দক্ষিণবঙ্গ

গ্রামে বান্ধবীর বাহুবলী
বাবার গ্যাংয়ের হামলা
রসুলপুরে ছাত্রের দেহ উদ্ধার, রহস্য

সুখেন্দু পাল, রসুলপুর: বান্ধবীর বাবা বাহুবলী। কথায়-কথায় নিজের গ্যাংয়ের লোকজনদের নিয়ে এসে পাড়ার বাসিন্দাদের চমকায়। সামান্য বিষয়ে কোনও ঝামেলা হলেও দাদাগিরি দেখাতে ছাড়ে না। তেমনটা হল মঙ্গলবার রাতে। বাহুবলীর মেয়ের সঙ্গে তার বন্ধু নিমাই দাসের(২৭) কথা কাটকাটি হয়েছিল, ধাক্কাধাক্কিও হয়। সেকথা বাহুবলীর কানে পৌঁছতেই সে গ্যাংয়ের লোকজনদের জড়ো করে। গ্রামজুড়ে তখন ১০ থেকে ১২টি বাইক তার মেয়ের বন্ধুকে খুঁজছে। নিমাইকে লুকিয়ে রাখার অভিযোগে তাঁর বন্ধুর বাড়িতেও চালানো হয় হামলা। এই ঘটনার পরেই রসুলপুর রেললাইনের ধার থেকে হোটেল ম্যানেজমেন্ট পাশ করা নিমাইয়ের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। তাঁর মৃত্যু ঘিরে দেখা দিয়েছে রহস্য। পুলিস জানিয়েছে, মৃতের বাড়ি রসুলপুর নতুন রাস্তায় বান্ধবীর পাড়াতেই। নিমাইয়ের মৃতদেহ উদ্ধারে পর গ্রামে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।
এদিন গ্রামে গিয়ে দেখা গেল, মৃত যুবকের বান্ধবীর বাড়ির বাইরে পুলিস ক্যাম্প রয়েছে। বাড়িতে কেউ নেই। মৃতদেহ উদ্ধারের পরই বান্ধবী সহ তার বাড়ির লোকজন উধাও। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, নিমাইয়ের সঙ্গে গ্রামেরই এক যুবতীর প্রণয়ের সম্পর্ক ছিল। মঙ্গলবার বিকেলে গ্রামের একটি মেলায় তাঁর সঙ্গে তিনি দেখা করতে গিয়েছিলেন। সেখানে তাঁদের ‘কমন ফ্রেন্ড’ ওই বাহুবলীর মেয়েও ছিলেন। মেলায় আসার আগে নিমাই তাঁর প্রেমিকাকে ফোন করেছিলেন। কিন্তু ফোনটি বাহুবলীর মেয়ে ধরেছিল। তা নিয়েই বাহুবলীর মেয়ের সঙ্গে নিমাইয়ের বচসা হয়। সেই সময় দু’জনের মধ্যে ধাক্কাধাক্কিও হয়। সেই খবর বাহুবলী বাবার কানে পৌঁছতেই সে রুদ্রমূর্তি ধারণ করে। বাইরে থেকে লোকজন গ্রামে ডাকে। বিপদ বুঝে নিমাই পালিয়ে যান। তাঁকে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যান তাঁরই এক বন্ধু। তা জানতে পেরে বাহুবলী বাবার বাহিনী নিমাইয়ের বন্ধুর বাড়িতে হামলা চালায়। 
নিমাইয়ের মা মিনতি দাস বলেন, ছেলে কলকাতার একটি কলেজ থেকে হোটেল ম্যানেজমেন্ট পাশ করেছিল। ওর বিদেশে কাজ করার অফার এসেছিল। সেখানে যাওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছিল। ছেলে আপাতত কলকাতায় একটি হোটেলে কাজ করছিল। চারদিন আগে বাড়ি ফিরে আসে। গ্রামের এক যুবতীর সঙ্গে নিমাইয়ের ভালোবাসার সম্পর্ক রয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে ওই মেয়েটি কোনওভাবেই জড়িত নয়। তার বান্ধবী ইচ্ছাকৃতভাবে গণ্ডগোল পাকিয়েছিল।
নিমাইয়ের বউদি বন্দনা দাস বলেন, গ্রামে মেলা চলছে। সেখানেই আমরা ছিলাম। হঠাৎ করে শুনতে পাই, দেওরের সঙ্গে কারও গণ্ডগোল হচ্ছে। ভেবেছিলাম, মিটে যাবে। কিন্তু ওরা এভাবে হামলা করবে, তা বুঝতে পারিনি। নিমাইয়ের মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী তাদের কঠোর শাস্তি চাই।
নিমাইয়ের বন্ধুর মা সুলেখা বিশ্বাস বলেন, বাইরে থেকে লোকজন আনায় নিমাইকে বাঁচানোর জন্য আমার ছেলে ওকে একটি জায়গায় নিয়ে গিয়েছিল। সেই ‘অপরাধে’ আমাদের বাড়িতে হামলা চালানো হয়। আমার স্বামী ও দুই ছেলেকে ওরা রাস্তায় ফেলে মারে। এদিকে নিমাই মারা যাওয়ার পর তাঁর প্রেমিকা শোকে মূহ্যমান। পুলিস জানিয়েছে, ওই যুবক আত্মঘাতী হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে।      নিমাই দাস।
13Months ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
শরীর ও স্বাস্থ্য
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

গুরুজনের থেকে অর্থকড়ি লাভ হতে পারে। স্বার্থান্বেষী আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দূরত্ব রেখে চলুন। মনে চাঞ্চল্য।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮৩.২৩ টাকা৮৪.৩২ টাকা
পাউন্ড১০৬.৮৮ টাকা১০৯.৫৬ টাকা
ইউরো৯০.০২ টাকা৯২.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা