Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

 একাঙ্গী চাষে খরচ কম, বিঘায় আয় লাখ টাকা

ব্রতীন দাস: একাঙ্গী একটি লাভজনক চাষ। এ রাজ্যের যেকোনও অঞ্চলে এটি চাষ করা যায়। একাঙ্গী কন্দযুক্ত ভেষজ উদ্ভিদ। কন্দ মাটির নীচে হয়। এটি চন্দ্রমূলি নামেও পরিচিত। দেখতে অনেকটা কচুরিপানার মতো। সবুজ রঙের বড় পাতা হয়। গাছের গোড়া থেকে একসঙ্গে ৮-১০টি পাতা বের হয়। সাত থেকে নয় মাসে ফসল তোলা যায়। বিঘায় এক লক্ষ টাকারও বেশি আয় করা যায়। একাঙ্গী চাষে তেমন খরচ নেই বললেই চলে। আয়ুর্বেদিক ওষুধ তৈরিতে একাঙ্গী কাজে লাগে। মাছের চার তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। একাঙ্গীর তেল থেকে সুগন্ধী তৈরি হয়। মশলা তৈরিতে কাজে লাগে। খুসকি দূর করার পাউডার তৈরি হয়। সর্দি, ডিস্পেপসিয়া, মাথাধরা, ম্যালেরিয়া, বাত, চোখ-গলা ফোলা রোগের ওষুধ তৈরি হয়। পানের সঙ্গে চিবিয়ে খাওয়া যায়। মুর্শিদাবাদের রানিনগর, ডোমকল, নওদা, হরিহরপাড়া, লালবাগে এর চাষ হচ্ছে। নদীয়া, হুগলি, বীরভূম, দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, ডুয়ার্সে বিক্ষিপ্তভাবে একাঙ্গীর চাষ হচ্ছে। দক্ষিণ দিনাজপুরে হিলি, তপন, বালুরঘাটেও চাষ হচ্ছে। শ্রীলঙ্কায় রপ্তানি হচ্ছে এ রাজ্যে উৎপাদিত একাঙ্গী, এমনটাই দাবি করা হয়েছে উদ্যানপালন দপ্তরের পক্ষ থেকে। উর্বর বেলে ও বেলে-দোঁয়াশ মাটিতে একাঙ্গীর চাষ ভালো হয়। ভিজে স্যাঁতসেতে নিচু জমি হলে ভালো। জলসেচ ও জল নিকাশি ব্যবস্থা ভালো থাকতে হবে। বেশি জল জমে গেলে একাঙ্গীর কন্দ পচে যেতে পারে। সেচ দিয়ে জমিতে জো এলে আড়াআড়িভাবে তিনটি চাষ দিয়ে নিতে হবে। তার পর আগাছা পরিষ্কার করে জমি সমতল করতে হবে। মাটি বাহিত রোগ প্রতিরোধে বিঘায় ৫০০ গ্রাম ট্রাইকোডার্মা ভিরিডি ও ৩০-৪০ কেজি আর্দ্রতাযুক্ত জৈবসার বা কেঁচোসার শেষ চাষের আগে জমিতে মিশিয়ে দিতে হবে। ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় জৈবসার ছড়াতে পারলে ভালো। ব্যাকটেরিয়া নাশক হিসেবে সিউডোমোনাস ফ্লুরোসেন্স দিতে হবে। একাঙ্গীর উচ্চফলনশীল জাতগুলির মধ্যে অন্যতম রজনী, কস্তুরি প্রভৃতি। গোটা কন্দ থেকে দু-একটি চোখ রেখে টুকরো টুকরো করে কেটে আলুর মতো করে বসানো যেতে পারে। চৈত্র থেকে জ্যৈষ্ঠ মাস পর্যন্ত একাঙ্গীর কন্দ বসানোর সময়। বিঘায় ১০০ কেজি কন্দ লাগে। অবশ্যই কন্দ শোধন করে নিতে হবে। প্রতি লিটার জলে ৫ গ্রাম ট্রাইকোডার্মা ভিরিডি দিয়ে সেই দ্রবণে ৫ মিনিট কন্দ ভিজিয়ে রাখতে হবে। তার পর ছায়ায় সেই কন্দ শুকিয়ে নিতে হবে। রাসায়নিকভাবে শোধন করতে হলে কার্বেন্ডাজিম ১২ শতাংশ, ম্যানকোজেব ৬৩ শতাংশ ডব্লুপি ২ গ্রাম প্রতি লিটার জলে গুলে কন্দ ডুবিয়ে রাখতে হবে। ২০ সেন্টিমিটার বাই ১৫ সেন্টিমিটার দূরত্বে এবং ২ সেমি গভীরতায় কন্দ বোনা উচিত। কন্দ বোনার পর প্রথমবার নিড়ানি না দিয়ে আগাছানাশক ব্যবহার করা উচিত। সেক্ষেত্রে গ্লাইফোসেট ৪১ এসএল প্রতি লিটার জলে ৭-৮ গ্রাম দেওয়া যেতে পারে বলে জানিয়েছেন উদ্যানপালন আধিকারিকরা।
