শরীর ও স্বাস্থ্য
 

তুলসীপাতা ডেঙ্গু আটকায়, প্লেটলেট
বাড়ায় পেঁপের বীজ, কাঁচা হলুদের রস

দাবি আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকদের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ডেঙ্গু প্রতিরোধ, নিরাময় এবং মশা তাড়াতে ভালো কাজ দেয় আয়ুর্বেদ। এমনটাই দাবি করছেন আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকরা। ঘরোয়া টোটকা বা হাতের কাছেই দোকানে পাওয়া যায় এমন বেশ কিছু আয়ুর্বেদিক ওষধি দিয়ে কিছুটা হলেও মোকাবিলা করা যেতে পারে এই ভাইরাসঘটিত রোগের, জানাচ্ছেন তাঁরা। তার মধ্যে যেমন নারকেল তেল বা সর্ষের তেল রয়েছে, তেমনই রয়েছে পেঁপে পাতার রস, পেঁপের বিচি, তুলসীপাতা, গুলঞ্চ, চিরতা, কালমেঘের মতো ওষধিগুণসম্পন্ন আয়ুর্বেদিক গাছ-গাছড়া। আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকরা বলছেন, ডেঙ্গুর লক্ষণ, উপসর্গের সঙ্গে খুব মিল রয়েছে আয়ুর্বেদে বর্ণিত দণ্ডকজ্বরের। ওই জ্বরেও চোখের পিছনে ব্যথা, তাপমাত্রা খুব বেড়ে যাওয়া (১০৩-১০৪ ডিগ্রি), জ্বরের সঙ্গে হেমারেজ ইত্যাদি উপসর্গ থাকে। আর তার উপশমের পথও বাতলে দেওয়া আছে আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে। তাঁদের দাবি, মশা তাড়ানোর উপায়ও বলা আছে সেখানে। নারকেল তেল বা সরষের তেল (কটূ ধরনের) পায়ের পাতা থেকে হাঁটু পর্যন্ত লাগিয়ে রাখলে, সেখানে মশা কম কামড়ায়। এছাড়া লেমন গ্রাস ঘরের কোণায় রেখে দিলে মশার উৎপাত কমে।
যাঁদের ইতিমধ্যেই ডেঙ্গু হয়েছে, তাঁদের চিন্তা কীভাবে এই রোগ থেকে নিস্তার পাবেন। আবার যাঁদের এই রোগ হয়নি, তাঁরা ভাবছেন, কী এমন করা যেতে পারে, যাতে তাঁর বা পরিবারের সদস্যদের এই রোগ না হয়।
আয়ুবের্দিক শিক্ষক চিকিৎসক ডাঃ লোপামুদ্রা ভট্টাচার্য বলেন, ডেঙ্গুর ক্ষেত্রে প্রিভেনটিভ হিসাবে কিছু কিছু জিনিস ব্যবহার করলে এই রোগের কবলে পড়ার আশঙ্কা কমে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে। এমনই বলছে আয়ুর্বেদ। তাঁর দাবি, ইমিউনিটি বাড়ানোর ক্ষেত্রে খুব ভালো কাজ দেয় তুলসীপাতা। দিনে পাঁচ-ছ’টা তুলসীপাতা চিবিয়ে খেতে পারলে ডেঙ্গুর আক্রমণ কমানো যায়। মেথি শাকের রসও ডেঙ্গুনাশক। চিরতা ভিজানো জল এবং কালমেঘের রস মিশিয়ে খেলে ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে জোরদার প্রতিরোধ তৈরি করা সম্ভব। আর একবার ডেঙ্গু বা আয়ুর্বেদে বর্ণিত দণ্ডকজ্বর হয়ে গেলে দিনে চারবার হিঙ্গুলেশ্বরের রস এবং শুকনো আদার পাউডার বা শুট খাওয়া যেতে পারে। প্লেটলেট কমতে শুরু করলে দিনে ১০ এমএল করে পেঁপে পাতার রস ও গুলঞ্চের ট্যাবলেট খেলে কাজ দিতে পারে।
কেন্দ্রীয় সরকারি সংস্থা ন্যাশনাল রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব আয়ুবের্দিক ড্রাগ ডেভেলপমেন্ট-এর রিসার্চ অফিসার ও চিকিৎসা বিজ্ঞানী ডাঃ অচিন্ত্য মিত্র বলেন, ডেঙ্গুর সময় জ্বর কমাতে ধনে, শ্বেতপাপড়া, চিরতা, শুট ইত্যাদি মিশিয়ে কাথ তৈরি করে ১৫-৩০ মিলিলিটার করে খাওয়ানো যেতে পারে। হেমারেজিক জ্বর হলে রক্তচন্দন, যষ্টিমধু এবং মিছরি দিয়ে কাথ তৈরি করে ওই একই অনুপাতে খাওয়ানো যেতে পারে। ওই একই সংস্থার প্রাক্তন চিকিৎসা বিজ্ঞানী এবং শিক্ষক চিকিৎসক ডাঃ সুবলকুমার মাইতি বলেন, আমরা দেখেছি, শুধু পেঁপে পাতার রসই নয়, পেঁপের বীজও ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। মূলত প্লেটলেট কমলে পেঁপের বীজ বেঁটে রস করে খাওয়া যেতে পারে। দূর্বাঘাসের রস এবং কাঁচা হলুদের রস সমপরিমাণ মিশিয়ে খেলেও তা প্লেটলেট বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়া ডেঙ্গুতে জ্বরনাশক হিসাবে তুলসীপাতা, বেলপাতা ও শিউলিপাতা সিদ্ধ করে বা তার রস বের করেও খাওয়া যায়। আখনাদি পাতার রস ডেঙ্গু ভাইরাসকে ধ্বংস করতে পারে বলে দাবি করেছেন এই চিকিৎসা বিজ্ঞানী।
13th  October, 2017
সাইনাসের সমস্যায় সমাধান কী

