Bartaman Patrika
রাজ্য
 

করোনার দুশ্চিন্তার মোকাবিলা করবেন কীভাবে?

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ভারতে কোভিড ১৯-এর প্রকোপ শুরু হতেই ঘরে ঘরে আতঙ্ক আর ভয়ের পরিবেশ। মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, রোগ নিয়ে নিরবচ্ছিন্ন দুশ্চিন্তা প্রাপ্তবয়স্কের সঙ্গে বাচ্চাদেরও মানসিকভাবে দুর্বল করে দিতে পারে। এমনকী চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী যাঁরা কোভিড ১৯-এর মোকাবিলায় সামনের সারিতে থেকে কাজ করছেন, তাঁরাও মানসিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়তে পারেন। যাঁরা আগে থেকেই মানসিক সমস্যা ও আসক্তিতে ভোগেন, তাঁদের সমস্যায় ভোগার আশঙ্কা আরও বেশি। পৃথিবীর সব দেশের মানুষই এমন অত্যধিক দুশ্চিন্তার প্রকোপে পড়ছেন।
রয়্যাল উলভারহাম্পটন এনএইচএস ট্রাস্ট-এর সিনিয়র ক্লিনিক্যাল ফেলো ডাঃ বৈদ্যনাথ ঘোষদস্তিদার জানাচ্ছেন, দুশ্চিন্তা বাঁধনহারা হওয়ার লক্ষণ হল—নিজের ও প্রিয়জনের স্বাস্থ্য নিয়ে মাত্রাতিরিক্ত চিন্তা  রাতে ঘুম না হওয়া  খাওয়ায় অনীহা। কেউ বেশি খান, কেউ কম। খাওয়ার সময়ের ঠিক থাকে না।  কোনও কাজে মনোনিবেশ করা কঠিন হয়ে পড়ে।  ডায়াবেটিস, ব্লাড প্রেসারের মতো রোগের প্রকোপ বাড়ে।
ডাঃ দস্তিদার জানাচ্ছেন, মানসিকভাবে দুর্বল হওয়া চলবে না। স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদানকারীদের জন্য তাঁর পরামর্শ, মানসিক সমস্যায় মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। চিকিৎসক, নার্স, সাধারণ স্বাস্থ্যকর্মীরা বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে কথা বলুন। সঙ্গে বই রাখুন, সময় পেলে পড়ুন। অতি অবশ্য ব্যায়াম করুন। মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ জয়রঞ্জন রাম বলছেন, এই অবস্থায় আমজনতার চিন্তা মোটেই অস্বাভাবিক নয়। অনেকের বাড়িতেই পরিচারিকা, আয়া আসছেন না। অনেকের রুজি, রোজগার, চাকরির চিন্তা হচ্ছে। চিন্তা হবেই। তবে দুশ্চিন্তায় আচ্ছন্ন হওয়ার আগে উদ্ভূত পরিস্থিতিকে স্বীকার করে নিন। সরকার যখন ‘লকডাউন’ করার মতো ব্যবস্থা নিচ্ছে, নিশ্চয় কারণও রয়েছে।
মনে রাখবেন, ঘরে থাকা ও সরকারি নির্দেশ মেনে চলা মানে নিজের, পরিবারের ও সমাজের কল্যাণ করা। অন্তত এভাবে নিজেকে উৎসাহ দিন। সারাদিন ধরে কোভিড-১৯ নিয়ে খবর দেখা বন্ধ করুন। সর্বক্ষণ সোশ্যাল মিডিয়ায় কাটাবেন না। সেখানে নানা গুজব ছড়ায়, যা এক লাফে আপনাকে আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলতে পারে। বরং পরিজনদের সঙ্গে কথা বলুন। বাড়ির কাজে হাত লাগান। অ্যালকোহল পান করবেন না। নেশা হোক বই পড়ার।
কলকাতা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের মনোরোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ শর্মিলা সরকার বলছেন, মানসিক রোগের সমস্যায় আক্রান্তরা ডাক্তারবাবুর কাছে যেতে না পারলে পুরনো প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী ওষুধ খান। প্রয়োজন হলে ডাক্তারবাবুকে ফোন করেও পরামর্শ নিন। বাচ্চারা ঘরবন্দি থাকাকালীন অস্থির হয়ে পড়বে, স্বাভাবিক। ওদের সঙ্গে কথা বলুন। নিয়ম মেনে চলতে বলুন। সবকিছু নিয়ে কড়া শাসন করবেন না। কার্টুন দেখতে চাইলে মাঝেমধ্যে দেখতে দিন। কতটুকু পড়বে, কতটুকু টেলিভিশন দেখবে তা নিয়ে রুটিন করে ফেলুন। অনলাইনেও শিক্ষাদানের ওয়েবসাইট, চ্যানেল রয়েছে। আর হ্যাঁ, নিয়মিত এক্সারসাইজ করার ব্যাপারে ওদের উৎসাহ দিন।
পাটুলি থানার ওসি সৌম্য ঠাকুরের হাতে স্যানিটাইজার তুলে দিচ্ছেন কাউন্সিলার বাপ্পাদিত্য দাশগুপ্ত। নিজস্ব চিত্র

26th  March, 2020
চিকিৎসকের পরামর্শ না নিয়ে এই ওষুধ
খেলে ক্ষতির আশঙ্কা, হতে পারে মৃত্যুও
হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন কী?
ডাঃ অঞ্জন অধিকারী

 নোভেল করোনা ছড়িয়ে পড়ার এই সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে গোটা বিশ্বে চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন। অবস্থা এমন জায়গায় পৌঁছেছিল যে, পৃথিবীর প্রধান শক্তিধর দেশ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন চেয়ে ভারতকে হুঁশিয়ারি পর্যন্ত দেন! অবশ্য ভারতের পক্ষ থেকে এই ওষুধ আমেরিকায় পাঠিয়ে দেওয়ার পর সেই ট্রাম্পের মুখ থেকেই মিলেছে ভূয়সী প্রশংসা।
বিশদ

করোনার আঘাত মিষ্টান্ন শিল্পেও,
নববর্ষে থাকছে না স্পেশাল চমক

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বঙ্গসমাজে আনন্দ ও উৎসব মানেই মিষ্টিমুখ। তা সে বিজয়া, ভাইফোঁটা, জামাইষষ্ঠী হোক কিংবা পয়লা বৈশাখ। পরীক্ষা পাশের সুখবর থেকে ঘটি-বাঙালের ফুটবল-যুদ্ধে জয়ের আনন্দ— একহাঁড়ি রসগোল্লা যেন ধুতি-পাঞ্জাবির মতোই বাঙালি ঘরানার ট্রেডমার্ক হয়ে রয়েছে।
বিশদ

খাদ্যদপ্তরের দেওয়া কার্ড এবং ফুড কুপন দিয়েই
রেশন-সামগ্রী, বিজ্ঞপ্তির কপি থাকবে দোকানে

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রেশন দোকান থেকে শুধু খাদ্যদপ্তরের ইস্যু করা রেশন কার্ড ও জেলা প্রশাসন বা পুরসভার দেওয়া ফুড কুপন দেখিয়ে সামগ্রী পাওয়া যাবে— এই সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে খাদ্যদপ্তর।
বিশদ

পুজো-পার্বণেও ফলের ব্যবসা পণ্ড,
উদ্বেগে ঘুম উড়েছে ব্যবসায়ীদের

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মন ভালো নেই ফল ব্যবসায়ীদের। একাধিক পূজা-পার্বণ চলে গেল, সামনে আরও যাবে। কিন্তু লকডাউনের জেরে তাঁদের হাত-পা গুটিয়ে বসে থাকা ছাড়া তেমন কাজ নেই। এদিকে, ব্যবসায় অনেক ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে। বিশদ

গৃহবন্দি মৎস্যজীবীরাও, বাজার
থেকে উধাও হরেক মাছ

 বিমল বন্দ্যোপাধ্যায়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: লকডাউনের জেরে বাজারে এখন মাছের আকাল। বাঙালির পাত থেকে উধাও হরেক স্বাদের মাছ। অন্ধ্রের বরফের মাছই এখন ভরসা। আর খালবিল, ভেড়ির কিছু মাছ দিয়ে কোনওরকমে চলছে। হবেই তো, ট্রলার যে বন্ধ! গত মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে সমুদ্রে ও সুন্দরবনের নদী-খাঁড়িতে মাছ ধরা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গিয়েছে।
বিশদ

গৃহবন্দি খুদেদের হাতে ঘরে বসে
খেলার সরঞ্জাম তুলে দিল পুলিস

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: স্কুল বন্ধ। পাড়ার পার্কেও খেলতে যেতে নিষেধ। লকডাউনের জেরে তাই গৃহবন্দি হয়েই কাটাতে হচ্ছে খুদেদের। তাদের সামলাতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন বাবা-মায়েরা। ইন্ডোর গেমের সামগ্রী কিনে দিয়ে বাচ্চাকে শান্ত করবেন, এমনটাও সম্ভব হচ্ছে না।
বিশদ

হাওড়া হাসপাতালের সুপার সহ
রাজ্যে সক্রিয় আক্রান্ত বেড়ে ৮০

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আতঙ্কের কোনও কারণ নেই, তবে উদ্বেগ কিছুটা রয়েছে। বৃহস্পতিবার নবান্নে বণিকসভার প্রতিনিধি ও শিল্পোদ্যোগীদের সঙ্গে বৈঠকে এই মন্তব্য করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, লকডাউন ভাঙা যাবে না, করোনা বাড়ছে। আর কোনও উপায় নেই বলেই লকডাউনের সিদ্ধান্ত। পরিসংখ্যান দিয়ে তিনি জানান, বুধবার থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরের মধ্যে নতুন করে ১২ জনের করোনা সংক্রমণ হয়েছে। আগে যেটা ৭১টি ছিল, এখন তা ৮৩ হয়েছে। যদিও এর মধ্যে ৩ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
বিশদ

লকডাউনের মেয়াদ আর
ক’দিন, সক্রিয় বেটিং চক্র

 বাপ্পাদিত্য রায়চৌধুরী, কলকাতা: যে কোনও বিষয়ে বাজি ধরা বড়বাজার এলাকায় নিত্য রুটিন। বিকেলে বৃষ্টি হবে কি না, তা নিয়েও দুপুর পর্যন্ত চলে বাজি ধরাধরি, এমনই নাকি সেখানকার বেটিং-সংস্কৃতি। এই অবস্থায় করোনাই বা বাদ যায় কেন? লকডাউনের মাঝেই সেই লকডাউনকেই বেটিংয়ের উপকরণ করছে বড়বাজার এলাকা। কতদিন চলবে লকডাউন?
বিশদ

 লকডাউনে হোয়াটসঅ্যাপেই
সিপিএমের রাজ্য কমিটির বৈঠক
করোনা পরিস্থিতিতে স্থির হল দলের নেতা-কর্মীদের কর্তব্য

 জীবানন্দ বসু, কলকাতা: আধুনিক প্রযুক্তি তথা সামাজিক মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে সিপিএম করোনাজনিত লকডাউন পর্বে খানিকটা চুপিসাড়েই তাদের রাজ্য কমিটির বৈঠক সেরে ফেলল। করোনা কেন্দ্রিক পরিস্থিতিতে রাজ্যে দলের কী করণীয়, তা নিয়ে আলোচনা করতেই তারা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে আড়াই ঘণ্টার বৈঠক করল সম্প্রতি।
বিশদ

করোনা নিয়ে গান বাঁধলেন সাফাইকর্মীরা,
দরিদ্রসেবার উদ্যোগ টিফিনভাতা বাঁচিয়ে

  সায়ন্ত ভট্টাচার্য,কলকাতা: করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষকে ঘরে থাকার আর্জি জানিয়ে রাস্তায় নেমেছে কলকাতা পুলিস। বিখ্যাত কিছু গানের সুরে করোনা সচেতনতার বার্তা নিয়ে গান বেঁধে অলিগলিতে গাইছেন পুলিসকর্মীরা। এবার সেই পথ অনুসরণ করলেন কলকাতা পুরসভার ১০০ দিনের জঞ্জাল সাফাইয়ের কর্মীরাও। বিশদ

বাংলাদেশের দু’টি জাহাজের
সংঘর্ষ, ডুবল একটি
ডুবল অন্য একটি জাহাজও

  নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: সাগর থানার ঘোড়ামারা দ্বীপের কাছে বাংলাদেশের দু’টি পণ্যবাহী জাহাজের মধ্যে জোর সংঘর্ষ হয়েছে। তার জেরে ডুবে যায় একটি জাহাজ। এছাড়া বাংলাদেশের অপর একটি জাহাজ সাগরের কাছে বিদ্যুতের টাওয়ারে ধাক্কা লেগে ফুটো হয়ে যায় এবং জল ঢুকে ডুবে যায়। বিশদ

রাজ্যের সংস্কৃত টোল অধিগ্রহণে জট কাটল

 সৌম্যজিৎ সাহা, কলকাতা: রাজ্যের কয়েকশো সংস্কৃত টোল অধিগ্রহণ প্রক্রিয়ায় অবশেষে জট কাটল। শুধু তাই নয়, ভারতীয় শিক্ষার প্রাচীন ঐতিহ্য বহনকারী এই টোলগুলিতে এক দশকের বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকা আদ্য (মাধ্যমিক) এবং মধ্য (উচ্চ মাধ্যমিক) পরীক্ষা হতেও আর বাধা রইল না।
বিশদ

লকডাউনের ১৬ দিনেই পশ্চিমবঙ্গে বিক্রি ১৬ লক্ষ
হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট, চাহিদা কয়েক কোটি

 বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: ২৪ মার্চ থেকে ১৬ দিনে কমপক্ষে ১৬ লক্ষ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট বিক্রি হয়েছে এরাজ্যে। শুধুমাত্র করোনা উদ্বেগের কারণেই দিনে কমপক্ষে এক লক্ষ করে ট্যাবলেট বিক্রি হয়েছে। বিশদ

নির্দিষ্ট অভিযোগ পেলেই পদক্ষেপ, জানালেন শ্রমমন্ত্রী
শ্রমিকরা পাওনা মজুরি পাচ্ছেন না, মমতার
হস্তক্ষেপ চেয়ে চিঠি সংগঠনগুলির

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা কেন্দ্রিক পরিস্থিতিতে রাজ্যের বিভিন্ন কল-কারখানায় শ্রমিকদের প্রাপ্য মজুরি না পাওয়ার অভিযোগে সরব হয়েছে কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলি। লকডাউনের অজুহাতে শ্রমিকদের যাতে কর্মচ্যুত করা বা বেতন কাটা না হয়, সেজন্য কেন্দ্রীয় সরকার দিন কয়েক আগেই নির্দেশ জারি করেছিল। বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এবছর দেশজুড়ে সোনার চাহিদা ৩০ শতাংশ কমবে বলে মনে করছে স্বর্ণশিল্প মহল। তাদের বক্তব্য, এদেশের সোনার মূল চাহিদা তৈরি হয় বিয়েকে ...

রাজীব সরকার, শিলিগুড়ি, বিএনএ: করোনার প্রকোপে উত্তরবঙ্গের চা শিল্প। কোভিড-১৯’র কারণে দেশজুড়ে লকডাউন চলছে। পাশাপাশি উৎপাদনও প্রভাব পড়েছে। এই দু’য়ের কারণে বিপুল ক্ষতির মুখে দার্জিলিংয়ের ...

  আগামী ৩ মে নিট হচ্ছে না। আয়োজক সংস্থা এনটিএ যদিও বা বলেছে, মে মাসের শেষ সপ্তাহে নিট হতে পারে, বর্তমান পরিস্থিতি যা পূর্বাভাস দিচ্ছে, তাও হওয়া কঠিন। ...

  অর্ক দে, কলকাতা: লকডাউনের মধ্যেই কাজ এগল দ্রুত। টালা ব্রিজ ভাঙার কাজ প্রায় শেষের পথে। এই সেতুকে ঘিরে উত্তর কলকাতা বা উত্তর শহরতলির মানুষের ৭৫ বছরের সেই ‘আবেগ’ চলে গেল স্মৃতির অতলে। টালা ব্রিজ বা হেমন্ত সেতু এখন শুধুই ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মলাভের যোগ রয়েছে। ব্যবসায়ী যুক্ত হওয়া যেতে পারে। কর্মক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। বুদ্ধিমত্তার জন্য প্রশংসা দুযবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৯৭: স্বাধীনতা সংগ্রামী ও পশ্চিমবঙ্গের তৃতীয় মুখ্যমন্ত্রী প্রফুল্লচন্দ্র সেনের জন্ম
১৯০১: কবি ও সাহিত্যিক অমিয় চক্রবর্তীর জন্ম
১৯৩১ - বিশিষ্ট লেখক নিমাই ভট্টাচার্যের জন্ম
১৯৬৪: বিশিষ্ট শেফ সঞ্জিব কাপুরের জন্ম
১৯৭৩: ব্রাজিলের ফুটবলার রবার্তো কার্লোসের জন্ম
১৯৮৬: অভিনেত্রী আয়েষা টাকিয়ার জন্ম
১৯৯৫: চতুর্থ প্রধানমন্ত্রী মোরারজি দেশাইয়ের মৃত্যু
২০১৫: অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট অধিনায়ক রিচি বেনোর মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৫.৫৪ টাকা ৭৭.২৬ টাকা
পাউন্ড ৯২.৯৫ টাকা ৯৬.২৭ টাকা
ইউরো ৮১.৪৭ টাকা ৮৪.৫২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

দৃকসিদ্ধ: ২৭ চৈত্র ১৪২৬, ১০ এপ্রিল ২০২০, শুক্রবার, (চৈত্র কৃষ্ণপক্ষ) তৃতীয়া ৪০/১৯ রাত্রি ৯/৩২। বিশাখা ৪১/১৫ রাত্রি ৯/৫৫। সূ উ ৫/২৪/৪০, অ ৫/৫১/২১, অমৃতযোগ দিবা ৭/৫ মধ্যে পুনঃ ৭/৫৫ গতে ১০/২৪ মধ্যে পুনঃ ১২/৫৩ গতে ২/৩২ মধ্যে পুনঃ ৪/১২ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৭/২৩ গতে ৮/৫৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৬ গতে ৩/৫২ মধ্যে। বারবেলা ৮/৩১ গতে ১১/৩৮ মধ্যে। কালরাত্রি ৮/৪৪ গতে ১০/১০ মধ্যে।
২৭ চৈত্র ১৪২৬, ১০ এপ্রিল ২০২০, শুক্রবার, তৃতীয়া ৫১/১২/২৪ রাত্রি ১/৫৪/৫৪। বিশাখা ৫১/৫৩/২৭ রাত্রি ২/১১/১৯। সূ উ ৫/২৫/৫৬, অ ৫/৫২/৭। অমৃতযোগ দিবা ৭/৫ মধ্যে ও ৭/৫৫ গতে ১০/২৪ মধ্যে ও ১২/৫৩ গতে২/৩২ মধ্যে ও ৪/১১ গতে ৫/৫২ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২৩ গতে ৮/৫৬ মধ্যে ও ৩/৭ গতে ৩/৫৩ মধ্যে। বারবেলা ৮/৩২/২৯ গতে ১০/৫/৪৫ মধ্যে, কালবেলা ১০/৫/৪৫ গতে ১১/৩৯/১ মধ্যে।
১৬ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
করোনা: সুইজারল্যান্ডে নতুন করে আক্রান্ত হলেন ৭৬৬ জন 

09-04-2020 - 10:37:15 PM

করোনা: নেদারল্যান্ডসে নতুন করে আক্রান্ত হলেন ১২১৩ জন 

09-04-2020 - 10:19:06 PM

করোনা: তুরষ্কে নতুন করে আক্রান্ত হলেন ৪০৫৬ জন

09-04-2020 - 10:07:11 PM

করোনা: একদিনে আমেরিকায় আক্রান্ত হলেন ৫ হাজারেরও বেশি
আজ আমেরিকায় একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজারেরও বেশি মানুষ। ...বিশদ

09-04-2020 - 09:12:00 PM

করোনা: জার্মানিতে নতুন করে আক্রান্ত হলেন ৯৬১ জন 

09-04-2020 - 09:10:18 PM

করোনা: তামিলনাড়ুতে আক্রান্ত আরও ৯৬ 
তামিলনাডুতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৯৬ জন। ...বিশদ

09-04-2020 - 09:06:39 PM