রঙ্গভূমি
 

পরিচালকের বন্দুকের মুখে দর্শক

ভোরবেলা শরীর আনচান, কপালে ঘাম। ঘুমটা ভেঙে গেল। সবে পাঁচটা বাজে। সাধারণত এত তাড়াতাড়ি আমার ঘুম ভাঙে না। বোধহয় কোনও দুঃস্বপ্ন দেখছিলাম। একটু চা খেতে ইচ্ছে করল। কিন্তু বাড়িতে এখন চা পাওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। মোড়ের মাথার চায়ের দোকানটা খোলা পাব। সেদিকেই রওনা দিলাম। গিয়ে দেখি কাগজ চলে এসেছে দোকানে। দুয়ের পাতায় নাটকের বিজ্ঞাপনে চোখটা আটকে গেল। আজ রবিবার। মোহিত মৈত্র মঞ্চে ইফটার নতুন নাটক ‘ফোর্থ বেল’-এর প্রথম শো। মনে পড়ে গেল আমারও যাওয়ার কথা নাটকটা দেখতে। একইসঙ্গে মনে পড়ে গেল ভোররাতে দেখা দুঃস্বপ্নটার কথা— আমি নাটক দেখতে গিয়ে গুলি খেয়ে মরে গিয়েছি। বাড়িতে কান্নার রোল উঠেছে। বন্ধুরা আমার মরদেহ ঘিরে দাঁড়িয়ে...। আগের রবিবারই রঙ্গভূমির পাতায় ফোর্থ বেল নাটকটার প্রিভিউ বেরিয়েছিল। সেখানে সাবধান করে দেওয়া হয়েছিল, নাটক ভালো না বাসলে কেউ যেন এই নাটকটি দেখতে না যান। অনেক প্রশ্ন তখন মনে ভিড় করে এসেছিল। সত্যিই কি আমি নাটক ভালোবাসি? নাকি শুধু আমোদ করতে যাই। নিজেই নিজের মানসিকতার চুলচেরা হিসেব করতে বসেছিলাম। সেসবই নিশ্চয়ই রাতের দুঃস্বপ্ন হয়ে ফিরে এসেছে।
মনে হল সঙ্গে কাউকে নিয়ে যাওয়া উচিত। চায়ের দোকানে কেলোদা বসেছিল। ওকে বলতেই একপায়ে খাড়া। কিন্তু কেলোদার একটাই সমস্যা বড় বেশি প্রশ্ন করে। কী নাটক? কেন নাটক? বিষয়বস্তু কী? আমাকে কেন নিয়ে যাচ্ছিস? এরকম হাজার একটা।
মনে মনে ভাবলাম কেন সঙ্গে নিচ্ছি, সে বললে হয়তো তুমি যাবেই না। কিন্তু মুখে বললাম, ‘সে তোমায় তখন যেতে যেতে সব বলে দেব।’
হলে পৌঁছে দেখি শুরু হতে বেশি দেরি নেই। তাই আমরা তাড়াতাড়ি ভেতরে ঢুকে পড়লাম। ওমা! এ তো দেখি মঞ্চ খোলা, আলো আঁধারিতে কতকগুলো অশরীরী চরিত্র নানারকম অঙ্গভঙ্গি করেই চলেছে। তাহলে কি নাটক শুরু হয়ে গেল! যাই হোক, আমরা আসন খুঁজে নিয়ে বসে পড়লাম। হঠাৎ দেখলাম, দর্শকাসনের প্রথম সারির সামনে থেকেই নাটক শুরু হয়ে গেল।
গোটা মঞ্চকে বানানো হয়েছে নাটকের হল। বেশ খরচ করে একটা বাস্তবসম্মত রূপ দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে। অপরেশ আর বিদিশা, উচ্চবিত্ত এক দম্পতি নাটকের বিরতিতে একটু চা খেতে বেরিয়েছিল। তারা আবার হলের মধ্যে অর্থাৎ নাটকের মঞ্চে প্রবেশ করে।
