Bartaman Patrika
কলকাতা
 
 

হালিশহর থেকে কলকাতা এবং গঙ্গাসাগর পর্যন্ত যাওয়ার জন্য গঙ্গাবক্ষে বাতানুকূল ওয়াটার বাস চালু হল। হালিশহর পুরসভার উদ্যোগে এই নয়া অত্যাধুনিক জলযান হালিশহর থেকে শেওড়াফুলি, চন্দননগর হয়ে কলকাতা পৌঁছবে। মঙ্গলবার হালিশহর ঘাটে এই জলযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পুরসভার প্রশাসক রাজু সাহানি, নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিক, বীজপুরে তৃণমূলের চেয়ারম্যান সুবোধ অধিকারী, কাঁচরাপাড়া পুরসভার প্রশাসক সহ বিশিষ্টরা। ১৫৬ আসন বিশিষ্ট এই জলযান সোম থেকে শুক্রবার পর্যন্ত হালিশহর থেকে কলকাতার মিলেনিয়াম জেটি পর্যন্ত যাবে। শনি এবং রবিবার কলকাতা হয়ে গঙ্গাসাগর পর্যন্ত যাতায়াত করবে। অনলাইন এবং অফলাইনে টিকিট কাটা যাবে। টিকিট মূল্য ২৩০ টাকা। -নিজস্ব চিত্র

 মন্দার ছাপ মঙ্গলাহাটেও, চড়া সুদে ঋণ নিয়ে বিক্রিবাটা না হওয়ায় দুশ্চিন্তায় ব্যবসায়ীরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: পুজোর বাজার ভালো হবে এই আশা করে চড়া সুদে ১ লক্ষ টাকা ধার করে রেডিমেড শার্ট-প্যান্ট তুলেছিলেন হাওড়ার মঙ্গলাহাটের খুচরা ব্যবসায়ী অজিত পাল। তার জন্য আগস্ট মাস থেকে সুদও গুনতে হচ্ছে তাঁকে। কিন্তু, পুজোর আর একমাসও বাকি নেই। এই অবস্থায় তাঁর বিক্রি নেই বললেই চলে। শুধু তিনি নন। হাওড়ার মঙ্গলাহাট ও সংলগ্ন এলাকায় ঘুরে মঙ্গলবার এই চিত্রই ফুটে এল। আর্থিক মন্দা এতটাই গ্রাস করেছে যে, পুজোর একমাস আগেও সেভাবে বিক্রিবাটা হচ্ছে না।
ব্যবসায়ীরা বলেছেন, গত বছর পুজোর বাজার তুলনামূলক খারাপ হয়েছিল। কিন্তু, এবার অবস্থা খুবই খারাপ। পুজোর একমাস যেখানে বাকি নেই, সেখানে ছুটির দিনেও বাজার বেশ ফাঁকা। কিন্তু, এমন অবস্থা কেন? ব্যবসায়ীরা বলেছেন, প্রতিটি সেক্টরে আর্থিক মন্দা চলছে। মানুষের হাতে টাকা নেই। পুজোর বাজার করবেন কী করে? আগে সারা মাসে আমাদের যেখানে রোজগার হত ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা, সেখানে গত কয়েক মাস ধরে আমাদের গড়ে ১২ হাজার টাকার বেশি রোজগার হচ্ছে না।
হাওড়ার মঙ্গলাহাটে পুজোর বড় অঙ্কের কেনাবেচা হয়। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্যবসায়ীরা এখান থেকে জামা-কাপড় কিনে নিয়ে যান। এখন প্রতি সোমবার পাইকারি বাজার বসে ও মঙ্গলবার খুচরা বাজার বসে। এখনও সময় আছে, এই আশায় রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের ব্যবসায়ীরা কিছু পাইকারি হারে জিনিস কিনলেও ছোট ব্যবসায়ীদের অবস্থা খুবই খারাপ। গত বছরও পুজোর এক মাস আগে থেকে ময়দান চত্বরে মঙ্গলাহাটে হাঁটাচলা করা কঠিন হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু, এবার সেই পরিচিত দৃশ্য উধাও। সারা বছর যেভাবে কিছু খরিদ্দার আসেন, এখনও সেই দৃশ্য।
মঙ্গলাহাটের জন্য জি টি রোডে যান চলাচল কঠিন হয়ে পড়ে অন্যান্য বছর পুজোর আগে। কিন্তু, গত মঙ্গলবার বা এদিন যান চলাচল স্বাভাবিকভাবেই গাড়ি চলেছে। অর্থাৎ পরিচিত সেই ভিড় উধাও। জি টি রোডের ধারে রেডিমেড পোশাক নিয়ে বসা ব্যবসায়ী উৎপল ভৌমিক বলেন, আমরা ডোমজুড়, নিবড়া প্রভৃতি এলাকা থেকে রেডিমেড পোশাক কিনে এখানে বিক্রি করি। দাম কিছুটা সস্তা হয় বলে বিক্রিবাটাও প্রতি বছর ভালো হয়। কিন্তু, এবার অবস্থা খুবই খারাপ। যাঁরা জামাকাপড় তৈরি করেন, তাঁরা আমাদের উপর জিনিস কেনার জন্য চাপ দিচ্ছেন। কিন্তু, বিক্রি না হলে টাকা শোধ করব কী করে?
একই কথা বললেন আর এক ব্যবসায়ী রমজান আলি। তিনি বলেন, আমরা বাড়িতে জরির কাজ করে এখানে মাল বিক্রি করি। কিন্তু, এবার সেভাবে বাজার হয়নি। ইদের সময়ও আমাদের ভালো বাজার হয়। কিন্তু, এবার তাও হয়নি। পুজোর বাজারের আশায় আমরা সারা বছর বসে থাকি। কিন্তু, বছরের অন্যান্য সময় যেমন টুকটাক বিক্রিবাটা হয়, এখন তাই হচ্ছে। অথচ কয়েক বছর আগেও পুজোর আগে আমরা মাল দিয়ে শেষ করতে পারতাম না। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকেও আমাদের কাছে জরির কাজ করা চুড়িদার, কুর্তি কিনে নিয়ে যেতেন ব্যবসায়ীরা। কিন্তু, তাঁরাও এবার কম মাল তুলেছেন। শুধু ছোট ব্যবসায়ীরা নন, শহরের বড় বড় কাপড়ের দোকানেও তুলনামূলক কম ভিড়। ব্যবসায়ীরা মনে করছেন, এখনও বহু সংস্থায় পুজোর বোনাস হয়নি। তাই হয়তো কিছুটা দেরিতে বাজার শুরু হবে। তবে যাঁরা বোনাসের উপর নির্ভর না করেই প্রতি বছর বাজার করেন, তাঁদেরও সেভাবে দেখা পাওয়া যাচ্ছে না। যা চিন্তায় ফেলেছে ব্যবসায়ীদের। সকলেরই চিন্তা, পুজোর বাজারের আশায় ঋণ নিয়ে অনেক মাল তুলেছেন অনেকে। এখন সেই ঋণের টাকা শোধ করবেন কী করে?

11th  September, 2019
উম-পুন বিধ্বস্ত মানুষের পাশে থাকতে
তিনটি পুজো দমদম পার্ক তরুণ দলের

জেগে ওঠার বার্তা ভারতচক্রের

পুজো মানে শুধু ফুল-মন্ত্র-প্রতিমা নয়। যন্ত্রণা যায় না কোনও মন্ত্রেই। মানুষের পাশে, একটু সহানুভূতি নিয়ে দাঁড়ানোর নাম জীবন। এই অনুভূতিই স্বতন্ত্র করে তুলেছে দমদম পার্ক তরুণ দলের দুর্গাপুজোকে। করোনার ধাক্কা নেমেছে মাতৃবন্দনার বাজেটে। কিন্তু প্রান্তিক মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে তা বাধা হয়নি। অল্প বাজেটে এবার একটা নয়, তিন-তিনটে পুজো হচ্ছে। প্রথমটি চেনা জায়গায়। দমদম পার্কে। বাকি দুটো? শহর-শহরতলি ছাড়িয়ে। বিশদ

