Bartaman Patrika
দেশ
 

চার দশকের সবচেয়ে বড়
অর্থসঙ্কট আসছে: এডিবি
আর্থিক বৃদ্ধির হার মাইনাস ৯ হবে, রিপোর্ট

সমৃদ্ধ দত্ত, নয়াদিল্লি: ৪১ বছর পর ভারতের গোটা আর্থিক বছরে আবার ফিরছে নেগেটিভ আর্থিক বৃদ্ধিহার। শুধু তাই নয়, স্বাধীনতার পর চলতি আর্থিক বছরে বৃহত্তম অর্থনৈতিক মন্দায় পড়তে চলেছে ভারত। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক এই পূর্বাভাসই শুনিয়েছে তাদের সাম্প্রতিক রিপোর্টে। ২০২০-২১ আর্থিক বছরে আর্থিক বৃদ্ধির হার হতে পারে মাইনাস ৯ শতাংশ। শেষবার ভারতের আর্থিক বৃদ্ধিহার নেগেটিভ হয়েছে ১৯৭৯-৮০ আর্থিক বছরে। সেই বছর একদিকে ছিল চরম অনাবৃষ্টি এবং অন্যদিকে ইরানে বিদ্রোহের কারণে তেলের আকাশছোঁয়া দাম। এই দুই সঙ্কটের কারণেই ওই বছর আর্থিক বৃদ্ধিহার হয়েছিল মাইনাস ৫.২ শতাংশ। যা ভারতের অর্থনীতিকে চরম সঙ্কটে ফেলেছিল। জনতা সরকারের অবশ্য তারপরই পতন ঘটে। তবে সেটা ছিল দেশীয় অর্থনীতির আমল। ১৯৯১ সালে উদারীকরণের পর আজ পর্যন্ত কখনও নেগেটিভ জিডিপি গ্রোথের মন্দায় পড়তে হয়নি ভারতকে। করোনা ও লকডাউনের আগেই ভারতের আর্থিক বৃদ্ধিহার ছিল নিম্নগামী। যা সামলাতে নানাবিধ ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করেছে অর্থমন্ত্রক। কিন্তু লাভ হয়নি। ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে আর্থিক বৃদ্ধিহার কমে হয়ে যায় ৪.২ শতাংশ। তার আগের বছর যা ছিল ৬.১ শতাংশ। করোনা ও লকডাউনের পর অর্থনীতি একপ্রকার বিপর্যস্ত। নতুন আর্থিক বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকে আর্থিক বৃদ্ধিহার হয়েছে মাইনাস ২৩.৯ শতাংশ। আনলক পর্ব শুরু হলেও এখনও পর্যন্ত সামগ্রিক জীবিকা, আর্থিক লেনদেন এবং শিল্প-বাণিজ্য স্বাভাবিক হয়নি। ফলে বিশেষ উন্নতির আশা করছে না কোনও অর্থনৈতিক রেটিং সংস্থা। এসঅ্যান্ডপি অথবা ফ্লিচ—সকলেই মাইনাস ১০ শতাংশের আশপাশে ভারতের আর্থিক বৃদ্ধিহার থাকবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে। এই প্রেক্ষিতে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্কের (এডিবি) রিপোর্ট অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ও উদ্বেগজনক। কারণ, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক ভারতের প্রত্যেক রাজ্যে নানাবিধ পরিকাঠামো উন্নয়ন ও প্রকল্পে অর্থ দেয়। সুতরাং ভারতের আর্থিক বৃদ্ধিহার যদি উদ্বেগজনকভাবে নেগেটিভ হয়ে যায়, তাহলে আন্তর্জাতিক লগ্নি বিপুল