Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

কখন কোন পরীক্ষা করাবেন?

যে কোনও ধরনের অসুখ প্রতিরোধে আগাম কিছু স্বাস্থ্যপরীক্ষা করিয়ে নিলে আখেরে লাভ আমাদেরই। পরামর্শে সিরাম অ্যানালিসিস সেন্টারের চেয়ারম্যান সঞ্জীব আচার্য এবং প্যাথোলজিস্ট ডাঃ আর এন চক্রবর্তী।

 নিয়মিত স্বাস্থ্যপরীক্ষা জরুরি
শারীরিক পরীক্ষা সম্বন্ধে মানুষের মনে বেশ অনীহা রয়েছে। তবে সত্যি বলতে, নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করালে আখেরে নিজেদেরই লাভ। এক্ষেত্রে রোগ প্রতিরোধ করতে সুবিধে হয়। একটা উদাহরণ দেওয়া যাক, ধরুন একটা ২৩ বছরের ছেলে সুগার টেস্ট করালো। রিপোর্টে দেখা গেলে, ঠিক ডায়াবেটিসে আক্রান্ত না হলেও, তাঁর রক্তে সুগারের মাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় সামান্য বেশি। এভাবে চলতে থাকলে হয়তো আর কিছুদিনের মধ্যেই ছেলেটি সুগারে আক্রান্ত হবে। তবে আগেভাগে সমস্যাটি ধরা পড়ে যাওয়ায় ছেলেটি এখন থেকে বেশি সচেতন হয়ে যেতে পারে। নিয়মমাফিক চললে ছেলেটি ডায়াবেটিসকে প্রতিহত বা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার সময়কে আরও অনেকদিন পিছিয়ে দিতে সক্ষম হবে। এরই নাম প্রিভেন্টিভ হেল্‌থ চেকআপ। তাই নিয়মিত প্রতিটি মানুষের টেস্টের আওতায় থাকা উচিত। অপরদিকে ইতিমধ্যেই কোনও রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো টেস্টগুলি করে যেতেই হবে।

 সদ্যোজাতর রক্ত পরীক্ষা
বাচ্চা জন্মানোর একদম পরপরই বেশ কিছু শারীরিক পরীক্ষা করে নেওয়া দরকার। এই টেস্টগুলিকে নিউবর্ন স্ক্রিনিং টেস্ট বলে। এই পরীক্ষাগুলির মাধ্যমে বাচ্চা কোনও শারীরিক সমস্যা নিয়ে জন্মেছে কি না, এই বিষয়টি সম্বন্ধে নিশ্চিত হওয়া যায়। সমস্যা হল, আমাদের রাজ্যে নিউবর্ন স্ক্রিনিং টেস্ট নিয়ে এখনও তেমন কোনও সচেতনতাই নেই। ফলে শিশুর মধ্যে সমস্যা থাকলেও প্রাথমিকভাবে ধরা পড়ছে না। অসুখ মারাত্মক পর্যায়ে পৌঁছানোর পরই টেস্ট করানো হচ্ছে। তাই শিশুর অভিভাবককে এই বিষয়ে অবশ্যই সচেতন হওয়া দরকার। নিউবর্ন স্ক্রিনিং টেস্টের মধ্যে রয়েছে—
 মেটাবলিক স্ক্রিনিং (এমএস) প্যানেল: এই টেস্টে ধরা পড়ে ফ্যাটি অ্যাসিড অক্সিডেশন ডিজঅর্ডার, অর্গানিক অ্যাসিড ডিজঅর্ডার এবং অ্যামাইনো অ্যাসিড ডিজঅর্ডারের সমস্যা।
 এন্ডোক্রাইন ডিজঅর্ডার: টিএসএইচ টেস্টের মাধ্যমে কনজেনিটাল হাইপোথাইরয়েডিজমের সমস্যা থাকলে বেরিয়ে আসে। কনজেনিটাল অ্যাড্রিনাল হাইপারপ্লাসিয়া অসুখটি সম্বন্ধে জানা যায় ১৭ ওএইচ-পি টেস্টের মাধ্যমে।
 ব্লাড সেল ডিজঅর্ডার: গ্লুকোজ-৬-ফসফেট ডিহাইড্রোজিনাস ডেফিসিয়েন্সির সমস্যা ধরিয়ে দেয় জি৬-পিডি টেস্ট।
 ইনবর্ন এরর অব কার্বোহাইড্রেট মেটাবলিজম: টোটাল গ্যালাকটোজ পরীক্ষা করিয়ে গ্যালাকটোসেমিয়া অসুখটি ধরা পড়ে।
 ইনবর্ন এরর অব অ্যামাইনো অ্যাসিড মেটাবলিজম: ফেনিলকেটোনুরিয়া সমস্যা থাকলে জানিয়ে দেয় পিকেইউ টেস্ট। ম্যাপেল সিরাপ ইউরিন ডিজিজ অসুখটি সম্বন্ধে জানায় এমএসইউডি পরীক্ষা।
 জেনেটিক ডিজিজেস অ্যান্ড মেটাবলিক ডিজঅর্ডার: সিস্টিক ফিব্রোসিস সমস্যাটি বোঝা যায় আইআরটি স্ক্রিনিং এসে টেস্টে। বায়োটিনিডেস ডেফিসিয়েন্সি জানতে বিটিডি স্ক্রিনিং এসে পরীক্ষাটি করাতে হয়।
এছাড়াও শিশুদের অনেক ধরনের শারীরিক পরীক্ষা হয়। একজন শিশুরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়েই টেস্টগুলি করাতে পারেন।

