Bartaman Patrika
বিদেশ
 

রাশিয়ায় বিশ্বকাপকে সঙ্গী
করে ইতিহাস ছুঁয়ে যাওয়া

সন্দীপন বিশ্বাস, মস্কো, ১ জুন: মস্কোভা নদীর তীরে ইতিহাসের শহর মস্কো যেন অপরূপ এক রূপকথার শহর। বহু ইতিহাসের সাক্ষী মস্কো। সেই শহরে এসে যেন সব ধাঁধিয়ে যাচ্ছে। এত সৌন্দর্য, এত প্রাচুর্য। অথচ সব কিছুর মধ্যে কেমন সুন্দর শৃঙ্খলা। প্রচুর বিদেশি অতিথি এসেছেন। ৩২টি দলের লড়াই প্রত্যক্ষ করার জন্য। কিন্তু রাশিয়ায় খেলা মানেই খেলার সঙ্গে বাড়তি পাওনা পর্যটন। খেলা আর ইতিহাসকে ছুঁয়ে যাওয়া। সব মিলিয়ে একটা অসাধারণ প্যাকেজ। আয়োজনে জাঁকজমকের যা বাহার, তা আগের সব বিশ্বকাপকে ম্লান করে দিতে পারে। সেরার শিরোপা পরতে কোথাও কোনও আপস করেনি রাশিয়া। প্রস্তুতির গোড়াতেই প্রেসিডেন্ট পুতিন বলে রেখেছিলেন, টাকার কোনও অভাব হবে না, কিন্তু সেরা জিনিসই আমরা বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে চাই। তার অনেকটাই সত্যি বলে মনে হচ্ছে। পুতিন কথা রেখেছেন। একদিকে যেমন চলছে মেসি, নেইমার, রোনাল্ডোদের কাপ জয়ের জন্য লড়াই। তেমনই পাশাপাশি রয়েছে অন্য দেশ থেকে আগত পর্যটকদের তাক লাগিয়ে দেওয়ার চেষ্টা। মস্কো, সেন্ট পিটার্সবার্গ, কাজান, কালিনিনগ্রাদ, সোচি, ভলগোগ্রাদের পাড়ায় পাড়ায় সেসবের আয়োজন সার্থক। আর এর জন্য রাশিয়া তার ভাঁড়ার উপুড় করে দিয়েছে।
এবার রাশিয়া বিশ্বকাপের আয়োজন করার জন্য মোট ১৩০০ কোটি মার্কিন ডলার ব্যয় করছে। এই খরচ আগের সব আয়োজনকে টাকার নিরিখে ম্লান করে দেবে। একটু হিসেব দিলেই ব্যাপারটা বোঝা যাবে। আগের বিশ্বকাপে ব্রাজিলের মোট খরচ হয়েছিল সাড়ে ১১০০ কোটি ডলার। ২০১০ সালের বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকা ব্যয় করেছিল সাড়ে ৩০০ কোটি ডলার। এবারের রাজকীয় আয়োজন নিয়ে ছোট্ট একটা উদাহরণ দেওয়া যাক। যেমন সেন্ট পিটার্সবার্গের ক্রেস্তোভস্কি স্টেডিয়াম। এখানকার কিরোভ স্টেড়িয়ামটি গুঁড়িয়ে ফেলে এই নতুন স্টেডিয়ামটি করা হয়। মোট খরচ হয়েছে ১১০ কোটি ডলার। এটি তৈরির দায়িত্ব পেয়েছিলেন কিশো কুরোকাওয়া। তিনি একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আর্কিটেক্ট। সারা বিশ্বে অজস্র অসাধারণ সব নির্মাণ তিনি করেছেন। যেমন টয়োটা স্টেডিয়াম, ওইটা স্টেড়িয়াম, কুয়ালা