রক্রিয়ায় শুক্রবার ভোটাভুটি করতে সম্মত হলেন ডেমোক্র্যাটরা। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ‘অসদাচরণ’-এর অভিযোগ তুলে তাঁর ইমপিচমেন্ট বা অপসারণ দাবি করেছেন বিরোধীরা। 
বিশদ

14th  December, 2019
ফোর্বসের প্রভাবশালী মহিলাদের তালিকায় ঠাঁই সীতারামনের

নিউইয়র্ক, ১৩ ডিসেম্বর (পিটিআই): বিশ্বের প্রভাবশালী ১০০ জন মহিলার তালিকায় ঠাঁই পেলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। ২০১৯ সালের রাজনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য, মানবপ্রেম এবং সংবাদিকতার ক্ষেত্রে প্রভাবশালী মহিলাদের তালিকা প্রকাশ করেছে ‘দ্য ফোর্বস’। সেখানে সীতারামন ছাড়াও অপর দুই ভারতীয় মহিলা স্থান পেয়েছেন। 
বিশদ

14th  December, 2019
সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অধিকার রক্ষার জন্য ভারতের কাছে আর্জি আমেরিকার 

ওয়াশিংটন, ১৩ ডিসেম্বর (পিটিআই): ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে ইতিমধ্যেই অসমে তিনজনের প্রাণ গিয়েছে। অসম ছাড়াও দেশের নানা রাজ্যে সাধারণ মানুষ ওই আইনের বিরোধিতায় রাস্তায় নেমে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকারের উপর ফের চাপ বাড়াল আমেরিকা।  
বিশদ

14th  December, 2019
কনকনে ঠান্ডাতেও উৎসবের মেজাজে ভোট ব্রিটেনে

 রূপাঞ্জনা দত্ত, লন্ডন, ১২ ডিসেম্বর: কনকনে ঠান্ডা। তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে হিমাঙ্কের নীচে। তারসঙ্গে ঝিরঝির বৃষ্টি। ডিসেম্বরের এই তাপমাত্রায় ব্রিটেনে ভোট সাধারণত হয় না। সেই ১৯২৩ সালের পর আবার ডিসেম্বরে ভোট। কিন্তু প্রকৃতিদেবী যতই বিরূপ হন, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই নির্বাচনে ভোটদানের উৎসাহে কোনও খামতি ছিল না ব্রিটিশদের।
বিশদ

13th  December, 2019

Pages: 12345

একনজরে
বদাউন, ১৫ ডিসেম্বর: ধুমধাম করে গত সোমবার বিয়ের পর্ব সম্পন্ন হয়েছিল। আর শুক্রবার ভোররাতে টাকা, গয়না নিয়ে শ্বশুরবাড়ি থেকে চম্পট দিল নববধূ। তাঁর সঙ্গে পলাতক বিয়ের মধ্যস্থতাকারী ব্যক্তিও। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের।   ...

সায়ন্ত ভট্টাচার্য, কলকাতা: শিয়রে কলকাতা পুরভোট। জনসংযোগে গুরুত্ব দিতে দলের কাউন্সিলারদের আরও বেশি করে সক্রিয় হতে নির্দেশ দিয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব। কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমও দলের কাউন্সিলারদের ঝাঁপিয়ে পড়তে নির্দেশ দিয়েছেন।   ...

সংবাদদাতা, ইসলামপুর: নাগরিক সংশোধনী আইন ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জির বিরোধিতা নিয়ে কর্মসূচিতেও ইসলামপুর তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে এল ইসলামপুরে।  ...

জয় চৌধুরি, কলকাতা: সোমবার আই লিগে বাংলা আর কেরলের মর্যাদার লড়াই। ডুরান্ড কাপ ফাইনালের রিপ্লেও বলা যেতে পারে। গোকুলাম কেরল ম্যাচের জন্য মোহন বাগান রবিবার ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

বাড়তি অর্থ পাওয়ার যোগ আছে। পদোন্নতির পাশাপাশি কর্মস্থান পরিবর্তন হতে পারে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ পক্ষে থাকবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৭৭০: জার্মান সুরকার লুদভিগ ভ্যান বেটোভেনের জন্ম
১৯১৭: কল্পবিজ্ঞান লেখক আর্থার সি ক্লার্কের জন্ম
১৯২১: হুগলি নদীর নীচ দিয়ে টানেল তৈরির কাজ শুরু করল সিইএসসি
১৯৭১: বাংলাদেশে ভারতীয় বাহিনীর কাছে পাক সেনার আত্মসমর্পণ। জন্ম স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের
২০১২: দিল্লির গণধর্ষণের ঘটনায় উত্তাল দেশ 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৮০ টাকা ৭১.৪৯ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৪৩ টাকা ৯৬.৮০ টাকা
ইউরো ৭৭.৪৪ টাকা ৮০.৪৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
14th  December, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮, ৪৫৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬, ৪৮৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭, ০৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪, ০০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪, ১০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
15th  December, 2019

দিন পঞ্জিকা

২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, পঞ্চমী ৫৩/৩৭ দিবা ৩/৪০। অশ্লেষা ৫১/২৫ রাত্রি ২/৪৭। সূ উ ৬/১৩/১০, অ ৪/৫০/৪০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৮ মধ্যে পুনঃ ৯/৩ গতে ১১/১১ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩১ গতে ১১/৫ মধ্যে পুনঃ ২/৪০ গতে ৩/৩৩ মধ্যে, বারবেলা ৭/৩২ গতে ৮/৫২ মধ্যে পুনঃ ২/১১ গতে ৩/৩১ মধ্যে, কালরাত্রি ৯/৫১ গতে ১১/৩১ মধ্যে। 
২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, চতুর্থী ১/২৭/৫৩ প্রাতঃ ৬/৫০/১৯ পরে পঞ্চমী ৫৬/৩৮/৫ শেষরাত্রি ৪/৫৪/২৪। অশ্লেষা ৫৫/৪৫/৩৮ শেষরাত্রি ৪/৩৩/২৫, সূ উ ৬/১৫/১০, অ ৪/৫০/৪০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৬ মধ্যে ৯/১১ গতে ১১/১৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩৮ গতে ১১/১২ মধ্যে ও ২/৪৭ গতে ৩/৪০ মধ্যে, কালবেলা ৭/৩৪/৩৬ গতে ৮/৫৪/২ মধ্যে, কালরাত্রি ৯/৫২/২১ গতে ১১/৩২/৫৫ মধ্যে। 
১৮ রবিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
প্রথম একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮ উইকেটে জিতল 

15-12-2019 - 09:55:39 PM

প্রথম একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৩২/২ (৪০ ওভার) 

15-12-2019 - 09:12:17 PM

প্রথম একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৬১/১ (৩০ ওভার) 

15-12-2019 - 08:23:30 PM

মাথাভাঙায় জলাশয় থেকে পচাগলা দেহ উদ্ধার 

15-12-2019 - 08:10:00 PM

প্রথম একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯৩/১ (২০ ওভার) 

15-12-2019 - 07:37:24 PM

প্রথম একদিনের ম্যাচ: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪৫/১ (১১ ওভার) 

15-12-2019 - 07:02:38 PM