ধাক্কা খাবে। ভারতের বৈদেশিক বাণিজ্য ঘাটতি চরতম আকার নেবে। আর্থিক ঘাটতিও বাড়বে দ্রুত। এই সবকিছুর যোগফল, প্রভাব পড়বে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক, জাপানের জাইকা ইত্যাদি ঋণ প্রদানকারী সংস্থাগুলির লগ্নিতেও। জানা গিয়েছে, জাপানের সংস্থার সঙ্গে ইতিমধ্যেই বুলেট ট্রেন প্রকল্প নিয়ে মতান্তর শুরু হয়েছে। এবং মুম্বই থেকে আমেদাবাদ বুলেট ট্রেন প্রকল্প অন্তত পাঁচ বছর পিছিয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক ২০২০ শীর্ষক একটি রিপোর্টে এডিবি বলেছে, লাগাতার এবং বিক্ষিপ্ত লকডাউনের ফলে ভারতে অর্থনৈতিক কাজকর্ম যেভাবে স্তব্ধ হয়ে গিয়েছে, সেটা থেকে ঘুরে দাঁড়াতে সময় লাগবে। বিপুল ক্ষতি হয়েছে অনেকগুলি সেক্টরে। এডিবি রিপোর্টে সবথেকে বেশি আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে অনুৎপাদী ঋণের পরিমাণ বিপুল বেড়ে যাওয়ার। অর্থাৎ এই লকডাউন ও অর্থনৈতিক স্তব্ধতার কারণে ব্যাঙ্ক ও আর্থিক সংস্থাগুলি থেকে গ্রহণ করা ঋণ পরিশোধ যথেষ্ট ধাক্কা খাবে। সরকার লকডাউনের সময় যেভাবে গ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে নানাবিধ আর্থিক সহায়তা দিয়েছে, তার অবশ্য প্রশংসা করেছে এডিবি। রিপোর্টে বলা হয়েছে, গ্রামীণ জীবিকাকে কিছুটা সহায়তা করেছে ওই প্যাকেজ, কিন্তু অর্থনীতির ঝুঁকি এমন পর্যায়ে গিয়েছে যে, দেশি-বিদেশি লগ্নি প্রবল ধাক্কা খাবে। এডিবি সুপারিশ করেছে কম আয়ের শ্রেণী ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের (লো ইনকাম গ্রুপ অ্যান্ড স্মল বিজনেস) বিশেষ সহায়তা আবশ্যক। সব মিলিয়ে আর্থিক গতিপ্রকৃতি দেখে এডিবির ধারণা, মাইনাস ৯ শতাংশের আশেপাশে থাকবে জিডিপি।
ভারতে প্রথম নেগেটিভ জিডিপি গ্রোথ হয়েছিল ১৯৫৭ সালে। এরপর ১৯৬৬ ও ১৯৭৩ সালেও হয়েছিল। ১৯৭৯ সালে শেষবার। কিন্তু কখনও এতটা খারাপ অবস্থা আসেনি। ১৯৭৯-৮০ আর্থিক বছরেই সবথেকে বেশি মন্দা দেখেছে ভারত, মাইনাস ৫.২ শতাংশ। এবার এডিবি ও অন্য আর্থিক রেটিং সংস্থা মনে করছে, বৃহত্তম আর্থিক বিপর্যয় আসছে—মাইনাস ৯ শতাংশ! যদি সত্যি হয়, তা হবে স্বাধীন ভারতের রেকর্ড। তবে যথেষ্ট আশার কথাও শুনিয়েছে এডিবি। তাদের রিপোর্ট বলছে, যদি অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড পুরোদমে শুরু হয়ে যায়, তাহলে এই অবস্থা থেকে ভারত যে দ্রুত শুধু ঘুরে দাঁড়াবে তাই নয়, ২০২২ সালে নাকি ৮ শতাংশের আর্থিক বৃদ্ধিহারও স্পর্শ করতে পারে!

16th  September, 2020
রাজ্যের পরবর্তী
মুখ্যসচিব আলাপন

 রাজ্যের পরবর্তী মুখ্যসচিব হচ্ছেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। বর্তমান অর্থসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী হচ্ছেন স্বরাষ্ট্রসচিব। দ্বিবেদীর জায়গায় আসছেন মনোজ পন্থ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে ট্যুইট করে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।
বিশদ

তৃণমূল নেতাকে খুনের ছক, ৬ বাংলাদেশি
সুপারি কিলার অস্ত্রসহ ধৃত শান্তিনিকেতনে

 শান্তিনিকেতনের প্রত্যন্ত গ্রাম তালতোড়। নির্জন জায়গায় একতলা বাড়ি। সপ্তাহখানেক আগে ওই বাড়িটি ভাড়া নেয় ছয় যুবক। রংমিস্ত্রি বলে পরিচয় দেয়। তাই কেউ সন্দেহের চোখে দেখেনি। কিন্তু ছবিটা বদলে গেল রবিবার ভোরে পুলিসের গোপন অপারেশনে। বিশদ

অর্থসঙ্কটে ফের প্যাকেজমুখী মোদি
উৎসব মরশুমে নয়া প্রলেপ

 অর্থ সঙ্কটে ফের প্যাকেজের প্রলেপ। এবার উপলক্ষ শুধু উৎসবের মরশুম। গরিব কল্যাণ যোজনা এবং আত্মনির্ভর প্যাকেজের পর ফের সেই আর্থিক প্যাকেজ নির্ভরতাতেই ফিরছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। বিশদ

খতম উপত্যকার দীর্ঘদিনের
ত্রাস লস্কর কমান্ডার আইজাজ

 সিআরপিএফ ও সেনার যৌথ অভিযানে বড় সাফল্য। গুলির লড়াইয়ে খতম এক কমান্ডার সহ দুই লস্কর-ই-তোইবা জঙ্গি। পুলিসের দাবি, বর্তমানে উপত্যকায় নাশকতার সঙ্গে যুক্ত লস্কর জঙ্গিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশিদিন ধরে সক্রিয় ছিল এই কমান্ডারই। এনকাউন্টারে মারা পড়েছে তার ঘনিষ্ঠ শাগরেদও। বিশদ

উৎসব মরশুমের প্রাক্কালে গাড়ি, বাড়ি ও
সোনার ঋণে সুদ কমাচ্ছে স্টেট ব্যাঙ্ক 

এবার উৎসব মরশুমের প্রাক্কালে স্টেট ব্যাঙ্ক উপহার ঘোষণা করেছে। গাড়ি, বাড়ি, সোনার ঋণের উপর সুদের হার কমাচ্ছে স্টেট ব্যাঙ্ক। একইসঙ্গে ঋণের আবেদন মঞ্জুর করার জন্য যে প্রসেসিং ফি নেওয়া হয়, তাও মকুব করা হচ্ছে। স্টেট ব্যাঙ্ক এক বিবৃতিতে ওই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। স্টেট ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, লোনের অঙ্ক ও আবেদনকারীর ঋণ গ্রহণ ও পরিশোধের রেটিং ইতিহাসের (ক্রেডিট স্কোর) উপরই নির্ভর করবে কোন ক্ষেত্রে কতটা সুদের হারে ছাড় দেওয়া হবে।
বিশদ

কোভ্যাকসিন মানবদেহে সফল
হবেই, দামেও কম পড়বে
আশাবাদী ভারতীয় বিজ্ঞানীরা

 ইঁদুর, গিনিপিগ তো বটেই, বাঁদরের মতো বড় মাপের প্রাণীর দেহেও ‘কোভ্যাকসিন’ সফলভাবে কাজ করায় মানবদেহ নিয়ে অত্যন্ত আশাবাদী আইসিএমআর। সেই মতো মানবদেহে ট্রায়াল শেষে শীঘ্রই বাজারে আসতে পারে করোনার এই টিকা। বিশদ

 দেশের ৬০ লক্ষ করোনা
আক্রান্তের মধ্যে সুস্থ ৫০ লক্ষ

 করোনায় সুস্থ হয়েছেন ৫০ লক্ষের বেশি। অর্থাৎ, সক্রিয় আক্রান্তের পাঁচ গুণের বেশি রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। সোমবার সকাল আটটায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া বুলেটিন অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৪ হাজার ৮৯৩ জন। বিশদ