লামপুর ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট সহ বিশ্বের একশোটি বড় বড় মিউজিয়াম, ট্রেড সেন্টার, আর্ট সেন্টার তিনি নির্মাণ করেছেন। তবে ক্রেস্তোভস্কি স্টেডিয়ামটি তিনি দেখে যেতে পারনিনি। ২০০৭ সালে স্টেডিয়ামের কাজ শুরু হল এবং সেই বছরই কিশো মারা গেলেন। তবে তাঁর নকশা করা সেই স্টেডিয়ামকে বলা হচ্ছে বিশ্বের সবথেকে আধুনিক। ফিনল্যান্ড উপসাগরের ধারে স্পেসক্র্যাফ্টের আদলে গড়ে ওঠা এই স্টেডিয়ামটির ছাদ এমনিতেই খোলা। কিন্তু দুর্যোগের সময় এর ছাদটি ঢেকে দেওয়া যায়। এই স্টেডিয়ামের ভিতরের তাপমাত্রা সবসময় ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসেই নিয়ন্ত্রণ করা থাকে।
রাশিয়ার মোট ১১টি শহরের যে ১২টি স্টেডিয়ামে খেলা হচ্ছে, সবগুলিই মোটামুটি আধুনিক। কিন্তু ক্রেস্তোভস্কি হল সবার সেরা। যেমন মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়াম অনেক পুরনো। আগে এর নাম ছিল সেন্ট্রাল লেনিন স্টেডিয়াম। সংস্কারের পর নতুন নামকরণ হয়েছে লুঝনিকি। মস্কোভার নদীর জলে এই স্থান একসময় প্লাবিত হয়ে যেত। জল সরে গেলে সেখানকার পলিমাটিতে গজিয়ে উঠত ছোট ছোট ঘাস। তাই স্টেড়িয়ামের নতুন নামকরণ করা হয়েছে লুঝনিকি। যার মানে হল তৃণভূমি।
খেলার আসরের পাশাপাশি অন্য দেশ থেকে আগত পাঁচ লক্ষেরও বেশি পর্যটকের বেড়ানোর জন্য নানা রকম ব্যবস্থা করেছে রুশ সরকার। সব থেকে আশ্চর্যের ব্যাপার হল, পুতিন নিজেই সব ব্যাপারটা দেখভাল করছেন। আ‌ইএসআইএসের হামলার একটা আশঙ্কার কথা আগে থেকেই ছড়িয়ে পড়েছিল। তাই পুরো ব্যবস্থাকে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার মোড়কে রাখতে মরিয়া পুতিন। একটা জঙ্গি মাছিও যেন পর্যটকদের কোনও ক্ষতি করতে না পেরে তার জন্য দীর্ঘদিন ধরেই চেষ্টা চলছে। নিরাপত্তার খাতেই ব্যয় হচ্ছে পাঁচশো কোটি ডলারের বেশি।
নিরাপত্তার ঘেরাটোপে স্বচ্ছন্দে যাতে পর্যটকরা ঘুরে বেড়াতে পারেন, তার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন পুতিন। মস্কো শহরে আছে চারশোর বেশি নানা ধরনের মিউজিয়াম, আছে ঘুরে বেড়ানো, রিভার ক্রুজ, বলশয়, ব্যালে, থিয়েটার এবং নানা ঐতিহাসিক স্থান। রাশিয়ার একটা নিজস্ব দীর্ঘ ইতিহাস আছে। আছে তার বিপ্লব। তার সাহিত্য ও সংস্কৃতি। জারের আমল, তার বৈভব পেরিয়ে এক দীর্ঘ লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে এগিয়েছে রাশিয়া। রাজনীতির লেনিন, স্তালিন থেকে সাহিত্য ও সংস্কৃতি জগতের তলস্তয়, গোর্কি, গোগোল, দস্তয়েভস্কি, চেকভ, স্তানিস্লাভস্কি, তারকোভস্কি সহ আরও কত মানুষ। আছেন বিশ্বখ্যাত লেভ ইয়াসিন, দাসায়েভ প্রমুখ। খেলা দেখার পাশাপাশি রয়েছে রাশিয়ার ইতিহাস, সমাজ এবং মনীষীদের সঙ্গে পরিচয় করা। তাঁদের জানা। তার জন্য সব রকমের আয়োজন করা হয়েছে। এমনিতে রুশরা খুব একটা ইংরেজি জানেন না। তাতে তাঁরা বিশেষ পরোয়াও করেন না। কিন্তু বিদেশি পর্যটকদের কথা ভেবে প্রচুর ইংরেজি জানা স্বেচ্ছাসেবক রাখা হয়েছে। যাঁরা নানাভাবে পর্যটকদের সাহায্য করবেন। দীর্ঘদিন ধরে সরকার এঁদের ট্রেনিং দিয়েছে। বিশ্বকাপ শুরুর আগে জাতীয় দলকে শুভেচ্ছা জানানোর সময় পুতিন বলেছিলেন, বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে আমরা প্রচুর টাকা ব্যয় করেছি। সারা বিশ্ব আজ রাশিয়ার দিকে তাকিয়ে। একে কেন্দ্র করে খেলাধুলোর যে পরিকাঠামো তৈরি হল, তার জন্য রাশিয়া আগামী দিনে গর্ব অনুভব করবে।
তবে দেশের ভিতর থেকেই কিন্তু একটা প্রশ্ন উঠে আসছে। বিরোধীরা প্রশ্ন তুলেছেন, এই যে পুতিন দেশের ভাণ্ডার থেকে জলের মতো টাকা খরচ করে গেলেন, সে সব টাকা ফিরে আসবে তো? অর্থাৎ এই বিশ্বকাপের আসর রাশিয়াকে আর্থিক দিক থেকে কতটা ফিডব্যাক দিতে পারে! কিছু অর্থনীতিবিদ হিসেব কষে দেখিয়েছেন, লাভ তো দূরের কথা, মোট ব্যয়ের টাকাই উঠবে না। মেরে কেটে ৮০০ থেকে ৯০০ ডলার রাশিয়ার ভাণ্ডারে আসবে। সুতরাং দেশের পক্ষে এটা এক বিরাট ক্ষতি। একেই দেশের অর্থনীতি ডেফিসিটে চলছে, তার উপর এই খাঁড়ার ঘা। দেশের জনগণের উপর এই কাপ না অভিশাপ হয়ে দাঁড়ায়। অবশ্য দেশের মানুষ এই সব নিন্দুকের কথায় এখনই কান পাতছেন না। তাঁরা এখন স্বপ্নে বুঁদ হয়ে আছেন। একটা মাস তাঁরা এক উন্মাদনার মধ্য দিয়ে কাটাবেন। একটা রঙিন জগতের ভিতর যেন ঢুকে পড়া। মস্কো থেকে সেন্ট পিটার্সবার্গ। সোচি থেকে সামারা, কিংবা কাজান থেকে কালিনিনগ্রাদ। সর্বত্রই এখন এক ছবি। বারবার তো এমন সুযোগ আসে না।
সত্যিই তো বারবার তো এমন সুযোগ আসে না, আমরাও কয়েকটা দিন হাঁ করে গোগ্রাসে গিলে নিই রূপকথার রূপ, রস, গন্ধটুকু।
ছবি: হাম্বির বিশ্বাস

