Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

বিদেশে যাচ্ছে বাঁকুড়ার আম, ফলছে মোসম্বি
জেলায় চাষ হচ্ছে বেদানা, স্ট্রবেরি, ড্রাগন ফ্রুট, ফলচাষ বাড়াতে উদ্যোগী উদ্যানপালন দপ্তর

ব্রতীন দাস: রাজ্যের গণ্ডি ছাড়িয়ে দেশে সমাদৃত হয়েছে আগেই। এখন বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে বাঁকুড়ার আম। বিশেষ করে বাঁকুড়ার আম্রপালি আম যাচ্ছে দুবাইতে। সেখান থেকে কাতার। বিদেশে আম রপ্তানি হওয়ায় মিলছে ভালো দাম। স্বভাবতই খুশি কৃষক থেকে এই জেলার ব্যবসায়ীরা, যাঁরা চাষিদের কাছ থেকে পাইকারি দরে আম কিনে তার পর তা প্যাকিং করে বিদেশে রপ্তানি করছেন।
বাঁকুড়ার মাটিতে ফলচাষের সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখে চাষিদের এ ব্যাপারে উৎসাহিত করতে এগিয়ে এসেছে রাজ্যের উদ্যানপালন দপ্তরও। ওই দপ্তরের তরফে ফলচাষে আগ্রহী কৃষকদের যেমন সরকারি অনুদান দেওয়া হচ্ছে, তেমনই কীভাবে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফলচাষে আরও লাভ করা যায়, সে ব্যাপারে প্রশিক্ষণও দিচ্ছেন উদ্যানপালন আধিকারিকরা। হর্টিকালচার দপ্তরের পক্ষ থেকে চাষিদের বিনামূল্যে ফলের চারা থেকে চাষের জন্য প্রয়োজনীয় জৈবসার এমনকী অনেক সময় আগাছানাশকও দেওয়া হচ্ছে।
জেলার উদ্যানপালন আধিকারিক মলয় মাজি জানিয়েছেন, গত তিন বছর ধরে বাঁকুড়ায় ফলচাষের এলাকা বাড়ানোর জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ২০১৭-১৮ সালে ৪৫০ হেক্টর জমিতে ফলের বাগান তৈরি করা হয়েছে। তাতে যুক্ত হয়েছেন ১১৭০ জন কৃষক। ২০১৮-১৯ সালে ৪০৫ হেক্টর জমিতে গড়ে তোলা হয়েছে ফলবাগান। তাতে যুক্ত হয়েছেন ৯১৫ জন কৃষক। ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে বাঁকুড়ায় ৫০০ হেক্টর জমিতে ফলের বাগান করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। এখনও পর্যন্ত যে পরিমাণ জমিতে ফলের বাগান করা হয়েছে, তার প্রায় ৭০ শতাংশে চাষ হচ্ছে নানা প্রজাতির আম। এর মধ্যে আম্রপালি খুব ভালো হচ্ছে। রয়েছে ল্যাড়া, মল্লিকার মতো আমও। এছাড়া আঙুর, কাজু, মোসম্বি, পেয়ারা, বেদানা, ড্রাগন ফ্রুট, স্ট্রবেরি বাগানও গড়ে তোলা হয়েছে। কয়েকটি জায়গায় পরীক্ষামূলকভাবে চাষ করা হচ্ছে আপেল। মলয়বাবু বলেন, বাঁকুড়াকে প্রাধান্য দিয়ে পশ্চিমাঞ্চলের পাঁচটি জেলাকে নিয়ে ফল চাষের প্রসারে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই বাঁকুড়ায় চাষ হওয়া আম্রপালি আম তার স্বাদের গুণে কলকাতার মেলায় প্রথম পুরস্কার পেয়েছে। দিল্লিতেও যে মেলা হয়ে থাকে, তাতেও সেরার পুরস্কার ছিনিয়ে নিয়েছে বাঁকুড়ার আম্রপালি। বাঁকুড়া শহরের কাছেই দামোদরপুর এলাকায় পতিত জমিতে ফলের বাগান গড়ে নজর কেড়েছেন সিদ্ধার্থ সেন। কৃষকরত্ন পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। তাঁর বাগানে ফলছে ভাগুয়া প্রজাতির বেদানা। নাগপুরের মোসম্বি। একাধিক প্রজাতির পেয়ারা। আম্রপালি, মল্লিকা, ল্যাংড়া প্রজাতির আম। কিছুটা জমিতে আপেল চাষ করেছেন তিনি। ফল আসতে শুরু করেছে। সিদ্ধার্থবাবুর বাগান থেকে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকার পাশাপাশি দিল্লিতে আম রপ্তানি হচ্ছে। গত বছর তিনি দুবাইয়ে ১৬ টন আম্রপালি আম রপ্তানি করেছেন বলে জানিয়েছেন। এবছর ৪০ টন আম দুবাইতে রপ্তানি করা হবে বলে চুক্তি হয়েছে। যেহেতু তিনি বিদেশে আম রপ্তানি করে থাকেন, তাই ফলের মধ্যে যাতে কোনওরকম বিষক্রিয়া কিংবা ফ্রুট ফ্লাই না থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হয় বলে জানিয়েছেন সিদ্ধার্থ। তাঁর দাবি, চাষে পুরোপুরি জৈবসার প্রয়োগ করে থাকেন তিনি। জমিতেই তৈরি করেন ভার্মিকম্পোস্ট। জৈবসার প্রয়োগ করায় ফলের আকার ও স্বাদ দারুণ হচ্ছে। ফল উৎপাদনের পাশাপাশি চারাও তৈরি করছেন। এলাকার কৃষকরা তাঁর বাগানে এসে চাষ পদ্ধতি দেখে যাচ্ছেন। ফলচাষে তিনি বাঁকুড়ায় মডেল বাগান তৈরি করতে চান। উদ্যানপালন আধিকারিকরা জানিয়েছেন, বাঁকুড়ায় একটু লেট ভ্যারাইটির আম চাষ করে থাকেন অনেক ফলচাষি। তাতে জুনের শেষ সপ্তাহ থেকে আম পাকতে শুরু করে। গোটা জুলাই মাস ধরে আম পাওয়া যায়। এইসময় অন্যান্য জেলার আম অনেকটা ফুরিয়ে আসে। ফলে বাজারে ভালো দাম পাওয়া যায়। তাছাড়া বাঁকুড়ায় যেহেতু আম্রপালি আমের চাষ বেশি হয়ে থাকে, এই আমের সুবিধা হল গাছ থেকে পাড়ার পর বেশিদিন পর্যন্ত রেখে দেওয়া যায়। সহজে পচে না। গাছ থেকে একটু কাঁচা অবস্থায় পেড়ে নিলেও স্বাভাবিক তাপমাত্রায় কয়েকদিন রেখে দিলে পেকে যায়। এ জন্য কার্বাইড বা ইথিলিন দেওয়ার দরকার পড়ে না।
26th  June, 2019
মৌমাছিকে অ্যান্টিবায়োটিক দাওয়াই
বিপদ ঘনাচ্ছে মধুতে, উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা

 ব্রতীন দাস: মৌমাছিকে ঢালাও অ্যান্টিবায়োটিক দাওয়াই। আর তাতেই চরম বিপদ ঘনাচ্ছে মধুতে। বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা। অভিযোগ, প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও সচেতনতার অভাবে বাংলার মৌপালকদের একাংশ মধুর পরিমাণ বাড়াতে মৌমাছির শরীরে নানারকম হরমোনের প্রয়োগ ঘটাচ্ছে।
বিশদ

17th  July, 2019
কোয়েল পাখি পালন করে আয়ের সুযোগ

 নবজ্যোতি সরকার: কোয়েল পাখি পালন খুবই লাভজনক ব্যবসা। এই ব্যবসার মাধ্যমে গ্রামীণ কর্মসংস্থানের বড় সুযোগ রয়েছে। স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারাও কোয়েল পাখি পালন করে আয়ের নয়া দিশা দেখতে পারেন।
বিশদ

17th  July, 2019
 রোটাভেটর ব্যবহার করে চাষে জমি হারাচ্ছে উর্বরতা শক্তি, বাড়তে পারে জল সংকট

সোমেন পাল, হরিরামপুর: কৃষি দপ্তরের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাজুড়ে চলছে রোটাভেটর ব্যবহার করে জমি চাষ। এটি হল ট্রাক্টরের পিছনে লাঙলের ফলার পরিবর্তে ব্যবহার করা এক বিশেষ ধরনের যন্ত্রাংশ। এটি দিয়ে খুব অল্প সময়ে বেশি জমি চাষ করা যায়। কিন্তু এর ক্ষতিকারক দিকও রয়েছে।
বিশদ

17th  July, 2019
 জমিকে উর্বর করতে ধইঞ্চা ও ডালচাষ জরুরি

সংবাদদাতা: মাটির উপরিভাগ থেকে মাটির নীচে ৫ ফুট পর্যন্ত মাটির অবস্থা কেমন আছে তা নিয়ে লাগাতার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চলেছেন মাটি সর্বেক্ষণ কেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা। এতে চাষিরা দারুণভাবে উপকৃত হচ্ছেন। এই রিপোর্টে থাকছে বন্ধ্যা জমিকে কীভাবে এক ফসলি করা যায়। কিংবা এক ফসলি জমিকে কীভাবে বহু ফসলি করা যেতে পারে।
বিশদ

17th  July, 2019
 গোরু-মোষের বন্ধ্যাত্ব ঠেকাতে দেওয়া হবে ‘ব্রুসেলা টিকা’

  নিজস্ব প্রতিনিধি: গোরু ও মোষের বন্ধ্যাত্ব ঠেকাতে ব্রুসেলা টিকা কর্মসূচি নিতে চলেছে রাজ্য। কয়েকটি ধাপে রাজ্য জুড়ে এই কর্মসূচি চলবে বলে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে। মূলত ৩ থেকে ৬ মাসের বকনা বাছুরকে ব্রুসেলা টিকা দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।
বিশদ

17th  July, 2019
 বৃষ্টির অভাবে আমন চাষে দুশ্চিন্তা

 সংবাদদাতা: খাতায়-কলমে শ্রাবণ মাস পড়ে গেলেও সেভাবে বৃষ্টি না হওয়ায় ক্ষতির মুখে চাষাবাদ। বৃষ্টির অভাবে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগর, কুলতলি সহ বিভিন্ন এলাকার চাষিরা এ বছর অর্ধেকের বেশি জমিতে এখনও পর্যন্ত আমন ধান রোয়া করতে পারেননি। অন্যান্য জেলাতেও কমবেশি একই অবস্থা।
বিশদ

17th  July, 2019
 দক্ষিণ বাঁকুড়ায় এবার খরা সহনশীল ধান চাষে জোর

 দয়াময় বন্দ্যোপাধ্যায়, খাতড়া: দক্ষিণ বাঁকুড়া তথা খাতড়া মহকুমায় চলতি বর্ষার মরশুমে পর্যাপ্ত বৃষ্টির দেখা নেই। তাই যন্ত্রের মাধ্যমে বাঁকুড়ার জঙ্গলমহলের দুই ব্লক সারেঙ্গা এবং সিমলাপালে খরা সহনশীল ধান চাষে জোর দিয়েছে মহকুমা কৃষি দপ্তর।
বিশদ

17th  July, 2019
 হারিয়ে যাওয়া দেশি সুগন্ধী ‘হরিণখুড়ি’ ধান ফিরিয়ে নজর কাড়লেন সাগরের কৃষকরা

 ব্রতীন দাস : হারিয়ে যাওয়া দেশি সুগন্ধী ধান ‘হরিণখুড়ি’ ফিরিয়ে নজির গড়লেন সাগরের কৃষকরা। বহু বছর আগে সাগরের বিভিন্ন এলাকায় এই ধানটি চাষ হতো। কিন্তু বারবার প্রাকৃতিক বিপর্যয় ও ঠিকমতো ফলন না মেলায় ধীরে ধীরে এর চাষ কমতে থাকে।
বিশদ

03rd  July, 2019
 আমনে ভালো ফলন পেতে নিয়ম মেনেই বীজ শোধন জরুরি

 অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: আমন ধান চাষে রোগপোকার আক্রমণ রোধ করার সঙ্গে ভালো উৎপাদন পেতে হলে সঠিক নিয়ম মেনে বীজ শোধন করে নিয়ে ভালো পুষ্ট বীজ ধান থেকে চারা তৈরি করতে হবে। বীজে অনেক সময় ফসলের ঝলসা, ধসা ও চিটে ইত্যাদি নানা ধরনের রোগের জীবাণু থাকে।
বিশদ

03rd  July, 2019
ধানচাষের ‘সুধা’ পদ্ধতি নিয়ে প্রশিক্ষণ

 সংবাদদাতা: এ বছর বর্ষা দেরিতে। অনেক জায়গায় বীজতলা তৈরির কাজ শুরু করতে পারেননি কৃষকরা। কোথাও বীজতলা তৈরি হলেও জলের অভাবে মার খাচ্ছে। কৃষি বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, বীজতলা ভালো না হলে চারা দুর্বল হবে। আবার বীজতলা তৈরির সময় পিছিয়ে গেলে ফলন কমতে পারে।
বিশদ

03rd  July, 2019
 ‘গাড়োল’ভেড়া পালনে লাভ বেশি

 নবজ্যোতি সরকার: উত্তর ২৪ পরগনার সুন্দরবন অঞ্চল অর্থাৎ হাসনাবাদ, হিঙ্গলগঞ্জ এবং সন্দেশখালি ১ ও ২ নম্বর ব্লকে গাড়োল প্রজাতির ভেড়া পালন হচ্ছে। প্রাণী বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, বাণিজ্যিক উপায়ে এই ভেড়ার চাষ করে পালকদের আয় অনেকগুণ বাড়বে। এজন্য বৈজ্ঞানিক উপায় অবলম্বন করতে হবে।
বিশদ

03rd  July, 2019
 বর্ষাকালীন বরবটি লাভ দেবে চাষিকে

 সংবাদদাতা: বর্ষাকালীন সব্জি চাষের মধ্যে বরবটির চাষ করলে কৃষকরা ভালো আয় করতে পারবেন। বরবটি চাষের জন্য এখন থেকে প্রস্তুতি শুরু করতে হবে। বর্ষাকালীন বরবটি লাগানোর উপযুক্ত সময় আষাঢ়-শ্রাবণ মাস। উন্নত জাতের মধ্যে কল্যাণপুর ভ্যারাইটি ভালো।
বিশদ

03rd  July, 2019
দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় বাড়ছে হাইব্রিড বেগুন চাষ

 সংবাদদাতা: দক্ষিণ-পূর্ব সুন্দরবন অর্থাৎ দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তী, গোসাবা, ক্যানিং ১ ও ২, কুলতলি, জয়নগর ১ ও ২ ব্লকে ব্যাপক হারে হাইব্রিড বেগুনের চাষ চলছে। চাষিরা জানিয়েছেন, শীতকালে সুন্দরবনে মাটির উপরিভাগে নুন উঠে আসে। কৃষি বিজ্ঞানীদের পরামর্শমতো চৈত্র মাসের প্রথমে তাঁরা বর্ষাকালীন বেগুনের জন্য জমিতে লাঙল দিয়েছেন।
বিশদ

26th  June, 2019
হাসনাবাদে ৩০০ বিঘা জমিতে এবার মেশিনে বোনা হবে ধানের চারা

 নিজস্ব প্রতিনিধি: উত্তর ২৪ পরগনার হাসনাবাদ ব্লকে যন্ত্রের সাহায্যে এবার ৩০০ বিঘা জমিতে আমন ধান চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ব্লকের সহ কৃষি অধিকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছেন, প্রতীক্ষা, গোটরা বিধান-৩, অজিত, জয়া প্রভৃতি ভ্যারাইটির ধান চাষ করানো হবে। এছাড়াও কৃষকরা নিজেদের পছন্দমতো ভ্যারাইটির ধান চাষ করতে পারেন।
বিশদ

26th  June, 2019

Pages: 12345

একনজরে
 ওয়াশিংটন, ২০ জুলাই (পিটিআই): আন্তর্জাতিক চাপের মুখে মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজ সইদকে গ্রেপ্তার করেছে পাকিস্তান। এরপরেও পাকিস্তানের উপর থেকে সন্দেহ যাচ্ছে না আমেরিকার। ট্রাম্প প্রশাসনের প্রবীণ এক কর্তাব্যক্তি শুক্রবার জানিয়েছেন, আগেও হাফিজকে গ্রেপ্তার করেছিল ইসলামাবাদ। ...

পল্লব চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: তিনিই যোগ্যতম। বাণিজ্য শাখার স্কুল শিক্ষক হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন ২০০১ সালের ৩০ জুলাই। কিন্তু, কম যোগ্যতাসম্পন্নদের স্কুলে শিক্ষক পদে রেখে দেওয়া হলেও তাঁর চাকরি বিগত ১৮ বছরেও অনুমোদিত হয়নি। তাঁর মামলা সূত্রে দেওয়া কলকাতা হাইকোর্টের একাধিক ...

সংবাদদাতা, বালুরঘাট: বালুরঘাট শহরের বিভিন্ন রাস্তায় গবাদিপশুর বিচরণ বেড়ে যাওয়া ব্যাপক সমস্যার পড়েছেন পথচলতি সাধারণ মানুষ। শহরের যত্রতত্র গোরু, ছাগল ঘোরাঘুরি করলেও সেসব ধরে সংশ্লিষ্ট মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ...

 বিএনএ, চুঁচুড়া: প্রায় ২৪ ঘণ্টা পরে হুগলির চাঁপদানির ডালহৌসি জুটমিলে কাজ শুরু হল। শুক্রবার বিকেলে একাংশের কর্মী কাজ বন্ধ করে দেন। তারপর রাতে কারখানার সমস্ত কর্মী কাজ বন্ধ করে দিয়েছিলেন। কর্মীদের অভিযোগ, কারখানার উৎপাদন বাড়ানোর জন্য বেশি সময় ধরে কাজের ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চবিদ্যার ক্ষেত্রে ভালো ফল হবে। ব্যবসায় যুক্ত হলে খুব একটা ভালো হবে না। প্রেমপ্রীতিতে বাধাবিঘ্ন। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯২০: মা সারদার মৃত্যু
১৮৬৩: কবি, গীতিকার ও নাট্যকার দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের জন্ম
১৮৯৯: লেখক বনফুল তথা বলাইচাঁদ মুখোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯৫৫: প্রাক্তন ক্রিকেটার রজার বিনির জন্ম
২০১২: বাংলাদেশের লেখক হুমায়ুন আহমেদের মূত্যু 

20th  July, 2019
ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৭.৯৫ টাকা ৬৯.৬৪ টাকা
পাউন্ড ৮৪.৭৭ টাকা ৮৭.৯২ টাকা
ইউরো ৭৬.১০ টাকা ৭৯.০৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
20th  July, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৫,৫২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৩,৭০৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৪,২১০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪০,৫৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪০,৬৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার, চতুর্থী ১৬/২২ দিবা ১১/৪০। শতভিষা ৫/৪৫ দিবা ৭/২৫। সূ উ ৫/৬/৫২, অ ৬/১৮/১৬, অমৃতযোগ প্রাতঃ ৫/৫৯ গতে ৯/৩১ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৫ গতে ৯/১১ মধ্যে, বারবেলা ১০/৪ গতে ১/২২ মধ্যে, কালরাত্রি ১/৩ গতে ২/২৪ মধ্যে।
৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার, চতুর্থী ৯/২৬/৩১ দিবা ৮/৫২/১৬। শতভিষানক্ষত্র ২/০/৪৮ প্রাতঃ ৫/৫৩/৫৯, সূ উ ৫/৫/৪০, অ ৬/২১/৪৭, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪ গতে ৯/৩২ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪১ গতে ৯/৮ মধ্যে, বারবেলা ১০/৪/১৩ গতে ১১/৪৩/৪৪ মধ্যে, কালবেলা ১১/৪৩/৪৪ গতে ১/২৩/১৪ মধ্যে, কালরাত্রি ১/৪/১২ গতে ২/২৪/৪২ মধ্যে।
১৭ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
  ইস্ট বেঙ্গলে জুনিয়র বিশ্বকাপার
ইস্ট বেঙ্গলের অনুশীলনে যোগ দিলেন যুব ভারতীয় দলের স্ট্রাইকার অভিজিৎ ...বিশদ

09:28:53 AM

প্রয়াত দিল্লির প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি মঙ্গেরাম গর্গ 

09:25:00 AM

তেলেঙ্গানার নালগোন্ডায় জামাইবাবুর গলা কেটে খুন করল শ্যালক 

09:22:00 AM

হায়দরাবাদের জুলজিক্যাল পার্কে একটি সিংহের মৃত্যু 

09:20:00 AM

‘সি সি’ না নিলে মিলবে না ফ্ল্যাটের রেজিস্ট্রেশন
পুরসভার দেওয়া ‘কমপ্লিশন সার্টিফিকেট’ বা সিসি না দেখে ফ্ল্যাট কিনবেন ...বিশদ

09:19:10 AM

মণিপুরে মহাবলি মন্দির সংলগ্ন নদীতে তলিয়ে গেল ২ শিশু 

09:19:00 AM