কোর্টের রায়ের প্রভাব নেই
মহানগরের পুজো-বাজারে
চতুর্থীতেও উদ্দাম কেনাকাটা, উদাসীনতা চরমে

‘মণ্ডপে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা, রাস্তায় বেরোতে তো নয়।’ স্পষ্ট কথায় কষ্ট নেই মঙ্গলবার নিউমার্কেটে কেনাকাটা করতে অশ্বিনী সেনের। আদালতের রায়ে শহরবাসী যে উদাসীন তা বোঝা গেল শহরের বিভিন্ন বাজারে আমজনতার কেনাকাটার ফিনিশিং টাচ দেখেই। চতুর্থীর গোধূলিতে নিউ মার্কেট চত্বরে পূজোর কেনাকাটায় ভিড় ছিল উল্লেখযোগ্য। একই অবস্থা দক্ষিণের গড়িয়াহাট চত্বরে। সন্ধে ছ’টা। গড়িয়াহাটের দু’পারের ফুটপাতে করোনা বিধি তখন শিকেয় উঠেছে। বিশদ

‘সন্তানের’ মৃতদেহের সঙ্গে
মেলেনি মা-বাবার ডিএনএ
সিট গঠনের নির্দেশ, ফাঁপরে আর জি কর

যে শিশুর মৃতদেহ তাঁদের দেখানো হয়েছিল, সে তাঁদের সন্তান নয় বলে জানিয়েছিলেন বাবুন মণ্ডল ও তাঁর স্ত্রী। ডিএনএ পরীক্ষায় তাঁদের দাবিই প্রমাণিত হয়েছে। তাহলে কোথায় গেল মণ্ডল দম্পতির সন্তান? সে কি বেঁচে আছে? হাসপাতাল থেকেই কি পাচার হয়ে গিয়েছে সদ্যোজাত? এমন হাজারো প্রশ্ন উঠে এসেছে ডিএনএ রিপোর্ট সামনে আসতেই। হাইকোর্ট এই রিপোর্টের ভিত্তিতে স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম বা সিট গঠন করতে নির্দেশ দিয়েছে।
বিশদ

শহরে উদ্ধার উন্নত দেশি সিঙ্গল শটার
গ্রেপ্তার ২, ‘কারখানা’ শ্রীরামপুরে, সান্টিয়া-যোগ

পুজোর মুখে স্ট্র্যান্ড রোড থেকে ধরা পড়ল দুই অস্ত্র কারবারি। সোমবার রাতে কলকাতা পুলিসের এসটিএফ তাদের গ্রেপ্তার করেছে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে আটটি বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র ও একটি বাইক। বন্দর এলাকায় এগুলি পৌঁছে দিতে যাচ্ছিল তারা। কে বা কারা এই আগ্নেয়াস্ত্রের ক্রেতা, তারা আর কোন কোন জায়গায় এই অস্ত্র সরবরাহ করে, তা ধৃতদের জেরা করে জানার চেষ্টা চলছে। এদের সঙ্গে চিৎপুর-কাণ্ডে মৃত সান্টিয়ার যোগাযোগের কথাও উঠে এসেছে তদন্তে।
বিশদ

করোনা সুরক্ষাবিধি মেনেই বারুইপুরে মহিষাসুরমর্দিনীর আবাহনের আয়োজন

 শরতের নীল আকাশে সাদা পেঁজা তুলোর মত মেঘের আনাগোনা। হাওয়ায় দুলছে কাশফুল। বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছে শিউলির গন্ধ। দোরগোড়ায় শারদোৎসব এসে হাজির। বিশদ