02nd  July, 2018
কনকনে ঠান্ডাতেও উৎসবের মেজাজে ভোট ব্রিটেনে

 রূপাঞ্জনা দত্ত, লন্ডন, ১২ ডিসেম্বর: কনকনে ঠান্ডা। তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে হিমাঙ্কের নীচে। তারসঙ্গে ঝিরঝির বৃষ্টি। ডিসেম্বরের এই তাপমাত্রায় ব্রিটেনে ভোট সাধারণত হয় না। সেই ১৯২৩ সালের পর আবার ডিসেম্বরে ভোট। কিন্তু প্রকৃতিদেবী যতই বিরূপ হন, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই নির্বাচনে ভোটদানের উৎসাহে কোনও খামতি ছিল না ব্রিটিশদের।
বিশদ

  বাংলাদেশের দুই মন্ত্রীর সফর বাতিল

 নয়াদিল্লি, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল সংসদে পাশ হওয়ার পরেই ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ‘সোনালি অধ্যায়ে’ কালো ছায়া পড়ল। নজিরবিহীনভাবে বৃহস্পতিবার ভারত সফর বাতিল করে দিলেন বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান ও বিদেশমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।
বিশদ

মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজ সইদের দ্রুত বিচার চাই, পাকিস্তানকে চাপ আমেরিকার 

ওয়াশিংটন ও লাহোর, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): হাফিজ সইদ নিয়ে পাকিস্তানের উপর চাপ বাড়াল আমেরিকা। জামাত-উদ-দাওয়া (জেইউডি) প্রধান সইদের দ্রুত বিচার নিশ্চিত করুক ইসলামাবাদ। ২০০৮ মুম্বই হামলার মূলচক্রীর সাজা নিয়ে পাকিস্তানকে এমনই নির্দেশ দিল আমেরিকা। 
বিশদ

  বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্টে বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়ার জামিনের আর্জি খারিজ

 ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়ার জামিনের আর্জি খারিজ করল বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্ট। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বর্তমানে ৭৪ বছরের জিয়া কারাবন্দি রয়েছেন। বিশদ

  হরিয়ানায় নাবালিকাকে লাগাতার ধর্ষণ, অভিযুক্ত নাবালক সহ চার

 চণ্ডীগড়, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): ১২ বছরের এক কিশোরীকে লাগাতার ধর্ষণের অভিযোগ উঠল হরিয়ানায়। অভিযুক্ত চার জনের মধ্যে ১৫ বছরের এক কিশোর রয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের বয়সও ১৮ থেকে ২০ বছরের মধ্যে। বিশদ

কাশ্মীরে এফ ১৬ ব্যবহার করে মার্কিন ভর্ৎসনার মুখে পাকিস্তান 

ওয়াশিংটন, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): ভারতের বিরুদ্ধে এফ ১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করে মার্কিন প্রশাসনের ভর্ৎসনার মুখে পড়েছিল পাকিস্তান। বুধবার মার্কিন সংবাদমাধ্যমে এমনই এক রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে।  
বিশদ

  পরিবেশরক্ষায় রাষ্ট্রনায়কদের কাছে আর্জি ভারতীয় ‘গ্রেটা’র

 মাদ্রিদ, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): বয়স মাত্র ৮ বছর। ছোট্ট লিসিপ্রিয়া কানগুজাম এই বয়সেই বিশ্বকে রক্ষার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছে। স্পেনের মাদ্রিদে আয়োজিত ‘কপ২৫’ জলবায়ু সম্মেলনে রাষ্ট্রনায়কদের কাছে জলবায়ু পরিবর্তন রুখতে পদক্ষেপ নেওয়ার আর্জি জানাল মণিপুরের এই বালিকা। বিশদ

বাংলাদেশের প্লাস্টিক কারখানায় ফের আগুন, মৃত ১৩ শ্রমিক

 ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): বাংলাদেশের বেআইনি প্লাস্টিক কারখানায় ফের আগুন লেগে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। ওই ঘটনায় আরও ২১ জন গুরুতর জখম হন। পুলিস বৃহস্পতিবার একথা জানিয়েছে। বিশদ

  আমেরিকায় চলতি বছরে ২২ দোষীর মৃত্যুদণ্ড সম্পন্ন

 ওয়াশিংটন, ১২ ডিসেম্বর (এএফপি): আমেরিকায় চলতি বছরে ২২তম দোষীর মৃত্যুদণ্ড সম্পন্ন হল। এক কারা অফিসারকে খুনের অপরাধে দণ্ডিত ট্রাভিস রানেলকে বুধবার রাতে টেক্সাসের হান্টসভিল কারাগারে মারণাত্মক ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়। বিশদ

