দেশ

রাজস্ব বাড়াতে করের হার কমানোর পক্ষে সওয়াল আর্থিক বিশেষজ্ঞদের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ২০৪৭ সালের মধ্যে ২৫ লক্ষ কোটি মার্কিন ডলার অর্থনীতির স্বপ্ন ফেরি করছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই লক্ষ্যে পৌঁছতে হলে দেশের কর ব্যবস্থা ঢেলে সাজতে হবে। এমনটাই দাবি জানাল কর্পোরেট কর্তা, শিক্ষাবিদ ও অর্থনীতির বিশেষজ্ঞদের মঞ্চ থিঙ্ক চেঞ্জ ফোরাম। তাদের বক্তব্য, করের হার বাড়িয়ে বেশি অঙ্কের রাজস্ব আদায় করা ভারতের মতো বড় দেশের লক্ষ্য হতে পারে না। বরং করের বোঝা কমিয়ে এনে, আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে করব্যবস্থার আওতায় এনে রাজস্ব বৃদ্ধি সম্ভব।
এক আলোচনাসভায় একটি শিল্প উপদেষ্টা সংস্থার অন্যতম কর্ণধার সুধীর কাপাড়িয়া বলেন, চিরাচরিত ধারণা, উচ্চ হারের করে ভালো অঙ্কের রাজস্ব আদায় হয়। কিন্তু সেই ধাররণা যে ভুল, তা প্রমাণিত। ১৯৯১ সাল থেকে ভারত মধ্যমানের কর কাঠামো ধরে রাখার চেষ্টা করছে। দেশের আর্থিক পরিস্থিতি সামাল দিয়ে কতটা কর কমানো যেতে পারে, সেই বিষয়ে চিন্তাভাবনা দরকার। এখন নতুন করে করকাঠামো সংস্কারের সময় এসেছে। ব্যবসার ক্ষেত্রে করের একটিমাত্র হার রাখা উচিত। সাধারণ মানুষের জন্য তিনরকমের করের হার কার্যকর করা উচিত, যেগুলি হবে কম ও মধ্য মাপের। করের উপর কোনও সারচার্জ বা সেস চাপানো উচিত নয়। মূলত আয়করের ক্ষেত্রেই এই পরামর্শ দিয়েছেন কাপাড়িয়া। তাঁরা কথায়, জিএসটির ক্ষেত্রেও এখনই করের একগুচ্ছ হারকে কমিয়ে আনা দরকার। ইনপুট ট্যাক্স ক্রেডিট পেতে যাতে কোনওভাবেই সমস্যা না-হয়, তার জন্য সবরকমের ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। গোটা প্রক্রিয়ার সরলীকরণ করতে ধারাবাহিকভাবে প্রশাসনের উচিত ব্যবসায়ীদের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানো। 
একটি রিসার্চ সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও ডিরেক্টর কৌশিক দত্ত বলেন, কর এবং জিডিপির অনুপাত বেড়ে যাবে, এটা কখনোই কাম্য হতে পারে না। দেশের সংগঠিত অর্থনৈতিক কাজকর্ম সংক্রান্ত হিসেবের বাইরে রয়েছে গিয়েছে বিরাট মাপের অসংগঠিত ক্ষেত্র। দেশের অর্থনীতির ৩০ থেকে ৩৫ শতাংশ তাদের দখলে থাকা উচিত। এরা দেশের কর ও জিডিপি অনুপাতকে কঠিন করে তুলছে। কম হারের জিএসটি চালু করে, এই বিরাট অসংগঠিত অংশকে করের আওতায় আনা উচিত। তাহলে করের বোঝা কমবে, রাজস্বও বেশি আদায় হবে।  
1Month ago
কলকাতা
রাজ্য
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

বিকল্প উপার্জনের নতুন পথের সন্ধান লাভ। কর্মে উন্নতি ও আয় বৃদ্ধি। মনে অস্থিরতা।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.২৩ টাকা৮৪.৩২ টাকা
পাউন্ড১০৬.৮৮ টাকা১০৯.৫৬ টাকা
ইউরো৯০.০২ টাকা৯২.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
21st     July,   2024
দিন পঞ্জিকা