Bartaman Patrika
রঙ্গভূমি
 

গানের আসরেই অসুস্থ হয়ে পড়ে গেলেন দাশু রায় 

বিধবা বিবাহ কিংবা বৈষ্ণবদের ভ্রষ্টাচারকে বিদ্ধ করলেন গানে। লিখেছেন সন্দীপন বিশ্বাস।

অকাবাঈয়ের দলে যে গান দাশরথী বাঁধতেন, তা খুব উচ্চমানের ছিল না। কেননা তার শ্রোতারা ছিলেন যথেষ্ট নিম্নরুচি সম্পন্ন। তাই দাশরথী রায় তৃপ্তি পাচ্ছিলেন না। শুধু অকাবাঈকে ভালোবেসে তিনি পড়েছিলেন সেই দলে। অকাবাঈয়ের সংসর্গ কাটানোর জন্য তাঁর মামা অন্যত্র একটা চাকরির ব্যবস্থা করে দিলেন। মাসে তিন টাকা মাইনেতে তাঁর চাকরি জুটল অনন্তপুর কুঠুরিয়া গ্রামের নীলকুঠিতে। কিন্তু দাশু রায় সেখানে থাকতে পারলেন না। এক পিছুটান তাঁকে আবার টেনে নিয়ে এল অকার কাছে। বাড়িতে সেই খবর যেতেই সবাই ভেঙে পড়লেন। তাঁর বাবা তখনও জীবিত ছিলেন। তিনি অভিসম্পাত করে বললেন, সারা জীবনে তিনি আর ছেলের মুখ দেখবেন না।
অকাবাঈকে নিয়ে দাশরথী রায় চলে গেলেন রাজশাহীতে। একের পর এক পালার গান লিখে চললেন। কিন্তু বুঝতে পারছিলেন এ গান লেখার জন্য তিনি জন্মাননি। তিনি অনেক ভালো গান লিখতে পারেন। পণ্ডিত সমাজের কাছে আদরণীয় হয়ে উঠতে পারে, এমন গানও তিনি লিখতে পারেন। কিন্তু সে গান এখানে শুনবে কে! সেই গান তাঁর ভিতরে ভিতরে গুনগুনিয়ে ওঠে। কিন্তু শ্রোতারা সেই গান নেবেন না। আর একটা যে ধারা আছে, সেই গুণীজনের সমাজের কাছে আজ তিনি ব্রাত্য।
তাছাড়া আজকাল আসরে উঠলেই অন্য পালাকাররা তাঁর চরিত্রের স্খলন নিয়ে, তাঁর জাতিভ্রষ্ট হওয়ার প্রসঙ্গ তুলে আঁচড়ায়, কামড়ায়, রক্তাক্ত করে। গানের কথায়, সুরে তাঁকে বিদ্ধ করে। সেই খেউড় শুনে দর্শকরা আদিম উল্লাসে ফেটে পড়েন। যে আনন্দ নিয়ে তিনি পালার আসরে অবতীর্ণ হন, সেই আনন্দ নিয়ে আর পালা শেষে ফিরতে পারেন না। আসরের মধ্যে প্রতিপক্ষ তাঁকে গালমন্দ করে অস্থির করে তোলে। তাঁকে খোঁচা মেরে গান ধরেন, ‘উনি কুলের গরব করেন নিত্যি / শুনে জ্বলে যায় পিত্তি।’ দিনে দিনে সেই যন্ত্রণা অনিবার্য হয়ে উঠল। দাশু রায়ের সেই লাঞ্ছনা সহ্য করতে পারেন না অকাবাঈও। বললেন, তাঁকে ছেড়ে চলে যেতে।
অবশেষে বিচ্ছেদ এল। অকাকে ছেড়ে চলে যেতে হল। অকা তাঁকে অনেক বড় দেখতে চান। আড়ালে চলে গেলেন অকাবাঈ। যাওয়ার সময় দাশরথীর পায়ের কাছে রেখে গেলেন তাঁর রুপোর অলঙ্কার। বললেন, ‘নতুন দল কর রায়। নতুন গানে মানুষকে মুগ্ধ কর।’
দাশরথী রায় চলে এলেন। এবার তিনি কী করবেন! কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে মনস্থির করে ফেললেন। তাঁকে কলকাতা যেতে হবে। সেখানে মানুষ ভালো গানের কদর করে। নিম্নরুচির পাঁচালি গানে এতদিন তাঁর দম বন্ধ হয়ে আসছিল। এবার জ্ঞানীগুণী মানুষের আসরে গান করতে হবে তাঁকে। মনটা যেন নতুন প্রতিজ্ঞায় নেচে উঠল। ১৮৩৬ সালে খুললেন নিজের পাঁচালি গানের দল। তখন তাঁর বয়স তিরিশ বছর। ধীরে ধীরে আসতে লাগল বায়না। নামও ছড়াতে লাগল। সেই সময় তিনি এক রাত্তির গাওনার জন্য পেতেন চার-পাঁচ টাকা। কয়েক বছরের মধ্যে তা অনেকটাই বেড়ে গেল। পরিবেশনার আঙ্গিক নিয়ে নতুন করে ভাবতে লাগলেন। কাহিনী সংগ্রহ করলেন মহাভারত, রামায়ণ, গীতা, হরিবংশ, বিষ্ণুপুরাণ, চৈতন্যচরিতামৃত থেকে। গান বাঁধলেন নতুন ভাষ্যে। পাশাপাশি পোশাকে চাকচিক্য আনলেন। পহেলা দর্শনধারী, এটা তিনি বিশ্বাস করতেন। কোথাও পালা হলে তিনি সেখানে পালকি করে যেতেন।
একবার পালা পরিবেশনের ডাক এল নবদ্বীপ থেকে। ১৮৩৯ সালে ডাক এল গান করার। খুব আনন্দ হয়েছিল তাঁর। এবার তিনি জ্ঞানীগুণীদের আসরে গান গাইবেন। কিন্তু সেখানকার বিদগ্ধজনেরা তাঁকে যে সম্মান দিয়ে গান গাইতে ডেকেছেন, তার মর্যাদা তাঁকে দিতেই হবে। সেখানকার পণ্ডিতসমাজকে খুশি করতে পারলে, তাঁর কলঙ্কের দাগ অনেকটাই কেটে যাবে। গানের বাঁধনদার বলে যে কুখ্যাতি একদিন তাঁকে অসম্মানিত করত, সেই রাহুর গ্রাসও কেটে যাবে। অতঃপর তিনি গান গাইতে যাওয়ার আগে ভালো করে মহড়া দিলেন।
সেদিন ছিল রাসপূর্ণিমার রাত। পৌরাণিক কাহিনীর পালাগানে নেমে এল ভক্তির সুরধারা। নবদ্বীপের পণ্ডিতরা আপ্লুত হলেন পালাগানে। তাঁর গান শুনে মুগ্ধ পণ্ডিতরা তাঁকে দিলেন প্রচুর দক্ষিণা, উপহার। সেই সঙ্গে পেলেন শ্রদ্ধা ও প্রীতি। মন ভরে গেল দাশরথীর। নিম্নরুচির গানের নোংরা পুষ্করিণী পেরিয়ে তিনি নাও ভাসালেন পুণ্যস্রোতা গঙ্গায়। তারপর থেকে প্রতি বছরই নবদ্বীপে গানের জন্য ডাক পেতেন। দাশরথী রায়কে অনুপ্রাণিত করল এই পণ্ডিত সঙ্গ। ভালো গান লিখতে হবে। অকাবাঈ বলেছিলেন, ‘ভালো গান লেখো রায়।’ আর পালার মধ্যে যখন মানুষ তাঁর গান শুনে হই হই করে ওঠেন, ‘সাধু সাধু’ বলেন, তখন অকাবাঈয়ের মুখটা মনে পড়ে দাশুর। মনে মনে বলেন, ‘এ সবই তোমার প্রাপ্য অকা।’
সেবার নবদ্বীপের আসরে গান গাইতে গিয়ে সেই গানটা ধরলেন দাশু। একদিন কিছুটা শুনিয়েছিলেন অকাকে। গানটা আবার নতুন করে বেঁধেছেন। ‘দোষ কারও নয় গো মা। / আমি স্বখাত সলিলে ডুবে মরি শ্যামা। / ষড়রিপু হল কোদণ্ড স্বরূপ, পুণ্যক্ষেত্র মাঝে কাটিলাম কূপ..’ সে গান শুনে টোলের ছাত্ররা পণ্ডিতদের জিজ্ঞসা করলেন, ‘গুরুদেব, কোদণ্ড মানে তো ধনুক। ভুলবশত দাশরথী রায় তাঁর গানে এটিকে কোদাল হিসাবে ব্যবহার করেছেন। উনি আসলে শব্দটির অর্থ জানেন না।’ সে কথা শুনে নবদ্বীপের টুলো পণ্ডিতরা নিজেদের মধ্যে আলোচনায় বসলেন। তাঁরা সিদ্ধান্ত নিলেন, দাশরথী রায় যখন ব্যবহার করেছেন, তখন কোদণ্ড শব্দের আর একটি অর্থ কোদালই হোক। সেই অর্থেই পণ্ডিতরা এটিকে অভিধানে যুক্তও করলেন।
এত জনপ্রিয়তা, এত প্রাপ্তি। মন ভরে যাচ্ছে দাশরথীর। আরও গান লিখতে হবে তাঁকে। পুরাণের পাশাপাশি সমসাময়িক সমাজকে তিনি তুলে আনলেন তাঁর গানে। বিধবা বিবাহকে বিদ্ধ করলেন রঙ্গ-রসিকতায়। ‘আমার বয়স বাহাত্তর,/ মনের মতো পাত্তর, / আর তো জুটিবে না ঘরে।’ বৈষ্ণব সমাজের ভ্রষ্টাচারকেও ব্যঙ্গ করলেন, ‘গৌরাং ঠাকুরের ভণ্ড চেংড়া / অকালকুষ্মান্ড নেড়া।’ রঙ্গ-তামাসার মধ্যে যে কৌতুক ফুটে উঠেছে, তার সঙ্গে সেই সময়ের বিবর্তিত নাগরিক প্রেক্ষাপট সেভাবে মেলেনি। তাই কলকাতা তাঁকে সেভাবে আসন পেতে না দিলেও গ্রামবাংলায় তাঁর ছিল একাধিপত্য।
বিয়ে করেছিলেন প্রসন্নময়ীকে। কিন্তু স্বাস্থ্য ক্রমেই ভেঙে পড়তে লাগল। প্রসন্নময়ী বললেন, ‘কিছুদিন বিশ্রাম নাও।’ দাশরথী বললেন, ‘বিশ্রাম নিলে হবে না। সামনে অনেক বায়না। যেতেই হবে। না হলে দাশু রায়ের দুর্নাম হবে।’ ১৮৫৭ সালের দুর্গাপুজো। কাশিমবাজারে পালাগানের আসর। কিন্তু আসরের মধ্যেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ে গেলেন। বাড়ি আনা হল। চিকিৎসা চলল। কিন্তু অবস্থা ক্রমেই খারাপের দিকে যেতে লাগল। অবশেষে মাত্র ৫২ বছর বয়সে তিনি প্রয়াত হলেন।
কে গাইবে দাশরথীর গান! এগিয়ে এলেন তাঁর ছোটভাই তিনকড়ি। কিন্তু কিছুদিনের মধ্যে তিনিও মারা গেলেন। এবার তাঁর দলের দায়িত্ব নিতে এগিয়ে এলেন কৃষ্ণনগরের বাণীকণ্ঠ বসু। কিন্তু দাশু রায়ের গানকে ধরে রাখার প্রতিভা তাঁর ছিল না। তাই হারিয়ে গেল দাশু রায়ের দল। কিন্তু গানগুলি তাঁর রয়ে গেল। কলকাতার বটতলার প্রেস থেকে তাঁর গানের অনেকগুলি সংস্করণ প্রকাশিত হল। লোকরঞ্জনের ধারায় দাশরথী রায় একটা যুগ হিসাবে ইতিহাসে চিহ্নিত হয়ে রইলেন। কিন্তু অকাবাঈকে ইতিহাস মনে রাখেনি।
অঙ্কন : সুব্রত মাজী 
27th  April, 2019
থিয়েটার পাড়ার গপ্পো
ঝামেলা ফেরত দিলাম, ইতি ছবিদা