ক্যাবের সমালোচনায় সরব ইমরান খান

 ইসলামাবাদ, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে ফের সরব পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তাঁর মতে, মোদি সরকার হিন্দুত্ববাদের আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করছে। এর বিরুদ্ধে সমগ্র বিশ্বকে এখনই পদক্ষেপ নিতে হবে। না হলে অনেক দেরি হয়ে যাবে। বিশদ

  ঘানার ব্যাগ, ভারতীয় বই নোবেল সংগ্রহশালায় উপহার দিলেন অভিজিৎ এবং ডাফলো

 স্টকহোম, ১১ ডিসেম্বর (পিটিআই): স্থানীয়রা বলেন গামলা স্টান। স্টকহোম শহরের অন্যতম পুরনো একটি এলাকা। শহরের প্রাচীনতা এবং ইতিহাস এখানে হাত ধরাধরি করে চলে। সেই ইতিহাস শতবর্ষের বেশি পুরনো। সেই ইতিহাস নোবেল জয়ের। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, মাদার টেরিজা, অর্মত্য সেন, কৈলাস সত্যার্থী থেকে হালফিলের অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়।
বিশদ

12th  December, 2019
রণক্ষেত্র অসমে বন্ধ ইন্টারনেট,
গুয়াহাটিতে কার্ফু, ত্রিপুরায় সেনা
অগ্নিগর্ভ উত্তর-পূর্বাঞ্চল

 গুয়াহাটি ও নয়াদিল্লি, ১১ নভেম্বর (পিটিআই): নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদ ঘিরে বুধবারও অগ্নিগর্ভ হল দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চল। এদিন একেবারে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল অসম। পরিস্থিতি সামলাতে এদিন অসম সহ উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে ৫ হাজার আধাসেনা উড়িয়ে নিয়ে গেল কেন্দ্র।
বিশদ

12th  December, 2019
১৫০ কোটি ডলারের ঋণখেলাপি
বিজয় মালিয়ার থেকে টাকা আদায়ে ব্রিটেনের হাইকোর্টের দ্বারস্থ ভারতীয় ব্যাঙ্কগুলির জোট

 লন্ডন, ১১ ডিসেম্বর (পিটিআই): ঋণখেলাপের অঙ্ক প্রায় ১৫২ কোটি মার্কিন ডলার। ব্রিটিশ মুদ্রায় প্রায় ১১৪ কোটি ৫০ লক্ষ পাউন্ড। কিংফিশার কর্তা বিজয় মালিয়ার কাছ থেকে সেই টাকা উদ্ধার করতে ফের ব্রিটেনের আদালতের দ্বারস্থ হল ভারতীয় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলির একটি কনসর্টিয়াম। বিশদ

12th  December, 2019
আন্তর্জাতিক আদালতে সু কি
মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের
বিরুদ্ধে গণহত্যা সংঘটিত হয়নি 

 হেগ, ১১ ডিসেম্বর (এএফপি): মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমরা গণহত্যার শিকার বলে যে দাবি করা হয়েছে, সেই তথ্য ‘ভুল ও অসম্পূর্ণ’— রাষ্ট্রসঙ্ঘের আদালতে বুধবার এমনটাই জানিয়েছেন নোবেল শান্তি পুরস্কারপ্রাপক আং সান সু কি (৭৪)। বিশদ

12th  December, 2019

Pages: 12345

একনজরে
ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল।  ...

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর, বিএনএ: গত পাঁচ বছরে কৃষ্ণনগরের পকসো আদালতে প্রায় ৫০০ মামলা নথিভুক্ত হয়েছে। ২০১২ সালে ‘প্রিভেনশন অব চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেন্সসেস’ বা পকসো আইন চালু হয়েছে। কৃষ্ণনগরে এই বিশেষ আদালত চালু হয়েছে ২০১৪ সালে। ...

পাটনা, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (ক্যাব) সমর্থন না করায় ইতিমধ্যেই দলের অন্দরে কোণঠাসা হয়ে গিয়েছেন জেডিইউয়ের সহ সভাপতি প্রশান্ত কিশোর। তবে তা সত্ত্বেও তিনি নিজের অবস্থানে অনড়ই থাকলেন। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ওই বিলের মাধ্যমে সরকার ধর্মের ভিত্তিতে মানুষকে ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ১২ ডিসেম্বর: বজবজের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আজ দিল্লিতে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল বঙ্গ বিজেপি। এদিন দলের রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সংসদ সদস্য দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে তিন সদস্যের এক প্রতিনিধি দল জাতীয় নির্বাচন কমিশনে যায়। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

শারীরিক দিক থেকে খুব ভালো যাবে না। মনে একটা অজানা আশঙ্কার ভাব থাকবে। আর্থিক দিকটি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩০: রাইটার্সে অলিন্দ যুদ্ধের সেনানী বিনয় বসুর মৃত্যু
১৯৮৬: অভিনেত্রী স্মিতা পাতিলের মূত্যু
২০০১: ভারতের সংসদে জঙ্গি হামলা
২০০৩: তিকরিত থেকে গ্রেপ্তার হলেন সাদ্দাম হুসেন





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৮৫ টাকা ৭১.৫৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.৮৫ টাকা ৯৫.১৫ টাকা
ইউরো ৭৭.২৯ টাকা ৮০.২৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৩৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৪১৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৯৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, প্রতিপদ ৯/২৪ দিবা ৯/৫৭। মৃগশিরা ০/১৮ দিবা ৬/১৮ পরে আর্দ্রা ৫৯/৯ শেষরাত্রি ৫/৫১। সূ উ ৬/১১/২, অ ৪/৪৯/৩৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৬ গতে ৯/৪৪ মধ্যে পুনঃ ১১/৫২ গতে ২/৪২ মধ্যে পুনঃ ৩/২৫ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৯/১৭ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৮ গতে ৩/৩২ মধ্যে পুনঃ ৪/২৫ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/৫০ গতে ১১/৩০ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৯ গতে ৯/৪৯ মধ্যে। 
২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, প্রতিপদ ১০/৫৮/৫৭ দিবা ১০/৩৬/৩৮। মৃগশিরা ৩/১৮/৩৯ দিবা ৭/৩২/৩১, সূ উ ৬/১৩/৩, অ ৪/৪৯/৫৫, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪ মধ্যে ও ৭/৪৬ গতে ৯/৫৩ মধ্যে ও ১২/০ গতে ২/৪৯ মধ্যে ও ৩/৩২ গতে ৪/৫০ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৫০ গতে ৯/২৫ মধ্যে ও ১২/৬ গতে ৩/৪০ মধ্যে ও ৪/৩৪ গতে ৬/১৪ মধ্যে, কালবেলা ১০/১১/৫৩ গতে ১১/৩১/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/১০/৪২ গতে ৯/৫১/৫ মধ্যে। 
১৫ রবিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ফের বিদ্যুৎ বিভ্রাট মেট্রোয়
কলকাতা মেট্রোয় ফের বিদ্যুৎ বিভ্রাট। তার জেরে কিছুক্ষণের জন্য টানেলেই ...বিশদ

12-12-2019 - 08:21:00 PM

অযোধ্যা মামলার রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

12-12-2019 - 04:54:33 PM

সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউতে গ্রেপ্তার যুব কং কর্মীরা 
ই-মলের সামনে থেকে গ্রেপ্তার করা হল যুব কং কর্মীদের। আজ, ...বিশদ

12-12-2019 - 04:43:00 PM

সেক্টর ফাইভে ভুয়ো ডেটিং সাইট খুলে প্রতারণা, মুম্বইতে গ্রেপ্তার ৩ অভিযুক্ত 

12-12-2019 - 04:26:00 PM

১৬৯ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স 

12-12-2019 - 04:01:36 PM

 অনশন উঠল পার্শ্বশিক্ষকদের
 অবশেষে উঠল পার্শ্বশিক্ষকদের অনশন। টানা ৩২ দিন ধরে আন্দোলন, যার ...বিশদ

12-12-2019 - 04:00:00 PM