Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

ব্ল্যাক রাইস চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন কৃষকরা 

ব্রতীন দাস: শরীর সুস্থ রাখতে এবং ক্যান্সার, ডায়াবেটিসের মতো রোগ প্রতিরোধে কালো চালের গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু সেই ধান উৎপাদন করেও বাজার না পাওয়ায় আগ্রহ হারাচ্ছেন কৃষকদের অনেকেই। কৃষি দপ্তরের পক্ষ থেকে ব্ল্যাক রাইস চাষের জন্য উৎসাহিত করা হলেও চাষিদের অভিযোগ, ব্ল্যাক রাইস ভাঙানোর জন্য যে বিশেষ ধরনের মিল দরকার তা বেশিরভাগ জায়গাতেই নেই। সাধারণ রাইস মিলে ব্ল্যাক রাইস ভাঙানোর ফলে চালের উপরে যে ফাইবার থাকে, তা উঠে যাচ্ছে। ফলে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে কালো চালের গুণ। স্বাভাবিকভাবে চালের দাম পাচ্ছেন না তাঁরা। আর এতেই ব্ল্যাক রাইস চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন বেশিরভাগ কৃষক।
কৃষি দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, ব্ল্যাক রাইস ভাঙানোর জন্য প্রতিটি ব্লকে এক লক্ষ টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়েছে। বাকি টাকা কৃষকদের দিতে হবে। কিন্তু বেশিরভাগ জায়গাতেই বেনিফিশিয়ারি পাওয়া না যাওয়ায় এখনও পর্যন্ত ব্ল্যাক রাইস ভাঙানোর জন্য মেশিন বসানো যায়নি। তবে চেষ্টা চলছে। এনিয়ে কৃষকদের বক্তব্য, স্থির বাজার না থাকায় তাঁরা ব্ল্যাক রাইসের মেশিন বসানোর জন্য ঝুঁকি নিতে পারছেন না। তাছাড়া এখনও পর্যন্ত এ রাজ্য থেকে বিদেশে কালো চাল রপ্তানির ব্যাপারে এক্সপোর্টাররা সেভাবে এগিয়ে আসেননি। সরকারি উদ্যোগেও ঘাটতি রয়েছে বলে অভিযোগ চাষিদের একাংশের।
নদীয়ার ফুলিয়ায় অবস্থিত কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সহ কৃষি অধিকর্তা ড. অনুপম পাল রাজ্যে ব্ল্যাক রাইসের প্রসার ঘটানোর কাজে যুক্ত উদ্যোক্তাদের মধ্যে অন্যতম। তিনি অবশ্য বলেছেন, ব্ল্যাক রাইস ভাঙানোর জন্য তাঁদের তরফে ইতিমধ্যে গড়বেতা, পুরুলিয়া, শিলিগুড়ির খড়িবাড়ি, রানাঘাটের মতো বেশকিছু জায়গায় মেশিন দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া চাষিদের জমিতে উৎপাদিত ব্ল্যাক রাইস রপ্তানি করার জন্য এক্সপোর্টারদের তাঁরা সবসময়ই বলে থাকেন। ভিনরাজ্যে ব্ল্যাক রাইস রপ্তানি শুরুও হয়েছে। ২০১৪ সাল থেকে ব্ল্যাক রাইস চাষ করে আসছেন পশ্চিম মেদিনীপুরের মোহনপুর ব্লকের চাষি নিতাই দাস। তিনি বলেন, প্রথম বছর ১০০ টাকা কেজি দরে ব্ল্যাক রাইসের বীজধান বিক্রি করেছিলাম। চালও বিক্রি হয়েছিল ১০০ টাকা কেজি দরে। ব্ল্যাক রাইস যে উপকারি চাল তা এলাকার কৃষকদের বোঝানোয় অনেকেই এই ধান চাষে এগিয়ে এসেছিলেন। ইন্টারনেট ঘেঁটে তাঁরা দেখেছিলেন, বিদেশেও এই চালের দারুণ চাহিদা রয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও রপ্তানিকারক তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেননি। সরকারি তরফেও তাঁদের জমিতে উৎপাদিত কালো চাল বিক্রির ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়নি। এই পরিস্থিতিতে কৃষকদের অনেকেই কালো চাল চাষে পিছিয়ে যাচ্ছেন। নিতাইবাবু বলেন, তাঁদের এলাকায় ব্ল্যাক রাইস ভাঙানোর মতো কোনও মিল নেই। ফলে ওড়িশার জলেশ্বরে যেতে হয় ধান ভাঙাতে। সেখানেও ব্ল্যাক