কারণ, নিড়া঩নি দিলে কন্দ কেটে যাওয়ার ভয় থাকে। কন্দ লাগানোর ৪৫ দিন ও ৯০ দিন পর নিড়ানি দিয়ে আগাছা পরিষ্কার করা যেতে পারে। দক্ষিণ দিনাজপুরের উদ্যানপালন আধিকারিক ড. সমরেন্দ্রনাথ খাঁড়া জানিয়েছেন, একাঙ্গী চাষে জমির আর্দ্রতা বুঝে ১৫-২০ দিন পর পর চারবার সেচ দিতে হবে। জমি তৈরির সময় শেষ চাষের আগে বিঘায় ৪-৬ গোরুর গাড়ি গোবর সার দিতে হবে। রাসায়নিক সার দিতে হবে দু’বার। কন্দ বসানোর ৪৫দিন পর প্রথমবার ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি ইউরিয়া, কন্দ বসানোর ৯০ দিন পর ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি ইউরিয়া দিতে হবে। গাছের পাতা হলুদ হয়ে শুকিয়ে এলে সরু কোদাল দিয়ে একাঙ্গী তুলতে হয়। তোলার পর শুকনো পাতা ছড়িয়ে জলে মাটি ধুয়ে নিতে হবে। তার পর গোল গোল করে কেটে মেঝেয় ফেলে চারদিন শুকাতে হবে। চতুর্থদিনে কন্দগুলি জড়ো করে সারারাত রেখে দিতে হবে। পরদিন আবার সেগুলি ছড়িয়ে দিয়ে শুকাতে হবে। তার পর ঠাণ্ডা জায়গায় একাঙ্গী মজুত রাখতে হবে। বিঘায় ২ হাজার কেজি কাঁচা কন্দ পাওয়া যায়। শুকালে ওজন দাঁড়ায় ৬৬০ কেজি। বীজ ও মাটি বাহিত ছত্রাক দ্বারা একাঙ্গী গাছ আক্রান্ত হতে পারে। এতে গাছ হলুদ হয়ে শুকিয়ে যায়। কন্দের বৃদ্ধি ব্যাহত হয়। গাছ মারা যায়। একাঙ্গীর ধসা রোধে প্রতি লিটার জলে কার্বেন্ডাজিম ১২ শতাংশ, ম্যানকোজেব ৬৩ শতাংশ ডব্লুপি ২ গ্রাম গুলে স্প্রে করতে হবে। ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে গাছের গোড়ায় ও পাতায় জল বসা দাগ দেখা যায়। গাছ হলুদ হয়ে শুকিয়ে মারা যায়।
আক্রান্ত জায়গা থেকে কন্দের টুকরো কেটে কাচের গ্লাসে জলে ভিজিয়ে রাখলে কিছুক্ষণ পর জল ঘোলাটে হয়ে যায়। ব্যাকটেরিয়া নাশক হিসেবে স্ট্রেপটোমাইসিন ৯১.৪ শতাংশ, টেট্রাসাইক্লিন ৪ শতাংশ এসপি ২০ লিটার জলে ২ গ্রাম মিশিয়ে স্প্রে করতে হবে। একাঙ্গী চাষে কীটনাশকের তেমন কোনও খরচ নেই। তবে জমি ভেজানোর দিনে ২-৩ কেজি কার্বেন্ডাজিম ৩ জি প্রয়োগ করলে ভালো। এতে কাটুই পোকা দমন করা যায়। মুর্শিদাবাদের রানিনগর দু’নম্বর ব্লকের সহ কৃষি অধিকর্তা মিঠুন সাহা জানিয়েছেন, সীমান্ত লাগায়া অঞ্চলে বেশি উচ্চতার ফসল পাট, ভুট্টা চাষ করতে দেয় না সীমান্তরক্ষী বাহিনী। কারণ, তাতে তাদের প্রহরায় সমস্যা হয়। এইসব এলাকায় চাষিরা অনায়াসেই একাঙ্গী চাষ করতে পারেন। পাটের তুলনায় একাঙ্গীর উৎপাদন হার ভালো। তবে যে জমিতে একাঙ্গী চাষ করা হবে, তাতে যেন জৈববস্তুর পরিমাণ বেশি থাকে। একাঙ্গীর সঙ্গে মুগ, অড়হর ডাল ও মাচায় পটল চাষ করা যেতে পারে। একাঙ্গী চাষে মোটামুটি আট থেকে দশমাস সময় লাগে। রানিনগরে প্রায় হাজার তিনেক কৃষক একাঙ্গী চাষের সঙ্গে যুক্ত। ৮০০ হেক্টর এলাকায় এর চাষ হচ্ছে।
তবে কৃষকদের অনেকেই একাঙ্গীর চাষ করলেও সেভাবে যত্ন নেন না। ঠিকমতো চাষ করলে এক বিঘা একাঙ্গী চাষ করে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয় করা সম্ভব। এই চাষে খরচ খুবই কম। বিক্রির সমস্যাও নেই। কলকাতার বড়বাজার থেকে ব্যবসায়ীরা এসে কিনে নিয়ে যান। তার পর তাঁরা রপ্তানি করে থাকেন।
19th  June, 2019
অর্কিড রপ্তানি করছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর 

নবজ্যোতি সরকার: অর্কিডের প্রতি মানুষের চাহিদা বেড়েই চলেছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর ২ নম্বর ব্লকের বাখরাহাট, চক এনায়েতপুর এবং পারবেড়িয়া-জয়চণ্ডীপুরের প্রায় ১০০টি নার্সারিতে বিক্রি হচ্ছে লাকি বাম্বু, ক্যাটেলিয়া ও ফ্যালেনপসিস প্রজাতির অর্কিড। গোটা দেশে এইসব অর্কিড রপ্তানি হচ্ছে। বিদেশেও যাচ্ছে। লাকি বাম্বু ১৫০ টাকা। 
বিশদ

18th  September, 2019
সরকারি মূল্যে ধান কেনার জন্য এবার ঝাড়গ্রামের প্রতিটি পঞ্চায়েতে শিবির 

রঞ্জন পাল  ঝাড়গ্রাম: সরকারি মূল্যে ধান কেনার জন্য এবার ঝাড়গ্রাম জেলাজুড়ে প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে শিবির করা হবে। দূরত্বের কথা মাথায় রেখে চাষিদের সুবিধার্থে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন।  
বিশদ

18th  September, 2019
ময়নাগুড়ি ও মালবাজারে মাগুর মাছের চাষ বাড়ছে 

সোমনাথ চক্রবর্তী: মাগুর মাছ চাষের দিকে জোর দিয়েছেন ডুয়ার্সের বেশ কয়েকজন কৃষক। মাগুর মাছের হ্যাচারি বানিয়ে তাতে মাগুর মাছের ডিম থেকে বাচ্চা ফুটিয়ে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার আশায় রয়েছেন ময়নাগুড়ি ও মালবাজার ব্লকের একাধিক মৎস্যচাষি। 
বিশদ

18th  September, 2019
পেঁয়াজের ৩০টি সংরক্ষণাগার হচ্ছে মালদহে 

মঙ্গলচন্দ্র ঘোষ, গাজোল: মালদহ জেলায় বেশি সংখ্যক পেঁয়াজ মজুত রাখবার জন্য সরকারি উদ্যোগে ৩০টি সংরক্ষণাগার তৈরি করা হচ্ছে। প্রাকৃতিক উপায়ে ওই সংরক্ষণাগারের একটি ঘরে মোট ২৫ মেট্রিক টন পর্যন্ত পেঁয়াজ রাখা যাবে। চাষিরাই তৈরি করছেন এই সংরক্ষণাগারগুলি। পরে অবশ্য মোট ব্যয়ের ৫০ শতাংশ দিয়ে দেওয়া হবে চাষিদের।
বিশদ

18th  September, 2019
পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম চাষে ঝোঁক বাড়ছে 

ব্রতীন দাস: পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম। বাজারে ভালো দাম মেলায় চাষে ঝোঁক বাড়ছে কৃষকদের। সেপ্টেম্বর থেকে চাষ শুরু করতে হয়। তিনমাসেই ফলন পাওয়া যায়। গাছ বাঁচিয়ে রাখতে পারলে মে মাস পর্যন্ত ফলন পাওয়া সম্ভব।  
বিশদ

18th  September, 2019
বাড়ির ছাদে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রজাতির গাছের বাগান করে পড়ুয়াদের চেনাচ্ছেন কাটোয়ার যুবক 

অনিমেষ মণ্ডল  কাটোয়া, সংবাদদাতা: বাড়ির ছাদে কয়েক লক্ষ টাকার বাগান করে পাড়ার খুদে পড়ুয়াদের দেশ বিদেশের গাছ চেনার পরামর্শ দিচ্ছেন পরিবেশপ্রেমী কাটোয়ার বাসিন্দা সুজন কুণ্ডু। নিজের বাড়ির ছাদে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে দেশ বিদেশের প্রচুর ফুল ও ফলের গাছ লাগিয়েছেন তিনি। 
বিশদ

18th  September, 2019
 গাঁদাফুল চাষে লাভ মিলবে ভালোই

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: প্রচলিত বিভিন্ন ফসল চাষের পাশাপাশি চাষিরা কিছুটা জমিতে গাঁদাফুলের চাষ করলে ভালো আর্থিক লাভের মুখ দেখতে পাবেন। গাঁদাফুলের চাষ গ্রীষ্ম, বর্ষা, শীত, বছরের তিন মরশুমেই করা যায়।
বিশদ

11th  September, 2019
 মালদহে বিলি করা হবে আম, লিচু, লেবু ও পেয়ারার চারা

মঙ্গল ঘোষ: পুজোর আগে মালদহের পনেরোটি ব্লকজুড়ে কৃষকদের আম, লিচু, লেবু, পেয়ারার চারা দিতে চলেছে উদ্যানপালন দপ্তর। এজন্য ওই জোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই এই কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে। সব ব্লকের একাধিক চাষি এই চারাগুলি পাওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই ওই দপ্তরে ফর্ম পূরণ করে জমা দিয়েছেন।
বিশদ

11th  September, 2019
 অশ্বগন্ধা চাষ করতে হলে মাঠে নামতে হবে চলতি মাসেই

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি মহকুমায় অশ্বগন্ধা চাষে আগ্রহীদের সেপ্টেম্বর মাস থেকে জমি তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। উর্বর-অনুর্বর উভয় জমিতে অশ্বগন্ধা চাষ করা যায়। বিশেষজ্ঞদের দাবি, ভেষজ জাতীয় এই গাছ বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে উপকারী। অক্টোবর ও নভেম্বর মাস এই গাছের চারা লাগানোর উপযুক্ত সময়।
বিশদ

11th  September, 2019
 অল্প খরচে পেঁপে

সংবাদদাতা: সামান্য খরচে পেঁপে চাষ করে ভালো লাভ করা সম্ভব। চাষিরা জমিতে এই চাষ করতে পারেন। আবার বাড়িতে সামান্য জায়গা থাকলেও পেঁপে গাছ লাগানো যেতে পারে। 
বিশদ

11th  September, 2019
 অসময়ে বাজার ধরতে শরতে তরমুজ চাষ, ৬০ দিনেই ফলন

ব্রতীন দাস: তরমুজ মূলত গরমের ফল। কিন্তু, শরতেও তরমুজ ফলিয়ে বাড়তি লাভ পেতে পারেন কৃষকরা। ছটপুজোর কথা মাথায় রেখে আগাম বাজার ধরতে অসময়ে তরমুজের ভালোই চাহিদা থাকে। হাইব্রিড বিভিন্ন প্রজাতির সুবাদে পলি-মালঞ্চিং করে শরৎকালে তরমুজ ফলানো সম্ভব হচ্ছে।
বিশদ

11th  September, 2019
কান্দির বিলে জল না থাকায় মাছের আকাল, ভিনরাজ্যে মৎস্যজীবীরা

 ইন্দ্রজিৎ কর্মকার, কান্দি: বর্ষায় কম বৃষ্টি হওয়ায় পর্যাপ্ত জল নেই কান্দি মহকুমার অন্তর্গত পাটন বিল ও কারোল বিলে। ফলে ওই দুই বিল থেকে সেভাবে মাছ আমদানিও হচ্ছে না বাজারগুলিতে। তাই রুজি রোজগারে টান পড়েছে সংশ্লিষ্ট এলাকার মৎস্যজীবীদের। পুজোর আগে হতাশ মৎস্যজীবীরা রুজির টানে পাড়ি দিচ্ছেন ভিনরাজ্যে।
বিশদ

11th  September, 2019
মুর্শিদাবাদে জাঁক দেওয়ার মতো জল নেই, শুকিয়ে যাচ্ছে পাট, মাথায় হাত কৃষকদের

সংবাদদাতা, বহরমপুর: সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহ পেরলেও মুর্শিদাবাদ জেলার বহু জমিতে পাটগাছ দাঁড়িয়ে রয়েছে। পর্যাপ্ত জলের অভাবে এখনও পাট কাটতে পারেননি বহু চাষি। জাঁক দেওয়ার জন্য বহু জায়গায় জলাশয়ের ধারেই ডাঁই করে রাখা হয়েছে পাট। জাঁক দেওয়া পাট তোলা হলে তবেই চাষিরা ওই পাট পচাতে দিতে পারবেন।
বিশদ

11th  September, 2019
 তাপপ্রবাহে পুড়ে নষ্ট হয়েছে আমনের চারা, ফের বীজ বিলি

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: ফাঁসিদেওয়ায় জুলাই মাসে ২০-২৫ হেক্টর জমিতে লাগানো আমন ধানের চারা পুরো নষ্ট হয়ে গিয়েছে। ব্লকের উত্তর বাগদাও কিসমত, মধ্য বাগদাও কিসমত, পশ্চিম বাগদাও কিসমত, খুঁটিগছ, জালাস- নিজামতারার কাশিরাম সংলগ্ন এলাকাতে জলের অভাবে ধানের চারা নষ্ট হয়েছে। এমন অবস্থায় কৃষকদের মাথায় হাত পড়েছে।
বিশদ

04th  September, 2019

Pages: 12345

একনজরে
বিএনএ, রায়গঞ্জ: দুই শিক্ষাকর্মীর বদলির প্রতিবাদে ছাত্র আন্দোলনে শুক্রবার উত্তাল হল রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়। এদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে অঙ্ক ও কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফর্মেশন সায়েন্স বিভাগের সামনে কয়েকশ’ ছাত্রছাত্রী ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২০ সেপ্টেম্বর: চলতি ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে দেশের মাইক্রো-ফিনান্স ইন্ডাস্ট্রি ২ লক্ষ ৫০ হাজার কোটি টাকার গণ্ডি অতিক্রম করবে। স্ব-ধন ‘ভারত মাইক্রো-ফিনান্স রিপোর্ট, ২০১৯’-এ প্রকাশ পেয়েছে এই তথ্য। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: শুক্রবার সকালে সাঁকরাইলের ডেল্টা জুটমিলের পরিত্যক্ত ক্যান্টিন থেকে নিখোঁজ থাকা এক শ্রমিকের মৃতদেহ উদ্বার হল। তাঁর নাম সুভাষ রায় (৪৫)। তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে পরিবারের লোকজন অভিযোগ করেছেন। ...

 ওয়াশিংটন, ২০ সেপ্টেম্বর (পিটিআই): আমেরিকার রাস্তায় ফের প্রকাশ্যে বন্দুকবাজের তাণ্ডব। গুলিতে একজন প্রাণ হারিয়েছেন এবং আরও পাঁচজন জখম হয়েছেন। পুলিস জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা নাগাদ কলম্বিয়া হাইটস এলাকায় ওই ঘটনা ঘটেছে। জায়গাটি হোয়াইট হাউস থেকে খুব বেশি দূরে নয় বলেও ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

শরীর ভালো যাবে না। সাংসারিক কলহবৃদ্ধি। প্রেমে সফলতা। শত্রুর সঙ্গে সন্তোষজনক সমঝোতা। সন্তানের সাফল্যে মানসিক ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস
১৮৬৬: ব্রিটিশ সাংবাদিক, ঐতিহাসিক ও লেখক এইচ জি ওয়েলসের জন্ম
১৯৩৪: জাপানের হনসুতে টাইফুনের তাণ্ডব, মৃত ৩ হাজার ৩৬ জন
১৯৪৭: মার্কিন লেখক স্টিফেন কিংয়ের জন্ম
১৯৭৯: ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার ক্রিস গেইলের জন্ম
১৯৮০: অভিনেত্রী করিনা কাপুর খানের জন্ম
১৯৮১: অভিনেত্রী রিমি সেনের জন্ম
১৯৯৩: সংবিধানকে অস্বীকার করে রাশিয়ায় সাংবিধানিক সংকট তৈরি করলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন
২০০৭: রিজওয়ানুর রহমানের মৃত্যু
২০১৩: কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে ওয়েস্ট গেট শপিং মলে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ৬৭

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.১৯ টাকা ৭২.৭০ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৪৪ টাকা ৯১.১২ টাকা
ইউরো ৭৬.২৬ টাকা ৮০.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৭,৯৯০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,০৪৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৫৮৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, সপ্তমী ৩৭/১২ রাত্রি ৮/২১। রোহিণী ১৪/৪৩ দিবা ১১/২২। সূ উ ৫/২৮/২৩, অ ৫/৩১/৪০, অমৃতযোগ দিবা ৬/১৬ মধ্যে পুনঃ ৭/৪ গতে ৯/২৯ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৪ গতে ৩/৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৫ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ১২/৪১ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৯ মধ্যে পুনঃ ১/০ গতে ২/৩০ মধ্যে পুনঃ ৪/০ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ৭/১ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৯ গতে উদয়াবধি।
৩ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, সপ্তমী ২৫/২২/২১ দিবা ৩/৩৭/৫। রোহিণী ৭/১/২৪ দিবা ৮/১৬/৪৩, সূ উ ৫/২৮/৯, অ ৫/৩৩/২৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/২০ মধ্যে ও ৭/৭ গতে ৯/২৯ মধ্যে ও ১১/৪৮ গতে ২/৫৫ মধ্যে ও ৩/৪২ গতে ৫/৩৩ মধ্যে এবং রাত্রি ১২/৩৮ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ১/১/২৯ গতে ২/৩২/৯ মধ্যে, কালবেলা ৬/৫৮/৪৯ মধ্যে ও ৪/২/৪৯ গতে ৫/৩৩/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৭/২/৪৯ মধ্যে ও ৩/৫৮/৪৯ গতে ৫/২৮/২৮ মধ্যে।
২১ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজীব কুমারের আগাম জামিনের আবেদন খারিজ
আজ রাজীব কুমারের আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল আলিপুর ...বিশদ

08:21:33 PM

ফের সিএবি প্রেসিডেন্ট সৌরভ
আরও একবার সিএবি-র প্রেসিডেন্ট হলেন সৌরভ গঙ্গোপাধধ্যায়। আজ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ...বিশদ

07:39:27 PM

অস্কারে মনোনীত ছবি-গালি বয়

06:03:00 PM

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে মারধর
স্কুলের ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় এক যুবককে লাঠি-রড দিয়ে ...বিশদ

05:22:00 PM

মুর্শিদাবাদে আগ্নেয়াস্ত্র সহ গ্রেপ্তার ১ 
আজ সকালে মুর্শিদাবাদের পাহাড়ঘাটি মোড় থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ সফিকুল ইসলাম ...বিশদ

05:13:00 PM

দীঘায় ডুবন্ত ব্যক্তিকে উদ্ধার করল নুলিয়া
 

দীঘার সমুদ্রে তলিয়ে যাওয়ার মুখে এক পর্যটককে উদ্ধার করল নুলিয়া। ...বিশদ

05:05:00 PM