Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

হাইপোস্কিল্লিয়া
এখন অভাব রোগ ধরার দক্ষতাতেই 

আজকের দিনে দাঁড়িয়ে একটি দুর্ভাগ্যজনক বিষয়ের জন্য আমরা চিকিৎসকরাই দায়ী। আর এই নির্দিষ্ট কারণে বহু রোগীও নিত্যদিন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। প্রশ্ন হল, কী সেই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়? বিষয়টিকে হাইপোস্কিল্লিয়া বলা হয়। অর্থাৎ চিকিৎসকের ক্লিনিক্যাল স্কিল কম থাকা। আরও সহজ করে বললে, অসুখের উপসর্গ দেখে রোগ সম্বন্ধে অনুমান করার পারদর্শিতা কম থাকা। এই ধরনের চিকিৎসকদের হাইপোস্কিল্লিয়াক্স বলা হয়। বলতে কোনও অসুবিধে নেই, প্রতিবছর মেডিক্যাল কলেজগুলি থেকে অসংখ্য হাইপোস্কিল্লিয়াক্স বেরিয়ে আসছেন। এই চিকিৎসকরা রোগীর অসুখের ইতিহাস নেন না, রোগীর জরুরি শারীরিক পরীক্ষাও প্রায় করেন না, নিজেদের বিচারবুদ্ধি কাজে লাগিয়ে তথ্যের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণও করেন না। তাই স্বাভাবিকভাবেই এই চিকিৎসকরা রোগীর চিকিৎসা পরিকল্পনাও সঠিক পদ্ধতিতে গড়ে তুলতে পারেন না। পাশাপাশি রোগী ও তাঁর আত্মীয়দের সঙ্গে ঠিকভাবে কথাও বলেন না।
এখন চিকিৎসকরা রোগীর অসুখ সম্বন্ধে বিশদে জানার জন্য প্রয়োজনীয় সময়টুকুও ব্যয় করেন না। কারণ তাঁরা তাড়াতাড়ি কাজ সারতে চান। সময়ের অভাবে রোগীর অসুখের ইতিহাসটাই অজানা রয়ে যায়। তাঁরা বিভিন্ন ধরনের রোগ পরীক্ষা সম্বন্ধে গভীরে জানেন। কিন্তু অনেকসময় কখন কোন টেস্ট করাতে হবে বা সেই টেস্টের রিপোর্টগুলিকে বিশ্লেষণই করতে পারেন না। বেশিরভাগক্ষেত্রেই তাঁরা সংখ্যার উপর বেশি জোর দেন। তাই রোগীর বদলে রোগীর রিপোর্টের চিকিৎসা চলে। এই অদ্ভুত পরিস্থিতি গড়ে তোলার পিছনে স্বাস্থ্যব্যবস্থা পরিচালনকারীদেরও দোষ কম নয়। তাঁর চান, একজন চিকিৎসক কম সময়ের মধ্যে সর্বাধিক পরিমাণে রোগী দেখুক। তাই চিকিৎসকদের শুধু দায়ী করে লাভ নেই।
কোনও চিকিৎসকের ক্লিনিক্যাল স্কিল কম থাকা একটি জটিল ও দীর্ঘকালীন সমস্যা। অসম্পূর্ণ শিক্ষাই এই সমস্যার মূল কারণ। এই হিসেবে দেখলে, আমরা যাঁরা মেডিক্যাল কলেজে পড়াই তাঁরাও এই সমস্যার জন্য দায়ী।
তাহলে কেন আমরা জেনেবুঝে আমাদের পড়ুয়াদের এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টিকে অবহেলা করতে শেখাই? এই প্রশ্নের উত্তরের দু’টি দিক রয়েছে বলে আমার মনে হয়। প্রথমত, সামগ্রিকভাবে গোটা সমাজের মুল্যবোধ ও অগ্রাধিকার বদলেছে। উদাহরণ হিসেবে বলি, ১৯৫০-এর দশকে আমরা যখন ছাত্র ছিলাম, তখন কঠোর শ্রম, আত্মমর্যাদা, কর্তব্যের প্রতি নিষ্ঠা, দায়বদ্ধতা এবং শ্রেষ্ঠত্বর পিছনে ধাওয়া করাটাই ছিল নিয়ম। আর এখন নির্দিষ্ট সময় কাজ করা, নিজের ব্যক্তিগত লাভ, নিজেকে পলিটিক্যালি কারেক্ট রাখার মতো কাজগুলিতেই সবাই ব্যস্ত থাকে। আত্মমর্যাদা এবং দায়বদ্ধতা প্রায় হারিয়ে গিয়েছে। তার ফল হিসেবে স্বাস্থ্যব্যবস্থার সঙ্গে জড়িয়ে থাকা প্রায় সকলেই নিজেদের মাঝারি মান নিয়েই বেশ খুশিতে রয়েছেন।