পারিবারিক আভিজাত্য সত্ত্বেও যুবকটি থিয়েটার পাড়ার সঙ্গে যুক্ত হয়ে কালক্রমে হয়ে উঠলেন সিনেমা ও থিয়েটারের এক অপ্রতিদ্বন্দ্বী নট। ছবি বিশ্বাসের কথা শোনালেন ড. শঙ্কর ঘোষ।
বিশদ

17th  August, 2019
নর্দার্ন অ্যাভেনিউ পুতুল গোষ্ঠীর পুতুল নাটক

 সম্প্রতি পাইকপাড়া মোহিত মৈত্র মঞ্চে অনুষ্ঠিত হল নর্দার্ন এভিনিউ পুতুল গোষ্ঠীর পুতুল নাটকের এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের শুরুতে রুদ্রাণী পালের সঙ্গীত পরিচালনায় পরিবেশিত হয় রবীন্দ্রসঙ্গীত ‘আলোকের এই ঝর্ণা ধারায়’ গানটি। এদিনের অনুষ্ঠানে প্রথম নাটকটি ছিল নর্দার্ন এভিনিউ পুতুল গোষ্ঠীর পরিবেশনায় ডেঙ্গু নিয়ে পুতুল নাটক।
বিশদ

17th  August, 2019
কমেডির মোড়কে ভূতদর্শন

সুপারন্যাচারাল বিষয়টি কী? আদৌ কি এর কোনও অস্তিত্ব আছে? এই বিষয়টি নিয়ে একই কলেজের দুই অধ্যাপক মহেশ মিত্র ও হরিনাথ কুণ্ডু সবসময় তর্ক-বিতর্ক করে। তাঁরা দু’জনে দু’রকম দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখে বিষয়টিকে। সেইমতো তার ব্যাখ্যাও দেন।
বিশদ

17th  August, 2019
তবুও নিয়তিবাদের বিরুদ্ধে মানুষের লড়াই চলবেই
রানি ক্রেউসা

গ্রিক ট্র্যাজেডির অন্যতম উপাদান হল ‘ফেট’ বা ‘অদৃষ্ট’ বা ‘নিয়তি’। প্রাচীন গ্রিসে এই ধারণা ছিল যে, ভাগ্যের তিন দেবী মানুষের অদৃষ্টে যে পরিণতি লিখে দিয়েছেন তা মানুষ কোনওভাবেই বদলাতে পারে না, তা সে যত চেষ্টাই করুক না কেন। অদৃষ্টের মারে মূল চরিত্রের যে পতন তাকে ঘিরেই নাটকের প্রধান দ্বন্দ্ব বা সংকট সৃষ্টি হয়।
বিশদ

17th  August, 2019
বিষ্ণু বসু ও নীতিকা বসু স্মারক বক্তৃতা 

বিষ্ণু বসু ও নীতিকা বসুর স্মৃতিতে প্রতিবছরের মতো এবারও দু’দিন ধরে বক্তৃতাসভার আয়োজন করেছিল কালিন্দী ব্রাত্যজন।   বিশদ

10th  August, 2019
একসঙ্গে ছোটদের তিনটি নাটক 

সম্প্রতি ‘দি বয়েজ ওন লাইব্রেরি’ নিবেদিত এবং ‘দি বয়েজ ওন শিশু কিশোর নাট্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্র’ প্রযোজিত তিনটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের নাটক একসঙ্গে মঞ্চস্থ হলো। ‘পাখিদের পাঠশালা’, ‘আঁধার বনের আলো’ এবং ‘ভাঙ্গা ম্যাকবেথ’, এই তিনটি নাটকের শিল্পীরা শিশু এবং কিশোর।   বিশদ

10th  August, 2019
যাত্রার গব্বর সিং ছিলেন দিলীপ চট্টোপাধ্যায় 

সোনাই দীঘি পালার ভাবনা কাজির রূপকার নটসূর্য দিলীপ চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে লিখেছেন সন্দীপন বিশ্বাস। 
বিশদ

10th  August, 2019
শাড়ির সঙ্গে বুটজুতো পরে কলেজে যেতেন

আগামী ৫ আগস্ট কেয়া চক্রবর্তীর জন্মদিন। নান্দীকারে থাকাকালীন তাঁকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন, সেই অভিজ্ঞতায় ভর করে তাঁকে স্মরণ করলেন প্রকাশ ভট্টাচার্য।
বিশদ

03rd  August, 2019
সঙ্গীত নাটক অ্যাকাডেমি পুরস্কার প্রত্যাখ্যান
করলেন থিয়েটারকর্মী এস রঘুনন্দন