 সন্ধে নামলেই নাক দিয়ে ঢুকছে হিমেল বাতাস। ঠান্ডা লাগলেই চিত্তির। সাইনুসাইটিসের কবলে পড়াও বিচিত্র কিছু নয়। শীতকালে বহু মানুষই ভোগেন অ্যাকিউট এবং ক্রনিক সাইনাসের সমস্যায়। অসুখ সারাতে পরামর্শ দিলেন কেপিসি মেডিক্যাল কলেজের ইএনটি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ দ্বৈপায়ন মুখোপাধ্যায় এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হোমিওপ্যাথির ডেপুটি মেডিক্যাল সুপারিনটেনডেন্ট ডাঃ প্রলয় শর্মা।
বিশদ

 উত্তরবঙ্গে পুনর্মিলন

দেখতে দেখতে ৫০ বছর পেরিয়ে গেল উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের। ইতিমধ্যেই অসংখ্য ছাত্রছাত্রীরা ডাক্তারি পাশ করে প্রতিষ্ঠিত। মেডিকেল কলেজের প্রতিষ্ঠার সুবর্ণ জয়ন্তী ও পুনর্মিলন উপলক্ষ্যে গত ১৭ এবং ১৮ নভেম্বর বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল।
বিশদ

সাংবাদিকতায় বিজ্ঞান

যে কোনও বৈজ্ঞানিক এবং প্রযুক্তিগত গবেষণার মূল লক্ষ্য হল সমাজের উন্নতি সাধন। মুশকিল হল, বহু বৈজ্ঞানিক কাজকর্ম সম্পর্কে মানুষের কাছে সংবাদ পৌঁছচ্ছে না। আরও বড় সমস্যা হল, এখনও পর্যন্ত আঞ্চলিক ভাষায় বৈজ্ঞানিক তথ্যগুলির তর্জমা করে সঠিকভাবে সমাজের মধ্যে পৌঁছে দেওয়ার মতো সদর্থক কাজও হচ্ছে না।
বিশদ

বালাই ৬০

২৮ অক্টোবর, শনিবার দক্ষিণ কলকাতার বালিগঞ্জের চৌধুরী হাউজে কেয়ার কন্টিনিউয়াম আয়োজিত ‘বালাই ৬০’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে বসেছিল বিজয়া সম্মিলনী। উপস্থিত ছিলেন সাহিত্যিক নবনীতা দেব সেন, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, অভিনেতা পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, রঞ্জিত মল্লিক, মমতাশঙ্কর, প্রাক্তন পুলিশ কমিশনর গৌতমমোহন চক্রবর্তী ও বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী শ্রীকুমার চট্টোপাধ্যায় সহ প্রমুখ।
বিশদ

ডায়াবেটিসে হাঁটুন
গ্যাসট্রোকন ২০১৭

  ডায়াবেটিস বা মধুমেহ রোগের বিরুদ্ধে মানুষকে সচেতন করার উদ্দেশ্য নিয়ে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালন করল জিডি হাসপাতাল এবং ডায়াবেটিস ইনস্টিটিউট। এই উপলক্ষে সংস্থার পক্ষ থেকে ‘হাঁটো বাংলা হাঁটো’ নামক একটি পদযাত্রার আয়োজন করা হয়েছিল।
বিশদ

 বাচ্চারও যখন ডায়াবেটিক

প্রত্যেক বছর ১৪ নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত হয়। লক্ষণীয় বিষয় হল—১৪ নভেম্বরের আরেকটি গুরুত্বও আছে—সেটি হল এই দিনটি শিশু দিবস। এই দুটি বিষয়কে আমরা যদি একই দিনে উদ্‌যাপিত করতে পারি, তবে পেডিয়াট্রিক ডায়াবেটিস বা শৈশবের মধুমেহর আলোচনা আরও প্রাসঙ্গিক হয়ে পড়ে।
বিশদ

16th  November, 2017
  চন্দননগরে বার্থ

 চলতি বছরে চন্দননগরে উদ্বোধন হল বেঙ্গল ইনফার্টিলিটি অ্যান্ড রিপ্রোডাকটিভ থেরাপি হসপিটালের (বার্থ) আরও একটি শাখার। অনুষ্ঠানে উপস্থিত বার্থ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও মেডিক্যাল ডিরেক্টর ডাঃ গৌতম খাস্তগীর, পুর ও নগরন্নোয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, মাননীয় সাংসদ রত্না দে নাগ, চন্দননগর পৌরসভার মেয়র শ্রী রাম চক্রবর্তীসহ বহু বিশিষ্ট মানুষ।
বিশদ

16th  November, 2017
সুরক্ষার ডায়াবেটিস সচেতনতা শিবির

 এদেশে ক্রমশ বেড়েই চলেছে টাইপ-২ ডায়াবেটিসে আক্রান্তর সংখ্যা। মূলত অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন, খাদ্যগ্রহণে অংসযম, শরীরচর্চায় অনীহা হল টাইপ-২ ডায়াবেটিস হওয়ার মূল কারণ। এই কারণেই কমবয়সিদেরও, বিশেষ করে মহিলাদের ডায়াবেটিস রোগটি নিয়ে আরও সতর্ক হতে হবে।
বিশদ

16th  November, 2017
শিশুদের পাশে সরোজ গুপ্ত ক্যানসার

শিশু দিবস উপলক্ষ্যে কলকাতার সরোজ গুপ্ত ক্যানসার সেন্টার অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পেডিয়াট্রিক ক্যানসারে আক্রান্তদের জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানে ক্যানাসারে আক্রান্ত শিশুদের সামনে ক্যানসার থেকে ফিরে আসা শিশুদের উপস্থিত করেছিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থাও ছিল সেখানে।
বিশদ

16th  November, 2017
হাড়ের ক্ষয় আটকাবেন কীভাবে?

দীর্ঘদিন ধরে গায়ে হাত-পায়ে ব্যথা হলে মোটেই এড়িয়ে চলা যাবে না। দেখা গিয়েছে চল্লিশোর্ধ্ব মহিলা এবং বয়স্কদের ক্ষেত্রে এই ধরনের ব্যথার কারণ হতে পারে অস্টিওপোরোসিস বা হাড়ের ক্ষয়জনিত অসুখ। চিকিৎসা না করালে সমস্যা আরও জটিল হয়ে পড়ে। জানাচ্ছেন অ্যাপোলো হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগের ডিরেক্টর ডাঃ বুদ্ধদেব  চট্টোপাধ্যায় এবং ন্যাশনাল রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব আয়ুর্বেদিক ড্রাগ ডেভেলপমেন্ট-এর চিকিৎসাবিজ্ঞানী ডাঃ দেবজ্যোতি দাস।
বিশদ

09th  November, 2017
 ক্যানসার মোকাবিলায় মৈত্রী

সারা ভারতে সমস্ত ধরনের ক্যানসারে আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে ব্রেস্ট ক্যানসারে আক্রান্তরা সংখ্যায় দ্বিতীয়। আর ভারতসহ পশ্চিমবঙ্গেও এই রোগের প্রকোপ দিন দিন বাড়ছে বলে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের তথ্যে উঠে এসেছে। এমন সংকটজনক পরিস্থিতিতে ব্রেস্ট ক্যানসারে আক্রান্তের সুবিধার্থে হাওড়ার নারায়ণা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের পক্ষ থেকে ‘মৈত্রী’ নামের একটি ক্যানসার সহায়তা গোষ্ঠী তৈরি করা হয়েছে।
বিশদ

09th  November, 2017
বাঙালি চিকিৎসকের বিশ্বজয়

 সম্প্রতি কলকাতার ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস-এর কর্ণধার অধ্যাপক ডক্টর রবিন সেনগুপ্তকে বেঙ্গল রোয়িং ক্লাবে বিশেষ সম্মানে সম্মানিত করা হল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের স্বামী অভিরামানন্দ মহারাজ, ব্রিটিশ ডেপুটি হাইকমিশনের প্রতিনিধিসহ বহু বিশিষ্ট মানুষ।
বিশদ

09th  November, 2017
ঋতু পরিবর্তনের অসুখবিসুখে 
সাবধান থাকবেন কীভাবে?

ঠান্ডা আবহাওয়ায় প্রধানত বাড়ে শ্বাসতন্ত্রের রোগ। যদিও এ রোগের প্রধান কারণ ভাইরাস। তথাপি বাইরের তাপমাত্রার সঙ্গেও এর সম্পর্ক রয়েছে। শীতে বাতাসের তাপমাত্রা কমার সঙ্গে আর্দ্রতাও কমে যায়, যা শ্বাসনালির স্বাভাবিক কর্ম প্রক্রিয়াকে বিঘ্নিত করে ভাইরাসের আক্রমণকে সহজ করে। এছাড়া ধূলোবালির পরিমাণ বেড়ে যায়। ঠান্ডা, শুষ্ক বাতাস হাঁপানি রোগীর শ্বাসনালিকে সরু করে দেয়, ফলে হাঁপানির টান বাড়ে।
বিশদ

02nd  November, 2017
জ্বর-জ্বালায় হোমিওপ্যাথি

যখন কোনও মানুষের দৈহিক তাপমাত্রা খুব বৃদ্ধি পায়, তখন আমরা তাকে জ্বর বলি। প্রথমেই বলি, আমাদের শরীরের স্বাভাবিক তাপমাত্রা ৩৬-৩৭ সেন্ট্রিগ্রেড বা ৯৪-১০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট। এছাড়া এমনিতেই দিনের বিভিন্ন সময় আমাদের শরীরের তাপমাত্রা বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। সন্ধ্যায় সর্বাধিক, আবার নিম্নতম হয় ভোরবেলা বা সকালের দিকে। এই ধরনের ব্যতিক্রম ছাড়া শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের বেশি হওয়ার পিছনে নানা কারণ থাকে। বিশদ

02nd  November, 2017
একনজরে
সুমন তেওয়ারি  সিউড়ি, বিএনএ: বাংলার রসগোল্লা জিআই তকমা পাওয়ার পর সিউড়ির মোরব্বা শিল্পের উন্নতি ও জিআই স্বীকৃতি দাবি করলেন মোরব্বা শিল্পীরা। এলাকার বাসিন্দা ও মোরব্বা শিল্পীদের দাবি, প্রায় তিনশো বছরের পুরনো মোরব্বা শিল্প সরকারি উদাসীনতায় ক্রমশ হারিয়ে যেতে বসেছে। ...