ওই দম্পতি বিরতির পর হলে ঢুকে কিছুক্ষণ পর বুঝতে পারে যে নাটক আর হবে না, বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ধীরে ধীরে তারা এক অস্বাভাবিক পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়। আমরা অর্থাৎ আসল দর্শকরা দেখি, অপরেশ ও বিদিশাকে হলের মধ্যে আটকে রাখা হয়। নাট্যকার সেখানে উপস্থিত হয়ে তাদের মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে, ওয়াইন খাইয়ে নাট্যপ্রেমের পরীক্ষা নিতে চায়। শুরু হয় টানাপোড়েন। আর এই টানাপোড়েনে আপাত ভদ্র নাট্যপ্রেমীর প্রকৃত মুখ ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসে। যারা থিয়েটারকে ভালোবেসে থিয়েটার দেখতে আসে না। আসে চটজলদি আমোদের সন্ধানে। তাই নাট্যকার-পরিচালক তাদের রেহাই দিতে চায় না। এভাবে চলতে চলতেই এক চরম মুহূর্তে বন্দুক হাতবদল হয় এবং ‘দর্শক’ অপরেশের হাতেই সেই বন্দুক গর্জে ওঠে। উলটে পড়ে নাট্যকার। আতঙ্কে দিশেহারা হয়ে পড়ে অপরেশ ও বিদিশা। সেই মুহূর্তে মঞ্চে আবির্ভাব হয় নাট্যকার ও পরিচালকের এবং জানায় পুরোটাই তাদের পূর্ব পরিকল্পিত। সুতরাং নাটকের প্রথম অর্ধটা দেখে নেওয়া প্রয়োজন। শুরু হয় গল্পের প্রথমার্ধ, যেখানে অপরেশ-বিদিশা হলে নাটক দেখতে ঢুকছে। বাইরেই তাদের পরিচয় হয় পরিচালকের সঙ্গে এবং তাঁরা প্রবেশ করে হলের মধ্যে। এইভাবেই তারা পড়ে নাট্যকারের পরিকল্পনার ফাঁদে।
আমাদের প্রকৃত নাটকের এখানেই বিরতি। জানতাম বসে থাকলেই কেলোদা আবার আমাকে চেপে ধরবে। তাই তাড়াতাড়ি হলের বাইরে। যদিও বেরতেই সতর্ক করে দেওয়া হল কোনওরকম বেল বাজিয়ে সংকেত দেওয়া হবে না। তার মানে নাটকের গল্পের রেশ বাস্তবেও এসে পড়েছে, দর্শকদের সর্বদা সজাগ থাকতে হবে। অবশ্য মনে পড়ল শুরুতেও কোনও বেল বাজানো হয়নি। যাইহোক, সজাগ ছিলাম। এবারেও ঠিক সময়ে প্রবেশ করেও দেখলাম মঞ্চ সচল রয়েছে। কেলোদার দিকে তাকানোরও সময় হল না, নাকি সাহস হল না?
দ্বিতীয়ার্ধে আস্তে আস্তে অনেক কিছুই পরিষ্কার হতে থাকল, সেই প্রথম অর্ধের দমচাপা আতঙ্কের ব্যাপারটা, কিছু কিছু ধোঁয়াশা জায়গা। বোঝা গেল, অপরেশ-বিদিশা সচ্ছল দম্পতি, নিয়মিত টিকিট কেটে নাটক দেখে এবং অবশ্যই তাদের নাট্যজ্ঞান ভাণ্ডার পরিপূর্ণ। তাই এসব নিয়ে তাদের একটা গর্ববোধ আছে। আর এদিকে নাট্যকার শিল্পজগতের দৈন্যতার শিকার, তার থেকে হতাশা। দিনে দিনে দর্শকসংখ্যা সীমিত হয়ে পড়েছে, নাটক চালিয়ে যাওয়াই এক বিরাট সমস্যা, এই অবস্থায় তারা নাটকের নিষ্ঠুর বাস্তবতার প্রয়োগ ঘটাতে চেষ্টা করে। যেখান থেকে সৃষ্টি হবে নতুন নাটক যা হয়তো পালটে দেবে এই বর্তমান পরিস্থিতি।
