চাষ আবাদ
 

 শেষ দেখতে গিয়ে আলু ব্যবসায়ীরা নিজেরাও ডুবলেন, চাষিদেরও মারলেন

 তন্ময় মল্লিক: যাঁরা আলুতে শেষ দেখার আশায় বসেছিলেন, তাঁরা নিজেরাও শেষ হলেন, আবার চাষিদেরও শেষ হওয়ার রাস্তায় ঠেলে দিলেন। পাশাপাশি হিমঘর মালিকদেরও বিপুল লোকসানের মুখে দাঁড় করিয়ে দিলেন। এই মুহূর্তে হু হু করে পাঞ্জাব থেকে নতুন আলু পশ্চিমবঙ্গে ঢুকতে শুরু করেছে। আর যত বেশি করে নতুন আলু ঢুকছে এরাজ্যের হিমঘরে থাকা পুরাতন আলুর দাম ততই তলানিতে গিয়ে দাঁড়াচ্ছে। অবস্থা যে দিকে যাচ্ছে তাতে শেষ পর্যন্ত হিমঘর থেকে সমস্ত আলু খাওয়ার যোগ্য অবস্থায় বের হবে কি না তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। আর এই সমস্ত ঘটনার জন্য এরাজ্যের কিছু ‘জুয়াড়ি’ আলু ব্যবসায়ীকেই ওয়াকিবহাল মহল দায়ী করছে। এই মুহূর্তে আলুর ফ্রি বন্ডের কোনও দাম নেই বললেই চলে। আলুর বের করে ঝাড়াই বাছাইয়ের পর পাইকারি বাজারে তা ২০০ থেকে ২২০ টাকা বস্তা দরে বিক্রি হচ্ছে। অথচ এই আলু একটা সময় ৮০০ থেকে ৮৫০ টাকা বস্তা হিসাবে বিক্রি হয়েছে। ফাটকাবাজের দল যদি মিথ্যে হাওয়া গরম করে বাজার চাঙা রাখার চেষ্টা না করত, তাহলে এমন ভয়াবহ পরিণতির মুখে পড়তে হত না। অনেকেই ওই ফাটকাবাজদের কথায় বিশ্বাস করে ‘শেষ দেখে ছাড়ব’ বলে গ্যাঁট হয়ে বসেছিলেন। আর জেদ করতে গিয়ে তাঁরাই শেষ হয়ে গেলেন। শুধু তাঁরা শেষ হয়ে গেলে কিছু বলার থাকত না। তাঁদের ছাগল, তাঁরা লেজে কাটতেই পারেন। কিন্তু, এই কাজটা করতে গিয়ে তাঁরা চাষিদের পথে বসানোর রাস্তাটা সুগম করে দিলেন। সাধারণত দেখা গিয়েছে, শেষদিকের বাজারে টান থাকলে আলু ওঠার সময় চাষিরা ভালো দাম পান। বিশেষ করে যাঁরা কাঁচা আলুর চাষ করেন তাঁরা দু’টো পয়সার মুখ দেখতে পারেন। আর যদি পুরাতন আলু প্রচুর থেকে যায় তাহলে নতুন আলুর বাজার মুখ থুবড়ে পড়ে। তখন চাষিদের বহু পরিশ্রমের ফসল জলের দরে বিক্রি হতে শুরু করে। এবার কিছু ব্যবসায়ী ‘শেষ দেখতে’ গিয়ে ধরে খেলেছেন। আর সেটা করতে গিয়ে শেষ দিকে এত আলু মজুত হয়ে গিয়েছে, যে তা স্বপ্নের অতীত। তবে, পরিস্থিতি এতটা খারাপ হত না যদি নরেন্দ্র মোদির বড় নোট বাতিলের সুনামি এভাবে আলুর বাজারে আছড়ে না পড়ত। তবে, নোট বাতিল না হলেও হিমঘরে যে অনেক আলু মজুত থেকে যেত, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কারণ বছরভর দেশের আলু উৎপাদক রাজ্যগুলিতে যে দাম ছিল তার চেয়ে অনেক বেশি দাম ছিল পশ্চিমবঙ্গে। তাই অন্য রাজ্যে বেশি আলু যায়নি। পশ্চিমবঙ্গের বাজার দখল করে নেয় উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাব ও গুজরাত।
চাষিদের পাশাপাশি ওই ব্যবসায়ীরা হিমঘর মালিকদেরও বিপদের মুখে ঠেলে দিয়েছেন। কারণ ব্যবসায়ীরা হিমঘর মালিকদের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা ঋণ নেয়। হিমঘর মালিকরা ব্যাংক থেকে সেই ঋণ নেন। ঋণ মেটানোর দায়িত্ব হিমঘর মালিকদেরই। এখন দাম তলানিতে ঠেকে যাওয়াও বহু ব্যবসায়ীই আলু বের করার উৎসাহ পাচ্ছেন না। কারণ আলু বের করতে গেলে হিমঘরের ভাড়া ও ঋণ শোধ করতে হবে। আর সেক্ষেত্রে ঘর থেকে মোটা টাকা বের করতে হবে। ফলে যাঁরা বুক চিতিয়ে ‘শেষ দেখব’ বলে গ্যাঁট হয়ে বসেছিলেন, তাঁরা এখন হিমঘরের ধারেকাছে ঘেঁষছেন না।
14th  December, 2016
 কোনও রকমে আলু চাষের এলাকা কভার হলেও পরিচর্যার অভাবে ফলন মার খাবে

  তন্ময় মল্লিক: বীজের দাম তলানিতে এসে ঠেকায় এবার কোনওরকমে আলু চাষের এলাকা অনেকটা কভার হয়ে গেলেও পরিচর্যা নিয়ে চাষিরা চরম সমস্যায় পড়েছেন। নোট বাতিলের ধাক্কায় খেতমজুর না পেয়ে বহু চাষি পরিবার ঘরযোগে কোনওরকমে আলু বসিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু, জমিতে সার দেওয়া, পরিচর্যা করা ঠিকমতো হচ্ছে না। কীভাবে চাষিরা চাপান দেবেন, সেচ দেবেন ও পরিচর্যা করবেন, তা ভেবে পাচ্ছেন না। ফলে, আলুর উৎপাদন ভীষণভাবে মার খাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত রাজ্যের হিমঘরগুলিতে প্রচুর আলু থেকে যাওয়ায় বাজারে ধস নামার পাশাপাশি বীজের বাজারও জোর ধাক্কা খায়।
বিশদ

21st  December, 2016
  বেগুনে পোকার উৎপাত

 অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: শীতকালীন বেগুন চাষে ফলন মার খায় বিভিন্ন পোকার আক্রমণে। বেগুনের উৎপাদন ঠিক রাখার জন্য বিভিন্ন ধরনের পোকা শনাক্ত করে আক্রমণ রোধ করতে হবে। বেগুনে সবচেয়ে যে পোকাগুলি আক্রমণ সব থেকে বেশি। সেই পোকাগুলি হল ডগা ছিদ্রকারী পোকা, ফল ছিদ্রকারী পোকা, বাঘা পোকা, সাদা মাছি, লাল মাকড় এবং চিরুনি পোকার আক্রমণ সবচেয়ে বেশি দেখা যায়।
বিশদ

21st  December, 2016
 শীতে মটর ডাল চাষের উদ্যোগ

  সংবাদদাতা: শীত পড়লেই মটর ডালের চাষ শুরু হয়। তবে ভালো ফলন পেতে হলে মটরের জাত নির্বাচনটা জরুরি। এর ভালো জাতগুলি হল ধূসর, শংকর ও রচনা। কার্তিক মাসে বীজ বুনলে ফলন ভালো হয়। বীজ জমিতে ছিটিয়ে বোনার পাশাপাশি সারিতেও বোনা যায়। বিশদ

21st  December, 2016
 জৈব সারের প্রয়োগ বাড়ছে

 সংবাদদাতা: ভালো ফলন পেতে জৈব সার যে অপরিহার্য এতে কোনও দ্বিমত নেই। সে যে কোনও ফসলেই হোক। পান থেকে ধান সবেতেই জৈব সারের প্রয়োগ দিন দিন বাড়ছে। কৃষি দপ্তরও উদ্যোগ নিয়েছে চাষিদের বোঝাতে যাতে ফসল উৎপাদনে জৈব সার বেশি করে ব্যবহার করেন। বিশদ

21st  December, 2016
 ধানের খড়কুটি না পুড়িয়ে জৈব সার তৈরিই ভালো

 শ্যামল হালদার: মেশিনে কাটা ধানের খড়কুটি পুড়িয়ে নষ্ট না করে জৈব সার তৈরি করলে কৃষি ও পরিবেশ দুয়ের পক্ষে মঙ্গল। কৃষি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ধান কাটার পর নাড়া বা খড় পুড়িয়ে দিলে মাটির ক্ষতি হবে। মাটির গুণগত মান নষ্ট হবে। এসব খড়কুটি পোড়াবার ফলে বায়ুমণ্ডলে প্রচুর পরিমাণে দূষিত গ্যাস বের হয়। এই গ্যাস পরিবেশ নষ্ট করে। এইভাবে নাড়া পোড়ানোতে সরকারিভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে।
বিশদ