মল্লরাজবাড়িতে দেবীর তিন রূপ
জমিদারবাড়ির পুজোয় এসেছিলেন রামকৃষ্ণ

একই মহকুমায় একটি রাজবাড়ি ও তিনটি জমিদার বাড়ির পুজো। এমনই বিরল ঐতিহ্য বহন করছে বিষ্ণুপুর। মল্লরাজবাড়ি, পাত্রসায়রের হদলনারায়ণপুর, ইন্দাসের সোমসার এবং কোতুলপুরের জমিদারবাড়ির পুজো। জমিদারি আর নেই। কিন্তু রয়ে গিয়েছে পুরানো সেই ঠাকুরদালান। সেখানেই ঐতিহ্য মেনে পুজো হয়। করোনা আবহ সত্ত্বেও আয়োজনে খামতি নেই। এলাকাবাসীও দিন গুনছে চারটি ঐতিহ্যশালী পুজো দেখার জন্য। মল্লরাজবাড়ির পুজো জিতাষ্টমীর পরের দিন শুরু হয়।
বিশদ

ডাম্পারের চাকায় চুল জড়িয়ে পিষে
গেলেন মহিলা, আহত কন্যা-স্বামী

ডাম্পারের ধাক্কায় প্রাণ গেল বাইকআরোহী এক মহিলার। ওই মহিলার স্বামী বাইক চালাচ্ছিলেন। এছাড়াও বাইকে ছিল তাঁদের সাড়ে তিন বছরের এক শিশুকন্যা। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। সোমবার রাতে বালিটিকুরি রেলব্রিজের কাছে এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। ক্ষুব্ধ বাসিন্দারা রাতেই ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে রীতিমতো তাণ্ডব চালান। এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। এমনকী পুলিসকর্মীকে মারধর, তাদের গাড়ি ভাঙচুরও করা হয়।  বিশদ

ইলিয়ট রোড
বড় অভিযান এসটিএফের, উদ্ধার ১ কোটি ৬৫ লক্ষ টাকা

 ইলিয়ট রোডে একটি বাড়িতে হানা দিয়ে নগদ এক কোটি ৬৫ লক্ষ টাকা উদ্ধার করল কলকাতা পুলিসের এসটিএফ। সোমবার রাতে ওই বাড়িতে আচমকা হানা দেন এসটিএফের আধিকারিকরা। বিশদ

করোনাসুরকে বধ করুন দশভুজা আর্তি নিয়ে আয়োজনে বেলঘরিয়া

 গোটা বিশ্ব এখন ‘করোনাসুরে’র দাপটে বিপন্ন! বিশ্বমারি এই ভাইরাসের আগ্রাসন থেকে বাঁচতে মরিয়া প্রত্যেকেই। মাটি আঁকড়ে চলছে করোনা প্রতিরোধের লড়াই। বিশদ

পুজোয় বৃষ্টির ভ্রূকুটি, সামলাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে কলকাতা পুরসভা

 জোর দিনগুলিতে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিচ্ছে আবহাওয়া দপ্তর। ফলে স্বাভাবিকভাবেই শহরের নিকাশি ব্যবস্থা সচল রাখতে তৎপর কলকাতা পুরসভা। বিশদ

 শর্তসাপেক্ষে বায়ো টয়লেটের অনুমতি পুজো কমিটিগুলিকে

 এই করোনাকালে শারদীয়া দুর্গোৎসবে পুজো কমিটিগুলি মণ্ডপ চত্বরে বায়ো-টয়লেট বসাতে চাইলে, তার ব্যবহারে সুরক্ষা বিধির দিকে বিশেষ নজর রাখতে হবে তাদের। বিশদ