পরীক্ষা পিছনো সম্ভব নয়,
সুপ্রিম কোর্টে জানাল ইউপিএসসি

 সমস্ত প্রস্তুতি শেষ। তাই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও পরীক্ষা স্থগিত রাখা সম্ভব নয়। সোমবার সুপ্রিম কোর্টে একথা জানাল ইউনিয়ন পাবিলিক সার্ভিস কমিশন (ইউপিএসসি)। বিশদ

 ১০০ টাকা আয় করতে রেলের ব্যয় প্রায় ১০২ টাকা, বলছে ক্যাগ

 এককথায় ‘ঢাকের দায়ে মনসা বিক্রি’র দশা। অর্থাৎ, যত আয় হয়, দেশবাসীকে পরিষেবা দিতে তার থেকে বেশি ব্যয় করতে হয়। রেলের ব্যয় নিয়ে এমনই রিপোর্ট প্রকাশ করেছে কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল। বিশদ

কোভিড নেগেটিভ হলেও অন্তঃসত্ত্বাকে
ভর্তি নিল না কেরলের হাসপাতাল

বাঁচানো গেল না গর্ভের যমজ সন্তানকে 

অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রী করোনা নেগেটিভ। এরপরেও নানা অছিলায় তাঁকে ভর্তি নিল না একাধিক সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল। অসুস্থ স্ত্রীকে ভর্তি করানোর জন্য হাজারো চেষ্টা করেও ব্যর্থ হলেন পেশায় সাংবাদিক এন সি শরিফ। ১৪-১৫ ঘণ্টা দৌঁড়ঝাঁপের পর একটি হাসপাতালে স্ত্রীর ঠাঁই হলেও, বাঁচানো গেল না গর্ভের যমজ সন্তানকে। ঘটনাটি কেরলের মালাপ্পুরমের।
বিশদ

 সিবিআইয়ের হাতে থাকা ৭০০
বেশি মামলা ঝুলে: সিভিসি রিপোর্ট

 কাজের চাপ বাড়ছে। প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মী নেই। যার নিট ফল মামলা ঝুলে থাকছে সিবিআইয়ের হাতে। গত এক বছরে সিভিসির হিসেব, এমন মামলার সংখ্যা ৭০০-এর বেশি। রবিবার সিভিসির বার্ষিক রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে। বিশদ

 করোনার চিকিৎসায় অনেক ভালো কাজ
করতে পারে টেইকোপ্ল্যানিন: আইআইটি

 করোনা প্রতিরোধে অন্যান্য ওষুধের চেয়ে অনেক ভালো কাজ করার ক্ষমতা রাখে মার্কিন এফডিএ স্বীকৃত টেইকোপ্ল্যানিন। করোনার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ২৩টি ওষুধের কার্যকারিতা ল্যবারেটরিতে পরীক্ষা করে এই মন্তব্য করেছেন আইআইটি দিল্লির গবেষকরা। বিশদ

 মাস্ক পরতে বলায় নিগৃহীত চিকিৎসক

 মাস্ক পরতে বলার ‘অপরাধে’ এক মহিলা রোগীর হাতে প্রহৃত হলেন চিকিৎসক। নয়াদিল্লির মহর্ষি বাল্মীকি হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটে। অভিযোগকারী চিকিৎসকের নাম ডাঃ রাহুল জৈন। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার সকালে অভিযুক্ত মহিলা এক ব্যক্তির সঙ্গে হাসপাতালে আসে। বিশদ

চীনের ক্যাট কিউ ভাইরাস
ভারতেও রোগ ছড়াতে পারে
জানাল আইসিএমআর

 করোনার প্রকোপ থেকে এখনও রক্ষা পায়নি বিশ্ব। এরমধ্যেই আবার চীন থেকে আসা ক্যাট কিউ ভাইরাস (সিকিউভি) ভারতে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করলেন গবেষকরা। আইসিএমআরের গবেষকরা ভারতে এই ভাইরাসের অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছেন।
বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
সংবাদদাতা, পতিরাম: গঙ্গারামপুর ব্লকের বেলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের মোহিনীপাড়ায় রবিবার গভীর রাতে ভেঙে গেল পূনর্ভবা নদী বাঁধের একাংশ। ভোররাত থেকেই বাঁধ বাঁচাতে কাজ শুরু করেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা সেচ দপ্তর। যদিও রবিবার রাত থেকেই ওই নদী বাঁধ সংলগ্ন এলাকায় জল ঢুকে ...