উত্তরের দ্বিতীয় পর্যায়ে বলব, শিক্ষকরা তেমন শিক্ষাই দিচ্ছেন যা তাঁরা নিজেরা পেয়েছেন। আজকের বেশিরভাগ মেডিক্যাল শিক্ষকরাই ৭০ দশকের আগে-পিছু প্রশিক্ষণ পেয়েছেন। সেই সময়েই আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার চিকিৎসাবিজ্ঞানে খুব বেশি মাত্রায় শুরু হয়। তাই তাঁরা নিজেরা প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে চিকিৎসা করতে শিখেছেন। এই বিষয়টিকে হাই-টেক মেডিসিন হিসেবে দেখা হয়। আর তাঁরা নিজেরা যেই পদ্ধতিতে শিক্ষিত, আজ নিজেদের ছাত্রছাত্রীদেরও সেই হাই-টেক মেডিসিন শিক্ষাই দিয়ে চলেছেন। অনেক শিক্ষক নিজেরাও হাই-টাচ মেডিসিন বিষয়টি উপলব্ধি করতে পারেননি।
এবার প্রশ্ন আসতে পারে, হাই-টাচ মেডিসিন বিষয়টি কী? উত্তর হল, রোগীর অসুখের ইতিহাস জেনে এবং রোগীর যথাযথ শারীরিক পরীক্ষা করে একজন চিকিৎসক অনেক তথ্য পান। এই তথ্যগুলিকে চিকিৎসক নিজের বিচারবুদ্ধির মাধ্যমে বিশ্লেষণ করেন। তথ্যের বিশ্লেষণ করার পর দেখতে হয় আদৌ কোনও রোগ পরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে কি না। এবার রোগ পরীক্ষার প্রয়োজন হলে প্রথমে সহজ পরীক্ষাগুলি আগে করাতে হয়। এই গোটা বিষয়টিই হল হাই-টাচ মেডিসিন।
অন্যদিকে হাই-টেক মেডিসিন-এর ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময়ই চিকিৎসক রোগীর অসুখের ইতিহাস জানতে চান না এবং জরুরি শারীরিক পরীক্ষাগুলিও এড়িয়ে যান। এক্ষেত্রে চিকিৎসক সরাসরি রোগীর কাছ থেকে মূল সমস্যার কথা জানতে চান। তারপর সেই সমস্যার বিষয়ে জানতে একগাদা রোগ পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিয়ে থাকেন।
যেহেতু হাই-টেক মেডিসিন পদ্ধতিতে চিকিৎসকরা রোগীর কাছ থেকে অসুখের ইতিহাস জানেন না এবং রোগীর শারীরিক পরীক্ষাও করেন না, এই কারণে চিকিৎসক ও রোগীর মধ্যে নিবিড় সম্পর্কও গড়ে ওঠে না। অন্যদিকে হাই-টাচ মেডিসিন পদ্ধতিতে চিকিৎসক রোগীর মধ্যে ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। এই পদ্ধতিতে চিকিৎসা করার অর্থ— রোগ নয়, আমরা রোগীর চিকিৎসা করছি।
অর্থাৎ আধুনিক প্রযুক্তি যেমন রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসা ব্যবস্থাকে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে, ঠিক তেমনই চিকিৎসকদের অনেকাংশে মানসিকভাবে অলস করে দিয়েছে। প্রুযুক্তির উপর বিশ্বাস রাখতে রাখতে তাঁরা নিজেদের সর্বোত্তম হাতিয়ার মস্তিষ্কের ব্যবহারই কমিয়ে এনেছেন। তবে এই সমস্যার সমাধান কোথায়? সমাধান বেশ কঠিন। গোটা চিকিৎসা শিক্ষা ব্যবস্থাকেই নতুন করে ঢেলে সাজাতে হবে। আমাদের এমন শিক্ষক চাই যাঁদের ভালো ক্লিনিক্যাল স্কিল রয়েছে, যাঁরা রোগীর অসুখের ইতিহাস নেওয়া শেখাবেন, যাঁরা রোগীর যথাযথ শারীরিক পরীক্ষা করতে শেখাবেন, যাঁরা কোন রোগ পরীক্ষা কখন করতে হবে সেই হিসেব জানেন, যাঁরা রিপোর্টের ফলাফল বিশ্লেষণ করা শেখানোর মতো আরও অনেক জরুরি কাজ করতে পারবেন। সর্বোপরি পড়ুয়াদের ভালো মূল্যবোধ তৈরি করার শিক্ষক চাই। পাশাপাশি ক্লাস রুমের বদলে আরও বেশি করে রোগীর মধ্যে পড়ুয়াদের ক্লাস নিতে হবে। হাতেকলমে তাঁদের আরও পক্ত করে তোলা দরকার। এভাবেই এই সমস্যার সমাধান সম্ভব।
(ধন্যবাদন্তে ডাঃ অখিল কে সঙ্গল)
অনুবাদক: সায়ন নস্কর 
04th  July, 2019
পাওয়ার থাকলে চোখের যত্ন নেবেন কীভাবে? 