অবশেষে মঞ্চের পরদা পড়ল, না না ওঠার জন্য পড়ল। আরে শুরু হল যে, গল্পের নাটক! অপরেশের চরিত্রে রাজর্ষি দে অনবদ্য। বিদিশার ভূমিকায় অপরাজিতা ঘোষের কাছে নাটক আরও বেশি কিছু আশা করে। তবে নাট্যকারের চরিত্রে লোকনাথ দে ও পরিচালকরূপী সত্রাজিৎ সরকার হয়তো নাটকের প্রয়োজনেই একটু যান্ত্রিক। লাইটম্যান চরিত্রে সুদীপ্ত ভুঁইঞা বেশ ভালো।
নাটকের আবহ আলাদা মাত্রা না আনলেও আলো আঁধারিতে নাটক জমিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন আলোক পরিচালক। যদিও মাঝে মধ্যে আঁধারের মাত্রা একটু বেশি মনে হয়েছে।
নাটকের মধ্যে বেশ কিছু জায়গার কোরিওগ্রাফি নতুনত্বের স্বাদ আনে। যেমন— রিল গুটিয়ে নিয়ে দৃশ্য আগে পরে যাওয়ার মতো জায়গাগুলো।
সব শেষে, ব্রাত্য বসুর এই নতুন ধরনের পরীক্ষামূলক নাটকের দায়িত্ব নিয়ে সাহস দেখানোর জন্য নির্দেশক দেবাশিস দত্তের সাধুবাদ পাওয়া উচিত।
নাটক শেষ। এখন আমরা বাইরে চায়ের দোকানে। কেলোদার মুখে কোনও কথা নেই। উলটে আমিই বললাম—
—কি গো কোনও প্রশ্ন করবে না?
—সে তো সকাল থেকে অনেক প্রশ্নই করেছিলাম। কিন্তু তুই নানা অছিলায় এড়িয়ে গেছিস। অবশ্য এখন তার কারণ আমার কাছে পরিষ্কার। তবে অন্য কতকগুলো প্রশ্ন আছে, জিজ্ঞাসা করব?
—করো।
—আচ্ছা গল্পটা যেমন পিছন থেকে শুরু করল, মানে দ্বিতীয় অর্ধটা আগে দেখিয়ে প্রথম অর্ধটা পরে, কেন বল তো?
—দর্শক যাতে গল্পের মধ্যে ঢুকে গিয়ে গল্পের চরিত্র না হয়ে পড়ে সেই জন্য। বোধহয় কিছুটা ব্রেখটিয়ান স্টাইলের প্রয়োগ।
—আচ্ছা। কিন্তু এখানে যে দর্শকদের ইগোর কথা বলা হল, সেরকম তো তাহলে নাট্যকর্মীদেরও ইগোর কথা বলা যায়।
—আরে সেটাও তো আবডালে বলা হয়েছে। এই ইগোর জোরেই তো দৈন্যদশার মধ্যেও নাটক এগিয়ে চলছে। ক’টা নাটকের দল আর সরকারি বা বেসরকারি সাহায্য পায় বলো? তবুও পৃথিবীতে আজও নাট্যকর্মীরা কাজ করে চলেছে।
—সে যাইহোক, কিন্তু এই নাটক দেখে সাধারণ দর্শকরা নতুন করে নাটক দেখার কথা ভাববে তো?
—ভবিষ্যতই তার উত্তর দেবে। কিন্তু যারা দেখবে তারা তোমার মতোই নাটকে শুধুমাত্র আমোদ না খুঁজে অন্য বিষয়গুলি নিয়ে ভাবতে শুরু করবে। এখানেই এই নাটকের সার্থকতা। চলো বাড়ি যাওয়া যাক।
30th  April, 2017
 শুধু বাহ্যিক নয়, অন্তরের পরিবর্তনের কথাও বলে ‘সিংহাসনের ক্ষয়রোগ’

 নান্দীমুখের নতুন নাটক দেখে এলেন সন্দীপন বিশ্বাস। বিশদ

20th  August, 2017
 নাট্যচর্চার ইতিহাসে শোভা সেন একটা গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়

সম্প্রতি প্রয়াত হয়েছেন অভিনেত্রী শোভা সেন তাঁকে স্মরণ করলেন অরুণ মুখোপাধ্যায়।
বিশদ

20th  August, 2017
 মুখ ঢেকে যায়...

 আধুনিক জীবন ভীষণভাবে বিজ্ঞাপন দ্বারা প্রভাবিত। আট থেকে আশি, শহর কিংবা গ্রাম—সকলের জীবনের অনেকটাই বিজ্ঞাপন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। ‘একটার সঙ্গে আরেকটা ফ্রি’—চৈত্র সেল থেকে পুজোর বাজার—সর্বত্রই এই ট্যাগ লাইন আজও বাণিজ্যকে অন্য মাত্রা দেয়। বিশদ

20th  August, 2017
লাইক কমেন্ট শেয়ার

এখন সোস্যাল মিডিয়ার যুগ চলছে। সংবাদপত্র, সংবাদ চ্যানেলের থেকেও শক্তিশালী মাধ্যম হল ফেসবুক আর ট্যুইটার। সেই সোস্যাল মিডিয়ার পটভূমিতেই নাট্যদল ঐহিকের নতুন প্রযোজনা ‘লাইক কমেন্ট শেয়ার’।
বিশদ

13th  August, 2017
নেপথ্যে যারা

‘অভিনয়ে আগ্রহী এবং অভিনয়ে অনাগ্রহীরা আবেদন করুন।’
তারপর ছিল একটা ঠিকানা। থিয়েটার দলের নাম ‘ব্রাত্যজন’।
২০০৯ সালের শেষের দিক। একটা কাগজে এই বিজ্ঞাপনটা নজরে এল। কী করব? মনের মধ্যে প্রশ্নটা ঘুরছিল।
বিশদ

13th  August, 2017
সময়ের সঙ্গে চলতে পারাটাই থিয়েটারের সাফল্য‌

বুদ্ধিজীবী মহলে নাট্যব্যক্তিত্ব কৌশিক সেন প্রতিবাদী হিসেবেই পরিচিত। নাটক এবং সমাজ নিয়ে তাঁর চিন্তাভাবনা শুনলেন স্বস্তিনাথ শাস্ত্রী। স্বপ্নসন্ধানী ২৫ বছর পূর্ণ করল। ২৫ বছরে প্রাপ্তি ও অপ্রাপ্তি কী?
বিশদ

13th  August, 2017
 মন সারানি

  মন্দিরপ্রাঙ্গণে ধর্মগুরু বা পুরোহিতের সাথে এক নিম্নবর্গীয় সমাজ সংস্কারকের অন্তর্দ্বন্দের পরিপ্রেক্ষিতে ‘মন সারানি’ নাটকের ঘটনাক্রম চলতে থাকে। ধর্মগুরুরা চায় সমাজকে কুসংস্কারাচ্ছন্ন রেখে মানুষকে তাঁদের অঙ্গুলি হেলনে পরিচালনা করতে।
বিশদ

06th  August, 2017
 প্রেমের প্রকারভেদ

 প্রেম কয় প্রকার ও কী কী? যদি কাউকে এই প্রশ্ন করা হয় তবে উত্তর দেওয়ার আগে তাকে নিশ্চয়ই খানিক্ষণ মাথা চুলকোতে হবে। কারণ উত্তরটা নিশ্চিত সহজ নয়। সহজ যে নয় তা বোঝা গেল অযান্ত্রিক নাট্য সংস্থার সাম্প্রতিক প্রযোজনা ‘নিকষিত হেম কুল কুল প্রেম’ নাটকের মহলা দেখতে দেখতে।
বিশদ

06th  August, 2017
  নিয়তির নিঠুর খেলা—অয়দিপাউস

 আকর্ষণীয় এই চরিত্রটিকে নিয়ে বহুবার বহুভাবে মঞ্চস্থ হয়েছে বিভিন্ন নাটক। সম্প্রতি নববারাকপুর কোরাস এই গ্রিক ট্র্যাজেডিকে ভিত্তি করে মঞ্চস্থ করল ‘অয়দিপাউস এবং নিয়তি’ নামে একটি সাহসী নাটক। প্রযোজনাটি প্রশংসনীয়।
বিশদ

