দক্ষিণবঙ্গ

দেউচা পাচামিতে আরও ১০০ জমিদাতার চাকরি

নিজস্ব প্রতিনিধি, সিউড়ি: মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের দেউচা-পাচামি প্রকল্পে আরও একধাপ এগিয়ে গেল জেলা প্রশাসন। কয়লার উপরের ব্যাসল্ট পাথর সরানোর কাজে হাত দেওয়ার আগেই আরও ১০০ জন জমিজাতার চাকরি হতে চলেছে। বহু প্রতীক্ষিত ১৪ ও ১৫ দফায় ওই চাকরি দেবে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই সেই তালিকা প্রস্তুত হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি এলাকায় কয়েকজনের চাকরি না পাওয়ার কারণ দেখিয়ে ক্ষোভের হাওয়া বইতে শুরু করছিল। তা এই লটের চাকরি পাওয়ার পর পুরোপুরি উধাও হয়ে যাবে বলেই মত প্রশাসনের আধিকারিকদের।
জেলাশাসক বিধান রায় বলেন, ইতিমধ্যেই আমরা ১৩ দফা পর্যন্ত চাকরি দিয়ে দিয়েছি। তাতে এলাকার প্রায় ১৫০০ ছেলেমেয়ের চাকরি হয়েছে। এবার পরের লটের চাকরিও দেওয়া হবে। মোট ৯৯ জনের তালিকা আমরা তৈরি করে ফেলেছি। তাঁদের হাতে অতি দ্রুত নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে অন্যান্য প্রকল্পের কাজও সমান তালে চলছে।
প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি পিডিসিএল কর্তৃপক্ষ মহম্মদবাজারের চান্দা মৌজা থেকে প্রকল্পের কাজ শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছে। কয়লার স্তরে পৌঁছনোর আগে উপরের বিপুল পরিমাণ ব্যাসল্ট কালো পাথর সরাতে হবে। সেই পাথর তোলার কাজ চান্দা এলাকা থেকে হওয়ার কথা। তারজন্য সাতশোর বেশি গাছ কাটা পড়বে। মথুরাপাহাড়ীর একটি প্রাথমিক স্কুল ভাঙা পড়বে। সেই কারণে প্রশাসন পাশের একটি জায়গাজুড়ে বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল তৈরির ভাবনাও নিয়েছে। গাছগুলি না কেটে আধুনিক পদ্ধতিতে গোড়া সহ অন্য কোথাও প্রতিস্থাপনেরও পরিকল্পনাও চলছে। কিন্তু প্রশাসনের এই প্রস্তুতি চলাকালীন কয়েকজনের এখনও চাকরি হয়নি বলে অভিযোগ তুলতে শুরু করেছিলেন জমিদাতারা। ১৪ ও ১৫ লটের চাকরি না দিয়ে পাথর তুলতে দেওয়া হবে না বলেও হাওয়া উঠেছিল। কিন্তু প্রশাসনের এই চাকরি দেওয়ার সিদ্ধান্ত সমস্ত বিতর্কের অবসান ঘটাতে যাচ্ছে বলেই মনে করা হচ্ছে। এই দুই লটে ওই এলাকার বেশ কয়েকজন জমিদাতা থাকবেন। এছাড়াও জমি রেজিস্ট্রেশনের কাজও চলছে একসঙ্গে। তাতে কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই দুই লটের বেশিরভাগ অংশের রায়ত জমি কেনা হয়ে যাবে বলে আশা আধিকারিকদের। সূত্রের খবর, গত দফায় কয়েকজন গ্রুপ ডি চাকরি প্রাপকদেরও নিয়োগপত্র অতি শীঘ্রই তুলে দেওয়া হবে। সেই প্রস্তুতিও নিচ্ছে প্রশাসন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আর মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই ব্যাসল্ট সরানোর কাজে নেমে পড়বে সরকার। সেই দিন গোটা রাজ্যের শিল্প মানচিত্রের নিরিখে অনন্য একটি দিন হিসেবে রয়ে যাবে। শুরুতে ২৩ একর জায়গায় ব্যাসল্ট সরানো হবে। এখন দেখার সেই দিন কবে আসে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারবার বীরভূমের এই দেউচা-পাচামির কয়লা শিল্প প্রকল্পের কথা বলেছেন। রাজনৈতিক জনপ্রতিনিধিদের সরিয়ে রেখে জেলাশাসককে সামনে রেখে প্রশাসনিক উপায়ে প্রকল্পের কাজে হাত লাগিয়েছিলেন। মানবিক প্যাকেজ ঘোষণা করে এলাকার মানুষের মন জয় করেন। তারই সুফল হিসেবে এই প্রকল্প আশার আলো দেখছে। বর্তমানে এশিয়ার সর্ববৃহৎ কয়লাভাণ্ডার উত্তোলনের কাজে নামার আগের সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে রাজ্য সরকার।
10d ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

গুরুজনের থেকে অর্থকড়ি লাভ হতে পারে। স্বার্থান্বেষী আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দূরত্ব রেখে চলুন। মনে চাঞ্চল্য।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.২৩ টাকা৮৪.৩২ টাকা
পাউন্ড১০৬.৮৮ টাকা১০৯.৫৬ টাকা
ইউরো৯০.০২ টাকা৯২.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা