চাষ আবাদ
 

করলা চাষে লাভ কম, ঝিঙে ও চিচিঙ্গা চাষে ঝুঁকেছেন চাষিরা

সংবাদদাতা, কান্দি: বছর পাঁচেক আগেও সালার থানার পাঁচ থেকে সাতটি গ্রামের বর্ষা মরশুমের প্রধান অর্থকরী ফসল ছিল করলা চাষ। করলা চাষ করে স্বচ্ছলতা লাভ করেছিলেন বেশ কয়েকহাজার চাষি। প্রায় চার হাজার চাষি বিভিন্নভাবে ওই চাষের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।
কিন্তু দিন বদলেছে। নানা কারণে করলা চাষ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন এখানকার চাষিরা। এখন অনেকে ঝিঙে ও চিচিঙ্গা চাষের দিকেই ঝুঁকেছেন। তবুও সংখ্যাটা হাতে গোনার মতোই। চাষিদের এহেন অবস্থার জন্য তাঁরা ফসলের দর ও বাইরে পাঠানোর অভাবকেই দায়ী করছেন।
ওই এলাকার চাষিদের সূত্রে জানা গিয়েছে, পাঁচ বছর আগেও এলাকার সেনপাড়া, আওচা, মাখালতোড়, উজুঁনিয়া, চুনশহর, শিশুয়া, সালু গ্রামের চাষিরা এই বর্ষার মরশুমে করলা চাষকেই প্রধান অর্থকরি ফসল হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন। চৈত্র মাসের মাঝামাঝি সময়ে করলা চাষ করার যেন হিড়িক পড়ে যেত। বাড়ির ছোট বাচ্চা থেকে গৃহিনীরাও করলা চাষে বাড়ির প্রধানকে সাহায্য করত। বৈশাখের শেষের দিকে গোটা মাঠ করলা গাছে কার্যত ঢাকা পড়ে যেত। ভাদ্র মাস পর্যন্ত করলা উঠত জমি থেকে।
সালু পঞ্চায়েতের প্রধান আজিজুল হক বলেন, আগে এই এলাকায় প্রায় দুই থেকে তিনশো হেক্টর জমিতে করলা চাষ করতেন চাষিরা। বড় চাষিদের তো কথাই নেই। কারও পাঁচ কাঠা জমি থাকলে, তিনিও করলা চাষ করতেন। কিন্তু, তুলনামূলকভাবে ফসলের দর না থাকা এবং ভিন জেলায় করলা পাঠানো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এই এলাকায় করলা চাষ একেবারে উঠে গিয়েছে। তবে বিকল্প হিসেবে অনেক চাষি ঝিঙে বা চিচিঙ্গা চাষ করছেন।
মাখালতোড় গ্রামের চাষি তারাচরণ ঘোষাল বলেন, করলা চাষে যে ধরণের খাটুনি হয়, সেই অর্থে চাষিদের লাভ হচ্ছিল না। তাছাড়াও আগে এই এলাকা থেকে প্রতিদিন ট্রাকে করে করলা মালদহ, আসানসোল, কলকাতা, বোলপুরে পাঠানো হত। কিন্তু ২০১২সালে করলাতে পোকার আক্রমণ ঘটে। প্রচুর করলা নষ্ট হওয়ায় চাষিরা তা বিক্রি করতে পারেননি। ওই সময় বাইরের বাজারে করলার চাহিদা ছিল না বলে এখান থেকে করলা বাইরে পাঠানো বন্ধ করে দেয় এজেন্টরা। তখনই চাষিরা করলা চাষ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন।
উজুঁনিয়া গ্রামের চাষি আমিরুল শেখ বলেন, প্রায় আট বিঘে জমিতে করলা চাষ করতাম। ২০১৩সাল থেকে চাষ একেবারে বন্ধ করে দিয়েছি। কারণ চাষ করে খরচা উঠছিল না। তাছাড়া ফড়েরাও আর করলা বাইরে নিয়ে যাচ্ছিলেন না।
আওচা গ্রামের চাষি শংকর মণ্ডল বলেন, করলা চাষের জন্য আমাদের এই এলাকার নামডাক ছিল। আশপাশের বেশিরভাগ চাষিই করলা চাষ করতেন। বছরের এইসময় কেউ জিরোনোর সময়ও পেতেন না। সকাল সন্ধ্যা মাঠেই পড়ে থাকতেন। করলা চাষ করে প্রচুর আয় হত।
সালু গ্রামের চাষি মনভোলা মণ্ডল বলেন, কয়েকজন হাতে গোনা ছাড়া এখন আর করলা চাষ কেউই করেন না। এখন অনেকে ঝিঙে ও চিচিঙ্গা চাষ করছেন। বাকিরা আমন ধান লাগাচ্ছেন। আওচা গ্রামের চাষি সুব্রত মণ্ডল বলেন, করলার থেকে ঝিঙে চাষ করে লাভ বেশি। করলার তুলনায় ঝিঙে চাষে পরিশ্রম কম হয়। তাই অনেক চাষি ঝিঙে চাষ করছেন।
02nd  August, 2017
  ভারী বৃষ্টিতে ক্ষতি হল সবজির

 নবজ্যোতি সরকার: পরপর ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা জুড়ে ‍ভায়েছে ভারী বৃষ্টি। মাত্রাতিরিক্ত এই বৃষ্টির জমা জলে জেলার বিভিন্ন খেতে সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। পটল, কুমড়ো, ঢেঁড়শ, ঝিঙে, কাঁচালংকা, বেগুনে লেগেছে গোড়া পচা রোগ। জেলার চাষিরা জানাচ্ছেন, জমা জল খেত থেকে বের করে দেওয়ার রাস্তা নেই।
বিশদ

09th  August, 2017
  জলদি জাতের মুলো চাষ করে আয় করুন

 সংবাদদাতা: জলদি জাতের মুলো বীজ বোনার উপযুক্ত সময় ভাদ্র থেকে আশ্বিন। আর নাবি জাতের বীজ হলে আশ্বিন থেকে কার্তিক মাসের মধ্যে বীজ বুনতে হবে। জলদি জাতের উন্নত মুলো বীজ হল পুষা চৈতকি, আউন মুলো প্রভৃতি। জাপানি সাদা, কালপিন, চাইনিজ পিঙ্ক হচ্ছে নাবি জাতের উন্নত বীজ।
বিশদ

09th  August, 2017
  আমনের পাশকাঠিকে ক্ষতিকারক পোকার উপদ্রব থেকে বাঁচাতে সতর্কতা

 রবীন রায়: আর কিছুদিনের মধ্যেই আমনের পাশকাঠি বের হওয়া শুরু হবে। জমিতে জলের ভাগ কম থাকলে আমনের পাশকাঠিতে ক্ষতিকারক নানা ধরনের পোকার উপদ্রব শুরু হবে। সেজন্য চাষিদের আগাম সতর্ক করছে কৃষি দপ্তর। তবে জমিতে জলের গভীরতা বেশি থাকলে আমনের পাশকাঠিতে বিভিন্ন পোকার উপদ্রব একটু কমই হয়।
বিশদ

09th  August, 2017
  বর্ষায় লংকার পরিচর্যা জরুরি

 সংবাদদাতা: অন্যতম অর্থকরী ফসল লংকা। সারা বছর ধরেই এর চাষ করা যায়। বর্ষার মরশুমে চাষের জমিতে জল জমে লংকার ক্ষতি হতে পারে। সেই সম্ভাবনা এড়াতে বর্ষার সময় জমিতে লংকার সারির পাশ দিয়ে নালার ব্যবস্থা করে দিলে বৃষ্টিতে লংকা চাষে কোনও সমস্যা থাকবে না বলে জানিয়েছে কৃষি দপ্তর।
বিশদ

09th  August, 2017
  চন্দ্রমল্লিকা ফুলের চাহিদা বাড়ছে, চাষে পরামর্শ উদ্যানপালন দপ্তরের

 প্রসেনজিৎ সরকার: উত্তরবঙ্গ জুড়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠান বাড়ি ও ঘর সাজাতে রকমারি বা বাহারি চন্দ্রমল্লিকার চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। সারা বছরই বাজারে ভালো দাম থাকায় শিলিগুড়ি মহকুমা জুড়েই চাষের পরামর্শ দিচ্ছে উদ্যানপালন দপ্তর। দপ্তর জানিয়েছে, চাষে উদ্যোগ বাড়াতে বিভিন্ন ফুল মেলাতে এই ফুলের প্রদর্শনী করা হচ্ছে।
বিশদ

09th  August, 2017
  হেজে পচে প্রচুর ফুল গাছ নষ্ট

 সংবাদদাতা: বন্যার জলে প্রচুর গাছ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় এবার দুর্গা পুজোর সময় ফুলের দাম চড়া থাকবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ফুল কলকাতার মল্লিকঘাট বাজারে যায়। কিন্তু, বন্যার জন্য মেদিনীপুর ও হাওড়া জেলার ফুল চাষ এবার ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
বিশদ

09th  August, 2017
 আমন জমিতে সিম চাষ করুন

  সংবাদদাতা: আমন ধানের জমিতে সিম চাষে ভালো লাভ পাওয়া যায়। কৃষি বিশেষজ্ঞরা তাই এখনই ধানের জমিতে সিম চাষের পরামর্শ দিচ্ছেন। সবজি হিসেবে বাজারে সিমের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। ওই চাষে ভালো লাভ আছে। তবে পুজোর পরশুমে সিমের দাম বেশি থাকে। চাষিরা মরশুমকে টার্গেট করে জলদি সিমের চাষ শুরু করেছেন।
বিশদ

09th  August, 2017
  নারকেল গাছ বসান নিয়ম মেনে

 উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়: এখন অর্থকরী ফসল হিসাবে নারকেল গাছের সংখ্যা বাড়ছে। কিন্তু সঠিকভাবে না জানায় বেশিরভাগ লোকই গর্তে নুন দিয়ে গাছের চারা বসান। এটি সম্পূর্ণ অবৈজ্ঞানিক। কৃষি বিশেষজ্ঞদের মতে, পটাশ সার নারকেল গাছের পক্ষে খুবই দরকারি। বিশদ

09th  August, 2017
 বর্ষাতি লংকা বাঁচাতে সতর্কতা

  সন্দীপ বর্মন: বর্ষাতি লংকা কিংবা মরিচের পাতার গুঁটি পোকা ও ডগা মুড়ে যাওয়া রোগের হাত থেকে বাঁচতে প্রথম থেকে সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দিচ্ছে কষি দপ্তর। একই সঙ্গে বর্ষাতি লংকার বেশি ফলন পেতে হলে পদ্ধতি মেনে জমিতে চারা রোপণ করা উচিত। কৃষি বিশেষজ্ঞরা বলেন, পদ্ধতি মেনে চাষ করলে অনেক বেশি ফলন পাওয়া যাবে। এতে অনেকটাই লাভবান হবে কৃষকরা।
বিশদ

09th  August, 2017
 চড়তে শুরু করেছে দরও
অতিবৃষ্টিতে বর্ষাকালীন পিয়াজচাষ মার খেল, ক্ষতির মুখে চাষিরা

শ্যামল হালদার: এবার অতিবৃষ্টিতে রাজ্যে পিয়াজ চাষ মার খেল। এই চাষ শুরু হওয়ার ঠিক মুখেই এই বৃটি হল। এদিকে পিগাজের দরও বাড়তে চলেছে। পিয়াজে ভিন রাজ্য নির্ভরতা কাটাতে এ রাজ্যে বর্ষাকালে এই চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল ক’বছর ধরেই । শ্রাবণ মাসের প্রথম দিকটাই হল অর্থাৎ বর্ষাকালীন পিয়াজ চাষের উপযুক্ত সময়।
বিশদ

09th  August, 2017
জল কমতেই শুরু হল আমন রোয়া

নবজ্যোতি সরকার: জমা জল কমতেই শুরু হল আমন রোয়ার কাজ। বর্ষার জমা জলে সুন্দরবনের বিভিন্ন ব্লকের অর্থাৎ উত্তর ২৪ পরগনার হাসনাবাদ, হিঙ্গলগঞ্জ, হাড়োয়া, সন্দেশখালি ১ ও ২, মিনাখাঁ, আবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিং ১ ও ২, গোসাবা, বাসন্তী, জয়নগর ১ ও ২, মথুরাপুর ১ ও ২, কুলতুলি, নামখানা, কাকদ্বীপ, পাথরপ্রতিমা এবং সাগরদ্বীপে বহু এলাকা জলে ডুবে ছিল।
বিশদ

02nd  August, 2017

Pages: 12345




একনজরে
 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সম্প্রতি দুর্গাপুর পুরসভা নির্বাচনে নিরাপত্তার প্রশাসনিক আশ্বাস সত্ত্বেও ব্যাপক হাঙ্গামা হয়েছে। ভোট লুট হয়েছে। পুলিশ মার খেয়েছে। নির্বাচন কমিশন ভোট চলাকালীন অভিযোগ জানানোর রাস্তা বন্ধ রেখেছিল। ...

 ওয়াশিংটন, ১৬ এপ্রিল: এ যাবৎকালের সবচেয়ে বড় অঙ্কের অর্থ দানের কথা ঘোষণা করলেন মাইক্রোসফট করপোরেশনের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। নিজের মোট সম্পদের ৫ শতাংশ দান করলেন ...

 ওয়াশিংটন, ১৬ এপ্রিল: চলতি বছরসহ আগামী ২০১৮ সালে এশিয়ার উদীয়মান অর্থনীতির দেশগুলির মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৬ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। একই সময়ে বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৩ শতাংশের আশপাশে থাকবে বলে ধারণা ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: গত পাঁচ বছরে বিদ্যুতের দাম ইউনিট প্রতি ৮৫ পয়সা বেড়েছে বলে বিধানসভায় বিবৃতি দিলেন বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। বুধবার বিধানসভায় প্রথমে বিদ্যুতের দাম ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সঠিক বন্ধু নির্বাচন আবশ্যক। কর্মরতদের ক্ষেত্রে শুভ। বদলির কোনও সম্ভাবনা এই মুহূর্তে নেই। শেয়ার বা ... বিশদ



ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: ব্রিটিশ সাহিত্যিক ভি এস নাইপলের জন্ম
১৯৮৮: দুর্ঘটনায় মৃত পাক প্রেসিডেন্ট মহম্মদ জিয়া-উল-হক
২০০৮: ওলিম্পিকসে আটটি সোনা জিতে রেকর্ড মার্কিন সাঁতারু মাইকেল ফেল্পসের


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৪৫ টাকা ৬৫.১৩ টাকা
পাউন্ড ৮১.৩৭ টাকা ৮৪.১৮ টাকা
ইউরো ৭৪.০৮ টাকা ৭৬.৬৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,১৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৭,৬৭৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮,০৯০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩২ শ্রাবণ, ১৭ আগস্ট, বৃহস্পতিবার, দশমী দিবা ১২/৪৩, মৃগশিরানক্ষত্র রাত্রি ১০/৫৯, সূ উ ৫/১৭/৫১, অ ৬/৩/৩৯, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৮-৩/৩, বারবেলা ২/৫২-অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/৪১-১/৫।
 ৩১ শ্রাবণ, ১৭ আগস্ট, বৃহস্পতিবার, দশমী ১০/৫৫/৫২, মৃগশিরানক্ষত্র রাত্রি ১০/২৩/৫৭, সূ উ ৫/১৫/৩৩, অ ৬/৫/২৫, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৭/৩০-৩/১/৩১, বারবেলা ৪/২৯/১১-৬/৫/২৫, কালবেলা ২/৫২/৫৭-৪/২৯/১১, কালরাত্রি ১১/৪০/২৯-১/৪/১৫।
২৪ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
  খানাকুলে বৃষ্টির জমা জল নামতেই উদ্ধার কঙ্কাল, চাঞ্চল্য
আরামবাগের খানাকুলের সবলসিংহপুর এলাকায় বৃষ্টির জমা জল নামতেই এক অপরিচিত মহিলার কঙ্কাল উদ্ধার হয়েছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

05:44:00 PM

এবার চড়াম চড়াম করে জয়ঢাক বাজবে পঞ্চায়েতেও: অনুব্রত

 আজ নলহাটিতে ১নং ওয়ার্ড ও ৮ নং ওয়ার্ডে তৃণমূলের পরাজয়ের পর, হারের কারণ অনুসন্ধান করতে এসে অনুব্রত মন্ডল মৎসমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা ও পরিকল্পনা তদারকি ও পরিসংখ্যান দপ্তরের মন্ত্রী আশিষ বন্দ্যোপাধ্যায়সহ আরও দুই তৃণমূল নেতার দায়িত্ব পালনে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি জানান, ওঁদের উপর পুরো দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়াটা ভুল হয়েছলি, ওঁদের এতটা বিশ্বাস করাটাও ভুল হয়েছিল। এবার থেকে সব বিষয়টা তিনি নি঩জেই দেখবেন বলেও জানান। পাশাপাশি এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে পঞ্চায়েত দখলের ডাকও দেন অনুব্রতবাবু। তিনি বলেন, এবার পঞ্চায়েতও চড়াম চড়াম করে জয়ঢাক বাজবে।

05:20:10 PM

এই জয় মানুষের জয়: মুখ্যমন্ত্রীর

 মানুষের জয়, যারা তৃতীয় ও চতুর্থ হওয়ার জন্য লম্ফ-ঝম্ফ করেছিল, আমি দেখলাম তারা ০.১% ভোট পেয়েছে। মানুষকে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আজ ৭ পুরসভা জয়ের পর এভাবেই নিজের প্রতিক্রিয়া জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

05:13:08 PM

উত্তরবঙ্গে দুর্গতদের উদ্ধারে ন্যায্যমূল্যে বিমান সংখ্যা বাড়ানোর আর্জি কেন্দ্রকে

 যেহেতু উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের সড়ক ও রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে, সেই সুযোগে বেশিরভাগ বিমান সংস্থা তাদের ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্যের মুখ্যসচিব কেন্দ্রকে এই দুর্যোগের সময় দুর্গতদের উদ্ধারে ন্যায্য মূল্যে বিমানের সংখ্যা বাড়াতে অনুরোধ জানিয়েছে।

05:06:00 PM

মদন তামাং হত্যা মামালা: গুরুংকে অব্যহতি

 মদন তামাং হত্যা মামলায় বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে কোনও তথ্য প্রমানাদি না মেলায় তাঁকে এই মামলা থেকে অব্যহতি দিল বিশেষ আদালত

05:02:00 PM

 দুর্গাপুরে পুরভোটে তৃণমূল ৭৬.২৬%, বামফ্রন্ট ১২.৩%, বিজেপি ৭.৮৯%, কংগ্রেস ২.৫৩% এবং নির্দল ০.৯% ভোট পেয়েছে

04:39:00 PM