শরীর ও স্বাস্থ্য
 

 গরমের ফল কোনটার কী গুণ?

  বাংলা ক্যালেন্ডারে সবে বৈশাখ। এখন থেকেই তাপমাত্রার পারদ বেশ ঊর্ধ্বমুখী। তবে প্রকৃতির কৃপায় গরম থেকে মুক্তি দিতে বাজারে হাজির হরেক ফল। গ্রীষ্মের এইসব ফলের গুণাগুণ নিয়ে আলোচনায় আয়ুর্বেদ চিকিৎসক ডাঃ লোপামুদ্রা ভট্টাচার্য।

এপ্রিল মাস শুরু হতেই থার্মোমিটারের পারদ ৪০° ডিগ্রি ছুঁইছুঁই। আর সকাল হলেই তীব্র রোদ্দুর। প্রচণ্ড গরমে সবাই ঘেমেনেয়ে অস্থির! অথচ বাচ্চার সামার ভেকেশন আসতে অনেক দেরি। কলকাতা থেকে অন্য কোনও ঠান্ডা জায়গায় যাওয়ারও কোনও উপায় নেই। তবে মনে রাখা দরকার, রোদ থেকে বাঁচতে সানস্ক্রিন লোশন আর বার বার সরবত, ঠান্ডা জল, কোল্ড ড্রিঙ্কস্‌ ঩কিন্তু এই আবহাওয়ায় মোটেই যথেষ্ট নয়। গরমে শরীর সুস্থ রাখতে মরসুমি ফল মাস্ট। গরমের ক্লান্তি কাটাতে ফলের কোনও বিকল্প নেই। তাই জেনে নেওয়া দরকার কোন ফল গ্রীষ্মের মোকাবিলায় কীভাবে সাহায্য করে।
১. তরমুজ: প্রচুর ওয়াটার বা জল থাকায় এর নাম ওয়াটার মেলন। ভিটামিন A, ভিটামিন C, পটাশিয়াম এবং জিঙ্কের উৎকৃষ্ট উৎস। সকালে ব্রেকফাস্টের মেনুতে তরমুজ থাকলে তা স্নায়ু ও পেশীর কার্যে সাহায্য করার সঙ্গে সঙ্গে ওজন কমাতেও সাহায্য করে। এতে বাচ্চাদের চোখ এবং হাড় ভালো থাকে; বড়দের হার্টের সমস্যা দূর হয়। সূর্য রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে ত্বককে বাঁচাতে তরমুজের জুড়ি নেই। তরমুজের বীজ খেলে অনিন্দ্রা দূর হয়, চুল ও ত্বক ভালো থাকে।
২. আম: গরমে এনার্জি ধরে রাখতে আম খাওয়া খুবই ভালো। প্রতি ১০০ গ্রাম আম থেকে প্রায় ৬০ ক্যালরি এনার্জি পাওয়া যায়। বাচ্চাদের আম খাওয়ালে তাদের দেহে ভিটামিন A, C, K এবং B কমপ্লেক্সের চাহিদা পূরণ হয়। এছাড়া আম থেকে ডায়েটারি ফাইবার পাওয়া যায়। কাঁচা আম সেদ্ধ জল নুন ও চিনি মিশিয়ে খেলে গরমে ডি হাইড্রেশন থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। ঘামাচি দূর করতেও এই পানীয় খুব উপকারী। ছোট এক টুকরো কাঁচা আম মধুসহ খেয়ে দেখুন, গরমে হজমের সমস্যা কম থাকবে। গরমে যাদের সানবার্ন হচ্ছে তাদের ম্যাঙ্গো ফ্রুট পাল্প লাগালে উপকৃত হবেন।
৩. ডাব: গরমের নানা রোগের মধ্যে ডায়েরিয়া, ডি হাইড্রেশন, সানস্ট্রোক প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য। এই সব সমস্যায় ডাবের জল আদর্শ। এতে এনার্জি বাড়ে এবং দেহে মিনারেলস-এর ভারসাম্য বজায় থাকে। দেহের তাপ বিকিরণ করে ডাবের জল দেহ শীতল করে। গরমে হিট র‌্যাশ কমাতে ডাবের জল লাগানো যেতে পারে। ডাবের জলে থাকে অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট দেহের তারুণ্য বজায় রাখে। গরমে অনেকেরই ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন হয়। তারা ডাবের জল পান করলে সুস্থ থাকবেন (কারণ এই পানীয় ব্যাকটিরিয়ায় বৃদ্ধি প্রতিহত করে এবং মূত্র উৎপাদনের পরিমাণ বাড়ায়)। গর্ভবতী মায়েরা প্রতিদিন ডাবের জল খেতে পারেন এতে গরমে ক্লান্তিভাব দূর হবেও গর্ভস্থ শিশুর বৃদ্ধিও ভালো হবে।
৪. শসা: যাদের রোদে বেরতে হবেই তাদের জন্য শসার অত্যন্ত ভালো। অনেকে জল কম খান। নিয়মিত শসা খেলে জলের ঘাটতি পূরণ হবে। এতে জলের ভাগ ৯৬ শতাংশ, তাই ওজন বাড়ার কোনও চান্স নেই। শসা থেকে ভিটামিন A, B, C ছাড়াও ম্যাগনেসিয়াম পটাশিয়াম এবং সিলিকন পাওয়া যায়। যারা হাইপার টেনশনে ভুগছেন নিয়মিত শসা খান, কেন না এতে কোলেস্টেরল এবং ব্লাড প্রেশার কমে। গরমে দেহকে ডিটক্সিফাই করে এবং চুল ভালো রাখে।
৫. পেয়ারা: গ্রীষ্মের অত্যন্ত সুস্বাদু এবং অপেক্ষাকৃত সস্তা ফল। এতে অতিমাত্রায় ভিটামিন C পাওয়া যায়। এই ফলে সোডিয়াম থাকে না কিন্তু পটাশিয়াম থাকে। এতে প্রায় ৪০ শতাংশ জলীয় পদার্থ থাকায় গরমের অত্যন্ত উপযোগী ফল। এতে অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট থাকায় গরমে রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। ডায়াবেটিস এবং হাইপার টেনশনে কাঁচা পেয়ারা খাওয়া ভালো। এতে ক্ষতিকারক কোলেস্টেরোলের মাত্রা কমে। নিয়মিত পেয়ারা খেলে চোখ ভালো থাকে এবং ক্যাটারাক্ট, ম্যাকুলার ডিজেসারেশনের সম্ভাবনা থাকে। এতে কপার থাকায় থাইরয়েড গ্রন্থির কার্যক্ষমতা বাড়ায়। পেয়ারাতে থাকা ফাইবার কনস্টিপেশন দূর করে এবং ওজন হ্রাস কররতে সাহায্য করে।
৬. আঙুর: গরমকালে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায় শুধু ফল হিসেবে খাওয়া যায় আবার ফ্রুট কাস্টার্ডে খেতেও ভালো লাগে। গরমে এনার্জি বাড়াতে এবং রোগ প্রতিরোধ করতে এর জুড়ি নেই। ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ায়, দাগ ছোপ কমিয়ে তীব্র গরমেও ত্বককে তরতাজা রাখে। গরমে ব্রণর সমস্যা কমাতে সাহায্য করে। ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। মুখের অরুচি, দুর্গন্ধ দূর করতেও এর জুড়ি নেই।
এছাড়াও জেনে রাখুন
 জামের রস রোজ খেলে পাইলসের সমস্যা কমে। এই রসে সামান্য নুন দিয়ে খেলে সহজে ডায়েরিয়া হবে না। জামের সঙ্গে টকদই খেলে ভালো হজম হয়।
 যাঁরা রোগা হতে চান, দিনের যে কোনও একটা মিলে নিন ফ্রুট স্যালাড।
 যাঁরা স্পোর্টস বা অন্য কোনও শারীরিক পরিশ্রমের কাজ করছেন শর্ট ব্রেকের সময় ডাবের জল খেয়ে দেখুন, অনেক বেশ এনার্জি পাবেন।

20th  April, 2017
 বাচ্চারও যখন ডায়াবেটিক

প্রত্যেক বছর ১৪ নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত হয়। লক্ষণীয় বিষয় হল—১৪ নভেম্বরের আরেকটি গুরুত্বও আছে—সেটি হল এই দিনটি শিশু দিবস। এই দুটি বিষয়কে আমরা যদি একই দিনে উদ্‌যাপিত করতে পারি, তবে পেডিয়াট্রিক ডায়াবেটিস বা শৈশবের মধুমেহর আলোচনা আরও প্রাসঙ্গিক হয়ে পড়ে।
বিশদ

16th  November, 2017
  চন্দননগরে বার্থ

 চলতি বছরে চন্দননগরে উদ্বোধন হল বেঙ্গল ইনফার্টিলিটি অ্যান্ড রিপ্রোডাকটিভ থেরাপি হসপিটালের (বার্থ) আরও একটি শাখার। অনুষ্ঠানে উপস্থিত বার্থ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও মেডিক্যাল ডিরেক্টর ডাঃ গৌতম খাস্তগীর, পুর ও নগরন্নোয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, মাননীয় সাংসদ রত্না দে নাগ, চন্দননগর পৌরসভার মেয়র শ্রী রাম চক্রবর্তীসহ বহু বিশিষ্ট মানুষ।
বিশদ

16th  November, 2017
সুরক্ষার ডায়াবেটিস সচেতনতা শিবির

 এদেশে ক্রমশ বেড়েই চলেছে টাইপ-২ ডায়াবেটিসে আক্রান্তর সংখ্যা। মূলত অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন, খাদ্যগ্রহণে অংসযম, শরীরচর্চায় অনীহা হল টাইপ-২ ডায়াবেটিস হওয়ার মূল কারণ। এই কারণেই কমবয়সিদেরও, বিশেষ করে মহিলাদের ডায়াবেটিস রোগটি নিয়ে আরও সতর্ক হতে হবে।
বিশদ

16th  November, 2017
শিশুদের পাশে সরোজ গুপ্ত ক্যানসার

শিশু দিবস উপলক্ষ্যে কলকাতার সরোজ গুপ্ত ক্যানসার সেন্টার অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পেডিয়াট্রিক ক্যানসারে আক্রান্তদের জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানে ক্যানাসারে আক্রান্ত শিশুদের সামনে ক্যানসার থেকে ফিরে আসা শিশুদের উপস্থিত করেছিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থাও ছিল সেখানে।
বিশদ

16th  November, 2017
হাড়ের ক্ষয় আটকাবেন কীভাবে?

দীর্ঘদিন ধরে গায়ে হাত-পায়ে ব্যথা হলে মোটেই এড়িয়ে চলা যাবে না। দেখা গিয়েছে চল্লিশোর্ধ্ব মহিলা এবং বয়স্কদের ক্ষেত্রে এই ধরনের ব্যথার কারণ হতে পারে অস্টিওপোরোসিস বা হাড়ের ক্ষয়জনিত অসুখ। চিকিৎসা না করালে সমস্যা আরও জটিল হয়ে পড়ে। জানাচ্ছেন অ্যাপোলো হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগের ডিরেক্টর ডাঃ বুদ্ধদেব  চট্টোপাধ্যায় এবং ন্যাশনাল রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব আয়ুর্বেদিক ড্রাগ ডেভেলপমেন্ট-এর চিকিৎসাবিজ্ঞানী ডাঃ দেবজ্যোতি দাস।
বিশদ

09th  November, 2017
 ক্যানসার মোকাবিলায় মৈত্রী

সারা ভারতে সমস্ত ধরনের ক্যানসারে আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে ব্রেস্ট ক্যানসারে আক্রান্তরা সংখ্যায় দ্বিতীয়। আর ভারতসহ পশ্চিমবঙ্গেও এই রোগের প্রকোপ দিন দিন বাড়ছে বলে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের তথ্যে উঠে এসেছে। এমন সংকটজনক পরিস্থিতিতে ব্রেস্ট ক্যানসারে আক্রান্তের সুবিধার্থে হাওড়ার নারায়ণা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের পক্ষ থেকে ‘মৈত্রী’ নামের একটি ক্যানসার সহায়তা গোষ্ঠী তৈরি করা হয়েছে।
বিশদ

09th  November, 2017
বাঙালি চিকিৎসকের বিশ্বজয়

 সম্প্রতি কলকাতার ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস-এর কর্ণধার অধ্যাপক ডক্টর রবিন সেনগুপ্তকে বেঙ্গল রোয়িং ক্লাবে বিশেষ সম্মানে সম্মানিত করা হল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের স্বামী অভিরামানন্দ মহারাজ, ব্রিটিশ ডেপুটি হাইকমিশনের প্রতিনিধিসহ বহু বিশিষ্ট মানুষ।
বিশদ

09th  November, 2017
ঋতু পরিবর্তনের অসুখবিসুখে 
সাবধান থাকবেন কীভাবে?

ঠান্ডা আবহাওয়ায় প্রধানত বাড়ে শ্বাসতন্ত্রের রোগ। যদিও এ রোগের প্রধান কারণ ভাইরাস। তথাপি বাইরের তাপমাত্রার সঙ্গেও এর সম্পর্ক রয়েছে। শীতে বাতাসের তাপমাত্রা কমার সঙ্গে আর্দ্রতাও কমে যায়, যা শ্বাসনালির স্বাভাবিক কর্ম প্রক্রিয়াকে বিঘ্নিত করে ভাইরাসের আক্রমণকে সহজ করে। এছাড়া ধূলোবালির পরিমাণ বেড়ে যায়। ঠান্ডা, শুষ্ক বাতাস হাঁপানি রোগীর শ্বাসনালিকে সরু করে দেয়, ফলে হাঁপানির টান বাড়ে।
বিশদ

02nd  November, 2017
জ্বর-জ্বালায় হোমিওপ্যাথি

যখন কোনও মানুষের দৈহিক তাপমাত্রা খুব বৃদ্ধি পায়, তখন আমরা তাকে জ্বর বলি। প্রথমেই বলি, আমাদের শরীরের স্বাভাবিক তাপমাত্রা ৩৬-৩৭ সেন্ট্রিগ্রেড বা ৯৪-১০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট। এছাড়া এমনিতেই দিনের বিভিন্ন সময় আমাদের শরীরের তাপমাত্রা বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। সন্ধ্যায় সর্বাধিক, আবার নিম্নতম হয় ভোরবেলা বা সকালের দিকে। এই ধরনের ব্যতিক্রম ছাড়া শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের বেশি হওয়ার পিছনে নানা কারণ থাকে। বিশদ

02nd  November, 2017
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে হাঁটার গুরুত্ব

আগামী ১৪ নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। এই উপলক্ষ্যে বাংলার জনগণের মধ্যে ডায়াবেটিস সম্বন্ধে সচেতনতা বাড়াতে বিশেষ সচেতনতাবৃদ্ধিমূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল নেওয়া হয়েছিল জি ডি হসপিটাল এবং ডায়াবেটিস ইনস্টিটিউটের তরফে। উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সি ই ও-মুসরেফা হোসেন, সংস্থার চেয়ারম্যান প্রফেসর ডাঃ সুকুমার মুখোপাধ্যায়, সংস্থার দন্ত বিভাগের প্রধান ডাঃ দীপ্ত দে, চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ সৈকত চক্রবর্তী, এন্ডোক্রিনোলোজিষ্ট ডাঃ নীলাঞ্জন সেনগুপ্তসহ বহু বিশিষ্টজন। ডাঃ সুকুমার মুখোপাধ্যায় বলেন, প্রতিদিন হাঁটাহাঁটি করলে যথেষ্ট পরিমাণ ক্যালরি খরচ হয়।
বিশদ

02nd  November, 2017
স্কুলে যাওয়া নিশ্চিত করতে বিমা

 দুঃস্থ পরিবারের কোনও পড়ুয়া হাসপাতালে ভরতি হলে তার চিকিৎসার খরচ বহন করতেই বাবা-মা হিমশিম খান। অনেকক্ষেত্রে এই অর্থনৈতিক বোঝা বাচ্চার লেখাপড়ায় ব্যাঘাত করে। আবার বাড়ির একমাত্র রোজগেরে সদস্যটির অকালপ্রয়াণ ঘটলেও কোপ পড়ে বাচ্চার পড়াশোনায়।
বিশদ

02nd  November, 2017
উপোস
শরীরের লাভ হয় না ক্ষতি?

 মানবদেহে উপোসের প্রভাব কী?
 দেখুন, এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগে উপোস সম্বন্ধে একটু জেনে নেওয়া দরকার। আসলে উপোসের ধারণাটি বহু প্রাচীন। প্রায় সকল ধর্মের সঙ্গেই উপোসের একটা নিবিড় যোগাযোগ রয়েছে।
আবার ধর্ম ছাড়াও প্রতিবাদের ভাষা হিসাবেও উপোসের চল রয়েছে। মানুষের দীর্ঘ প্রতিবাদের ইতিহাসে আমরা অনশনের একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা দেখতে পাই। এটা একটা দিক।
বিশদ

26th  October, 2017
রিউম্যাটয়েড আর্থ্রাইটিস : দ্রুত রোগ নির্ণয় জরুরি

 রিউম্যাটয়েড আর্থ্রাইটিস রোগে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আর সময়ে এই রোগের চিকিৎসা শুরু না করলে সমস্যা গুরুতর আকার নেয়। তাই বিশ্ব আর্থ্রাইটিস দিবসে প্রাথমিক স্তরে রোগ নির্ণয়ের উপর বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করছেন শহরের বিশিষ্ট রিউম্যাটোলজিস্টরা।
বিশদ

26th  October, 2017
রবীন্দ্রনাথের হোমিওপ্যাথি প্রীতি

 অ্যাসোসিয়েশন অব ভলেন্টারি ব্লাড ডোনারস পশ্চিমবঙ্গ শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন প্রয়াত ডাঃ লাবণ্যকুমার গাঙ্গোপাধ্যায়। সম্প্রতি তাঁরই নামাঙ্কিত স্মারক বক্তৃতার আয়োজন করা হয়েছিল কলকাতার ইন্দুমতী সভাগৃহে। রবীন্দ্রনাথ এবং গণস্বাস্থ্য বিষয়ক বক্তৃতার বক্তা ছিলেন ডাঃ শ্যামল চক্রবর্তী।
বিশদ

26th  October, 2017
একনজরে
 অলকাভ নিয়োগী, বনগাঁ, বিএনএ: শীতের কনকনে ঠান্ডা কিংবা বর্ষার মুষলধারার বৃষ্টি। মাথার উপর ছাদ বলতে একটি ছেঁড়া পলিথিন। আর দেওয়াল? তাপ্পি দেওয়া কয়েকটা মলিন শাড়ি। এটাই ছিল মাথা গোঁজার একচিলতে আশ্রয়। কারও বয়স ৬৫, কারও ৭০, কেউ বা অশীতিপর। ...

সংবাদদাতা, আলিপুরদুয়ার: বৃহস্পতিবার সকালে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগমের (এনবিএসটিসি) ফালাকাটা ডিপোর সামনে থেকে সংস্থার যাত্রী বোঝাই একটি বাস নিয়ে এক যুবক চম্পট দেওয়ার চেষ্টা করে। তবে বাসটিকে ৫০০ মিটার দূরে ফালাকাটা হাইস্কুলের সামনে কর্তব্যরত সিভিক ভলান্টিয়ার স্থানীয় বাসিন্দাদের সহযোগিতায় আটকায়। ...

 সিঙ্গাপুর, ১৬ নভেম্বর (পিটিআই): আধার, নোট বাতিল ও জিএসটি এই ‘ত্রিফলা’ সংস্কার ভারতে স্বচ্ছতা বাড়িয়েছে। এর ফলে দেশের অর্থনীতি নগদ নির্ভর থেকে কম নগদের দিচ্ছে যাচ্ছে। সিঙ্গাপুরে আয়োজিত বিনিয়োগকারীদের এক সভায় এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। ...