গত ১৭ জুলাই মঙ্গলবার তাঁর নাম ঘোষিত হয় ২০১৮ সালের সঙ্গীত নাটক অ্যাকাডেমি পুরস্কার প্রাপক হিসেবে। পরদিন অর্থাৎ ১৮ জুলাই বুধবার সামাজিক সংযোগ মাধ্যমগুলিতে একটি খোলা চিঠি লিখে সেই পুরষ্কার প্রত্যাখ্যান করলেন কর্ণাটকের নাট্যব্যক্তিত্ব এস রঘুননন্দন। বিশদ

03rd  August, 2019
 ভীষণভাবে রাজনৈতিক ও প্রাসঙ্গিক এক নাটক
সীতায়ন

 দীর্ঘ বনবাস কাটিয়ে, রাবণকে যুদ্ধে পরাজিত ও নিহত করে, অবশেষে অযোধ্যা ফিরলেন রামচন্দ্র। স্বামীর অপেক্ষায় থাকা সীতার দুর্বিষহ জীবনযাপনের অবসান হতে চলল। কিন্তু সত্যি কি শেষ হল?
বিশদ

03rd  August, 2019
 নান্দীপটের নাট্যপত্র প্রকাশ

  বার্ষিক নান্দীপটের নাট্যপত্র প্রকাশিত হল তৃপ্তি মিত্র সভাগৃহে। তাদের চল্লিশতম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে প্রকাশিত এই পত্রিকাটির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করে কবি শঙ্খ ঘোষ বলেন, পত্রিকাটি যথাসাধ্য ভালো করার চেষ্টা করেছে এরা। দেখে বেশ ভালো লেগেছে।
বিশদ

03rd  August, 2019
 রাত তখন বারোটা

  লোভে পাপ পাপে মৃত্যু। এই পুরনো প্রবাদটি যে কতটা সত্যি তা আমরা হরহামেশাই মালুম করতে পারি। প্রতিদিন খবরের কাগজ খুললে কিংবা টেলিভিশন চ্যানেলের নিউজ বুলেটিনে এ ধরনের একাধিক ঘটনার কথা শোনা যায়।
বিশদ

03rd  August, 2019
ইন্দিরা গান্ধী এসেছিলেন অ্যান্টনি কবিয়াল দেখতে 

বাংলা পেশাদারি রঙ্গমঞ্চের পীঠস্থান হাতিবাগান ও সংলগ্ন অঞ্চল। ইংল্যান্ডের থিয়েটার পাড়ার সঙ্গে একসময়ে যার তুলনা করা হতো। আজ সবই অতীত। সেই অতীতের গল্পকথায় ড. শঙ্কর ঘোষ।
বিশদ

27th  July, 2019
 রঙ্গমঞ্চে সাহেব

কলকাতার রঙ্গমঞ্চে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছেন অভিনেতা গায়ক সাহেব চট্টোপাধ্যায়। একান্ত সাক্ষাৎকারে নাটক নিয়ে নানা অভিজ্ঞতার কথা তিনি আমাদের প্রতিনিধি চৈতালি দত্তকে জানালেন।
বিশদ

27th  July, 2019
একনজরে
 কুলিজ (অ্যান্টিগা), ২০ আগস্ট: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট খেলতে নামার আগে কিছুটা স্বস্তি পেলেন অজিঙ্কা রাহানে। গত দু’বছর ধরে তাঁর ব্যাটে কোনও সেঞ্চুরি নেই। টেস্ট দলে তাঁর পায়ের তলার জমি ক্রমাগত আলগা হচ্ছিল। রাহানে বুঝতে পারছিলেন, লাল বলে জাতীয় ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: তৃতীয় প্রজন্মের ‘গ্র্যান্ড আই টেন নিয়োস’ গাড়ি বাজারে আনল হুন্ডাই মোটর ইন্ডিয়া লিমিটেড। সংস্থাটি জানিয়েছে, ‘নিয়োস’ কথাটির অর্থ আরও বেশি। সেই শব্দটির যথোপযুক্ত ব্যবহার হয়েছে এই হ্যাচব্যাক গাড়িটিতে, দাবি হুন্ডাইয়ের। ...