 মেয়েদের বয়স যখন ১২ থেকে ১৪
১২ থেকে ১৪ বছর বয়সের মধ্যে মেয়েদের জীবনে বিভিন্ন ধরনের হর্মোনাল পরিবর্তন হয়। এই বয়সেই শুরু হয়ে যায় মেনস্ট্রুরেশন। এমন সময়ই শরীরে সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা থাকে সবথেকে বেশি। অনিয়মিত মেনস্ট্রুয়েশন এমনই একটা সমস্যা। এছাড়াও আরও অনেক ধরনের সমস্যা হতে পারে। সেই সমস্যাগুলিকে এখনই সঠিকভাবে চিহ্নিত না করতে পারলে পরবর্তী সময়ে ফার্টিলিটির সমস্যা হওয়াও সম্ভব। তাই এই সময়টায় বিশেষ করে সতর্ক থাকতে হবে। এই বয়সে শরীরের সব হর্মোনের পরীক্ষাগুলি করে নিলেই ভালো। এর মধ্যে থাকবে এলএইচ, এফএসএইচ, প্রোল্যাকটিন, টেস্টোস্টেরন, প্রোজেস্টেরন ইত্যাদি হর্মোনের পরীক্ষা। একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ মতো এই টেস্টগুলি করিয়ে ফেলা জরুরি।

 বিয়ের আগে
দু’হাত এক হওয়ার আগে অবশ্যই কয়েকটি বিষয়ে দেখে নেওয়া দরকার—
 থ্যালাসেমিয়া: বিয়ের আগে ছেলে ও মেয়ের দু’জনেরই থ্যালাসেমিয়া টেস্ট করা দরকার। তবে বিয়ের আগে কেন, জন্মানোর ১ বছর পর থেকেই এই টেস্ট করা যায়। এই ছোট একটি টেস্টের মাধ্যমে আগামী দিনে দম্পতির বাচ্চার থ্যালসেমিয়া হওয়ার আশঙ্কা সম্বন্ধে সহজেই জেনে নেওয়া যায়। মনে রাখবেন, দু’জন থ্যালাসেমিয়া কেরিয়ারের মধ্যে বিয়ে হলে তাঁদের সন্তানের থ্যালাসেমিয়া রোগটিতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা ২৫ শতাংশ। তাই বিয়ের আগে অবশ্যই থ্যালাসেমিয়া টেস্ট করতে হবে।
 ব্লাড গ্রুপ টেস্ট: বিয়ের আগে হবু দম্পতির ব্লাড গ্রুপ জেনে নেওয়া দরকার। কারণ একজনের পজিটিভ ও অন্যজনের নেগেটিভ গ্রুপের রক্ত হলে দম্পতি দ্বিতীয় সন্তান নেওয়ার সময় বিভিন্ন সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা থাকে। প্রথমেই এই বিষয়টি জেনে দ্বিতীয় সন্তান নেওয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো একটি বিশেষ ইনজেকশন নিয়ে নিলেই সমস্যা মিটে যায়। তাই অহেতুক জটিলতা এড়াতে বিয়ের আগে ব্লাড গ্রুপ টেস্ট করে নেওয়াই ভালো।
 রক্তের মাধ্যমে সংক্রমণ যোগ্য রোগ: বিয়ের পথে এগিয়ে চলা পুরুষ ও মহিলার মধ্যে কোনও একজনের এইচআইভি, হেপাটাইটিস বি এর মতো রক্তের মাধ্যমে সংক্রমণ যোগ্য রোগ থাকলে অন্যজনের এই রোগ হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়। তাই বিয়ের আগে অন্তত ব্যক্তিগতভাবে প্রতিটি পুরুষ ও মহিলার এই বিষয়টি জেনে রাখা ভালো।

 সন্তানসম্ভাবা মায়েদের টেস্ট
সন্তানসম্ভাবা হওয়ার পর থেকে স্বাভাবিকভাবেই একজন মহিলাকে বিভিন্ন টেস্টের মধ্যে থেকে যেতে হয়। এর মধ্যে কয়েকটি পরীক্ষা আবার বিশেষ প্রয়োজনে করতে হতে পারে—
 ভ্রূণের থ্যালাসেমিয়া পরীক্ষা: দু’জন থ্যালাসেমিয়া কেরিয়ারের মধ্যে বিয়ে হলে বাচ্চার থ্যালাসেমিয়া রয়েছে কি না জানতে সিভিএস টেস্ট করতে হয় (কোরিওনিক ভিলাই স্যাম্পেলিং)। সন্তানসম্ভাবা হওয়ার ১০ থেকে ১৪ সপ্তাহ পর এই পরীক্ষা করা হয়। এটি বেশ জটিল প্রক্রিয়া। এক্ষেত্রে ইউটেরাস থেকে ফ্লুইড বের করে তার ডিএনএ টেস্ট করে দেখতে হয়। ডিএনএ রিপোর্টে থ্যালাসেমিয়া ধরা না পড়লে কোনও সমস্যা নেই। আর থ্যালাসেমিয়া ধরা পড়লে আইন মাফিক অ্যাবরশনের রাস্তা বেছে নেওয়া ছাড়া কোনও রাস্তা নেই।
 সন্তানসম্ভাবার বয়স ৩০ পেরলে: ‌঩বিভিন্ন কারণে মহিলাদের সন্তানসম্ভাবা হওয়ার বয়স অনেকটাই পিছিয়ে গিয়েছে। বেশি বয়সে সন্তানসম্ভাবা হলে বাচ্চার মানসিক ও শারীরিক সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এই সমস্যা সমাধানে অনেকসময়ই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক সন্তানসম্ভাবার ডাবল মার্কার, ট্রিপল মার্কার, কুয়াড্রুপল মার্কার টেস্ট, কেরিও টাইপিং ইত্যাদি টেস্ট করিয়ে নেন। ভ্রূণের কোনও শারীরিক প্রতিবন্ধকতা থাকলে এই টেস্টের মাধ্যমে জানতে পারা যায় এবং সেই অনুযায়ী চিকিৎসক ব্যবস্থা নিয়ে থাকেন।

 মহিলার বয়স যখন ৪০
ভারতে সার্ভাইক্যাল ক্যান্সারে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। এই সমস্যা আটকাতে মহিলাদের বয়স ৪০ পেরলেই বছরে অন্তত ১ বার প্যাপ স্মিয়ার টেস্ট করে নিতে হবে। এই টেস্টে কোনও সমস্যা উঠে আসলে কলপোস্কোপ করে দেখে নেওয়া দরকার। পাশাপাশি এই বয়স থেকেই এইচপিভি টেস্ট করাও জরুরি। আশার কথা হল, হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস বা এইচপিভি-র এখন টিকা পাওয়া যায়।

