Bartaman Patrika
রাজ্য
 

 বাংলাজুড়ে রসগোল্লার স্বাদ ফেরাতে কোমর বাঁধছে রাজ্য

বাপ্পাদিত্য রায়চৌধুরী, কলকাতা: এবার রসগোল্লার স্বাদ ফেরাতে জেলায় জেলায় কোমর বাঁধছে খোদ রাজ্য সরকার। যে রসগোল্লার জন্য বাংলার এত নামডাক, তার স্বাদে টাল খাওয়াতে রাজি নয় প্রশাসন। চলতি মাসের মধ্যে অন্তত ৭০০ দোকানে রসগোল্লার মান বাড়াতে চায় তারা। মোট আড়াই হাজার দোকানে সেই কাজ শেষ করার দায়িত্ব নিচ্ছে প্রশাসন।
যাঁরা খাদ্যরসিক, তাঁরা বোঝেন, রসগোল্লার যে ডেলিকেসি, তা যেমন তেমন করে তৈরি হওয়ার নয়। চিনির মোটা রসে চোবানো হাল্কা হলদেটে রঙের গোলাকার মিষ্টি হলেই রসগোল্লা হল না। তাতে যদি কোনওভাবে স্টার্চ বা সুজি মিশে ওজনদার হয়ে যায়, তাহলে তো স্বাদের বারোটা বেজে গেল। রসগোল্লা হবে শুধুই ছানার। সেখানে কোনও ভেজাল চলবে না। হাল্কা রসে ডুবে থাকা তুলতুলে নরম রসগোল্লা হবে একেবারে মেদহীন, নিটোল, স্মার্ট। জিভে পড়লে ‘স্বর্গীয়’ অনুভূতি হবে। কিন্তু স্বাদ ও বাহারে ভরা এমন রসগোল্লা চাইলেই কি মিলবে?
প্রায় দু’বছর হতে চলল জিওগ্রাফিক্যাল ইন্ডিকেশন বা ‘জিআই’ তকমা পেয়েছে ‘বাংলার রসগোল্লা’। কিন্তু এখনও পর্যন্ত জিআই তকমা নিতে রাজি হয়নি প্রায় কোনও সংস্থা। সেই অনুমতি দেওয়া হয়েছে একমাত্র কে সি দাশকে। রসগোল্লাই যে বাংলা থেকে একমাত্র জিআই পেয়েছে, তা নয়। পশ্চিমবঙ্গের বহু পণ্যেই জিআই আছে। কিন্তু সে সবের থেকে রসগোল্লার লড়াই ছিল একেবারে আলাদা। রসগোল্লা তাদের, এমন দাবিদার হয়ে উঠেছিল প্রতিবেশী রাজ্য ওড়িশা। তাদের দাবি ছিল, যে মিষ্টি স্বয়ং জগন্নাথদেবকে নিবেদন করার প্রথা চলে আসছে বছরের পর বছর ধরে, সেখানে পশ্চিমবঙ্গ কী করে দাবি করে, রসগোল্লার উৎপত্তি বাংলায়? বিষয়টি গড়ায় আইনি লড়াই পর্যন্ত। বিস্তর টালবাহানার পর অবশেষে রসগোল্লা নিয়ে জয় হয় এরাজ্যের। কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়ে দেয়, রসগোল্লার জন্ম বাংলাতেই। নবীনচন্দ্র দাশের আবিষ্কারকেই স্বীকৃতি দেয় তারা। ওড়িশা অবশ্য হাল ছাড়েনি। তাদের যে মিষ্টি নিয়ে এত গরিমা ছিল, তাকেও স্বীকৃতি দিয়েছে কেন্দ্র। অবশ্য তাকে রসগোল্লা বলা হয়নি। সেই মিষ্টির নাম ‘ওড়িশার রসগোলা’।
রাজ্য সরকারের ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট ফুড প্রসেসিং অ্যান্ড হর্টিকালচার ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন ওই জিআই বিতরণ করার দাবিদার। তাদের বক্তব্য, চাইলেই তারা যাকে তাকে সেই জিআই লোগো বিলোতে পারে না। সেক্ষেত্রে রসগোল্লার সংজ্ঞা মেনে মিষ্টি প্রস্তুত করতে হবে সংশ্লিষ্ট দোকানকে। কী কী উপকরণে এবং কী শর্তে সেই রসগোল্লা তৈরি হবে, তার মাপকাঠি আছে। যারা তা করবে, তাদের রসগোল্লা পরীক্ষা করা হবে স্টেট ফুড সেফটি ল্যাবরেটরিতে। সংশ্লিষ্ট মিষ্টান্ন বিক্রেতাকে আবেদন করতে হবে রেজিস্ট্রেশনের জন্য। রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছে সেই টেস্ট রিপোর্ট সহ আবেদন পাঠানোর প্রশাসনিক কাজটি করবে। গোটা প্রক্রিয়াটি শেষ করতে পাঁচ থেকে ছ’মাস লাগে বলে জানিয়েছেন রাজ্য খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ দপ্তরের কর্তারা।
এবার রাজ্য সরকারের ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট ফুড প্রসেসিং অ্যান্ড হর্টিকালচার ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের কর্তারা কোমর বেঁধেছেন জেলায় জেলায় রসগোল্লাকে জিআই তকমা দিতে। ইতিমধ্যেই তাঁরা মিষ্টান্ন ব্যবসায়ী সমিতির সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তাঁরা নিজেরাই বিভিন্ন জেলায় ক্যাম্প করে মিষ্টান্ন ব্যবসায়ীদের থেকে আবেদনপত্র নিচ্ছেন এবং জিআই তকমা পাওয়ার কাজটিতে সাহায্য করছেন। কর্পোরেশনের এক শীর্ষকর্তা বলেন, তাঁরা একাধিক জেলায় ক্যাম্প শুরু করেছেন চলতি সপ্তাহে। এখনও পর্যন্ত ৭৪টি মিষ্টান্ন সংস্থার আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিটি জেলায় তাঁরা পৌঁছবেন এবং রসগোল্লার মান বাড়িয়ে জিআই পেতে কাউন্সেলিং করবেন। চলতি মাসে টার্গেট রয়েছে সাতশো দোকান। মোট আড়াই হাজার দোকানের লক্ষ্যমাত্রা রেখেছেন তাঁরা। ওই কর্তার কথায়, জিআই বড় কথা নয়। সেটি একটি প্রশাসনিক লোগো মাত্র। কিন্তু তার মাধ্যমে স্বাদ ফিরবে রসগোল্লায়, সেটাই আমাদের লক্ষ্য।

11th  September, 2019
ক্যাব বিরোধিতায় পথে যুব কং
বিজেপি দপ্তরের সামনে হাতাহাতি
সোমবার থেকে আসরে বামেরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বুধবার সংসদের উভয় কক্ষে বহু চর্চিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (ক্যাব) পাশ হওয়ার পর তা আইনে পরিণত হওয়া স্রেফ সময়ের অপেক্ষা। এই অবস্থায় ক্যাব বাতিলের দাবিতে এ রাজ্যের বিজেপি-বিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন তাদের মতো করে পথে নামার কর্মসূচি গ্রহণ করল।
বিশদ

নিজভূমে পরবাসী হব না তো!
‘ক্যাব’ নিয়ে আশঙ্কায় পাটুলির
নুর, ইউনুস, আনোয়ারা

অর্পণ সেনগুপ্ত, কলকাতা: আমাদের তো সব নিয়ে নিল রিফিউজিরা...। পাটুলি পাড়ার সরু গলিতে দাঁড়িয়ে বলছিলেন বছর সাতাত্তরের ইউনুস হালদার। এই এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা। কিন্তু নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে ভিটেছাড়া হওয়ার আতঙ্কে ভুগছেন। ইউনুসের দাবি, অমিত শাহ যা বলছেন, তাতে রাতের ঘুম উড়েছে।
বিশদ

গ্রামীণ এলাকায় বিশুদ্ধ পানীয় জল না পাওয়ার নিরিখে দেশে দ্বিতীয় পশ্চিমবঙ্গ
রিপোর্ট

