Bartaman Patrika
রাজ্য
 
 

 চলছে লকডাউন। ঘরে থেকেই বহির্জগৎ দর্শন বৃদ্ধার। রবিবার কলকাতায় তোলা নিজস্ব চিত্র।

অন্যের ভুলে পেনশন কমে যাওয়া বৃদ্ধের সওয়ালে
সাড়া দিয়ে অন্তর্বর্তী নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

পল্লব চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: হিসেবের ভুলে বাড়তি অর্থ দেওয়া হলে, প্রাপক যদি তা না বুঝেই খরচ করে ফেলেন, তাহলে দোষী কে? সেই অর্থ কি প্রাপকের থেকে আদায় করতে আইনি পদক্ষেপ করা যায়? অনেকটা এমনই প্রশ্ন নিয়ে সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টে হাজির হয়েছিলেন সৈয়দ আবদুল মালিক। সুদূর মালদহ থেকে রাজ্যের শীর্ষ আদালতে এমন সময়ে তিনি হাজির হয়েছিলেন, যখন আন্দোলনের জেরে আইনজীবীরা শুনানিতে অংশ নিচ্ছেন না। ফলে অবসরপ্রাপ্ত বৃদ্ধের বক্তব্য শুনে বিচার করতে উদ্যোগী হয়েছিলেন বিচারপতি অমৃতা সিনহা।
নর্দান ফ্রন্টিয়ার রেলওয়েজ-এ অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর হিসেবে ২০০৪ সালের ৩০ এপ্রিল তিনি অবসন নেন। রেল কর্তৃপক্ষ তাঁর পেনশন পেমেন্ট অর্ডার পাঠিয়ে দেয় এক রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের হরিশচন্দ্রপুর শাখায়। ওই বছরের ১ মে থেকেই চালু হয়ে যায় তাঁর পেনশন। ২০১৫ সালের ২২ ডিসেম্বর ওই ব্যাঙ্ক তাঁকে জানায়, তার আগের মাস, অর্থাৎ নভেম্বর মাস পর্যন্ত তাঁকে মোট ৪,১২,৯২৮ টাকা বেশি দেওয়া হয়ে গিয়েছে। যে টাকা তাঁকে সাত দিনের মধ্যে ফেরত দিতে হবে। নাহলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যদিও ২০১৭ সালের ২৬ অক্টোবর ব্যাঙ্ক তাঁকে জানায়, প্রতি মাসে তাঁর পেনশন থেকে ওই অর্থ আদায় করার জন্য ৩৫০০ টাকা করে কেটে নেওয়া হবে। পরে তাঁর পেনশনের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় মাসে কেটে নেওয়ার টাকার পরিমাণ বেড়ে হয় ৪৫৫২ টাকা।
চরম বিপাকে পড়ে তিনি আইনজীবী মারফত ব্যাঙ্কের এই পদক্ষেপের বিরোধিতা করেন। কিন্তু, ব্যাঙ্কের সাড়া না পেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। সেখানেও বাধা। আইনজীবীদের আন্দোলনে বিপাকে পড়ে তিনি নিজেই হাজির হন বিচারপতির সামনে। ব্যাঙ্ক তার লিখিত বক্তব্য পেশ করে। সেখানে বলা হয়, ২০০৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০১৫ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত মামলাকারীকে প্রাপ্যের অতিরিক্ত অর্থ দেওয়া হয়েছে। স্রেফ হিসেবের ভুলে। কিন্তু, প্রাপক অশিক্ষিত নন। তিনি জেনেবুঝেই বাড়তি অর্থ ভোগ করেছেন। কখনও জানাননি, বাড়তি টাকা তাঁকে দেওয়া হচ্ছে। এখন বয়সকে ঢাল করে তিনি অসৎ উদ্দেশ্য ঢাকার চেষ্টা করতে পারেন না।
এমন সওয়ালের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি তাঁর রায়ে বলেছেন, ব্যাঙ্কের বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট যে, ২০০৪ সালের মে মাস থেকে ২০০৫ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধকে সঠিক পেনশনই দেওয়া হয়েছে। তারপর যে ভুল হয়েছে, তা মামলাকারী খেয়াল করেননি। মনে রাখতে হবে, পেনশন প্রাপকের পক্ষে মহার্ঘভাতা সহ পেনশনের পরিমাণ হিসেব করা সম্ভব নাও হতে পারে। যে টাকা পেনশন অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে আসছে, সেটাই সঠিক বলে মনে করার মধ্যে অস্বাভাবিকত্ব নেই। তাই প্রশ্ন হল, কোনও ব্যাঙ্ককর্মী যদি হিসেবে ভুল করেন, তার জন্য পেনশন প্রাপক কেন ভুগবেন? সেই ভুলের জেরে কেন পেনশন প্রাপককে এককালীন ভিত্তিতে বাড়তি অর্থ ফেরাতে বলা হবে? দশ বছর ধরে যে হিসেবের ভুল চালু থেকেছে, তার দায় কেন তাঁকে নিতে হবে? ওই বাড়তি অর্থকে কি সরকারের প্রাপ্য বলে ধরা যায়? ব্যাপারটিকে কি ব্যাঙ্কের দায়িত্বজ্ঞানহীনতা বলা যায় না? বিশেষত ব্যাঙ্ক যেখানে বলেনি, ভুলটা ঠিক কার।
ব্যতিক্রমী এই রায়ে সুপ্রিম কোর্টের প্রসঙ্গও এসেছে। কারণ, দেশের শীর্ষ আদালত বলেছে, যদি ভুল তথ্য দিয়ে বা জালিয়াতি করে বাড়তি অর্থ না নেওয়া হয়, যদি ভুল নীতি নেওয়ার ফলে বাড়তি অর্থ দেওয়া হয়ে থাকে, তাহলে কর্মদাতা তা কর্মীর থেকে আদায় করতে পারে না। তবে সুপ্রিম কোর্ট অন্যত্র এও বলেছে, যদি প্রাপ্য না হয়ে থাকে, তাহলে দেওয়া বাড়তি অর্থ সরকারি হলে, তা আদায় করায় বাধা নেই।
এমন বিতর্কের পূর্ণাঙ্গ শুনানি ছাড়া বিষয়টির চূড়ান্ত বিচার সম্ভব নয় জানিয়ে আদালত তাই অন্তর্বর্তী নির্দেশে বলেছে, ৪৫৫২ নয়, পরবর্তী নির্দেশ জারি না হওয়া পর্যন্ত মামলাকারীর পেনশন থেকে ব্যাঙ্ক আপাতত ৩৫০০ টাকা কাটতে পারবে। কিন্তু, তুল্যমূল্য বিচারে এটাই বলতে হবে যে, ব্যাঙ্কের তুলনায় বৃদ্ধই অসুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছেন।