আশা আর আশঙ্কায়
বিশবিশের পেটপুজো

 পেটপুজো ছাড়া পুজোর আনন্দটাই অসম্পূর্ণ! রাস্তার ধারের রোল থেকে নামী রেস্তরাঁর বিরিয়ানি, মটন চাপ চেখে দেখতে লম্বা লাইন বরাবরের চেনা ছবি। পুজোর ক’টা দিন অনেকের বাড়িতে কার্যত রান্নাঘরে তালা পড়ে যায়! হয় পাড়ার মণ্ডপে বসে সকলে মিলে খাওয়া-দাওয়া। নতুবা ঠাকুর দেখতে বেরিয়ে মন ও পেটের তৃপ্তি মেটানো।
বিশদ

তিনি কোভিড রোগী,
তিনিই চিকিৎসক

ঢেঁকির স্বভাব যেমন ধান ভানা, তেমন ওঁর স্বভাবও রোগী দেখা। নিজে কোভিড আক্রান্ত হয়েও ফাঁক পেলেই কোভিড রোগীদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তিনি রোগী, আবার তিনি চিকিৎসকও। একের পর এক করোনা যোদ্ধা এখন করোনা আক্রান্ত। নার্স থেকে মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট, সাধারণ কর্মী থেকে চিকিৎসক। বিশদ

 এন্টালিতে বাড়ির একাংশ ভেঙে মৃত

 এন্টালির ১৭ নম্বর কনভেন্ট রোডে একটি পরিত্যক্ত কারখানার জমিতে ভাঙাচোরা দোতলা বিল্ডিংয়ের ছাদের একাংশ ভেঙে পড়লে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বিশদ

Pages: 12345

একনজরে
 জম্মুর কাটরায় শুরু হল ‘নবরাত্রি উৎসব’। আনুষ্ঠানিকভাবে উৎসবের সূচনা করেন উত্তর-পূর্বাঞ্চল উন্নয়ন মন্ত্রকের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং। ...

সংবাদদাতা, পূর্বস্থলী: পূর্বস্থলীর মুকশিমপাড়ায় হালদার বাড়ির সন্ধিপুজোর প্রাক্কালে এককালে কামান দাগা হতো। সেই শব্দ শুনে প্রজারা আসতেন জমিদার বাড়ির দুর্গাপুজো দেখতে। বর্তমানে পরিবারের সেই জমিদারি প্রথা আর নেই।  ...

 চীনকে চাপে রাখতে তাইওয়ানের সঙ্গে সখ্যতা বাড়াতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। তাইওয়ান বরাবরই ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও গভীর করতে আগ্রহ দেখিয়েছে। তবে চীনের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হতে পারে আশঙ্কায় ভারত এখনও পর্যন্ত তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনে তেমন আগ্রহ দেখায়নি। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, জলপাইগুড়ি: মণ্ডপে মণ্ডপে গিয়ে নয়, এবার পুজো দেখা যাবে স্মার্ট মোবাইল ফোনেই। দরকার শুধু ইন্টারনেট সংযোগ। ভিড় এড়াতে জলপাইগুড়ি শহরের বেশ কয়েকটি বিগ বাজেটের বারোয়ারি পুজো কমিটি এবার এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যায় সাফল্য ও হতাশা দুই-ই বর্তমান, নতুন প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠবে। কর্মপ্রার্থীদের শুভ যোগ আছে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০৫: ত্রাফালগারের যুদ্ধে ভাইস অ্যাডমিরাল লর্ড নেলসনের নেতৃত্বে ব্রিটিশ নৌবাহিনীর কাছে পরাজিত হয় নেপোলিয়ানের বাহিনী
১৮৩৩: ডিনামাইট ও নোবেল পুরস্কারের প্রবর্তক সুইডিশ আলফ্রেড নোবেলের জন্ম
১৮৫৪: ক্রিমিয়ার যুদ্ধে পাঠানো হয় ফ্লোরেন্স নাইটেঙ্গলের নেতৃত্বে ৩৮ জন নার্সের একটি দল
১৯৩১: অভিনেতা শাম্মি কাপুরের জন্ম
১৯৪০: আর্নেস্ট হেমিংওয়ের প্রথম উপন্যাস ফর হুম দ্য বেল টোলস-এর প্রথম সংস্করণ প্রকাশিত হয়
১৯৪৩: সিঙ্গাপুরে আজাদ হিন্দ ফৌজ গঠন করলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু
১৯৬৭: ভিয়েতনামের যুদ্ধের প্রতিবাদে আমেরিকার ওয়াশিংটনে এক লক্ষ মানুষের বিক্ষোভ হয়
২০১২: পরিচালক ও প্রযোজক যশ চোপড়ার মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৫৪ টাকা ৭৪.২৫ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৪০ টাকা ৯৬.৭১ টাকা
ইউরো ৮৪.৮৭ টাকা ৮৮.০২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫১,৭৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৯,১০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৯,৮৪০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬২,৬৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬২,৭৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