মস্কো, ২০ আগস্ট (পিটিআই): মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে সুর চড়াল রাশিয়া ও চীন। মার্কিন সরকারের এহেন পদক্ষেপের ফলে সামরিক ক্ষেত্রে নতুন করে উত্তেজনা তৈরি হবে বলেও দুই দেশের তরফে জানানো হয়েছে। ...

সংবাদদাতা, মালদহ: ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির আওতায় ইতিমধ্যেই মালদহের গ্রামে গ্রামে গিয়ে জনসংযোগ শুরু করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের জনপ্রতিনিধিরা। তাঁদের লক্ষ্য, শাসক দলের সঙ্গে সাধারণ মানুষের যোগাযোগ আরও মজবুত করা।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের উচ্চবিদ্যার ক্ষেত্রে মধ্যম ফল আশা করা যায়। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার ক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। ব্যবসাতে যুক্ত ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩১: গায়ক বিষ্ণু দিগম্বর পালুসকরের মৃত্যু
১৯৭২: বন সংরক্ষণ আইন চালু হল
১৯৭৮: ভিনু মানকড়ের মৃত্যু
১৯৮৬: জামাইকার স্প্রিন্টার উসেইন বোল্টের জন্ম
১৯৯৫: ভারতের নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী সুব্রহ্মণ্যম চন্দ্রশেখরের মৃত্যু
২০০৬: প্রখ্যাত সানাইবাদক ওস্তাদ বিসমিল্লা খানের মৃত্যু

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৭৯ টাকা ৭২.৪৯ টাকা
পাউন্ড ৮৫.৩৭ টাকা ৮৮.৫১ টাকা
ইউরো ৭৭.৯৪ টাকা ৮০.৯৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,২৮৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩২,৩২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৮৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৪ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার, পঞ্চমী ০/২৯ প্রাতঃ ৫/৩১। অশ্বিনী ৪৮/৪০ রাত্রি ১২/৪৭। সূ উ ৫/১৯/২, অ ৬/০/৫২, অমৃতযোগ দিবা ৭/০ মধ্যে পুনঃ ৯/৩৩ গতে ১১/১৪ মধ্যে পুনঃ ৩/২৮ গতে ৫/৯ মধ্যে, বারবেলা ৮/২৯ গতে ১০/৫ মধ্যে পুনঃ ১১/৪০ গতে ১/১৫ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩০ গতে ৩/৫৪ মধ্যে।
৩ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার, ষষ্ঠী ৫৩/৫৮/৩০ রাত্রি ২/৫৩/৩১। অশ্বিনীনক্ষত্র ৪২/৯/৫৩ রাত্রি ১০/১০/৪, সূ উ ৫/১৮/৭, অ ৬/৩/৪৩, অমৃতযোগ দিবা ৭/২ মধ্যে ও ৯/৩১ গতে ১১/১০ মধ্যে ও ৩/১৮ গতে ৪/৫৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৩৩ গতে ৮/৫৩ মধ্যে ও ১/৩১ গতে ৫/১৮ মধ্যে, বারবেলা ১১/৪০/৫৫ গতে ১/১৬/৩৭ মধ্যে, কালবেলা ৮/২৯/৩১ গতে ১০/৫/১৪ মধ্যে, কালরাত্রি ২/২৯/৩১ গতে ৩/৫৩/৪৯ মধ্যে। 
১৯ জেলহজ্জ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
অসমের পর মহারাষ্ট্র, মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৫১ লক্ষ টাকা দান অমিতাভ বচ্চনের 
অসমের মতো মহারাষ্ট্রেও বন্যা কবলিতদের সাহায্যার্থে এগিয়ে এলেন বিগ বি। ...বিশদ

20-08-2019 - 05:24:59 PM

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ রাজ্যপাল জগদীপ ধানকরের 
পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল হওয়ার পর প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ ...বিশদ

20-08-2019 - 04:58:00 PM

ব্রাজিলে ১৮ বাসযাত্রীকে পণবন্দি করল এক বন্দুকবাজ 

20-08-2019 - 04:57:51 PM

সদর স্ট্রিটে ২.৪৪ কোটি টাকার সোনা সহ ধৃত ৪ 

20-08-2019 - 04:47:02 PM

৭৪ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

20-08-2019 - 03:55:31 PM

খিদিরপুর ও কালীঘাট ব্রিজে ভারী যান নিষিদ্ধ 

20-08-2019 - 03:50:00 PM