06th  August, 2017
আঁধার ঘেরা অচিন জগৎ

 কয়লাখনির গভীরে নানা বিপদ। পদে পদে মৃত্যুভয়। বঞ্চনা আর শোষন। তবু তারই মধ্যে ধেলা করে নানা মনাবিক অনুভূতি। জন্ম নেয় প্রতিবাদ। এমিল জোলার জার্মিনাল অবলম্বনে গোবরডাঙা শিল্পায়নের নতুন নাটক দেখে এলেন শিবানন্দ মুখোপাধ্যায়। বিশদ

06th  August, 2017
 মানুষের সঙ্গে মানুষের নির্বিষ সম্পর্ক মজবুত করার আহ্বান

আশ্চর্য মানুষ। আশ্চর্যে ভরা মানুষের জীবন। তাই তো বুক দিয়ে আগলে রাখা আপন মানুষগুলো যখন স্বার্থান্বেষী হয়ে বিশ্বাসঘাতকের ভূমিকা পালন করে তখন সাধের জীবনটাই যেন বিবর্ণ হয়ে যায়, বেঁচে থাকার ইচ্ছেটাও চলে যায়। বেলঘরিয়া থিয়েটার আকাদেমি প্রযোজিত ‘বিষ’ নাটকটি এমনই এক বিষম বার্তা দিয়ে বোঝাতে চেয়েছে মানুষের পারস্পরিক সম্পর্ক নির্বিষ হওয়া অত্যন্ত জরুরি। বিশদ

06th  August, 2017



একনজরে
বার্মিংহ্যাম, ২০ আগস্ট: তিন দিনেই প্রথম দিন-রাতের টেস্ট জিতে নিল ইংল্যান্ড। এজবাস্টনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে চুরমার করে ইনিংস ও ২০৯ রানের বিশাল জয় পেয়েছে জো রুটের দল। প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেটে ৫১৪ রানের বিশাল স্কোর খাড়া করেছিল ইংল্যান্ড। ...

 নয়াদিল্লি, ২০ আগস্ট (পিটিআই): ৭৩তম জন্মদিনে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে স্মরণ করল গোটা দেশ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ট্যুইটারে লিখলেন, ‘ জন্মদিনে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ইতিমধ্যেই দক্ষিণ দমদম পুরসভা এলাকায় ডেঙ্গুতে আটজনের মৃত্যু হয়েছে, আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়েছে। অবশেষে নড়েচড়ে বসল দক্ষিণ দমদম পুরসভা। পুরসভার যে সমস্ত ওয়ার্ডে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেশি, সেখানে গাপ্পি মাছ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মিষ্টির উপর পাঁচ শতাংশ হারে জিএসটি চালু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এর প্রতিবাদে আজ সোমবার রাজ্যজুড়ে মিষ্টির দোকানগুলিতে ধর্মঘট ডাকল পশ্চিমবঙ্গ মিষ্টান্ন ব্যবসায়ী সমিতি। ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে ভাবনা-চিন্তা করে বিষয় নির্বাচন করলে ভালো হবে। প্রেম-প্রণয়ে বাধাবিঘ্ন থাকবে। কারও সঙ্গে মতবিরোধ ... বিশদ



ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৭৮- ভিনু মানকড়ের মৃত্যু
১৯৮৬- উসেইন বোল্টের জন্ম
১৯৯৫- সুব্রহ্মণ্যম চন্দ্রশেখরের মৃত্যু
২০০৬- ওস্তাদ বিসমিল্লা খানের মৃত্যু
১৯৭২- বন সংরক্ষণ আইন চালু


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৩৫ টাকা ৬৫.০৩ টাকা
পাউন্ড ৮১.২৫ টাকা ৮৪.২১ টাকা
ইউরো ৭৩.৯৬ টাকা ৭৬.৫৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
19th  August, 2017
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) 29465
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) 27955
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) 28375
রূপার বাট (প্রতি কেজি) 39100
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) 39200
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
20th  August, 2017