চোখের পাওয়ার
জানলে অবাক হবেন, দেশের ৩০ শতাংশ মানুষ মাইয়োপিক। অর্থাৎ তাঁদের চোখে মাইনাস পাওয়ারের চশমা রয়েছে। তুলনায় প্লাস পাওয়ার বা হাইপারমেট্রোপিকের সমস্যায় ভোগা রোগীর সংখা কম। 
বিশদ

19th  September, 2019
আত্মহত্যা বিরোধী দিবস উদযাপন
 

১০ সেপ্টেম্বর ছিল বিশ্ব আত্মহত্যা বিরোধী দিবস। এই উপলক্ষ্যে মেডিক্যাল ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে কলকাতার বিভিন্ন স্কুলের পড়ুয়াদের একত্রিত করে শোভাবাজার মেট্রো স্টেশনের সামনে আত্মহত্যা বিরোধী প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছিল।  
বিশদ

19th  September, 2019
বিএমবিড়লায় প্রাণ বাঁচানোর অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি 

বারবার বুকে ব্যথা হয়েই চলেছিল পঞ্চাশোর্ধ্ব এক রোগীর। রোগী বিশ্রামরত অবস্থাতে থাকলেও বুকে এমন ব্যথা হতো। এমনকী শেষ কদিনে অ্যান্টি অ্যানজাইনাল ওষুধও আর কাজ করছিল না। অথচ কয়েকমাস আগেই তিনি অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করিয়েছিলেন।  
বিশদ

19th  September, 2019
বোন অ্যান্ড জয়েন্ট ক্লিনিকের অনুষ্ঠান 

চতুর্থ প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে বোন অ্যান্ড জয়েন্ট ক্লিনিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছিল অভিনব উদ্যোগ। সংস্থার পক্ষ থেকে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে ২৫ জন বিশেষ ভাবে সক্ষম ও দুঃস্থ ছাত্রছাত্রীদের সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। 
বিশদ

19th  September, 2019
তারাপিঠে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির 