21st  December, 2016
নিচু জমিতে বোরোর সঙ্গে মাছ চাষ করা যাবে

নবজ্যোতি সরকার: নবজ্যোতি সরকার: বিঘা তিনেক জায়গাতে হবে মাছ, বোরো ধান এবং সবজি চাষ। নদীয়া জেলার চাকদহ ব্লকের ঘোঁটুগাছি গ্রাম পঞ্চায়েতে সরকারি অংশিদারিত্বে গোঁটরা সমবায় কৃষি উন্নয়ন সমিতির উদ্যোগে এভাবেই চাষ হচ্ছে। গোঁটরা বিধান ৩ নামে অতি উন্নত প্রজাতির ধানের বীজ জোগাড় করেছে সমিতি। এই বীজের জল সহ্য করার ক্ষমতা অসীম।
বিশদ

21st  December, 2016
  বেবিকর্নের চাষ বাড়াতে উদ্যোগ

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়: ‘বেবিকর্ন’ চাষে চাষিদের উৎসাহ দেবার কাজ করছে রাজ্য কৃষি দপ্তর দপ্তর সূত্রে জানা গেল, বেবিকর্ন ফসলটির মধ্যে একাধিক পুষ্টিগুণ আছে। চাষিরা বছরে পাঁচবার সফলভাবে এই চাষ করতে পারেন। সাধারণত বর্ষার উপর নির্ভর করে আগে ভুট্টার চাষ হত। সেখানে মাত্র ৬০ দিনের মধ্যেই বীজ বপন থেকে বাজারজাত করা হত বেবিকর্ন। ফলে সেচ, সার বা অন্যান্য পরিচর্যা, খরচের পরিমাণ যথেষ্ট কম।
বিশদ

21st  December, 2016
খড়িবাড়ি ফাঁসিদেওয়ায় ধানের অভাবি বিক্রি, জলের দর সবজির

 প্রসেনজিৎ সরকার: শিলিগুড়ি মহকুমার খড়িবাড়ি ও ফাঁসিদেওয়া ব্লকে সিংহভাগ চাষি নোট সমস্যায় চাষ আবাদ করতে বিপাকে পড়েছেন। ধান, আলু থেকে সবজির অভাবি বিক্রি করতে হচ্ছে। নোট সমস্যার জেরে চাষের পরিচর্যা ও শ্রমিকদের মজুরি দিতে চাষিরা সমস্যায় পড়েছেন। কিষান ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ব্যাংকগুলি থেকে ঋণ মিলছে না। ফলে চাষিরা জমিতে কীটনাশক ও সারের ব্যবহার করতেও বিপাকে পড়েছেন।
বিশদ

21st  December, 2016
  শীতেও করলা ফলবে

 অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: করলার চাষ লাভজনক একটি চাষ। ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে ভালো উৎপাদন পাওয়া যায়। করলার চাহিদা থাকে সারা বছর। করলার দামও ভালোই থাকে। শীতকালীলে করলার চাষ করে দাম ভালো পাওয়া যায়। সময়ে চাষ করলে ফলন পাওয়া যায় শীতের মাঝামাঝি সময়।
বিশদ

14th  December, 2016

Pages: 12345



একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকল হিসাবে তাদের ডব্লুআর-ভি গাড়িটি দেশের বাজারে আসা মাত্র দারুণ সাড়া তৈরি করেছে। গাড়িটির নির্মাতা সংস্থা হন্ডা’র দাবি অন্তত তেমনই। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ব্যাংকের ম্যানেজার পরিচয় দিয়ে অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত তথ্য জেনে ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ জানানোর দু’বছর বাদে একজনকে গ্রেপ্তার করল বিধাননগর সাইবার থানার পুলিশ। ...

ঢাকা, ২৯ এপ্রিল: নিষিদ্ধ ঘোষিত নব্য জেএমবির চার শীর্ষ জঙ্গিকে ধরতেই একের পর এক জঙ্গিবিরোধী অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)। এই চার জঙ্গি হল, পুরনো জেএমবি থেকে নব্য জেএমবিতে যোগ দেওয়া শীর্ষ নেতা সোহেল মাহফুজ ...

সোমনাথ বসু: এক সপ্তাহেই কতটা বদলে গিয়েছে মোহন বাগান। গত শনিবার আইজল এফসি’র মুখোমুখি হওয়ার আগে সবুজ-মেরুন জনতার চোখেমুখে ছিল আই লিগ জয়ের স্বপ্ন। কলকাতা ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

আপনার মনে ধর্মভাব জাগ্রত হবে। কর্মপ্রার্থীরা কর্মের সুযোগ পাবেন। কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতির সূচনা হবে। অর্থ নিয়ে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৭০-ভারতীয় চলচ্চিত্রের জনক হিসাবে পরিচিত দাদাসাহেব ফালকের জন্ম।
১৯৪৫- জার্মানির চ্যান্সেলর এডলফ হিটলারের আত্মহত্যা।
১৯৮৭-ক্রিকেটার রোহিত শর্মার জন্ম।



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৪০ টাকা ৬৫.০৮ টাকা
পাউন্ড ৮১.৬৩ টাকা ৮৪.৪৪ টাকা
ইউরো ৬৮.৬৩ টাকা ৭১.১০ টাকা
29th  April, 2017
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,৩৯৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৭,৮৯০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮,৩১০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪০,৭০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪০,৮০০ টাকা

দিন পঞ্জিকা

১৬ বৈশাখ, ৩০ এপ্রিল, রবিবার, পঞ্চমী রাত্রি ১২/৫০, মৃগশিরানক্ষত্র দিবা ৮/৩৩, সূ উ ৫/৮/৪৯, অ ৫/৫৮/৫৭, অমৃতযোগ প্রাতঃ ৬/১-৯/২৬ রাত্রি ৭/২৮-৮/৫৭, বারবেলা ৯/৫৮-১/১০, কালরাত্রি ১২/৫৮-২/২২।
১৬ বৈশাখ, ৩০ এপ্রিল, রবিবার, চতুর্থী ৮/২৭/০, মৃগশিরানক্ষত্র ১/১৯/৪২, সূ উ ৫/৮/৮, অ ৫/৫৯/৪, অমৃতযোগ দিবা ৫/৫৯/৩২-৯/২৫/৭, রাত্রি ৭/২৮/১৭-৮/৫৭/২৯, বারবেলা ৯/৫৭/১৪-১১/৩৩/৩৬, কালবেলা ১১/৩৩/৩৬-১/৯/৫৮, কালরাত্রি ১২/৫৭/১৪-২/২০/৫২। 
 ৩ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
সুপার ওভারে গুজরাত লায়ন্সকে হারাল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স 

12:03:36 AM

আজ ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা 
আজ, রবিবার শহরে কালবৈশাখীর ক্ষীণ আশা জুগিয়ে রাখল আবহাওয়া দপ্তর। তবে ঝড়বৃষ্টি হওয়ার ভালো সম্ভাবনা আছে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে এবং দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি এলাকায়। পূর্ব বিহারের উপর থাকা একটি ঘূর্ণাবর্ত রাজ্যে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকিয়েছে। তার প্রভাবে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে বলে জানিয়েছেন আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের কর্তারা। তাঁরা বলেন, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমা বায়ু উপর দিকে উঠে আসছে। এদিকে, বিহারের ঘূর্ণাবর্ত থেকে ছত্তিশগড় পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা রয়েছে, যার অবস্থান সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৯০০ মিটার উপরে।  

08:15:00 AM

সুপার ওভারে গুজরাত লায়ন্সকে জয়ের জন্য ১২ রানের টার্গেট দিল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স 

29-04-2017 - 11:51:00 PM

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স-গুজরাত লায়ন্স ম্যাচ সুপার ওভারে 

29-04-2017 - 11:38:42 PM

গুজরাত লায়ন্স ২০ ওভারে ১৫৩/৯ 

29-04-2017 - 09:40:01 PM

গুজরাত লায়ন্স ১০ ওভারে ৭০/৪ 

29-04-2017 - 08:52:29 PM






বিশেষ নিবন্ধ
ধ্রুবতারা ফুটবল, স্বপ্ন সরণিতে মিজোরাম
সৌম্য বন্দ্যোপাধ্যায়: এই লেখাটা যেদিন আপনি পড়ছেন, অর্থাৎ রোববার সেই দিনটা যখন শেষ হব হব ...
এত তাড়াতাড়ি ভোটের বাদ্যি বাজিয়ে দেওয়ার চেষ্টা কেন
শুভা দত্ত: সামনের বছর পঞ্চায়েত ভোট। সে ভোটের দিনক্ষণ এখনও ঠিক হয়নি। এবং তার আগে ...
  স্বল্প সঞ্চয় প্রকল্পে চরম দুরবস্থার জন্য দায়ী কিছু কর্পোরেট সংস্থার বিপুল অনাদায়ী ঋণ
 দেবনারায়ণ সরকার: ২০১৭-র ১ এপ্রিল থেকে প্রবীণদের জন্য ৫ বছরের সঞ্চয় প্রকল্পে থেকে শুরু করে ...
এই পুর নির্বাচনে পাহাড় থেকে সমতলে নতুন রাজনৈতিক সমীকরণের খোঁজ মিলবে
বিশ্বনাথ চক্রবর্তী: আগামী ১৪ মে রাজ্যের ৭টি পুরসভার ১৪৮টি ওয়ার্ডে ৩৮৫টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে। এই ...
 বাজেট হাসপাতাল তৈরি দূরদর্শী সিদ্ধান্ত, আগামীদিনে অগ্রাধিকার পাক জেলাও
নিমাই দে: এমন একটা প্রতিযোগিতার বাজারে, যেখানে সরকার বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মৌচাকে ঢিল মারতে নামছে, সেখানে ...