14th  June, 2019
বিনা চিকিৎসায় রেফার করলে কঠোর
শাস্তি, বাতিল হতে পারে লাইসেন্সও

মেডিক্যালের ঘটনায় ক্ষুব্ধ মমতা

বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: মেডিক্যালের পুনরাবৃত্তি আর নয়। চিকিৎসার অভাবে দ্বিতীয় কোনও ‘শুভ্রজিৎ’-এর মৃত্যুও চায় না রাজ্য। রোগীর রেফার প্রশ্নে এবার আরও কঠোর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিযোগ উঠলেই কড়া দাওয়াই। কী সেই দাওয়াই? শো-কজ, সাসপেন্ড। এমনকী অভিযুক্ত হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিলের মতো কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে পারে স্বাস্থ্য দপ্তর।
বিশদ

জোর ডিজিটাল পঠনপাঠনে
নেট-নিরাপত্তার পাঠ দিতে শিক্ষকদের
‘সাইবার হাইজিন’ প্রশিক্ষণ দেবে রাজ্য

রাজু চক্রবর্তী, কলকাতা: করোনা মোকাবিলায় ব্যক্তিগত হাইজিনের উপর সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কিন্তু বিপদ লুকিয়ে আছে অন্যত্রও। করোনা পরিস্থিতিতে সর্বত্র ভিড় কমাতে জোর দেওয়া হয়েছে অনলাইনে। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সাইবার অপরাধ।
বিশদ

আশার আলো দেখছে ইমিটেশন গয়না
শিল্পে যুক্ত হুগলির অনেক পরিবার
ভারত-চীন সংঘাত

 অভিজিৎ চৌধুরী, চুঁচুড়া: ইমিটেশন গয়না শিল্পের অন্য‌তম কাঁচামাল কিউবিক জারকনিয়া বা নকল হীরের মূল জোগানদার ছিল চীন। নকল হীরে এদেশে পাওয়া গেলেও চীনের দাম সস্তা হওয়ায় হুগলির ইমিটেশন শিল্পীদের কাছে তা দ্রুত জনপ্রিয় হয়েছিল।
বিশদ

‘সোনার বাংলা’ যেন মুর্শিদাবাদের বিকাশ দুবে,
নাম শুনলেই আঁতকে ওঠেন প্রভাবশালীরা

 সুখেন্দু পাল, বহরমপুর: তার নাম মুখে নেওয়ার দরকার নেই। মুর্শিদাবাদের যে কোনও প্রান্তে গিয়ে স্রেফ ‘সোনার বাংলা’ বললেই যথেষ্ট। তাতেই অনেকের হাড়ে কম্পন ধরে যাবে। দিল্লি পর্যন্ত লম্বা হাত থাকায় তাবড় পুলিস কর্তা থেকে দাপুটে নেতা সকলেই তাকে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে।
বিশদ

ন্যাটমোর তৈরি কোভিড-১৯ ড্যাশবোর্ডে পাওয়া
যাচ্ছে যে কোনও জেলার শেষতম তথ্য

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বিভিন্ন সংস্থা কোভিড আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা আলাদা আলাদা করে দেখাচ্ছে। ফলে সাধারণ মানুষের মধ্যেও একটা বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে। তাই দেশ এবং রাজ্যগুলির কোভিড আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যার তথ্যের সমতা আনতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে ন্যাশনাল অ্যাটলাস অ্যান্ড থিম্যাটিক ম্যাপিং অর্গানাইজেশন বা ন্যাটমো। বিশদ

৪০০’র বেশি স্বাস্থ্যকর্মীকে
বদলি বাড়ির কাছেই
কথা রাখলেন মমতা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বদলির পর বাড়ির কাছেই কাজের সুযোগ পেলেন চারশোর বেশি স্বাস্থ্যকর্মী। শুক্রবার ৪১৫ জন মেডিক্যাল টেকনোলজিস্টকে রাজ্যের বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র, হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজে বদলি করা হয়েছে।
বিশদ

শীঘ্রই বেশ কিছু চাকরির পরীক্ষার
ফল প্রকাশের ঘোষণা পিএসসির

 কৌশিক ঘোষ, কলকাতা: লকডাউন এখনও পুরোপুরি শেষ হয়নি। এর মধ্যে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে নতুন কর্মী নিয়োগ শুরু হয়ে গেল। করোনা সংক্রমণের আপদকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য স্বাস্থ্যদপ্তরে শূন্যপদ পূরণ হচ্ছে। অন্যান্য দপ্তরও রাজ্য পাবলিক সার্ভিস কমিশনের (পিএসসি) সুপারিশ অনুযায়ী প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সফল প্রার্থীদের নিয়োগ শুরু করেছে।
বিশদ

করোনা পরিস্থিতিতেও খরিফ
মরশুমে বেশি জমিতে চাষ হচ্ছে

  নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: করোনা পরিস্থিতিতে সব কিছুই একপ্রকার থমকে থাকলেও কৃষিতে তেমন প্রভাব পড়েনি। খরিফের চাষ শুরু হয়েছে যথাসময়ে। এমনকী গতবারের চেয়ে অধিক জমিতে ফসল বোনা হচ্ছে বলেই জানিয়েছে কৃষিমন্ত্রক। চাষের এলাকা বাড়ার পাশাপাশি বর্ষার পূর্বাভাসও সন্তোষজনক।
বিশদ

উঁচু ক্লাসের শিক্ষক বদলি নিয়ে
সমস্যা মিটছে না, হয়রানি

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্য সরকারের সদিচ্ছা থাকলেও, শিক্ষক বদলি প্রক্রিয়া ধাক্কা খাচ্ছে বিভিন্ন কারণে। কোথাও বদলির অর্ডার নিয়ে হন্যে হয়ে ডিআই অফিসে জুতোর শুকতলা ক্ষইয়ে ফেলছেন মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষকরা।
বিশদ

‘অনাহারের’ আমলাশোল
হয়ে উঠছে মডেল গ্রাম

রঞ্জন পাল, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়খণ্ড সীমান্তবর্তী বেলপাহাড়ির আমলাশোল গ্রামকে একসময় অনাহারের গ্রাম হিসেবেই রাজ্যের মানুষ চিনতেন। এখন সেই আমলাশোলকেই ‘মডেল গ্রাম’ তৈরি করছে জেলা প্রশাসন। দেড় কোটি টাকা খরচে গ্রামের সার্বিক উন্নয়নের কাজ জোরকদমে চলছে। অধিকাংশ কাজই শেষের মুখে।
বিশদ

রাজ্যে ১৮৬ কিষান মান্ডি
তৈরির লক্ষ্যমাত্রা সম্পূর্ণ

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রথমবার রাজ্যে ক্ষমতার আসার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্পগুলির মধ্যে অন্যতম ছিল গ্ৰামীণ এলাকায় ব্লক ভিত্তিক কৃষক বাজার বা কিষান মান্ডি তৈরি করা। মোট ১৮৬টি কৃষক বাজার তৈরির লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়েছে। বিশদ

স্থানীয় সামগ্রী, শিল্পকে জাতীয় পণ্যের তকমা দিয়ে ‘আত্মনির্ভর ভারত’ গড়ুন
রাজ্যের ১৮ জন সাংসদ ও নেতাদের নির্দেশ বিজেপির 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বুথস্তরে সংগঠন মজবুত করতে কেবল বৈঠক করলেই চলবে না। স্থানীয় এলাকার বিখ্যাত দ্রব্য, শিল্পকলা সহ পরিচিত সামগ্রী তথা উদ্যোগ সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে হবে। স্থানীয় পণ্যকে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডিং দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর আত্মনির্ভর ভারতের স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে হবে।  
বিশদ

 উম-পুনে ক্ষতিগ্রস্ত পাঠাগার সংস্কারের
শুভারম্ভ করলেন বিধানসভার অধ্যক্ষ

  সংবাদদাতা, বারুইপুর: রবিবার সকালে বারুইপুরের মদারাট বান্ধব পাঠাগারের সংস্কার কাজের উদ্বোধন এবং ওই এলাকাতেই প্রস্তাবিত শিশু উদ্যানের শিলান্যাস করলেন বিধানসভার অধ্যক্ষ তথা বিধায়ক বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। উম-পুনের দাপটে ক্ষতি হয়েছিল এই পুরাতন পাঠাগারের। বিশদ

চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের পিএফ’এর কাজ
কতদূর, জানতে চাইল বিকাশ ভবন

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: অর্ডার হয়েছিল গত বছরের জুলাইয়ে। কিন্তু এখনও প্রভিডেন্ট ফান্ড চালু হয়নি উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের। এবার বিষয়টি নিয়ে ডিআইদের তাগাদা দিল বিকাশ ভবন।
বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাসত: উম-পুনে ক্ষতিগ্রস্ত প্রান্তিক মানুষ ও স্বসহায়ক দলগুলিকে নিজের পায়ে দাঁড়াতে হাঁস ও মুরগির বাচ্চা দেওয়ার পাশাপাশি তাদের এক মাসের খাবারও কিনে দেবে ...

মাদ্রিদ: রিয়াল মাদ্রিদের লিগ জয় কার্যত নিশ্চিত। অঘটন না ঘটলে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই খেতাব জিতবে জিনেদিন জিদান-ব্রিগেড। লিগ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা বার্সেলোনার চেয়ে ...