দিন পঞ্জিকা

৪ ভাদ্র, ২১ আগস্ট, সোমবার, অমাবস্যা রাত্রি ১২/০, অশ্লেষানক্ষত্র দিবা ৩/৫১, সূ উ ৫/১৯/১৪, অ ৬/০/২৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/০ পুনঃ ১০/২৩-১২/৫৬ রাত্রি ৬/৪৫-৯/১ পুনঃ ১১/১৭-২/১৮, বারবেলা ৬/৫৪-৮/২৯ পুনঃ ২/৫১-৪/২৬, কালরাত্রি ১০/১৫-১১/৪০। পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ (ভারতে অদৃশ্য)
৪ ভাদ্র, ২১ আগস্ট, সোমবার, অমাবস্যা রাত্রি ১২/৮/৯, অশ্লেষানক্ষত্র অপরাহ্ণ ৪/৫৪/৪০, সূ উ ৫/১৬/৪৮, অ ৬/২/২৪, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৮/৫৩, ১০/২৩/২-১২/৫৬/১০ রাত্রি ৬/৪৭/২২-৯/২/২০, ১১/১৭/১৭-২/১৭/১২, বারবেলা ২/৫১/০-৪/২৬/৪২, কালবেলা ৬/৫২/৩০-৮/২৮/১২, কালরাত্রি ১০/১৫/১৮-১১/৩৯/৩৬। পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ (ভারতে অদৃশ্য)
২৮ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বন্যায় ৭ লক্ষ হেষ্টর চাষের জমি ক্ষতিগ্রস্থ: কৃষিমন্ত্রী

 বন্যায়য় উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গ মিলিয়ে ৭ লক্ষ হেক্টর চাষের জমি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যার মধ্যেো ৪ লক্ষ জমি উত্তরের। কৃষিতে প্রাথমিক হিসেবে মোট ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৮০০ কোটি টাকা। যার মধ্যে উত্তরে ৫৩৪ কোটি ৫১ লক্ষ টাকাো জানালেন কৃষি মন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসু।

05:24:00 PM

 তামিলনাড়ুর উপ মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ পনিরসেলভামের

 এআএিডিএমকে-র দুই শিবিরের সংযুক্তিকরণের পর তামিলনাড়ুর উপ মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন পনিরসেলভাম

04:49:00 PM

বন্যার জন্য কেন্দ্রে কাছে উপযুক্ত প্যাকেজ চাইব: মমতা

কেন্দ্রের কাছে উপযুক্ত প্যাকেজের দাবি করতে চলেছে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান গোটা রাজ্যে এবছর বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ১৪ হাজার কোটি টাকা। কেবলমাত্র উত্তরবঙ্গেই মৃত্যু হয়েছে ৪৫ জনের। আর গোটা রাজ্যে ১৫২জনের। রাজ্যে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সংখ্যা দেড় কোটি ছাড়িয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন, ত্রাণ নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। তাই যতটা প্রয়োজন ততটাই ত্রাণ মিলবে। মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, অনেক সড়ক থেকেই জল নামতে শুরু করেছে, তাই যে সমস্ত সড়ক থেকে জল নেমে যাবে, সেখান দিয়েই ধীরে ধীরে ট্রাক পাঠানো হবে। কারণ অনেক ট্রাক পচনশীল দ্রব্য নিয়ে আটকে রয়েছে। পাশাপাশি এই বন্যার নামে যে সমস্ত অসাধু ব্যবসায়ী দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করতে চেষ্টা করছেন তাদের বিরুদ্ধেও নজরদারি চালানো হবে বলে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, জল নামলেই  বন্যা সংক্রান্ত রোগব্যাধির প্রতিষেধক এবং পানীয় জলের পথগুলিকে পরিশ্রুত করার ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে।

04:47:00 PM

সিলেবাস কমিটির প্রস্তাবে সিলমোহর রাজ্য সরকারের, সব ক্লাসে পড়তে হবে কন্যাশ্রী স্বীকৃতি, আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পাঠ্যক্রমে কন্যাশ্রী

04:12:00 PM

বন্যায় দেড় কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত: মুখ্যমন্ত্রী

04:10:07 PM

রাজ্যে যথেষ্ট পরিমানে ত্রান সামগ্রী মজুত রয়েছে: মুখ্যমন্ত্রী

04:10:06 PM