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ১২ ডিসেম্বর: পশ্চিমবঙ্গের ১৩ হাজার ৩২৩টি গ্রামীণ বসতির বাসিন্দা বিশুদ্ধ পানীয় জল পাচ্ছেন না। সারা দেশে এই গ্রামীণ এলাকার সংখ্যা মোট ৫৪ হাজার ৬৪০টি। সংখ্যাটি সবথেকে বেশি রাজস্থানে। ওই রাজ্যের ১৬ হাজার ৮২৫টি গ্রামীণ এলাকার বাসিন্দাই বিশুদ্ধ পানীয় জল পাচ্ছেন না।
বিশদ

  ‘চলো গ্রামে’ গিয়ে বলাগড়ে পেঁয়াজ চাষিদের দুর্দশার কথা শুনলেন জেলাশাসক

 বিএনএ, চুঁচুড়া: কারও বাড়ি নেই, কেউ বা পাননি বিধবা ভাতার টাকা। আবার কেউ প্রশ্ন তুললেন পেঁয়াজ নিয়ে। গ্রামে গিয়ে আমজনতার সমস্যা শোনার কর্মসূচির প্রথম দিনই এমনই অভিজ্ঞতা হল জেলাশাসক সহ হুগলির প্রশাসনিক কর্তাদের।
বিশদ

জেলায় জেলায়
বিক্ষোভ, আগুন
দলীয় বৈঠক ডাকলেন মমতা

নিজস্ব প্রতিনিধি, দীঘা ও বিএনএ: নাগরিক সংশোধনী বিলকে ঘিরে অগ্নিগর্ভ অসম সহ উত্তর-পূর্বের আঁচ এসে পড়ল পশ্চিমবঙ্গেও। এতদিন যা ছিল নেতাদের হুঁশিয়ারি, বুধবার বিল পাশের পর তাতেই পড়তে চলেছে আইনের সিলমোহর।  এই পরিস্থিতিতে গেরুয়া শিবিরে যখন লক্ষ্যপূরণের উল্লাস, তখন মুর্শিদাবাদ, মালদহ, বীরভূম সহ গোটা রাজ্যের লক্ষ লক্ষ মানুষ আতঙ্কের গ্রাসে।
বিশদ

  সরকারি পেঁয়াজ চেয়ে দরবার করছেন তৃণমূলের জনপ্রতিনিধিরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: খোলাবাজার থেকে সরকারি উদ্যোগে পেঁয়াজ কিনে ভর্তুকি মূল্যে তা কৃষি বিপণন দপ্তরের সুফল বাংলার স্থায়ী-অস্থায়ী স্টলের সঙ্গে রেশন দোকান ও স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে ৫৯ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হয়েছে।
বিশদ

১১৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ফলতা ও নৈহাটিতে দুটি তথ্যপ্রযুক্তি তালুক তৈরিতে অনুমোদন কেন্দ্রের

 দিব্যেন্দু বিশ্বাস, নয়াদিল্লি, ১২ ডিসেম্বর: পশ্চিমবঙ্গের ফলতা এবং নৈহাটিতে দুটো তথ্যপ্রযুক্তি তালুক তৈরির অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রায় ১১৭ কোটি ১৭ লক্ষ টাকা ব্যয়ে রাজ্যের ওই দুই প্রকল্পের সফল বাস্তবায়ন হবে। সংসদে এ কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী সঞ্জয় ধোতরে। বিশদ

  আত্মতুষ্টি ও গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই উপনির্বাচনে
হার, বিজেপির সভায় উঠে এল পিকে ফ্যাক্টরও

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আত্মতুষ্টি ও গোষ্ঠীকোন্দলে ব্যস্ত গেরুয়া শিবিরের অন্দরে সিঁদ কেটে ঢুকে ভোটে দাঁও মেরে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। পাশাপাশি প্রশান্ত কিশোর ও তাঁর টিমের ছেলে-মেয়েদের এলাকায় মাটি কামড়ে পড়ে থাকার সুফল জোড়াফুল শিবির পেয়েছে সাম্প্রতিক উপনির্বাচনের ফলাফলে।
বিশদ

  রাজ্যের জিএসটি পাওনা কেন দেওয়া হচ্ছে না, রাজ্যসভায় সরব তৃণমূল এমপি মানস

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ১২ ডিসেম্বর: বাংলার বকেয়া ২,২০০ কোটি টাকা জিসএটি মেটানো হচ্ছে না বলে আগেই মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। সেই সুর বজায় রেখেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ মতো একদিকে লোকসভা এবং অন্যদিকে রাজ্যসভায় সরব হল তৃণমূল। বিশদ

ধনকারকে পাল্টা কড়া জবাব অধ্যক্ষের, বিধানসভা-রাজভবন তিক্ততা বাড়ছে

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কেবল রাজ্য সরকার বা শাসকদলই নয়, রাজ্যপাল জগদীপ ধনকারের সঙ্গে এবার বিধানসভার অধ্যক্ষের সম্পর্কেও তিক্ততার মাত্রা বাড়তে চলেছে। তফসিলি জাতি-উপজাতি কমিশন গঠন সংক্রান্ত বিলে তাঁর তোলা কিছু প্রশ্নের ব্যাখ্যা না পেয়ে তা বিধানসভায় পেশের জন্য অনুমোদন দিতে রাজি হননি রাজ্যপাল। বিশদ

  বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের উপর অপরাধ আটকাতে বিপদঘণ্টির উপর জোর লালবাজারের

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের উপর অপরাধের ঘটনা আটকাতে বিপদঘণ্টির ব্যবহারের উপর জোর দিতে চাইছে লালবাজার। যাতে শব্দ শুনে প্রতিবেশী বা আশেপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে আসতে পারেন। প্রণামের সদস্যদের কাছে বাড়িতে তা লাগানোর পরামর্শ দিচ্ছেন পুলিসকর্তারা।
বিশদ

 অনশন উঠে গেল, দাবি পূরণে সরকারকে ৩ মাস সময় দিলেন পার্শ্বশিক্ষকরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: অবশেষে আন্দোলন তুলে নিলেন পার্শ্বশিক্ষকরা। ৩২ দিন পর উঠল এই আন্দোলন। সেইসঙ্গে ২৮ দিন বাদে তাঁরা অনশন কর্মসূচিও প্রত্যাহার করলেন বৃহস্পতিবার। এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে একথা জানিয়েছেন ঐক্যমঞ্চের যুগ্ম আহ্বায়ক মধুমিতা ভট্টাচার্য এবং ভগীরথ ঘোষ। বিশদ

  মমতা অহংকারী, ক্যাবের বিরোধিতা করায় আক্রমণ কৈলাস বিজয়বর্গীয়র

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের (ক্যাব) বিরোধিতা করায় তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাত নিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। বুধবার রাজ্যসভায় পাশ হয়েছে ক্যাব। যা নিয়ে দেশজুড়ে উৎসবে মেতে উঠেছে গেরুয়া শিবির।
বিশদ

  পঞ্চায়েতের কাজে গতি আনতে আবার জেলা সফরে যাচ্ছেন সুব্রত

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: নবান্নে বসে সরকার পরিচালনা নয়, ব্লকে গিয়ে প্রশাসন চালাতে চান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই লক্ষ্যেই জেলায় জেলায় প্রশাসনিক বৈঠক শুরু করেন মুখ্যমন্ত্রী। তার পথ ধরেই গ্রামীণ এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজের অগ্রগতি খতিয়ে দেখতে জেলায় জেলায় গিয়ে বৈঠক করবেন পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
সংবাদদাতা, দিনহাটা: কয়েক মাস আগে আবেদনের পরেও দলীয় কর্মীর বাড়িতে বিদ্যুতের খারাপ মিটার বদলে না দেওয়ায় দিনহাটায় বিদ্যুৎ দপ্তরে ডেপুটেশন দিল দি গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশন। ...

ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল।  ...

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর, বিএনএ: গত পাঁচ বছরে কৃষ্ণনগরের পকসো আদালতে প্রায় ৫০০ মামলা নথিভুক্ত হয়েছে। ২০১২ সালে ‘প্রিভেনশন অব চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেন্সসেস’ বা পকসো আইন চালু হয়েছে। কৃষ্ণনগরে এই বিশেষ আদালত চালু হয়েছে ২০১৪ সালে। ...

সংবাদদাতা, কালীগঞ্জ: দৌড় প্রতিযোগিতায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্তরে অংশ নিয়ে কালীগঞ্জের মুখ উজ্জ্বল করতে চায় সুতপা মণ্ডল। পরিবারে অভাবকে হার মানিয়ে ইচ্ছা শক্তির জোরে আগামী দিনে দৌড় প্রতিযোগিতার বিভিন্ন খেলায় সফল হতে চায় লাখুরিয়া হাইস্কুলের একাদশ শ্রেণীর ওই ছাত্রী। বাবা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

শারীরিক দিক থেকে খুব ভালো যাবে না। মনে একটা অজানা আশঙ্কার ভাব থাকবে। আর্থিক দিকটি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩০: রাইটার্সে অলিন্দ যুদ্ধের সেনানী বিনয় বসুর মৃত্যু
১৯৮৬: অভিনেত্রী স্মিতা পাতিলের মূত্যু
২০০১: ভারতের সংসদে জঙ্গি হামলা
২০০৩: তিকরিত থেকে গ্রেপ্তার হলেন সাদ্দাম হুসেন





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৮৫ টাকা ৭১.৫৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.৮৫ টাকা ৯৫.১৫ টাকা
ইউরো ৭৭.২৯ টাকা ৮০.২৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৩৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৪১৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৯৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, প্রতিপদ ৯/২৪ দিবা ৯/৫৭। মৃগশিরা ০/১৮ দিবা ৬/১৮ পরে আর্দ্রা ৫৯/৯ শেষরাত্রি ৫/৫১। সূ উ ৬/১১/২, অ ৪/৪৯/৩৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৬ গতে ৯/৪৪ মধ্যে পুনঃ ১১/৫২ গতে ২/৪২ মধ্যে পুনঃ ৩/২৫ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৯/১৭ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৮ গতে ৩/৩২ মধ্যে পুনঃ ৪/২৫ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/৫০ গতে ১১/৩০ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৯ গতে ৯/৪৯ মধ্যে। 
২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, প্রতিপদ ১০/৫৮/৫৭ দিবা ১০/৩৬/৩৮। মৃগশিরা ৩/১৮/৩৯ দিবা ৭/৩২/৩১, সূ উ ৬/১৩/৩, অ ৪/৪৯/৫৫, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪ মধ্যে ও ৭/৪৬ গতে ৯/৫৩ মধ্যে ও ১২/০ গতে ২/৪৯ মধ্যে ও ৩/৩২ গতে ৪/৫০ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৫০ গতে ৯/২৫ মধ্যে ও ১২/৬ গতে ৩/৪০ মধ্যে ও ৪/৩৪ গতে ৬/১৪ মধ্যে, কালবেলা ১০/১১/৫৩ গতে ১১/৩১/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/১০/৪২ গতে ৯/৫১/৫ মধ্যে। 
১৫ রবিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
সান্দাকফুতে মরশুমের প্রথম তুষারপাত 
রাজ্যের উচ্চতম পয়েন্ট সান্দাকফুতে মরশুমের প্রথম তুষারপাত শুরু হল। আজ ...বিশদ

05:25:42 PM

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন: মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ  

05:09:18 PM

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন: প্রতিবাদে বিজেপি ছাড়লেন দক্ষিণ দিনাজপুরের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ 
নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদ জানিয়ে বিজেপি ছাড়লেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা ...বিশদ

05:03:32 PM

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন: প্রতিবাদ ঘিরে রণক্ষেত্র মুর্শিদাবাদের বেলডাঙা

04:54:00 PM

উলুবেড়িয়ায় দূরপাল্লার ট্রেনে ভাঙচুর, অবরোধ 
নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে উলুবেড়িয়ায় দাঁড়িয়ে থাকা হাওড়া-চেন্নাই মেলে ভাঙচুর ...বিশদ

04:48:00 PM

ক্যাবের জেরে উত্তাল উত্তর-পূর্ব ভারত, শিলং সফর বাতিল করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ 

04:40:14 PM