  নয়াদিল্লি: ফের বাড়ল ডিজেলের দাম। দু’সপ্তাহ আগে দিল্লিতে প্রথমবার ডিজেলের মূল্য লিটার প্রতি ৮০ টাকা ছাড়িয়েছিল। রবিবার তা প্রতি লিটারে ১৬ পয়সা বেড়ে ৮১ ...

সুমন তেওয়ারি  আসানসোল: করোনার দাপটের মধ্যেই এবার ডেঙ্গু হানা দিল পশ্চিম বর্ধমান জেলায়। স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, আসানসোল, দুর্গাপুর সহ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে এখনও ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীরা বেশ কিছু সুযোগের সংবাদে আনন্দিত হবেন। বিদ্যার্থীরা পরিশ্রমের সুফল নিশ্চয় পাবে। ভুল সিদ্ধান্ত থেকে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৩০: কলকাতায় দ্য জেনারেল অ্যাসেম্বলিজ ইনস্টিটিউশন, অধুনা স্কটিশ চার্চ কলেজ প্রতিষ্ঠা করলেন আলেকজান্ডার ডাফ এবং রাজা রামমোহন রায়
১৯০০: অভিনেতা ছবি বিশ্বাসের জন্ম
১৯৪২: মার্কিন অভিনেতা হ্যারিসন ফোর্ডের জন্ম
১৯৫৫: সাহিত্যিক আশাপূর্ণা দেবীর মৃত্যু
২০১১: মুম্বইয়ে ধারাবাহিক তিনটি বিস্ফোরণে হত ২৬, জখম ১৩০
২০১৩: বোফর্স কান্ডে অভিযুক্ত ইতালীয় ব্যবসায়ী অত্তাভিও কাত্রোচ্চির মৃত্যু।



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৩১ টাকা ৭৬.০৩ টাকা
পাউন্ড ৯৩.০০ টাকা ৯৬.২৯ টাকা
ইউরো ৮৩.২৩ টাকা ৮৬.২৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
11th  July, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯,৯৪০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,৩৮০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮,০৯০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫২,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫২,২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জুলাই ২০২০, সোমবার, অষ্টমী ৩২/৪৫ অপঃ ৬/১০। রেবতী ১৫/২৫ দিবা ১১/১৪। সূর্যোদয় ৫/৩/৫২, সূর্যাস্ত ৬/২০/৩৮। অমৃতযোগ দিবা ৮/৩৬ গতে ১০/২২ মধ্যে। রাত্রি ৯/১২ গতে ১২/৪ মধ্যে পুনঃ ১/৩০ গতে ২/৫৫ মধ্যে। বারবেলা ৬/৪৩ গতে ৮/২২ মধ্যে পুনঃ ৩/১ গতে ৪/৪১ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/২১ গতে ১১/৪২ মধ্যে।
২৮ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জুলাই ২০২০, সোমবার, অষ্টমী অপরাহ্ন ৫/০। রেবতী নক্ষত্র দিবা ১১/৮। সূযোদয় ৫/৩, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ৮/৩৬ গতে ১০/২৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/১৩ গতে ১২/৪ মধ্যে ও ১/২৯ গতে ২/৫৫ মধ্যে। কালবেলা ৬/৪৩ গতে ৮/২৩ মধ্যে ও ৩/৩ গতে ৪/৪৩ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/২৩ গতে ১১/৪৩ মধ্যে।
২১ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
গুজরাটে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৯০২ 
গুজরাটে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯০২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু ...বিশদ

08:06:12 PM

মহারাষ্ট্রে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৬,৪৯৭ 
মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ হাজার ৪৯৭ জন করোনায় আক্রান্ত ...বিশদ

07:52:00 PM

উত্তর প্রদেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১,৬৬৪ 
উত্তর প্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৬৬৪ জন করোনায় ...বিশদ

07:47:39 PM

২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ১,৪৩৫
গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১,৪৩৫ জন। ...বিশদ

07:47:36 PM

তামিলনাড়ুতে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৪,৩২৮ 
তামিলনাড়ুতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৩২৮ জন করোনায় আক্রান্ত ...বিশদ

06:40:21 PM

অন্ধ্রপ্রদেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১,৯৩৫ 
অন্ধ্রপ্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৯৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত ...বিশদ

05:53:11 PM