কৌশিকী অমাবস্যা উপলক্ষ্যে তারাপিঠ মন্দিরের কাছে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবিরের আয়োজন করা হয়েছিল। বাম তারা অর্চনম ট্রাস্ট পরিচালিত এই শিবিরে কলকাতার বিশিষ্ট চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন।  
বিশদ

19th  September, 2019
নারায়ণা হাওড়ায় হার্টের বিরল চিকিৎসা 

‘ওয়ার্ল্ড হার্ট ডে’ উপলক্ষ্যে হাওড়ার নারায়ণা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের তরফে প্রেস ক্লাবে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে সম্প্রতি হাসপাতালে বিরল কার্ডিয়াক ইন্টারভেনশন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।   বিশদ

19th  September, 2019
 পুজোয় বেড়াতে গেলে
কী কী ওষুধ রাখবেন?
ডাঃ আশিস মিত্র ( মেডিসিন বিশেষজ্ঞ)

 সারা বছরের ধকল কাটাতে পুজোর ছুটিতে বাইরে বেড়াতে যাওয়া বাঙালির সংখ্যা নেহাত কম নয়। শরতের আবাহাওয়ায় পাহাড়, জঙ্গল, সমুদ্র যেন নতুন রূপে সেজে ওঠে। আর সেই অপরূপ সাজ চাক্ষুষ করতে ভ্রমণ পিপাসুরা দলে পৌঁছে যান প্রকৃতির কোলে। বুনে ফেলেন নতুন অভিজ্ঞতার স্মৃতি।
বিশদ

12th  September, 2019
 হোমিওপ্যাথিক ওষুধ
ডাঃ দেবর্ষি দাস ( হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক)

 বাঙালি আর বেড়ানো এই দুই শব্দকে কখনওই আলাদা করা যায় না। কিন্তু বেড়াতে গিয়ে শরীর খারাপ হলে প্রকৃতি দর্শনের পুরো আনন্দটাই মাটি। আর এই বেড়ানোর আনন্দটা যাতে কোনওভাবেই নিরানন্দে পরিণত না হয় তাই বেড়াতে যাবার ব্যাগ গোছানোর সময় অবশ্যই কিছু জরুরি ওষুধ ব্যাগে নিতে হবে। দরকারে এগুলো ভীষণ উপযোগী এবং বেড়ানোটাকে নির্ঝঞ্ঝাট রাখতে পারে। বিশদ

12th  September, 2019
 শিশুদের সমস্যায়
ডাঃ সুজয় চক্রবর্তী ( শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ)

  বর্ষার শেষ আর শরতের আগমন মানেই বাঙালির এক বছরের অপেক্ষার অবসান। মা দুর্গার আগমনীবার্তায় যখন আকাশ-বাতাসে খুশির সুর, ঘরকুনো বাঙালিও তাঁর বদনাম ঘোচাতে হয়ে ওঠে ভ্রমণ পিপাসু। পাহাড় থেকে সমুদ্র, অরণ্য থেকে সমতল— এই সময়টাতে সর্বত্র আমাদের অবাধ বিচরণ।
বিশদ

12th  September, 2019
 ডি এন দে হোমিওপ্যাথিক কলেজের পুনর্মিলন উৎসব

  শিয়ালদহের কৃষ্ণপদ ঘোষ মেমোরিয়াল প্রেক্ষাগ্রৃহে অনুষ্ঠিত হল ডি এন দে হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজের বার্ষিক পুনর্মিলন উৎসব। আয়োজক ছিল ওই কলেজের প্রাক্তন ছাত্র সমিতি। উৎসবের সূচনা করেন রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের (যোগোদদান) অধ্যক্ষ স্বামী বিমলাৎমানন্দজী মহারাজ।
বিশদ

12th  September, 2019
মাতৃভবন হাসপাতালে ল্যাপেরোস্কোপি

  আধুনিক ল্যাপেরোস্কোপি ও হিস্টেরেস্কোপির পদ্ধতিতে পেটের উপর শুধুমাত্র কয়েকটি ছিদ্র করে অপারেশন করা হচ্ছে। এরফলে রোগীর ব্যথা বেদনা কম হওয়া, অপারেশনের ঝুঁকি কম থাকা সহ আরও অনেক সুবিধে রয়েছে। কিন্তু খরচের কারণে অনেকেই এই সার্জারির সুবিধে নিতে পারেন না।
বিশদ

12th  September, 2019
গঙ্গা হাসপাতাল 

তামিলনাড়ুর কোয়াম্বাটুরের গঙ্গা মেডিক্যাল সেন্টার অ্যান্ড হাসপাতালের তরফে সল্টলেকে রিকনস্ট্রাকটিভ মাইক্রোসার্জারি, আগুনে পোড়া, ব্রেস্ট ক্যান্সার, প্লাস্টিক সার্জারি ইত্যাদি চিকিৎসার নয়া কেন্দ্র চালু হল।   বিশদ

05th  September, 2019
তামাকমুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে শিক্ষকদের নিয়ে প্রশিক্ষণ শিবির 

গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভে (গ্যাটস ২০১৭) অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গে রোজ তামাকের নেশায় পা দিয়ে চলেছে ৪৩৮টি শিশু! রাজ্য জুড়ে যে হারে শিশুরা তামাকের নেশায় জড়িয়ে পড়ছে তা যথেষ্ট চিন্তায় রেখেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের শিক্ষা দপ্তরকে।   বিশদ

05th  September, 2019
মেডিকার সেন্টার ফর লিভার ডিজিজ 

লিভারের রোগের চিকিৎসা এবং লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্টের ক্ষেত্রে চিকিৎসা পরিষেবা দিতে মেডিকা হাসপাতালে শুরু হল সেন্টার ফর লিভার ডিজিজ ক্লিনিক। লিভারের চিকিৎসার সঙ্গে প্যাংক্রিয়াস ও গল ব্লাডারের রোগেরও চিকিৎসা হবে সেখানে।  বিশদ

05th  September, 2019
একনজরে
 গুয়াহাটি, ২০ সেপ্টেম্বর (পিটিআই): এনআরসির বিরোধিতায় শুক্রবার অসমজুড়ে ১২ ঘণ্টার বন্ধ পালন করা হয়। অল কোচ রাজবংশী স্টুডেন্টস ইউনিয়ন (একেআরএসইউ)-এর ডাকা ওই বন্঩ধে এদিন স্বাভাবিক ...

 দিব্যেন্দু বিশ্বাস, নয়াদিল্লি, ২০ সেপ্টেম্বর: যাদবপুর-কাণ্ডে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে রিপোর্ট দেবে বঙ্গ বিজেপি। আজ এ কথা জানিয়েছেন বিজেপির অন্যতম কেন্দ্রীয় সম্পাদক তথা পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত দলের সহনেতা সুরেশ পূজারি। তিনি বলেছেন, ‘যে রাজ্যে একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরই কোনও নিরাপত্তা নেই, সেই ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২০ সেপ্টেম্বর: চলতি ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে দেশের মাইক্রো-ফিনান্স ইন্ডাস্ট্রি ২ লক্ষ ৫০ হাজার কোটি টাকার গণ্ডি অতিক্রম করবে। স্ব-ধন ‘ভারত মাইক্রো-ফিনান্স রিপোর্ট, ২০১৯’-এ প্রকাশ পেয়েছে এই তথ্য। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: শুক্রবার সকালে সাঁকরাইলের ডেল্টা জুটমিলের পরিত্যক্ত ক্যান্টিন থেকে নিখোঁজ থাকা এক শ্রমিকের মৃতদেহ উদ্বার হল। তাঁর নাম সুভাষ রায় (৪৫)। তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে পরিবারের লোকজন অভিযোগ করেছেন। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