 নয়াদিল্লি, ১৬ নভেম্বর (পিটিআই): প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জনপ্রিয়তা দেশজুড়ে ‘অদম্যভাবে’ বেড়েছে। ‘পিউ রিসার্চ সেন্টার’ চালিত সমীক্ষার রিপোর্ট তুলে ধরে এমনটাই বললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

শত্রুরা পরাভূত হবে। কর্মে পরিবর্তনের সম্ভাবনা। স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের জন্য ব্যয়বৃদ্ধির যোগ আছে। কোনও ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক ছাত্র দিবস
১৮৬৯: লোহিত সাগর এবং ভূমধ্যসাগরকে জুড়তে মিশরে সুয়েজ খালের উদ্বোধন
১৯০৩: দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে গেল রাশিয়ার স্যোশাল ডেমোক্র্যাটিক লেবার পার্টি
১৯২৮: স্বাধীনতা সংগ্রামী লালা লাজপত রায়ের মৃত্যু
২০০০: আলবার্তো ফুজিমোরিকে পেরুর প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল
২০১২: প্রয়াত শিবসেনা প্রধান বালাসাহেব থ্যাকারে

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৪.৫০ টাকা ৬৬.১৮ টাকা
পাউন্ড ৮৪.৬৬ টাকা ৮৭.৫২ টাকা
ইউরো ৭৫.৬৩ টাকা ৭৮.২৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,৯১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৮,৩৭৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮,৮০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৯,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৯,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১ অগ্রহায়ণ, ১৭ নভেম্বর, শুক্রবার, চতুর্দ্দশী দিবা ঘ ৩/৩০, নক্ষত্র-স্বাতী সন্ধ্যা ৫/১১, সূ উ ৫/৫৪/২৪, অ ৪/৪৮/৪৮, অমৃতযোগ দিবা ঘ ৬/৩৭ মধ্যে পুনঃ ৭/২১ গতে ৯/৩২ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৩ গতে ২/৩৮ মধ্যে পুনঃ ৩/২২ গতে অস্তাবধি, রাত্রি ঘ ৫/৪১ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৮ গতে ৩/১৭ মধ্যে পুনঃ ৪/১০ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/৩৮ গতে ১১/২২ মধ্যে। কালরাত্রি ৮/৫ গতে ৯/৪৩ মধ্যে।
৩০ কার্তিক, ১৭ নভেম্বর, শুক্রবার, চতুর্দ্দশী ২/৫৪/৫৬, স্বাতীনক্ষত্র রাত্রি ৫/২৯/২৮, সূ উ ৫/৫৪/৪১, অ ৪/৪৮/০, অমৃতযোগ দিবা ঘ ৬/৩৮/১৪ মধ্যে, ৭/২১/৪৮-৯/৩২/২৭, ১১/৪৩/৭-২/৩৭/২০, ৩/২০/৫৩-৪/৪৮/০, রাত্রি ৫/৪০/২৭-৯/১০/১৪, ১১/৪৭/৩৩-৩/১৭/২০, ৪/৯/৪৭-৫/৫৫/২৬, বারবেলা ৮/৩৮/১-৯/৫১/৪১, কালবেলা ৯/৫১/৪১-১১/২১/২০, কালরাত্রি ৮/৪/৪০-৯/৪৩/০।
২৭ শফর

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
 আইএসএল: এটিকে ০, কেরল ব্লাস্টার্স ০

 আজ কোচিতে আইএসএলের উদ্বোধনী ম্যাচ গোলশূন্যয় শেষ করল এটিকে ও ...বিশদ

10:04:41 PM

আইএসএল: এটিকে ০, কেরল ব্লাস্টার্স ০ (প্রথমার্ধ পর্যন্ত) 

08:56:14 PM

ব্রিটেনে মাঝ আকাশে বিমান ও হেলিকপ্টারের সংঘর্ষ
মাঝ আকাশে বিমান ও হেলিকপ্টারের মুখোমুখি সংঘর্ষ। এদিন ...বিশদ

08:22:00 PM

কোচিতে আইএসএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান চলছে 

07:54:43 PM

ট্রেনের সময়সূচি বদল
ডাউন ট্রেন দেরিতে আসার কারণে

১৩০০৯ ...বিশদ

05:06:00 PM