 নারী-পুরুষ নির্বিশেষে ৩০ পেরলে
প্রতিবছর নিয়মকরে সকল মানুষকেই রুটিন টেস্ট করিয়ে নেওয়া দরকার। রুটিন টেস্টের মধ্যে প্রথমেই আসবে সুগার পরীক্ষার কথা। ফাস্টিং এবং পিপি টেস্টগুলি সুগারের পরীক্ষার মধ্যে বেশ জনপ্রিয়। এর মাধ্যমে ব্যক্তির রক্তে সুগারের মাত্রা সম্বন্ধে জানা যায়। তবে এইচবিএ১সি নামের একটি অত্যাধুনিক টেস্ট চলে এসেছে। এই পরীক্ষাতে ব্যক্তির শরীরে শেষ চার মাসের সুগারের গড় তুলে ধরা হয়।
শরীরে কোলেস্টেরল, ট্রাইগ্লিসারাইডসের মাত্রা বুঝতে লিপিড প্রোফাইল টেস্ট করা দরকার। পাশাপাশি রক্তে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা জানতে ইউরিক অ্যাসিড টেস্ট করতে হবে।
আধুনিক জীবনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সূর্যের আলোর সঙ্গে যোগাযোগ কমে যাওয়ায় শরীরে ভিটামিন ডি-এর অভাব ঘটছে। এর ফলে বাড়ছে হাড়ের বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা। তাই কম বয়সে বছরে একবার করে ভিটামিন ডি পরীক্ষা করা দরকার।
কিডনির কার্যক্ষমতা বুঝতে রেনাল ফাংশন এবং লিভারের জন্য লিভার ফাংশন টেস্ট করিয়ে রাখতে হবে। পাশাপাশি হার্টের সমস্যার আগাম পূর্বাভাস পেতে এলপি (এ) পরীক্ষাটি করে দেখে নেওয়া উচিত। আর অবশ্যই প্রতি ৬ মাস অন্তর প্রেশার মাপা দরকার।
এই টেস্টগুলির মাধ্যমে কোনও অসুখের ইঙ্গিত থাকলে বা অসুখ ধরা পড়লে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো পরীক্ষা করে যেতে হবে।

 ৬০ পেরলে নজর দিন
সিনিওর সিটিজেনের আওতাও আসলে শরীরকে আরও বেশি করে যত্ন করতে হবে। সুগার, প্রেশার, লিপিড প্রোফাইল, রেনাল ফাংশন, লিভার ফাংশন, চোখের পরীক্ষা, ইলেকট্রোলইটস টেস্ট, ইউএসজি হোল অ্যবডোমিন সহ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী টেস্ট করে যাওয়া দরকার। পুরুষদের ৬০ পেরনোর পরেই পিএসএ টেস্ট করাটাও জরুরি।
লিখেছেন সায়ন নস্কর
16th  May, 2019
মাথা ঠান্ডা রাখার ডায়েট
রঞ্জিনী দত্ত (ডায়েটিশিয়ান)

বেশ কিছু খাদ্য আছে যেগুলি মাত্রাতিরিক্ত হারে গ্রহণ করলে হজম হতে দেরি হয়। ফলে আমাদের মেটাবলিজম প্রক্রিয়া অর্থাৎ খাদ্য গ্রহণ শোষণ এবং আত্তীকরণের যে প্রক্রিয়া তা ঢিমে হয়ে যায়। উদাহরণ হিসেবে মাংস, রসুন, পেঁয়াজের কথা বলা যায়। এছাড়া ভাজাভুজি, ফাস্টফুডের কথাও বলা দরকার।
বিশদ

23rd  May, 2019
উত্তেজনায় মাথা ঠান্ডা
রাখবেন কীভাবে?
অমিত চক্রবর্তী (মনোবিদ)

 শরীরের সঙ্গে মনের যোগ আছে। তাই, শারীরিক ভোগান্তি প্রভাব ফেলে মানসিক স্থিরতার ক্ষেত্রেও। বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, আরামদায়ক আবহাওয়ায় আমাদের মেজাজ ফুরফুরে থাকে। আর চরম আবহাওয়ায় মানুষের সুখের অনুভূতি কম হয়। এই কারণেই বসন্তকালে আমাদের মেজাজ থাকে শরিফ আর প্রবল গ্রীষ্মে মেজাজ তিরিক্ষি হয়ে যায়।
বিশদ

23rd  May, 2019
 উত্তেজনা বাড়ায় হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা
ডাঃ অরূপ দাসবিশ্বাস (হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ)