 আগামী বছরের শেষদিকে বোকারো থেকে কলকাতা পর্যন্ত প্রাকৃতিক গ্যাসের পরিকাঠামো সম্পূর্ণভাবে তৈরি হয়ে যাবে বলেই দাবি করল ইন্ডিয়ান অয়েল। সোমবার পশ্চিমবঙ্গের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর প্রীতীশ ভারত বলেন, বোকারো থেকে কলকাতা পর্যন্ত যে গ্যাস লাইন আসার কথা, তার কাজ আগামী বছরের মাঝামাঝি ...

ঘূর্ণিঝড় উম-পুনে ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক অনুদান দিচ্ছে রাজ্য সরকার। শহরাঞ্চলে সেই প্রক্রিয়া চালাচ্ছে কলকাতা পুরসভা। প্রায় সাড়ে সাত হাজারেরও বেশি ক্ষতিগ্রস্তের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে প্রায় ৭ কোটি টাকা ইতিমধ্যেই জমা পড়েছে। ...

 ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়াল আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া। বিতর্কিত নাগোর্নো-কারাবাখ এলাকার দখল নিয়েই দুই দেশের লড়াই। রবিবার থেকে শুরু হওয়া সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছে দু’পক্ষের ২৩ জনের। আহত হয়েছেন ১০০ জনেরও বেশি। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মক্ষেত্রে প্রভাব প্রতিপত্তি বৃদ্ধি। অত্যধিক ব্যয় প্রবণতায় রাশ টানা প্রয়োজন। ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে আজ শুভ। সৎসঙ্গে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: অভিনেতা মেহমুদের জন্ম
১৯৭১: ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গে ঝড় ও সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাসে অন্তত ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৮৭ টাকা ৭৪.৫৮ টাকা
পাউন্ড ৯২.৫৪ টাকা ৯৫.৮৪ টাকা
ইউরো ৮৪.২৪ টাকা ৮৭.৩৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫০, ৩১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭, ৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮, ৪৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫৮, ৪৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫৮, ৫৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১২ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, দ্বাদশী ৩৮/৪১ রাত্রি ৮/৫৯। ধনিষ্ঠানক্ষত্র ৪২/৪৯ রাত্রি ১০/৩৮। সূর্যোদয় ৫/৩০/৪৪, সূর্যাস্ত ৫/২৩/৫৬। অমৃতযোগ দিবা ৭/৫ মধ্যে পুনঃ ৮/৪০ গতে ১১/৪ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৯ গতে ১১/৪ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে ৩/৬ মধ্যে। বারবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/২৭ গতে ৩/৫৬ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৭ গতে ১১/২৭ মধ্যে।
১১ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, দ্বাদশী রাত্রি ৯/৪৮। ধনিষ্ঠানক্ষত্র রাত্রি ১২/২৮। সূর্যোদয় ৫/৩০, সূর্যাস্ত ৫/২৬। অমৃতযোগ দিবা ৭/৯ মধ্যে ও ৮/৪১ গতে ১০/৫৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩৭ গতে ১০/৫৭ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৩/৭ মধ্যে। কালবেলা ৭/০ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ২/২৭ গতে ৩/৫৭ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৫৮ গতে ১১/২৮ মধ্যে।
১০ শফর।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালসকে ১৫ রানে হারাল হায়দরাবাদ 

11:31:05 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালস ১০৪/৩ (১৫ ওভার) 

10:58:27 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালস ৫৪/২ (১০ ওভার) 

10:33:05 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালস ২৭/১ (৫ ওভার) 

10:09:48 PM

করোনা আক্রান্ত দেশের উপ-রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু 

10:01:01 PM

আইপিএল: দিল্লি ক্যাপিটালসকে ১৬৩ রানের টার্গেট দিল হায়দরাবাদ 

09:30:56 PM