দক্ষিণবঙ্গ

অস্ত্রের কোপে মৃত্যু শাশুড়ির, জখম স্ত্রী 

সংবাদদাতা, কাটোয়া: স্ত্রীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে বলে সন্দেহ করত স্বামী। দু’জনের মধ্যে ঝামেলাও চলছিল। সেই আক্রোশে মঙ্গলবার রাতে আউশগ্রামের ছোড়া এলাকায় শ্বশুরবাড়িতে ঢুকে ঘুমন্ত স্ত্রী ও শাশুড়িকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপ মারল এক ব্যক্তি। প্রতিবেশীরা দু’জনকেই উদ্ধার করে বননবগ্রাম স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। চিকিৎসক শাশুড়িকে মৃত ঘোষণা করেন। বুধবার সকালে শ্বশুরবাড়ি থেকে বেশ কিছুটা দূরে মাঠে গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় জামাইয়ের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। পুলিস জানিয়েছে, মৃতদের নাম মুঙ্গলি মুর্মু(৬৫) ও সোমনাথ সোরেন(৪৭)। জখম সোমনাথের স্ত্রী সুক্তি সোরেনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। পূর্ব বর্ধমানের পুলিস সুপার আমনদীপ বলেন, মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওইদিন রাতে সুক্তির বাপেরবাড়ির এক আত্মীয়ের বিয়ে ছিল। সেই উপলক্ষ্যে বাকিরা সেখানে গিয়েছিলেন। একই ঘরে মায়ের সঙ্গে ঘুমাচ্ছিলেন সুক্তিদেবী। অভিযোগ, রাত ১১টা নাগাদ সোমনাথ ধারালো অস্ত্র নিয়ে ঘরে ঢুকে স্ত্রী ও শাশুড়িকে এলোপাথাড়ি কোপায়। পাশেই বাড়ি সুক্তির বউদি ছবি সোরেনের। তিনি বলেন, আমি মেয়েকে নিয়ে বাড়িতেই বসেছিলাম। রাত ১১টা নাগাদ আচমকা ননদ আসে। ওর সারা শরীর রক্তে ভেসে যাচ্ছিল। সোমনাথই এসে দু’জনকে কুপিয়েছে। পুলিসকে খবর দিই।  পুলিস এসে দু’জনকেই হাসপাতালে নিয়ে যায়। সকালে গাছ থেকে সোমনাথের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিস। ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করে পুলিস। 
প্রাথমিক তদন্তে পুলিসের অনুমান, শাশুড়ি ও স্ত্রীকে কুপিয়ে নিজে আত্মঘাতী হয়েছে সোমনাথ। দু’জনের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 
পরিবার ও প্রতিবেশীদের সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কয়েক বছর আগে আউশগ্রামের কুড়ুল গ্রামের বাসিন্দা সোমনাথের সঙ্গে ছোড়া কলোনির আদিবাসী পাড়ার সুক্তির বিয়ে হয়। তাঁদের দুই ছেলেও রয়েছে। কুড়ুল গ্রামে থাকার সময়ই স্ত্রীর সঙ্গে সোমনাথের ঝামেলা শুরু হয়। স্ত্রীকে সন্দেহ করত সে। এরপর সোমনাথ স্ত্রী ও দুই ছেলেকে নিয়ে ছোড়া এলাকায় শ্বশুরবাড়ির পাশে জায়গা কিনে বসবাস শুরু করে। দুই ছেলের বিয়েও হয়ে যায়। তাঁরাও ছোড়া এলাকাতেই আলাদা জায়গায় বাড়ি করে থাকেন। মাস পাঁচেক আগে ফের স্ত্রীর সঙ্গে সোমনাথের ঝামেলা শুরু হয়। সোমনাথ পেশায় দিনমজুর ছিল। 
স্ত্রী পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছে বলে সন্দেহ করায় দু’জনের মধ্যে ঝামেলা আরও বাড়ে। পাড়ায় কয়েকজনকে নিয়ে মীমাংসাও হয়। তারপর থেকেই সুক্তি আর সোমনাথ আলাদা হয়ে যায়। সোমনাথ বীরভূম জেলার শান্তিনগর এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে থাকতে শুরু করে। সুক্তি ছোড়ায় মায়ের কাছে থাকত। তবে সোমনাথ মাঝেমধ্যে ছেলেদের বাড়িতে আসা-যাওয়া করলেও শ্বশুরবাড়িতে স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করত না।
সোমনাথের বউমা অনিমা সোরেন বলেন, শাশুড়িকে সন্দেহ করত শ্বশুর। তা নিয়ে দু’জনের মধ্যে ঝামেলা চলছিল। তারজন্যই শ্বশুর কুপিয়ে খুন করে নিজে গলায় দড়ি দিয়েছে। 
1Month ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

বিকল্প উপার্জনের নতুন পথের সন্ধান লাভ। কর্মে উন্নতি ও আয় বৃদ্ধি। মনে অস্থিরতা।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.২৩ টাকা৮৪.৩২ টাকা
পাউন্ড১০৬.৮৮ টাকা১০৯.৫৬ টাকা
ইউরো৯০.০২ টাকা৯২.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা