Bartaman Patrika
রাজ্য
 

অন্যের ভুলে পেনশন কমে যাওয়া বৃদ্ধের সওয়ালে
সাড়া দিয়ে অন্তর্বর্তী নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

পল্লব চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: হিসেবের ভুলে বাড়তি অর্থ দেওয়া হলে, প্রাপক যদি তা না বুঝেই খরচ করে ফেলেন, তাহলে দোষী কে? সেই অর্থ কি প্রাপকের থেকে আদায় করতে আইনি পদক্ষেপ করা যায়? অনেকটা এমনই প্রশ্ন নিয়ে সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টে হাজির হয়েছিলেন সৈয়দ আবদুল মালিক। সুদূর মালদহ থেকে রাজ্যের শীর্ষ আদালতে এমন সময়ে তিনি হাজির হয়েছিলেন, যখন আন্দোলনের জেরে আইনজীবীরা শুনানিতে অংশ নিচ্ছেন না। ফলে অবসরপ্রাপ্ত বৃদ্ধের বক্তব্য শুনে বিচার করতে উদ্যোগী হয়েছিলেন বিচারপতি অমৃতা সিনহা।
নর্দান ফ্রন্টিয়ার রেলওয়েজ-এ অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর হিসেবে ২০০৪ সালের ৩০ এপ্রিল তিনি অবসন নেন। রেল কর্তৃপক্ষ তাঁর পেনশন পেমেন্ট অর্ডার পাঠিয়ে দেয় এক রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের হরিশচন্দ্রপুর শাখায়। ওই বছরের ১ মে থেকেই চালু হয়ে যায় তাঁর পেনশন। ২০১৫ সালের ২২ ডিসেম্বর ওই ব্যাঙ্ক তাঁকে জানায়, তার আগের মাস, অর্থাৎ নভেম্বর মাস পর্যন্ত তাঁকে মোট ৪,১২,৯২৮ টাকা বেশি দেওয়া হয়ে গিয়েছে। যে টাকা তাঁকে সাত দিনের মধ্যে ফেরত দিতে হবে। নাহলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যদিও ২০১৭ সালের ২৬ অক্টোবর ব্যাঙ্ক তাঁকে জানায়, প্রতি মাসে তাঁর পেনশন থেকে ওই অর্থ আদায় করার জন্য ৩৫০০ টাকা করে কেটে নেওয়া হবে। পরে তাঁর পেনশনের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় মাসে কেটে নেওয়ার টাকার পরিমাণ বেড়ে হয় ৪৫৫২ টাকা।
চরম বিপাকে পড়ে তিনি আইনজীবী মারফত ব্যাঙ্কের এই পদক্ষেপের বিরোধিতা করেন। কিন্তু, ব্যাঙ্কের সাড়া না পেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। সেখানেও বাধা। আইনজীবীদের আন্দোলনে বিপাকে পড়ে তিনি নিজেই হাজির হন বিচারপতির সামনে। ব্যাঙ্ক তার লিখিত বক্তব্য পেশ করে। সেখানে বলা হয়, ২০০৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০১৫ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত মামলাকারীকে প্রাপ্যের অতিরিক্ত অর্থ দেওয়া হয়েছে। স্রেফ হিসেবের ভুলে। কিন্তু, প্রাপক অশিক্ষিত নন। তিনি জেনেবুঝেই বাড়তি অর্থ ভোগ করেছেন। কখনও জানাননি, বাড়তি টাকা তাঁকে দেওয়া হচ্ছে। এখন বয়সকে ঢাল করে তিনি অসৎ উদ্দেশ্য ঢাকার চেষ্টা করতে পারেন না।
এমন সওয়ালের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি তাঁর রায়ে বলেছেন, ব্যাঙ্কের বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট যে, ২০০৪ সালের মে মাস থেকে ২০০৫ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধকে সঠিক পেনশনই দেওয়া হয়েছে। তারপর যে ভুল হয়েছে, তা মামলাকারী খেয়াল করেননি। মনে রাখতে হবে, পেনশন প্রাপকের পক্ষে মহার্ঘভাতা সহ পেনশনের পরিমাণ হিসেব করা সম্ভব নাও হতে পারে। যে টাকা পেনশন অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে আসছে, সেটাই সঠিক বলে মনে করার মধ্যে অস্বাভাবিকত্ব নেই। তাই প্রশ্ন হল, কোনও ব্যাঙ্ককর্মী যদি হিসেবে ভুল করেন, তার জন্য পেনশন প্রাপক কেন ভুগবেন? সেই ভুলের জেরে কেন পেনশন প্রাপককে এককালীন ভিত্তিতে বাড়তি অর্থ ফেরাতে বলা হবে? দশ বছর ধরে যে হিসেবের ভুল চালু থেকেছে, তার দায় কেন তাঁকে নিতে হবে? ওই বাড়তি অর্থকে কি সরকারের প্রাপ্য বলে ধরা যায়? ব্যাপারটিকে কি ব্যাঙ্কের দায়িত্বজ্ঞানহীনতা বলা যায় না? বিশেষত ব্যাঙ্ক যেখানে বলেনি, ভুলটা ঠিক কার।
ব্যতিক্রমী এই রায়ে সুপ্রিম কোর্টের প্রসঙ্গও এসেছে। কারণ, দেশের শীর্ষ আদালত বলেছে, যদি ভুল তথ্য দিয়ে বা জালিয়াতি করে বাড়তি অর্থ না নেওয়া হয়, যদি ভুল নীতি নেওয়ার ফলে বাড়তি অর্থ দেওয়া হয়ে থাকে, তাহলে কর্মদাতা তা কর্মীর থেকে আদায় করতে পারে না। তবে সুপ্রিম কোর্ট অন্যত্র এও বলেছে, যদি প্রাপ্য না হয়ে থাকে, তাহলে দেওয়া বাড়তি অর্থ সরকারি হলে, তা আদায় করায় বাধা নেই।
এমন বিতর্কের পূর্ণাঙ্গ শুনানি ছাড়া বিষয়টির চূড়ান্ত বিচার সম্ভব নয় জানিয়ে আদালত তাই অন্তর্বর্তী নির্দেশে বলেছে, ৪৫৫২ নয়, পরবর্তী নির্দেশ জারি না হওয়া পর্যন্ত মামলাকারীর পেনশন থেকে ব্যাঙ্ক আপাতত ৩৫০০ টাকা কাটতে পারবে। কিন্তু, তুল্যমূল্য বিচারে এটাই বলতে হবে যে, ব্যাঙ্কের তুলনায় বৃদ্ধই অসুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছেন।

14th  June, 2019
এনআরসি চাই না, পোস্টারে দার্জিলিং ঢাকল
কেন্দ্র বিরোধী উত্তাপে
আজ পদযাত্রা মমতার

 দেবাঞ্জন দাস, দার্জিলিং: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ), এনপিআর এবং এনআরসি নিয়ে পাহাড়বাসীর আতঙ্ক ক্রমেই বাড়ছে। তা দ্রুত পরিণত হচ্ছে কেন্দ্র বিরোধী ক্ষোভে। তার আঁচ ছড়িয়ে পড়ছে পাহাড়ের নানা প্রান্তে। ক্ষোভ বাড়ছে গোর্খা, লেপচা, ভুটিয়া সহ সমস্ত জনগোষ্ঠীর মধ্যেই। 
বিশদ

উলুবেড়িয়ায় বিশেষভাবে সক্ষম শিশুদের
ব্যবস্থাপনা দেখে খুশি বাংলাদেশের মেজর

 পাপ্পা গুহ, উলুবেড়িয়া: মানবধর্ম সবথেকে বড় ধর্ম। আপনারা যদি মানুষকে সঠিকভাবে সেবা করতে পারেন, তাহলে এর থেকে বড় কাজ আর হবে না। মঙ্গলবার সকালে উলুবেড়িয়া কাটিলার আশা ভবন সেন্টার ঘুরে দেখে একথা বলেন বাংলাদেশের মেজর সাহাদাত হোসেন।
বিশদ