  গ্রীষ্ম হোক বা বর্ষা। মাথা সবসময়ই ঠান্ডা রাখতে হবে। কারণ হঠাৎ উত্তেজিত হলে বিশেষ কিছু নার্ভ এবং কিছু অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি উদ্দীপিত হয়ে পড়ে। যাদের প্রভাবে রক্তচাপ এবং হৃৎস্পন্দন বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা থাকে। ফলে হার্টের ওপর চাপ পড়ে এবং হার্টে অক্সিজেন সহ অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের চাহিদা বেড়ে যায়।
বিশদ

23rd  May, 2019
 ‘কণ্ঠ’ প্রদর্শনীতে নারায়ণা

একজন রেডিও জকির মূলধন হল তাঁর গলার স্বর। কিন্তু গলার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে হঠাৎই বাদ গেল তাঁর স্বরযন্ত্র। হারিয়ে গেল কথা। এরপর? সেই কঠিন লড়াইয়ের কথাই ‘কণ্ঠ’ ছবিতে তুলে ধরেছেন পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায়।
বিশদ

23rd  May, 2019
পোষ্যের হাসপাতাল

 কলকাতায় সাতদিন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে এমন পোষ্য হাসপাতাল নেই বললেই চলে। এবার সেই অভাব পূরণ করতে চলেছে অ্যাডভান্সড পেট কেয়ার।
বিশদ

16th  May, 2019
হ্যানিম্যানের জন্মদিন পালন

 বসিরহাট হোমিওপ্যাথিক প্র্যাকটিসনার্স ওয়েলফেয়ার ফোরামের উদ্যোগে সম্প্রতি হ্যানিম্যানের ২৬৪ তম জন্মজয়ন্তী পালন ও বসিরহাট মহকুমা হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক সম্মেলন হয়ে গেল। সেখানে হ্যানিম্যানের জীবন ও কাজ নিয়ে আলোচনা করেন ডাঃ নিশার হোসেন।
বিশদ

16th  May, 2019
নিঃসঙ্গ বয়স্কদের জন্য

সন্তানরা বিভিন্ন কারণে বিদেশে বা দেশেরই অন্যত্র বসবাস করছেন। বৃদ্ধ বাবা-মা রয়ে গিয়েছেন বাড়িতে একা। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে শারীরিক সমস্যা বাড়লেও তাঁদের সঠিক দেখাশোনার লোক নেই। এবার এই সমস্যার সমাধান নিয়ে এল জ্যাপ কুরে নামক এক সংস্থা।
বিশদ

16th  May, 2019
মিউজিক থেরাপি কর্মশালা

রোগীকে সুস্থ করে তুলতে ওষুধের সঙ্গে বিশেষ কার্যকরী ভূমিকা নেয় সঙ্গীতও। সম্প্রতি এই বিষয়টি নিয়ে ঠাকুর’স মিউজিক অ্যান্ড মুভমেন্ট থেরাপি রিসার্চ সেন্টার (কলকাতা), এনএডিএ সেন্টার অব মিউজিক থেরাপি (চেন্নাই) ও ইন্ডিয়ান মিউজিক থেরাপি অ্যাসোসিয়েশনের (বেঙ্গালুরু) উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হল ‘ইন্ডিয়ান মিউজিক থেরাপি’ কর্মশালা।
বিশদ

16th  May, 2019
ক্যান্সারের চ্যালেঞ্জ

 বিশ্ব জুড়ে ক্যান্সার প্রায় মহামারীর আকার নিয়েছে। দিন দিন বেড়ে চলেছে ক্যান্সার আক্রান্তের সংখ্যা। এই জটিল পরিস্থিতিতে ঠাকুরপুকুরের সরোজ গুপ্ত ক্যান্সার সেন্টার ও রিসার্চ ইনস্টিটিউট-এর তরফে ক্যান্সার চিকিৎসার বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনার আয়োজন করা হয়েছিল।
বিশদ

16th  May, 2019
গরমে টক খাবেন কেন?