রাইস ভাঙানোর পুরোপুরি উপযুক্ত মিল নেই। কোনওমতে কাজ চালিয়ে নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এভাবে কতদিন সম্ভব? সব কৃষকের পক্ষে পরিবহণ খরচ বহন করে ওড়িশায় ধান ভাঙাতে যাওয়া সম্ভব নয়। নিতাইবাবু গত বছর ১২ একর জমিতে ব্ল্যাক রাইস চাষ করেছিলেন। একরে ১২ কুইন্টাল ফলন পেয়েছিলেন। তাঁর কাছে ১৫ টন ব্ল্যাক রাইস মজুত ছিল। বাজার না পাওয়ায় পড়ে থেকে চাল নষ্ট হচ্ছে। অনেক চাল কম দামে বিক্রি করে দিয়েছেন। আষাঢ় মাসে ধান বুনতে হবে। কিন্তু বাজারের যা অবস্থা, এবার আর বেশি জমিতে ব্ল্যাক রাইস চাষ করবেন না বলে ঠিক করেছেন। খুব বেশি হলে এবছর ২ একর জমিতে কালো চাল চাষ করতে পারেন। পশ্চিম মেদিনীপুরের পিংলা ব্লকের দক্ষিণ কলাপুঞ্জ গ্রামের চাষি মিলন ওঝা জানিয়েছেন, ব্ল্যাক রাইস নিয়ে তিনি এলাকায় প্রচার করেন। নিজে চাষ করার পাশাপাশি বিভিন্ন জায়গা থেকে এর বীজধান সংগ্রহ করে গ্রামের কৃষকদের দিতে থাকেন। কৃষি মেলায় চালের নমুনা নিয়ে গিয়ে কালো চালের উপকারিতা সম্পর্কে সবাইকে বোঝাতে থাকেন। এর ফলে তাঁর গ্রামে অনেক কৃষক এই ধান চাষে এগিয়ে আসেন। ব্ল্যাক রাইস চাষের এলাকা বাড়তে বাড়তে প্রায় ৭৫ একর হয়ে গিয়েছিল। গত বছরও তিনি ২ বিঘা জমিতে ব্ল্যাক রাইস চাষ করেছিলেন।
সম্পূর্ণ জৈব পদ্ধতিতে চাষ করে বিঘায় আড়াই থেকে ৩ কুইন্টাল ফলন পান। কিন্তু ধান ভাঙানো নিয়ে সমস্যায় পড়েন তিনি। তাঁর গ্রামের অন্য কৃষকদের মতো তাঁকেও প্রায় ৩৫০ কিলোমিটার দূরে ওড়িশার জলেশ্বরে গিয়ে ব্ল্যাক রাইস ভাঙিয়ে নিয়ে আসতে হয়েছে।
কিন্তু ধান ভাঙিয়ে চাল করার পর তা বিক্রি করতে গিয়ে নাজেহাল হতে হচ্ছে তাঁকে। ১০০ টাকা কেজি দরেও ব্ল্যাক রাইস বিক্রি করতে পারছেন না। ফলে ঘরে পড়ে থেকে প্রচুর কালো চাল নষ্ট হচ্ছে। মিলনবাবুর দাবি, ব্ল্যাক রাইসের উপকারিতা নিয়ে এখনও বেশিরভাগ মানুষের মধ্যে সচেতনতার অভাব রয়েছে। যাঁরা চালটির গুণ সম্পর্কে জানেন, তাঁরা মাঝেমধ্যে অল্পকিছু কিনছেন। ফলে ঠিকমতো বাজার পাওয়া যাচ্ছে না। স্বাভাবিকভাবেই কৃষকরা এই ধান চাষে তেমন আর উৎসাহিত হচ্ছেন না।
কৃষি দপ্তরের পিংলা ব্লকের টেকনোলজি ম্যানেজার (বিটিএম) অরুণাভ সামন্ত বলেছেন, ব্ল্যাক রাইসের বাজারের অভাব আছে একথা ঠিক। তার সঙ্গে ধান ভাঙানোরও সমস্যা রয়েছে। মূলত একারণেই এবছর কালো চাল চাষের এলাকা অনেকটাই কমে যাবে বলে মনে হচ্ছে। কৃষকদের অনেকে আবার জমিতে রাসায়নিক সার ও কীটনাশক প্রয়োগ করছেন। ফলে চালের মধ্যে বিষক্রিয়া থেকে যাওয়ায় বিদেশে রপ্তানির ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। কৃষি বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, ব্ল্যাক রাইসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, যা ক্যান্সার প্রতিরোধে সক্ষম। এই চাল লোহা, জিঙ্ক ও ফাইবার সমৃদ্ধ। এবং কম শর্করাযুক্ত। এর গ্লাইসেমিক ইনডেক্স ৪০-৪২। ফলে মধুমেহ রোগীরা অনায়াসেই এই চালের ভাত খেতে পারেন। ব্ল্যাক রাইস তার গুণের কারণে মানবদেহ থেকে টক্সিন নির্গমণে যেমন সহায়তা করে, তেমনই হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখতে, ওজন কমাতেও বিশেষ কার্যকরী।  
12th  June, 2019
অর্কিড রপ্তানি করছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর 

নবজ্যোতি সরকার: অর্কিডের প্রতি মানুষের চাহিদা বেড়েই চলেছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর ২ নম্বর ব্লকের বাখরাহাট, চক এনায়েতপুর এবং পারবেড়িয়া-জয়চণ্ডীপুরের প্রায় ১০০টি নার্সারিতে বিক্রি হচ্ছে লাকি বাম্বু, ক্যাটেলিয়া ও ফ্যালেনপসিস প্রজাতির অর্কিড। গোটা দেশে এইসব অর্কিড রপ্তানি হচ্ছে। বিদেশেও যাচ্ছে। লাকি বাম্বু ১৫০ টাকা। 
বিশদ

18th  September, 2019
সরকারি মূল্যে ধান কেনার জন্য এবার ঝাড়গ্রামের প্রতিটি পঞ্চায়েতে শিবির 

রঞ্জন পাল  ঝাড়গ্রাম: সরকারি মূল্যে ধান কেনার জন্য এবার ঝাড়গ্রাম জেলাজুড়ে প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে শিবির করা হবে। দূরত্বের কথা মাথায় রেখে চাষিদের সুবিধার্থে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন।  
বিশদ

18th  September, 2019
ময়নাগুড়ি ও মালবাজারে মাগুর মাছের চাষ বাড়ছে 

সোমনাথ চক্রবর্তী: মাগুর মাছ চাষের দিকে জোর দিয়েছেন ডুয়ার্সের বেশ কয়েকজন কৃষক। মাগুর মাছের হ্যাচারি বানিয়ে তাতে মাগুর মাছের ডিম থেকে বাচ্চা ফুটিয়ে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার আশায় রয়েছেন ময়নাগুড়ি ও মালবাজার ব্লকের একাধিক মৎস্যচাষি। 
বিশদ

18th  September, 2019
পেঁয়াজের ৩০টি সংরক্ষণাগার হচ্ছে মালদহে 

মঙ্গলচন্দ্র ঘোষ, গাজোল: মালদহ জেলায় বেশি সংখ্যক পেঁয়াজ মজুত রাখবার জন্য সরকারি উদ্যোগে ৩০টি সংরক্ষণাগার তৈরি করা হচ্ছে। প্রাকৃতিক উপায়ে ওই সংরক্ষণাগারের একটি ঘরে মোট ২৫ মেট্রিক টন পর্যন্ত পেঁয়াজ রাখা যাবে। চাষিরাই তৈরি করছেন এই সংরক্ষণাগারগুলি। পরে অবশ্য মোট ব্যয়ের ৫০ শতাংশ দিয়ে দেওয়া হবে চাষিদের।
বিশদ

18th  September, 2019
পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম চাষে ঝোঁক বাড়ছে 

ব্রতীন দাস: পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম। বাজারে ভালো দাম মেলায় চাষে ঝোঁক বাড়ছে কৃষকদের। সেপ্টেম্বর থেকে চাষ শুরু করতে হয়। তিনমাসেই ফলন পাওয়া যায়। গাছ বাঁচিয়ে রাখতে পারলে মে মাস পর্যন্ত ফলন পাওয়া সম্ভব।  
বিশদ

18th  September, 2019
বাড়ির ছাদে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রজাতির গাছের বাগান করে পড়ুয়াদের চেনাচ্ছেন কাটোয়ার যুবক 

অনিমেষ মণ্ডল  কাটোয়া, সংবাদদাতা: বাড়ির ছাদে কয়েক লক্ষ টাকার বাগান করে পাড়ার খুদে পড়ুয়াদের দেশ বিদেশের গাছ চেনার পরামর্শ দিচ্ছেন পরিবেশপ্রেমী কাটোয়ার বাসিন্দা সুজন কুণ্ডু। নিজের বাড়ির ছাদে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে দেশ বিদেশের প্রচুর ফুল ও ফলের গাছ লাগিয়েছেন তিনি। 
বিশদ

18th  September, 2019
 গাঁদাফুল চাষে লাভ মিলবে ভালোই

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: প্রচলিত বিভিন্ন ফসল চাষের পাশাপাশি চাষিরা কিছুটা জমিতে গাঁদাফুলের চাষ করলে ভালো আর্থিক লাভের মুখ দেখতে পাবেন। গাঁদাফুলের চাষ গ্রীষ্ম, বর্ষা, শীত, বছরের তিন মরশুমেই করা যায়।
বিশদ

11th  September, 2019
 মালদহে বিলি করা হবে আম, লিচু, লেবু ও পেয়ারার চারা

মঙ্গল ঘোষ: পুজোর আগে মালদহের পনেরোটি ব্লকজুড়ে কৃষকদের আম, লিচু, লেবু, পেয়ারার চারা দিতে চলেছে উদ্যানপালন দপ্তর। এজন্য ওই জোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই এই কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে। সব ব্লকের একাধিক চাষি এই চারাগুলি পাওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই ওই দপ্তরে ফর্ম পূরণ করে জমা দিয়েছেন।
বিশদ

11th  September, 2019
 অশ্বগন্ধা চাষ করতে হলে মাঠে নামতে হবে চলতি মাসেই

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি মহকুমায় অশ্বগন্ধা চাষে আগ্রহীদের সেপ্টেম্বর মাস থেকে জমি তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। উর্বর-অনুর্বর উভয় জমিতে অশ্বগন্ধা চাষ করা যায়। বিশেষজ্ঞদের দাবি, ভেষজ জাতীয় এই গাছ বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে উপকারী। অক্টোবর ও নভেম্বর মাস এই গাছের চারা লাগানোর উপযুক্ত সময়।
বিশদ

11th  September, 2019
 অল্প খরচে পেঁপে

সংবাদদাতা: সামান্য খরচে পেঁপে চাষ করে ভালো লাভ করা সম্ভব। চাষিরা জমিতে এই চাষ করতে পারেন। আবার বাড়িতে সামান্য জায়গা থাকলেও পেঁপে গাছ লাগানো যেতে পারে। 
বিশদ

11th  September, 2019
 অসময়ে বাজার ধরতে শরতে তরমুজ চাষ, ৬০ দিনেই ফলন

ব্রতীন দাস: তরমুজ মূলত গরমের ফল। কিন্তু, শরতেও তরমুজ ফলিয়ে বাড়তি লাভ পেতে পারেন কৃষকরা। ছটপুজোর কথা মাথায় রেখে আগাম বাজার ধরতে অসময়ে তরমুজের ভালোই চাহিদা থাকে। হাইব্রিড বিভিন্ন প্রজাতির সুবাদে পলি-মালঞ্চিং করে শরৎকালে তরমুজ ফলানো সম্ভব হচ্ছে।
বিশদ

11th  September, 2019
কান্দির বিলে জল না থাকায় মাছের আকাল, ভিনরাজ্যে মৎস্যজীবীরা

 ইন্দ্রজিৎ কর্মকার, কান্দি: বর্ষায় কম বৃষ্টি হওয়ায় পর্যাপ্ত জল নেই কান্দি মহকুমার অন্তর্গত পাটন বিল ও কারোল বিলে। ফলে ওই দুই বিল থেকে সেভাবে মাছ আমদানিও হচ্ছে না বাজারগুলিতে। তাই রুজি রোজগারে টান পড়েছে সংশ্লিষ্ট এলাকার মৎস্যজীবীদের। পুজোর আগে হতাশ মৎস্যজীবীরা রুজির টানে পাড়ি দিচ্ছেন ভিনরাজ্যে।
বিশদ

11th  September, 2019
মুর্শিদাবাদে জাঁক দেওয়ার মতো জল নেই, শুকিয়ে যাচ্ছে পাট, মাথায় হাত কৃষকদের

সংবাদদাতা, বহরমপুর: সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহ পেরলেও মুর্শিদাবাদ জেলার বহু জমিতে পাটগাছ দাঁড়িয়ে রয়েছে। পর্যাপ্ত জলের অভাবে এখনও পাট কাটতে পারেননি বহু চাষি। জাঁক দেওয়ার জন্য বহু জায়গায় জলাশয়ের ধারেই ডাঁই করে রাখা হয়েছে পাট। জাঁক দেওয়া পাট তোলা হলে তবেই চাষিরা ওই পাট পচাতে দিতে পারবেন।
বিশদ

11th  September, 2019
 তাপপ্রবাহে পুড়ে নষ্ট হয়েছে আমনের চারা, ফের বীজ বিলি

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: ফাঁসিদেওয়ায় জুলাই মাসে ২০-২৫ হেক্টর জমিতে লাগানো আমন ধানের চারা পুরো নষ্ট হয়ে গিয়েছে। ব্লকের উত্তর বাগদাও কিসমত, মধ্য বাগদাও কিসমত, পশ্চিম বাগদাও কিসমত, খুঁটিগছ, জালাস- নিজামতারার কাশিরাম সংলগ্ন এলাকাতে জলের অভাবে ধানের চারা নষ্ট হয়েছে। এমন অবস্থায় কৃষকদের মাথায় হাত পড়েছে।
বিশদ

04th  September, 2019

Pages: 12345

একনজরে
 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২০ সেপ্টেম্বর: চলতি ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে দেশের মাইক্রো-ফিনান্স ইন্ডাস্ট্রি ২ লক্ষ ৫০ হাজার কোটি টাকার গণ্ডি অতিক্রম করবে। স্ব-ধন ‘ভারত মাইক্রো-ফিনান্স রিপোর্ট, ২০১৯’-এ প্রকাশ পেয়েছে এই তথ্য। ...

বিএনএ, রায়গঞ্জ: দুই শিক্ষাকর্মীর বদলির প্রতিবাদে ছাত্র আন্দোলনে শুক্রবার উত্তাল হল রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়। এদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে অঙ্ক ও কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফর্মেশন সায়েন্স বিভাগের সামনে কয়েকশ’ ছাত্রছাত্রী ...

 ইন্দোনেশিয়া, ২০ সেপ্টেম্বর: দ্বিতীয় ভারতীয় ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার হিসেবে এশিয়ান টেবল টেনিস চ্যাম্পিয়নশিপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেন জি সাথিয়ান। বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে ভারতের টপ র‌্যাঙ্কিং সাথিয়ান ১১-৭, ১১-৮, ১১-৬ পয়েন্টে হারালেন উত্তর কোরিয়ার আন-জি সংকে। ...

 ওয়াশিংটন, ২০ সেপ্টেম্বর (পিটিআই): আমেরিকার রাস্তায় ফের প্রকাশ্যে বন্দুকবাজের তাণ্ডব। গুলিতে একজন প্রাণ হারিয়েছেন এবং আরও পাঁচজন জখম হয়েছেন। পুলিস জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা নাগাদ কলম্বিয়া হাইটস এলাকায় ওই ঘটনা ঘটেছে। জায়গাটি হোয়াইট হাউস থেকে খুব বেশি দূরে নয় বলেও ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

শরীর ভালো যাবে না। সাংসারিক কলহবৃদ্ধি। প্রেমে সফলতা। শত্রুর সঙ্গে সন্তোষজনক সমঝোতা। সন্তানের সাফল্যে মানসিক ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস
১৮৬৬: ব্রিটিশ সাংবাদিক, ঐতিহাসিক ও লেখক এইচ জি ওয়েলসের জন্ম
১৯৩৪: জাপানের হনসুতে টাইফুনের তাণ্ডব, মৃত ৩ হাজার ৩৬ জন
১৯৪৭: মার্কিন লেখক স্টিফেন কিংয়ের জন্ম
১৯৭৯: ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার ক্রিস গেইলের জন্ম
১৯৮০: অভিনেত্রী করিনা কাপুর খানের জন্ম
১৯৮১: অভিনেত্রী রিমি সেনের জন্ম
১৯৯৩: সংবিধানকে অস্বীকার করে রাশিয়ায় সাংবিধানিক সংকট তৈরি করলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন
২০০৭: রিজওয়ানুর রহমানের মৃত্যু
২০১৩: কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে ওয়েস্ট গেট শপিং মলে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ৬৭

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.১৯ টাকা ৭২.৭০ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৪৪ টাকা ৯১.১২ টাকা
ইউরো ৭৬.২৬ টাকা ৮০.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৭,৯৯০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,০৪৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৫৮৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, সপ্তমী ৩৭/১২ রাত্রি ৮/২১। রোহিণী ১৪/৪৩ দিবা ১১/২২। সূ উ ৫/২৮/২৩, অ ৫/৩১/৪০, অমৃতযোগ দিবা ৬/১৬ মধ্যে পুনঃ ৭/৪ গতে ৯/২৯ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৪ গতে ৩/৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৫ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ১২/৪১ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৯ মধ্যে পুনঃ ১/০ গতে ২/৩০ মধ্যে পুনঃ ৪/০ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ৭/১ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৯ গতে উদয়াবধি।
৩ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, সপ্তমী ২৫/২২/২১ দিবা ৩/৩৭/৫। রোহিণী ৭/১/২৪ দিবা ৮/১৬/৪৩, সূ উ ৫/২৮/৯, অ ৫/৩৩/২৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/২০ মধ্যে ও ৭/৭ গতে ৯/২৯ মধ্যে ও ১১/৪৮ গতে ২/৫৫ মধ্যে ও ৩/৪২ গতে ৫/৩৩ মধ্যে এবং রাত্রি ১২/৩৮ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ১/১/২৯ গতে ২/৩২/৯ মধ্যে, কালবেলা ৬/৫৮/৪৯ মধ্যে ও ৪/২/৪৯ গতে ৫/৩৩/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৭/২/৪৯ মধ্যে ও ৩/৫৮/৪৯ গতে ৫/২৮/২৮ মধ্যে।
২১ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কেবিসিতে রামায়ণ নিয়ে সহজ প্রশ্নে হোঁচট, হাসির খোরাক সোনাক্ষী 
কার জন্য সঞ্জীবনী বুটি এনেছিলেন হনুমান? একেবারেই সহজ প্রশ্ন। কিন্তু, ...বিশদ

02:26:47 PM

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়: আচার্যর সঙ্গে ফ্যাকাল্টি সদস্যদের মুখোমুখি আলোচনার প্রস্তাব উপাচার্যের 
যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে পঠনপাঠনের পরিবেশ ফেরানো সহ একাধিক বিষয়ে উৎকর্ষবৃদ্ধির জন্য ...বিশদ

02:13:25 PM

বাঁকুড়ায় বধূকে গণধর্ষণের অভিযোগে ধৃত ২ 

01:49:43 PM

রাজীব কুমারের খোঁজে ভবানী ভবনে হানা সিবিআইয়ের 

01:10:16 PM

‘সংবেদনশীলতা আর যত্নের মাধ্যমে আমরা অনেকের জীবনে পরিবর্তন আনতে পারি’, বিশ্ব অ্যালজাইমার দিবস উপলক্ষে ট্যুইট মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের 

12:48:00 PM

২১ অক্টোবর মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় ভোট, গণনা ২৪ অক্টোবর 

12:33:04 PM