শরীর ভালো যাবে না। সাংসারিক কলহবৃদ্ধি। প্রেমে সফলতা। শত্রুর সঙ্গে সন্তোষজনক সমঝোতা। সন্তানের সাফল্যে মানসিক ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস
১৮৬৬: ব্রিটিশ সাংবাদিক, ঐতিহাসিক ও লেখক এইচ জি ওয়েলসের জন্ম
১৯৩৪: জাপানের হনসুতে টাইফুনের তাণ্ডব, মৃত ৩ হাজার ৩৬ জন
১৯৪৭: মার্কিন লেখক স্টিফেন কিংয়ের জন্ম
১৯৭৯: ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার ক্রিস গেইলের জন্ম
১৯৮০: অভিনেত্রী করিনা কাপুর খানের জন্ম
১৯৮১: অভিনেত্রী রিমি সেনের জন্ম
১৯৯৩: সংবিধানকে অস্বীকার করে রাশিয়ায় সাংবিধানিক সংকট তৈরি করলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন
২০০৭: রিজওয়ানুর রহমানের মৃত্যু
২০১৩: কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে ওয়েস্ট গেট শপিং মলে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ৬৭

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.১৯ টাকা ৭২.৭০ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৪৪ টাকা ৯১.১২ টাকা
ইউরো ৭৬.২৬ টাকা ৮০.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৭,৯৯০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,০৪৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৫৮৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, সপ্তমী ৩৭/১২ রাত্রি ৮/২১। রোহিণী ১৪/৪৩ দিবা ১১/২২। সূ উ ৫/২৮/২৩, অ ৫/৩১/৪০, অমৃতযোগ দিবা ৬/১৬ মধ্যে পুনঃ ৭/৪ গতে ৯/২৯ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৪ গতে ৩/৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৫ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ১২/৪১ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৯ মধ্যে পুনঃ ১/০ গতে ২/৩০ মধ্যে পুনঃ ৪/০ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ৭/১ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৯ গতে উদয়াবধি।
৩ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, সপ্তমী ২৫/২২/২১ দিবা ৩/৩৭/৫। রোহিণী ৭/১/২৪ দিবা ৮/১৬/৪৩, সূ উ ৫/২৮/৯, অ ৫/৩৩/২৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/২০ মধ্যে ও ৭/৭ গতে ৯/২৯ মধ্যে ও ১১/৪৮ গতে ২/৫৫ মধ্যে ও ৩/৪২ গতে ৫/৩৩ মধ্যে এবং রাত্রি ১২/৩৮ গতে ২/১৭ মধ্যে, বারবেলা ১/১/২৯ গতে ২/৩২/৯ মধ্যে, কালবেলা ৬/৫৮/৪৯ মধ্যে ও ৪/২/৪৯ গতে ৫/৩৩/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৭/২/৪৯ মধ্যে ও ৩/৫৮/৪৯ গতে ৫/২৮/২৮ মধ্যে।
২১ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজীব কুমারের আগাম জামিনের আবেদন খারিজ
আজ রাজীব কুমারের আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল আলিপুর ...বিশদ

08:21:33 PM

ফের সিএবি প্রেসিডেন্ট সৌরভ
আরও একবার সিএবি-র প্রেসিডেন্ট হলেন সৌরভ গঙ্গোপাধধ্যায়। আজ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ...বিশদ

07:39:27 PM

অস্কারে মনোনীত ছবি-গালি বয়

06:03:00 PM

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে মারধর
স্কুলের ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় এক যুবককে লাঠি-রড দিয়ে ...বিশদ

05:22:00 PM

মুর্শিদাবাদে আগ্নেয়াস্ত্র সহ গ্রেপ্তার ১ 
আজ সকালে মুর্শিদাবাদের পাহাড়ঘাটি মোড় থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ সফিকুল ইসলাম ...বিশদ

05:13:00 PM

দীঘায় ডুবন্ত ব্যক্তিকে উদ্ধার করল নুলিয়া
 

দীঘার সমুদ্রে তলিয়ে যাওয়ার মুখে এক পর্যটককে উদ্ধার করল নুলিয়া। ...বিশদ

05:05:00 PM