গরমের দিনে টক খাবারের নাম মনে পড়লে জিভে জল আসে বৈকি! অন্য ঋতুগুলিতে টকের তেমন সমাদর নেই। আয়ুর্বেদ মতে রস ৬টি—মধুর, অম্ল, লবণ, তিক্ত, কটু, কষায়, আর এগুলির সমন্বয়ে শরীরে বায়ু-পিত্ত-কফের বৃদ্ধি-হ্রাস হয়ে শরীরকে সুস্থ ও অসুস্থ করে তুলতে পারে। তাই সব ঋতুতে কম-বেশি ৬টি রসের ব্যবহার শরীরের পক্ষে খুবই উপযোগী।
বিশদ

09th  May, 2019
হিমোফিলিয়া সচেতনতায়

সম্প্রতি চলে গেল ওয়ার্ল্ড হিমোফেলিয়া ডে। চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজকর্মের সঙ্গে যুক্ত মানুষেরা হিমোফিলিয়া অসুখটি নিয়ে খুবই চিন্তিত। কারণ এই অসুখের বিশেষ কোন চিকিৎসা এখনও বেরয়নি। অথচ এদেশের অসংখ্য মানুষ এই রোগে আক্রান্ত। বংশগত এই অসুখে আক্রান্ত ব্যক্তির দেহে রক্ত সঠিকভাবে জমাট বাঁধতে পারে না। ফলস্বরূপ শরীরের বিভিন্ন পেশি ও অস্থিসন্ধিতে ক্রমাগত রক্তক্ষরণ হয়। রোগী ক্রমশ চলচ্ছক্তিহীন হয়ে পড়েন।
বিশদ

09th  May, 2019
১০০০ দিনের উদ্যোগ

লিওনার্দ থমসন নামের এক বাচ্চা ছেলে ডায়াবেটিসের কবলে পড়ে প্রায় মরণাপন্ন। চিকিৎসক বান্টিং এবং মেডিক্যালের ছাত্র বেস্ট মিলে বাচ্চাটিকে ইনসুলিন ইঞ্জেকশন দিলেন। ধরা দিল সাফল্য। ১৫ দিনের মধ্যে বাচ্চাটির রক্তে সুগারের মাত্রা উল্লেখযোগ্য হারে নেমে যায়। সেটা ছিল ১৯২২ সাল।
বিশদ

09th  May, 2019
ডায়াবেটিস আপডেট ২০১৯

 কলকাতা ডায়াবেটিস অ্যান্ড এন্ডোক্রিনোলজি ফোরাম-এর পক্ষ থেকে ‘ডায়াবেটিস আপডেট ২০১৯, কলকাতা’ নামক একটি আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়েছিল। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়, ডায়াবেটিসের আধুনিকতম চিকিৎসা কলকাতার সমস্ত চিকিৎসকদের সামনে তুলে ধরতেই এই আলোচনাসভা আয়োজন করা হয়েছিল।
বিশদ

09th  May, 2019
 থ্যালাসেমিয়া সচেতনতায় গান

 ৮ মে ছিল বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস। সেই উপলক্ষ্যে সিরাম থ্যালাসেমিয়া প্রিভেনশন ফেডারেশনের তরফে এক সপ্তাহ ব্যাপী একগুচ্ছ পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। সংস্থার তরফে সাংবাদিক সম্মেলন করে জানানো হয়, গোটা বছরই মানুষকে এই রোগের বিষয়ে আমরা সচেতন করে থাকি।
বিশদ

09th  May, 2019
একনজরে
  প্যারিস, ২৫ মে: ফরাসি ওপেনে নোভাক ডকোভিচের সামনে ইতিহাস গড়ার হাতছানি। বিশ্বের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে একটানা চারটি গ্র্যান্ডস্ল্যাম জিতবেন এবার ফরাসি ওপেন চ্যাম্পিয়ন হলে। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার। ২০১৬ সালে বছরের চারটি গ্র্যান্ডস্ল্যামই জিতেছিলেন এই সার্বিয়ান তারকা। ...

বিএনএ, জলপাইগুড়ি: বেতন আটকে রাখায় ধূপগুড়ি ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিকের বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর করে চাকরি খোয়ালেন জলপাইগুড়ি জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের একজন ডেটা এন্ট্রি অপারেটর। প্রায় ১২ বছর স্বাস্থ্য দপ্তরের কাজ করার পর চুক্তিভিত্তিক   ...

 জয়ন্ত চৌধুরী, কলকাতা: জোট না হোক অন্তত আসন সমঝোতা করলে তারা দু’ পক্ষই লাভবান হতো। ভোটের ফল প্রকাশের পর এখন এভাবেই হাত কামড়াচ্ছেন বাম ও কংগ্রেস নেতৃত্বের একাংশ। তাঁরা ঐক্যবদ্ধ হলে ভোটের মেরুকরণ এতটা মসৃণ হতো না। ...