পুরভোট ব্যালটে‌ই,
সিদ্ধান্ত রাজ্যের
১০ ফেব্রুয়ারির পর চূড়ান্ত হবে দিনক্ষণ

 সঞ্জয় গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: গত লোকসভা ভোটের ফলাফলের পর ইভিএমের কারচুপি নিয়ে সোচ্চার হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোটে ব্যালট ফেরানোর দাবিতে তিনি ২১ জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে আন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, পুরভোট হবে ব্যালটে। সেই সিদ্ধান্তেই অটল রইলেন তিনি।
বিশদ

ট্যুর গাইডের কাজ পেতে অনলাইনে
কোর্স চালু করছে পর্যটন মন্ত্রক

বাপ্পাদিত্য রায়চৌধুরী, কলকাতা: পর্যটন গাইড হিসেবে নিজেকে পেশাদার করে তোলার সুযোগ করে দিতে নতুন প্রকল্প আনল কেন্দ্রীয় পর্যটন মন্ত্রক। ‘ট্যুর ফেসিলিটেটর’ হিসেবে অনলাইনে কোর্স চালু করছে তারা। দ্বাদশ শ্রেণী পাশ করলে এবং ১৮ বছর বয়স হলে যে কেউ এই কোর্সে ভর্তি হতে পারবেন।
বিশদ

সিএএ-এনআরসি নিয়ে মমতার
গ্রন্থপ্রকাশ কলকাতা বইমেলায়

 পবিত্র ত্রিবেদী, কলকাতা: রাস্তায় নেমে আন্দোলন করার সঙ্গে সঙ্গে বই লিখে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি কেন মানুষের স্বার্থ বিরোধী সে কথা তুলে ধরতে চান মুখ্যমন্ত্রী। দেশে সিএএ ও এনআরসি বিরোধীদের অন্যতম প্রধান মুখ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাই নাগরিকত্ব ইস্যুতে বই লিখছেন।
বিশদ

পেঁয়াজ সংরক্ষণের জন্য বড়
হিমঘর হতে চলেছে রাজ্যে

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পেঁয়াজ সংরক্ষণের জন্য বড় মাপের হিমঘর তৈরি করতে উদ্যোগী হয়েছে রাজ্য সরকার। সেটা হবে মুর্শিদাবাদে। বেসরকারি উদ্যোগে তৈরি এই প্রকল্পে ৫০ হাজার টনের মতো পেঁয়াজ সংরক্ষণ করা যাবে।
বিশদ

আমারা কেউ ওঁর সঙ্গে দেখা করতে যাব না, সাফ জানালেন পার্থ
বিল জটিলতা কাটাতে ধনকারের বৈঠক
সর্বদলীয় চেহারা পেল না, ফলও অধরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: তাঁর দপ্তরে আটকে থাকা দুটি বিল নিয়ে জটিলতা কাটাতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকারের ডাকা সর্বদলীয় বৈঠক শেষ পর্যন্ত পূর্ণ চেহারা পেল না। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বা শাসক শিবিরের কেউ না আসায় মঙ্গলবার রাজভবনে অনুষ্ঠিত এই বৈঠক কার্যত রাজ্যপাল ও বিরোধী দুই শিবির বামফ্রন্ট ও কংগ্রেস পরিষদীয় নেতৃত্বের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রইল। বিশদ

অনুমোদন আটকে
ত্রুটিপূর্ণ নথি জমা দেওয়া অস্থায়ী শিক্ষকদের
ফের একবার সুযোগ দিতে চায় শিক্ষা দপ্তর

 সৌম্যজিৎ সাহা, কলকাতা: যে সব অতিথি শিক্ষকের নথি বা তথ্যে কিছু ত্রুটি ছিল, তাদের ফের একবার সুযোগ দিতে চায় শিক্ষা দপ্তর। এ নিয়ে সম্প্রতি এক বৈঠক হয়। সেখানেই এই সব শিক্ষকের ক্ষেত্রে নমনীয় মনোভাব পোষণ করেছেন আধিকারিকরা। শুধু তাই নয়, এঁদের নতুন করে আবার তথ্য জমা দিতে হবে বলে প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছে। বিশদ

শ্রমিকের অভাবে ৮৫ শতাংশ ট্রলার বসে
বাজারে সামুদ্রিক মাছের আকাল, শীতেও দাম চড়া

 বিমল বন্দ্যোপাধ্যায়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: সাগরে মাছের আকাল চলছে। ফলে সমুদ্রে যাওয়ার ব্যাপারে শ্রমিকরা মুখ ঘুরিয়ে নেওয়ায় জেলার প্রায় ৮৫ শতাংশ ট্রলার বসে গিয়েছে। তার ধাক্কায় পাইকারি ও খুচরো বাজারে সামুদ্রিক মাছের জোগান একেবারে কমে গিয়েছে। বিশদ

  ভোটার কার্ডে নামের ভুল, সংশোধন করতে চেয়ে আদালতে আবেদন জেএমবি জঙ্গির

 শুভ্র চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: এক বছরের বেশি সময় ধরে জেলবন্দি বুদ্ধগয়া বিস্ফোরণকাণ্ডে অভিযুক্ত কওসর ঘনিষ্ঠ আব্দুল মজিদ। কেন্দ্রীয় সরকার যে দেশজুড়ে এনআরসি চালু করতে চাইছে, তা তার কানেও গিয়েছে। সে বুঝে গিয়েছে, নথিতে ভুল থাকলে নাগরিকত্ব যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বিশদ

  সিএএ রুখতে আগামী ২৭ জানুয়ারি বিধানসভায় সর্বদলীয় প্রস্তাব আনছে শাসক দল

 নিজস্ব প্রতিনিধি,কলকাতা: নতুন নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে রাজ্যের আপত্তির কথা জানাতে বিধানসভায় প্রস্তাব আনতে চলেছে শাসক দল। আগামী ২৭ জানুয়ারি দুপুরে সেই লক্ষ্যেই একদিনের জন্য অধিবেশন বসবে বিধানসভায়। মঙ্গলবার পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এই ঘোষণা করেন। বিশদ

  মমতা-ধনকার সংঘাত মানুষ ভালো চোখে
দেখছে না, রাজ্যপালকে বললেন মান্নানরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: গত কয়েক মাস ধরে রাজ্য রাজনীতিতে অন্যতম চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকারের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংঘাত। রাজ্যপালের কাজকর্ম বা সরকার সম্পর্কে সমালোচনামূলক কথাবার্তায় বেজায় রুষ্ট মুখ্যমন্ত্রী তিক্ততা কাটাতে ধনকারের সঙ্গে একান্ত বৈঠকে বসতেও রাজি নন। বিশদ

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর মাদ্রাসায় সরাসরি
নিয়োগ নিয়ে বিতর্ক, ব্যবস্থা নিচ্ছে দপ্তর

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রায় চার বছর ধরে আইনি লড়াইয়ের পর রাজ্যের মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমেই সরকারি আর্থিক সাহায্যপ্রাপ্ত মাদ্রাসাগুলিতে শিক্ষক ও অন্যান্য নিয়োগের পক্ষে সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়েছে। কিন্তু গত ৬ জানুয়ারি ওই রায়ের পর রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় সরকারি আর্থিক সাহায্যপ্রাপ্ত অনেকগুলি মাদ্রাসার পরিচালন কর্তৃপক্ষ নিজেরাই সরাসরি দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিশদ

  এবার আলুর ভালো উৎপাদনের আশা
থাকলেও সরকার উদ্বিগ্ন ধসা রোগ নিয়ে

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আবহাওয়াজনিত পরিস্থিতি অনুকূল থাকলে এবার রাজ্যে আলুর উৎপাদন এক কোটি টন ছাড়াতে পারে বলে আশা করছে সরকার। গতবারের থেকে আলুর উৎপাদন কিছুটা বাড়বে।
বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
নয়াদিল্লি, ২১ জানুয়ারি: আগামী শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ শুরু করছে ভারত। গ্লেন টার্নার-রিচার্ড হ্যাডলিদের দেশে পাঁচটি টি-২০, তিনটি একদিনের ম্যাচ এবং দু’টি টেস্ট খেলবে বিরাট ...

 নয়াদিল্লি, ২১ জানুয়ারি (পিটিআই): শিরোমণি অকালি দল সরে গেলেও দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে জোট বেঁধেছে জেডিইউ। সোমবারই সেই ঘোষণা হয়েছে। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি ...

 বিএনএ, বারাকপুর: বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে আরও একটি জুট মিল বন্ধ হয়ে গেল। মঙ্গলবার সকালে টিটাগড়ের এম্পায়ার জুট মিল কর্তৃপক্ষ সাসপেনশন অব ওয়ার্কের নোটিস ঝুলিয়ে দেয়। এতে কাজ হারালেন প্রায় দুই হাজার শ্রমিক। মিল বন্ধের প্রতিবাদে এদিন বিক্ষোভ দেখান শ্রমিকরা। ...

 রাষ্ট্রসঙ্ঘ, ২১ জানুয়ারি (পিটিআই): শুধু ভারত নয়, বেকারত্ব বাড়ছে গোটা বিশ্বেই। এদেশে বেকারত্বের হার বৃদ্ধির অভিযোগকে মান্যতা দেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু বিশ্বে বেকারদের সংখ্যা যে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মরতদের সহকর্মীদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকবে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা ও ব্যবহারে সংযত থাকা দরকার। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৬৬৬: মুঘল সম্রাট শাহজাহানের মৃত্যু
১৯০০ - টেলিপ্রিন্টার ও মাইক্রোফেনের উদ্ভাবক ডেভিট এ্যাডওয়ার্ড হিউজ।
১৯০১: রানি ভিক্টোরিয়ার মৃত্যু
১৯২৭ - প্রথমবারের মতো বেতারে ফুটবল খেলার ধারাবিবরণী প্রচার।
১৯৭২: অভিনেত্রী নম্রতা শিরোদকরের জন্ম





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৩৬ টাকা ৭২.০৬ টাকা
পাউন্ড ৯০.৯৮ টাকা ৯৪.২৫ টাকা
ইউরো ৭৭.৫৪ টাকা ৮০.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৫৩০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৪৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,০৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৬৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৭৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ মাঘ ১৪২৬, ২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার, ত্রয়োদশী ৪৮/৩৬ রাত্রি ১/৪৯। মূলা ৪৪/৫৩ রাত্রি ১২/২০। সূ উ ৬/২২/৩৮, অ ৫/১৩/২৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১০/০ গতে ১১/২৬ মধ্যে পুনঃ ৩/২ গতে ৪/২৮ মধ্যে। রাত্রি ৬/৫ গতে ৮/৪৩ মধ্যে পুনঃ ২/০ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৯/৫ গতে ১০/২৬ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৭ গতে ১/৯ মধ্যে। কালরাত্রি ৩/৬ গতে ৪/৪৪ মধ্যে।
৭ মাঘ ১৪২৬, ২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার, ত্রয়োদশী ৮৯/২৭/৪৪ রাত্রী ২/১৩/৯। মূলা ৪৬/৪২/৪৪ রাত্রি ১/৭/৯। সূ উ ৬/২৬/৩, অ ৫/১১/৩৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৭ মধ্যে ও ১০/০ গতে ৪/৩৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/১৫ গতে ৮/৫০ মধ্যে ও ২/০ গতে ৬/২৬ মধ্যে। কালবেলা ৯/৭/২৭ গতে ১০/২৮/৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৩/৭/২৭ গতে ৪/৪৬/৪৫ মধ্যে।
 ২৬ জমাদিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাস্তা সম্প্রসারণের জন্য জবরদখল উচ্ছেদ, গায়ে আগুন লাগালেন মহিলা 
রাস্তা সম্প্রসারণের জন্য জবর দখল উচ্ছেদের চেষ্টা পুলিস ও প্রশাসনের। ...বিশদ

04:27:00 PM

কলকাতা বইমেলার জন্য শুরু হল অ্যাপ, রয়েছে স্টল খুঁজে পাওয়ার সুবিধাও 

04:13:45 PM

কৃষ্ণনগরে এনআরসি বিরোধিতায় শুরু হল মিছিল, রয়েছেন রাজীব বন্দ্যেপাধ্যায় এবং মহুয়া মৈত্র 

04:02:00 PM

২০৮ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

03:58:42 PM

ইটাহারে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ 
ইটাহারের জয়হাট চেকপোষ্টে আদিবাসীদের জমি দখলের প্রতিবাদে পথ অবরোধ চলছে ...বিশদ

03:48:00 PM

বাংলায় ডিটেনশন ক্যাম্প করতে দেব না: মমতা 

03:43:31 PM