 সংবাদদাতা, পুরুলিয়া: বুধবার পুরুলিয়া জেলার দু’টি পৃথক জায়গায় জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের উদ্যোগে জোনাল স্পোর্টস অনুষ্ঠিত হয়। বরাবাজার থানার বামুনডিহাতে এবং বোরো থানার জামতোড়িয়ায় প্রাথমিক ছাত্রছাত্রীদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ...

 গুরুগ্রাম, ২২ নভেম্বর: প্রদ্যুম্ন ঠাকুর হত্যা মামলায় অভিযুক্ত একাদশ শ্রেণীর ছাত্রকে ১৪ দিনের জন্য হোমে পাঠাল জুভেনাইল জাস্টিস বোর্ড। ...

 হারারে, ২২ নভেম্বর: অবশেষে ক্ষমতা হারালেন জিম্বাবোয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে। ৩৭ বছর ধরে দেশ শাসন করেছেন। তার নাম যেন হয়ে উঠেছিল জিম্বাবোয়ের প্রতিশব্দ। একসময় শ্বেতাঙ্গ ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পঠনপাঠনে আগ্রহ বাড়লেও মন চঞ্চল থাকবে। কোনও হিতৈষী দ্বারা উপকৃত হবার সম্ভাবনা। ব্যবসায় যুক্ত হলে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৮৩: লেখক প্যারীচাঁদ মিত্রের মৃত্যু
১৮৯৭: লেখক নীরদচন্দ্র চৌধুরির জন্ম
১৯৩৭: বিজ্ঞানী আচার্য জগদীশচন্দ্র বসুর মৃত্যু

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৯৮ টাকা ৬৫.৬৬ টাকা
পাউন্ড ৮৪.৪৫ টাকা ৮৭.৩৩ টাকা
ইউরো ৭৪.৭০ টাকা ৭৭.৩১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,৯১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৮,৩৭৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮,৮০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৯,৬০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৯,৭০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ অগ্রহায়ণ, ২৩ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার, পঞ্চমী শেষ রাত্রি ঘ ৫/৩৫, নক্ষত্র-পূর্বাষাঢ়া দিবা ঘ ৬/৫৯, সূ উ ৫/৫৮/২৫, অ ৪/৪৭/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ঘ ৭/২৪ মধ্যে পুনঃ ১/১১ গতে ২/৩৮ মধ্যে। রাত্রি ঘ ৫/৪০ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৯ গতে ৩/২০ মধ্যে পুনঃ ৪/১৪ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ২/৫ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ১১/২৩ গতে ১/১ মধ্যে।
৬ অগ্রহায়ণ, ২৩ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার, পঞ্চমী রাত্রি ঘ ১/৫৮/১১, উত্তরষাঢ়ানক্ষত্র অহোরাত্র, সূ উ ৫/৫৯/২৩, অ ৪/৪৬/৫, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৩/৪৫, ৭/২৬/৪৬-৯/৩৫/৩৮, ১১/৪৪/৪৯-২/৩৬/৫১, ৩/১৯/৫২-৪/৪৬/৫, রাত্রি ১২/৪২/৪৯-২/২৮/৪৭, বারবেলা ৩/২৫/১৫-৪/৪৬/৫, কালবেলা ২/৪/২৫-৩/২৫/১৫, কালরাত্রি ১১/২২/৪৪-১/১/৫৪।
৩ রবিঃআউঃ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ফালাকাটা বিডিও অফিস পাড়া থেকে এক প্রাথমিক শিক্ষকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, মৃতের নাম রাজেশ রায় (৩৭)

02:47:00 PM

দীঘা হোটেলে পর্যটকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, মৃতের নাম অরূপ মাইতি (৪৫)

02:46:00 PM

রসগোল্লার নাম হবে বাংলার রসগোল্লা
রসগোল্লার নাম হবে বাংলার রসগোল্লা জানাল খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ ...বিশদ

01:59:00 PM

ভারত সম্ভবনাময় দেশ, কলকাতায় বললেন দলাই লামা

01:12:00 PM

বিধানসভায় অধিবেশন বয়কট বাম-কংয়ের

01:10:00 PM