 জাকার্তা, ২৫ মে (এপি): ইন্দোনেশিয়ায় মাউন্ট অগুঙ্গ আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুত্পাতের জেরে বেশ কয়েক ঘণ্টা বালি বিমানবন্দরে বিমান চলাচল ব্যহত হয়। শুক্রবার রাতে থেকে বেশ কিছু উড়ান বাতিল করে দেয় কর্তৃপক্ষ। তবে শনিবার থেকে ফের তা চালু হয়েছে। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চতর বিদ্যায় সফলতা আসবে, সরকারি ক্ষেত্রে কর্মলাভের সম্ভাবনা। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য আসবে। প্রেম-প্রণয়ে মানসিক অস্থিরতা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১২৯৩: জাপানে বিধ্বংসী ভূমিকম্পে মৃত্যু হয় ৩০ হাজার মানুষের
১৮৯৭: ব্রাম স্টোকারের উপন্যাস ড্রাকুলা প্রকাশিত হয়
১৯৪৫: মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিলাসরাও দেশমুখের জন্ম
১৯৪৯: মার্কিন কম্পিউটার প্রোগামিং বিশেষজ্ঞ ওয়ার্ড কানিংহামের জন্ম। তিনিই উইকিপিডিয়ার প্রথম সংস্করণ বের করেছিলেন
১৯৭৭: ইতালির ফুটবলার লুকা তোনির জন্ম

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.৬৫ টাকা ৭০.৩৪ টাকা
পাউন্ড ৮৬.২৯ টাকা ৮৯.৫১ টাকা
ইউরো ৭৬.০৩ টাকা ৭৮.৯৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
25th  May, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২, ১৭৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩০, ৫২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩০, ৯৮৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৬, ৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৬, ৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৬ মে ২০১৯, রবিবার, সপ্তমী ৯/৪০ দিবা ৮/৫০। ধনিষ্ঠা ২০/৪২ দিবা ১/১৪। সূ উ ৪/৫৬/৪৬, অ ৬/১০/৫, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪২ গতে ৯/২১ মধ্যে পুনঃ ১২/০ গতে ২/৩৮ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩৬ মধ্যে পুনঃ ১০/২৮ গতে ১২/৩৮ মধ্যে, বারবেলা ৯/৫৪ গতে ১/২১ মধ্যে, কালরাত্রি ১২/৫৪ গতে ২/১৫ মধ্যে।
১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৬ মে ২০১৯, রবিবার, সপ্তমী ৭/০/৩৮ দিবা ৭/৪৪/৪৪। ধনিষ্ঠানক্ষত্র ১৯/১/৩২ দিবা ১২/৩৩/৬, সূ উ ৪/৫৬/২৯, অ ৬/১২/১৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪২ গতে ৯/২২ মধ্যে ও ১২/৪ গতে ২/৪৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪৪ মধ্যে ও ১০/৩৪ গতে ১২/৪০ মধ্যে, বারবেলা ৯/৫৪/৫৩ গতে ১১/৩৪/২১ মধ্যে, কালবেলা ১১/৩৪/২১ মধ্যে ও ১/১৩/৪৯ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/৫৪/৫৩ গতে ২/১৫/২৫ মধ্যে।
২০ রমজান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
পেরুতে ভূমিকম্প, মাত্রা ৮.০ 

02:29:37 PM

লুধিয়ানায় সাড়ে ৩ কেজি হেরোইন সহ গ্রেপ্তার ২ 

02:26:00 PM

নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের দাবিতে চেঙ্গাইল প্রেমচাঁদ জুটমিলে শ্রমিকদের বিক্ষোভ 

12:31:00 PM

আমেথিতে বিজেপি কর্মীকে গুলি করে খুন

11:54:00 AM

জলপাইগুড়ির পাহাড়পুরে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের উপর হামলার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে, জখম ৩ 

11:25:00 AM

দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় ভূমিকম্প 
দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় ভূমিকম্প। মাত্রা ছিল ৪.৮। আজ সকাল ১০টা ...বিশদ

11:02:00 AM