 ৪ কার্তিক, ১৪২৭, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, পঞ্চমী ৮/৪২ দিবা ৯/৮। মূলানক্ষত্র ৪৮/৫৫ রাত্রি ১/১৩। সূর্যোদয় ৫/৩৯/২১, সূর্যাস্ত ৫/৩/১৭। অমৃতযোগ দিবা ৬/২৫ মধ্যে পুনঃ ৭/১০ গতে ৭/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১০/১৩ গতে ১২/৩০ মধ্যে। রাত্রি ৫/৫৪ গতে ৬/৪৫ মধ্যে পুনঃ ৮/২৫ গতে ৩/৯ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/২৫ গতে ৭/১০ মধ্যে পুনঃ ১/১৫ গতে ৩/৩২ মধ্যে। বারবেলা ৮/৩০ গতে ৯/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১১/২১ গতে ১২/৪৭ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩১ গতে ৪/৬ মধ্যে।
৪ কার্তিক, ১৪২৭, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, পঞ্চমী দিবা ২/৪৫। জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র দিবা ৮/২১। সূর্যোদয় ৫/৪০, সূর্যাস্ত ৫/৪। অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৩ মধ্যে ও ৭/১৮ গতে ৮/২ মধ্যে ও ১০/১৪ গতে ১২/২৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৬/৩৫ মধ্যে ও ৮/১৯ গতে ৩/১৪ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/৩৩ গতে ৭/১৮ মধ্যে ও ১/১১ গতে ৩/২৩ মধ্যে। কালবেলা ৮/৩১ গতে ৯/৫৭ মধ্যে ও ১১/২২ গতে ১২/৪৮ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩১ গতে ৪/৬ মধ্যে।
 ৩ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
জয়নগরে মহিলা খুনের কিনারা, ধৃত ৩ 
জয়নগরে মহিলার দ্বিখণ্ডিত দেহ উদ্ধারের ঘটনার কিনারা করল পুলিস। ঘটনায় ...বিশদ

11:35:36 AM

ওড়িশায় একটি জালনোটের কারখানার হদিশ, গ্রেপ্তার ২
ওড়িশার নয়াগড়ে একটি বাড়িতে জালনোটের কারখানার হদিশ মিলল। বুধবার এই ...বিশদ

11:35:26 AM

 পাকিস্তানে একটি চারতলা বাড়িতে বিস্ফোরণে মৃত ৩, আহত ১৫
পাকিস্তানে একটি চারতলা বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।আহত ...বিশদ

11:18:31 AM

 কোঝিকোড় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফের ১,৮৮৬ গ্রাম চোরাই সোনা উদ্ধার

11:04:00 AM

 আজ দিনের শুরুতে সেনসেক্স উঠল ৪০২ পয়েন্ট

10:52:00 AM

 দীঘার হোটেলে শিরা ও নলি কেটে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা
দীঘায় বেড়াতে এসে ব্লেড দিয়ে গলার নলি ও হাতের শিরা ...বিশদ

10:51:55 AM